আশাশুনিতে সাংবাদিকের খালুর ইন্তেকাল

 আশাশুনিতে সাংবাদিকের খালুর ইন্তেকাল





আহসান উল্লাহ বাবলু উপজেলা   প্রতিনিধি:আশাশুনিতে সাংবাদিক বিএম আলাউদ্দীনের খালু মোকছেদ গাজী ইন্তেকাল করেছেন। (ইন্নালিল্লাহি----------রাজিউন)। উপজেলার বুধহাটা ইউনিয়নের মধ্যম চাপড়া গ্রামের মৃত নছিমউদ্দিন গাজীর পুত্র মোকছেদ গাজী শুক্রবার বিকাল ৪টায় স্টক জনিত কারণে দীর্ঘদিন যাবত পড়িত থাকা অবস্থায় নিজস্ব বাসভবনে ইন্তেকাল করেন। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৮৫ বছর। মোকছেদ গাজী উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কার্যালয়ে দীর্ঘদিন যাবত নৈশ্য প্রহরী হিসাবে কর্মরত ছিলেন। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী, ১ ছেলে, ২ মেয়েসহ অসংখ্য গুনগ্রাহী রেখে গেছেন। শনিবার বাদ জোহর মধ্যম চাপড়া ঈদগাহ মাঠে জানাজা নামাজ শেষে তাকে পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়েছে। জানাজা নামাজে ইমামতি করেন চাপড়া বাস স্টান্ড মসজিদের ইমাম মাওলানা আব্দুস সামাদ। এসময় মুফতি আবু সাঈদ হোসেন, ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সভাপতি আব্দুল গফফার, এডভোকেট আব্দুল হান্নান, ইউপি সদস্য মফিজুল ইসলাম, সাবেক ইউপি সদস্য নজরুল ইসলামসহ জনপ্রতিনিধি, রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ ও মুসল্লীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

আশাশুনির বানভাসী মানুষ সর্বস্ব হারিয়ে দেশের বিভিন্ন প্রান্তে চলে যাচ্ছে

আশাশুনির বানভাসী মানুষ সর্বস্ব হারিয়ে দেশের বিভিন্ন প্রান্তে চলে যাচ্ছে



আহসান উল্লাহ বাবলু উপজেলা   প্রতিনিধি:


আশাশুনি উপজেলার প্রতাপনগর ও শ্রীউলা ইউনিয়নের বানভাসী মানুষ সবকিছু হারিয়ে দেশের বিভিন্ন প্রান্তে চলে যাচ্ছে। প্রতাপনগরের লস্কারী খাজরা চেয়ারম্যান বাড়ির রাস্তার সামনে আবুল কালাম গাজীর সাথে দেখা হলে তিনি দৈনিক দৃষ্টিপাতকে বলেন, নদীতে মাছ ধরে সংসার চলে সংসার চলে তার। তার ঘর বাড়ি খুব ঝূর্কিপূণ হওয়ায় ঘূর্ণিঝড় আম্পানের আগে প্রশাসনের পক্ষ থেকে তাকে সাইক্লোন সেল্টারে নিয়ে যান। ঝড়ে পরে এসে দেখতে পান তার কষ্টে গড়া সেই ঘরটি সেখানে আর নেই। টিনের চাল উড়ে গেছে মাটির দেয়াল পড়ে গেছে। সব কিছু যেন লন্ড-ভন্ড করে দিয়েছে সর্বনাশী আম্পান। কিন্তু কিছু তো করার নেই। উপকূলে থাকলে এমন প্রাকৃতিক দুযোর্গের সাথে তো যুদ্ধ করতেই হবে। আম্পানের পর সরকারিভাবে পাওয়া টিন-এলভেস্টার এবং একটি সংস্থা থেকে কিছু টাকা ঋণ নিয়ে আবারো একটি ইটের ঘর তুলেন সেখানে। কিন্তু বিধিবাম। গত কয়েক দিনের টানা বর্ষণে এবং অমাবস্যার প্রবল জোয়ারে কপোতাক্ষের বাঁধ ভেঙে প্রতাপনগরের কুড়িকাহুনিয়ার লোকালয়ে পানি প্রবেশ করায় বড় ক্লোজার (খাল) তৈরী হয়েছে। এতে আবুল কালামের ঘর বাড়ি ক্লোজারে চলে গেছে। আগে থেকে বুঝতে পেরে কিছু জিনিসপত্র সরিয়ে রাখতে পেরেছিলেন। সে সব জিনিসপত্র নিয়ে নৌকায় করে নিয়ে এসেছেন প্রতাপনগরের লস্কারী খাজরা চেয়ারম্যান বাড়ির রাস্তার সামনে। আবুল কালাম গাজীর স্ত্রী নারগিস বেগম কান্না জড়িত কণ্ঠে বলেন, গত চারদিনের মধ্যে মাত্র তিন চার বেলা খাওয়া হয়েছে। রান্না করার জায়গা নেই। আর থাকা গেল না এই এলাকায়। যা ছিলো সব নিয়ে চলে যাচ্ছি। কোথায় যাচ্ছেন জানতে চাইলে তিনি বলেন, কোথায় যাবো ঠিক নেই। তবে এখানে আর ফিরবো না। ফিরবো কোথায় জায়গা-জমি যা ছিলো সবতো খাল হয়ে গেছে। কষ্ট করে সম্পদ তৈরী করবো আর কিছুদিন পর তা ঝড় বা জলোচ্ছ্বাসে নিয়ে চলে যাবে। তার চেয়ে অন্য এলাকায় কিছু করতে পারি কিনা দেখি।সেখান থেকে একটু সামনে যেতেই দেখা দেখা হয় একই এলাকার ফিরোজা বেগম (৪৪) সাথে। তাদের সাত কাঠা জমি ক্লোজারে বিলিন হয়েছে। শুধু নিতে পেরেছেন ঘরের কয়েকটি খুটি আর কিছু জ্বালানি। তিনি তার তিন ছেলেকে নিয়ে সাতক্ষীরার ভোমরা যাবেন দুর সম্পর্কের এক আত্মীর বাড়িতে। সেখানে থেকেই খুঁজবেন নতুন আশ্রয়। এই কয়দিন খাওয়া-দাওয়া ঠিকমতো হয়নি বলেই কাঁদতে কাঁদতে ফিরোজা বেগম বলেন, ঘূর্ণিঝড় আম্পানের পর থেকে জোয়ার-ভাটার মধ্যেও বসবাস করছিলাম। যাওয়ার জায়গা নেই। তাই হাজার কষ্ট করে হলেও নিজের বাড়িতে ছিলাম। তিন ছেলে ইট ভাটায় কাজ করে আম্পানের আগে তিনটি ঘর তৈরী করেছিলাম। কিন্তু কপোতাক্ষের ভয়াল গ্রাসে সব নিয়ে গেছে। আম্পানে এতো ক্ষতি হয়নি আমাদের। আমার জীবনে এতো পানি কখন দেখিনি আমি। সব সাগর হয়ে যাচ্ছে। রাস্তাঘাট কিছু নেই। যাদের বাড়িঘর আছে তারা বের হতে পারছে না। বাজার করতে পারছে না। এলাকার অধিকাংশ মানুষের না খেয়ে দিন কাটছে। সরকার এই এলাকায় দ্রুত বাঁধের ব্যবস্থা না করলে এসব এলাকার কিছু থাকবে না। সব নিয়ে যাবে কপোতাক্ষ-খোলপেটুয়া। আবুল কালাম গাজী অথবা ফিরোজা বেগম নয় আরও অনেকে এমনিভাবে বাপ-দাদার ভিটা ছেড়ে চলে যেতে বাধ্য হচ্ছে আশাশুনি উপজেলার প্রতাপনগর ও শ্রীউলা ইউনিয়নের মানুষ। প্রতাপনগর ইউপি চেয়ারম্যান জাকির হোসেন জানান, একের পর এক দুর্যোগ আমাদের লেগেই আছে। আম্পানের রেশ কাটতে না কাটতেই কপোতাক্ষ-খেলেপেটুয়া বাঁধ ভেঙে পুরো এলাকা পানিতে ভাসছে। এলাকার অনেক মানুষ জোয়ারের পানিতে বড় বড় খালের সৃষ্টি। অনেকের বাড়ি ঘর নদীতে বিলিন হয়ে যাচ্ছে। বাধ্য হয়ে অনেক মানুষ বাপ-দাদার ভিটে ছেড়ে চলে যাচ্ছে। কোথায় যাবে কোথায় থাকবে তারা কিন্তু জানেন না। তার পরও একটু বাঁচার আশায় তারা চলে যাচ্ছে। তিনি আরও জানান, এখানকার মানুষ খুবই কষ্টের মধ্যে জীবন যাপন করছে। আমার একটি যাতায়াতের রাস্তা ভালো নেই। একটি মানুষ মারা গেলে তার দাফন করার মতো মতো জায়গা নেই। ইউনিয়নের ২১টি গ্রামের মধ্যে ২০টি সম্পূর্ণ তলিয়ে রয়েছে। খুব দ্রুত যদি বাঁধগুলো সংস্কার করা নায় হয় তাহলে দেশের মানচিত্র থেকে প্রতাপনগর হারিয়ে যাবে। এই ইউনিয়নটি কপোতাক্ষ-খোলপেটুয়া নদীর সঙ্গে মিশে যাবে। তিনি বলেন, ইতোমধ্যে সরকারের পক্ষ থেকে ত্রাণ সামগ্রী দেওয়া হয়েছে। সেগুলো আমরা দুর্গত মানুষের মাঝে বিতরণ করেছি। কিন্তু তাদের রান্না করার জায়গা নেই যে রান্না করে খাবে। আমাদের একটাই দাবী। আমার ত্রাণ চাই না, আমরা বাঁধ চাই।

ঝিনাইদহের মহেশপুরে পুকুরে ডুবে দেড় বছরের শিশুর মৃত্যু

ঝিনাইদহের মহেশপুরে পুকুরে ডুবে দেড় বছরের শিশুর মৃত্যু



সম্রাট হোসেন,শৈলকুপা (ঝিনাইদহ)প্রতিনিধিঃঝিনাইদহের মহেশপুরে পানিতে ডুবে দেড় বছরের আবুবক্কর নামে এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে।

শনিবার (২৯ আগস্ট) দুপুরের দিকে উপজেলার বাঁশবাড়ীয়া ইউপির মাগানমাঠ উত্তরপাড়া গ্রামে এই দূর্ঘটনা ঘটে। নিহত আবু বক্কর মাগানমাঠ গ্রামের ফারুক হোসেন ও সাগরী খাতুনের পুত্র।

স্থানীয় সূত্রে জানাযায়,শনিবার দুপুরে মৃত আবু বক্কর এর বাবা গরু গোসল করাচ্ছিল এবং মা সাগরি খাতুন গরুর জন্য ঘাস কাটতে মাঠে গিয়েছিলো।এরইমধ্যে খেলার ছলে বাড়ির পাশের পুকুরে পরে আবু বক্কর মারা যায়।খোঁজাখুঁজির এক পর্যায়ে পুকুরে আবু বক্কর এর মৃতদেহ ভাঁসতে দেখা যায়।পরে তাকে উদ্ধার করে পার্শ্ববর্তী ভৈরবা হসপিটালে নিয়ে গেলে সেখানে কর্তব্যরত ডাক্তার তাকে মৃত ঘোষণা করেন।তার এই অকাল মৃত্যুতে পরিবার ও এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

নাগরপুরে ছিনতাইয়ে বাধা দেয়ায় ২ জন ছুরিকাহত

 নাগরপুরে ছিনতাইয়ে বাধা দেয়ায় ২ জন ছুরিকাহত




হাসান সাদী,নাগরপুর (টাঙ্গাইল)প্রতিনিধিঃ


টাঙ্গাইলের নাগরপুরে ছিনতাইকারীর ছুরিকাঘাতে মো.নুরু মিয়া (৫৫) ও মতি মিয়া (৫০) নামে দুইজন গুরুতর জখম হয়েছেন। শনিবার (২৯ আগষ্ট) দুপুর ১২টার দিকে উপজেলা শহরের সদর তফসিল অফিসের সামনের ব্রিজে এ ঘটনা ঘটে। আহত নুরু মিয়া নাগরপুর উপজেলার দুয়াজানী গ্রামের মৃত কানাই মিয়ার ছেলে ও মতি একই গ্রামের মৃত রহমান আলীর ছেলে। স্থানীয়রা তাদেরকে উদ্ধার করে নাগরপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। এর মধ্যে ছুরিকাহত নুরু মিয়ার অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় উন্নত চিকিৎসার জন্য জেলা সদর হাসপাতালে রেফার্ড করা হয়েছে।


ছিনতাইয়ের কবলে পড়া ঘিওরকোল গ্রামের মকদুমের ছেলে স্কুল ছাত্র হোসাইনুর রহমান ইমন বলেন, সে তার সিলেবাস আনতে স্কুলে যাওয়ার পথে স্কুল সংলগ্ন ব্রিজে পৌছলে আগে থেকেই ওঁৎ পেতে থাকা ৬-৭ জনের ছিনতাইকারী চক্রের কমল ওরফে আকাশ আমার বুকে ছুড়ি ঠেকিয়ে আমার কাছ থেকে ১১৫ টাকা ছিনিয়ে নেয়। এসময় আমি চিৎকার দিলে স্থানীয় নুরু ও মতি এগিয়ে এসে ছিনতাই কাজে বাধা প্রদান করে। তখন ছিনতাইকারী কমল নুরুর বুকে ও পিঠে পরপর দুইবার ছুরিকাঘাত করে। এসময় তার সাথে থাকা মতি এগিয়ে আসলে তাকেও ছুরিকাঘাত করে পালিয়ে যায় ছিনতাইকারী চক্রটি। পরে স্থানীয়রা উদ্ধার করে তাদের হাসপাতালে নিয়ে যায়। জানা যায়, কমল উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য শহীদুল হক কিরণের ছেলে। 

নাগরপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক শরিফুল ইসলাম জানান, ছুরিকাঘাতে আহত মতির অবস্থা এখন আশঙ্কামুক্ত। কিন্তু নুরু মিয়ার অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য জেলা সদর হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। 

এ বিষয়ে স্থানীয় ইউপি সদস্য মো.নুরু মিয়া বলেন, বিষয়টি শুনে আমি ঘটনাস্থলে যাই। আমি এর আগে প্রশাসনসহ বিভিন্নস্তরের লোকজনকে অনিরাপদ এ রাস্তাটি সম্পর্কে অবগত করেছি। বাসস্ট্যান্ড থেকে নয়ানখান মেমোরিয়াল উচ্চ বিদ্যালয়ের পাশ দিয়ে তফসিল অফিস পর্যন্ত যাওয়ার রাস্তায় খালের উপর ব্রিজে প্রতিনিয়ত সব অপরিচিত কিশোর ছেলেদের আড্ডারত অবস্থায় দেখা যায়। তাদের অনেকেই এ রাস্তা দিয়ে চলাচলকারী নারীদের অশালীন মন্তব্য করে। 

এ ব্যাপারে নাগরপুর থানা পুলিশ জানায়, আমরা বিষয়টি জানতে পেরে তাৎক্ষনিক ঘটনাস্থল পরিদর্শন করি। অভিযোগ পেলে তদন্তপূর্বক প্রয়োজনীয় আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

মাধবপুরে মাঠে মাঠে আমন আবাদের ধুম

মাধবপুরে মাঠে মাঠে আমন আবাদের ধুম


লিটন পাঠান, হবিগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি:হবিগঞ্জের মাধবপুরে এখন মাঠে মাঠে রোপা আমন চাষাবাদের ধুম পড়েছে। জমি তৈরি ও ধানের চারা রোপণের কাজে ব্যস্ত সময় পার করছেন চাষিরা। গেল বোরো মৌসুমে ধানের ন্যায্য মূল্য না পাওয়ায় চাষিদের মাঝে হতাশা রয়েছে। উৎপাদিত ধানের ন্যায্য মূল্য নিশ্চিতের দাবি জানিয়েছে চাষিরা। তারা জানান, ধান উৎপাদনে খরচ বেড়েছে। কিন্তু ধানের ন্যায্য মূল্য পাচ্ছেন না তারা। গেল বোরো মৌসুমে ধানের দর অনেক কম ছিল। তাদের খরচ উঠে আসেনি এতে আর্থিকভাবে দারুণ ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছেন চাষিরা।


এছাড়া এ সময়ে জমিতে অন্য কোনো ফসল হবে না তাই বাধ্য হয়ে ধানের আবাদ করছেন তারা। এ অঞ্চলে আমন চাষ বর্ষাকালের বৃষ্টির পানির ওপর অনেকটা নির্ভরশীল এতে কৃষকদের সেচ খরচ লাগে না। তবে এবার বর্ষাকাল একটু দেরিতে শুরু হয়েছে। মাধবপুর উপজেলার হরিশ্যামা এলাকার চাষি পরিতোষ বলেন, আমরা আমন ধানের আবাদ বর্ষাকালে করি আকাশের পানিতে। এবারকার বর্ষাটা খুব একটা ভারি বর্ষা না। তবুও সেচ খরচটা কম আছে।


বৃষ্টি ঠিকমত হলে আমাদের সেচ খরচটা লাগবে না। উপজেলার হোসেনপুর এলাকার আমন চাষি শাহজাহান মিয়া বলেন, গেল বোরো মৌসুমে বোরোর দাম পেয়েছি ৫০০-৭০০ টাকা প্রতি মণ। এভাবে যদি আমরা ধানের দাম পাই, তাহলে আমরা কৃষকদের কোনো লাভ থাকবে না। ধানের দাম না থাকায় অনেক কৃষক দেনাগ্রস্থ হয়ে পড়েছেন বলে জানান তিনি। আরেক চাষি ধারদেনা করে আমরা বোরো চাষ করে ন্যায্য দাম পায়নি। এখন আবার আমনের আবাদ শুরু। ধান আবাদে অনেক খরচ বেড়ে গেছে। ধানের যেন ন্যায্য দর পায় এজন্য সরকারের বিশেষ নজর দেয়া দরকার। এদিকে উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা সাইফুল ইসলাম জানান, সার বীজের কোনো সংকট নেই।


গত বছরের তুলনায় এ বছর বৃষ্টিপাত ভালো। চাষিরা এখন আবাদে ব্যস্ত। তিনি জানান, এবার উপজেলার ৩১ হাজার ৮৬১ হেক্টর জমিতে আমন আবাদের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে এবং এ থেকে উৎপাদন লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে প্রায় ১ লাখ ৫৮ হাজার ৬৯৪ মেট্রেক টন চাল। তবে আবাদের লক্ষ্যমাত্রা ছাড়িয়ে যাবার আশা প্রকাশ করেন এই কৃষি কর্মকর্তা।

কিশোরগঞ্জে প্রথম বিট পুলিশিং কার্যালয়ের উদ্বোধন

কিশোরগঞ্জে প্রথম বিট পুলিশিং কার্যালয়ের উদ্বোধন




মোঃ: লাতিফুল আজম

কিশোরগঞ্জ নীলফামারী প্রতিনিধি:



মুজিব বর্ষের অঙ্গীকার, পুলিশ হবে জনতার এই স্লোগানকে সামনে রেখে নীলফামারী কিশোরগঞ্জ উপজেলার সন্ত্রাস,জঙ্গিবাদ, মাদক,ইভটিজিং, বাল্যবিবাহ ও যৌতুক মুক্ত সমাজ গড়তে প্রথম বিট পুলিশিং কার্যালয় উদ্বোধন করা হয়েছে।


আজ শনিবার বিকেল ৪ টায় কিশোরগঞ্জ উপজেলার মাগুরা ইউনিয়ন পরিষদে বিট পুলিশিং কার্যালয় শুভ উদ্বোধন করেন নীলফামারী-৪ (সৈয়দপুর কিশোরগঞ্জ) সংসদ সদস্য আহসান আদেলুর রহমান আদেল।


অনুষ্ঠানে প্রধান বক্তা ছিলেন নীলফামারী পুলিশ সুপার বিপিএম, পিপিএম মোঃ মোখলেছুর রহমান।


এ সময় বিশেষ অতিথি ছিলেন কিশোরগঞ্জ উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান শাহ মোঃ আবুল কালাম বাড়ি(পাইলট) নির্বাহী অফিসার রোকসানা বেগম অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সৈয়দপুর সার্কেল) অশোক কুমার পাল কিশোরগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী আওয়ামী লীগ সভাপতি জাকির হোসেন বাবুল মাগুরা ইউপি চেয়ারম্যান মাহমুদুল হোসেন শিহাব বিট পুলিশিং অফিসার এস নুরুন্নবী সরকার প্রমুখ।

নন্দীগ্রামে উপজেলা চেয়ারম্যানের উপর হামলা ও লাঞ্চিতের ঘটনায় বিক্ষোভ সমাবেশ

নন্দীগ্রামে উপজেলা চেয়ারম্যানের উপর হামলা ও লাঞ্চিতের ঘটনায় বিক্ষোভ সমাবেশ




নন্দীগ্রাম (বগুড়া) প্রতিনিধিঃ


বগুড়ার নন্দীগ্রাম উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ রেজাউল আশরাফ জিন্নাহ''র উপর হামলা ও 

লাঞ্ছিতের ঘটনায় বিক্ষোভ ও প্রতিবাদ সভা অনুস্ঠিত হয়েছে। ঘটনা সূত্রে জানাযায়, ২৯শে অক্টোবর শনিবার সকাল ১১টায় উপজেলা চেয়ারম্যান রেজাউল আশরাফ জিন্নাহ কুন্দারহাট বাজারে অবস্থিত চায়ের দোকানে সবার সাথে কুশল বিনিময় করছিলো, ঠিক সেই সময় পূর্ব দলীয় বিরোধের জের ধরে সেই স্থানে ৫নং ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি জুলফিকার আলী (ফক্কার) উপস্থিত হয় এবং তাদের মধ্যে কথা কাটাকাটি শুরু হয়, কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে উপজেলা চেয়ারম্যান রেজাউল আশরাফ জিন্নাহ কে গালি গালাজ সহ তার পাঁনজাবির কলার ধরে 

লাঞ্ছিত করে জুলফিকার আলী (ফক্কার) সহ তার সাথে থাকা অজ্ঞাত ব্যাক্তিরা। এই ঘটনায় উপজেলা চেয়ারম্যান জিন্নাহ'র ছোট ভাই উপজেলা যুবলীগের সাধারন সম্পাদক মোঃ মাহমুদ আশরাফ মামুন বাদী হয়ে ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি জুলফিকার আলী (ফক্কার) কে ১নং আসামী ও ৪জন কে অজ্ঞাতনামা আসামী করে থানায় মামলা করে, মামলার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন নন্দীগ্রাম থানার অফিসার ইনচার্জ ওসি শওকত কবির। উক্ত ঘটনায় বিকেল ৩টায়, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক স্বপন চন্দ্র মহন্তের সভাপতিত্বে উপজেলা আওয়ামীলীগ ও সহযোগী সংগঠন উপজেলা চেয়ারম্যানের উপর হামলা ও লাঞ্ছিতের প্রতিবাদে ও দোষী ব্যাক্তিদের দাবী দ্রুত 

গ্রেপ্তারের বিক্ষোভ মিছিল বের করে, মিছিলটি উপজেলার বিভিন্ন প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে উপজেলার বাসস্ট্যান্ড এলাকায় এক প্রতিবাদ সভা করে।উক্ত প্রতিবাদ সভায় বক্তব্য রাখেন নন্দীগ্রাম উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান ও উপজেলা যুবলীগ সভাপতি শ্রী দুলাল চন্দ্র মহন্ত, উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মোঃ শামীম শেখ, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক আফজাল হোসেন, উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক মাহমুদ আশরাফ মামুন, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি আবু সাঈদ, উপজেলা কৃষকলীগের সভাপতি শফিকুল ইসলাম (শফিক), সাধারণ সম্পাদক সাঈদ রায়হান মানিক, ছাত্রলীগ নেতা শুভ আহম্মেদ, উপজেলা কৃষক লীগের সাবেক সভাপতি শাহজাহান আলী সাজু, ২নং সদর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সোহেল রানা সোহাগ, এ সময় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন,ছাত্রনেতা সাইফুল ইসলাম দুলাল, যুবলীগ নেতা, এমআর জামান রাসেল, বেনজীর আহমেদ, মোফাজ্জল বারী, সুমন আহমেদ, আসকান আলী , রুহুল আমিন, এনামুল হক, লিটন, ফারুক, দিলীপ প্রমূখ। উক্ত প্রতিবাদ সভায় আগামী সোমবার বিকেল ৩টায় বিক্ষোভ সমাবেশের ডাক দেন বক্তারা।

ওষুধ ডাকাতির দায়ে ৬ সৌদি নাগরিক গ্রেফতার

ওষুধ ডাকাতির দায়ে ৬ সৌদি নাগরিক গ্রেফতার




মোহাম্মদ বেলাল উদ্দিন 

সিনিয়র স্টাফ রিপোর্টার 


ওষুধ ডাকাতির দায়ে ৬ সৌদি নাগরিক গ্রেফতার হয়েছেন। তাদের কাছ থেকে প্রচুর পরিমানে চোরাই ওষুধ উদ্ধার করেছে মদিনা পুলিশ। 


এই সংঘবদ্ধ ওষুধ ডাকাতদের পবিত্র নগরী মদিনা থেকে গতকাল( ২৬ আগস্ট) গ্রেফতার করা হয়। এদের সকলের বয়স ৩০ এর কোঠায়।


জানা যায় এরা মদিনা নগরীর তিনটি ক্লিনিক থেকে এই বিপুল পরিমান ওষুধ ডাকাতি করেছিল।


মদিনা পুলিশের মুখপাত্র লেফট্যানেন্ট কর্নেল আল কাহতানি গণমাধ্যমে  বলেছেন এই ডাকাতদল মদিনা নগরীর তিন ক্লিনিক থেকে বিপুল পরিমানে ওষুধ ডাকাতি করেছে। এছাড়া আরো এ ধরনের ডাকাতির সাথে এদের জড়িত থাকার কথা সন্দেহ করা হচ্ছে।


তিনি আরো বলেন যে গ্রেফতার হওয়ার আগেই তারা বেশ কিছু ওষুধ লুকিয়ে ফেলেছে।


এদের সকলকেই বিচারের আওতায় আনার জন্য সৌদি কারাগারে পাঠানো হয়েছে।


করোনাভাইরাস তান্ডবের মাঝে এ ধরনের চুরির ঘটনা বেশ ন্যাক্কারজনক এতে কোন সন্দেহ নেই।


সৌদি আরবের করোনা পরিস্থিতি আগের চেয়ে বর্তমানে কিছুটা ভাল হয়েছে।


তবে এখনো চলছে সংক্রমণ।

ঝিনাইদহে ভূল অপারেশনে রোগীর মৃত্যু!

 ঝিনাইদহে ভূল অপারেশনে রোগীর মৃত্যু!




সম্রাট হোসেন, ঝিনাইদহ জেলা  প্রতিনিধিঃঝিনাইদহের বৈডাঙ্গা প্রাইভেট হাসপাতাল নামক একটি ক্লিনিকে ভূল অপারেশনে রোগীর মৃত্যু হয়েছে  বলে অভিযোগ উঠেছে। তবে ক্লিনিক মালিক বাদীকে ম্যানেজ করে ফেলেছে বলে জানা গেছে। গত দুই মাস আগে ক্লিনিকটিতে রোগী সুর্বনা খাতুন (১৩) এর এপেনডিক্স অপারেশন করায়। অপারেশনের পর ২৫দিন যাবৎ সে ঐ ক্লিনিকে ভর্তি থাকে। পরে তার অবস্থার অবনতি হলে ঢাকা আগারগাও ন্যাশনাল ইন্সটিটিউট অফ নিউরোলজি বিভাগে রেফার্ড করা হয়। সেখানে ৩৩ দিন চিকিৎসাধীন থাকাবস্থায় শুক্রবার তার মৃত্যু হয়। সে সদর উপজেলার বাজার বৈডাঙ্গা এলাকার সৌদি প্রবাসী সুমন মন্ডলের মেয়ে ও বৈডাঙ্গা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ৭ম শ্রেনীর ছাত্রী। এ ঘটনায় এলাকায় তোলপাড় সৃষ্টি হয়েছে।  

স্থানীয়দের অভিযোগ, বৈডাঙ্গা প্রাইভেট হাসপাতালে প্রতিনিয়তই এমন ঘটনা ঘটে। সম্প্রতি কোলা গ্রামের এক প্রসূতির সিজারিয়ান অপারেশনের পর থেকে তিনি গুরুত্বর অসুস্থ রয়েছে। গত বুধবার সাগান্না ইউনিয়নের বকশিপুর গ্রামের এক প্রসূতির সিজারিয়ান অপারেশনের সময় নবজাতকের মৃত্যু হয়। ঐ ইউনিয়নের চাঁদপুর গ্রামের আরেক প্রসূতির সিজারিয়ান অপারেশনে মৃত্যু হয়েছে বলে অভিযোগ রয়েছে। আরো অভিযোগ উঠেছে ক্লিনিকটিতে সার্জিক্যাল ও এনেস্থেসিয়া ডাক্তার ছাড়াই মালিকরা ডাক্তার সেজে এবং আয়ারা নার্স সেজে অপারেশন করে। এ বিষয়ে কতৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষন করেছে ভূক্তভোগিরা। 

ঘটনার বিষয়ে জানতে বৈডাঙ্গা প্রাইভেট হাসপাতালের মালিক জহুরুল বিশ্বাস, ডাক্তার ফারুক আহমেদ ও রানার সাথে কথা বলার চেষ্টা করে কাউকে পাওয়া যায়নি। 

ঝিনাইদহের সিভিল সার্জন সেলিনা বেগম জানান, এ ব্যাপারে কোন অভিযোগ আসেনি। অভিযোগ পেলে তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

সিরাজগঞ্জ বাগবাটিতে ফসলি জমিতে মাটিকাটায় ৫০ হাজার টাকা জরিমানা

 সিরাজগঞ্জ বাগবাটিতে ফসলি জমিতে মাটিকাটায় ৫০ হাজার টাকা জরিমানা




মাসুদ রানা সিরাজগঞ্জ জেলাপ্রতিনিধিঃ সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট জনাব মোহাম্মদ রহমত উল্লাহ তিনি বলেন অদ্য ২৯/০৮/২০২০ গোপন সূত্রের ভিত্তিতে অবৈধ উপায়ে বিপণনের উদ্দেশ্যে মাটি কেটে ফসলি জমি নষ্ট করা হচ্ছে সংবাদ পেয়ে সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলার বাগবাটি ইউনিয়নের কানগাঁতী নামক স্থানে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করা হয়েছে। 


শনিবার বিকেল ৩.৩০টার দিকে এ অভিযান পরিচালনা করা হয়। আল-আমিন নামক জনৈক ব্যক্তি এলাকায় ফসলি জমি নষ্ট করে এভাবে মাটি কেটে বিক্রি করে আসছেন বলে স্থানীয় সূত্রে জানা যায়। পরবর্তীতে বালুমহাল ও মাটি ব্যবস্থাপনা আইন ২০১০ এর ৪ ধারার অপরাধে ১৫ ধারায় অভিযুক্ত আল আমিন(৪২)কে ৫০,০০০/- (পঞ্চাশ হাজার)টাকা অর্থদন্ড দেয়া হয়।

অভিযান পরিচালনায় সহযোগিতা করেন উপজেলা ভূমি অফিসের স্টাফগণ এবং সিরাজগঞ্জ সদর থানা পুলিশ।

নওগাঁর রাণীনগরে যুবদলের কর্মী ও মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত

 নওগাঁর রাণীনগরে যুবদলের কর্মী ও মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত




রাজশাহী ব্যুরো

নওগাঁর রাণীনগরে যুবদলের কর্মী ও মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। ১নং খট্টেশ্বর ইউনিয়ন যুবদলের উদ্যোগে শনিবার (২৯ আগস্ট) সকাল ১০টায় শিক্ষক সমিতির হলরুমে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়।

রাণীনগর উপজেলা যুবদলের আহ্বায়ক এমদাদুল হক এমদাদের সভাপতিত্বে ও খট্টেশ্বর ইউনিয়ন যুবদলের সাবেক সভাপতি আব্দুল হান্নান মিলনের সঞ্চালচনায় সভায় বক্তব্য রাখেন, উপজেলা বিএনপির আহ্বায়ক রোকনুজ্জামান খান রুকু, সদস্য ও উপজেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি ও উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান আলহাজ্ব এসএম আল-ফারুক জেমস, আলহাজ্ব এচাহক আলী, কাশিমপুর ইউপি চেয়ারম্যান মোকলেছুর রহমান বাবু, উপজেলা যুবদলের যুগ্ম আহ্বায়ক মোজাক্কির হোসেন, আতিকুল ইসলাম জেমস, সিরাজে আলম সিরাজ, বেদারুল ইসলাম, ফরহাদ আলী মন্ডল, সদস্য আমিনুল ইসলাম টুটুল প্রমূখ।

এসময় বক্তারা বলেন, ত্যাগী ও সাহসী কর্মীদের মাধ্যমে ১নং খট্টেশ্বর ইউনিয়নসহ উপজেলার সবক’টি ইউনিয়ন যুবদলের কমিটি গঠন করা হবে। দুঃসময়ে যারা বিএনপি ছেড়ে আওয়ামী লীগের সাথে আতাত করে তাদেরকে দলে স্থান দেওয়া হবে না।

এছাড়াও মতবিনিময় সভায় উপস্থিত ছিলেন, খট্টেশ্বর ইউনিয়ন যুবদলের সাবেক সাধারন সম্পাদক গোলাম হোসেন গোল্লা ও যুগ্ম সম্পাদক শাখাদুল ইসলামসহ উপজেলা ও ইউনিয়ন বিএনপি, যুবদল, ছাত্রদল ও অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীরা।

জনতা ব্যাংক লিঃ উদ্যোগে সিরাজগঞ্জে বন্যার্তদের মাঝে ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ

 জনতা ব্যাংক লিঃ উদ্যোগে সিরাজগঞ্জে বন্যার্তদের মাঝে ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ




মাসুদ রানা সিরাজগঞ্জ জেলাপ্রতিনিধিঃ  গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের অর্থমন্ত্রণালয়ের আর্থিক বিভাগের নির্দেশনায় জনতা ব্যাংক লিমিটেডের উদ্যোগে - সিরাজগঞ্জে বন্যায় ক্ষতিগ্রস্থ অসহায়, দুঃস্থদের মাঝে ত্রাণসামগ্রী বিতরণ করা হয়েছে। শনিবার(২৯আগষ্ট)    সকালে সিরাজগঞ্জ সদরের পৌর এলাকায় যমুনানদীর হার্ডপয়েন্টে কাওয়াকোলা, মেছড়া, খোকসাবাড়ী, ছোনগাছা  ইউনিয়নে যমুনায় বন্যায় ভাংগনে ক্ষতিগ্রস্ত অসহায়, দুঃস্থ এক হাজার পরিবারের মধ্যে ত্রাণসামগ্রী বিতরণ করা হয়েছে। বিতরণ অনু্ষ্ঠানে, প্রধান অতিথি ছিলেন, সিরাজগঞ্জসদর-কামারখন্দ আসনের সংসদ সদস্য ও সভাপতি, ইন্টার পার্লামেন্টারি ইউনিয়ন স্বাস্থ্যবিষয়ক উপদেষ্টা   অধ্যাপক ডাঃ হাবিবে মিল্লাত মু্ন্না। 

অন্যতম আমন্ত্রিত অতিথি  ছিলেন, সিরাজগঞ্জজেলার কৃতিসন্তান, জনতা ব্যাংক লিমিটেডের সিইও  এন্ড এমডি,  বীরমুক্তিযোদ্ধা   মোঃ আব্দুছ ছালাম আজাদ, ডিএমডি মোঃ ইসমাইল হোসেন,    জনতা ব্যাংক লিমিটেড কার্যালয় রাজশাহীর মহাব্যবস্থাপক সাখাওয়াত হোসেন,ডিজিএম বজলুল হক,  সিরাজগঞ্জ জেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি আলহাজ্ব মোস্তফা কামাল খান, তথ্য গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক আনোয়ার হোসেন ফারুক, সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ রিয়াজ উদ্দিন, পৌর প্যানেল মেয়র হেলাল উদ্দিন,  সদর উপজেলা পরিষদের   ভাইস চেয়ারম্যান এস,এম নাসিম রেজা নূর দিপু, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান অধ্যাপিকা হাসনা হেনা প্রমুখ ।

 বিতরণ অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন, সহকারি কমিশনার (ভূমি) ও ভারপ্রাপ্ত সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সিরাজগঞ্জ সদর   মোঃ রহমত উল্লাহ। সঞ্চালনায় ছিলেন, জনতা ব্যাংক সিরাজগঞ্জ জেলা শাখার এজিএম আবু সেলিম রেজা ও এসবি ফজলুল রোড জনতা ব্যাংক শাখার ম্যানেজার ইয়াসিন আরাফাত।    

অনুষ্ঠানটি সামাজিক দূরুত্ব বজায় রেখে করাহয়।   কর্মসূচির মধ্যে ছিলো- পবিত্র কোরআন তেলাওয়াত,  গীতাপাঠ, শহীদদের আত্মার মাগফেরাত কামনায় বিশেষ মোনাজাত ও আলোচনা । ত্রাণসামগ্রী প্যাকেটের মধ্যে ছিলো - চাল-১০কেজি,ডাল-২কেজি-আলু-৪কেজি,তেল-১কেজি, সাবান-১টা। 


আলোচনাসভায় প্রধান অতিথি এমপি অধ্যাপক ডাঃ হাবিবে মিল্লাত  মুন্না বলেন,   আগষ্ট মাস শোকের মাস, জাতিরজনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সহ স্ব-পরিবারে হত্যা কারিদের দেশে ফিরে এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি করেন। তিনি আরো বলেন, জননেত্রী মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা করোনা ও বন্যায় ক্ষতিগ্রস্থদের মাঝে ত্রাণসামগ্রী ও প্রণোদনা দিয়ে সংকট মোকাবেলা করছেন। তিনি জনতা ব্যাংক লিমিটেডের এমন কার্যক্রমে জন্য ধন্যবাদ জানান। জনতা ব্যাংক লিমিটেডের সিইও এ্যান্ড এমডি বীরমুক্তিযোদ্ধা আব্দুছ ছালাম আজাদ বলেন, অর্থমন্ত্রণালয়ের নির্দেশনায় বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত সিরাজগঞ্জ জেলার সদর উপজেলা  সহ শাহজাদপুর, বেলকুচি, কাজিপুর    যমুনায়   ভয়াবহ ভাংগনে বন্যায় ক্ষতিগ্রস্তদের     চার হাজার ত্রাণসামগ্রী বিতরণ করা হচ্ছে। অনুষ্ঠানটি সফল করতে জনতা ব্যাংক লিমিটেডের সিরাজগঞ্জের সকল শাখার ম্যানেজার, কর্মকর্তা-,কর্মচারী সহ সিরাজগঞ্জের চারটি ইউনিয়ন- ছোনগাছা ইউপি চেয়ারম্যান সহিদুল আলম,খোকসাবাড়ী ইউপি চেয়ারম্যান রাশিদুল হাসান রশিদ মোল্লা, কাওয়াকোলা ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল আলীম ভূইয়া, মেছড়া ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল মজিদ মাষ্টার উপস্থিত ছিলেন।                           ।

সিরাজগঞ্জে কামারখন্দ ইয়াবা সহ মাদক কারবারি আটক

সিরাজগঞ্জে কামারখন্দ ইয়াবা সহ মাদক কারবারি আটক




মাসুদ রানা সিরাজগঞ্জ জেলাপ্রতিনিধিঃ সিরাজগঞ্জের কামারখন্দ উপজেলার জামতৈল এলাকায় অভিযান চালিয়ে সাজু শেখ (৪৫) নামে এক মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-১২ সদস্যরা। সে ওই উপজেলার চর টেংরাইল খড়তলা গ্রামের মৃত মোসলেম শেখের ছেলে।

র‌্যাব-১২’র মিডিয়া অফিসার, সহকারী পুলিশ সুপার এরশাদুর রহমান এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যার দিকে উল্লেখিত এলাকায় অভিযান চালিয়ে ২৭৫ পিস ইয়াবাসহ তাকে গ্রেফতার করা হয়। এ সময় তার কাছ থেকে ১টি মোবাইল, ১টি সিম জব্দ করা হয়। এ ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট থানায় মামলা হয়েছে।

আশাশুনিতে উপজেলা আওয়ামীলীগের দপ্তর সম্পাদক জগদিসের পিতার শ্রাদ্ধানুষ্ঠান

আশাশুনিতে উপজেলা আওয়ামীলীগের দপ্তর সম্পাদক জগদিসের পিতার শ্রাদ্ধানুষ্ঠান





 আহসান উল্লাহ বাবলু উপজেলা প্রতিনিধি    : 


আশাশুনিতে উপজেলা আ'লীগের দপ্তর সম্পাদক জগদিস চন্দ্র সানার পিতা হিমাংশ সানার শ্রাদ্ধানুষ্ঠান অনুষ্টিত হয়েছে। শনিবার  নিজস্ব বাসভবনে শ্রাদ্ধানুষ্ঠানে উপজেলা আ'লীগের সাবেক সহ সভাপতি মোল্ল‍্যা রফিকুল ইসলাম, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও সদর ইউপি চেয়ারম্যান স,ম সেলিম রেজা মিলন, সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুস সামাদ বাচ্চু, ইউপি চেয়ারম্যান শেখ দীপঙ্কর কুমার আব্দুল আলিম মোল্লা, উপজেলা শ্রমিক লীগের সভাপতি ঢালী মোঃ শামসুল আলম, মুক্তিযোদ্ধা, উপজেলা পূজা উদযাপন কমিটির সাধারণ সম্পাদক রনজিত কুমার বৈদ্য, আশাশুনি প্রেসক্লাব ও রিপোর্টার্স ক্লাবের সাংবাদিক বৃন্দ, উপজেলা ও ইউনিয়ন আ'লীগের সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ সর্ব শ্রেনীর গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গসহ এলাকাবাসী উপস্থিত হয়ে অংশগ্রহণ করেন।

আশাশুনিতে মহিলাদের নির্দেশনামূলক কাউন্সেলিং সভা

 আশাশুনিতে মহিলাদের নির্দেশনামূলক কাউন্সেলিং সভা




আহসান উল্লাহ  বাবলু  উপজেলা প্রতিনিধিঃ আশাশুনি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে মহিলাদের জন্য নির্দেশনামূলক কাউন্সেলিং সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। শনিবার সকালে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়। লক্ষ্যমাত্রা অর্জনে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের নিমিত্তে কাউন্সেলিং সভায় উপজেলা স্বাস্থ্য ও পঃ পঃ কর্মকর্তা ডাঃ সুদেষ্ণা সরকার মহিলাদের ভায়া টেষ্ট  (জরায়ু ও ব্রেস্ট ক্যান্সার স্ক্রিনিং পরীক্ষা) সংক্রান্ত জরুরী নির্দেশনা মূলক বক্তব্য উপস্থাপন করেন। সভায় মাঠ পর্যায়ে কর্মরত  কমিউনিটি ক্লিনিকের সি এইচ সি পি বৃন্দ অংশগ্রহণ করেন।

মধুপুরে ইসলামিক পরিবার সঞ্চয় সমিতির উদ্যোগে বার্ষিক সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত

 মধুপুরে ইসলামিক পরিবার সঞ্চয় সমিতির উদ্যোগে বার্ষিক সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত

 



মোঃ আঃ হামিদ মধুুপুর টাঙ্গাইল প্রতিনিধিঃ

 টাঙ্গাইলের মধুপুরে ইসলামিক পরিবার সঞ্চয় সমিতির উদ্যোগে শনিবার (২৯ আগষ্ট) দুপুরে মধুপুর তালুকদার কম্পিউটার প্রশিক্ষণ সেন্টারে প্রতিষ্ঠান এর পরিচালক মোঃ আঃ রাজ্জাক তালুকদার এর পরিচালনায় আলহাজ জুলহাস উদ্দিন তালুকদার এর সভাপতিত্বে এক বার্ষিক সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেরন মোঃ গোলাম মোস্তফা খান বাবলু, চেয়ারম্যান, ৫নং গোলাবাড়ী ইউনিয়ন পরিষদ, মধুপুর। উক্ত সভায় উপস্থিত ছিলেন ইসলামিক পরিবার সঞ্চয় সমিতির সকল সদস্য বৃন্দ।

গুলবাগপুর হাটখোলা জামে মসজিদের টাকা নিয়ে তুলকালাম!

গুলবাগপুর হাটখোলা জামে মসজিদের টাকা নিয়ে তুলকালাম!




স্টাফ রিপোর্টারঃ গুলবাগপুর হাটখোলা জামে মসজিদের টাকা নিয়ে তুলকালাম!যশোর জেলার ঝিকরগাছা উপজেলার গুলবাগপুর গ্রামের হাটখোলা জামে মসজিদের নিজস্ব অর্থের টাকা হস্তান্তর করা নিয়ে এক তুলকালাম বেধে গেছে।

ভুক্তভোগী মুসল্লী বৃন্দ প্রতিবেদকে জানান অত্র মসজিদের পরিচালনা পর্ষদ গঠিত হয়ে তিন বছর আগে। সেই কমিটিতে সভাপতি ছিলেন ধুলিয়ানী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের অবসর প্রাপ্ত শিক্ষক অত্র গ্রামের মোঃ গোলাম হোসেন, সেক্রেটারী ছিলেন অত্র গ্রামের আ' লীগের বিতর্কীত নেতা আমিনুল ইসলামের মেঝ ভাই রেজাউল ইসলাম, কেশিয়ার ছিলেন অত্র গ্রামের মেম্বর শফিকুল ইসলাম । 

এই সময়ে অত্র এলাকার মুসল্লী ও এলাকাবাসীর দেওয়া বিভিন্ন দানের টাকা উত্তোলন করে তাদের নিজেদের কাছে রেখে। মসজিদের উন্নয়ন মুলক কাজ বাঁকিতে করার কারণে বেশি দাম দিতে হয়। 

নাম প্রকাশ না করার শর্তে একাদিক মুসল্লী জানান এ-ই কমিটি তাদের দ্বায়িত্ব পালন কালে উত্তোলিত টাকার কোন হিসাব না দেওয়ায় জনগণের চাইবে গত দুই শুক্রবার আগে পদত্যাগ করতে বাধ্য হয়। পদত্যাগের সময়ে খাতা কলমে ৯১ হাজার টাকা মসজিদ ফান্ডে জমা আছে বলে জানান কিন্তু সেই টাকা আজও পর্যন্ত জনগণের সামনে জমা দেয়নি বরং ও-ই টাকা জমা দিতে কালক্ষেপণ করছে। নির্ভরযোগ্য সুত্রে প্রকাশ এ-ই বিতর্কীত কমিটি দ্বিতীয় মেয়াদে দ্বায়িত্ব পালন করতে পায়তারা চালাচ্ছে। 

মানুষ মরেও বেঁচে থাকে তার কর্মের মাধ্যমে -ডাঃ নাদিরা সুলতানা

মানুষ মরেও বেঁচে থাকে তার কর্মের মাধ্যমে -ডাঃ নাদিরা সুলতানা


 

মামুনুর রশিদ,দিনাজপুর প্রতিনিধি ॥ দিনাজপুর নাজমা রহিম ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে ১৭তম নাজমা রহিম বৃত্তি প্রদান অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়েছে। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ঘনিষ্ঠ সহচর মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক প্রয়াত এম. আব্দুর রহিম-এর জ্যেষ্ঠ কন্যা জাতিসংঘের স্বাস্থ্য বিষয়ক কর্মকর্তা ডাঃ নাদিরা সুলতানা। 

২৯ আগষ্ট শনিবার দিনাজপুর সদর উপজেলার শংকরপুর ইউনিয়নের পাঁচকুড় উচ্চ বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে দিনাজপুর নাজমা রহিম ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে ১৭তম নাজমা রহিম বৃত্তি প্রদান অনুষ্ঠানে পাঁচকুড় উচ্চ বিদ্যালয়ের সভাপতি মো. আব্দুল বাতেন শাহ্-এর সভাপতিত্বে বৃত্তি প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ঘনিষ্ঠ সহচর মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক প্রয়াত এম. আব্দুর রহিম-এর জ্যেষ্ঠ কন্যা জাতিসংঘের স্বাস্থ্য বিষয়ক কর্মকর্তা ডাঃ নাদিরা সুলতানা শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে বলেন,  তোমরা ভালো মত লেখাপড়া করে পরিপূর্ণ মানুষ হয়ে তোমরাও আরও মানুষকে সাহায্য সহযোগিতা করতে পারবে। এখন থেকেই সে স্বপ্ন নিয়ে নিজেদের তৈরী করতে হবে। তিনি বলেন, আমরা ছোট বেলায় আমার বাবাকে প্রশ্ন করতাম অমুকে অনেক বেশী বেতন পায়। সে সময় আমার বাবা বলতেন তারা মানুষের জন্য কি করছে? একজন মানুষ মরে যাবে। কিন্তু মানুষ মরেও বেঁচে থাকে তার কর্মের মাধ্যমে, মানুষকে সেবা করার মাধ্যমে, মানুষের উপকার করার মাধ্যমে। তোমাদের হয়তো মনে হতে পারে এই ২৫শ’ কিংবা ১২শ’ টাকা তেমন কিছু না। কিন্তু যদি তোমরা মনের মধ্যে চিন্তা করো আমিও মানুষের জন্য কিছু করতে পারবো এটাই অনেক বড়, এটা করতে সাহস লাগে। আজকে তোমরা যারা বৃত্তি পাবে নিজেকে নিয়েও একটু চিন্তা করতে হবে। আমি লেখা পড়া করে যেন নিজের পায়ে দাঁড়াতে পারি। তিনি অভিভাবকদের উদ্দেশ্যে বলেন, মেয়েদের লেখাপড়া বন্ধ করে মাঝপথে বাল্য বিয়ে দিয়ে মেয়েদের ভবিষ্যৎকে নষ্ট করবেন না। মেয়েদের লেখাপড়ায় উৎসাহিত করলে যথাসময়ে তারা নিজের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করার ক্ষমতা যদি পায় নিশ্চয়ই তারা ভালো করবে। 

পাঁচকুড় উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ও সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাতলুবুল মামুন এর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন প্রয়াত এম আব্দুর রহিমের জামাতা স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক অধ্যাপক ডাঃ নাসিমা সুলতানার স্বামী ডাঃ লুৎফর রহমান, শংকরপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. ইসহাক চৌধুরী, শংকরপুর স্কুল ও উথরাইল মাদ্রাসার সভাপতি মো. সিরাজুল ইসলাম ও শংকরপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি শাহ্ জামাল সরকার। শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন জাতিসংঘের স্বাস্থ্য বিষয়ক কর্মকর্তা ডাঃ নাদিরা সুলতানার পুত্র নাহিয়ান কবীর ও অধ্যাপক ডাঃ নাসিমা সুলতানার পুত্র আন্তর্জাতিক বডি বিল্ডার্স খেলোয়াড় নাসিফ রহমান। 

উল্লেখ্য, ২০০৪ ইং সাল থেকে ছাত্র/ছাত্রীদের মাঝে নাজমা রহিম বৃত্তি প্রদান করা হচ্ছে। এ বছর পাঁচকুড় উচ্চ বিদ্যালয়ের ৩০জন শিক্ষার্থীকে প্রত্যেককে ২৫শ’ টাকা, শংকরপুর এম. দ্বিমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের ৩০ জন শিক্ষাথীকে প্রত্যেককে ২৫শ’ টাকা, এম. আব্দুর রহিম সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ২০ জন শিক্ষার্থীকে প্রতেককে ১২শ’ টাকা এবং পাঁচকুড় সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ২০জন শিক্ষাথীকে প্রত্যেককে ১২শ’ টাকা করে বৃত্তি প্রদান করা হয়।

দূর্নীতি পরায়ন ও ঠকবাজ দলিল লেখকদের লাইসেন্স বাতিলের দাবীতে সংবাদ সম্মেলন

দূর্নীতি পরায়ন ও ঠকবাজ দলিল লেখকদের  লাইসেন্স বাতিলের দাবীতে সংবাদ সম্মেলন





মামুনুর রশিদ,প্রতিনিধি দিনাজপুর: দিনাজপুরের ফুলবাড়ি উপজেলার দূর্নীতি পরায়ন ও ঠকবাজ দলিল লেখকদের লাইসেন্স বাতিল, গ্রেফতার ও কঠোর শাস্তির দাবীতে দিনাজপুর প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে।


২৯ আগষ্ট শনিবার সকালে দিনাজপুর প্রেসক্লাব মিলনায়তনে দিনাজপুরের ফুলবাড়ি উপজেলার রাঙ্গামাটি গ্রামের মো: লিয়াকত আলীর আয়োজনে এক সংবাদ সম্মেলনে অনুষ্ঠিত হয়। 


সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে  মো: লিয়াকত আলী বলেন,ফুলবাড়ি উপজেলার ২নং আলাদিপুর ইউনিয়নের আলাদিপুর মৌজার বিভিন্ন দাগের প্রায় ৩ একর সম্পত্তির অবৈধ/ভুয়া দলিল, ভুয়া খাজনার চেক তৈরী করে দাতা হিসেবে যোগীবাড়ি গ্রামের জয়নাল আবেদীন ও মাতা মাহামুদা চৌধুরানীল পুত্র আলহাজ্ব কুদরত ই খুদাকে ভুয়া মালিক সাজিয়ে  অনত্র্য কবলা রেজিষ্ট্রি দিতে গিয়ে ফুলবাড়ি সাব-রেজিষ্টারের কাছে ধরা পড়েছে ফুলবাড়ি উপজেলার দলিল লেখক মো: রবিউল ইসলাম চৌ: সনদ নং ১৫৪,শ্রী বিজন চন্দ্র রায় সনদ নং ২১৫ ও পার্বতীপুর উপজেলার দলিল লেখক মো: মো: জাকির হোসেন। 


এব্যাপারে ফুলবাড়ি রেজিষ্টার অফিসে ২৩/০৭/২০ মো: নজিবর রহমান গং কর্তক দায়ের কৃত অভিযোগের প্রেক্ষিতে ফুলবাড়ি সাব-রেজিষ্টার একটি নোটিশ জারি করেন। এতে গত ৯/৮/২০ তারিখ সকাল ১০টায় অত্র কার্য্যালয়ে উল্লেখিত অবিযুক্তদের কাগজপত্রসহ হাজির হতে বললেও তারা কেউ হাজির হয়নি। ফলে তারা অফিসিয়াল তদন্তে দোসী সাব্যস্ত হয়েছে, যার রির্পোট উক্ত রেজিষ্ট্রি অফিসে জমা আছে। ইতিপূবেও উল্লেখিত ব্যক্তিরা পরস্পর যোগসাজোশে বিপুল অর্থের বিনিময়ে ভুয়া দলিল বানিয়ে জমি রেষ্ট্রি দেয়ার নামে সাধারন অনেক মানুষের সাথে প্রতারণা করেছে।


অর্থলোভি দূনীর্তি পরায়ন ওই ব্যক্তিদের লাইসেন্স বাতিলসহ কঠোর শাস্তির দাবী করেন সংবাদ সম্মেলন আয়োজনকারীরা। সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন,আলহাজ্জ নিয়াজ উদ্দীন,মো: নজিবর রহমান,মো: মাজেদুর রহমান,মো: আব্দুস সালাম,মো: আফসার আলী ও বুধা চন্দ্র রায়।

জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ গড়তে সকলকে একসাথে কাজ করতে হবে - অ্যাডভোকেট জাকিয়া তাবাসসুম জুঁই এমপি

জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ  গড়তে সকলকে একসাথে কাজ  করতে হবে                                                          -  অ্যাডভোকেট জাকিয়া তাবাসসুম জুঁই এমপি



মামুনুর রশিদ,প্রতিনিধি দিনাজপুর :১৫ আগষ্ট জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে দিনাজপুরে আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে অ্যাডভোকেট জাকিয়া তাবাসসুম জুঁই এমপি বলেন,জাতির পিতা হত্যা মামলায় জড়িত পলাতক সকল আসামীদের দেশে ফিরিয়ে এনে শাস্তি কার্য্যকরসহ বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ গড়তে সকলকে একসাথে কাজ  করতে হবে। তিনি বলেন, জাতির পিতা ও বঙ্গবন্ধু ছাড়া বাংলাদেশ চিন্তাই করা যায় না, এদেশের প্রতিটি মানুষের হৃদয় নিংড়ানো ভালোবাসায় হাজার হাজার বছর বেচেঁ থাকবেন জাতিরজনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ।


১৫ আগষ্ট জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে বাংলাদেশ সচেতন নাগরিক কমিটির উদ্দ্যোগে ২৯ আগষ্ট শনিবার সকালে দিনাজপুর প্রেসক্লাবের এম আব্দুর রহিম মিলনায়তনে বাংলাদেশ সচেতন নাগরিক কমিটি দিনাজপুর জেলা শাখার আয়োজনে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। দিনাজপুর প্রেসক্লাবের সাধারন সম্পাদক গোলাম নবী দুলালের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন সংরক্ষিত মহিলা আসনের এমপি অ্যাডভোকেট জাকিয়া তাবাসসুম জুঁই।


এসময় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ খৃষ্টান ঐক্য পরিষদের সদস্য সচিব ও বাংলাদেশ সচেতন নাগরিক কমিটির নির্বাহী সদস্য রতন সিং, দিনাজপুর সরকারী কলেজের অধ্যাপক জলিল আহম্মেদ, বাংলাদেশ সচেতন নাগরিক কমিটির নির্বাহী সদস্য আল মামুন বিপ্লব, প্রমুখ।


বাংলাদেশ সচেতন নাগরিক কমিটির নির্বাহী সদস্য ও ছাত্রলীগের সাবেক নেতা এবং অনুষ্ঠানের সঞ্চালক অ্যাডভোকেট সৈকত পাল বলেন,বাংলাদেশ মানেই বঙ্গবন্ধু,আমার একটি দল আছে সেদলটি হচ্ছে মানষু এবং আওয়ামীলীগ।

নেইমারে ডাকে সাড়া না দিয়ে ম্যান সিটিতেই যাচ্ছেন মেসি!

নেইমারে ডাকে সাড়া না দিয়ে ম্যান সিটিতেই যাচ্ছেন মেসি!



কাজী মোঃ সাজ্জাদ  হাসান 

লিওনেল মেসিকে প্যারিসে উড়িয়ে নিতে তার ক্লাব প্যারিস সেন্ট জার্মেইকে (পিএসজি) অনুরোধ করেন ব্রাজিলিয়ান তারকা নেইমার- এমন খবরই এসেছে সংবাদমাধ্যমে। কিন্তু নতুন খবর হলো নেইমারের ডাকে সাড়া দেননি মেসি। ফরাসি সংবাদপত্র ‘লে’কিপ’ জানিয়েছে, আর্জেন্টাইন তারকার বাবা ও এজেন্ট হোর্হে মেসির সঙ্গে যোগাযোগ করেছিল পিএসজি। হোর্হে মেসি পিএসজিকে জানিয়ে দিয়েছেন, তার ছেলে ম্যানচেস্টার সিটিতে যাওয়ার মনস্থির করেছে। গতকালই মেসির বাবা ইংল্যান্ডে গিয়েছিলেন চুক্তির ব্যাপারে আলোচনা করতে।

এর আগে সংবাদমাধ্যম স্কাই স্পোর্টস দাবি করে, মেসির সঙ্গে ফোনে কথা হয়েছে নেইমারের ও আর্জেন্টিনা জাতীয় দলের সতীর্থ অ্যাংগেল ডি মারিয়ার। বার্সায় চার মৌসুম খেলেছেন নেইমার। ২০১৭ সালে নেইমার বার্সা ছেড়ে পিএসজিতে যোগ দিলেও দুজনের বন্ধুত্বটা থেকে গেছে আগের মতোই। আর্জেন্টাইন তারকা বেশ কয়েকবার নেইমারকে ফিরিয়ে আনার কথা বলেছেন বার্সাকে।


স্কাই স্পোর্টসের প্রধান প্রতিবেদক ব্রায়ান সোয়ানসন এক টুইটে বলেছেন,  মেসি বার্সেলোনা ছাড়ার সিদ্ধান্ত জানানোর পর তাকে সই করানোর জন্য পিএসজিকে অনুরোধ করেন নেইমার। এ সপ্তাহে দুজনের মধ্যে কথা হয়েছে।’ বৃহস্পতিবার সংবাদমাধ্যম বিইন স্পোর্টসের ক্রীড়া সাংবাদিক ত্রানকেদি পালমেরিও মেসির প্রতি পিএসজির আগ্রহ নিয়ে দুটি টুইট করেন। প্রথম টুইটে তিনি জানান, ‘পিএসজি মেসিকে জানিয়েছে তারা তার জন্য প্রস্তাব রাখবে।’ আরেক টুইটে বলেন, ‘মেসির ঘনিষ্ঠজনদের সঙ্গে পিএসজি যোগাযোগ করে জানিয়েছে তারাও প্রস্তাব দেবে।’ লে’কিপ জানিয়েছে, ক্লাব পরিচালকের মাধ্যমে পিএসজি মেসির বাবাকে প্রস্তাব দেয় ঠিকই। কিন্তু আলোচনা ফল দেখেনি। সংবাদমাধ্যমটির দাবি,  পিএসজির ক্রীড়া পরিচালক লিওনার্দোর সঙ্গে ফোনে কথা হয় মেসির বাবা হোর্হে মেসির। লিওনার্দোই ফোন করেন মেসির বাবাকে। কিন্তু লিওনার্দোকে হোর্হে মেসি জানান, তার ছেলে নিজের পরবর্তী গন্তব্য ঠিক করে ফেলেছে। এবং সেটি ম্যানচেস্টার সিটি। হোর্হে মেসির কোনো উদ্ধৃতি দিতে পারেনি লে’কিপ। তবে গোলডটকম টুইট করেছে, ‘লিওনেল মেসি তার বাবাকে বলেছেন পিএসজির প্রস্তাব নাকচ করে তিনি ম্যানচেস্টার সিটিতে যোগ দেবেন, জানিয়েছে লে’কিপ। পুনর্মিলনীটা একবার ভেবে দেখুন!’

মেসি যে এর আগে ম্যানচেস্টার সিটি কোচ পেপ গার্দিওলার সঙ্গে কথা বলেছেন, সেটি এরই মধ্যে নিশ্চিত করেছে বেশ কয়েকটি সংবাদমাধ্যম। এছাড়া জাভি কাম্পোস, মার্সেলো বেকলারের মতো সাংবাদিকরাও বলছেন, মেসির পরবর্তী গন্তব্য হতে পারে ম্যান সিটি। বার্সেলোনার ভেতরের খবর বের করার সুনাম আছে এস্পোর্তে ইন্তেরাতিভো ও রেডিও ইতাতিয়াইয়ার সাংবাদিক বেকলারের। তিনিই প্রথম নেইমারের পিএসজিতে যাওয়ার খবর ফাঁস করেন।

কেশবপুরে বিষমুক্ত সবজি চাষে সাফল্য

কেশবপুরে বিষমুক্ত সবজি চাষে সাফল্য



মোরশেদ আলম

 যশোর প্রতিনিধি 


যশোরের কেশবপুর উপজেলার দুটি গ্রামের দু’শতাধিক কৃষক বিষমুক্ত সবজি চাষে সেক্স ফেরোমন ফাঁদ ব্যবহার করে সাফল্য দেখিয়েছেন।


কেশবপুরের মজিদপুর ইউনিয়নের বিভিন্ন গ্রামে বেগুন, কুমড়া, শিম, বরবটিসহ নানা ধরনের সবজি আবাদ হয়ে আসছে। কিন্তু এসব সবজিতে উচ্চ মূল্যের কীটনাশক ব্যবহারের পরও খরচের টাকা উঠতো না বলে কৃষকরা জানিয়েছেন। এ অবস্থায় উপজেলা কৃষি অফিসের পরামর্শে ওই ২ গ্রামের দু’শতাধিক কৃষক ১৭০ বিঘা জমিতে নিজ উদ্যোগে মাচা পদ্ধতির কুমড়া চাষে সেক্স ফেরোমন ফাঁদ ব্যবহার করে লাভবান হয়েছেন।


বাগদা গ্রামের কৃষক মশিয়ার গাজী ও সাঈদ মোড়ল জানান, তারা গত ৪ বছর ধরে মাচা পদ্ধতিতে কুমড়ার আবাদ করে আসছেন। এ পদ্ধতির আবাদ লাভজনক হওয়ায় দিন দিন চাষির সংখ্যা বৃদ্ধি পেতে থাকে। কিন্তু কুমড়া ক্ষেতে উচ্চ মূল্যের কীটনাশক ব্যবহারের পরও ক্ষতিকর পোকা দমনে ব্যর্থ হয়ে তারা এ ফসল আবাদ থেকে মুখ ফিরিয়ে নিতে শুরু করেন। এমতাবস্থায় তারা উপজেলা কৃষি অফিসের পরামর্শে কুমড়া ক্ষেতে সেক্স ফেরোমন ফাঁদ ব্যবহার করে বিঘা প্রতি ১০/১২ হাজার টাকা খরচ করে ৬০ থেকে ৭০ মণ ফলন পেয়েছেন। যার মূল্য ৪০ থেকে ৪৫ হাজার টাকা। তবে এ উপজেলায় সবজি সংরক্ষণে কোনো কোল্ড স্টোরেজ না থাকায় তারা আর্থিকভাবে ক্ষতির সম্মুখীন হয়ে থাকেন বলে কৃষকরা দাবি করেন।


এ ব্যাপারে উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মহাদেব চন্দ্র সানা বলেন, সেক্স ফেরোমন ফাঁদ ব্যবহারের উপর মাঠ দিবসের উদ্দেশ্য হলো মাচা পদ্ধতির কুমড়ার আবাদ সম্প্রসারণ, কৃষকদের আগ্রহ সৃষ্টি, উন্নত জাতের সঙ্গে পরিচয় ঘটানোসহ নতুন প্রযুক্তি চাষিদের মাধ্যমে মাঠে বাস্তবায়ন করা। সাধারণত কুমড়া রোপণের ৪৫ দিনেই ফল আসা শুরু হয় এবং ৯০ দিনেই কৃষকের ঘরে ওঠে। এ পদ্ধতিতে খরচ কম, ফলন বেশি পাওয়া যায়। সেক্স ফেরোমন ফাঁদ হলো স্ত্রী মাছি পোকার গায়ের গন্ধের অনুরূপ জৈবিক পদার্থ দিয়ে তৈরি একটি টোপ (লিয়র)। যা পোকার যৌন মিলনের জন্য পুরুষ পোকা আকৃষ্ট হয়ে ফাঁদের সাবান মিশ্রিত পানিতে পড়ে মারা যায়।

ঝিনাইদহে বিট পুলিশিং প্রশিক্ষণ কর্মশালার উদ্বোধন করেন, পুলিশ সুপার হাসানুজ্জামান পিপিএম

 ঝিনাইদহে বিট পুলিশিং প্রশিক্ষণ কর্মশালার উদ্বোধন করেন, পুলিশ সুপার হাসানুজ্জামান পিপিএম




খোন্দকার আব্দুল্লাহ বাশার। 

খুলনা ব্যুরো প্রধান।

"বিট পুলিশিং বাড়ি বাড়ি, নিরাপদ সমাজ গড়ি" এই শ্লোগান কে সামনে নিয়ে পুলিশের সেবাকে জনগনের নিকট পৌঁছে দেওয়া, সেবা কার্যক্রমকে গতিশীল ও কার্যকর করা এবং পুলিশের সাথে জনগণের সম্পৃক্ততা বৃদ্ধি করার উদ্দেশ্যে প্রতিটি থানায় ইউনিয়ন ভিত্তিক বা মেট্রোপলিটন এলাকার ওয়ার্ড ভিত্তিক এক বা একাধিক ইউনিটে ভাগ করে পরিচালিত পুলিশ ব্যবস্থা কে বলা হয় 'বিট পুলিশিং"। এই ব্যবস্থায় প্রতিটি বিটের দায়িত্ব প্রদান করে এক বা একাধিক পুলিশ কর্মকর্তা নিয়োগ করা হয়। পুলিশের সেবা জনগণের দোরগোড়ায় পৌঁছে দেওয়া পুলিশ রেগুলেশন অফ বেঙ্গল, ১৯৪৭এ বিট পুলিশিং এর কথা উল্লেখ আছে।

বর্তমান আইজিপি ড, বেনজীর আহমেদ বিপিএম (বার) ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার হিসেবে দায়িত্ব পালনকালে ২০১০সালে তাঁর উদ্যোগে ঢাকা মহানগর এলাকায় বৃহত্তর পরিসরে বিট পুলিশিং কার্যক্রম চালু হয়। পুলিশি সেবাকে আধুনিক ও উন্নত বাংলাদেশের সাথে তাল মিলিয়ে তৃণমূল পর্যায়ে উন্নীত করার লক্ষ্যে বর্তমান ইন্সপেক্টর জেনারেল অব পুলিশ জেলা পর্যায়ে পুলিশের কার্যক্রম চালু করার উদ্যোগ গ্রহণ করেছেন। বাংলাদেশ পুলিশের বেশ কিছু ইউনিট এর মাধ্যমে কাঙ্ক্ষিত সাফল্য পেয়েছে। এরই ধারাবাহিকতায় বাংলাদেশের সমস্ত জেলার মেট্রোপলিটন এলাকায় বিট পুলিশিং বাস্তবায়িত হলে জনগণ ব্যাপক ভাবে উপকৃত হবে এবং পুলিশ জনগণের আস্থা ও ভরসাস্থলে পরিণত হবে। বর্তমান আইজিপি মহোদয়ের ঐকান্তিক প্রচেষ্টা ও নির্দেশনায় ইতোমধ্যে বিট পুলিশিং কার্যক্রম সংক্রান্ত গাইডলাইন তথ্য স্ট্যান্ডার্ড অপারেটিং প্রসিডিউর 2020 প্রণীত হয়েছে ।

ঝিনাইদহ জেলায়  ০৬ টি পৌরসভা ৬৭ টি  ইউনিয়ন পরিষদ এলাকাকে মোট ৮৬ টি বিটে বিভক্ত করে ইতোমধ্যে কার্যক্রম চালু হয়েছে। প্রতিটি বিটে একজন এসআই বিট অফিসার একজন এএসআই সহকারি অফিসার এবং দুজন কনস্টেবল তাদের সহযোগী হিসেবে দায়িত্ব পালন করবে। বট অফিসার ও তার টিমের সদস্যগণ বিট এলাকায় বেশিরভাগ সময় অবস্থান করবে। এলাকার অপরাধ দমন আইনশৃঙ্খলা রক্ষায় তারা  গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে। বিট এলাকায়  সংঘটিত অপরাধ বিশেষ করে খুন ডাকাতি ধর্ষিতা নারী নির্যাতন ইত্যাদি সংবাদ প্রাপ্তির সাথে সাথে অব্যাহত অফিসার ও তার টিমের সদস্যগণ দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছাবে এবং আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণসহ ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের পাশে দাঁড়াবে। গ্রেপ্তারি পরোয়ানা তামিল ও এলাকার অপরাধীদের তালিকা তৈরি সহ নজরদারি করবে। চোরাকারবারি চিহ্নিত সন্ত্রাসী চাঁদাবাজ মানবপাচারকারী ভূমিদস্যু নারী উদ্যোক্তার জঙ্গিবাদের সাথে সম্পৃক্ত সন্দেহভাজন ব্যক্তি চোর-ডাকাত ছিনতাইকারী ও অভ্যাসগত অপরাধীদের তালিকা তৈরি করবে। তাদের  গতিবিধির উপর নজরদারি এবং আইনের আওতায় নিয়ে আসবে।

মূলকথা হলো বিট পুলিশিং ব্যবস্থায় তাৎক্ষণিকভাবে এবং দ্রুততার সাথে মানুষ পুলিশের সেবা পাবে। থানার সঙ্গে প্রত্যন্ত অঞ্চলের মানুষের নিবিড় যোগাযোগের মাধ্যম হিসেবে বিট পুলিশিং কার্যকরী ভূমিকা রাখবে। প্রতিটি স্তরেই জেলা পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ তদারকি করবেন। এতে করে মানুষের মধ্যে অপরাধ ভীতি দূর হবে। মানুষের দৈনন্দিন কর্মকান্ডও হবে নির্বিঘ্ন এবং নিরাপদ । 

ইতোমধ্যে বিট পুলিশিং কার্যক্রমকে স্বাগত জানিয়েছেন ঝিনাইদহের সচেতন মহল।

ঝিনাইদহের শৈলকুপায় সাপের কামড়ে গর্ভবতীর মৃত্যু

ঝিনাইদহের শৈলকুপায় সাপের কামড়ে গর্ভবতীর মৃত্যু




নিউজ ডেস্কঃ  ঝিনাইদহের শৈলকুপায় সাপের কামড়ে শরীফা খাতুন (২৫) নামে গর্ভবর্তী এক নারীর মৃত্যু হয়েছে। শনিবার উপজেলার হাকিমপুর ইউনিয়নে স্বামীর বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। তিনি তোহারো গ্রামের রাশেদুল ইসলাম ড্রাইভারের স্ত্রী।  


স্বামীর পরিবার সূত্রে জানা গেছে, প্রতিদিনের ন্যায় গেল শুক্রবার রাতে মীম নামে এক কন্যা সন্তানকে সাথে নিয়ে নিজ ঘরে ঘুমিয়ে ছিল শরীফা।


রাত ৯টার দিকে তার যন্ত্রণা শুরু হয়। সেসময় ঘুম ভেঙ্গে দেখতে পায় একটি সাপ বিছানা থেকে চলে যাচ্ছে। পরিবারের সদস্যরা তাকে ঝাড়ফুক করতে থাকে। অবস্থার অবনতি হলে কুষ্টিয়া হাসপাতালে নেওয়ার পথিমধ্যে তিনি মারা যান।

কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে প্রকাশ্যে এমপির ভাই কে কুপিয়ে হত্যা : হত্যাকারী আটক

 কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে প্রকাশ্যে এমপির ভাই কে কুপিয়ে হত্যা : হত্যাকারী  আটক




খোন্দকার আব্দুল্লাহ বাশার। 

খুলনা ব্যুরো প্রধান:কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে প্রকাশ্যে দিবালোকে হাসুয়া দিয়ে এলোপাতাড়ি ভাবে কুপিয়ে কুষ্টিয়া-১ দৌলতপুর আসনের সরকার দলীয় সাংসদ এ্যাড. আ. কা. ম সারওয়ার জাহান বাদশার ফুপাতো ভাই হাসিনুর রহমানকে (৫২) হত্যা করেছে মজিবর রহমান নামে এক ব্যক্তি। আজ শনিবার সকাল সাড়ে ৭টার দিকে উপজেলার ফিলিপনগর ইউনিয়নের ইসলামপুর ঘোষপাড়া মোড়ে তাকে হত্যার এ ঘটনা ঘটে।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, আজ শনিবার সকালে নিজ বাড়ির পার্শ্ববতী ইসলামপুর ঘোষপাড়া মোড়ে পদ্মা নদীর ধারে হাসিনুর রহমান মাছ ক্রয় করতে গেলে মজিবর রহমান পেছন দিক থেকে অতর্কিত হামলা চালিয়ে হাসিনুর রহমানকে ধারাল হাসুয়া দিয়ে এলোপাতি কুপায়ে পালিয়ে যায়। এসময় হাসিনুর রহমান মাটিতে লুটিয়ে পড়লে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে দৌলতপুর হাসপাতালে নিলে সকাল সোয়া ৯টায় সে মারা যায়।খবর পেয়ে দৌলতপুর থানা পুলিশ ইসলাম ঘোষপাড়া মোড়ে অভিযান চালিয়ে ঘাতক মজিবর রহমানকে আটক করেছে। সে ইসলামপুর ঘোষপাড়া এলাকার মৃত মতালি মিস্ত্রির ছেলে।

২০১৯ সালের কোরবানীর ঈদের সন্ধ্যায় ফিলিপনগর আবেদের ঘাট এলাকায় মজিবর রহমানের ছেলে ৭ম শ্রেণীর ছাত্র আনোয়ার হোসেনকে সহপাঠীরা ছুরিকাঘাত করে হত্যা করে। এমপি’র ভাই হাসিনুর রহমান হত্যাকারীদের পক্ষ নিলে বিচার না পেয়ে প্রতিশোধ নিতে মজিবর রহমান এ হত্যাকান্ড ঘটায় করে বলে স্থানীয়রা জানায়।পুলিশ হিতের লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য মর্গে প্রেরণ করেন।এ ব্যাপারে দৌলতপুর থানার ভারপ্রাপ্ত অফিসার ইনচার্জ নিশিকান্ত সরকারের সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করলে তিনি বলেন,সন্দেহ জনকভাবে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য একজনকে আটক করা হয়েছে এবং মামলার প্রক্রিয়া চলছে।

মোংলায় করোনায় ক্ষতিগ্রস্হ ১৫০ পরিবারের মাঝে উপমন্ত্রীর উপহার সামগ্রী প্রদান

মোংলায় করোনায় ক্ষতিগ্রস্হ ১৫০ পরিবারের মাঝে উপমন্ত্রীর উপহার সামগ্রী  প্রদান

        



মোঃএরশাদ হোসেন রনি, মোংলা

মোংলা উপজেলার বুড়িরডাঙ্গা ইউনিয়নে মাননীয় উপমন্ত্রী মিসেস হাবিবুর নাহার এর পক্ষে  করোনা ভাইরাসে ক্ষতিগ্রস্থ ১৫০ পরিবারের মাঝে উপহার সামগ্রী বিতরন  করা হয়।উপহার সামগ্রীর মধ্যে ছিলো চাল,ডাল,আটা,আলু, তেল ইত্যাদি  



শনিবার সকালে বুড়িরডাঙ্গা ইউনিয়নের    দিগরাজ ডিগ্রি মহাবিদ্যালয়ের  প্রাঙ্গণে উপমন্ত্রী হাবিবুর নাহার এর পক্ষে উপহার সামগ্রী        বিতরন করেন খুলনা সিটি কর্পোরেশনে মেয়র আলহাজ্ব  তালুকদার আব্দুল খালেক। 


এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন মোংলা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কমলেশ মজুমদার,মোংলা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ইকবাল বাহার চৌধুরী, রামপাল উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোয়াজ্জেম হোসেন,বুড়িরডাঙ্গা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নিখিল চন্দ্র রায়, দিগরাজ ডিগ্রি মহাবিদ্যালয় এর অধ্যক্ষ তপন কুমার গাইন সহ স্হানীয় আওয়ামীলীগ ও অঙ্গসংগঠন এর নেতৃবৃন্দ।

যশোর ভবদহের জলাবদ্ধতা ১০ লাখ মানুষের দুঃখে পরিণত হয়েছে

 যশোর ভবদহের জলাবদ্ধতা ১০ লাখ মানুষের দুঃখে পরিণত হয়েছে




মোরশেদ আলম

যশোর প্রতিনিধি

যশোরের ভবদহ অঞ্চলের জলাবদ্ধতা এখন ১০ লাখ মানুষের দুঃখে পরিণত হয়েছে। ভবদহ অঞ্চলের মানুষের পিছু ছাড়ছে না দীর্ঘদিনের জলাবদ্ধতা। এর মধ্যেই হঠাৎ বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে জলাবদ্ধতা নিরসনে তৈরি বিল খুকশিয়ার জোয়ারাধার (টিআরএম)। টানা বৃষ্টিতে নিম্নাঞ্চলের গ্রাম প্লাবিত হয়েছে। রাস্তাঘাট, বাড়িঘর, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, ধর্মীয় উপাসনালয় পানিতে তলিয়ে গেছে। এতে চরম দুর্ভোগে পড়েছেন এলাকার মানুষেরা।

বৃষ্টির পানিতে তলিয়ে গেছে বিস্তীর্ণ এলাকা। গত বৃহস্পতিবার থেকে শুরু করে গত বৃহস্পতিবার সকাল পর্যন্ত নিম্নচাপ হয়ে  মাঝারি ধরনের বৃষ্টিপাতে অভয়নগর ও মনিরামপুর উপজেলার অন্তত ৪০টি গ্রামে পানি ঢুকে পড়েছে। এই সব গ্রামের বেশির ভাগ বাড়িঘর প্লাবিত হয়েছে। চরম দুর্ভোগে পড়েছে পানিবন্দী লক্ষ লক্ষ মানুষ।

যশোর আবহাওয়া কার্যালয় সূত্র জানায়, মে মাসে স্বাভাবিক বৃষ্টিপাত ১৮০ মিলিমিটার, জুনে ৩২২ মিলিমিটার, জুলাইয়ে ৩৫৩ মিলিমিটার ও আগস্টে ২৭৫ মিলিমিটার। এই বছর মে মাসে ২৫৮ মিলিমিটার, জুনে ৪১৫ মিলিমিটার, জুলাইয়ে ২৩৭ মিলিমিটার ও আগস্টের ২৩ তারিখ পর্যন্ত ৩৫৬ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে। তারপরেও নিম্ন চাপের কারনে মাঝারি ধরনের বর্ষা হচ্ছে।  এতে করে পানি আরো অনেক দ্রুত বাড়ছে।

যশোরের অভয়নগর, মনিরামপুর ও কেশবপুর উপজেলা এবং খুলনার ডুমুরিয়া ও ফুলতলা উপজেলার অংশবিশেষ নিয়ে ভবদহ অঞ্চল। অভয়নগর উপজেলা ভবানীপুর গ্রামে শ্রী নদীর ওপর নির্মিত ভবদহ স্লুইসগেট দিয়ে মূলত এলাকার ৫৪টি বিলের পানি নিষ্কাশিত হয়। পলি পড়ে এলাকার পানিনিষ্কাশনের একমাত্র মাধ্যম মুক্তেশ্বরী, টেকা, শ্রী ও হরি নদী নাব্যতা হারিয়েছে। এতে নদী দিয়ে পানি নিষ্কাশিত হচ্ছে না। এ অবস্থায় বৃষ্টির পানিতে এলাকার বিলগুলো তলিয়ে গেছে। বিল উপচে পানি ঢুকেছে বিলসংলগ্ন গ্রামগুলোতে।

ভবদহ স্লুইসগেট রক্ষণাবেক্ষণের দায়িত্বে থাকা পানি উন্নয়ন বোর্ডের যশোরের কার্যসহকারী ফারুক আহমদ মোল্যা জানান, ভবদহ স্লুইসগেটের ২১ কপাটের সব কটি পলিতে তলিয়ে গেছে। সেগুলোর পলি পরিষ্কার করার কাজ চলছে। এখন নদী দিয়ে প্রবল জোয়ার আসছে। ফটক দিয়ে জোয়ারের পানি ঢুকছে। কিন্তু ভাটায় কম পানি বের হচ্ছে।

পানিতে তলিয়ে যাওয়ায় দুর্ভোগে পড়েছেন ভবদহ অঞ্চলের লক্ষাধিক মানুষ। পানিবন্দী মানুষদের কেউ কেউ ঘরবাড়ি ছেড়ে আশ্রয় নিয়েছেন উঁচু সড়কে। অনেক পরিবার ঘরের মধ্যে মাচা করে সেখানে থাকছে।

অভয়নগর উপজেলার, ডুমুরতলা, বারান্দী, দিঘলিয়া, ডহর মশিয়াহাটী, রাজাপুর, সুন্দলী, ভাটবিলা, সড়াডাঙা, হরিশপুর, ফুলেরগাতী, দামুখালী, দত্তগাতী, এবং মনিরামপুর উপজেলার হাটগাছা, সুজাতপুর, কুলটিয়া, লখাইডাঙ্গা, মহিষদিয়া, আলীপুর, পোড়াডাঙা, পদ্মনাথপুর, পাড়িয়ালী, দহাকুলা, কুচলিয়া, পাঁচকাটিয়া, ভুলবাড়িয়া, কুমারসীমা, কপালিয়া, পাচাকড়িসহ আরও কয়েকটি গ্রামের কোথাও আংশিক আবার কোথাও বেশির ভাগ বাড়িতে পানি উঠে গিয়েছে।।

 কয়েকটি এলাকা ঘুরে মানুষের চরম দুর্ভোগের চিত্র দেখা গেছে। গ্রামের বাসিন্দারা জানিয়েছেন, ইতিমধ্যে গ্রামগুলোর শত শত বাড়িতে পানি উঠেছে। রাস্তা তলিয়ে যাওয়ায় এলাকার অনেক জায়গায় যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে। বৃষ্টি থেমে গেলেও প্রতিদিন এক-দুই ইঞ্চি করে পানি বাড়ছে।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, মণিরামপুর উপজেলায় হাটগাছা গ্রামের ধ্রুবা বৈরাগীর বাড়িতে হাটু সমান পানি, হবে বর্ষা অল্প হচ্ছে কিন্তু পানি বাড়তেই আছে। বর্ষা না হলেও ধীরে ধীরে পানি বাড়ছে। তারা উঠানে বাসের ও কাঠের সাকো তৈরি করেছে। সুজাতপুর গ্রামের সুকুমার দাস রাস্তা থেকে ঘরে যাতায়াতের জন্য বাঁশের সাঁকো তৈরি করছে। তিনি বলেছে, ‘উঠোনে দেড় হাত আর ঘরের মধ্যে এক বিঘত জল। ঘরের মধ্যে ইট দিয়ে খাট উঁচু করে সেখানেই থাকছি। কিন্তু জল যেভাবে বাড়ছে তাতে বেশি দিন ঘরে থাকা যাবে না।

অভয়নগর উপজেলার ডুমুরতলা গ্রামের কৃষক শিবপদ বিশ্বাস বলেন, ‘গ্রামের এক শর বেশি বাড়িতে জল উঠে গেছে। ঘরের মধ্যে ইট দিয়ে খাট উঁচু করে সেখানেই থাকছি। আর একদিন ভারী বৃষ্টি হলে রাস্তায় উঠতে হবে।’

অভয়নগর উপজেলার সুন্দলী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান বিকাশ রায় বলেন, সুন্দলী ইউনিয়নে ১৪টি গ্রাম। এর মধ্যে ১২টি গ্রামের আংশিক বাড়িঘরে পানি উঠেছে। এলাকার বিলগুলো আগে থেকেই জলাবদ্ধ হয়ে আছে। এসব বিলে এবার কোনো আমন ধান হয়নি।

উপজেলার চলিশিয়া ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান নাদির হোসেন মোল্যা বলেন, ইউনিয়নের পাঁচটি গ্রামের অনেক বাড়িতে পানি উঠেছে। এর মধ্যে তিনটি গ্রামের অবস্থা খারাপ।

মনিরামপুর উপজেলার হরিদাসকাটি ইউপি চেয়ারম্যান বিপদ ভঞ্জন পাঁড়ে বলেন, তাঁর ইউনিয়নে ২২টি গ্রাম। ৮টি গ্রামে পানি ঢুকেছে, এর মধ্যে ৫টি গ্রামের অবস্থা বেশ খারাপ।

ভবদহ পানিনিষ্কাশন সংগ্রাম কমিটির আহ্বায়ক রণজিৎ বাওয়ালী বলেন, ভবদহ এলাকায় জলাবদ্ধতা শুরু হয়েছে। ইতিমধ্যে এলাকার ৪০টি গ্রামে পানি ঢুকে পড়েছে। অনেক ঘরবাড়ি পানিতে তলিয়ে গেছে। জোয়ারাধার ছাড়া জলাবদ্ধতা থেকে মুক্তি মিলবে না।

পানি উন্নয়ন বোর্ডের যশোরের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. তাওহীদুল ইসলাম বলেন, গত বছর ১০ কিলোমিটার নদীর পাইলট চ্যানেল খনন করা হয়। খননের পর পলিতে নদী হয়েছে। এ ছাড়া মুক্তেশ্বরী নদীর ২ দশমিক ১০ কিলোমিটার এবং ভবদহ স্লুইসগেটের উজান ও ভাটিতে শ্রী নদীতে ২০০ মিটার করে ৪০০ মিটার খননের কাজ চলছে।

তিনি জানান, ভবদহের একটি অঞ্চলের পানি আমডাঙ্গা খাল হয়ে ভৈরব নদে যায়। কিন্তু এবার ভৈরব নদে অনেক উচ্চতায় জোয়ার আসছে। এতে পানিনিষ্কাশনের পরিবর্তে ভৈরব নদ থেকে আমডাঙ্গা খাল দিয়ে উল্টো পানি ঢুকছে। এ জন্য আমডাঙ্গা খালের ওপর অবস্থিত ছয় কপাটের স্লুইসগেট বন্ধ রাখা হয়েছে। এতে ওই অঞ্চলে পানি জমে গেছে। জোয়ারের চাপ কমে গেলে দুই-এক দিনের মধ্যে আমডাঙ্গা খাল দিয়ে পানি নেমে যাবে।

যশোরের পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. তাওহীদুল ইসলাম বলেন, গত বছর খনন করা পাইলট চ্যানেল ভরাট হয়ে গেছে। ভবদহ এলাকার পাঁচ-ছয়টি বিলের পানি ভৈরব নদে যায়। কিন্তু এবার ভৈরব নদে অনেক উচ্চতায় জোয়ার আসছে। এজন্য আমডাঙ্গা খালের ছয় কপাটের স্লুইস গেট বন্ধ রাখা হয়েছে। এতে ওই অঞ্চলে প্রায় সাড়ে নয় ইঞ্চি পানি জমে গেছে।



দিনাজপুরের নবাবগঞ্জে দুই গ্রামের সংঘর্ষে গুরুতর আহত-৩, গ্রেফতার-৭

দিনাজপুরের নবাবগঞ্জে দুই গ্রামের সংঘর্ষে গুরুতর আহত-৩, গ্রেফতার-৭




মামুনুর রশিদ,দিনাজপুর প্রতিনিধি ঃ দিনাজপুরের নবাবগঞ্জ পুটিহার ও পুদিমহার গ্রামের ডিসের তারকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষে তিনজন গুরুতর আহত হয়েছে। আহতদের নবাবগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।গতকাল আনুমানিক বিকাল ৩ টায় ট্রলিতে লেগে ডিসের সংযোগ ছিড়ে যায়। ডিসের তার জোড়া দেওয়ার কথা বললে ট্রলি ড্রাইভার ক্ষিপ্ত হয় এবং ট্রলি ড্রাইভার ও খোকন এর সাথে ধাক্কাধাক্কি হয়। রাতে গ্রামে বিচার দিলে পুদিমহার গ্রামের প্রায় একশত লোকজন ২টি ট্রলি আর নছিমন এ করে পুটিহার গ্রামে আসে। রাত আনুমানিক ১০টায় পুদিমহার গ্রামের লোকজন ক্ষিপ্ত হয়ে খোকনের উপর হামলা করে তাকে বাচাতে এগিয়ে গেলে তার ভাই বাবুল ও স্ত্রী জমিলা বেগমের উপর আক্রমন চালায় এসময় পুদিমহার গ্রামের লোকজন লাঠিসোডা, পাঁচা,চাকু দিয়ে তিনজনকে বেধর মারপিট শুরু করে তাৎক্ষনিক পুটিগ্রাম গ্রামের লোকজন দিশকুল না পেয়ে তাদের উপর আক্রমন চালায় এবং তাদের হাত থেকে খোকন বাবুল ও জমিলা বেগমকে উদ্ধার করে। পুটিহার গ্রামের লোকজনের পাল্টা আক্রমন দেখে পুদিমহার গ্রামের লোকজন পালিয়ে যাওয়ার একপর্যায়ে সাত জনকে আটক করে ঘরে বন্দি করে রাখে। থানায় খবর দিলে এসআই জুলফিকার এর নেতৃত্বে একটিদল ঘটনা স্থলপরিদর্শন করে দুটি ট্রলি একটি নছিমন সহ তাদের ব্যবহৃত লাঠি, পাঁচা, চাকু উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে ও তাদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করে।

দিনাজপুরে বঙ্গবন্ধু’র জন্মশতবর্ষ উপলক্ষে বৃক্ষরোপণ কর্মসূচির উদ্বোধন

দিনাজপুরে বঙ্গবন্ধু’র জন্মশতবর্ষ উপলক্ষে বৃক্ষরোপণ কর্মসূচির উদ্বোধন




মামুনুর রশিদ, দিনাজপুর প্রতিনিধি ঃ দিনাজপুরে বঙ্গবন্ধু’র জন্মশতবর্ষ উপলক্ষে বৃক্ষরোপণ কর্মসূচির উদ্বোধন করেন সিনিয়র সচিব কবির বিন আনোয়ার।জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এঁর জন্মশতবর্ষ উপলক্ষে বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ড-দিনাজপুর অফিসের বাস্তবায়নে ও দিনাজপুর জেলা প্রশাসনের সহযোগিতায় বৃক্ষরোপণ এবং বৃক্ষরোপণ কর্মসূচির আওতায় বৃক্ষ বিতরণ করা হয়।

 দিনাজপুর শহরে খামার ঝাড়বাড়ী মিশন রোডে সৌন্দর্য বৃদ্ধি ও পরিবেশ ভারসাম্য রক্ষার লক্ষ্যে ঘাগড়া খালের পাশে গাছের চারা লাগিয়ে বৃক্ষরোপণ কর্মসূচির উদ্বোধন করেন পানি সম্পদ মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব কবির বিন আনোয়ার এবং বৃক্ষরোপণ কর্মসূচির আওতায় বৃক্ষ বিতরণ করেন পানি সম্পদ মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব কবির বিন আনোয়ার এর সহধর্মিনী মিসেস তৌফিকা আহমেদ।বৃক্ষরোপণ ও বৃক্ষবিতরণ শেষে দোয়া কামনা করা হয়।এ সময় অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন পানি সম্পদ মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মাহমুদুল ইসলাম, পানি উন্নয়ন বোর্ডের রংপুর জোনের প্রধান প্রকৌশলী জ্যোতি প্রসাদ ঘোষ, ঠাকুরগাও সার্কেলের তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী সৈয়দ সাহিদুল আলম, দিনাজপুর জেলা প্রশাসক মোঃ মাহমুদুল আলম, বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ড-দিনাজপুর এর নির্বাহী প্রকৌশলী মোঃ ফ‌ইজুর রহমান সহ জেলা প্রশাসন, পানি উন্নয়ন বোর্ড ও অন্যান্য সরকারি কর্মকর্তাগণ এবং জেলা স্কাউট এর সদস্যবৃন্দ।

দৌলতপুরে এমপি'র ভাই হাসিনুর সন্ত্রাসী হামলায় নিহত

দৌলতপুরে এমপি'র ভাই হাসিনুর সন্ত্রাসী হামলায় নিহত





কুষ্টিয়া জেলা প্রতিনিধি।। আততায়ীর হামলায় কুষ্টিয়া জেলার দৌলতপুর উপজেলার ফিলিপনগরে  আওয়ামীল লীগ নেতা মো. হাসিনুর রহমান নিহত হয়েছেন। 


আজ ২৯ আগস্ট সকাল সাড়ে সাতটার দিকে প্রাত:ভ্রমনে বের হলে পশ্চিম-দক্ষিন ফিলিপ নগরের এমপি গলির পশ্চিমে মসজিদের কাছে তিনি আততায়ীর উপর্যপরি হামলার শিকার হন। স্থানীয় ৩ নম্বর ফিলিপনগর ইউপি চেয়ারম্যান ফজলুল হক কবিরাজ জানান, হাসিনুর রহমান প্রতিদিনর মত আজ সকালে হাটতে বের হলে  হামলার শিকার হন। এরপর দ্রুত দৌলতপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হয়।


দৌলতপুর স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা তৌহিদুর ইসলাম তুহিন প্রতিদিনের কুষ্টিয়াকে জানান, হাসিনুরের অবস্থা সংকটাপন্ন হওয়ায় কুষ্টিয়া সদর হাসপাতালে নেওয়ার প্রস্ততি চলছিল কিন্তু তার আগেই তিনি মারা যান।


হাসিনুর রহমানের মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চত করেছেন দৌলতপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (চলতি দায়িত্ব) নিশিকান্ত। তিনি জানান, আততায়ীর হামলায় হাসিনুর রহমান মারা গেছেন। লাশ মর্গে নেওয়ার প্রস্তুতি চলছে। এ ব্যাপারে আইনি পদক্ষেপ নেয়া হচ্ছে।


হাসিনুর রহমানের পিতার নাম ডা: জমির উদ্দিন। পশ্চিম দক্ষিন ফিলিপনগরের এমপি গলিতে তার বাড়ি। হাসিনুর কুষ্টিয়া-১ দৌলতপুর আসনের সংসদ সদস্য এ্যাডভোকেট সরওয়ার জাহান বাদশাহ এর আপন ফুপাত ভাই।

বিশ্ববিদ্যালয়এর দাবিতে নওগাঁ বদলগাছীতে পাহাড়পুর বৌদ্ধবিহারে মানববন্ধন

 বিশ্ববিদ্যালয়এর দাবিতে নওগাঁ বদলগাছীতে পাহাড়পুর বৌদ্ধবিহারে মানববন্ধন




রহমত উল্লাহ বদলগাছী উপজেলা প্রতিনিধি নওগাঁ রাজশাহীঃনওগাঁ জেলার বদলগাছী উপজেলা পাহাড়পুর বৌদ্ধবিহার তথা সোমপুর মহাবিহার অতীতে ছিল প্রাচীন বিশ্ববিদ্যালয় এই বিশ্ববিদ্যালয়ের ধারাবাহিকতা  ফিরিয়ে আনতে প্রাচীন ঐতিহ্যের প্রকাশ করতে পাহাড়পুর এলাকাবাসীর  জোর দাবি পাহাড় পুর এ বিশ্ববিদ্যালয় পূননিমান করা হোক।


পাহাড়পুরে বিশ্ববিদ্যালয় চাই এ   স্লোগানকে সামনে রেখে ১৯-০৮-২০২০ সকাল ১০ টায় ৭তম বার এর মত হাজার জনগন একত্রে  এক বিশাল মানববন্ধন করেন । 


৭৮১ থেকে ৮২১ খ্রিস্টাব্দ পর্যন্ত ছিল পাহাড়পুরে এশিয়ার  প্রাচীনতম বিশ্ববিদ্যালয়। 


 বিশ্ববিদ্যালয়ের ঐতিহ্যকে অটুট রাখতে বহিঃবিশ্বে তার ঐতিহ্যকে তুলে ধরে তার মান উন্নয়নে এলাকাবাসীর দাবি করে প্রস্তাবিত বিশ্ববিদ্যালয়  পাহাড়পুরের প্রাণকেন্দ্রে পুনর্নির্মাণ করা হোক।

আশুরায় হচ্ছেনা তাজিয়া মিছিল,ডিএমপির নিষেধাজ্ঞা

আশুরায় হচ্ছেনা তাজিয়া মিছিল,ডিএমপির নিষেধাজ্ঞা




এইচ এম জহিরুল ইসলাম মারুফঃপবিত্র আশুরা উদযাপন উপলক্ষে ১০ মহররম (৩০ আগস্ট, রোববার) ঢাকা মেট্রোপলিটন এলাকায় সব ধরনের তাজিয়া, শোক ও পাইক মিছিল নিষিদ্ধ করা হয়েছে।


ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি) কমিশনার মোহা. শফিকুল ইসলাম স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।


বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, বর্তমান করোনাভাইরাস সংক্রমণ পরিস্থিতিতে ঢাকা মেট্রোপলিটন এলাকার নাগরিকের নিরাপত্তা নিশ্চিত করার লক্ষ্যে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ অর্ডিন্যান্স (অর্ডিন্যান্স নং–ওওও/৭৬) এর ২৮ ও ২৯ ধারায় অর্পিত ক্ষমতাবলে পবিত্র আশুরা উপলক্ষে সব ধরনের তাজিয়া/শোক/পাইক মিছিল নিষিদ্ধ ঘোষণা করা হয়। তবে ধর্মপ্রাণ নগরবাসী স্বাস্থ্যবিধি মেনে ইমামবাড়ায় ধর্মীয় অনুষ্ঠান পালন করতে পারবেন। অনুষ্ঠানস্থলে দা, ছোরা, কাঁচি, বর্শা, বল্লম, তরবারি, লাঠি বহন এবং আতশবাজি ও পটকা ফোটানো সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ থাকবে।


এ আদেশ পবিত্র আশুরা উপলক্ষে অনুষ্ঠান শুরু হতে শেষ পর্যন্ত বলবৎ থাকবে।

সাতক্ষীরা সদরে'র শিবতলায় জলাবদ্ধতা নিরসনের দাবিতে মানববন্ধন

সাতক্ষীরা সদরে'র শিবতলায় জলাবদ্ধতা নিরসনের দাবিতে মানববন্ধন



আজহারুল ইসলাম সাদী, জেলা প্রতিনিধিঃ‘অপরিকল্পিত মৎস্য ঘের বন্ধ কর, জলাবদ্ধতা নিরসন কর, বেতনা নদী পুন:খনন কর, জনমানুষকে রক্ষা কর’-এই স্লোগানকে সামনে রেখে মাছখোলাবাসীর আয়োজনে স্থায়ীভাবে জলাবদ্ধতা নিরসনের দাবিতে এক মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। শুক্রবার (২৮ আগস্ট) বিকালে শিবতলা মোড়ে উক্ত মানববন্ধনে, ব্রহ্মরাজপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক, ইউপি সদস্য,  নুর ইসলাম মাগরেবের সভাপতিত্বে ও সাপ্তাহিক সূর্যের আলো পত্রিকার বার্তা সম্পাদক মুনসুর রহমানের সঞ্চালনায় মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন অধ্যক্ষ আবু আহমেদ, বাংলাদেশের ওয়াকার্স পার্টি সাতক্ষীরা জেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক এড. ফাহিমুল হক কিসলু, জাসদ জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক ইদ্রিস আলী, বাসদ সাতক্ষীরার সংগঠক এড. আজাদ হোসেন বেলাল, স্বদেশ’র নির্বাহী পরিচালক মাধব দত্ত, জাতীয় শ্রমিক ফেডারেশন সাতক্ষীরার সাংগঠনিক সম্পাদক মকবুল হোসেন, জেলা নাগরিক কমিটির সদস্য সচিব এড. আবুল কালাম আজাদ প্রমুখ।

মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন, সাবেক ইউপি সদস্য, মোঃ শহিদুল ইসলাম, সাবেক ইউপি সদস্য করিম সরদার, নুরুল হক, সাইদুল ইসলাম, সাঈদ হাসান, মোহর আলী, সাকিব হাসান, কিসমত আলি আয়ুব আলিসহ এলাকার বিভিন্ন সামাজিক ও রাজনৈতিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।


বক্তারা বলেন, বেতনা নদী ও পানি নিষ্কাশনের পথ দখল করে অপরিকল্পিত মাছের ঘের করার কারণে মৌসুমী বৃষ্টিপাতের ফলে মাছখোলার শিবতলা গ্রামের বিভিন্ন সড়কে, বসতবাড়ি, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ও বাড়ির উঠানের হাঁটু পানি উঠেছে। এটি আজ নতুন ঘটনা নয়। প্রত্যেক বছর প্রায় ৫ মাস এলাকার মানুষকে পানির মধ্যে বসবাস করতে হয়। জলবদ্ধতা নিরসনের জন্য সরকার কোটি কোটি টাকার প্রকল্প গ্রহন করলেও পানি উন্নয়ন বোর্ডের কর্মকর্তা ও ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান সুষ্ঠুভাবে কাজ সম্পন্ন করে না। যার ফলে বছরের পর বছর স্থায়ী জলবদ্ধতার সৃষ্টি হয়। 

কয়েক বছর আগে বেতনা নদী খননের জন্য প্রায় ২৫ কোটি টাকা বরাদ্দ এসেছিল। কিন্তু ঐ বরাদ্দকৃত টাকার ৩০% খনন কাজেও ব্যয় হয়নি। অথচ ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান প্রায় ৪ কোটি টাকা উত্তোলন করেছিল। আমরা স্বচ্ছতার সাথে তাদের কাজটি করতে বললেও তারা করেননি। আমরা ঘের মালিকদের বিরুদ্ধে নয়, যারা কোটি টাকা আয়ের জন্য হাজার হাজার মানুষকে পানিবন্দি

করে রাখছে তাদের জন্য এলাকার শত শত পরিবারের নারী, শিশু ও বৃদ্ধরা ভোগ করছেন, সীমাহীন দুর্ভোগ।

সবাই অচিরেই বেতনা নদী পুনঃ খননের দাবি জানান।

মহেশপুরে ভোর রাতে পানিতে ডুবে এক বৃদ্ধার মৃত্যু

মহেশপুরে ভোর রাতে  পানিতে ডুবে এক বৃদ্ধার মৃত্যু



খোন্দকার আব্দুল্লাহ বাশার। 

খুলনা ব্যুরো প্রধান: ঝিনাইদহ মহেশপুর উপজেলার ৫নং শ্যামকুড় ইউনিয়নে পানিতে ডুবে এক বৃদ্ধা মহিলার মৃত্যু হয়েছে। শনিবার ভোর ৫ টার দিকে  উপজেলার ১ নং ওয়ার্ড গুড়দহ গ্রামে এই মর্মান্তিক ঘটনা ঘটে। এলাকাবাসী  জানায়,শনিবার  ভোরের দিকে গুড়দহ গ্রামের আব্দুল খালেক মিয়ার মা ঘরের  পাশেই বয়ে যাওয়া বড় গহিন পুকুরের পাশে গোসল  করার সময় পুকুরে পরে ডুবে মারা যায়। 

বৃদ্ধা মহিলার মর্মান্তিক মৃত্যুতে তার পরিবারের ছেলেরা ও গুড়দহ গ্রামে যেনো শোকের ছায়া নেমে এসেছে। 

এ বিষয়ে গ্রামের লোকজন বলেন, আসলে খুবই দুঃখজনক ও মর্মান্তিক  ঘটনা আমরা বৃদ্ধা মহিলার বিদায়ী আত্বার মাগফিরাত কামনা করছি ও শোকসন্তপ্ত  পরিবারের প্রতি সমবেদনা জ্ঞাপন করছি।

হবিগঞ্জে মারা গেলেন সেন্ট্রাল হসপিটালে জরায়ু কেটে দেয়া খদর চাঁন বিবি

 হবিগঞ্জে মারা গেলেন সেন্ট্রাল হসপিটালে জরায়ু কেটে দেয়া খদর চাঁন বিবি





লিটন পাঠান, হবিগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি


পাঁচ দিন জীবনের সাথে লড়াই করে অবশেষে মৃত্যুর কাছে হার মানলেন হবিগঞ্জ শহরের সেন্ট্রাল হসপিটাল এন্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টারে টিউমার অপারেশ করতে গিয়ে জরায়ু কেটে দেয়া খদর চাঁন বিবি (৬৫) গত বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত সাড়ে ৩টার দিকে সিলেটের মাউন্ট এডোরা হাসপাতালের আইসিইউতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান

তার মৃত্যুর, বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন নিহত খদর চাঁন বিবির ভাগ্নে মহিবুল ইসলাম শাহীন তিনি অভিযোগ করে। 


বলেন-শঙ্কটাপন্ন রোগী তিনদিন সিলেট হাসপাতালে ভর্তি থাকলেও একদিনও খবর নেননি জরায়ু কেটে দেয়া চিকিৎসক ডা. আরশেদ আলী। রোগী মারা যাওয়ার পর আমরা ডা. আরশেদ আলীর সাথে একাধিকবার যোগাযোগের চেষ্টা করেছি। কিন্তু তিনি এক রকম গাঁ ঢাকা দিয়ে রয়েছেন তবে সেন্ট্রাল হসপিটাল কর্তৃপক্ষ বিষয়টি, সমাধানে নিহত খদর চাঁন বিবির পরিবারের সাথে আলোচনায় বসতে চায় বলেও জানান তিনি।


শাহিন আরো বলেন-আমরা চাই ডা. আরশেদ আলী ও সেন্ট্রাল হাসপাতালের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হোক। এজন্য ইতোমধ্যে আমরা প্রশাসনকে মৌখিকভাবে বিষয়টি জানিয়েছি। যদি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ ডা. আরশেদ আলীসহ দোষিদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা না নেয় তাহলে আমরা আইনের আশ্রয় নেব এদিকে, শুক্রবার বিকেলে যানাজা শেষে নিহত খদর চাঁন বিবির লাশ তার গ্রামের বাড়ি বানিয়াচং উপজেলার মকরমপুর গ্রামের পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়েছে।


বিষয়টি সম্পর্কে ডা. আরশেদ আলী বলেন-ভুল হতেই পারে, তবে দীর্ঘ চিকিৎসা জীবনে অনেক অপারেশন করেছি এমনক কোন ঘটনা ঘটেনি। এই রোগীর কিডনিতে আরও আগের থেকেই সমস্যা ছিল যার কারণে এমনটা হয়েছে।

সকল অভিযোগ অস্বীকার করে তিনি বলেন-সেন্ট্রাল হসপিটাল ও আমার পক্ষ থেকে সার্বক্ষণিক একজন ব্যক্তি রোগীর খোঁজ নিচ্ছেন। এক ঘন্টা পরপরই রোগীর স্বজনদের মোবাইল কলের মাধ্যমে সর্বশেষ অবস্থার।


খবর নেয়া হচ্ছে এছাড়া সিলেট চিকিৎসা করাতে যা খরচ হচ্ছে সবটাই আমাদের পক্ষ থেকে দেয়া হচ্ছে। বিষয়টি সমাধানের জন্য নিহত নারীর পরিবারের সাথে আলোচনায় বসে সমাধানের চেষ্টা করা হবে বলেও জানান তিনি।

উল্লেখ্য- বানিয়াচং উপজেলার মক্রমপুর গ্রামের মৃত নোয়াজিশ মিয়ার স্ত্রী খদর চাঁন (৬৫) জরায়ু টিউমারে আক্রান্ত হন। গত ১ সপ্তাহ আগে তিনি হবিগঞ্জ সদর আধুনিক হাসপাতালে ভর্তি হন।


গত রবিবার সকালে হবিগঞ্জ সদর আধুনিক হাসপাতালের গাইনি বিভাগের কনসালটেন্ট ডা. আরশেদ আলী তাকে অপারেশনের জন্য শহরের টাউন হল রোডে অবস্থিত ‘সেন্ট্রাল হসপিটাল এন্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টারে’ অপারেশনের পরামর্শ দেন। আরশেদ আলীর পরামর্শে ওই নারীকে সেন্ট্রাল হসপিটালে ভর্তি করেন তার স্বজনরা। বিকেলে ডা. আরশেদ আলী সেন্ট্রাল হসপিটালে ওই নারীর জরায়ু টিউমারের অপারেশন করেন কিন্তু অপারেশন শেষে ওই।


নারীকে ওয়ার্ডে স্থানান্তর করার কয়েক ঘন্টা অতিবাহিত হলেও জরায়ুতে লাগানো ক্যাথেটার দিয়ে প্রস্রাব আসা বন্ধ থাকে। রাত প্রায় ১টা পর্যন্ত অপেক্ষা করলেও এক ফোঁটা প্রস্রাবও বের হয়নি। এমনকি ওই নারীর পেট ফোলে উঠে। এক পর্যায় রাত ১টার দিকে পুণরায় ডা. আরশেদ আলীকে খবর দিলে তিনি হাসপাতালে গিয়ে আবারও ওই নারীর অপারেশন করেন। কিন্তু এরপরও রোগী আরও অসুস্থ হয়ে পড়ছে অবস্থা বেগতিক দেখে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ ভোরে তাকে সিলেট রেফার্ড করে দেয়।


এ দিকে মূমুর্ষ অবস্থায় ওই নারীকে সিলেট রেফার্ড করলে ছাড়পত্রে সীল দেয়নি সেন্ট্রাল হসপিটাল কর্তৃপক্ষ। যার ফলে সিলেটের কোন হাসপাতাল ওই রোগীকে ভর্তি নেয়নি। এতে রোগীর অবস্থা আরও শঙ্কটাপন্ন হয়ে উঠে। সারাদিন সিলেটের বিভিন্ন হাসপাতালে ঘুরেও রোগীকে ভর্তি করতে না পারায় সোমবার রাত ৯টার দিকে আবারও রোগী নিয়ে হবিগঞ্জ ফিরে আসেন স্বজনরা পরে তারা সেন্ট্রাল হসপিটালে এসে বিক্ষোভ করলে।


হবিগঞ্জ সদর থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি শান্ত করেন। এক পর্যায়ে ছাড়পত্রে সীল নিয়ে আবারও তারা রোগীকে নিয়ে সিলেট চলে যান। রাতে সিলেটের মাউট এডোরা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে তার অবস্থার আরও অবনতি হলে সঙ্কটাপন্ন অবস্থায় তাকে আইসিইউতে স্থানান্তর করা হয়।

মেঘনায় রাইয়ান চৌধুরীর নামে নতুন চরের নামকরণ তজুমদ্দিনে

মেঘনায় রাইয়ান চৌধুরীর নামে নতুন চরের নামকরণ তজুমদ্দিনে

মোঃ আওলাদ হোসেন 

জেলা প্রতিনিধি ভোলা (দৌলতখান) 


সাম্প্রতিক ভোলাতে বেশ কতগুলো চর ওঠতেছে।ভোলার তজুমদ্দিনের বড় মলংচড়া ইউনিয়নের মেঘনায় জেগে উঠা নতুন চর ভোলা-৩ তজুমদ্দিন লালমোহন আসনের সংসদ সদস্যে আলহাজ্ব নুরুন্নবী চৌধুরী শাওনের পুত্র রাইয়ান চৌধুরী র নামে আনুষ্ঠানিক নামকরণ করা হয়েছে। বড় মলংচড়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান নুরুন্নবী শিকদার বাবুল জানান, ইউনিয়নের ৮টি ওয়ার্ড ইতিপূর্বে নদী গর্ভে বিলীন হওয়ার পর চরজহিরউদ্দিনের সিডার চর নিয়ে ওয়ার্ড গুলো পুনঃবির্নাস করা হয়েছিল। এবং নদীভাঙ্গা পরিবার গুলোকে পূনর্বাসনের ব্যবস্থা করা হয়। বর্তমানে আবার ভাঙ্গনের কবলে পড়ে  সিডারচর অংশের জনবসতি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

চেয়ারম্যান আরো জানান, মেঘনার মলংচড়া অং শে বড় আকারে  একটি নতুন চর জেগে উঠে। ইউনিয়নের গণ্যমান্য ব্যক্তিদের নিয়ে আনুষ্ঠানিক ভাবে চর রাইয়ান চৌধুরী নামকরণের  মাধ্যমে ভূমিহীন অসহায় পরিবার গুলোকে পূনর্বাসনের ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে। উপজেলা ভূমি অফিস সহ সংশ্লিষ্ট দপ্তরে প্রয়োজনীয় কাগজ পত্র জমা দেয়া হয়েছে।

আবার আসব ফিরে এইচ এম আওলাদ

 আবার আসব ফিরে  এইচ এম আওলাদ





আবার আসব ফিরে 

আমার সেই ছোট্ট কুটির নীড়ে। 

যেখানে চকাচকি খেলে বুনো হাঁসের দল,

লাফালাফি করে মুরগি শিয়ালের হাঁক।

আমি আবার আসব ফিরে, 

সেই চিরচেনা  সোনালী নীড়ে। 

যেখানে আবেগে আপ্লূত থাকে, 

চিরচেনা স্বজন আমার।

ফিরে আসব আমি 

আমার পিতৃহস্তের তৈরী

সোনাভরা প্রাচুর্যতায় পরিপূর্ণ গৃহে।

যেখানে মজুত হাজার স্মৃতি।

ফিরে আসব আমি সেই আলয়,

যেখানে চিরমলিন হয়ে ভেসে বেড়ায় 

আমার স্বজনের স্মৃতি।

নওগাঁ-৬ আসেন প্রকৌশলী জাহিদুল এমপি প্রার্থী হিসেবে বিকল্প নেই

 নওগাঁ-৬ আসেন প্রকৌশলী জাহিদুল  এমপি প্রার্থী হিসেবে বিকল্প নেই





মোঃ ফিরোজ হোসাইন 

রাজশাহী ব্যুরো


আসন্ন নওগাঁ-৬ (আত্রাই-রানীনগর) জাতীয় সংসদ উপ-নির্বাচনে দলীয় মনোনয়ন প্রত্যাশী প্রকৌশলী জাহিদুল ইসলামকে এমপি হিসেবে দেখতে চাই আত্রাই রাণীনগরের সর্বস্তরের জনসাধারণ।

নওগাঁ-৬ (রাণীনগর-আত্রাই) আসনে উপ-নির্বাচনকে সামনে রেখে আওয়ামী লীগ অফিস থেকে ৩৪ জন মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছেন। 

আজ আত্রাই রাণীনগর পথে-প্রান্তরে ঘুরে স্থানীয়দের সাথে মুখোমুখি হয় প্রতিবেদক।

প্রতিবেদককে স্থানীয়রা বলেন, আত্রাই রাণীনগরে জঙ্গিবাদ, সন্ত্রাসবাদ আর অপরাজনীতি থেকে বেরিয়ে এসে পরিচ্ছন্ন, সৃজনশীল সৎ নির্ভীক মানুষকে এমপি হিসেবে দেখতে চায়। পিছিয়ে পড়া  

আত্রাই রানীনগর এলাকার উন্নয়নকে গতিশীল করতে পরিচ্ছন্ন আধুনিক আত্রাই -রাণীনগর নগর গড়তে প্রকৌশলী জাহিদুল ইসলামের বিকল্প নেই।

এলাকার বিশিষ্ট ব্যক্তি সাথে আলাপ কালে জানা যায় জাহিদুল ইসলাম খুবই সৎ এবং যোগ্য ব্যক্তি হিসেবে দীর্ঘদিন দক্ষিণ কোরিয়ায় থেকে ৩/৫টি কোরিয়ান কোম্পানি বাংলাদেশে নিয়ে এসে সুনামের দক্ষতা সাথে ব্যবসা করছেন। তার প্রবল ইচ্ছে এলাকার মানুষের জন্য কিছু করা। 

দলকে সুসংগঠিত করে ও এই অঞ্চলের শান্তি বজায় রাখতে উন্নয়নের ধারাবাহিকতা রক্ষা,এলাকার মানুষের কর্মসংস্থান সৃষ্টি লক্ষ্যে জাহিদুল ইসলাম    মনোনয়ন দেয়া সঠিক সিদ্ধান্ত হবে বলে অনেকের মত। জনপ্রিয়তার বিচারেও উচ্চ শিক্ষিত পরিশ্রমী, সহজ-সরল, বিনয়ী ও মিষ্টভাষী, নেতৃত্বের গুনাবলী রয়েছে বলে স্থানীয় লোকজনের ধারণা।

আরও এক প্রশ্নের জবাব তিনি বলেন ১২ বছর বয়সে বঙ্গবন্ধুর ভাষন শুনে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শে উজ্জীবিত হয়ে রাজনীতি শুরু করি। আজও বুকে লালন করি। বঙ্গবন্ধুর কন্যা জননেত্রী আমাকে ব্যক্তিগত চেনেন জানেন, তাঁর সন্ত্রাস জঙ্গিবাদ বিষয়ে জিরো টলারেন্স বিশ্বাসী। আমিও তাঁর ডিজিটাল কর্মসূচির  প্রতিফলন দিতে চাই। তিনি আমাকে সুযোগ দিলে প্রথম কাজ হবে এলাকার হাজার হাজার বেকার মানুষের কর্মসংস্থান সৃষ্টিতে বিদ্যুৎ পাওয়ার প্লান্ট ও  ইন্ডাস্ট্রি স্থাপনা গড়ে তুলব। পাশাপাশি প্রতিবছর বন্যায় এলাকার মানুষ ক্ষতিগ্রস্থ না হয় বন্যা নিয়ন্ত্রন বাঁধে সংস্কার করব। 

উল্লেখ্য,লাইফ সাপোর্টে থাকার পর গত ২৭ জুলাই রাজধানীর একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান নওগাঁ-৬ (রাণীনগর-আত্রাই) আসনের এমপি ইসরাফিল আলম।

সিরাজগঞ্জে বেলকুচিতে এক দিনে ৪ টি বাল্যবিবাহ বন্ধ করেন ইউ এন ও,

 সিরাজগঞ্জে বেলকুচিতে এক দিনে ৪ টি বাল্যবিবাহ বন্ধ করেন ইউ এন ও,




মাসুদ রানা সিরাজগঞ্জ জেলাপ্রতিনিধিঃ সিরাজগঞ্জের বেলকুচি উপজেলায় একই দিনে চারটি বাল্যবিবাহের আয়োজন বন্ধ করে দেন বেলকুচি উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ আনিসুর রহমান।

শুক্রবার (২৮আগষ্ট) বিকাল থেকে গভীর রাত পর্যন্ত অভিযান চালিয়ে এ বাল্যবিবাহগুলো বন্ধ করা হয়। প্রথমে বিকাল ৪ টায় বেলকুচি পৌরসভার চালা অফিসপাড়া এলাকায় একাদশ শ্রেণীর ছাত্রী (১৭), বিকাল ৬ টায় ধুকুরিয়া বেড়া ইউনিয়নের খামার উল্লাপাড়া গ্রামে ষষ্ঠ শ্রেণীর ছাত্রী (১২), সন্ধ্যা ৭ টায় দৌলতপুর ইউনিয়নের চর নবীপুর গ্রামে দশম শ্রেনীর ছাত্রী (১৫) এবং রাত ১০ টায় বেলকুচি সদর ইউনিয়নের বেলকুচি মধ্যপাড়া গ্রামে দশম শ্রেনীর ছাত্রী (১৫) এর বাল্যবিবাহ বন্ধ করা হয়।

ভ্রাম্যমাণ আদালত সূত্রে জানা যায়, শুক্রবার বিকাল হতে গভীর রাত পর্যন্ত গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে বাল্যবিবাহগুলো বন্ধ করা হয়। চারটি বাল্যবিবাহের তিনটিতে কনে অপ্রাপ্তবয়স্ক ও একটিতে বর ও কনে উভয়ই অপ্রাপ্তবয়স্ক। বাল্যবিবাহগুলো বন্ধ করে প্রত্যেক প্রযোজ্যক্ষেত্রে কনের বাবা ও বরের বাবার কাছ থেকে কনে ও বর প্রাপ্তবয়স্ক না হওয়া পর্যন্ত বিবাহ দিবেন না বলে মুচলেকা নেয়া হয় এবং বর ও কনের অভিভাবকদের কাছ থেকে মোট পঞ্চান্ন হাজার টাকা জরিমানা আদায় করা হয়।


বাল্যবিবাহগুলো বন্ধে সহযোগিতা করেন বেলকুচি থানার উপপরিদর্শক মোঃ কামরুজ্জামান ও থানা পুলিশের সদস্যবৃন্দ।

তিনজন বিশিষ্ট ব্যাক্তি স্মরণে-সন্দ্বীপ অনলাইন প্রেস ক্লাবের শোকসভা ও দোয়া মাহফিল

তিনজন বিশিষ্ট ব্যাক্তি স্মরণে-সন্দ্বীপ অনলাইন প্রেস ক্লাবের শোকসভা ও দোয়া মাহফিল

 



রিয়াজুল করিম রিজভী

স্টাফ রিপোর্টার চট্টগ্রাম


স্বাস্থ্যবিধি মেনে সন্দ্বীপের তিনজন বিশিষ্ট ব্যাক্তি স্মরণে সন্দ্বীপ অনলাইন প্রেস ক্লাবের উদ্যোগে এক শোকসভা ও দোয়া মাহফিল আজ ২৮ আগষ্ট শুক্রবার সকাল ১০ টায় অনু্ষ্ঠিত হয়। উক্ত তিনজন বিশিষ্ট ব্যাক্তি হচ্ছেন- সন্দ্বীপের সাবেক মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার এ বি এম ছিদ্দিকুর রহমান, সন্দ্বীপের সাবেক তিনবারের শ্রেষ্ঠ প্রাথমিক প্রধান শিক্ষক জামাল উদ্দিন ও হালিশহর থেকে প্রকাশিত সাপ্তাহিক জনতার খবর সম্পাদক এম. শামসুল হুদা।


সন্দ্বীপের এনাম নাহার হাই স্কুল মোড় সংলগ্ম মুছাপুর  জুনিয়র অসংলগ্ন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে অনু্ষ্ঠিত উক্ত সভায় সভাপতিত্ব করবেন-'সাপ্তাহিক আলোকিত সন্দ্বীপ' সম্পাদক ও সন্দ্বীপ অনলাইন প্রেস ক্লাবের প্রতিষ্ঠাকালীন সভাপতি অধ্যক্ষ মুকতাদের আজাদ খান।


সন্দ্বীপ অনলাইন প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ইলিয়াছ সুমনের সঞ্চালনায় শোকসভায় সম্মানিত আমন্ত্রিত অতিথি হিসেবে আলোচনায় অংশ নেন- সন্দ্বীপ উপজেলা কমপ্লেক্স কেন্দ্রীয় জামে মসজিদের খতিব মাওলানা মোঃ খবিরুল ইসলাম, সন্দ্বীপ শিল্পকলা একাডেমির সাধারণ সম্পাদক আবুল কাসেম শিল্পী, মগধরা স্কুল এন্ড কলেজ পরিচালনা কমিটির সভাপতি কারিমুল মাওলা লিটন, আজিমপুর হাই স্কুলের প্রধান শিক্ষক বিষ্ণু পদ রায়, মাইটভাঙ্গা দ্বিমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষক মোঃ সাইফুল ইসলাম, উপজেলা ইন্সট্রাক্টর মোঃ রুহুল আমিন, মগধরা স্কুল এন্ড কলেজের প্রভাষক মহি উদ্দিন খান, পূর্ব সন্দ্বীপ বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক কবি নীলাঞ্জন বিদ্যুৎ, মুছাপুর জুনিয়র অসংলগ্ন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মিঠু রানী রায় চৌধুরী, এনাম নাহার হাই স্কুল মোড় ব্যবসায়ী কল্যান সমিতির সাবেক সভাপতি আসিফ আকতার, অনলাইন সন্দ্বীপ টিভির নির্বাহী খোদাবক্স সাইফুল ও সাবেক ছাত্রনেতা রেজাউল করিম রিয়াদ।


উপস্থিত ছিলেন- লিও রিয়াদ রহমান, বেসরকারি সংস্থা নিজেরা করির সন্দ্বীপ অঞ্চল সভাপতি মতিয়ার রহমান, হাজী আবদুল বাতেন সওদাগর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক নূর নবী রিয়াদ, মগধরা স্কুল এন্ড কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি মুসলিম উদ্দিন টিটু, দৈনিক সরেজমিন পত্রিকার হালিশহর প্রতিনিধি রিয়াজুল করিম রিজভী।


আরও উপস্থিত ছিলেন- সাপ্তাহিক আলোকিত সন্দ্বীপ-এর ষ্টাফ প্রতিনিধি নূর মোস্তফা আলী হাসান, 

সন্দ্বীপ অনলাইন প্রেস ক্লাবের সহ-সভাপতি মাকছুদ আলম, যুগ্ম সম্পাদক ডা. পুষ্পেন্দু মজুমদার, আইটি সম্পাদক আরফিন তৈয়ব, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক নাঈম সোহাগ, শিক্ষা সম্পাদক শরীফ উদ্দিন, সদস্য প্রলয় চন্দ্র দাশ, সবুজ চন্দ্র দাশ, সোনালী লাইফ ইন্স্যুরেন্স কোম্পানির সন্দ্বীপ টাউন ইনচার্জ মোঃ মোবারক হোসাইন, অনলাইন সন্দ্বীপিয়ান টিভির নির্বাহী মাইন উদ্দিন আল আকাশ।


শোকসভায় পবিত্র কোরআন থেকে তিলোয়াত করেন-দৈনিক খবর পত্রিকার সাবেক সন্দ্বীপ প্রতিনিধি হাফেজ জামাল আবদুল নাছির শাহী।


দোয়া মাহফিল পরিচালনা করেন-সন্দ্বীপ উপজেলা কমপ্লেক্স কেন্দ্রীয় জামে মসজিদের খতিব মাওলানা মোঃ খবিরুল ইসলাম।


প্রসঙ্গগত, মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার এ বি এম ছিদ্দিকুর রহমান গত ১৮ আগষ্ট মঙ্গলবার নিজ বাসভবন জামান গেষ্ট হাউসে ষ্ট্রোকজনিত কারণে ইন্তেকাল করেন, সাবেক তিনবারের শ্রেষ্ঠ প্রাথমিক প্রধান শিক্ষক জামাল উদ্দিন স্যার গত ২৬ আগষ্ট বুধবার চট্টগ্রাম নগরীর একটি বেসরকারি হাসপাতালে করোনায় ইন্তেকাল করেন এবং হালিশহর থেকে প্রকাশিত সাপ্তাহিক জনতার খবর সম্পাদক এম.শামসুল হুদা গত ১৪ আগষ্ট শুক্রবার চট্টগ্রাম নগরীর একটি বেসরকারি হাসপাতালে ষ্ট্রোকজনিত কারনে ইন্তেকাল করেন।

মুরাদনগরে আ’লীগ নেতার বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দেওয়ার প্রতিবাদে মানববন্ধন ও সমাবেশ

 মুরাদনগরে আ’লীগ নেতার বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দেওয়ার প্রতিবাদে মানববন্ধন ও সমাবেশ


আলমগীর হোসাইন বাগমারা,কুমিল্লা:উদ্দেশ্য প্রনোদিত হয়ে আওয়ামীলীগ নেতা, তার ব্যবসায়ী ভাই ও মৎস্য খামার কর্মচারীকে মিথ্যা মামলা দিয়ে অহেতুক হয়রানি করার প্রতিবাদে এক মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। মঙ্গলবার দুপুরে কুমিল্লার মুরাদনগর উপজেলার পাহাড়পুর ইউনিয়নের সুরানন্দি বাজারে ওই মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।


পাহাড়পুর ইউপি চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুস ছামাদ মাঝির সভাপতিত্বে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি আব্দুল আজিজের উপস্থাপনায় উক্ত মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি জাহাঙ্গীর আলম সরকার, বর্তমান সাধারণ সম্পাদক ফজলুর রহমান, সাবেক সাধারণ সম্পাদক লিটন কুমার ভৌমিক, সমাজ সেবক ছিদ্দিক হোসেন মাস্টার, মঞ্জুরুল আলম সরকার, সাবেক মেম্বার কাজী সেলিম সরকার ও জোহর আহম্মেদ প্রমুখ।


মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশে অন্যান্যের মধ্যে আরো উপস্থিত ছিলেন, নুরুল ইসলাম মেম্বার, ব্যবসায়ী রাসেল ভুইয়া, আবু ইউসুফ ওরফে মনির হোসেন, লিটন মিয়া, মাস্টার সঞ্জিত চন্দ্র বিশ্বাস, আবু ইউসুফ ওরফে জাকির হোসেন, সমাজ সেবক তফাজ্জল হোসেন, নুরুন নবী, হাজী জয়নাল আবেদীন ও নুরুল ইসলাম আমিন প্রমুখ।


ভূক্তভোগি ২নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল করিম বলেন, আমি একজন মৎস্য চাষী। সুরানন্দি গ্রামের নবী নেওয়াজের ছেলে মাদক ব্যবসায়ী শাহপরান আমার কাছে ৫০ হাজার টাকা চাদঁা চায়। চাদঁা না দেওয়ায় তার স্ত্রী লাকি বেগমকে দিয়ে গত ২৫ জুন আমার ভাই আব্দুর রহিম ওরফে জুলু মিয়াসহ আমার বিরুদ্ধে মুরাদনগর থানায় একটি মিথ্যা মামলা করে। ওই মামলায় আমরা আদালত থেকে জামিনে আসি। এখানে সে ব্যর্থ হয়ে এলাকার কয়েকজন কুচক্রী মহলের প্ররোচনায় আবার ১৬ জুলাই কুমিল্লার বিজ্ঞ নারী ও শিশু নির্যাতন ট্রাইব্যুনালের ৩নং আদালতে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে আরেকটি মিথ্যা মামলা করেন। এ মামলায় আমার ভাই আব্দুর রহিম ওরফে জুলু মিয়া ৫ দিন কারাভোগ করে জামিনে মুক্ত হন। এখন মামলার বাদী লাকি বেগম ও তার স্বামী শাহপরান লোক মারফত আমার কাছে খবর পাঠান মোটা অংকের টাকা দিলে মামলা তুলে নিবে।


মাদক মামলায় ৬ মাসের কারাভোগকারী শাহপরান ও তার স্ত্রী লাকি বেগম আমাদেরকে অহেতুক বার বার মিথ্যা মামলা দিয়ে পারিবারিক, সামাজিক ও আর্থিক ক্ষতিসাধন করছে। তাদেরকে আইনের আওতায় এনে আমাদের বিরুদ্ধে দায়ের করা মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবি জানাচ্ছি।


মানববন্ধনে অন্যান্য বক্তারা আরো বলেন, পাহাড়পুর ইউনিয়নে কোন সামাজিক দ্বন্দ নেই। শাহপরান শহর থেকে গ্রামে আসার পর মাদক, জুয়া ও মিথ্যা মামলা দিয়ে সমাজের গন্যমান্য ব্যক্তিদের হয়রানি করছেন। যাতে করে ভয়ে তার মাদক ব্যবসা বাধঁা হয়ে না দাড়ঁায়। এ পরিবারটিকে যেখানে আইনের হাতে তুলে দেওয়া দরকার, সেখানে কিছু কুচক্রী মহল বিভিন্ন ভাবে আশ্রয়-প্রশ্রয় দিচ্ছে। যার ফলে সাধারণ মানুষ আতংকের মধ্যে আছে এবং গ্রামের শান্তি বিনষ্ট হচ্ছে।


মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশের সভাপতি পাহাড়পুর ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুস ছামাদ মাঝি বলেন, আইন যদি আইনের গতিতে চলে তাহলে প্রত্যাশিত সুবিচার পাওয়া যায়। যখনি কচক্রী মহল উদ্দেশ্য প্রনোদিত হয়ে আইনকে ভিন্নখাতে প্রভাবিত করে তখনিই সম্মানী মানুষ হয়রানির শিকার হয়। আব্দুল করিম একজন পরিচ্ছন্ন আওয়ামীলীগ নেতা এবং সফল মৎস্য ব্যবসায়ী। তাকে মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি করা যেমন আইন লংঘন হয়েছে, তেমনি কাজটি হয়েছে ঘৃনীত ও নিন্দনীয়। ইতপূর্বে এমন ন্যাক্কারজনক ঘটনা পাহাড়পুর ইউনিয়নে ঘটে নাই। আমি এ ইউনিয়নের সকলকে বিনয়ের সহিত বলতে চাই, যদি আর কোন মানুষকে মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি করা হয়, তাহলে সর্বস্তরের জনগণকে নিয়ে আমরা তা প্রতিহত করব।


মানববন্ধনে অভিযোগ আনা শাহপরানের সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলেও রিসিভ না করায় কথা বলা সম্ভব হয়নি।

হবিগঞ্জে দুই গ্রুপের সংঘর্ষে পুলিশসহ আহত ২৫ আটক ১০

হবিগঞ্জে দুই গ্রুপের সংঘর্ষে পুলিশসহ আহত ২৫ আটক ১০


লিটন পাঠান হবিগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি:হবিগঞ্জ জেলার সদর উপজেলায় সাবেক ও বর্তমান দুই ইউপি চেয়ারম্যানের লোকদের মধ্যে দুদফা রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষে পুলিশসহ অন্তত ২৫ জন আহত হয়। শুক্রবার (২৮-আগস্ট) দুপুরে সদর উপজেলার নিজামপুর ইউনিয়নের দরিয়াপুর গ্রামে এ সংঘর্ষ হয়। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি এনেছে। এ সময় ১০ জনকে আটক করা হয়।


পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, ওই গ্রামের বাসিন্দা বর্তমান ইউপি চেয়ারম্যান মো. তাজ উদ্দিন এবং সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান মো. আব্দুল আওয়ালের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে এলাকায় আধিপত্য বিস্তার নিয়ে বিরোধ চলে আসছে। এর জের ধরে শুক্রবার জুমার নামাজের পূর্বে উভয়পক্ষের লোকজন দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি শান্ত করে।


পরে জুমার নামাজের পর দুই পক্ষ আবার সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়ে। খবর পেয়ে পুলিশ আবারও ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। এ সময় ১০ জনকে আটক করা হয়েছে। সংঘর্ষে ৫ পুলিশসহ অন্তত ২৫ জন আহত হয়। তারা সদর আধুনিক হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়েছে।


সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. মাসুক আলী জানান, দুই চেয়ারম্যানের বিরোধে সংঘর্ষ হয়েছে। বর্তমানে পরিস্থিতি শান্ত আছে।

জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে ফরিদপুরের নগরকান্দায় শোক র‍্যালী অনুষ্ঠিত হয়েছে

 জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে ফরিদপুরের নগরকান্দায় শোক র‍্যালী অনুষ্ঠিত হয়েছে


মো: আ: কুদ্দুস নগরকান্দা প্রতিনিধিঃজাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৫ তম শাহাদৎ বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে ফরিদপুরের নগরকান্দায় শোক র‍্যালী অনুষ্ঠিত হয়েছে। শুক্রবার বিকেলে উপজেলা আওয়ামী লীগের আয়োজনে শোক র‍্যালীর নেতৃত্ব দেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য সংসদ উপনেতা সৈয়দা সাজেদা চৌধুরী এমপির রাজনৈতিক প্রতিনিধি ও তার পুত্র শাহাদব আকবর লাবু চৌধুরী। র‍্যালীটি উপজেলা পরিষদ চত্বর থেকে শুরু করে পৌর শহরের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিন করে। এর আগে উপজেলায় ডাক বাংলো মাঠে এক সংক্ষিপ্ত শোকসভার আয়োজন করে। শাহাদব আকবর লাবু চৌধুরী ছাড়াও এ শোকসভায় আরো বক্তব্য রাখেন, সংসদ উপনেতার একান্ত সহকারী সচিব শফিউদ্দিন, জেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি ও নগরকান্দা উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যানপ্ত মনিরুজ্জামান সরদার, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বেলায়েত হোসেন মিয়া বিভিন্ন ইউনিয়নের চেয়ারম্যান বৃন্দ,আওয়ামী ও তার অংগ সংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

সিরাজগঞ্জে কামারখন্দে ভূটভুটির নিচে চাপা পড়ে কৃষকের মৃত্যু !

 সিরাজগঞ্জে কামারখন্দে ভূটভুটির নিচে চাপা পড়ে কৃষকের মৃত্যু !




মাসুদ রানা সিরাজগঞ্জ জেলাপ্রতিনিধিঃ সিরাজগঞ্জের কামারখন্দে পাটের আঁশ ছাড়ানোর সময় ভুটভুটির নিচে চাপা পড়ে সামছু সরকার (৪৫) নামে এক কৃষকের মৃত্যু হয়েছে।

 সে উপজেলার চরকুড়া গ্রামের জহুরুল ইসলাম সরকারের ছেলে।

শুক্রবার (২৯ আগস্ট) উপজেলার চরকুড়া আঞ্চলিক সড়কে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় একই এলাকার নারী ও শিশু সহ আরো তিনজন আহত হয়েছেন। আহতরা হলেন, মালেকা (৬০) নুর জাহান (১০) এবং ইয়াহিয়া (৪২)।


নিহতের ছোট ভাই আয়নাল সরকার মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেন। এ ব্যাপারে কামারখন্দ ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের সাব অফিসার আফাজ উদ্দিন জানান, সকালে চরকুড়া গ্রামের আঞ্চলিক সড়ক দিয়ে একটি ভুটভুটি যাচ্ছিল। এমতাবস্থায় ভুটভুটিটি চড়কুড়া গ্রামের সামছু সরকারের বাড়ীর সামনে এসে পৌঁছালে ভুটভুটিটি রাস্তার বাম পাশে উল্টে যায়। সেখানে পাটের আঁশ ছাড়াতে ব্যস্ত থাকা কৃষক সামছু সরকার, মালেকা ও নুর জাহান এবং পথচারী ইয়াহিয়া ওই ভুটভুটির নিচে চাপা পড়ে।

পরে ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের সদস্যরা ঘটনাস্থলে পোঁছে তিনজনকে গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার করে সিরাজগঞ্জ ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব জেনারেল হাসপাতালে প্রেরণ করে। আহতদের মধ্যে সামছু সরকারের শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে উন্নতি চিকিৎসার জন্য বগুড়ায় রেফার্ড করেন চিকিৎসক। বগুড়ায় যাওয়ার পথে জেলার রায়গঞ্জ উপজেলার চান্দাইকোনা এলাকায় পৌঁছালে বিকেলের দিকে মারা যান সামছু সরকার।

সিরাজগঞ্জে উল্লাপাড়ায় এক পুলিশ কনেস্টবলের স্ত্রী লাস ডোবা থেকে উদ্ধার

সিরাজগঞ্জে উল্লাপাড়ায় এক পুলিশ কনেস্টবলের স্ত্রী লাস ডোবা থেকে উদ্ধার




মাসুদ রানা সিরাজগঞ্জ জেলাপ্রতিনিধিঃ সিরাজগঞ্জে উল্লাপাড়ায় সুরভী (২০) নামের এক গৃহবধুর লাশ বাড়ির পার্শ্বের ডোবা থেকে উদ্ধার করেছে উল্লাপাড়া মডেল থানার পুলিশ । সে উপজেলার পঞ্চক্রোশী ইউনিয়নের চর-কালিগঞ্জ গ্রামের সাহেব আলীর ছেলে পুলিশ কনস্টেবল মনিরুল ইসলাম (২৬)এর স্ত্রী। একই ইউনিয়নের রামকান্তপুর গ্রামের শফিকুল ইসলামের মেয়ে সুরভী ।


গৃহবধূর লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য সিরাজগঞ্জ শহীদ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব হাসপাতালে পাঠিয়েছে।


এ বিষয়ে উল্লাপাড়া মডেল থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা দীপক কুমার দাশ (পিপিএম) জানান এটা হত্যা নাকি আত্মহত্যা ঘটনাটি স্পষ্ট নয়। লাশ ময়নাতদন্তের পর জানা যাবে। এ বিষয়ে এখন পর্যন্ত কেউ কোন অভিযোগ করেনি ।

রাজশাহীর বাগমারায় বিলসুতি বিল উন্মুক্তের দাবিতে এলাকাবাসীর মানবন্ধন

রাজশাহীর বাগমারায় বিলসুতি বিল উন্মুক্তের দাবিতে   এলাকাবাসীর মানবন্ধন




 

মোঃ ফিরোজ হোসাইন 

রাজশাহী ব্যিরো


 রাজশাহীর বাগমারা উপজেলার বড়বিহানলী ইউনিয়নের বিলসুতি বিলে মৎজীবি সমিতির জন্য উন্মুক্তের দাবিতে মানববন্ধন করেন অত্র বিলের চারপাশের এলাকাবাসী।


শুক্রবার সকাল ১০টাই খালিসপুর বাজারে বিলধারের স্থানীয় ২৮০ কার্ডধারী মৎস্যজীবি ও এলাকাবাসী স্বতঃস্ফূর্তে মানববন্ধনে অংশ গ্রহণ করেন।

মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন মৎস্যজীবি সমিতির সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ  এরশাদ আলী,সাধারন সম্পাদক ও ইউপি সদস্য মোঃ মোফাজ্জল হোসেন হীরু, রকিব উদ্দিন, শিশির আহম্মেদ, নিমাই সরকার প্রমুখ।

এসময় বক্তারা উপজেলার হাসানপুর গ্রামের প্রভাবশালী লবিন হাওয়ালাদার এর ছেলে অমূল্য হাওলাদারের মদদে খালিসপুর গ্রামের মৃত মীরজন এর ছেলে আঃ রশিদ প্রাং,বড়বিহানলী গ্রামের নাসির উদ্দীনের ছেলে রেজা মাহম্মুদ সহ অত্র এলাকার কিছু প্রভাবশালী ব্যক্তি বাঁধ দিয়ে জোর পূর্বক মৎস্য চাষ করার অভিযোগ করেন।

এসময় বক্তারা ধানী জমিতে দীর্ঘ দিন মৎস্য চাষের ফলে ভূমির আইল এবং সীমানা নির্ধারণ কঠিন হয়ে পড়া এবং সমতল জমি উঁচু-নিচু হয়ে চাষের অনুপযোগী হওয়ার কথা বলেন।

বিল উন্মুক্ত না থাকায় বিলের চারপাশের হাজার হাজার মৎস্যচাষী মানবেতর জীবনযাপন করছে।

এজন্য অতি দ্রুত বিলসুতি বিলটি উন্মুক্ত করে মৎস্যজীবিদের মাছ মেরে জীবিকা নির্বাহ করার সুযোগ করে দেওয়ার জন্য অত্র ইউপি চেয়ারম্যান,উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও মাননীয় জেলা প্রশাসক মহোদ্বয়ের জরুরি হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন বিলসুতি বিলের চারপাশের সচেতন মহল। তা না হলে যে কোন সময় অপৃতিকর ঘটনা ঘটার ও সম্ভাবনা করেন তারা।

সিরাজগঞ্জ বেলকুচিতে ৮ টি দেশীয় পাইপগানসহ ১ জন গ্রেফতার,

সিরাজগঞ্জ বেলকুচিতে ৮ টি দেশীয়  পাইপগানসহ ১ জন গ্রেফতার,


 


মাসুদ রানা সিরাজগঞ্জ জেলাপ্রতিনিধিঃ সিরাজগঞ্জের বেলকুচিতে অভিযান চালিয়ে দেশীয় ৮টি পাইপগান সহ গোপাল চন্দ্র সুত্রধর (৩২) নামের এক অস্ত্র ব্যবসায়ীকে আটক করেছে গোয়েন্দা পুলিশের সদস্যরা। আটককৃত বেলকুচি উপজেলার দৌলতপুর গ্রামের হরিপদ সুত্রধরের পুত্র।

শুক্রবার (২৮ আগষ্ট) সকালে সিরাজগঞ্জ জেলা গোয়েন্দা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ডিবি ওসি) মোঃ মিজানুর রহমান এই তথ্য নিশ্চিত করেন।

তিনি আরোও বলেন, সিরাজগঞ্জ পুলিশ সুপার হাসিবুর আলম বিপিএম এর দিকনিদের্শনায় গোয়েন্দা পুলিশ গোপন সংবাদের ভিত্তিতে শুক্রবার ভোর রাতে দৌলতপুর ইউনিয়নের অভিযান চালিয়ে ৮টি পাইপগানসহ তাকে আটক করা হয়। তার বিরুদ্ধে অস্ত্রসহ একাধিক মামলা রয়েছে।

মাগুরার শ্রীপুরে যাবজ্জীবন সাজা প্রাপ্ত আসামী যুবলীগ নেতা গ্রেফতার

 মাগুরার শ্রীপুরে  যাবজ্জীবন সাজা প্রাপ্ত আসামী যুবলীগ নেতা গ্রেফতার

মো:রাসেল হোসেন, শ্রীপুর(মাগুরা) প্রতিনিধিঃমাগুরার শ্রীপুর ইউনিয়ন যুবলীগের সহ সভাপতি সুমন মোল্লা  মাগুরার টুলু হত্যা মামলার যাবজ্জীবন সাজা প্রাপ্ত আসামী হয়ে ও আত্মগোপনে থাকা গ্রেফতার হয়েছেন।



মাগুরার শহরতলীর পারনান্দুয়ালীর আলোচিত টুলু হত্যা মামলার যাবজ্জীবন  সাজা প্রাপ্ত আসামী শ্রীপুর ইউনিয়ন যুবলীগের সহ সভাপতি সুমন মোল্যা  শুক্রবার সন্ধ্যার পরে  শ্রীপুর উপজেলার সাচিলাপুর বাজার থেকে গ্রেপ্তার করেছে শ্রীপুর থানা পুলিশ।


শ্রীপুর থানার অফিসার ইনচার্জ আলী আহমেদ মাসুদ জানান, ২০০০ সালে মাগুরার পারনান্দুয়ালীর আলোচিত টুলু হত্যা কান্ডে জড়িত ৩২ বছরের সাজা প্রাপ্ত পলাতক আসামি সুমন মোল্যা ওরফে সুকমান, পিতা -আশরাফ মোল্যা, সাং- কচুয়া, উপজেলা- শ্রীপুর, জেলাঃ- মাগুরা। সে দীর্ঘ দিন যাবৎ আত্মগোপনে ছিল। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে আমার নেতৃত্বে শ্রীপুর থানার চৌকস পুলিশ টিমের এ এস আই মুজাহিদ, এ এস আই আনারুল ইসলাম ও এ এস আই মনিরুল ইসলামের সহযোগিতায় অভিযান চালিয়ে ২৮ আগস্ট সন্ধ্যা ৭ টার সময় সাচিলাপুর বাজার থেকে সুমনকে গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হয়।

ঝিনাইদহে বিএনপির প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষে প্রস্তুতি সভা

ঝিনাইদহে বিএনপির প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষে প্রস্তুতি সভা





খোন্দকার আব্দুল্লাহ বাশার,খুলনা ব্যুরো প্রধানঃআগামী ১ সেপ্টেম্বর বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপির ৪২ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী। এই দিনটিকে সুন্দরভাবে উদযাপনের মাধ্যমে স্মরনীয়  করে রাখতে কেন্দ্রঘোষিত কর্মসূচি পালনের লক্ষ্যে আজ ২৮ আগষ্ট শুক্রবার বিকাল সাড়ে ৩ টায় গীতান্জলী সড়কে ঝিনাইদহ জেলা বিএনপির প্রধান কার্যালয়ে এক প্রস্ততিমুলক সভা অনুষ্ঠিত হয়। জেলা বিএনপির সাবেক যুগ্ম সম্পাদক এম শাজাহান আলীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত প্রস্ততিমুলক সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন চেয়ারপার্সোনের অন্যতম উপদেষ্টা জনাব আলহাজ্ব মোঃ মসিউর রহমান। অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় জাসাস নেতা সাজেদুর রহমান, কেন্দ্রীয় মৎসজীবিদলের নেতা জাহিদুল ইসলাম মিলন, জেলা যুবদল সভাপতি আহসান হাবিব রওনক, জেলা শ্রমিকদল সভাপতি আবু বক্কর সিদ্দিকি, জেলা তাতীদলের আহ্বায়ক রোকোনুজ্জামান ও সদস্য সচিব  জাহিদুল ইসলাম, জেলা কৃষকদলের যুগ্ম আহ্বায়ক সামছুর রহমান ও সদস্য সচিব লাভলুর রহমান বাবলু, কাপাশহাটীয়া ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি শরিফুল ইসলাম খোকন, সদর থানা যুবদলের সভাপতি আশরাফ হোসেন, জেলা কোকো স্মৃতিসংসদের সভাপতি আতিয়ার রহমান ও সাধারন সম্পাদক মুস্তাফিজুর রহমান আলম,পৌর স্বেচ্ছাসেবক দলের ভারপ্রাপ্ত সা:সম্পাদক মুস্তাক আহম্মেদ,জেলা তারেক পরিষদের  সিনিয়র সহ-সভাপতি কামরুজ্জামান লিটন, যুবদলনেতা রাকিব হোসেন ও ফিরোজ আহম্মেদ, জেলা ছাত্রদল সভাপতি সমিনুজ্জামান সমিন ও ছাত্রদলনেতা মিরাজুল ইসলাম মিরাজ, আ:সালাম,মনিরুজ্জামান মনির,ইমরান আহম্মেদ ও সাগর আহম্মেদ প্রমুখ।