যশোরে মূসক প্রত্যায়ন পত্রে ঘুষ বাণিজ্যের অভিযোগ

যশোরে মূসক প্রত্যায়ন পত্রে ঘুষ বাণিজ্যের অভিযোগ




স্টাফ রিপোর্টার
   : যশোর কাস্টমস, এক্সাইজ ও ভ্যাট বিভাগে বিভিন্ন সয়স বিনলক, রির্টান দাখিল, 
মূল্যে ঘোষনা ঘুষবাণিজ্যের পর এবার ‘‘মূসক প্রত্যায়নপত্র’’ পত্র দিতে ঘুষ বাণিজ্য শুরু হয়েছে বলে 
অভিযোগ পাওয়া গেছে। 
জানা গেছে, গত ১ জুলাই থেকে বাংলাদেশে মূল্য সংযোজন কর ও সম্পূরক শুল্কআইন-২০১২ এবং মূল্য 
সংযোজন কর ও সম্পুরক শুল্ক বিধিমালা-২০১৬ এর আইন ও বিধান গণপ্রজাতন্ত্রি বাংলাদেশ সরকার 
কর্তৃক কার্যকর করা হয়েছে। এই আইন ও বিধিটি সর্ম্পূন অনলাইন ভিত্তিক আইন। অনলাইনে 
প্রতিমাসে করদাতাগন রির্টান দাখিল নিয়মিত ভাবে করলেও এবার ‘‘মূসক প্রত্যায়ন পত্র’’ জারির 
নামে লক্ষ লক্ষ টাকা ঘুষ বাণিজ্যে শুরু হয়েছে। 
জাতীয় রাজস্ব বোর্ড কর্তৃক কাস্টমস ও মূসক এস,আর,ও নং -১২১-আইন/২০২০/৭২/কাস্টমস, মূলধনী 
যন্ত্রপাতি সংক্রান্ত এবং এস,আর,ও নং -১২২-আইন২০২০/৭৩/কাস্টমস, মূসক নিবন্ধিত প্রতিষ্ঠান 
কর্তৃক পণ্য/কাঁচামাল আমদানির ক্ষেত্রে এবং এস,আর,ও নং -১২৪-আইন২০২০/৭৫/কাস্টমস অগ্নি 
নির্বাপন ব্যবস্থা স্থাপনের জন্য শিল্প প্রতিষ্ঠান কর্তৃক আমদানিকৃত উপকরনের ক্ষেত্রে এবং জাতীয় 
রাজস্ব বোর্ড, ঢাকা সাধারন আদেশ নং ১০/মূসক/২০২০ তারিখ-১১-জুন-২০২০ গুলোতে উলে-খ করা 
হয়েছে, উৎপাদনের লক্ষ্যে আমদানিকৃত উপকরনের ক্ষেত্রে ৪(চার) শতাংশ আগাম কর এইক্ষেত্রে বিলঅব এন্ট্রি 
দাখিলের অব্যবহতি পূর্ববর্তী ১২(বার) মাসের অথবা প্রযোজ্য ক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় সংখ্যাক মূসক 
দাখিলপত্র (রির্টান) দাখিল করিয়াছে মর্মে কাস্টসম কম্পিউটার সিস্টেমে ইলেকট্রনিক তথ্য প্রদর্শন 
পূর্বক কোন কারনে ভ্যাট অনলাইন সিস্টেম হতে প্রত্যয়নপত্র না পাওয়া গেলে ‘‘ পরিশিষ্ট’’ প্রত্যায়ণ পত্র 
[শর্তবলির দফা (৬) দ্রষ্টব্য (দফা ৬ তে স্পষ্ট উলে-খ আছে, এই প্রজ্ঞাপনের আওতায় পন্য আমদানি ও খালাসের 
লক্ষ্যে প্রতিষ্ঠানটির হালনাগাদ নবায়নকৃত শিল্প ভোক্তা আইআরসি আছে এবং ১৩ ডিজিট সম্বলিত 
মূসক নিবন্ধিত প্রতিষ্ঠানটি বিবেচ্য বিল অব এন্ট্রি দাখিলের অব্যবহিত পূর্ববতী ১২ (বার) মাসের 
অথবা প্রযোজ্য ক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় সংখ্যাক মূসক দাখিলপত্র (রির্টান) দাখিল করা হয় মর্মে কাস্টমস 
কম্পিউটার সিস্টেমে ইলেকট্রনিক তথ্য প্রদর্শিত থাকতে হবে। 
তবে শর্ত থাকে যে, কোন যৌক্তিক কারণে ইলেকট্রনিক তথ্য পাওয়া সম্বব না হয় সেই ক্ষেত্রে শুল্কায়নের 
সময় পরিশিষ্ট মোতাবেক মূসক বিভাগীয় কর্মকর্তা হইতে প্রদত্ত একটি প্রত্যয়নপত্র সংশি-ষ্ট কাস্টম 
হাউস/স্টেশনে দাখিল করিতে হইবে মর্মে সুষ্পট উলে-খ থাকলেও কতিপয় অসাধু কর্মকর্তা নিজ 
স্বার্থ লাভবান হওয়ার জন্য সকল আমদানী কারক কে অর্থাৎ ক) শিল্প ভোক্তা আইআরসি ব্যতিত খ) ভ্যাট 
অনলাই পরিপূর্ন সচল আছে। গ) যৌক্তিক কারনে ভ্যাট অনলাইন সচল এবং দৃশ্য মান থাকলেও ‘‘মূসক 
প্রত্যায়ন পত্র’’ নিতে হবে মর্মে প্রচার করে- ১০,০০০/-টাকা থেকে শুরু করে যার কাছে যত পাচ্ছে ঘুষ 
বাণিজ্যে শুরু করেছে। 
এই তথ্যের সঠিকতা যাচাইয়ের জন্য সরজমিনে দেখা গেছে গত ২৫ জুন ‘‘মূসক প্রত্যায়ন পত্র’’ 
প্রাপ্তির মের্সাস ইউনাইটেড এগ্রো ইকুপমেন্টস (উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান), চাঁচড়া বাজার, 
চাঁচড়া যশোর নামীয় প্রতিষ্ঠানসহ মের্সাস বেলারেস স্পায়ার হাউজ (সাধারন আমাদানী কারক) 
বিভাগীয় কর্মকর্তা, কাস্টমস,এক্সাইজ ও ভ্যাট বিভাগ, যশোর এর নিকট প্রথম আবেদন করা হয়। 
এর ধারাবাহিকতায় স্থানীয় সার্কেল ও অফিস থেকে প্রচার করা হয় সকল আমদানী কারককে এই ‘‘মূসক 
প্রত্যায়ন পত্র’’ নিতে হবে। পরবর্তীতে অনেক গুলো আবেদন জমা হলে এই সুযোগে কতিপয় অসাধু 
কর্মকর্তা, সং¯ি-ষ্ট এলাকার সহকারী রাজম্ব কর্মকর্তা কর্তৃক প্রতিষ্ঠানের খাতাপত্র, চালান বহি 
যাচাই পূর্বক প্রতিবেদন লাগবে। ইতোমধ্যে সংশি-ষ্ট রাজস্ব এলাকা কর্মকর্তা মিথ্যা যাচাই 
প্রতিবেদন দেওয়া শুরুও করেছেন অর্থাৎ খাতা পত্র না থাকলেও টাকা দাও প্রতিবেদন নাও। উলে-খ যে একজন 
সহকারী রাজস্ব কর্মকর্তা একটি সমন ইস্যু করারও এখতিয়ার মূসক আইন ও বিধিতে নেই। 
এই সুযোগে সহকারী রাজম্ব কর্মকর্তা, রাজম্ব কর্মকর্তা সহ কতিপয় অসাধু লোক ঘুষ বাণিজ্যে 
জড়িয়ে পড়েছে। সিনিয়র ভ্যাট প্র্যাকটিসনার নাসির সাহেব এর সাথে কথা বলে জানা যায় ‘‘মূসক 
প্রত্যায়ন পত্র’’ নিতে গেলে আবার পূর্বের মত যশোর কাস্টমস ও ভ্যাট কমিশনারেট এর বিনলক বাণিজ্যে, 
দাখিলপত্র ও মূল্যে ঘোষনা অনুমোদন বানিজ্যের মত ‘‘মূসক প্রত্যায়ন পত্র’’ বাণিজ্যে শুরু করেছে। এমন 
কি কভিড-১৯ এর কারনে সারাদেশে লকডাউন এ ব্যবসা বাণিজ্যে বন্ধ থাকলেও শূন্যে দাখিলপত্র প্রতিও 
সহকারী রাজস্ব কর্মকর্তারা ৫০০০ টাকা হারে নিয়েছে। এমনকি মূসক চালানের নামে সাতক্ষিরা 
রোডে এক আমদানীকারকের গাড়ী থামিয়ে ৫০ হাজার টাকা ঘুষ বাণিজ্যে হয়েছে। মূসক আইন 
সর্ম্পূন অনলাইন ভিত্তিক হওয়ার আগের মত ঘুষ বাণিজ্যে না থাকায় বর্তমানে কিছু অসাধু 
কর্মকর্তা - রাজস্ব কর্মকর্তা এবং সহকারী রাজম্ব কর্মকর্তা যোগ সাজসে এই বাণিজ্যে শুরু
করেছে। বাংলাদেশ পরিসংখ্যান বূরে‌্য এবং জাতীয়রাজস্ব বোর্ড এর তথ্য অনুযায়ী ১৯৭২-১৯৭৩ হইতে 
২০১৭-২০১৮ অর্থ বৎসর পর্যন্ত ১৬ লাখ ৩ হাজার ৭শ ৮ টাকা ৮০ পয়সা কর ও রাজস্ব আদায় হয়েছে। 
এই সমস্ত অর্থ সাধারন জনগন তাদের বিনিয়োগ কৃত মূলধনের ব্যবসায়ের অর্থ নিজ পকেটের টাকা 
রিক্সা ভাড়া দিয়ে অথবা কোন আইনজীবী বা চার্টাড একানউন্টন্টেট বা কনসালটেন্ট কে ফি দিয়ে 
সরকারী অফিস জমা দিয়ে আসেন নিয়মিত। এতে রাজস্ব আদায় কর্মকর্তা কর্মচারীদের কোন অবদান ন 
থাকা সত্ত্বে যশোর কাস্টসম এক্সাইজ ও ভ্যাট কমিশনারেট জনহয়রনী পূর্বের মত শুরু করেছে। 
বর্তমান সরকার যেখানে দুর্ণিতি কে জিরো টোলারেন্স এবং অনলাইনে ভ্যাট সেবাকে সহজ করতে 
সার্বক্ষণিক অক্লান্ত চেষ্টা করে যাচেছ সেখানে কি ভাবে জনহয়রানী ও ঘুষ বাণিজ্যে চলছে। সাধারণ 
ব্যবসায়ি, আমদানিকারক ও পেশাজীবী সমাজের এটাই প্রশ্ন ? একই সাথে জাতীয় রাজস্ব বোর্ড 
কর্তপক্ষ এবং দুর্নীতি দমন কমিশন এর সঠিক তদন্ত যাচাই পূর্বক দ্রুত সমাধানের দাবি 
জানিয়েছেন সকলে।

নাটোর বড়াইগ্রামে স্কুলছাত্রীর লাশ উদ্ধার!

নাটোর  বড়াইগ্রামে স্কুলছাত্রীর লাশ উদ্ধার!





রাজশাহী ব্যুরো
নাটোরের বড়াইগ্রামে সোমবার সকালে নিজ ঘর থেকে বর্ষা নামে এক স্কুলছাত্রীর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। উপজেলার জোয়াড়ী ইউনিয়নের কুমরুল মধ্যপাড়া গ্রামে এই ঘটনা ঘটে। বর্ষা ওই গ্রামের জয়নাল আবেদীনের মেয়ে এবং রামাগাড়ী উচ্চ বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির ছাত্রী।
বড়াইগ্রাম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (তদন্ত) সুমন আলী বর্ষার পরিবারের বরাত দিয়ে জানান, রোববার বিকেলে পরিবারের সাথে অভিমান করে নিজ ঘরে গিয়ে পরে কোন এক সময় সে বিষ পান করে আত্নহত্যা করে। খবর পেয়ে লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য মর্গে পাঠায় পুলিশ । তিনি আরও জানান, এঘটনায় থানায় একটি অপমৃত্যু (ইউডি) মামলা দায়ের করা হয়েছে।

আশাশুনি থানায় অভিযোগ দিতে এসে পেলেন খাদ্য সহায়তা

আশাশুনি থানায় অভিযোগ দিতে এসে পেলেন খাদ্য সহায়তা




আহসান  উল্লাহ  বাবলু, আশাশুনি (সাতক্ষীরা) প্রতিনিধিঃ
বাংলাদেশ পুলিশের পক্ষ থেকে পুলিশ ও জনগণের মধ্যে সেতুবন্ধন সৃষ্টির লক্ষ্যে নানা উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে। আর এমনই একটি মহতি কাজ করে আবারও সকলের প্রসংশিত হয়েছেন আশাশুনি থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ গোলাম কবির। 
সোমবার সকালে আশাশুনি থানায় লিখিত অভিযোগ দিতে আসেন সদর ইউনিয়নের বলাবাড়িয়া গ্রামের মৃত সুপদ সরকারের ছেলে দিপংকর সরকার ও স্ত্রী ময়না রানী সরকার। অফিসার ইনচার্জ তার বিষয়ে খ্ঁোজ খবর নিয়ে জানতে পারেন, তারা খুবই গরীব ও অসহায়। অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মাদ গোলাম কবির অভিযোগকারীদের মধ্যে খাদ্য সহায়তা প্রদান করেন। এসময় থানা পুলিশের অফিসারবৃন্দ ও আশাশুনি প্রেসক্লাবের সদস্যবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

জীবননগর থানা পুলিশের অভিযানে গাঁজাসহ শিয়ালমারি হান্নান গ্রেফতার

জীবননগর থানা পুলিশের অভিযানে  গাঁজাসহ শিয়ালমারি হান্নান গ্রেফতার





রফিকুল, জিবননগর, চুয়াডাঙ্গাঃ
জীবননগর থানা পুলিশের মাদকবিরোধী অভিযানে গাঁজা সহ হান্নান নামের এক জনকে গ্রেফতার করেছেন জীবননগর থানা পুলিশ।আজ সোমবার (১৩ জুলাই)দুপুর ২টার সময় উথলী ইউনিয়নের শিয়ালমারী এলাকা থেকে তাকে আটক করা হয়।
পুলিশ সূত্রে জানা গেছে,
চুয়াডাঙ্গার সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার(দামুড়হুদা-জীবননগর) সার্কেল মোঃ আবু রাসেলের নেতৃত্বে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জীবননগর থানার অফিসার ইনচার্জ ওসি সাইফুল ইসলাম সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে
জীবননগর উপজেলার উথলী ইউনিয়নের শিয়ালমারী বাজার এলাকায় মাদকবিরোধী অভিযান পরিচালনা করে ৫০০শো গ্রাম গাঁজাসহ শিয়ালমারী বাজার পাড়ার আবু কালাম ব্যাপারীর ছেলে মাদক ব্যবসায়ী আব্দুল হান্নান( ৪৫) কে আটক করা হয়।আটককৃত মালামাল সহ হান্নানের বিরুদ্ধে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা রুজু করার প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

মানিকের একদিনের রিমান্ড মন্জুর

মানিকের একদিনের রিমান্ড মন্জুর




স্টাফ রিপোর্টার   : যশোর শহরের বেজপাড়ার বিল্লাল হোসেনে ভাড়া বাসায় চুরির ঘটনায় আটক মানিকের একদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছে আদালত। সোমবার অতিরিক্ত চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক মুহাম্মদ আকরাম হোসেন আসামির রিমান্ড আবেদনের শুনানি শেষে এ আদেশ দিয়েছেন। মানিক বেজপাড়া আনসার ক্যাম্প এলাকার মুজিবুর সরদারের ছেলে।

মামলার অভিযোগে জানা গেছে, গত ১৭ জুন রাতে বিল্লাল হোসেন রাতে খাওয়া দাওয়া করে ঘুমিয়ে পড়ে। গভীর রাতে তার মেয়ে ঘুম থেকে উঠে দেখে দরজা বাইরে থেকে আটকানো। ডাকাডাকিতে তার পিতা বিল্লাল ও মা ওঠে দেখে বাথরুমের জানালার গ্রিলকেটে চোরেরা ঘরে ঢুকে নগদ টাকা, সোনার গহনা, কাপড়সহ ১৩ লাখ ৩২ হাজার টাকার মালামাল চুরি করে নিয়ে গেছে। এ ব্যাপারে বিল্লাল হোসেন অপরিচিত চোরদের আসামি করে কোতয়ালি থানায় মামলা করেন। পুলিশ চুরির সাথে জড়িত একজনের স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দির ভিত্তিতে মানিককে আটক করে ৫ দিনের রিমান্ড চেয়ে ১১ জুলাই আদালতে সোপর্দ করেন তদন্তকারী কর্মকর্তা।

সোমবার আসামির রিমান্ড আবেদনের শুনানি শেষে বিচারক একদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

আশাশুনিতে স্কাঊটস পরিবারের মাঝে আর্থিক সহায়তা প্রদান

আশাশুনিতে স্কাঊটস পরিবারের  মাঝে আর্থিক সহায়তা প্রদান




আহসান  উল্লাহ  বাবলু,  আশাশুনি( সাতক্ষীরা):
আশাশুনিতে ঘূর্ণিঝড় আম্ফানে ক্ষতিগ্রস্থ স্কাঊটস পরিবারের সদস্যদের মাঝে আর্থিক সহায়তা ও কোভিট-১৯ এর সুরক্ষা সামগ্রী বিতরণ করা হয়েছে। সোমবার সকালে আশাশুনি সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয় প্রাঙ্গনে এ বিতরণ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। 
আশাশুনি উপজেলা স্কাউটস আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন ও সহায়তা সামগ্রী বিতরণ করেন, সহকারি কমিশনার (ভূমি) শাহীন সুলতানা। আশাশুনি সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ও স্কাউটস’র উপজেলা কমিশনার আশরাফুন্নাহার নার্গিসের সভাপতিত্বে ও সদস্য মাদ্রাসা শিক্ষক মোস্তাহিদুর রহমানের পরিচালনায় অনুষ্ঠানে সাধারণ সম্পাদক ও আশাশুনি আলিয়া মাদ্রাসার  সুপার ড. আবুল হাসান, উপজেলা স্কাউটস’র কোষাধ্যক্ষ ও বুধহাটা প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক জুলহাজ উদ্দীন, আশাশুনি প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি জি এম মুজিবুর রহমান ও এস এম আহসান হাবিবসহ গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ স্কাউটস কর্তৃক বরাদ্ধকৃত অর্থ থেকে উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নে ঘূর্ণিঝড় আম্ফানে ক্ষতিগ্রস্থ ১০ স্কাঊটস পরিবারের সদস্যদের মাঝে প্রত্যেককে এক হাজার টাকা, একটি করে সাবান, হ্যান্ড স্যানিটাইজার ও মাস্ক প্রদান করা হয়।

আসছে জবির নতুন অর্থবছরের বাজেট, বরাদ্দ বাড়বে গবেষণা, ছাত্রবৃত্তি ও স্বাস্থ্য খাতে

আসছে জবির নতুন অর্থবছরের বাজেট, বরাদ্দ বাড়বে গবেষণা, ছাত্রবৃত্তি ও স্বাস্থ্য খাতে





জবি প্রতিনিধিঃ
জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় (জবি) এর ২০২০-২০২১ নতুন অর্থবছরের বাজেট খুব শিগ্রই পাশ হবে বলে জানিয়েছেন জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের মাননীয় উপাচার্য অধ্যাপক ড. মীজানুর রহমান। এ বছর বাজেটে গবেষণা, ছাত্র-ছাত্রীদের শিক্ষাবৃত্তিসহ স্বাস্থ্য খাতে বরাদ্দ বাড়ানো হবে বলে জানিয়েছেন তিনি।


সোমবার (১৩ জুলাই, ২০২০) প্রতিবেদকের সাথে ফোন আলাপে এসব কথা জানান তিনি। 


উপাচার্য বলেন, আগামী ২০ তারিখের মধ্যে ফাইনান্স ও সিন্ডিকেট কমিটির সামনে বাজেট পেশ করা হবে এবং খুব শিগ্রই তা অনুমোদন দেয়া হবে। এ বছর গবেষণা, ছাত্রবৃত্তি ও শিক্ষার্থীদের স্বাস্থ্য খাতে বরাদ্দ বাড়ানো হবে। কোষাধ্যক্ষের নেতৃত্বে হিসাবরক্ষকারী সদস্যরা ইউজিসির সাথে মিল রেখে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন খাত অনুযায়ী বরাদ্দ দিবে। অন্যান্য খাত গুলোতে বরাবরই প্রায় অক্ষুণ্ণ থাকবে।


উল্লেখ্য যে, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০১৮-১৯ অর্থবছরের সংশোধিত (রাজস্ব) বাজেট ১১৭ কোটি ৩২ লাখ টাকা এবং ২০১৯-২০ অর্থবছরের ১৩২ কোটি ৭০ লাখ টাকার মূল (রাজস্ব) বাজেট পাস হয়েছিল। বিশ্ববিদ্যালয়ের বাজেটে গবেষণা ও উদ্ভাবনী, শিক্ষা উপকরণ ও ল্যাবরেটরি যন্ত্রপাতি ক্রয়, গাড়ি ক্রয় ও রক্ষণাবেক্ষণ, বৈদ্যুতিক সরঞ্জাম, অগ্নি নির্বাপণ, তথ্যপ্রযুক্তি সরঞ্জামাদি, বইপত্র, সাময়িকী ক্রয় (লাইব্রেরি), প্রকাশনা, বিভিন্ন সাংস্কৃতিক সংগঠনের ব্যবস্থাপনাসহ আরো বিভিন্ন খাতে বরাদ্দ রাখা হয়।



এ বছর দেশের ৪৬টি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের জন্য ২০২০-২০২১ অর্থবছরে আট হাজার ৪৮৫ কোটি ১২ লাখ টাকার বাজেট অনুমোদন করেছে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন (ইউজিসি)। এরমধ্যে পাঁচ হাজার ৪৫৪ কোটি ১২ লাখ টাকার রাজস্ব বাজেট এবং ৫৩ টি প্রকল্পের অনুকূলে তিন হাজার ৩১ কোটি টাকার উন্নয়ন বাজেট রয়েছে। এ বছর রাজস্ব বাজেটে বরাদ্দ পাঁচ শতাংশ বাড়ানো হয়েছে।

হৃদরোগ ও শ্বাস প্রশ্বাসে অক্সিজেন সেবা দিচ্ছে রেড ক্রিসেন্ট

হৃদরোগ ও শ্বাস প্রশ্বাসে অক্সিজেন সেবা দিচ্ছে রেড ক্রিসেন্ট




রিয়াজুল করিম রিজভী স্টাফ রিপোর্টার চট্টগ্রাম

করোনা ভাইরাস মহামারীর এই দুঃসময়ে হৃদরোগে আক্রান্ত রোগীর হৃদ সঞ্চালনে পুন সক্রিয় করতে কোভিড ও নন কোভিড রোগীদের জন্য বিনামূল্যে অক্সিজেন সেবা প্রদান করছে রেড ক্রিসেন্ট চট্টগ্রাম। বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি চট্টগ্রাম জেলা ও সিটি ইউনিটের উদ্যোগে যুব রেড ক্রিসেন্ট চট্টগ্রামের বাস্তবায়নে দক্ষ যুব স্বেচ্ছাসেবকদের মাধ্যমে অক্সিজেন সিলিন্ডার কাধেঁ নিয়ে রোগীর কাছে পৌঁছে দিয়ে আসছে। দিন রাতের যেকোন সময় অক্সিজেন সেবার জন্য ০১৮৪৫৮০৮৩০৩, ০১৫১৬৭০৭৩৮৪ নাম্বারে ফোন করলে কোভিড, নন কোভিড রোগীদের নিকট স্বেচ্ছাসেবকরা জীবনের ঝুকিঁ নিয়ে সেবা প্রদান করছে। অক্সিজেন সেবা কার্যক্রম পরিচালনা করার জন্য দক্ষ ও প্রশিক্ষিত একটি জরুরী সেবা প্রদান টিম প্রতিনিয়ত কাজ করে যাচ্ছে। উক্ত কার্যক্রমে রোগীর প্রয়োজন সাপেক্ষে অক্সিজেন সিলিন্ডার সম্পূর্ণ বিনামূল্যে রিফিল করে দেয়া হচ্ছে।
ইতিমধ্যে নগরীর চন্দনপুরা, চকবাজার, চান্দগাঁও, হালিশহর, বেটারী গলি, আবাসিক এলাকায় সেবার জন্য আবেদনকৃতদের চিকিৎসকের ব্যবস্থাপনা পত্র দেখানোর মাধ্যমে সিলিন্ডার নিয়ে ছুটে গিয়েছে অক্সিজেন সার্পোট টিম।

কিশরগঞ্জে গাজা বিক্রয় ও সেবনের দায়ে এক মহিলার কারাদন্ড

কিশরগঞ্জে গাজা বিক্রয় ও সেবনের দায়ে এক মহিলার কারাদন্ড







মো:লাতিফুল আজম
কিশোরগঞ্জ নীলফামারী প্রতিনিধি 


গাজা বিক্রয় ও সেবনের দায়ে ভ্রাম্যমান আদালত এক মহিলাকে ৬ মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ড ও ৫ শত টাকা জরিমানা করেছে। আজ সোমবার সন্ধ্যায় নীলফামারীর কিশোরগঞ্জ উপজেলার গাড়াগ্রাম ইউনিয়নের গাড়াগ্রাম বাজার এলাকায় এ ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করা হয়।

গোপন খবর সূত্রে অফিসার ইনচার্জ (তদন্ত) মফিজুল হকের নেতৃত্বে একদল পুলিশ গাড়াগ্রাম ইউনিয়নের গাড়াগ্রাম বাজার সংলগ্ন সাহেদার বাড়িতে অভিযান চালিয়ে ১০ গ্রাম গাজা উদ্ধার করে। এসময় গাজা বিক্রি ও সেবনের দায়ে গাড়াগ্রাম বাজার সংলগ্ন এলাকার মৃত পেলকা মামুদের স্ত্রী সাহেদকে (৫০) পুলিশ আটক করে । উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আবুল কালাম আজাদের কাছে বিক্রি ও সেবন করার অপরাধ স্বীকার করায় সাহেদাকে ভ্রাম্যমান আদালত ৬ মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ড ও ৫ শ’ টাকা জরিমানা করে।

অফিসার ইনচার্জ এম হারুন অর রশিদ জানান- তার স্বামী একজন মাদক ব্যবসায়ী ছিল। সে মারা যাওয়ার পর তার স্ত্রী সাহেদা মাদক ব্যবসা শুরু করেছে এবং সে নিজেও একজন মাদকসেবী। উপজেলা নির্বাহী অফিসার আবুল কালাম আজাদ জানান- মাদক বিক্রি ও সেবনের কথা স্বীকার করায় ওই মহিলাকে ৬ মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ড ও ৫ শ’ টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

ধরলার পানি বিপদসীমার ৮২ সে.মি. ওপর দিয়ে প্রবাহিত

ধরলার পানি বিপদসীমার ৮২ সে.মি. ওপর দিয়ে প্রবাহিত




 
মোঃইয়ামিন সরকার আকাশ,কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি 
কুড়িগ্রামে ভারি বর্ষণ ও উজানের ঢলে ব্রহ্মপুত্র, ধরলা, তিস্তা, দুধকুমারসহ ১৬টি নদ-নদীর পানি অস্বাভাবিকভাবে বৃদ্ধি পাওয়ায় বন্যা পরিস্থিতির অবনতি হয়েছে।

সোমবার সকালে ব্রহ্মপুত্র চিলমারী পয়েন্টে ৪৫ সে.মি. নুন খাওয়া পয়েন্টে ৪৭ সে.মি.ও ধরলা নদী ব্রীজ পয়েন্টে ৮২ সে.মি. বিপদসীমার. ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছিল। ফলে জেলার ৯টি উপজেলার ৫৬টি ইউনিয়নের প্রায় লক্ষাধিক মানুষ পানিবন্দি হয়ে পড়েছে। ঘর বাড়িতে পানি ওঠায় অনেকেই রাস্তা ও বাঁধের উপর আশ্রয় নিতে শুরু করেছেন। ভেঙে পড়েছে গ্রামীণ সড়ক যোগাযোগ ব্যবস্থা।

ধরলা নদীর পানির প্রবল চাপে সদর উপজেলার সারডোব এলাকায় একটি বিকল্প বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধ ভেঙে ৫টি গ্রাম নতুন করে প্লাবিত হয়েছে।

পানি উন্নয়ন বোর্ড সুত্রে  জানা গেছে, জেলার ১৯টি পয়েন্টে নদী ভাঙন চলছে। এরমধ্যে ১১টি পয়েন্টে বালুভর্তি জিও ব্যাগ ফেলে ভাঙন ঠেকানোর চেষ্টা চলছে।

জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ রেজাউল করিম জানিয়েছেন, পানিবন্দী মানুষকে উদ্ধারের জন্য নৌকা ও স্পিডবোট প্রস্তত রাখাহয়েছে। স্কুল-মাদ্রাসাসহ ৪৩৮টি আশ্রয়কেন্দ্র প্রস্তুত রয়েছে এবং এগুলোতে আইন শৃংখলা রক্ষার জন্য পুলিশ প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিয়েছে। ৪ শ মে. টন চাল ও ১১ লাখ টাকা ত্রাণ সহায়তা দেয়ার জন্য উপজেলা পর্যায়ে বরাদ্দ দিয়ে রাখা হয়েছে।

কুড়িগ্রামে বাঁধ ভেঙে ২০ গ্রাম প্লাবিত, পানিবন্দী দুই লক্ষাধিক মানুষ

কুড়িগ্রামে বাঁধ ভেঙে ২০ গ্রাম প্লাবিত, পানিবন্দী দুই লক্ষাধিক মানুষ




 
মোঃইয়ামিন সরকার কুড়িগ্রাম  প্রতিনিধি 
গত কয়েক দিনের টানা বৃষ্টি ও উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলের কারণে কুড়িগ্রামের সার্বিক বন্যা পরিস্থিতির আরো অবনতি হয়েছে। আজ বিকালে ধরলার পানি বিপৎসীমার ৯৪ সেন্টিমিটার,  ব্রহ্মপুত্রের পানি বিপৎসীমার ৬২ সেন্টিমিটার ও তিস্তার পানি ১৫ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছিল। জেলার ৯টি উপজেলার ৫৬টি ইউনিয়নের  ৫ শতাধিক গ্রামের প্রায় দুই লক্ষাধিক মানুষ পানিবন্দি হয়ে পড়েছে। 
এদিকে ধরলা নদীর পানির প্রবল চাপে সদর উপজেলার সারডোবে একটি বিকল্প বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধ ভেঙে ২০টি গ্রাম নতুন করে প্লাবিত হয়েছে। সারডোব গ্রামের স্থানীয় বাসিন্দা জহুর উদ্দিন জানান, সকাল ৮টার দিকে বাঁধটি ভেঙে পানি প্রবল বেগে ধেয়ে আসে। একে একে ৫টি বাড়ি বিধস্ত হয়। অনেক মালামাল ভেসে যায়। তীব্র স্রোতের কারণে নৌকা নিয়ে সেখানে যাওয়া কঠিন হয়ে পড়েছে।

হলোখানা ইউপি সদস্য মোক্তার হোসেন জানান, বাঁধটি ভাঙার ফলে হলোখানা, ভাঙামোড়, কাশিপুর, বড়ভিটা ও নেওয়াশি ইউনিয়নের ২০টি গ্রাম একে একে প্লাবিত হচ্ছে। হাজার হাজার মানুষ পানিবন্দী হয়ে গবাদীপশু নিয়ে দুর্ভোগে রয়েছেন। মানুষজনকে সরিয়ে নিয়ে নৌকা পাওয়া যাচ্ছেনা। বাঁধের এই রাস্তাটি দিয়ে প্রতিদিন হাজার হাজার মানুষ ফুলবাড়ী উপজেলা সদর ও কুড়িগ্রাম জেলা সদরে যাতায়াত করতো। যোগাযোগ সম্পূর্ণ বিচ্ছিন্ন হওয়ায় ভোগান্তিতে পড়েছেন হাজারো মানুষ। 
কুড়িগ্রাম সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো: ময়নুল ইসলাম জানান, পানিবন্দী মানুষকে উদ্ধারের জন্য সেখানে দু’টি নৌকার ব্যবস্থা করা হয়েছে। 

পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মো: আরিফুল ইসলাম জানান, বাঁধটি অনেক আগেই পরিত্যক্ত হয়েছে। তবে বিকল্প বাঁধটি রক্ষার জন্য বালুর বস্তা ফেলা হচ্ছিল। কিন্তু পানির প্রবল চাপে শেষ পর্যন্ত বাঁধটি ভেঙে যায়। 

জেলা প্রশাসক মো: রেজাউল করিম জানিয়েছেন, পানিবন্দী মানুষকে উদ্ধারে প্রয়োজনীয় নৌকার ব্যবস্থা করা হয়েছে। এছাড়া জেলায় ৪৩৮টি আশ্রয়কেন্দ্র প্রস্তত রাখা হয়েছে। ৪০০ মে. টন চাল, ১১ লাখ টাকা ও ৩ হাজার প্যাকেট শুকনো খাবার উপজেলা পর্যায়ে বরাদ্দ দেয়া হয়েছে।

আশাশুনির পল্লীতে কলেজ পড়ুয়া ছাত্রীর লিমাকে অপহরণের অভিযোগ

আশাশুনির পল্লীতে কলেজ পড়ুয়া ছাত্রীর লিমাকে অপহরণের অভিযোগ






আহসান উল্লাহ বাবলু, আশাশুনি (সাতক্ষীরা) প্রতিনিধিঃ

আশাশুনির কুড়িকাহনিয়া কলেজছাত্রীর অপহরণ করার  অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ব্যাপারে আশাশুনি থানায় কলেজ পড়ুয়া কন্যার পিতা বাদী হয়ে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে। লিখিত অভিযোগে জানা গেছে প্রতাপনগর ইউনিয়নের কুড়িকাহনিয়া গ্রামের ইকবাল মাহমুদ সরদারের  কন্যা খুলনা পাইওনিয়া মহিলা কলেজের একাদশ শ্রেণির ছাত্রীশারমিন আক্তার লিমা (১৬) কে একই গ্রামের ইউপি সদস্য রফিকুল ইসলাম বুলির মোড়লের পুত্র মালেক  মোড়ল (২১) বিয়ের প্রস্তাব দিলে সে রাজি না হয় বিভিন্ন সময় বাড়ি যাওয়ার পথে উত্ত্যক্ত করত। বিষয়টি ওই ছাত্রী  তার পিতা-মাতা জানায়। এর পর তার পরিবার ছেলের পরিবারকেে জানায় এতে তারা কোন ব্যবস্থা না নেয়ায় সে আরো সাহস পেয়ে যায় ও উত্ত্যক্তকারী চরম ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠে এক পর্যায়ে বিভিন্ন সময় অপুরন করার হুমকি-ধামকি দিতে থাকে কন্যার পরিবারকে। গতকাল সন্ধ্যা সাতটার দিকে সে  সহ তার সঙ্গী রেজাউল করিম ঢালীর পুত্র জাহিদ ঢালী (২২) মৃত খোকন সানার পুত্র রুহুল আমিন সানা (২০) সহ অজ্ঞাতনামা ৪ / ৫ জন পূর্ব থেকে ওৎ পেতে থাকা তারা আমার কন্যা লিমাকে বাড়ি যাওয়ার পথে জোরপূর্বক  মোটরসাইকেল যোগে অপহরণ করে । সংবাদ পেয়ে পরিবারের লোকজনসহ আশপাশের লোকজন ঘটনাস্থলে এসে ততাদেরকে ধাওয়া করলে ও আটকানো সম্ভভব হয়নি।এরপর অনেক খোঁজাখুঁজির পরে ও তাদের সন্ধান না পেয়ে সোমবার সোমবার সকালে আশাশুনি থানায়় কলেজ পড়ুয়া কন্যার পিতা ইকবাল মাহমুদ বাদী হয়ে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। এ ব্যাপারে থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছিল বলে জানা গেছে।

সোমবার যশোরে আরো ৬৪জন আক্রান্ত

সোমবার যশোরে আরো ৬৪জন আক্রান্ত




সুমন হোসেন, যশোর প্রতিনিধিঃ
যশোরে সোমবার আরো ৬৪ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। এ নিয়ে জেলায় মোট আক্রান্তের সংখ্যা ১হাজার ৪৮। আক্রান্তের মধ্যে যশোর সদরে রয়েছেন ৩১জন।এ ছাড়া শার্শা উপজেলায় ১২, মণিরামপুরে ৬, ঝিকরগাছায় ৫, চৌগাছায় ৪, কেশবপুরে ৩, অভয়নগরে ২ ও বাঘারপাড়ায় ১ জন শনাক্ত হয়েছে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন যশোর সিভিল সার্জন অফিসের মুখপাত্র রেহনেওয়াজ রনি। তিনি আরো জানান, যবিপ্রবি থেকে আসা ১৭২ নমুনার ফলাফলে ৬৪জন পজেটিভ হয়েছেন। এছাড়া মোট সুস্থ্য হয়েছেন ৪শ৯৬ জনও মৃত্যু হয়েছে ১৫ জনের।

ছোনগাছা পাঁচ ঠাকুরিতে জোরপূ্র্বে জলাশয়ের মাছ ধরার অভিযোগ উঠেছে

ছোনগাছা পাঁচ ঠাকুরিতে জোরপূ্র্বে জলাশয়ের মাছ ধরার অভিযোগ উঠেছে




মাসুদ রানা সিরাজগঞ্জ জেলা প্রতিনিধিঃ
সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলার ছোনগাছা ইউনিয়নের পাঁচঠাকুরি গ্রামের অবদা বাধঁ সংলগ্ন জোর পূর্বক জলাশয়ের মাছ ধরার অভিযোগ উঠেছে। অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, পাঁচঠাকুরি গ্রামের মৃত হাবিবুর রহমানের ছেলে আব্দুল হালিম ভুইয়া গত রোজার মধ্যে বাধ সংলগ্ন জলা, জমি মালিকদের কাছ থেকে   লিখিত লিজ নিয়ে মাছ চাষ শুরু করেন। তারই ধারাবাহিকতায় একই গ্রামে মোঃ আব্দুল মজিদ এর ছেলে বক্কার কেরানী, মৃত মাসুদ আলীর ছেলে বদিউজ্জামান, বদিউজ্জামানের ছেলে আশরাফুল আলম গং ১৩জুলাই সোমবার সকাল ১0 টায় বের জাল দিয়ে জোর পূর্বক মাছ মেরে নেয়। এ বিষয়ে আব্দুল হালিম সিরাজগঞ্জ মৎস্য অধিদপ্তরে মৌখিক অভিযোগ করছে বলে জানান। তিনি আরো বলেন বক্কার গং প্রতি রাতেই ছিপ জাল দিয়ে মাছ মারে এবং এখনও জাল লাগানোই আছে। সিরাজগঞ্জ থানা জেলে সমিতির সভাপতি আব্দুল করিম তিনি জানান এ বিষয়টি আমাকে ও বলেছে।আমি ঘটনাস্থলে গিয়ে দেখি জলাতে জাল ফেলানো আছে। আমি মৎস্য অধিদপ্তরেও আমি কথা বলেছি বিষয়টি তারা দেখবে।এ বিষয়ে ইউপি সদস্য ও ৮ নং ওয়ার্ড আঃলীগের সভাপতি জহুরুল ইসলাম তিনি বলেন এই জলা নিয়ে গত বছর ও বিরোধ শুরু হয়ে ছিল মিমাংসা করে দিয়েছি। এবছর ও বিষয়টি গতকাল বিবাদি পক্ষ আমাকে জানালে আমি ২/১ দিনের মধ্যে মিমাংসা করার কথা বলেছি কিন্ত তারা আজ মাছ মারতে যাবে তা আমি জানতাম না। যদি তারা আসলেই মাছ মেরে থাকে তা নেক্কার জনক ঘটনা।এ রিপোর্ট লেখা পযন্ত মামলার প্রস্তুতি চলছে।

সিরাজগঞ্জে ‘অনলাইনে কোরবানির "পশুর হাট" এ্যাপস'র উদ্বোধন

সিরাজগঞ্জে ‘অনলাইনে কোরবানির "পশুর হাট" এ্যাপস'র উদ্বোধন




 মাসুদ রানা সিরাজগঞ্জ জেলা প্রতিনিধিঃ

আসন্ন ঈদ-উল আযহাকে সামনে রেখে    সামাজিক দূরত্ব ও স্বাস্থ্য সুরক্ষার কথা বিবেচনা করে সিরাজগঞ্জ  জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে ঘরে বসে  ‘অনলাইনে "পশুর হাট’ নামে পশু বেচা-কেনার মোবাইল অ্যাপের উদ্বোধন করা হয়েছে।"পশুর হাট" এ্যাপস উদ্বোধন  অনুষ্ঠানে  রাজশাহী  বিভাগের ৮ জেলার জেলা প্রশাসকগণ অনলাইনে জুম অ্যাপের মাধ্যমে সংযুক্ত  ছিলেন। 
সোমবার  ১৩ জুলাই সকালে বিভাগীয়  কমিশনার  রাজশাহী বিভাগ মোঃ হুমায়ুন  কবীর  খোন্দকার  অনলাইনে জুম অ্যাপের মাধ্যমে যুক্ত  হয়ে অ্যাপটির উদ্বোধন করেন।জেলা প্রশাসন  সিরাজগঞ্জের আয়োজনে  জেলা প্রশাসক  ড. ফারুক আহাম্মদ  এর  সভাপতিত্বে  আয়োজিত  উদ্বোধনীয় অনুষ্ঠানে  প্রধান অতিথির বক্তৃতায় বলেন, ‘করোনাকালীন দেশের এই পরিস্থিতিতে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলা এবং সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার কোনো বিকল্প নেই। করোনার ফলে সারা বিশ্বে একদিকে যেমন অনেক মানুষ কাজ হারাচ্ছে, তেমনি তথ্যপ্রযুক্তি নির্ভর অনেক নতুন পেশা ও কর্মসংস্থানেরও সৃষ্টি হচ্ছে।
দেশের এই পরিস্থিতিতে সিরাজগঞ্জ  জেলা প্রশাসনের এই উদ্ভাবনী উদ্যোগটির প্রশংসা করে বিভাগীয়  কমিশনার রাজশাহী মোঃ হুমায়ুন  কবীর খোন্দকার  আরও বলেন, ‘অনলাইনে কোরবানি পশু বিক্রির সুযোগ সৃষ্টি হওয়ায় অনেক তরুণ খামারি ন্যায্য মূল্যে তাদের গরু-ছাগল বিক্রি করতে পারবেন।মানুষ যাতে প্রতারিত না হয়, সেজন্য সিরাজগঞ্জ জেলা প্রশাসন, প্রাণিসম্পদ অফিস এবং পুলিশ বিভাগের সমন্বয়ে অনলাইনে কোরবানি পশু ক্রয়-বিক্রয়ের কার্যক্রম তদারকির পরামর্শ দেন। এছাড়া প্রযুক্তিনির্ভর এ সেবাকে সাধারণ মানুষের কাছে জনপ্রিয় করতে উপজেলা ও
ইউনিয়ন পর্যায়ের ডিজিটাল সেন্টারগুলোকে কাজে লাগানো এবং স্থানীয়  পত্রিকায় বহুল প্রচার ও প্রচারণা চালানোর জন্য  আহ্বান জানান তিনি।
অন্যান্যের মধ্যে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি শাখার জেলা প্রশাসক  আইসিটি শাখার  এ,বি,এম, রওশন কবীর,সহকারী কমিশনার ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট সিফাত মো: ইসতিয়াক ভূঁইয়া, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার  ডিএসবি ফারহানা ইয়াসমিন, জেলা প্রাণিসম্পদ  কর্মকর্তা আলহাজ্ব  ডাঃ আক্তারুজ্জামান , জেলা যুব উন্নয়ন  কর্মকর্তা  স্বপন কুমার  কর্মকার , ইসলামি  ফাউন্ডেশন  সিরাজগঞ্জ  উপপরিচালক  মোঃ মিরাজুল  ইসলাম , সদর উপজেলা  নির্বাহী  অফিসার  সরকার  অসীম  কুমার , উপজেলা  প্রাণিসম্পদ  কর্মকর্তা  ডাঃ হারুন  অর  রশীদ , ভেটেরিনারি  সার্জন  ডাঃ  মোঃ  মাহমুদুল  হক একাত্তর  সোসিং লিমিটেড  উদ্যােগক্তা   জোৎস্না বেগম ,বিশিষ্ট সাংবাদিক গাজী শাহদত হোসেন ফিরোজী, যুগের কথার সিনিয়র  স্টাফ  রিপোর্ট   এইচ মুন্না, দৈনিক  বর্ণিক বার্তার জেলা প্রতিনিধি  অশোক  ব্যানার্জী, সহ অন্যান্য সরকারি দপ্তরের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।অনুষ্ঠানটি উপস্থাপন  করেন  সহকারী কমিশনার ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট মো.মাসুদুর  রহমান ।
উদ্বোধনীয় অনুষ্ঠান  শেষে ডিজিটাল  মেলা ২০২০ এর বিভিন্ন  ক্যাটাগরীতে বিজয়ীদের হাতে পুরুষ্কার  তুলে দেন জেলা প্রশাসক  ড.ফারুক আহাম্মদ।

মানিকগঞ্জ জেলায় গ্রাম পুলিশ দের মাঝে বাই- সাইকেল বিতরণ করেন

মানিকগঞ্জ জেলায় গ্রাম পুলিশ দের মাঝে বাই- সাইকেল বিতরণ করেন




আব্দুর রাজ্জাক হরিরামপুর (মানিকগঞ্জ) প্রতিনিধিঃ মানিকগঞ্জ জেলায় ইউনিয়ন পরিষদের কর্মরত গ্রাম পুলিশ ( দফাদর ও মহাল্লাদার) দের মাঝে বাই সাইকেল বিতরণ করা হয়। 
 বাই সাইকেল বিতরণের অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, মানিকগঞ্জ জেলার সম্মানিত সুযোগ্য জেলা প্রশাসক জনাব এস এম ফেরদৌস 
উক্ত অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন  জনাব ফৌজিয়া খান, উপপরিচালক, স্থায়ী সরকার বিভাগ, মানিকগঞ্জ।

টেলিভিশন ও ফেসবুকে নোবিপ্রবি'র বর্তমান উপাচার্যকে নিয়ে সাবেক উপাচার্যের কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য: নিন্দার ঝড়

টেলিভিশন ও ফেসবুকে নোবিপ্রবি'র বর্তমান উপাচার্যকে নিয়ে সাবেক উপাচার্যের কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য: নিন্দার ঝড়



                         
নোবপ্রবি প্রতিনিধিঃ
নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (নোবিপ্রবি) বর্তমান উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. দিদার-উল-আলমকে নিয়ে সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক ড. এম অহিদুজ্জামানের কুরুচিপূর্ণ মন্তব্যের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। এছাড়াও একই কারণে তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছে শিক্ষক সংগঠন নোবিপ্রবি নীলদল এবং নোবিপ্রবি অফিসার্স অ্যাসোসিয়েশন। সংগঠন দুটির পৃথক প্রতিবাদলিপিতে তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছে।

আজ সোমবার বিকেলে বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ কর্মকর্তা ইফতেখার হোসাইন স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে প্রতিবাদ জানায় বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (নোবিপ্রবি) মাননীয় উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো: দিদার-উল-আলম এর সুখ্যাতি বিনষ্ট করার লক্ষ্যে গত ৯ জুলাই ২০২০ এসএ টেলিভিশনে প্রচারিত ‘টকশো’ এবং ০৮ মে ২০২০ ‘নোবিপ্রবি উপাচার্য দপ্তর’ নামীয় আইডির ফেসবুক পোস্টের ফটো কমেন্টে উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে মিথ্যা বক্তব্য আমাদের দৃষ্টিগোচর হয়েছে। আমরা এর তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি। এসএ টেলিভিশনে প্রচারিত ‘টকশো’র একাংশে বিশ্ববিদ্যালয়ের বর্তমান উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. দিদার-উল-আলম প্রসঙ্গে সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক ড. এম অহিদুজ্জামান সম্পূর্ণ কল্পনাপ্রসূত ও উদ্ভট তথ্যের প্রচার করেছেন।
 
টকশো আলোচনায় দুর্নীতি প্রসঙ্গে বলতে গিয়ে সাবেক উপাচার্য বলেন, ‘মনে করেন আমি একটি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ছিলাম। বলা যায় যে, চল্লিশ বছর আমাকে চিনে সবাই। আমারটা কিন্তু এজেন্সিতে যাচাই হয়েছে। আার যারা দেখা যায় বাংলাদেশই মানেন না, আওয়ামী লীগের লোক তো নই-ই, তাকে যেখানে উপাচার্য করা হলো, এ ফাইলটা কিন্তু সরাসরি প্রধানমন্ত্রীর হাতে গিয়ে সাইন হয়েছে। এটা কিন্তু আর এজেন্সিতে গেলো না’। আমরা এমন অসত্য, বানোয়াট বক্তব্যের তীব্র প্রতিবাদ ও নিন্দা জানাচ্ছি।

বিজ্ঞপ্তিতে আরো বলা হয়, আমরা নোবিপ্রবি পরিবার দ্ব্যর্থহীন ভাষায় বলতে চাই, বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য নিছক কোনো ব্যক্তি কিংবা পদবি  নয়, এটা একটি প্রতিষ্ঠান। বর্তমান উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. দিদার-উল-আলম সম্পর্কে সাবেক উপাচার্য এমন নিন্দনীয় বক্তব্য মিডিয়াতে প্রকাশের মাধ্যমে তিনি শুধু এই প্রতিষ্ঠানকে খাটো করেননি, তিনি নোবিপ্রবিসহ একই সঙ্গে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশের মহামান্য রাষ্ট্রপতি ও বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সাংবিধানিক ক্ষমতাবলের নিয়োগ প্রক্রিয়াকে প্রশ্নবিদ্ধ করে তাঁদেরকে জাতির সামনে হেয় প্রতিপন্ন করেছেন।  

 গত ১২ জুন ২০১৯ নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (নোবিপ্রবি)  নতুন উপাচার্য হিসেবে নিয়োগ পান অধ্যাপক ড. মো: দিদার-উল আলম। তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সয়েল, ওয়াটার ও এনভায়রনমেন্ট  বিভাগের অধ্যাপক। মহামান্য  রাষ্ট্রপতি ও বিশ্ববিদ্যালয়ের চ্যান্সেলর  জনাব মো. আবদুল হামিদ নোবিপ্রবি আইন ২০০১ এর ধারা ১০ এর (১)  অনুযায়ী আগামী চার বছরের জন্য তাঁকে নিয়োগ দেন। 
গত ১৩ জুন ২০১৯ বিশ্ববিদ্যালযে যোগদান করেন তিনি। অধ্যাপক ড. মো. দিদার-উল-আলম ১৯৬৯ সালে নারায়ণগঞ্জের জয়গোবিন্দ হাই স্কুল থেকে প্রথম বিভাগে এসএসসি ও নারায়ণগঞ্জ তোলারাম কলেজ থেকে প্রথম বিভাগে এইচএসসি সম্পন্ন করে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে মৃত্তিকা বিজ্ঞান বিষয়ে বিএসসি ও এমএসসি উভয় পরীক্ষায় প্রথম শ্রেণিতে তৃতীয় স্থান অর্জন করেন। এরপর তিনি স্কটল্যান্ডের ইউনিভার্সিটি অব অ্যাবারডিন থেকে ১৯৯০ সালে প্ল্যান্ট অ্যান্ড সয়েল সায়েন্স বিষয়ে পিএইচডি ডিগ্রি অর্জন করেন। ১৯৮৩ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মৃত্তিকা বিজ্ঞান বিভাগে প্রভাষক হিসাবে যোগ দেন। বর্তমানে ২০১১ সাল থেকে তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সিলেকশন গ্রেডের একজন অধ্যাপক। এছাড়া তিনি ১৯৮১-১৯৮৩ সাল পর্যন্ত নদী গবেষণা ইনস্টিটিউটের গবেষক হিসেবেও কাজ করেছেন।

এখানে উল্লেখ্য যে, অধ্যাপক ড. মো: দিদার-উল আলম জীব বিজ্ঞান অনুষদের ২০১৭ সাল থেকে নীল দলের আহ্বায়ক হিসেবে কাজ করেছেন এর আগে যুগ্ম  আহ্বায়ক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন অনেকদিন। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সমিতির নির্বাচনে স্টান্ডিং কমিটির আহ্বায়ক হিসেবেও দায়িত্ব পালন করেছেন। ২০১৮ সালে ঢাকসু নির্বাচনের নির্বাচন কমিশনার হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। উপাচার্য হিসেবে যোগদানের পর থেকে  ড. মো দিদার-উল আলম নোবিপ্রবি আইন ২০০১, আইন ও তফসিল (বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম সংবিধি) ও নিয়ম-কানুন এবং শিক্ষা মন্ত্রণালয় ও ইউজিসির নির্দেশনা, পরামর্শ ও সহযোগিতা নিয়ে বিভিন্ন কর্তৃপক্ষ যথা: রিজেন্টবোর্ড, একাডেমিক কাউন্সিল, অর্থ কমিটি ইত্যাদির মাধ্যমে বিশ্ববিদ্যালয় পরিচালনা করে আসছেন। এতে করে বিশ্ববিদ্যালয়ের একাডেমিক ও ভৌত অবকাঠাগোত উন্নয়ন কর্মযজ্ঞে নতুন প্রাণের সঞ্চার হয়েছে। এতে বিদ্বেষ প্রসূত হয়ে সাবেক উপাচার্য  ড. মো অহিদুজ্জামান প্রতিহিংসামূলক বিভিন্ন বক্তব্য গণমাধ্যম ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে দিয়ে আসছেন। আরও উল্লেখ্য যে, গত ০৮ মে ২০২০ নোবিপ্রবি উপাচার্য দপ্তর নামীয় আইডির ফেসবুক পোস্টের ফটো কমেন্টে সাবেক উপার্চায অধ্যাপক ড. এম অহিদুজ্জামান কুয়েতে গ্রেপ্তারকৃত লক্ষীপুর-০২ আসনের বিতর্কিত সাংসদ জনাব কাজী শহিদ ইসলাম পাপলু ও তার স্ত্রী জনাব কাজী  সেলিনা ইসলাম এম.পি এবং সম্প্রতি দুর্নীতির দায়ে অভিযুক্ত রিজেন্ট গ্রুপের চেয়ারম্যান মো. শাহেদ এর সঙ্গে মিলিয়ে বর্তমান উপাচার্য মহোদয়কে নিয়ে আপত্তকির মন্তব্য করেছেন।

নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (নোবিপ্রবি) বর্তমান উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো: দিদার-উল-আলমকে জড়িয়ে এহেন অনভিপ্রেত বক্তব্যের মাধ্যমে এ বিশ্ববিদ্যালয়ের সম্মানহানি করায় আমরা এর তীব্র প্রতিবাদ ও নিন্দা জানাচ্ছি।

ঝিনাইদহ নাথকুন্ডু গ্রামে জুয়া খেলার আসর ভেঙে দিলেন ডাকবাংলা ক্যাম্প ইনচার্জ মোকলেছুর রহমান

ঝিনাইদহ নাথকুন্ডু গ্রামে জুয়া খেলার আসর ভেঙে দিলেন ডাকবাংলা ক্যাম্প ইনচার্জ মোকলেছুর রহমান





খোন্দকার আব্দুল্লাহ বাশার, 
( ঝিনাইদহ জেলা প্রতিনিধি) 



ঝিনাইদহ সদর উপজেলার সাগান্না ইউনিয়নের নাথকুন্ডু গ্রামে জুয়া খেলার আসর ভেঙে দিলেন ডাকবাংলা ক্যাম্প ইনচার্জ মোকলেছুর রহমান।
তিনি জানান, রাতের আধারে লুডু ও তাস খেলার মাধ্যমে  নিয়মিত জুয়া খেলা হয় এ চায়ের দোকানে। এখানকার কতিপয় মানুষ কষ্টে অর্জিত সম্পদ নষ্ট করছে জুয়া খেলা করে যার ফলে তারা আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে এবং পরিবারে নানান অশান্তি তৈরি করছে। জুয়ার অর্থ জোগাড় করতে অনেকে অনেক অপকর্মেও লিপ্ত হচ্ছে। 
আজ সোমবার সন্ধ্যার দিকে অভিযানে আসলে দোকানে থাকা কয়েকজন তাদের জুয়ার সরঞ্জাম, জুতা স্যান্ডেল, রেখে পালিয়ে যায়। দোকানদারকে কড়া সতর্ক করে জুয়ার সামগ্রীসহ জুতা স্যান্ডেল পাশের পুকুরে ফেলে দেওয়া হয়। আপাতত কিছুদিন ঐ দোকানে চৌকি ব্যবহার নিষিদ্ধ করা হয়েছে।পরবর্তীতে এই ঘটনার পুনরাবৃত্তি হলে কড়া ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে হুশিয়ারি প্রদান করেন ক্যাম্প ইনচার্জ মোঃ মোখলেছুর রহমান।

সুবিধা বঞ্চিত বৃদ্ধা ফুলবানুর পরিবারের পাশে দাড়াল ছাত্রলীগ নেতা সবুজ

সুবিধা বঞ্চিত বৃদ্ধা ফুলবানুর পরিবারের পাশে দাড়াল ছাত্রলীগ নেতা সবুজ



আকরামুল ইসলাম,চৌগাছা প্রতিনিধিঃ
মানুষ মানুষের জন্য, জীবন জীবনের জন্য.... কোভিড-১৯ বা করোনা ভাইরাস এর শুরু থেকে তার প্রমাণ দিয়েছে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর নিজ হাতে গড়া সংগঠন টি আন্দোলন সংগ্রামে মানুষের অধিকার আদায়ে যেমন নেতৃত্ব দিয়েছে তেমনি ভাবে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনার নির্দেশে করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে অগ্রনী ভূমিকা পালন করেছে। চৌগাছা উপজেলার ২ নং  পাশাপোল ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক প্রভাসক সবুজ হোসেন তার যায়গা থেকে মানুষের জন্য সব সময় পাশে থাকার চেষ্টা করেছে। গতকাল বিভিন্ন পত্রিকায় প্রকাশিত হয় স্বরুপাদাহ ইউনিয়ন এর মাসিলা গ্রামের অসহায় বৃদ্ধা ফুলবানুর পরিবারের কষ্ট নিয়ে, বিধবা ফুলবানুর পরিবারে কোন উপার্জনক্ষম পুরুষ নেই এবং একমাত্র কণ্যাও স্বামী পরিত্যক্তা। সেই সংবাদ পড়ে ছাত্রলীগ নেতা সবুজ হোসেন সিংগাপুর প্রবাসী ছোট ভাইয়ের সহায়তায় বৃদ্ধা ফুলবানুর পরিবারকে নগদ দুই হাজার টাকা এবং কাচা বাজার করে ফুলবানুর চায়ের দোকানে পৌছে দেন। এই সময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা ছাত্রলীগের সহ সভাপতি সাদেকুর রহমান, চৌগাছা সদর ইউনিয়ন ছাত্রলীগের আহবায়ক আকরামুল ইসলাম, ৯ নং স্বরুপদাহ ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আলাউদ্দিন বিশ্বাস, চৌগাছা রিপোর্টারস ক্লাবের পত্রিকা বিষয়ক সম্পাদক টিপু সুলতান, ১১ নং সুখপুকুরিয়া ইইউনিয়ন ছাত্রলীগ নেতা ফিরোজ আহমেদ, টিটো হোসেন, চৌগাছা ইউনিয়ন ছাত্রলীগের ৬ নং ওয়ার্ড ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ইউসুফ আলী প্রমুখ।

কেশবপুরে উপ-নির্বাচনের কারনে ২৪ ঘন্টা সকল মোটর জান বন্ধের ঘোষণা

কেশবপুরে উপ-নির্বাচনের কারনে ২৪ ঘন্টা সকল মোটর জান বন্ধের ঘোষণা





মোরশেদ আলম ভ্রাম্যমান (যশোর)  প্রতিনিধিঃ
আগামি ১৪ জুলাই ২০২০ তারিখে যশোর-৬, কেশবপুরে শুন্য আসনের উপ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। 

উক্ত নির্বাচন উপলক্ষে অদ্য ১৩ জুলাই দিবাগত মধ্যরাত ১২.০০ টা হতে ১৪ জুলাই ২০২০ তারিখ দিবাগত মধ্যরাত ১২.০০ টা পর্যন্ত বেবিট্যাক্সি,অটোরিকশা,ইজিবাইক,ট্যাক্সি, ক্যাব, মাইক্রোবাস,জীপ, পিক আপ,কার,বাস, ট্রাক, টেম্পো, ইজিবাইক ও স্থানীয় পর্যায়ের বিভিন্ন যন্ত্রচালিত যানবাহন চলাচলের উপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে। 
সে সাথে ১২ জুলাই ২০২০ তারিখ দিবাগত মধ্যরাত ১২.০০ টা হতে ১৫ জুলাই ২০২০ তারিখ মধ্যরাত পর্যন্ত মোটর সাইকেল চলাচলের উপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে এই আদেশ জারি করে জেলা ম্যাজিস্ট্রেট ও জেলা প্রশাসক, যশোর। 
এবং প্রচার করে জেলা তথ্য অফিস, যশোর


চুয়াডাঙ্গায় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের অভিযান অব্যাহতঃ ভেজাল মালামাল জব্দ

চুয়াডাঙ্গায় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের অভিযান অব্যাহতঃ ভেজাল মালামাল জব্দ





মোঃকাউসার আলী
চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি

আজ ১৩ জুলাই ২০২০ তারিখে বেলা সাড়ে ১২ টার দিকে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের শ্রদ্ধেয় মহাপরিচালক মহোদয়ের নির্দেশনায় এবং চুয়াডাঙ্গা জেলা প্রশাসক মহোদয়ের তত্ত্বাবধানে চুয়াডাঙ্গা জেলা সহকারি পরিচালকের নেতৃত্ত্বে সদর উপজেলার বনানী পাড়া এবং সুমিরদিয়া এলাকায় ভ্রাম্যমাণ অভিযান পরিচালনা করা হয়।
অভিযানে মুদিখানা,কসমেটিকস, মসলার দোকান এবং নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের দোকান পরিদর্শন করা হয়।এসময় মেয়াদ উত্তীর্ণ পণ্য বিক্রয়,পণ্যের মোড়কীকরণ বিধি বহির্ভূত পণ্য বিক্রয় এবং নকল কসমেটিকস বিক্রয় করার অপরাধে ২ টি দোকানকে ৭ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।
এসময় কর্মকর্তারা করোনায় সবাইকে সামাজিক দূরত্ব এবং স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার নির্দেশ দেন এবং এ অভিযানে নিরাপত্তার দায়িত্ব পালন করে চুয়াডাঙ্গা জেলা পুলিশের একটা টিম।
কর্মকর্তারা আরো বলেন জনস্বর্থে এ অভিযান অব্যাহত থাকবে যাতে করে এই করোনা মহামারিতে কেউ ভেজাল খাদ্যদ্রব্য এবং ভেজাল পণ্য বিক্রয় করতে না পারে।

নওগাঁর আত্রাইয়ে বিষপানে গৃহবধূর আত্মহত্যা !

নওগাঁর আত্রাইয়ে বিষপানে গৃহবধূর আত্মহত্যা !





মোঃ ফিরোজ হোসাইন  
রাজশাহী ব্যুরো

 নওগাঁর আত্রাইয়ে তারা বেগম (২৮) নামে এক গৃহবধূর অপমৃত্যু হয়েছে। পরিবারের দাবি তিনি বিষপানে আত্মহত্যা করেছেন।

সোমবার আত্রাই উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। নিহত তারা বেগম উপজেলার বিশা ইউনিয়নের থলওলমা গ্রামের হারেজ এর স্ত্রী।

পুলিশ জানায়, সোমবার সকাল ১০টার দিকে তারা বেগম নিজ শয়ন কক্ষে বিষপান করে আত্মহত্যার চেষ্টা করে। পরিবারের লোকজন বিষয়টি টের পেলে সঙ্গে সঙ্গে তাকে আত্রাই উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। চিকিৎসাধীন অবস্থায় সোমবার বেলা ১টার দিকে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত বলে ঘোষণা করেন।

এ বিষয়ে আত্রাই থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মোসলেম উদ্দিন ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, নিহত তারা বেগমের লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য নওগাঁ মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ব্যাপারে থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা রেকর্ড করা হয়েছে।

নাটোর লালপুর সংযোগ সড়ক সংস্কার ও পানি নিস্কাশনের দাবিতে মানববন্ধন

নাটোর লালপুর সংযোগ সড়ক সংস্কার ও পানি নিস্কাশনের দাবিতে মানববন্ধন




 


রাজশাহী ব্যুরো
নাটোরের লালপুর উপজেলা পরিষদের পাশ দিয়ে বয়ে যাওয়া ইছামতি খালের উপরে সংযোগ সড়ক (বাঁধ) সংস্কার ও পানি নিস্কাশনের দাবিতে মানব বন্ধন করেছে। 

উপজেলার কয়েকশত পানিবন্দী ও ভুক্তভুগি মানুষ। সোমবার ১৩ জুলাই সকালে উপজেলার পরিষদের সামনে গোপালপুর পৌরসভার ৮ ও ৯ নং ওয়ার্ড এর পানি বন্দী মানুষের আয়োজনে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন ৮ নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সভাপতি ও সাবেক কাউন্সিলর আব্দুল কুদ্দুস মালিথা, নিরাপদ সড়ক চাই লালপুর উপজেলা শাখার সভাপতি ও সাপ্তাহিক লালপুর বার্তার সম্পাদক আব্দুল মোত্তালেব রায়হান,সাধারণসম্পাদক,কেশবপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষক ও সাংবাদিক মাজহারুল 

ইসলাম লিটন, এলাকাবাসির মধ্যে নছির উদ্দিন, কাজী কামরুজ্জামান প্রমূখ। 

বক্তারা বলেন গত কয়েক মাস আগে নাটোর- লালপুর প্রধান সড়কের উপজেলা পরিষদ 
সংলগ্ন উক্ত খালের উপরের ঝুকিপুর্ন সেতুটি পুননির্মানের জন্য ভেঙ্গে ফেলে ঠিকাদার। যান চলাচল স্বাভাবিক রাখতে উক্ত খালের উপর সেতুর পাশ দিয়ে সংযোগ সড়ক (বাঁধ) নির্মান করে দেয়। গত কয়েক দিনের বর্ষনে উজানের পানি বের হতে না 

পেরে বাধেঁর উপর দিয়ে তীব্র স্রোতে পানি বের হচ্ছে। ফলে বাধঁ ক্ষতিগ্রস্থ হয়ে পড়ে এবং যান চলাচল মারাত্মক ঝুকির মধ্যে পড়েছে। এদিকে বাধঁটিতে পানি নিস্কাশনের প্রর্যাপ্ত ব্যবস্থা না থাকায় বিগত কয়েক দিনের বর্ষনে উজানের বৈদ্যনাথপুর,সিরাজিপুর,মহিষবাথান, মন্ডলপাড়া, স্টেডিয়ামপাড়া সহ ৮-১০ টি গ্রামের শত শত একর জমির ফসল পানিতে তলিয়ে গেছে। এছাড়া এ বাধের
প্রায় দুই শতাধিক পরিবার পানিবন্দী হয়ে পড়েছে। শুধু তাই নয় পানিবন্দী এসব এলাকার মানুষ এখন পর্যন্ত কোন সহযোগিতা পায়নি। বার বার সড়কটি মেরামত ও পানি নিস্কাশনের দাবী জানালেও এখন পর্যন্ত কোন কার্যকরী পদক্ষেপ গ্রহন করেনি। 

সংশ্লিষ্ট কতৃপক্ষ । এছাড়া উক্ত সড়কের ওয়ালিয়া থেকে লালপুর পর্যন্ত প্রায় ১৫ কিলোমিটার রাস্তা বিগত কয়েক বছর সংস্কার না করায় শত শত বড় বড় খানা খন্দের সৃষ্টি হয়েছে। এত করে সড়কটি সরণ ফঁাদে পরিনত হয়েছে। প্রায়শই যানবহন এসব খানা খন্দে আটকা পড়ে যান চলাচল ব্যহত করে। দ্রুত উক্ত সমস্যা সমাধানে সংশ্লিষ্ট কতৃপক্ষের প্রয়োজনীয় হস্তক্ষেপ কামনা করেন তারা। 

এ বিষয়ে কার্যকরী কোন পদক্ষেপ গ্রহন করা হয়েছে কিনা জানতে উপজেলা নির্বাহী অফিসার উম্মুল বানীন দ্যুতি বলেন সংশ্লিষ্ট কতৃপক্ষকে অবহিত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

নাটোরে ৬ বছরের শিশুকন্যাকে ধর্ষনের চেষ্টার অভিযোগে দোকানদার আটক

নাটোরে ৬ বছরের শিশুকন্যাকে ধর্ষনের চেষ্টার অভিযোগে  দোকানদার আটক




 
রাজশাহী ব্যুরো
নাটোরের বড়াইগ্রামে নগর ইউনিয়নের কুমারখালী গ্রামে  ৬ বছরের শিশুকে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে মুদি দোকানদার আবুল কাশেম (৩২) কে পুলিশে  দিয়েছে এলাকাবাসী। অভিযুক্ত মুদি দোকানদার কুমারখালী গ্রামের হাসেম আলীর ছেলে। 
গত ৫ জুলাই রবিবার বিকাল ৫ টার দিকে একই গ্রামের  ৬ বছরের শিশুটি তার খালার বাড়িতে যাবার সময় মুদি দোকানদার কৌশলে চকলেট দেবার কথা বলে তার দোকানে ডেকে নেয় এবং তাকে ধর্ষণের চেষ্টা করে। পরবর্তীতে বিষয়টি জানাজানি হলে আজ (১৩ জুলাই) সোমবার সকালে এলাকাবাসী ক্ষুব্ধ হয়ে পুলিশে ধরিয়ে দেয় আবুল কাশেমকে। এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায় যে, ইতিপূর্বেও শিশু ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগ রয়েছে এই লম্পট মুদি দোকানদার আবুল কাশেমের বিরুদ্ধে।
এ বিষয়ে বড়াইগ্রাম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) দিলীপ কুমার দাস বলেন- অভিযুক্ত কাশেম ধর্ষণ চেষ্টার কথা স্বীকার করেছে, তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

নওগাঁর আত্রাইয়ে বিদ্যুৎপৃষ্টে নিহত-১

নওগাঁর আত্রাইয়ে বিদ্যুৎপৃষ্টে নিহত-১





মোঃফিরোজ হোসাইন
রাজশাহী ব্যুরো

 নওগাঁর আত্রাইয়ে বিদ্যুৎপৃষ্টে সুবাস চন্দ্র (১২) নামের এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে। নিহত সুবাস চন্দ্র উপজেলার বাঁকা গ্রামের জুগেশ চন্দ্রের ছেলে।
পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, নিহত সুবাস চন্দ্র রবিবার দুপুরে তার নিজ শয়ন কক্ষে সাউন্ডবক্সে গান শুনছিলো। হঠাৎ গান বন্ধ হয়ে গেলে তা ঠিক করতে লাগলে সে তারের সংস্পর্শে বিদুৎপৃষ্ট হয়ে মাটিতে লুটিয়ে পরে। সাথে সাথে পরিবারের লোকজন তাকে উদ্ধার করে আত্রাই উপজেলা স্বাস্থ্য কমপেক্সে নিয়ে গেলে সন্ধ্যায় চিকিৎসাধীন অবস্থায় সে মৃত্যু বরণ করেন।
এ ব্যাপারে আত্রাই থানা অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোসলেম উদ্দিন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, নিহত সুবাস চন্দ্র তার নিজ বাড়িতে কারেন্টের তারের সংস্পর্শে বিদুৎপৃষ্টে আহত হলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রবিবার সন্ধ্যায় সে মৃত্যু বরণ করেন।

নওগাঁর আত্রাইয়ে মাতৃত্বকালীন ভাতার চেক বিতরণ

নওগাঁর আত্রাইয়ে মাতৃত্বকালীন ভাতার চেক বিতরণ



 

 মোঃ ফিরোজ হোসাইন 
 রাজশাহী ব্যুরো

নওগাঁর আত্রাইয়ে মহিলা বিষয়ক অফিসের মাধ্যমে মাতৃত্বকালীন ভাতার চেক বিতরণ করা হয়েছে।

সোমবার সকালে উপজেলা পরিষদ হল রুমে দুটি সন্তানের বেশি নয় একটি হলে ভালো হয় এ লক্ষে ২০১৯-২০ অর্থ বছরের চেক বিতরণ করা হয়।
সরকারী নিয়ম অনুযায়ী গরীব এবং অস্বচ্ছল পরিবার দুটি সন্তান পর্যন্ত এ সুবিধা ভোগের অধিকারী হবে।

এবার উপজেলার ৮ ইউনিয়নে ৬৭২ জনকে নয় হাজার ছয়শত করে মোট চোষট্টি লক্ষ একান্ন হাজার দুইশত টাকার চেক বিতরণ করা হয়।

উপজেলা মহিলা বিষয়ক অফিসার মোয়াজ্জেম হোসেন সাংবাদিকদের জানান, বৈশিক করোনা ভাইরাস পরিস্থিতির কারনে সামাজিক ও শারীরিক দুরত্ব মেনে এবার ভিন্ন আঙ্গিকে চেক বিতরণ করা হচ্ছে। সরকারের এ সুবিধা অব্যাহত থাকবে বলে জানান তিনি।

চাঁপাইনবাবগঞ্জে সাংবাদিকসহ ৩৫ জন করোনায় আক্রান্ত

চাঁপাইনবাবগঞ্জে সাংবাদিকসহ ৩৫ জন করোনায় আক্রান্ত




শামিম উদ্দিন চাঁপাইনবাবগঞ্জ প্রতিনিধি :
চাঁপাইনবাবগঞ্জে গত ২৪ ঘন্টায় সংবাদিকসহ নতুন করে ৩৫ জনের দেহে করোনা শনাক্ত হয়েছে। এনিয়ে জেলায় ১৫৭ জনের দেহে ভাইরাসটি শনাক্ত হলো। আর ৯১ জন সুস্থ হয়েছেন।

সিভিল সার্জন ডা. জাহিদ নজরুল চৌধুরী জানান, রাজশাহী’র পিসিআর ল্যাব থেকে আসা চাঁপাইনবাবগঞ্জের ৯১ জনের প্রতিবেদনের মধ্যে ৩৫ জনের দেহে করোনা পজেটিভ এবং ৫৬ জনের নেগেটিভ প্রতিবেদন আসে।

চাঁপাইনবাবগঞ্জের আক্রান্তদের মধ্যে সদর উপজেলার বাসিন্দারা হলেন- ইকবাল কাদের (৩২), সাদিয়া (১২), শিরিন (৩০), রাকিব (৪০), মানহা (৭), আবদুর রহমান (৩৫), মনিমুল (৫), জাহিদুল (৩৫), রনি (৩৪), আতাউর রহমান (৫৩), মাসুমা জেসমিন (৩০), সাবিত (২), সোহেল রানা (২৪), আতাউর রহমান (৩২), ইকবাল আব্বাসী (৩৭), ডা. পলিন (৪১), হাদিউজ্জামান (২৮), নিরু (৫০), আব্দুল্লাহ আল হোসাইন (৩১), হাসান (৩২), তাহমিদা (২২) এবং আমির আলী (৩৬)।

সদরের বাইরে এ জেলার আক্রান্তরা হলেন- শিবগঞ্জের শরিফুল (২২), আসাদুজ্জামান (৬৩), মনিরুল (৩০), আজাহারুল (৫৮), আয়েশা খাতুন (৩৪), মোরশেদুল (৩৮), মনিরুল ইসলাম (৪৬), আবদুল রাকিব (৪২), আবদুর রাজ্জাক ৪৫), গোমস্তাপুরের শফিকুল (৫৫), রাসেল (৩৬), নাচোলের রায়হান (২৬) এবং ভোলাহাটের রুবেল (৩২)।

তিনি আরো জানান, আরো বাড়ার সম্ভাবনা রয়েছে। আক্রান্ত ব্যক্তিদের উপসর্গ না থাকায় আজ বৃহস্পতিবার রাত থেকে তাদের বাড়িতে হোম কোয়ারেন্টাইনের মাধ্যমে চিকিৎসা দেয়া শুরু করা হয়েছে।

দৈনিক যুগের বার্তা সম্পাদক আবু সাইদ পিতা মাতাসহ করোনাক্রান্ত

দৈনিক যুগের বার্তা সম্পাদক আবু সাইদ পিতা মাতাসহ করোনাক্রান্ত





আজহারুল ইসলাম সাদীঃ জেলা প্রতিনিধিঃ গত ২৪ ঘন্টায় সাতক্ষীরায় ৬ জন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন, এর মধ্যে করোনাক্রান্ত হয়েছেন সাতক্ষীরা থেকে প্রকাশিত দৈনিক যুগেরবার্তা সম্পাদক আবু নাসের মোঃ আবু সাইদ ও তার পিতা ব্যবসায়ি আব্দুস সবুর এবং তার মা রাশিদা বেগম।

খুলনা পিসিআর ল্যাব থেকে আজ প্রাপ্ত রির্পোটে এ তথ্য জানা গেছে।

ঝিনাইদহে বিপুল পরিমান নকল প্রসাধনী জব্দ, ২ জনের কারাদন্ড

ঝিনাইদহে বিপুল পরিমান নকল প্রসাধনী জব্দ, ২ জনের কারাদন্ড




খোন্দকার আব্দুল্লাহ বাশার, ঝিনাইদহ জেলা প্রতিনিধি 




ঝিনাইদহ শহরের আরাপপুর থেকে বিপুল পরিমান নকল প্রসাধনী জব্দ করেছে র‌্যাব ও ভ্রাম্যমাণ আদালত। এসময় ২ জনকে ২ মাস করে কারাদন্ড ও ২০ হাজার টাকা করে জরিমানা করা হয়। দন্ডিতরা হলো-ঝিনাইদহের শৈলকুপা উপজেলার কুলচারা গ্রামের আতিয়ার রহমানের ছেলে হারুন মিয়া (৩০) ও একই গ্রামের আব্দুল কুদ্দুসের ছেলে পাভেল (২৮)। সোমবার দুপুরে এ অভিযান চালানো হয়।
র‌্যাব-৬ ঝিনাইদহ ক্যাম্পের কোম্পানী কমান্ডার মাসুদ আলম জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে দুপুরে শহরের আরাপপুর এলাকার একটি দোকানে অভিযান চালায় র‌্যাব ও ভ্রাম্যমাণ আদালত। এসময় নামি দামি কোম্পানীর বিপুল পরিমান নকল প্রসাধনী জব্দ করা হয়। পরে জড়িত থাকার অভিযোগে দোকানের মালিক হারুন ও পাভেলকে আটক করে ২ মাস করে কারাদন্ড ও ২০ হাজার টাকা জরিমানা করেন জেলা প্রশাসনের সহকারী কমিশনার নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট হেদায়েত উল্যাহ। জব্দকৃত মালামালের আনুমানিক মুল্যে প্রায় ৭ লাখ টাকা বলে জানিয়েছে র‌্যাব।

মিথ্যা মামলায় বন্দি জবি শিক্ষার্থীর মুক্তির দাবিতে সহপাঠীদের অনলাইন এক্টিভিটি

মিথ্যা মামলায় বন্দি জবি শিক্ষার্থীর মুক্তির দাবিতে সহপাঠীদের অনলাইন এক্টিভিটি





জবি প্রতিনিধিঃ
মিথ্যা হত্যা মামলা দিয়ে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) এর হিসাববিজ্ঞান বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী মুনির হোসেনকে গ্রেফতার করে কোর্টে চালান করে দেয়া হয়। দ্রুত মুক্তির জন্য তার বিশ্ববিদ্যালয়ের সহপাঠীরা অনলাইনে জনমত গঠন করার লক্ষ্যে মুনিরের নামে একটি গ্রুপ তৈরি করে।


প্রায় ১৬দিন আগে শরীয়তপুরের জাজিরা উপজেলার ভোলাই মুন্সিকান্দি গ্রামে আধিপত্য বিস্তার নিয়ে দুই পক্ষের সংঘর্ষে রিয়াজ মাদবর (১৭) নামে এক কিশোর নিহতের ঘটনায় জাজিরা থানা পুলিশ বিনা অপরাধে মুনিরকে গ্রেপ্তার করে এবং মামলা দিয়ে কোর্টে চালান করে দেয়। এতদিনে জামিন না হওয়ায় তার সহপাঠীরা অনলাইন এক্টিভিটির জন্য এ গ্রুপ খোলার সিদ্ধান্ত নেয়।


গ্রুপের সদস্য এবং মুনিরের সহপাঠী ফাইয়াজ বলেন, করোনার কারনে ক্যাম্পাস বন্ধ থাকায় সকল শিক্ষার্থী গ্রামে চলে যাওয়ায় আমরা এই অনলাইন এক্টিভিটির কথা চিন্তা করি যাতে করে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের দৃষ্টিতে আসে বিষয়টি। 


মুনিরের আরেক সহপাঠী নাজমুল ইসলামকে এই অনলাইন মুভমেন্টের পরবর্তী কর্মসূচি কি হতে পারে তা জিজ্ঞেস করলে তিনি বলেন, ''মনিরের মুক্তি চাই" নামে এই অনলাইন প্লাটফর্মকে কাজে লাগিয়ে আমরা প্রথমত বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের পক্ষ থেকে দায়িত্বশীল আচরণ কামনা করি। প্রয়োজনবোধে তার মুক্তির দাবিতে অবস্থান কমসূচি ছাড়াও সবাইকে সাথে নিয়ে আন্দোলনের আশা ব্যক্ত করি।

টাঙ্গাইলে সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময় করলেন নবনিযুক্ত জেলা প্রশাসক মোঃ আতাউল গনি

টাঙ্গাইলে সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময় করলেন নবনিযুক্ত জেলা প্রশাসক মোঃ আতাউল গনি




ডা.এম.এ.মান্নান 
টাঙ্গাইল জেলা প্রতিনিধি:টাংগাইল জেলা প্রশাসনের আয়োজনে আজ সোমবার, ১৩  জুলাই ২০২০ খ্রি. বেলা ১১ টায়, জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সম্মেলন কক্ষে টাংগাইলের সাংবাদিকদের সাথে নব জেলা প্রশাসক মো.আতাউল গনির মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়।

টাঙ্গাইলের নবাগত জেলা প্রশাসক মোঃ আতাউল গনি এর সাথে  মতবিনিময় সভায় উপস্থিত ছিলেন টাঙ্গাইল প্রেসক্লাবের সভাপতি অ্যাডভোকেট জাফর আহমেদ, সাধারণ সম্পাদক কাজী জাকেরুল মওলা সহ টাঙ্গাইলের  বিভিন্ন প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিকবৃন্দ

জনসংখ্যা নিয়ন্ত্রণ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের করণীয়

জনসংখ্যা নিয়ন্ত্রণ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের করণীয়





মনীষা তালুকদার  
জনসংখ্যা দেশের জন্য আর্শীবাদ ও অভিশাপ দুটোই হতে পারে। যখনই দেশের সম্পদ দেশের জনগণের তুলনায় অপ্রতুল হয়ে যায় তখনই দেশে জনসংখার বিস্ফোরণ হয় এবং এই বিস্ফোরণ নিয়ন্ত্রণ করা অতীব জরুরি হয়ে পরে।
জনসংখ্যা নিয়ন্ত্রণে শিক্ষার্থীদের ভূমিকা রাখতে হলে প্রথমে তাদেরকে জনসংখ্যা বিস্ফোরনের কারন জানতে হবে । তাই নিচে জনসংখ্যা বিস্ফোরন কারন সমেত শিক্ষার্থীদের কি ভূমিকা হতে পারে তা আলোচনা করা হলো:
১/ সমাজে বাল্যবিবাহ , বহুবিবাহ , ছেলে সন্তানের লোভে অধিক সন্তানের জন্ম দেওয়া মতো কুসংস্কার  রয়েছে যা জনসংখ্যা বৃদ্ধির জন্য দায়ী। 
২/ কুসংস্কারের  বিভিন্ন বেড়াজাল যে সমাজে ছড়িয়ে পড়ছে তার অন্যতম কারণ অশিক্ষা বা শিক্ষার অভাব ।
৩/ যখন দেশের মানুষের গড় আয়ু কম হয় এবং শিশু মৃত্যুর হার বেশি হয় তখনও দেশের জনগণ অধিক সন্তান প্রতি আগ্রহী হয়।
৪/ দারিদ্র্যতার হার বেশি আর নারীর মতামতের প্রাধান্য না থাকা জনসংখ্যার বিস্ফোরনে উদ্দীপক হিসেবে কাজ করে।
        
বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের ভূমিকা:
১/ শিক্ষার্থীরা বাল্য বিবাহ ও বহুবিবাহের কুপ্রভাব সম্পর্কে বিভিন্ন পোস্টার ছাপাতে পারে । বিভিন্ন  সমাবেশের আয়োজন করতে পারে। যেখানে পরিবারের সদস্যদের তারা বুঝাবে সন্তান ছেলে হোক আর মেয়ে পরিবারের ভার বহনে উভয়েই সক্ষম।
২/ দারিদ্র্যতা কমানোর জন্য বেশি সন্তানের জন্ম নয় বরং পরিবারের নারী সদস্যদের শিক্ষিত ও কর্মক্ষম হওয়ার জরুরি এটাও শিক্ষার্থীরা সমাজের মানুষকে বুঝাতে পারে।
৩/ জন্মনিয়ন্ত্রন পদ্ধতি সম্পর্কে সচেতন হওয়ার জন্য চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে উৎসাহিত করতে পারে।
৪/ বিভিন্ন ধর্মীয় নেতাদের সচেতনতা সৃষ্টিতে এগিয়ে আসার জন্য উদ্বুদ্ধ করতে পারে ।
৫/ শিশু মৃত্যুহার হ্রাসে গর্ভবতী ও প্রসূতি মায়েদের “মা ও শিশুর স্বাস্থ্য পরিচর্যা”, “মা ও শিশুর পুষ্টি” প্রভৃতি সম্পর্কে অবহিত করাতে পারে শিক্ষার্থীরা। 
উপরোক্ত সবগুলো কাজই বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা বিভিন্ন বেসরকারী সংস্থার সদস্য হিসেবে অথবা স্বেচ্ছাসেবী হিসেবে ভূমিকা রাখতে পারে।


মনীষা তালুকদার
শিক্ষার্থী, পরিসংখ্যান বিভাগ,
জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়, ঢাকা।

কুয়েতের আশ্রয় কেন্দ্রগুলি থেকে সাধারণ ক্ষমার সুযোগ গ্রহণকৃত অবৈধ অভিবাসী নাগরিকদের প্রত্যাবাসন প্রায় সম্পূর্ণ

কুয়েতের আশ্রয় কেন্দ্রগুলি থেকে সাধারণ ক্ষমার সুযোগ গ্রহণকৃত অবৈধ অভিবাসী নাগরিকদের প্রত্যাবাসন প্রায় সম্পূর্ণ



আকরাম হোসেন সুমনঃ

কুয়েতে ভিসা ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা সরকারের!!

 কুয়েতসিটিঃ কুয়েতের উপ-প্রধানমন্ত্রী, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এবং মন্ত্রিপরিষদ বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী আনাস আল-সালেহ আজ এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে ঘোষণা করেছেন, আশ্রয় কেন্দ্রগুলো থেকে সাধারণ ক্ষমার সুযোগ গ্রহণকৃত অবৈধ অভিবাসী নাগরিকদের নিজ নিজ দেশে পাঠানো (প্রত্যাবাসন) প্রায় সম্পূর্ণ।

মন্ত্রী আল-সালেহ বলেন, যে সব সরকারী কর্মচারী বা স্বেচ্ছাসেবক দল  "সুরক্ষা প্রতিষ্ঠানে আমার ভাই-বোনদের"কে কুয়েত ত্যাগের সুবিধার্থে আশ্রয় কেন্দ্রে দিনরাত পরিশ্রম করেছিল তাদের সকলকে আমার পক্ষ থেকে ধন্যবাদ জানাই ।

তিনি আরো ব্যাখ্যা করে বলেছেন যে কুয়েতে প্রতিটা  প্রতিষ্ঠান থেকে রেসিডেন্সি ভিসা ব্যবসায়ীদের নামে অভিজাত রোগটি নির্মূল করার জন্য কুয়েত সরকারের কঠোর  প্রচেষ্টা অব্যাহত থাকবে।

তিনি উল্লেখ করছেন যে এই আইন লঙ্ঘনকারীদের ফাইলের প্রতি আমার ব্যক্তিগত  অনুসরণ অব্যাহত থাকবে এবং  এই ব্যবসায় যারা কাজ করছেন এবং যারা তাদের সাথে সহযোগিতা করছেন তাদের জন্য আইনী ব্যবস্থা  আরো কঠোর হবে ও শাস্তির জন্য পর্যালোচনা করার জন্য কাজ করছেন । এবং সকলের ক্ষেত্রে শান্তির পরিমাণ সমান হবে, এবং সমান আইন প্রয়োগ করা হবে।

কুয়েতে নতুন রাষ্ট্রদূত হিসাবে দায়িত্ব পাচ্ছেন মেজর জেনারেল মোঃ আশিকুজ্জামান

কুয়েতে নতুন রাষ্ট্রদূত হিসাবে দায়িত্ব পাচ্ছেন মেজর জেনারেল  মোঃ আশিকুজ্জামান




দাইয়ানুর রহমান মিষ্টারনুরঃ

মেজর জেনারেল মোঃ আশিকুজ্জামানকে কুয়েতে বাংলাদেশের নতুন রাষ্ট্রদূত হিসেবে নিয়োগ দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। তিনি বর্তমান রাষ্ট্রদূত এস এম আবুল কালামের স্থলাভিষিক্ত হবেন।

রাষ্ট্রদূত হিসেবে এস এম আবুল কালামের চুক্তির মেয়াদ এ মাসেই শেষ হচ্ছে। মানবপাচার, অর্থপাচার ও শ্রমিক নিপীড়নের অভিযোগে কুয়েতের কারাগারে আটক সংসদ সদস্য (এমপি) কাজী সহিদ ইসলাম পাপুলের বিষয়ে এক মাসের বেশি সময়েও তিনি কুয়েত সরকারের কাছ থেকে আনুষ্ঠানিক তথ্য ঢাকায় জানাতে পারেননি। পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আবদুল মোমেন সম্প্রতি কুয়েতে নতুন রাষ্ট্রদূত পাঠানোর কথা সাংবাদিকদের জানিয়েছিলেন।

ঢাকায় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সোমবার কুয়েতে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত হিসেবে মেজর জেনারেল মো. আশিকুজ্জামানকে নিয়োগ দেওয়ার সিদ্ধান্তের বিষয়টি নিশ্চিত করেছে।

মেজর জেনারেল মো. আশিকুজ্জামান ১৯৮৮ সালে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীতে কমিশন লাভ করেন। বর্ণাঢ্য সামরিক জীবনে তিনি ইনস্ট্রাশানাল, স্টাফ ও কমান্ড পর্যায়ে বিভিন্ন দায়িত্ব পালন করেন। এছাড়া তিনি সিয়েরা লিওন, আইভরি কোস্ট ও কঙ্গোতে জাতিসংঘের তিনটি শান্তি সহায়ক মিশনেও দায়িত্ব পালন করেছেন।

রাষ্ট্রদূত হিসেবে নিয়োগের আগে তিনি বাংলাদেশে ন্যাশনাল ডিফেন্স কলেজে সিনিয়র ডিরেক্টিং স্টাফ (আর্মি) হিসেবেও দায়িত্ব পালন করেছেন। তিনি জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ‘মাস্টার্স অব ডিফেন্স স্টাডিজ’ ও ‘মাস্টার্স অব স্ট্র্যাটেজিক স্টাডিজ’ অর্জন করেছেন।

মাটিরাঙ্গায় টানা দু' দিন বর্ষণে ভূমি ধস

মাটিরাঙ্গায় টানা দু' দিন বর্ষণে ভূমি ধস







মাহফুজা আক্তার, মাটিরাঙ্গা পৌরসভা (খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা) প্রতিনিধিঃ

খাগড়াছড়ি জেলার মাটিরাঙ্গা পৌরসভার নবীনগর ০২নং ওয়ার্ডে নবনির্মিত রাস্তা টানা দুই দিনের বৃষ্টিতে ভেঙে পড়েছে। এতে করে রাস্তার পার্শ্ববর্তী স্থানীয়দের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে।হতদরিদ্র স্থানীয়দের আবাসস্থলের অনেক অংশ ধসে পড়েছে।গত একমাস পূর্বে নবীনগরবাসীর দুর্ভোগ পোহাতে এ রাস্তা নির্মাণ করা হয়েছিল।এই রাস্তা পুনরায় সংস্করণের জন্য প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি।

কয়রায় প্রতিবন্ধীদের মাঝে মানব কল্যাণ ইউনিটের উপহার সমগ্রী বিতরন

কয়রায় প্রতিবন্ধীদের মাঝে মানব কল্যাণ ইউনিটের উপহার সমগ্রী বিতরন



ফরহাদ হোসেন কয়রা খুলনা প্রতিনিধিঃ
খুলনার কয়রা উপজেলায় আম্পান ক্ষতিগ্রস্ত প্রতিবন্ধীদের মাঝে খাদ্য সমগ্রী বিতরন করেছে  বাংলাদেশ হুইলচেয়ার ক্রিকেট টিম।  বিশেষ ভাবে ৪৫ জন (প্রতিবন্ধি) ভাই/ বোন এর কাছে উপহার পৌঁছে দেওয়া হয়েছে। খাদ্য তালিকায়  চাল ৫ কেজি, তেল১ কেজি, আলু, ২কেজি, ডাল-৫০০গ্রাম, চিনি৫০০, পেয়াজ, লবন, সিমাই সহ ১১ প্রকারের খাদ্য সামগ্রী বিতরন করা হয়।

এলাকার প্রতিবন্ধী এ সকল ভাই ও বোন দের পক্ষ থেকে বাংলাদেশ হুইলচেয়ার ক্রিকেট টিমের অধিনায়ক মোহাম্মদ মোহাসিন এবং  "অঙ্কুর ইন্টারন্যাশনাল" এর কাছে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

সার্বিক ব্যবস্থাপনা ও খাদ্য সমগ্রী বিতরন করেন  মানব কল্যাণ ইউনিট!  এসময় উপস্থিত ছিলেন মানব কল্যান ইউনিটের সভাপতি আল আমিন ফরহাদ, সাধারন সম্পাদক, 
জাহানের আলম, সহ সাধারন সম্পাদক ইমরান হোসাইন ও মেহেদী হাসান, সাংগঠনিক সম্পাদক রায়হান কবির সহ ইউনিটের সদস্য বৃন্দ! 

প্রতিবন্ধীদের জন্য আর্থিক সহায়তায় হাত বাড়িয়ে দেয়া বাংলাদেশ হুইলচেয়ার ক্রিকেট টিমের অধিনায়ক মোহাম্মদ মহসিন ও অঙ্কুর ইন্টারন্যাশনালকে ধন্যবাদ দিয়ে সভাপতি আল আমিন ফরহাদ বলেন" আমরা আম্ফান পরবর্তী প্রায় ৪০০ দুস্ত অসহায় পরিবারে পাশে দাঁড়িয়েছি, এখন আলদা আলাদা শ্রেনীর মানুষের জন্য কিছু করার চেষ্টা করছি, আজ ৪৫ জন প্রতিবন্ধীদের মাঝে খাদ্য সামগ্রী দিতে পেরে ভাল লাগছে! প্রতিবন্ধীদের জন্য আমাদের আরো কিছু পরিকল্পনা আছে! ধারাবাহিক ভাবে করবো ইনশাআল্লাহ!

শান্তিপূর্ণ পরিবারিক বিরোধ মীমাংসা ববিতা বনাম দীপু আজ তাদের সুখের সংসার

শান্তিপূর্ণ পরিবারিক বিরোধ মীমাংসা  ববিতা বনাম দীপু  আজ তাদের সুখের সংসার




 দিনাজপরঃ দিনাজপুর জেলার সদর উপজেলার ৭ নং উথরাইল ইউনিয়ন পরিষদের রাম চন্দ্র পুর হিন্দু পাড়া যে, গ্রামটি মন্ডল পাড়া নামেও পরিচিত। উক্ত গ্রামের মৃত- মন্টু চন্দ্র রায়ের ও পারুল রানী রায়ের একমাত্র কন্যা ববিতা রানী রায় একজন বাক-প্রতিবন্ধী। ৫ বছর পূর্বে একই ইউনিয়নের গদাগাড়ী, গসাইপুর গ্রামের ভোলানাথ রায় ও বিভা রানী রায়ের ছেলে দীপু চন্দ্র রায়ের সাথে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হয়ে সুখে সংসার করা কালীন তাদের কোলে এক ফুটফুটে পুত্র সন্তানের জন্ম হয়। কিন্তু হঠাৎ ১ বছর পূর্বে তাদের সংসারে ভূল বুঝির সৃষ্টি হলে ভেঙ্গে যেতে শুরু করে সেই সংসার। স্বামীর নির্যাতন সইতে না পেরে ববিতা রানী রায় ছেলেকে নিয়ে চলে যায় বাবার অবর্তমানে ভাইয়ের সংসারে। স্থানীয় ভাবে চেয়ারম্যান, মেম্বার তাদের এই বিরোধ বহুবার মীমাংসা করলেও ভাঙ্গা সংসার জোড়া লাগেনি। ববিতা ও দীপুর উভয়ে পরিবারের মধ্যে চরম উত্তেজনা। ববিতা বাক্ প্রতিবন্ধিতা বিধায় বিয়ের সময় যথাযথ উপঢৌকন ব্যতিত ১০ কাঠা জমি লিখে দেয় ববিতাকে। বাক্- প্রতিবন্ধী হলেও কিন্তু সুদর্শিত ববিতা সব কিছু করতে পারে এবং সংসার পরিচালনায় তার অনবদ্য দক্ষতা পরিলক্ষিত হয়েছে। দীর্ঘ বিরোধ মীমাংসার লক্ষে ০৯/০৫/২০২০ এই তারিখে বিদ্যুৎ কান্তি রায় নামক এক ব্যক্তির মাধ্যমে কমিউনিটি ডেভেলপমেন্ট সেন্টার (সিডিসি), দিনাজপুর এর নির্বাহী পরিচালক, দৈনিক বাংলা সময় এর দিনাজপুর জেলা প্রতিনিধি মানবাধিকার কর্মী যাদব চন্দ্র রায়ের নিকট আবেদন করলে ১১/৫/২০২০ইং তারিখে শান্তি পূর্ণভাবে তাদের বিরোধ নিস্পত্তি করা হয়। প্রতিবেদকালীন সময় পর্যন্ত জানা যায় ববিতা ও দীপুর পরিবারে শুধু সুখ আর সুখ। শশুর, শাশুরী, পুত্র সন্তান সহ স্বামীকে নিয়ে আজ ববিতার সুখের সংসার। সৃষ্টি কর্তা তাদের সুখে রাখুক এই শুভ কামনা করেন সিডিসি’র নির্বাহী পরিচালক, সাংবাদিক ও মানবাধিকার কর্মী যাদব চন্দ্র রায়।

বিদ্যালয়ের গাছ কাটায় বাধা দেয়ায় শিক্ষককে মারধর

বিদ্যালয়ের গাছ কাটায় বাধা দেয়ায় শিক্ষককে মারধর




মামুনুর রশিদ, দিনাজপুর প্রতিনিধি ঃ বিদ্যালয়ের গাছ কাটায় বাধা দিলে শিক্ষককে মারধর করেন একই স্কুলের সহসভাপতি। লাঞ্ছিত ঐ শিক্ষকের অভিযোগ কোন প্রকার অনুমতি ছাড়া স্কুলের গাছ কেটে নিয়ে যায় স্থানীয় প্রভাবশালী ও স্কুল কমিটির সহসভাপতি গোলাম মোস্তফা মুক্তাও তার সাথীরা। গাছ কাটার ব্যাপারে উপজেলা শিক্ষা অফিসারকে অভিযোগ করলে শিক্ষকের উপর ক্ষিপ্ত হয়ে দলবল নিয়ে মারধর করে গোলাম মোস্তফা। এদিকে অভিযুক্ত মোস্তফা গাছটি স্কুল সীমানার বাহিরে বলে দাবী করে এবং শারীরিকভাবে লাঞ্ছিতর বিষয়ে কথা বলতে নারাজ। 
দিনাজপুর পার্বতীপুরের উত্তর কালীকাপুর নয়াপাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের একটি গাছ কাটতে স্কুলের সহকারী শিক্ষক সাজেদুর রহমান বাধা দিলে তাকে মারধরসহ বিভিন্ন হুমকি প্রদান করেন একই স্কুলের ম্যানেজিং কমিটির সহসভাপতি গোলাম মোস্তফা মুক্তা। শিক্ষকের অভিযোগ, কোন প্রকার অনুমোতি না নিয়ে গত ৭ জুলাই মঙ্গলবার দুপুরে মোস্তফা স্কুলের একটি গাছ কর্তন করে। পরে স্কুলের ঐ সহকারী শিক্ষক বিষটি উপজেলা শিক্ষা অফিসারকে অবগত করেন। এরই জের ধরে গোলাম মোস্তফা ওরফে মুক্তা ক্ষিপ্ত হয়ে ৮ জুলাই বুধবার রাতে তার দলবলসহ কালীকাপুর বাজারে মটরসাইকেল থেকে নামিয়ে শিক্ষক সাজেদুরকে মারধর করে। পরে স্থানীয় লোকজন ও পরিবারের সদস্যরা সেখান থেকে তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যায়। গোলাম মোস্তফা স্থানীয় প্রভাবশালী হওয়ায় বর্তমানে সেই শিক্ষক ও তার পরিবারকে নানা রকমের হুমকি ধামকি প্রদান করছে বলে অভিযোগ শিক্ষক সাজেদুরের। ভূক্তোভোগিরা এই ঘটনার দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবী জানিয়েছেন।
বিষয়টি পার্বতীপুর উপজেলা চেয়ারম্যানের নিকট একটি লিখিত অভিযোগ করা হয়। বিষয়টি নিয়ে তাদের দুইপক্ষকে ডাকা হয়েছে এবং স্থানীয়ভাবে সমাধান না হলে প্রয়োজনে ভূক্তোভোগি আইনের আশ্রয় গ্রহন করবে বলে জানালেন উপজেলা চেয়ারম্যান।
এদিকে ঘটনাস্থলে গোলাম মোস্তফাকে পাওয়া গাছ কাটার বিষয়টি স্বীকার করে তিনি বলেন, গাছটি স্কুল সীমানার ভিতরে নয়। তবে শিক্ষককে মারধরের বিষয়টি এড়িয়ে যায় এবং ক্যামেরার সামনে কথা বলতে রাজি হয়নি।

জবির অনলাইন ক্লাসে থাকছে না উপস্থিতির নম্বর

জবির অনলাইন ক্লাসে থাকছে না উপস্থিতির নম্বর





জবি প্রতিনিধিঃ
ইন্টারনেট সমস্যা নিয়ে শিক্ষার্থীদের দুশ্চিন্তার দূর করতে অনলাইন ক্লাসে উপস্থিতির নম্বর বাদ দেওয়ার কথা জানিয়েছে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। প্রত্যেক সেমিস্টারের প্রতিটি কোর্সে ১০০ নম্বরের মধ্যে উপস্থিতির জন্য থাকে ১০ নম্বর বরাদ্দকৃত থাকে।


এখন পরিবর্তিত পরিস্থিতিতে ক্লাস উপস্থিতির নম্বর ‘ক্লাস পারফরম্যান্সের’ মাধ্যমে নেওয়া হবে বলে ও জানিয়ে দিয়েছেন জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের মাননীয় উপাচার্য অধ্যাপক ড. মীজানুর রহমান।


প্রতিবেদকের সাথে ফোন আলাপে তিনি বলেন, “অনলাইন ক্লাসে অনুপস্থিত থাকার জন্য কারো কোনো নম্বর কাটা যাবে না। প্রতিটা সেশনে কতজন অংশগ্রহণ করেছে তা নোট রাখতে পারবে। পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে বিশ্ববিদ্যালয়ে এসে শিক্ষার্থীরা অ্যাসাইনমেন্ট ও প্রেজেন্টেশন দেবে৷ তখন তাদের ক্লাস পারফরম্যান্সের নম্বর দেওয়া হবে।”


করোনা ভাইরাস সংক্রমণ এড়াতে গত ১৭ মার্চ থেকে প্রায় সাড়ে ৩ মাস ক্লাস বন্ধ থাকার পর গত ২ জুলাই জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের অনলাইনে ক্লাস চালুর নির্দেশনা দেয় বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। কয়েকটি বিভাগ ইতোমধ্যেই ক্লাস শুরু করলেও ইন্টারনেট সংযোগের কারণে ক্লাসে উপস্থিতি নিয়ে দুশ্চিন্তায় রয়েছেন অনেক শিক্ষার্থী। 



পদার্থ বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থী মিথিলা দেবনাথ ঝিলিক বলেন, “আমাদের অনেক শিক্ষার্থীই গ্রামে রয়েছে। সেখানে নেটওয়ার্কের যা অবস্থা, তাতে অনলাইন ক্লাসে নিয়মিত অংশ নেওয়া কঠিন। বাড়িতে অনেকের প্রয়োজনীয় ডিভাইসও নেই।

“আবার ডিভাইস থাকলেও ডেটা কিনতে হিমশিম খেতে হয়। বাড়িতে থাকলেও ঢাকায় তাদের মেস ভাড়া দিয়ে যেতে হচ্ছে। এগুলো সুরাহা না করেই অনলাইন ক্লাসে যাওয়ার সিদ্ধান্ত পুনর্বিবেচনা করা উচিত।”

অনলাইন ক্লাসে ভিডিও কনফারেন্সে যুক্ত থাকতে প্রচুর ইন্টারনেট ডেটা লাগে। নিম্ন-মধ্যবিত্ত পরিবারের অনেকের পক্ষেই নিয়মিত সেই ব্যয় চালিয়ে যাওয়া কঠিন বলে মন্তব্য করেন পরিসংখ্যান বিভাগের তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী শ্যামল। 

তিনি বলেন, “কাউকে বঞ্চিত করে এভাবে ক্লাস চালিয়ে নেওয়া যুক্তিযুক্ত না। সবাইকে অনলাইন ক্লাসের আওতায় আনতে কর্তৃপক্ষের ভাবা উচিত।”


এ বিষয়ে অনলাইনে শিক্ষার্থীদের মতামত নেওয়ার কথা জানিয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র অধিকার পরিষদের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহমুদুল হাসান মিশু।

তিনি বলেন, “যারা টিউশনি বা খণ্ডকালীন চাকরি করে খরচ চালাতেন, তারা সবচেয়ে বিপাকে পড়েছেন। অনেকে ভাড়া দিতে না পেরে মেস ছেড়ে দিচ্ছেন।

“আমরা ফেইসবুক গ্রুপে দুটি জরিপ করে মতামত নিয়েছি। যেখানে ৯৫ শতাংশ শিক্ষার্থীই মেস ভাড়া সমস্যা সমাধান না হলে এবং ইন্টারনেট খরচ না দিলে অনলাইন ক্লাসের বিপক্ষে। কিন্তু শিক্ষার্থীদের বর্তমান সমস্যার সমাধান না করেই কর্তৃপক্ষ সিদ্ধান্ত নিচ্ছেন।”

বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার প্রকৌশলী মোঃ ওহিদুজ্জামান এ বিষয়ে বলেন, “অনলাইন ক্লাস ছাড়া তো বিকল্প কিছু নেই আমাদের হাতে। পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে ওরা যখন আসবে, তখন তাদের রিফ্রেশ ক্লাস নেওয়া হবে।"

ঝিনাইদহে সর্বোচ্চ ৩৭ জন করোনায় আক্রান্ত, মৃত্যু -১ এবং উপসর্গ নিয়ে মৃত্যু ২

ঝিনাইদহে সর্বোচ্চ ৩৭ জন করোনায় আক্রান্ত, মৃত্যু -১ এবং উপসর্গ নিয়ে মৃত্যু ২






সম্রাট হোসেন, শৈলকুপা (ঝিনাইদহ)  সংবাদদাতাঃ

১৩_৭_২০২০ইংতারিখের কোভিড-১৯ এর আপডেট তথ্য :


অফিসিয়াল ভাবে আমাদের কাছে কুষ্টিয়া_ল্যাব থেকে আরো ৮৪টিনমুনার ফলাফল এসেছে। যার ৪৭জন_নেগেটিভ এবং ৩৭জন_নতুন_আক্রান্ত। 

মোট প্রাপ্ত ফলাফলের সংখ্যা২৬০৪+৮৪=২৬৮৮
নেগেটিভ_২২৩৬
আক্রান্ত_৪১৫+৩৭=৪৫২

মোট_সংগৃহীত_নমুনার_সংখ্যা_৩০০৮

উপজেলা_ভিত্তিক_আক্রান্তের_মোট_সংখ্যা 
সদর_১৪৬+২১=১৬৮
শৈলকূপা_৬১+৬=৬৭
হরিনাকুন্ডু_১৮+১=১৯
কালীগন্জ_১৪২+৬=১৪৮
কোটচাদপুর_২৫+১=২৬
মহেশপুর_২৩+২=২৫

আক্রান্তদের_এলাকা_সমুহ

সদর_(২১)-
১. সদর হসপিটাল ঝিনাইদহ
২. হামদহ
৩. হামদহ
৪. হাটগোপাল পুর
৫. হাটগোপাল পুর
৬. আরাপপুর সোনালী পাড়া
৭. পার্ক পাড়া ঝিনাইদহ
৮. পার্ক পাড়া ঝিনাইদহ
৯. কাঞ্চন নগর
১০. লৌহজঙ্গা, ঝিনাইদহ সদর
১১. আরাপপুর 
১২. আদর্শপাড়া
১৩. শহীদ মশিউর রহমান সড়ক
১৪. আরাপপুর 
১৫. ব্যাপারী পাড়া
১৬. ঝিনুক টাওয়ার, ঝিনাইদহ সদর
১৭. উপশহর পাড়া
১৮. ভুতিয়ারগাতি
১৯. হলিধানি
২০. আরাপপুর 
২১. চাকলা পাড়া

কালীগঞ্জ_(৬)-
১. বারবাজার হাইওয়ে থানা
২. ফয়েলা 
৩. বারবাজার হাইওয়ে থানা
৪. ঢাকালে পাড়া 
৫. ঢাকালে পাড়া 
৬. বিকাশ অফিস 

শৈলকূপা_(৬)-
১. কাচেরকোল
২.গাড়াগঞ্জ চন্ডীপুর
৩.দুধসর
৪.গাড়াগঞ্জ চন্ডীপুর
৫.গাড়াগঞ্জ চন্ডীপুর
৬.উমেদপুর।

কোটচাঁদপুর_(১)-
১. বাস স্ট্যান্ড কোর্ট

মহেশপুর_(২)-
১. মহেশপুর পৌরসভা
২. পুরন্দরপুর, ফতেহপুর

হরিনাকুন্ডু_১
১.সনাতনপুর

​মোট_সুস্থতার_সংখ্যা_১৪৩+৪=১৪৭

উপজেলা_ভিত্তিক_সুস্থতার_সংখ্যা

সদর_৪০+১=৪১
শৈলকূপা_১৬
হরিনাকুন্ডু_৬
কোটচাঁদপুর_১৮
কালীগন্জ_৫৩+৩=৫৬
মহেশপুর_১০

কোভিড_১৯_হাসপাতালে_ভর্তি_রোগীর_সংখ্যা_২৩

মোট_মৃত্যুর_সংখ্যা_৮+২=১০
সদর_১+১=২
শৈলকূপা_৩
কালিগন্জ_৪+১=৫
 
উপসর্গ নিয়ে মৃত্যু বরণ কৃত দুইজনের বাড়ির সদর উপজেলায়।

করোনাভাইরাস মোকাবিলায় যেভাবে সফল হলো সিঙ্গাপুর

করোনাভাইরাস মোকাবিলায় যেভাবে সফল হলো সিঙ্গাপুর





মোঃনাইম শেখ, সিঙ্গাপুর প্রতিনিধি 

আমার দৃষ্টিতে সিঙ্গাপুর করোনাভাইরাস মোকাবিলায় সফল৷ সর্বশেষ আপডেট অনুযায়ী সিঙ্গাপুরে এই পর্যন্ত মোট ৪৫৯৬১ জন করোনায় আক্রান্ত ব্যক্তি শনাক্ত করা হয়েছে। সুস্থ হয়েছেন ৪২২৮৫ জন৷ আর করোনায় আক্রান্ত হয়ে এই পর্যন্ত মৃত্যুবরণ করেছেন ২৬ জন৷ 
শুরু থেকে তাদের কার্যকরী পদক্ষেপের কারনেই সিঙ্গাপুর করোনা মোকাবিলায় সফল হতে পেরেছে৷ তারা শুরুতেও বিভিন্ন মন্ত্রনালয়ের সমন্বয়ে মাল্টি-মিনিস্টি ট্রাস্কফোর্স গঠন করে বিভিন্ন নির্দেশনা জারি করতে থাকে। 

আসুন সংক্ষেপে জেনে নেই শুরু থেকে এই পর্যন্ত তারা কি এমন পদক্ষেপ নিলো যার কারনে তারা করোনা মোকাবিলায় সফল হলো৷ 

১) শুরুতেই চায়না থেকে ফেরত ব্যক্তিদের ১৪ দিনের লিভ অব এবসেন্সে পাঠানো হয়। এই ১৪ দিন তারা বাসায় থাকবে। তাদেরকে পর্যবেক্ষণ করা হবে। যদি ১৪ দিনের মধ্যে শরীরে করোনাভাইরাসের লক্ষন দেখা না যায় তবেই কাজে যেতে পারবে৷

২) প্রতিটি বাস, ট্রেন, ট্যাক্সি এমনকি শপিং মলের সিঁড়ি, লিফট ক্যামিকেল স্প্রে করে ভাইরাস মুক্ত করা হয়৷ 

৩) স্থানীয় ও অভিবাসী প্রত্যেকের দৈনিক ২ বার শরীরের তাপমাত্রা চেক করা হয়৷

৪) কারো সর্দি, কাশি, জ্বর অর্থাৎ ভাইরাসের লক্ষন দেখা দিলে আলাদাভাবে চিকিৎসা দেওয়া হয় এবং পরীক্ষায় করোনাভাইরাস কনফার্ম হলে নিবিড় পর্যবেক্ষনে চিকিৎসা করা হয়৷ 

৫) কোন এক গ্রুপের একজন বা কোন বাসার একজনের শরীরে করোনাভাইরাস পাওয়া গেলে সে পরিবার বা গ্রুপের সকলকে আলাদাভাবে ১৪ দিন কোয়ারেন্টাইনে পর্যবেক্ষণ করা হয়৷ যাতে করোনাভাইরাস ছড়াতে না পারে৷ 

৬) করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীদের সরকারি খরচে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে৷ 

৭) কনস্ট্রাক ট্রেসের জন্য তারা ট্রেসটুগেদার নামে একটি অ্যাপ চালু করে৷ যার মাধ্যমে করোনায় আক্রান্ত ব্যক্তি কারো সংস্পর্শে গেলে খুব সহজেই কনট্রাক ট্রেস করে তাকে কোয়ারেন্টাইনে পাঠানো হয়। 

৮) বিদেশ ফেরতদের বাধ্যতামূলক ১৪ দিনের স্টে হোম নোটিশ দেওয়া হয়৷ 

৯) সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতে বিভিন্ন মন্ত্রনালয় থেকে বিভিন্ন জনসচেতনতামূলক পোস্ট আপডেট দেওয়া হয়৷। 

কিন্তু হঠাৎ করে ডরমিটরিগুলোতে করোনাভাইরাস সংক্রমণের হার বেড়ে যায়৷ তখন তারা দ্রুত কিছু কার্যকরী পদক্ষেপ নেয়। 

১০) ডরমিটরিগুলোতে যাতে ব্যাপকহারে করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়তে না পারে তারজন্য তারা ঝুকিপূর্ণ ডরমিটরিগুলোকে আইসোলেশন ঘোষণা করে। 

১১) ডরমিটরিতে অবস্থানরত শ্রমিকদের জন্য ফ্রি খাবার, ইন্টারনেট, চিকিৎসা সেবা ও নিত্যপ্রয়োজনীয় সুযোগ সুবিধা প্রদান করা হয়। 

১২) ডরমিটরিগুলোতে অস্থায়ী মেডিকেল বুথ গঠন করা হয়। যেখানে অভিবাসী কর্মীরা চিকিৎসা সেবা নিতে পারে৷ 

১৩) কন্সট্রাকশন সেক্টরে কর্মরত সকল শ্রমিককে স্টে হোম নোটিশ দেওয়া হয়৷ 

১৪) করোনাভাইরাসে আক্রান্তের চিকিৎসা সুবিধার জন্য এক্সপো, জাহাজ, আর্মি ক্যাম্প,হোটেল ও HDB ফ্লাটে অস্থায়ী বাসস্থান করা হয়। সেখানে শারীরিকভাবে সুস্থ তাদের পর্যবেক্ষণ করা হয়৷ 

১৫) মাস্ক পড়া বাধ্যতামূলক করা হয়৷ 

১৬) নিরাপদ সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখার ক্ষেত্রে কঠোর নির্দেশনা জারি করা হয়। 

১৭) অভিবাসী কর্মীদের কর্মক্ষেত্রে ফিরে যাবার আগে করোনাভাইরাস পরীক্ষা বাধ্যতামূলক করা হয়৷ 

১৮) প্রত্যেক শ্রমিকদের জন্য তিনটি অ্যাপ ডাউনলোড করা বাধ্যতামূলক করা হয়। 

১৯) ডরমিটরিগুলো করোনাভাইরাস মুক্ত করার প্রতি জোর দেওয়া হয়৷ 

সিঙ্গাপুর সরকার,বেসরকারি এনজিও, জনগন ও রাজনৈতিক নেতারা একসাথে কাজ করার কারনেই তারা করোনাভাইরাস মোকাবিলায় সফল।

ঈদুল আজহার নামাজের জামাত হবে মসজিদে

ঈদুল আজহার নামাজের জামাত হবে মসজিদে








আব্দুর রাজ্জাক হরিরামপুরঃ
পবিত্র ঈদুল আজহার নামাজের জামাত হবে মসজিদে করোনা ভাইরাস সংক্রমনের কারণে ঈদুল আজহার   নামাজ খোলা মাঠে হবে না। মসজিদে আদায় করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বাংলাদেশ সরকার। করোনা ভাইরাস সংক্রমণ ঠেকাতে ঈদগাহে কিংবা খোলা জায়গায়  ঈদের নামাজে জামাত হবে না। রোববার ১২ জুলাই সচিবালয়ে এক সিদ্ধান্ত হয়। এ তথ্য নিশ্চিত করেছে  ধর্ম মন্ত্রণালয়ের জনসংযোগ কর্মকর্তা মোঃ আনোয়ার হোসাইন। ধর্ম সচিব মোঃ নূরুল ইসলামের সভাপতিত্বে সভায় সরকারের বিভিন্ন বিভাগের কর্মকর্তারাসহ দেশের বরেন্য উলামায়ে কেরামরা উপস্থিত ছিলেন। 
করোনা ভাইরাস এর কারনে গত ঈদুল ফিতরের নামাজের জামাত মসজিদে আদায় করা হয়। এ ব্যাপারে আগেই সরকারের পক্ষ থেকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার কথাবলা হয়।এ ব্যাপারে আরো সিদ্ধান্ত হয়। এ বছর করোনা ভাইরাস সংক্রমণ পরিস্থিতি বিবেচনায়। স্বাস্থ্যবিধি মেনে ঈদের প্রধান জামাত জাতীয় ঈদগাহের পরিবর্তে জাতীয় মসজিদ বাইতুল মোকারামে অনুষ্ঠিত হবে। কোরবানির বর্জ্য দিয়ে যাতে পরিবেশে দুর্গন্ধময় না হয়। সে বিষয়ে সবধরনের ব্যবস্থা নেয়া হবে। ঈদুল আজহা উপলক্ষে রাষ্ট্রপ্রতি প্রধানমন্ত্রী জাতির উদ্দেশ্য ভাষণ দিবেন। সরকারি বেসরকারি ভবণ এবং বিদেশের বাংলাদেশ মিশন গুলোতে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করা হবে এবং ঈদ মোবারক খচিত ব্যানার ঢাকা মহানগরের গুরুত্বপূর্ণ ট্রাফিক আইল্যআইল্যান্ডগুলোতে প্রদশনের সিদ্ধান্ত  হয়। ঈদুল আজহার রাতে বিভিন্ন সরকারি গুরুত্বপূর্ণ ভবণ গুলোতে আলোকসজ্জা করা হবে। সারা বাংলাদেশ বিভিন্ন, জেল, উপজেলা, সিটি কর্পোরেশন, পৌরসভা, সশস্ত্র বাহিনী বিভাগ এবং বেসরকারি সংস্থাগুলোর প্রধানেরা জাতীয় কর্মসূচির আলোকে নিজ নিজ কর্মসূচি প্রণয়ন করে পবিত্র ঈদুল আজহা উদযাপন করবে।

ঝিনাইদহের সাবেক পুলিশ সুপার, করোনা আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসা ধিন অবস্থায় পুলিশ হাসপাতালে মৃত্যু

ঝিনাইদহের সাবেক পুলিশ সুপার, করোনা আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসা ধিন অবস্থায় পুলিশ হাসপাতালে  মৃত্যু
 




খোন্দকার আব্দুল্লাহ বাশার। 
( ঝিনাইদহ জেলা প্রতিনিধি) 



ঝিনাইদহের সাবেক পুলিশ সুপার এবং বতর্মানে মহানগর গোয়েন্দা (দক্ষিন)বিভাগের উপ-পুলিশ কমিশনার  মোঃ মিজানুর রহমান করোনা আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন। ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাহি রাজিউন।

করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে তিনি গত ২৮ জুন, ২০২০ খ্রিঃ হতে রাজারবাগ কেন্দ্রীয় পুলিশ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন। সেখানে তাঁর শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে আইসিইউ তে স্থানান্তর করা হয়। আইসিইউ তে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি অদ্য ১৩ জুলাই, ২০২০ খ্রিঃ রাত ৩ঃ৪১ ঘটিকায় মৃত্যুবরণ করেন।

ফেসবুকে ও গণমাধ্যমে নোবিপ্রবি'র বর্তমান ভিসিকে নিয়ে সাবেক ভিসির কুরুচিপূর্ণ মক্তব্য: নীলদলের নিন্দা ও প্রতিবাদ

ফেসবুকে ও গণমাধ্যমে নোবিপ্রবি'র বর্তমান ভিসিকে নিয়ে সাবেক ভিসির কুরুচিপূর্ণ মক্তব্য: নীলদলের নিন্দা ও প্রতিবাদ




নোবিপ্রবি প্রতিনিধি

নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের(নোবিপ্রবি) বর্তমান উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. দিদার-উল-আলমকে নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক পোস্টে ও এস এ টেলিভিশনের টকশোতে সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক ড. এম অহিদুজ্জামানের মন্তব্যের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছে নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়(নোবিপ্রবি) নীল দল। 

রবিবার(১২ জুলাই) রাতে নোবিপ্রবি নীলদলের সভাপতি ড. ফিরোজ আহমেদ ও সাধারণ সম্পাদক বিপ্লব মল্লিক স্বাক্ষরিত এক প্রতিবাদ লিপিতে এ প্রতিবাদ জানায় নীল দল।

প্রতিবাদলিপিতে বলা হয়, নীল দল, নোবিপ্রবি অত্যন্ত ক্ষোভের সঙ্গে জানাচ্ছে যে, গত ৯ জুলাই ২০২০ এস এ টেলিভিশনের এক টকশোতে দুর্নীতি প্রসঙ্গে বলতে গিয়ে নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের মাননীয় উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. দিদার-উল-আলমকে ইঙ্গিত করে সাবেক উপাচার্য বলেন
'মনে করেন যে, আমি একটা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ছিলাম। বলা যায় যে, চল্লিশ বছর আমাকে চেনে সবাই। আমারটা কিন্তু এজেন্সিতে যাচাই হয়েছে। আর যারা দেখা যায় যে বাংলাদেশই মানেনা, আওয়ামীলীগের লোকতো নই-ই, তাকে যে ওখানে যে উপাচার্য করা হলো, এই ফাইলটা কিন্তু সরাসরি প্রধানমন্ত্রীর হাতে গিয়ে সাইন হয়েছে। এটা কিন্তু আর এজেন্সিতে গেলো না'।

প্রতিবাদলিপিতে আরো বলা হয়,
আমরা নীল দল, নোবিপ্রবি পরিবার
দ্ব্যর্থহীন ভাষায় বলতে চাই, বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য একজন ব্যক্তি নন, একটি প্রতিষ্ঠান। বর্তমান উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. দিদার-উল-আলম সম্পর্কে সাবেক উপার্চায মহোদয় কুরুচিপূর্ণ বক্তব্য দিয়ে শুধু এই প্রতিষ্ঠানকে খাটো করেননি, তিনি নোবিপ্রবি একই সঙ্গে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশের মহামান্য রাষ্ট্রপতি ও বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সাংবিধানিক ক্ষমতাবলের নিয়োগ প্রক্রিয়াকে প্রশ্নবিদ্ধ করে তাঁদেরকে জাতির সামনে হেয় প্রতিপন্ন করেছেন। 
আরও উল্লেখ্য যে, গত ০৮ মে ২০২০ নোবিপ্রবি জনসংযোগ দপ্তরের একটি পোস্টে সাবেক উপার্চায অধ্যাপক ড. এম অহদিুজ্জামান কুয়েতে গ্রেফতার হওয়া লক্ষ্মীপুর -২ আসনের বিতর্কিত সাংসদ  কাজী শহিদ ইসলাম পাপলু ও তার স্ত্রী কাজী সেলিনা ইসলাম এমপি এবং সম্প্রতি দুর্নীতির দায়ে অভিযুক্ত রিজেন্ট গ্রুপের চেয়ারম্যান মো. সাহেদের সঙ্গে মিলিয়ে মাননীয় উপাচার্য মহোদয়কে নিয়ে আপত্তকির মন্তব্য করছেনে। 
নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি শ্বিবদ্যিালয়ের মাননীয় উপার্চাযকে জড়িয়ে এহেন অনভিপ্রেত মন্তব্যের  মাধ্যমে বিশ্ববিদ্যালয়ের সম্মানহানি করায় আমরা নীলদল, নোবিপ্রবি তীব্র প্রতিবাদ ও ঘৃণা জানাচ্ছি। অধ্যাপক ড. এম অহিদুজ্জামানের বক্তব্য অনভিপ্রেত ও অত্যন্ত দুঃখজনক বিধায় আমরা তাঁর বক্তব্য প্রত্যাহারের আহ্বান জানাচ্ছি।

২৬ জুলাই থেকে ঈদের ছুটিতে যাচ্ছে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়

২৬ জুলাই থেকে ঈদের ছুটিতে যাচ্ছে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়





জবি প্রতিনিধিঃ
জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় (জবি) এর শিক্ষার্থীরা পবিত্র ঈদ-উল-আযহা এবং শুভ জন্মাষ্টমী উপলক্ষে ১৯ দিনের লম্বা ছুটিতে যাচ্ছে। এই ছুটি আগামী ২৬ জুলাই, ২০২০ তারিখ রবিবার হতে ১৩ আগষ্ট, ২০২০ বৃহস্পতিবার পর্যন্ত থাকবে। এ সময়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল ক্লাস, বিভাগ ও প্রশাসনিক দপ্তর বন্ধ থাকবে।


রবিবার (১২ জুলাই) বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইটে উপাচার্য মহোদয়ের অনুমোদনক্রমে রেজিস্টার প্রকৌশলী মোঃ ওহিদুজ্জামান ও ডেপুটি রেজিস্টার মোহাম্মদ মশিরুল ইসলাম (প্রশাসন) স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এ ছুটির নোটিশ দেয়া হয়।


বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে যে, এতদ্বারা সংশ্লিষ্ট সকলের অবগতির জন্য জানানো যাচ্ছে যে, পবিত্র ঈদ-উল-আযহা এবং শুভ জন্মাষ্টমী উপলক্ষে আগামী ২৬ জুলাই, ২০২০ তারিখ রবিবার হতে ১৩ আগষ্ট, ২০২০ বৃহস্পতিবার পর্যন্ত ১৯ দিন বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল ক্লাস, বিভাগ ও প্রশাসনিক দপ্তর বন্ধ থাকবে।


বিজ্ঞপ্তিতে আরো বলা হয়েছে, বিশ্ববিদ্যালয়ের দায়িত্বরত নিরাপত্তা প্রহরী, নৈশ প্রহরী, পাম্প অপারেটর ও ইলেকট্রিশিয়ান যথাযথ ভাবে তাদের স্ব-স্ব দায়িত্ব পালন করবেন এবং নিরাপত্তার দায়িত্বরত কর্মকর্তা সার্বিকভাবে ক্যাম্পাসের নিরাপত্তার বিষয়টি তদারকি ও নিশ্চিত করবেন।


বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্টার প্রকৌশলী মোঃ ওহিদুজ্জামানকে অনলাইন ক্লাসের ছুটির ব্যাপারে জিজ্ঞাসা করলে তিনি বলেন, অনলাইন ক্লাস শিক্ষকেদের উপর নির্ভর করবে। তারা ক্লাস নিতে চাইলে নিতে পারবে সেক্ষেত্রে এ ব্যাপারে কোনো সিদ্ধান্ত নেয়া হয় নি। এটি বিশ্ববিদ্যালয়ের ছুটির অফিসিয়াল নোটিশ দেয়া হয়েছে। শিক্ষকরা যদি অনলাইন ক্লাস নিতে চায় তাহলে তাদেরকে কেউ বাধা দিবে না আর ক্লাস না নিলেও চাইলেও কোনো অসুবিধা নেই। এক্ষেত্রে শিক্ষকদের পূর্ব পরিকল্পনা করা থাকে।