রবিবার থেকে বন্ধ হচ্ছে না ইন্টারনেট সংযোগ

 রবিবার থেকে বন্ধ হচ্ছে না ইন্টারনেট সংযোগ


কাজী মোঃ সাজ্জাদ হাসানঃআগামীকাল রোববার (১৮ অক্টোবর) থেকে সারা দেশে প্রতিদিন তিন ঘণ্টা ইন্টারনেট ও ক্যাবল টিভি সংযোগ বন্ধ রাখার কর্মসূচি স্থগিত করা হয়েছে।

সন্ধ্যায় ডাক ও টেলিযোগাযোগমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বারের সঙ্গে জরুরি বৈঠক শেষে ইন্টারনেট সার্ভিস প্রোভাইডার্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (আইএসপিএবি) এবং ক্যাবল অপারেটরস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (সিওএবি) নেতৃবৃন্দ  ইন্টারনেট ও ডিশ সেবা বন্ধের কালকের কর্মসূচি স্থগিতের সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

আত্রাই-রাণীনগরের নতুন অভিভাবক আনোয়ার হোসেন হেলাল

আত্রাই-রাণীনগরের নতুন অভিভাবক আনোয়ার হোসেন হেলাল

মোঃ ফিরোজ হোসাইন, রাজশাহী ব্যুরোঃসংসদ সদস্য ইসরাফিল আলমের মৃত্যুতে শূন্য হওয়া নওগাঁ-৬ (রানীনগর-আত্রাই উপজেলা) আসনের উপনির্বাচনে এক লাখ পাঁচ হাজার ৪৬৭ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী (নৌকা) আনোয়ার হোসেন হেলাল।

শনিবার রাত ৭টায় নওগাঁ জেলা নির্বাচন ও রিটার্নিং কর্মকর্তা মাহমুদ হাসান ফলাফল ঘোষণা করেন। ফলাফলে হেলালের প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী বিএনপির শেখ রেজাউল ইসলাম (ধানের শীষ) পেয়েছেন চার হাজার ৫১৭ ভোট।পাশাপাশি ন্যাশনাল পিপলস পার্টির (আম) প্রার্থী ছিলেন ইন্তেখাব আলম রুবেল। শনিবার সকাল ৯টা থেকে শুরু হয়ে বিকেল ৫টা পর্যন্ত চলে ভোটগ্রহণ।জেলায় এই প্রথম ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনে (ইভিএমে) ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। ভোটাররা উৎসবমুখর পরিবেশে তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করেছেন।দুই উপজেলার ১৬ ইউনিয়নে ১০৪টি ভোটকেন্দ্র রয়েছে। এর মধ্যে রানীনগর উপজেলায় ৪৯টি ও আত্রাই উপজেলায় ৫৫টি। এসব কেন্দ্রে মোট ভোট কক্ষের সংখ্যা ৭২১টি।

এ আসনে মোট ভোটার সংখ্যা তিন লাখ ছয় হাজার ৭২৫ জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার এক লাখ ৫৩ হাজার ৭৫৮ জন এবং নারী ভোটার এক লাখ ৫২ হাজার ৯৬৭ জন। এবার ৩৬ দশমিক ৪ শতাংশ ভোটাধিকার প্রয়োগ হয়।এদিকে, উপ-নির্বাচন সুষ্ঠু হচ্ছে না মর্মে নানা অভিযোগ এনে শনিবার বিকেল সাড়ে ৩টার দিকে আত্রাই উপজেলা বিএনপির দলীয় অফিসে কেন্দ্রীয় সিদ্ধান্তে সংবাদ সম্মেলন করে ভোটবর্জন করেন বিএনপির প্রার্থী শেখ রেজাউল ইসলাম।

কুলাউড়ায় নারী নির্যাতন ও ধর্ষণ বিরোধী সমাবেশ

 কুলাউড়ায় নারী নির্যাতন ও ধর্ষণ বিরোধী সমাবেশ


মোঃরেজাউল ইসলাম শাফি, কুলাউড়া উপজেলা প্রতিনিধিঃনারীর প্রতি সহিংসতা নিরসনে আপনার পুলিশ আপনার পাশে’-এই স্লোগানে কুলাউড়া থানা পুলিশের বিট পুলিশিং সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। ১৭ অক্টোবর শনিবার সকাল ১০ টায় কুলাউড়া থানা ভবনের সামনে এ সমাবেশের আয়োজন করা হয়। সমাবেশে নারীরা স্বতঃস্ফূর্ত অংশগ্রহণ করেন।

উক্ত সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন, কুলাউড়া উপজেলা আওয়ামীলীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি ও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান একে এম সফি আহমদ সলমান।সমাবেশে উপস্থিত ছিলেন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ( কুলাউড়া সার্কেল) সাদেক কাওছার দস্তগীর, কুলাউড়া থানার অফিসার ইনচার্জ ইয়ারদৌস হাসান,  সহ সুশীল সমাজের নেতৃবৃন্দ।সারাদেশে মতো কুলাউড়া উপজেলার ১৩টি ইউনিয়ন ও ১টি পৌরসভায় একযোগে নারী ধর্ষণ ও নির্যাতন বিরোধী বিট পুলিশিং সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে।সমাবেশে নারী, জনপ্রতিনিধি, শিক্ষক, মসজিদের ইমামসহ সমাজের বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ উপস্থিত ছিলেন।

বক্তারা নিরাপদ সমাজ গড়ি নারী নির্যাতন বন্ধ করি। নারীর প্রতি বৈষম্য ও সহিংসতা বন্ধে সমানভাবে নারী-পুরুষের সচেতনতা প্রয়োজন। নারী ধর্ষণ ও নির্যাতন বন্ধ করি নারী বান্ধব দেশ গড়ি। নারীর প্রতি সহিংসতা নিরসনে আপনার পুলিশ আপনার পাশে। এছাড়াও নারীর প্রতি সহিংসতা বন্ধে সকলকে সচেতন থাকার আহ্বান জানান। এ সময় জরুরী সেবা  ৯৯৯ এ ফোন করে  পুলিশকে তথ্য দিয়ে সহযোগিতা করার অনুরোধ করেন পুলিশের কর্মকর্তারা।

যশোরে আলুর মুল্য লাগামহীন!

 যশোরে আলুর মুল্য লাগামহীন!


সুমন হোসেন,যশোর জেলা প্রতিনিধিঃভোক্তা পর্যায়ে আলুর দাম সর্বোচ্চ ৩০ টাকা কেজি নির্ধারণ করে দিয়েছে কৃষি বিপণন অধিদপ্তর। এই দরে আলু বিক্রির বিষয়টি নিশ্চিত করতে সম্প্রতি ৬৪ জেলার প্রশাসকদের চিঠি দিয়েছে সংস্থাটি, পাশাপাশি ৩৮ থেকে ৪২ টাকায় প্রতি কেজি আলু খুচরা পর্যায়ে বিক্রির বিষয়টিকে অযৌক্তিক বলেও মন্তব্য করেছে কৃষি বিপণন অধিদপ্তর।কৃষি বিপণন অধিদপ্তরের চিঠিতে আরও বলা হয়, একজন চাষীর প্রতি কেজি আলুর উৎপাদন খরচ হয়েছে ৮ টাকা ৩২ পয়সা। এমতাবস্থায় হিমাগার পর্যায় থেকে প্রতি কেজি আলুর মূল্য ২৩ টাকা, পাইকারি/আড়তের এর মূল্য ২৫ টাকা এবং ভোক্তা পর্যায়ে সর্বোচ্চ খুচরা মূল্য ৩০ টাকা হওয়া বাঞ্ছনীয়। কিন্তু বাজারে দেখা যাচ্ছে যে, প্রতি কেজি আলু খুচরা পর্যায়ে ৩৮ থেকে ৪২ টাকায় বিক্রি হচ্ছে, যা অযৌক্তিক ও কোনোক্রমেই গ্রহণযোগ্য নয়। তাই কোল্ডস্টোরেজ পর্যায়ে প্রতি কেজি আলু ২৩ টাকা, পাইকারি পর্যায়ে ২৫ টাকা এবং ভোক্তা পর্যায়ে ৩০ টাকা মূল্যে খুচরা ব্যবসায়ীরা বিক্রি করার জন্য নির্দেশনা দিয়েছে।এই মূল্যে কোল্ডস্টোরেজ, পাইকারি বিক্রেতা এবং ভোক্তা পর্যায়ে খুচরা বিক্রেতাসহ তিন পক্ষই যাতে আলু বিক্রয় করেন, এজন্য কঠোর মনিটরিং ও নজরদারির প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়ার জন্য ডিসিদের অনুরোধ জানানো হলেও যশোর জেলার সদর উপজেলা, নওয়াপাড়া=নুরবাগ কাঁচা বাজার, বৌ বাজার সহ বিভিন্ন বাজার কেশবপুরের বিভিন্ন লোকাল বাজারে, মনিরামপুর, চৌগাছা, ঝিকরগাছা= ছুটিপুর,  অভয়নগর   সহ বিভিন্ন বাজার ঘুরে দেখা যায়, খুচরা বিক্রেতারা ৪৫ – ৫০ টাকা কেজি দরে আলু বিক্রি করছে,অধিকাংশ দোকানে নেই মুল্য তালিকা। কিছু দোকানে মুল্য তালিকা থাকলেও আলুর মুল্য তালিকার ঘর ফাঁকা। নির্ধারিত মুল্যের চেয়ে বেশী মুল্যে আলু বিক্রির কারন জানতে চাইলে দোকানিরা বলেন, আমরা কিনতে না পারলে বিক্রি করব কিভাবে…?

আমাদের আড়তদারদের কাছ থেকে ৪১-৪২ টাকা কেজি দরে কিনতে হয় সেক্ষেত্রে আমরা বিক্রি করব কত টাকা কেজি দরে…?কয়েকটি আড়তে খোঁজ নিয়ে মেলে ঘটনার সত্যতা। অড়তে আলুর মুল্য তাকিকায় দেখা যায় কেজি প্রতি দর ৩৯-৪১ টাকা দেওয়া আছে।

এ বিষয়ে কয়েকজন সাধারন ক্রেতার সাথে কথা বললে তারা জানান, হটাৎ করে আলুর মুল্য বৃদ্ধির পেছনে একশ্রেনীর অসাধু ব্যবসায়ী সিন্ডিকেট জড়িত, সঠিক মনিটরিং এর আভাবে এ সিন্ডিকেট গুলো যেমন খুশী তেমন করে দাম নির্ধারণ করে অধিক মোনাফা হাতিয়ে নিচ্ছে।যার ফল ভোগ করছে সাধারন ক্রেতারা।এ সময় তারা আলুর বাজার মুল্য স্বাভাবিক রাখতে যথাযথ সংশ্লিষ্ট কতৃপক্ষের সঠিক মনিটরিং করে অসাধু সিন্ডিকেট গুলোকে দ্রুত আইনের আওতায় আনার দাবি জানান।

সামাজিক ও সাংস্কৃতিক কর্মকান্ড সমাজকে আলোকিত করে -আ.জ.ম নাছির

 সামাজিক ও সাংস্কৃতিক কর্মকান্ড সমাজকে আলোকিত করে -আ.জ.ম নাছির


শিপন নাথ,চট্টগ্রাম প্রতিনিধি:- সৃজন সাংস্কৃতিক পরিষদের ২য় প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপিতসৃজন সাংস্কৃতিক পরিষদের উদ্যোগে গত ১৬ অক্টোবর সংগঠনের ২য় প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে অনুষ্ঠান কে.বি.আব্দুল আজিজ মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হয়। সংগঠনের সভাপতি অভিষেক চৌধুরীর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের সাবেক মেয়র ও সংগঠনের প্রধান উপদেষ্টা আলহাজ্ব আ.জ.ম নাছির উদ্দিন। প্রধান আলোচক হিসেবে বক্তব্য রাখেন দৈনিক সমকালের ডিজিএম সুজিত কুমার দাশ, বিশেষ আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কলামিস্ট লায়ন এ.কে জাহেদ চৌধুরী, বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন নিউজ চাটগাঁ পত্রিকার সম্পাদক হারাধন চৌধুরী, নিরাপদ সড়ক চাই চট্টগ্রাম মহানগরের আইন বিষয়ক সম্পাদক এড.টিপুশীল জয়দেব, চট্টগ্রাম ডেকোরেশন মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক সাজেদুল আলম চৌধুরী মিল্টন। সম্মানিত অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের উপদেষ্টা আন্না ভট্টাচার্য্য, দীপঙ্কর দাশ গুপ্ত, রত্না চৌধুরী।

সভায় আরো উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রাম মহানগর আওয়ামী লীগের সদস্য বেলাল আহম্মদ, যুবলীগ নেতা এইচ.এম.আফতাব আলী খান, ছাত্রলীগ নেতা এম.আই.হোসেন সাহিদ, সা:সম্পাদক রক্তিম দে, সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ এনামুল হাসান, অর্থ সম্পাদক রীমন দে, সাংস্কৃতিক সম্পাদক ওয়াসিফ রেজা জাওয়াদ, প্রচার সম্পাদক তীর্থ দত্তসহ সংগঠনের অন্যান্য নেতৃবন্দ।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে আ.জ.ম নাছির উদ্দিন বলেন, বর্তমান সময়ে যুব সমাজকে বেশি করে সাংস্কৃতিক সামাজিক কর্মকান্ডের চর্চা করতে হবে। সামাজিক, সাংস্কৃতিক কর্মকান্ড সমাজকে আলোকিত করে। বর্তমান সরকার সাংস্কৃতিক চর্চার জন্য বিভিন্ন কার্যক্রম পরিচালনা করে চলেছে।

সরকারের উন্নয়ন কাজ দ্রুত এগিয়ে চলছে- হুইপ সামশুল হক চৌধুরী

সরকারের  উন্নয়ন কাজ দ্রুত এগিয়ে চলছে- হুইপ সামশুল হক চৌধুরী

সেলিম চৌধুরী স্টাফ রিপোর্টারঃ-  জাতীয় সংসদের হুইপ পটিয়ার এমপি সামশুল হক চৌধুরী  বলেছেন, আওয়ামীলীগের সভানেত্রী মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সারা বাংলাদেশে উন্নয়ন কাজ দ্রুত এগিয়ে চলছে। এই উন্নয়নে বিরোধী একটি মহল ষড়যন্ত্রে লিপ্ত রয়েছে। তিনি জনগণকে এসব ষড়যন্ত্রর বিরুদ্ধে সচেতন থাকার আহবান জানান। আলহাজ্ব শামসুল হক চৌধুরী বলেন,  বর্তমান সরকার উন্নয়ন বান্ধব সরকার। এ সরকারের আমলে   দেশের সুষম উন্নয়নে উন্নয়ন হয়েছে।  ১৭ অক্টোবর   শনিবার পটিয়া উপজেলা পরিষদ গেইটের বিপরীত পাশে মহাসড়কে দেশের শীর্ষ শিল্পপতি  এস আলমের বাড়ি যাওয়ার সংযোগ  দানশীল শিক্ষানুরাগী ও সমাজসেবক এসআলম গ্রুপের চেয়ারম্যান সাইফুল আলম মাসুদের নামে এস আলম গেইটের তোরণ   উদ্বোধনকালে একথা বলেন। দৃষ্টিনন্দন  তোরণটি পটিয়া পৌরসভার অর্থায়নে নির্মিত হবে। সকাল ১১ টায় জাতীয় সংসদের হুইপ আলহাজ্ব সামশুল হক চৌধুরী এমপি প্রধান অতিথি  এসআলম তোরণের ফলক উম্মোচন করেন।এসময়  উপস্থিত ছিলেন দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি ও পটিয়া উপজেলার  চেয়ারম্যান মোতাহারুল ইসলাম চৌধুরী, পটিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও  পৌর মেয়র অধ্যাপক হারুনুর রশিদ, দক্ষিণ জেলা যুবলীগের সভাপতিআ.ম.ম টিপু সুলতান চৌধুরী, পটিয়া পৌরসভা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক সরওয়ার হায়দার, পটিয়া পৌরসভার ৪ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর গোফরান রানার সঞ্চালনায় উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে পটিয়া উপজেলা ও পৌর আওয়ামী লীগ,যুবলীগ ও ছাত্রলীগের নেতৃবৃন্দ এলাকার গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে হুইপ আলহাজ্ব সামশুল হক চৌধুরী  বলেন, আলহাজ্ব   সাইফুল ইসলাম মাসুদ সাহেব শুধু পটিয়ার গর্ব নন তিনি আমাদের সবার এবং বাংলাদেশের গর্ব। তিনি  পটিয়া সহ দেশের হাজার হাজার    বেকার যুবকদের কর্মসংস্থান করেছেন।তাছাড়া দেশ ও জাতির যে কোন সংকটকালে তিনি সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন। তার নামে পটিয়া পৌরসভা তোরণ নির্মাণ করে কিছুটা হলেও দায়মুক্ত হবে ।তিনি আরোও  বলেন, বিগত ১২  বছরে পটিয়া উপজেলা পৌরসভায় যে দৃশ্যমান   উন্নয়ন হয়েছে বিগত ৩০ বছর তা হয়নি। পটিয়ায় অসংখ্য  শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে নতুন ভবন করা হয়েছে। রাস্তাঘাটের উন্নয়ন করা হয়েছে। ব্রীজ কালভার্ট নির্মাণ করা হয়েছে। সামাজিক দায়বদ্ধতা থেকে গরীব ও অসহায় মানুষকে সাহায্যের ব্যবস্থা করা হয়েছে।দৃষ্টিনন্দন এসআলম গেইট হচ্ছে।  তিনি উন্নয়নের ধারাবাহিকতা বজায় রাখার জন্য  শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আওয়ামী লীগ সরকারকে সমর্থন ও সহযোগিতা  করার   আহ্বান জানান।

সুড়িকান্দি কেয়ার ফাউন্ডেশনের আহবায়ক কমিঠি গঠন সম্পন্ন

 সুড়িকান্দি কেয়ার ফাউন্ডেশনের আহবায়ক কমিঠি গঠন সম্পন্ন


আকরাম হোসাইন মৌলভীবাজার জেলা প্রতিনিধিঃ মৌলভীবাজারের বড়লেখা উপজেলায় শিক্ষা নৈতিকতা বিনোদন ও মানবতার তরে কাজের অভিপ্রায় নিয়ে যাত্রা শুরু করা সংগঠন বৃহত্তর সুড়িকান্দি কেয়ার ফাউন্ডেশনের আহবায়ক কমিঠি গঠন সম্পন্ন হয় আজ সকাল ১০.০০ ঘঠিকার সময় সুড়িকান্দি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে গ্রামের তরুণদের নিয়ে আয়োজিত এক সাধারণ সভায়।মহাগ্রন্থ আল কোরআন থেকে তিলাওয়াতের মধ্য দিয়ে সভার কার্যক্রম শুরু হয়।

উক্ত সভায় সভাপতিত্ত্ব করেন সুড়িকান্দি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিঠির সভাপতি বিশিষ্ট শিক্ষানুরাগী জনাব ফখরুল ইসলাম সাহেব। প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ২নং দাসের বাজার ইউনিয়ন পরিষদের স্বনামধন্য চেয়ারম্যান জনাব কমর উদ্দিন সাহেব।বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন ২নং দাসের বাজার ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান জনাব মাহতাব উদ্দিন মাতাব সাহেব।উপস্তিত ছিলেন  ৪ নং ওয়ার্ডের সদস্য (মেম্বার) জনাব আব্দুল মতিন সাহেব, ৬ নং ওয়ার্ডের সদস্য (মেম্বার) জনাব ইকবাল আহমদ (ইকলাল) সাহেব,বড়লেখা জামেয়া ইসলামিয়া দাখিল মাদ্রাসার প্রিন্সিপাল জনাব মাও ইসলাম উদ্দিন সাহেব,দাসের বাজার বণিক সমিতির সভাপতি জনাব বাহার উদ্দিন সাহেব,  বিশিষ্ট সমাজ সেবক জনাব রহিম উদ্দিন নজরুল সাহেব সহ গ্রামের বিভিন্ন পর্যায়ের মুরব্বি ও যুবকবৃন্দ।প্রবাসীদের পক্ষ থেকে বক্তব্য রাখেন জনাব আব্দুল আহাদ সাহেব।অতিতিবৃন্দ কেয়ার ফাউন্ডেশনের কার্যক্রম সুন্দরভাবে পরিচালনার লক্ষ্যে বিভিন্ন দিকনির্দেশনামুলক বক্তব্য রাখেন এবং কেয়ার ফাউন্ডেশনের সার্বিক সফলতা কামনা করেন।

সভায় উপস্থিত সকলের মতামতের ভিত্তিতে আহবায়ক হিসেবে ফরহাদ হোসাইন এবং সদস্য সচিব হিসেবে দিনারুল আমিন কে  এবং প্রত্যেক কোপা (পাড়া) থেকে একজন করে নির্বাচিত প্রতিনিধি নিয়ে আহবায়ক কমিঠি গঠন করা হয়।পরিশেষে সভাপতির সমাপনি বক্তব্য ও মোনাজাতের মাধ্যমে প্রোগ্রামের কার্যক্রম সমাপ্ত করা হয়।

বড়লেখায় পুলিশের ধর্ষণ বিরোধী সমাবেশ

 বড়লেখায় পুলিশের ধর্ষণ বিরোধী সমাবেশ

আকরাম হোসাইন মৌলভীবাজার জেলা প্রতিনিধিঃ মৌলভীবাজারের বড়লেখা উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে ধর্ষণ ও নারী নির্যাতনের বিরুদ্ধে জনসচেতনতা তৈরির লক্ষ্যে বিট এলাকা ভিত্তিক পুলিশ-জনতা সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে।নিরাপদ দেশ গড়ি, নারী নির্যাতন বন্ধ করি” স্লোগানকে সামনে রেখে বাংলাদেশ পুলিশের কেন্দ্রীয় কর্মসূচীর অংশ হিসেবে শনিবার (১৭ অক্টোবর) সকাল ১০ টায় বড়লেখা থানা প্রাঙ্গণ থেকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে বিট পৌরসভার র‌্যালিতে নেতৃত্ব দেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার, বড়লেখা মোঃ শামীম আল ইমরান।এ সময় র‌্যালিটি বড়লেখা পৌর শহরে প্রদক্ষিণ করে। র‌্যালিতে বিভিন্ন শ্রেণী-পেশার লোকজন উপস্থিত ছিলেন। র‌্যালি শেষে দেশব্যাপী চলমান ধর্ষণ ও নারী সহিংসতার বিরুদ্ধে সংহতি প্রকাশ করে বক্তব্য রাখেন উপজেলা পরিষদ,বড়লেখা উপজেলা চেয়ারম্যান জনাব সোয়েব আহমেদ, উপজেলা পরিষদ, বড়লেখার ভাইস চেয়ারম্যান জনাব মোঃ তাজ উদ্দিন ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান রেহানা বেগম হাসনা।

এদিকে বড়লেখা উপজেলার ১১টি ইউনিয়নেও ধর্ষণ ও নারী নির্যাতনের বিরুদ্ধে বিট এলাকা ভিত্তিক পুলিশ-জনতা সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে বলে জানান বড়লেখা থানার নির্বাহী অফিসার, মোঃ শামীম আল ইমরান।

নন্দীগ্রামে নারী ধর্ষণ ও নির্যাতন বিরোধী বিট পুলিশিং সমাবেশ

 নন্দীগ্রামে নারী ধর্ষণ ও নির্যাতন বিরোধী বিট পুলিশিং সমাবেশ


নন্দীগ্রাম বগুড়া প্রতিনিধিঃ বগুড়ার নন্দীগ্রামের ২নং সদর ইউনিয়নের ৫নং বিট পুলিশের উদ্যোগে নারী ধর্ষন ও নির্যাতন প্রতিরোধে বিট পুলিশিং সমাবেশ অনুস্ঠিত হয়েছে।(""নারী ধর্ষন ও নির্যাতন বন্ধ করি-নারী বান্ধব দেশ গড়ি"")(""নারীর প্রতি সহিংশতা নিরসনে-আপনার পুলিশ আপনার পাশে"")(""নিরাপদ নারী নিরাপদ দেশ-সুখী সমৃদ্ধ বাংলাদেশ"")("" নিরাপদ সমাজ গড়ি-নারী নির্যাতন বন্ধ করি"")(""বন্ধ হোক নারী নির্যাতম-নিশ্চিত হোক দেশের উন্নয়ন"") এমন প্রতিপাদ্য কে সামনে রেখে সদর ইউনিয়নের ৫নং বিট পুলিশ এক বিশাল র‍্যালী বের করেন, র‍্যালীটি ইউনিয়নের গ্রাম গোছন, ভাদুম, ডেরাহাল এর বিভিন্ন রাস্তা প্রদক্ষিন করে, উক্ত র‍্যালী শেষে ৫নং বিট পুলিশ কার্যালয়ে এক আলোচনা সভা অনুস্ঠিত হয়, নন্দীগ্রাম থানার এসআই মোঃ রুবেল মিয়ার সভাপতিত্বে উক্ত আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন বিশিস্ট সমাজ সেবক ও আওয়ামীলীগ নেতা মোঃ গোলাম মোস্তফা গামা সহ এলাকার গন্যমান্য ব্যাক্তিবর্গ। উক্ত বিট পুলিশিং সমাবেশ সহ আলোচনা সভাটি পরিচালনা করেন নন্দীগ্রাম থানার এএসআই মোঃ আবুল কালাম আজাদ এবং সহযোগী হিসাবে ছিলেন পুলিশ কনস্টেবল মোঃ মহরোম হোসেন।

বড়দাহ ব্রীজে আমাদের কাটা গর্তে ১ম গাড়িটি পতিত হয়-গোলাম মোস্তফা বিশ্বাস

বড়দাহ ব্রীজে আমাদের কাটা গর্তে ১ম গাড়িটি পতিত হয়-গোলাম মোস্তফা বিশ্বাস

সম্রাট হোসেন, শৈলকুপা (ঝিনাইদহ) প্রতিনিধিঃবঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৭ই মার্চের ঐতিহাসিক ভাষণের পর আওয়ামীলীগ, যুবলীগ,ছাত্রলীগ, সেচ্ছসেবকলীগ, কৃষকলীগ, বাংলাদেশের অন্যান্য জায়গার মত শৈলকূপাতেও ঐক্যবদ্ধ ভাবে অসহযোগ আন্দোলন ও সরাসরি যুদ্ধের প্রস্তুতি গ্রহণ করে। এই অসহযোগ আন্দোলন  যুদ্ধে প্রস্তুতি হিসাবে আওয়ামীলীগ নেতা কাজী খাদেমুল ইসলাম(এমপি) এবং মোঃ কামরুজ্জামান (এম,এন,এ) এর নেতৃত্বে এবং মোঃ লুৎফর রহমান আওয়ামীলীগের সেক্রেটারী এবং মোঃ আঃ হাই ঝিনাইদহ মহকুমা ছাত্রলীগের সভাপতি, মোঃ মকবুল হোসেন সাধারণ সম্পাদক,  ঝিনাইদহ মহকুমা ও মোঃ গোলাম মোস্তফা,  আনসার ইন্সট্রাক্টর,  ঝিনাইদহ।  মোঃ নায়েব আলী সর্দ্দার, সেচ্ছাসেবকলীগ নেতা মোঃ রহমত আলী মন্টু, মোঃ মনোয়ার হোসেন মালিথা,  সভাপতি,  ছাত্রলীগ, শৈলকূপা থানা, কাজী নাসিরুল ইসলাম,  ছাত্র নেতা, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, ডাঃ হেলাল উদ্দিন, সভাপতি, গ্রামঃ মনোহরপুর, মীর মন্টু সাহেব,  সহ সভাপতি, শৈলকূপা, মোঃ রোকনুজ্জামান রবার্ট, আওয়ামীলীগ  সংগঠক,  মোঃ সিরাজুল ইসলাম, আওয়ামীলীগ সংগঠক  সবাই ঐক্যবদ্ধ ভাবে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেন যে, গাড়াগঞ্জ/ বড়দাহ ব্রীজে পাকিস্তানি সৈন্যদের প্রতিরোধ করতে হবে। সেই প্রেক্ষিতে গাড়াগঞ্জ/ বড়দাহ ব্রীজে এস.ডি.পি ও মাহবুব উদ্দিন আহমেদের নির্দেশে ব্রীজের দক্ষিণ পার্শ্বে বাধা সৃষ্টির লক্ষ্যে রাস্তা কেটে দেওয়া হয়। আমাদের উদ্দেশ্য ছিল ১লা এপ্রিল ১৯৭১ তারিখে বিষয়খালী যুদ্ধে  প্রতিরোধ করার পর ৫ই এপ্রিল গাড়াগঞ্জ/বড়দাহ ব্রীজে প্রতিরোধ সৃষ্টি করা হবে সেই লক্ষ্যে আনসার ইন্সট্রাক্টর মোঃ গোলাম মোস্তফা সাহেবের নেতৃত্বে ৫০/৬০ জনের অধিক আনসার, ইপিআর, পুলিশ ও সেনাবাহিনী সদস্যদের সমন্বয়ে প্রতিরোধ সৃষ্টির লক্ষ্যে এম্বুস অবস্থায় অবস্থান করে।  এই ৫০/৬০ জন বিভিন্ন বাহিনীর মধ্যে উল্লেখ যোগ্য নেতৃত্ব ছিলেন মোঃ গোলাম মোস্তফা, মোঃ আশরাফুল আলম,  মোঃ গোলাম মোস্তফা সাবেক এমপি, আহাদ আলী, আঃ গফুর,  হানেফ আলী, তোরাফ আলী মন্ডল,  মোবারেক আলী,  খয়বার আলী (আনসার)  ও শৈলকূপা থানার ওসি মোঃ কাশের আলী সাহেব ও দুইজন পুলিশ কনস্টেবল আমাদের সঙ্গে ছিলেন।  এছাড়া ও আওয়ামীলীগ,  যুবলীগ, সেচ্ছাসেবকলীগ ও হাজার হাজার কর্মী বাহিনী প্রতিরোধ সৃষ্টির লক্ষ্যে ব্রীজের উভয় পার্শ্বে অবস্থান নেওয়া হয়। ৫ই এপ্রিল অনুমান রাত ৯ঃ০০ টার সময় কুষ্টিয়া থেকে ফেরত ৭/৮ গাড়ি  পাকিস্তানি সৈন্য ঝিনাইদহের অভিমুখে অগ্রসর হয়। পথিমধ্যে গাড়াগঞ্জ/ বড়দাহ ব্রীজে আমাদের কাটা গর্তে ১ম গাড়িটি পতিত হয়। সাথে সাথে উভয়পক্ষের মধ্যে গোলাগুলি শুরু হয়। পাকিস্তানীদের পক্ষ থেকে বৃষ্টির মতো গুলি বর্ষন করলে ও প্রতিরোধ এম্বুসে  থাকা আমাদের মুক্তিযোদ্ধারা পাল্টা গুলি বর্ষন শুরু করে।  এমতাবস্থায় স্থানীয় জনতার প্রতিরোধের মুখে এবং আনসার, ইপিআর,  এর সহযোগিতায় বিভিন্ন গ্রামগঞ্জে পাকিস্তানি  সৈন্য দের হত্যা করা হয়। ইপিআর, আনসার,পুলিশ বাহিনী ও স্থানীয় জনতার প্রতিরোধে ৫০ জনের অধিক পাকিস্তানি সৈন্য হত্যা করা হয়।

সিরাজগঞ্জে নারী ধর্ষন ও নির্যাতন বিরোধী বিট পুলিশিং সমাবেশ

 সিরাজগঞ্জে নারী ধর্ষন ও নির্যাতন  বিরোধী বিট পুলিশিং সমাবেশ

মাসুদ রানা সিরাজগঞ্জ জেলা প্রতিনিধিঃনারী ধর্ষণ ও নির্যাতন বন্ধে বাংলাদেশ পুলিশের উদ্যোগে সারাদেশে একযোগে বিট পুলিশিং সমাবেশের অংশ হিসেবে সিরাজগঞ্জে জেলা  পুলিশের  আয়োজনে   বিট পুলিশিং সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। "মুজিববর্ষের অঙ্গিকার, পুলিশ  হবে জনতার" এ শ্লোগানে সামনে  রেখে

গতকাল শনিবার  সকালে শহীদ আলাউদ্দিন  কনস্টেবল  ড্রিলসেড পুলিশ  লাইন্সে  এই সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। সিরাজগঞ্জ  জেলা পুলিশ সুপার হাসিবুল  আলম  বিপিএম এর সভাপতিত্বে  সমাবেশে বক্তব্য  রাখেন , সাবেক সংরক্ষিত  মহিলা  আসনের  জাতীয়  সংসদ  সদস্য  সেলিনা  বেগম  স্বপ্না, পৌর মেয়র  সৈয়দ  আব্দুর  রউফ  মুক্তা, জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার গাজী শফিকুল ইসলাম শফি,বাংলাদেশ মহিলা আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ড.জান্নাত আরা হেনরী, ,জেলা ক্রীড়া সংস্থা  ও আহবায়ক  এমদাদুল  হক এমদাদ,আনসার  ও গ্রাম প্রতিরক্ষা  জেলা কমান্ড্যান্ট মির্জা সিফাত-ই-খোদা,মহিল বিষয়ক অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক কানিজ ফাতেমা,ইসলামিক ফাউন্ডেশন  উপ পরিচালক  ফারুক  আহামেদ প্রমূখ। বক্তরা বলেন,ধর্ষণ  কারীদের আইনের  আওতায়  এনে দ্রুত বিচার  কার্যকর  করা দাবী জানান। শুধু  আইন প্রনয়ণ  করলেই চলবে না তা যথাযথ  প্রয়োগ  করতে হবে। ধর্ষক যে দলের হোক না কেনো শাস্তি  তাদের  পেতে হবে।দেশের সামাজিক শৃঙ্খলা এবং জনগণের শান্তি ও নিরাপত্তা বিধানকল্পে ধর্ষণ, নারী ও শিশু নির্যাতনের প্রতিটি ঘটনায় অপরাধীকে আইনের আওতায় আনার লক্ষ্যে পেশাদারিত্বের সঙ্গে দায়িত্ব পালন করছে বাংলাদেশ পুলিশ। বাংলাদেশ পুলিশ দেশের সেবা ও জনগণের কল্যাণে সর্বোচ্চ আন্তরিকতা নিয়ে সর্বদা সর্বতোভাবে জনগণের পাশে রয়েছে। এসময় জরুরী সেবা ৯৯৯-এ কল করে পুলিশকে তথ্য দিয়ে সহযোগিতা করুণ এবং  নারীর প্রতি সহিংসতা বন্ধে সকলকে সচেতন থাকার আহ্বান জানান।এছাড়াও সমাবেশে সমাজ থেকে মাদক, বাল্য বিয়ে  প্রতিরোধে সকলকে এগিয়ে  আসার  আহবান  জানানো হয় ।এসময় ওসি ডিবি মোঃ মিজানুর রহমান, ইন্সপেক্টর  আব্দুল হালিম , ট্রাফিক  পুলিশ  ইন্সপেক্টর সৈয়দ  মিলাদুল হুদা, পুলিশ  লাইন  স্কুল  এন্ড কলেজে  অধ্যক্ষ ভারপ্রাপ্ত   মোছাঃ খাদিজা পারভীন,এম আই মাহফুজার  রহমান   সহ সকল পুলিশ  সদস্যরা উপস্থিত  ছিলেন। সমাবেশ  পরিচালনা  করেন  ইন্সপেক্টর  আইটিসি মোঃ হাসান বাসির।

বদলগাছীতে নারী- ধর্ষণ ও নির্যাতন বিরোধী বিট পুলিশিং সমাবেশ

বদলগাছীতে নারী- ধর্ষণ ও নির্যাতন বিরোধী বিট পুলিশিং  সমাবেশ


রহমতউল্লাহ আশিকুজ্জামান নুর,বদলগাছী,নওগাঁঃনিরাপদ নারী,নিরাপদ দেশ,সুখী সমৃদ্ধ বাংলাদেশ "এই শ্লোগানকে সামনে রেখে নওগাঁর বদলগাছীতে অনুষ্ঠিত হয়েছে নারী ধর্ষণ ও নির্যাতন বিরোধী বিট পুলিশিং সমাবেশ।১৭ ই অক্টোবর শনিবার সকাল ১০ টায় বদলগাছী উপজেলা চৌরাস্তার মোড়ে সদর ইউপি নম্বর-১ এই সমাবেশের আয়োজন করে!

নারীর প্রতি সহিংসতা দূরীকরণে আয়োজিত এ সমাবেশে বদলগাছী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা  চৌধুরী আহমদ এর সভাপতিত্বে সমাবেশে বক্তব্য রাখেন সদর ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুস সালাম মণ্ডল, আধাইপুর ইউপির চেয়ারম্যান জাকির হোসেন চৌধুরী, ইউপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান শাহিনুল ইসলাম স্বপন, মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার জবির উদ্দিন এফ এফ, সাহেব কমান্ডার আব্দুর রহিম বাবলু, বদলগাছী প্রেসক্লাবের সভাপতি এমদাদুল হক দুলু,  আওয়ামীলীগ নেতা বাবর আলী, নওগাঁ জেলা যুব মহিলা লীগের সাধারণ সম্পাদক উপজেলা যুবলীগের সহ-সভাপতি এস এম মনিরুল ইসলাম সাজু, যুব মহিলা লীগ নেত্রী রাহেলা আক্তার টপি উপজেলা পুলিশিং কমিটির সম্পাদক খোরশেদ আলম, স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন আমরাই বদলগাছীর সভাপতি মীর  সাব্বির আহমেদ আহমেদ চৌধুরী, বঙ্গবন্ধু সরকারি কলেজের ছাত্রী  আরেফিন নেহা  প্রমুখ সহ আরো নেতাকর্মী।নারীর প্রতি যে বর্বরতা নৈরাজ্য সৃষ্টি হয়েছে তারই ধারাবাহিকতার অবসান করার জন্য দেশের আনাচে কানাচে বিভিন্ন সংবাদ সমাবেশ পরিচালিত হচ্ছে ।  

নওগাঁ জেলা বদলগাছীতে বিট পুলিশিং কমিটির আয়োজিত এ মানববন্ধনে বক্তাদের দাবি এ নৈরাজ্য সৃষ্টির অবসান ঘটে নারীকে নিরাপদ সড়ক নিরাপত্তা দিতে  কঠোরতা  করা হোক। যাতে নারীর প্রতি আর বর্বরতার নির্যাতন-নিপীড়ন না আসে

মুজিব বর্ষের অঙ্গীকার, পুলিশ হবে জনতার

মুজিব বর্ষের অঙ্গীকার, পুলিশ হবে জনতার


আজহারুল ইসলাম মোহনগঞ্জ প্রতিনিধি  (নেত্রকোনা)মুজিব বর্ষের অঙ্গীকার, পুলিশ হবে জনতার  এই শ্লোগানকে সামনে রেখে মোহনগঞ্জে নারী ও শিশু নির্যাতন বিরোধী  বিটপুলিশিং সমাবেশ হয়েছে। শনিবার (১৭.১০.২০২০ ইং তারিখ)দুপুরে মহিলা কলেজের অডিটরিয়ামে উপজেলা নারী নেত্রী মোছাঃআকিকুন্নেছা খানম চৌধুরীর সভাপতিত্বে মোহনগঞ্জ থানার ওসি মোঃ আব্দুল আহাদ খান এর সঞ্চালনায় এ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। 

এতে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, বারহাট্টা সার্কেল অফিসার জনাব  মোঃসাইদুর রহমান,ভাইস চেয়ারম্যান বাবু দিলীপ দত্ত,মহিলা ভাইসচেয়ারম্যান তাহমিনা আক্তার শান্তা,নারী নেত্রী তাহমিনা সাত্তার,বি আর ডিবির চেয়ারম্যান জহিরুল ইসলাম শেখ,সাংবাদিক আবুল কাসেম আযাদ,সাংবাদিক মাছুম আহমেদ,সাংবাদিক সাইফুল আরিফ জুয়েল,সাংবাদিক মেহেদী ইকবাল দোলন  প্রমুখ। এসময় বক্তারা  নারী ও শিশু নির্যাতন প্রতিরোধে বিভিন্ন দিক নির্দেশনা মুলক বক্তব্য প্রদান করেন।

কিশোরগঞ্জে জমি নিয়ে সংঘর্ষে প্রতিবন্ধি নারী সহ আহত চার

 কিশোরগঞ্জে  জমি নিয়ে সংঘর্ষে প্রতিবন্ধি নারী সহ আহত চার



মোঃ লাতিফুল আজম,কিশোরগঞ্জ নীলফামারী প্রতিনিধিঃজমি নিয়ে দু'পক্ষের সংঘর্ষে প্রতিবন্ধি নারী সহ চারজন আহত হয়েছে। আহতদের কিশোরগঞ্জ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আহতদের মধো এক জনের অবস্থা আশংকা জনক হওয়ার তাঁকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।ঘটনাটি ঘটেছে নীলফামারীর কিশোরগঞ্জ উপজেলার নিতাই ইউনিয়নের মুশরুত পানিয়াল পুকুর অথাও পাড়া গ্রামে। 

জানা গেছে, মুশরুত পানিয়াল পুকুর অথাওপাড়া গ্রামের মৃত জাফর উদ্দিনের ছেলে মঞ্জুরুল ইসলামের ১১ শতাংশ জমি জবর দখল করে ভোগ দখল করে আসতেছিল একই গ্রামের হাকিম উদ্দিনের ছেলে এয়াকুব আলী। শনিবার দুপুরে এয়াকুব আলীগংরা পুনরায়  আবারো মঞ্জুরুল ও তার পরিবারের বসত ভিটার ২ শতক জমি জবর দখল করার জন্য চেষ্টা করলে মঞ্জুরুল ও তার পরিবারে লোকজন বাঁধা দেয়।  পরে এয়াকুব আলীর সাঙ্গপাঙ্গ মৃত হাকীম উদ্দিনের ছেলে তমিজউদ্দিন, মোস্তাফিজুর,  লাল বাহাদুর,  ও লাল বাহাদুরের ছেলে তাইজুল,  ফয়জুল,  এবং এয়াকুব আলীর ছেলে আলী আকবর হোলাই, রশিদুল ইসলাম বিষাউ স্ত্রী জেসমিন  তাদের জমিতে এসে খুঁটি দিতে যায়। তাদেরকে বাঁধা দিলে চড়াও হয়ে প্রতিবন্ধি রোখসানা ( ৩৮) ও মঞ্জুরুল ইসলাম(৪০), ছাবিনা খাতুন (৩৮), মালেকা খাতুন (৬০) কে পিটিয়ে আহত করে। নিতাই ইউপির চেয়ারম্যান ফারুকুজ্জামান ফারুক বলেন জমি নিয়ে দু'পক্ষের মারামারি হয়েছে বলে শুনেছি। এ ব্যাপারে কিশোরগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ আব্দুল আউয়ালের সাথে কথা হলে তিনি বলেন এখনো লিখিত অভিযোগ পায়নি, অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

ঝিনাইদহে কেন্দ্রীয় বি এন পি নেতা রুহুল কবির রিজভীর সুস্থতা কামনা করে দোয়া

ঝিনাইদহে কেন্দ্রীয় বি এন পি নেতা রুহুল কবির রিজভীর সুস্থতা কামনা করে দোয়া


সম্রাট হোসেন, ঝিনাইদহ জেলা প্রতিনিধিঃবাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপি কেন্দ্রীয় সংসদের সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব,এ্যাডঃ রুহুল কবির রিজভী আহামেদ -এর সুস্থতা কামনায় দোয়া মাহফিলের আয়োজন করেন ঝিনাইদহ জেলা বিএনপি।

উক্ত দোয়া মাহফিলে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সাবেক ঝিনাইদহ জেলা জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরামের সভাপতি ও আইনজীবী সমিতির একাধিকবার নির্বাচিত সভাপতি ও সাধারন সম্পাদক, ঝিনাইদহ জেলা বিএনপি'র আহবায়ক, বীর মুক্তিযোদ্ধা,অধ্যক্ষ, জননেতা এ্যাডঃ এম এম মশিয়ুর রহমান।বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ঝিনাইদহ ২ আসনের একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের বিএনপি মনোনীত প্রার্থী, হরিনাকুণ্ডু উপজেলা পরিষদের সাবেক সুযোগ্য সফল চেয়ারম্যান, সাবেক ছাত্রনেতা ও জেলা বিএনপির সদস্য সচিব, জননেতা আলহাজ্ব এ্যাডঃ এম এ মজিদ।ঝিনাইদহ পৌর বিএনপির সভাপতি ও ঝিনাইদহ জেলা বিএনপি'র যুগ্ম আহবায়ক, মোঃ জাহিদুজ্জামান মনা, পৌর বিএনপির সাধারন সম্পাদক, ও জেলা বিএনপি'র যুগ্ম আহবায়ক,মোঃ আব্দুৃল মজিদ বিশ্বাস( ছোট মজিদ) ঝিনাইদহ জেলা যুবদলের সংগ্রামী সাধারন সম্পাদক, মোঃ আশরাফুল ইসলাম পিন্টু, জেলা জিয়া পরিষদের সাধারন সম্পাদক, প্রভাষক, মোঃ জাহাঙ্গীর হোসেন, জেলা তারেক পরিষদের সভানেত্রী, এ্যাডঃ জে কে মৌ চৌধুরী, জেলা যুবদলের সহ সভাপতি, মোঃ আরিফুল ইসলাম আনন,জেলা যুবদলের সহ সভাপতি, মোঃ মনিরুল ইসলাম, জেলা যুবদলের সিনিয়র যুগ্ম সাধারন সম্পাদক, মোঃ আবুল বাসার বাসী, জেলা মৎস্যজীবী দলের আহবায়ক, মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান খোকন, জেলা সেচ্ছাসেবক দলের সিনিয়র যুগ্ম সাধারন সম্পাদক, মোঃ সাইফুজ্জামান রেন্টু মুন্সি, জেলা যুবদলের সাংগঠনিক সম্পাদক, মোঃ মোস্তাক আহাম্মেদ, জেলা ছাত্রদলের সিনিয়র যুগ্ম সাধারন সম্পাদক, মোঃ মাহাবুব আলম মিলু,জেলা ছাত্রদলের সাংগঠনিক সম্পাদক, মোঃ সাইদুর রহমান সাহেদ, সহ বিএনপি, যু্বদল ও সহযোগী সংগঠনের সিনিয়র নেতৃবৃন্দ।

ব্রীজ তো নয়,যেন মরণ ফাঁদ!

 ব্রীজ তো নয়,যেন মরণ ফাঁদ!

 


ফরিদপুর প্রতিনিধিঃ  ব্রীজ তো নয়,যেন মরণ ফাঁদ!ফরিদপুর জেলার নগরকান্দা উপজেলার  কুমার নদীর ওপর অবস্থিত এই বেইলি ব্রিজটি।এই বেইলি ব্রিজটি বয়সের ভারে এখন জরাজীর্ণ।ব্রীজটি তৈরি হয়েছিল জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান এরশাদ সরকারের আমলে। পরে কয়েকবার সরকার পরিবর্তন হলেও পরিবর্তন হয়নি জরাজীর্ণ মরণ ফাঁদ বেইলি ব্রীজটি,লাগেনি কোন উন্নয়নের ছোয়া। ফরিদপুর থেকে নগরকান্দা হয়ে মুকসুদপুর, গোপালগঞ্জ প্রতিদিন শত শত গাড়ি ও হাজার হাজার মানুষ পার হয় এই ব্রীজ দিয়ে।ভুক্তভোগীরা জানান যখন গাড়ি করে ব্রীজটির ওপর দিয়ে যায় তখন মনে হয় আজ আর রক্ষা নেই। এই বুঝি ভেঙ্গে নদীতে পড়ে যাচ্ছি। এমন কোন দূর্ঘটনা  ঘটার আগেই ব্রীজটির দ্রুত মেরামতের জন্য সরকারের আশু দৃষ্টি কামনা করেছেন ভুক্তভোগীরা।

মোংলায় ‘নারী ধর্ষণ ও নিযার্তন বিরোধী বিট পুলিশিং সমাবেশ

মোংলায় ‘নারী ধর্ষণ ও নিযার্তন বিরোধী বিট পুলিশিং সমাবেশ


মোঃএরশাদ হোসেন রনি, মোংলাঃ  মোংলায় ‘নারী ধর্ষণ ও নিযার্তন বিরোধী বিট পুলিশিং সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। মোংলা থানা পুলিশের আয়োজনে শনিবার সকালে টি,এ ফারুক স্কুল এন্ড কলেজে প্রথম এ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকতা মো: ইকবাল বাহার চৌধুরী। এ সময় অন্যান্যের মধ্যে বক্তৃতা করেন উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকতার ইসরাত জাহান, টি,এ ফারুক স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ আবু সাইদ খান, পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ আ: রহমান, সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব শেখ কামরুজ্জামান জসিম, যুবলীগের সভাপতি কবির হোসেন, সাংবাদিক জসিম উদ্দিন ও আবু হোসাইন সুমন। সমাবেশে আগতরাও ধর্ষণ ও নারী নিযার্তন রোধে করণীয় নানা মতামত তুলে ধরেন। সমাবেশে বিপুল সংখ্যক নারী-পুরুষ ও শিক্ষার্থীরা  উপস্থিত ছিলেন। এরপর পযার্য়ক্রমে দিগন্ত সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় ও সেন্ট পলস উচ্চ বিদ্যালয়সহ ১০টি ভেন্যুতে এ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। সমাবেশে পুরুষের পাশাপাশি নারীদের উপস্থিতিও ছিল চোখে পড়ার মত। 

মোংলা থানার অফিসার ইনচার্জ মো: ইকবাল বাহার চৌধুরী বলেন, সারাদেশের মানুষ এখন উত্তাল অবস্থায় আছে ধর্ষণ ও নারী নিযার্তনের বিরোধীতায়। ধর্ষণ ও নিযার্তনকারী মানুষরুপী যে সব পশু রয়েছে তাদের বিরুদ্ধেই এখন সকল মানুষ অবস্থান নিয়েছে। এ কারণেই সমাজের সকল শ্রেণী পেশার মানুষকে সজাগ ও সচেতন করতে এবং পুলিশকে সহায়তা করার জন্যই এ সমাবেশের আয়োজন করা হয়েছে বলেও জানান তিনি।  

মহম্মদপুরের বাবুখালীতে পুলিশের ধর্ষণ ও নারী নির্যাতন বিরোধী সমাবেশ

 মহম্মদপুরের বাবুখালীতে পুলিশের ধর্ষণ ও নারী নির্যাতন বিরোধী সমাবেশ

মোঃকুতুবুল আলম, মহম্মদপুর(মাগুরা)প্রতিনিধিঃমাগুরা জেলার মহম্মদপুর বাবুখালি পুলিশ ফাড়ি এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।  ধর্ষণ ও নারী নির্যাতনের বিরুদ্ধে জনসচেতনতা তৈরির লক্ষ্যে সমাবেশের আয়োজন করা হয়। এ অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন মীর সাজ্জাদ আলী, চেয়ারম্যান, বাবুখালী ইউপি।প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জনাব মামুন হোসেন বিশ্বাস, ওসি তদন্ত, মহম্মদপুর থানা। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জনাব আলী আহমদ মৃধা মিঞ্জু,মাগুরা জেলা পরিষদ সদস্য এবং বাবুখালী পুলিশ ফাড়ির ইনচার্জ জনাব সৈয়দ ফরহাদ হোসেন। এছাড়াও স্থানীয় গন্য-মান্য ব্যক্তি বর্গ এ আলোচনা সভায় উপস্থিত ছিলেন। 

আলোচনা শেষে র‍্যালি করা করা হয়। বাংলাদেশ পুলিশ এবার ধর্ষণ ও নারী নির্যাতনের বিরুদ্ধে জনসচেতনতা তৈরির লক্ষ্যে সমাবেশের আয়োজন করছে। আজ শনিবার দেশজুড়ে ৬ হাজার ৯১২টি বিট পুলিশিং এলাকায় এ সমাবেশের অনুষ্ঠিত হয়েছে।

সাংবাদিককে হুমকির প্রতিবাদে ঝিনাইদহে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত

 সাংবাদিককে হুমকির প্রতিবাদে ঝিনাইদহে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত


খোন্দকার আব্দুল্লাহ বাশার,খুলনা ব্যুরো প্রধানঃসাপ্রদায়িক গোষ্টির একাত্তর টেলিভিশনকে বয়কট ঘোষনা ও সাংবাদিককে হুমকির প্রতিবাদে ঝিনাইদহে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।  শনিবার সকাল  ১১টার সময় ঝিনাইদহ শহরের পোষ্ট অফিস মোড়ে ঘন্টাব্যাপি এ মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সভা অনুষ্ঠিত হয়। এ কর্মসুচির আয়োজন করেন ঝিনাইদহের সচেতন সাংবাদিক, সাংস্কৃতিক ও সুশিল সমাজ। ঘন্টাব্যাপি চলা এ কর্মসুচিতে সাংবাদিক সমাজ, সাংস্কৃতিক ব্যাক্তিত্ব ও সুশিল সমাজের শতাধিক প্রতিনিধিরা অংশ নেয়।

এ মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশে ঝিনাইদহ প্রেসক্লাবের সভাপতি গুরু এম,রায়হান এর সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন, সিনিয়র সাংবাদিক নিজাম জোয়ারদার বাবলু, সাংবাদিক দেলোয়ার কবীর,  প্রচার সম্পাদক শামীমুল ইসলাম শামীম,ঝিনাইদহ প্রেসক্লাবের  নির্বাহী সদস্য সাংবাদিক  এম. এ জলিল, জেলা সাংস্কৃতিক ঐক্যজোটের সাধারন সম্পাদক বাবলু আক্তার লাল্টু, স্থানীয় আমেনা খাতুন ডিগ্রী কলেজের উপাধ্যক্ষ আব্দুস সালাম, যুবলীগ নেতা শফিকুল ইসলাম শিমুলসহ সুশিল সমাজের অনেকে।বক্তারা বলেন, অবিলম্বে ডাকসুর সাবেক ভিপি নুরুল হক নূরকে গ্রেপ্তার করার দাবি জানান। এবং অবিলম্বে একাত্তর টিভির কাছে ক্ষমা চাইতে হবে। তা না হলে নুরকে বয়কট করার ঘোষনা দেন সাংবাদিক নেত্রীবৃন্দ।তারা আরও বলেন, কথিত ধর্মব্যবসায়ি মাওলানা মালেশিয়া প্রবাসী মিজানুর রহমান আজহারীসহ তারা একাত্তরের বিরুদ্ধে কুৎসা রটিয়ে যাচ্ছে। মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষের এই চ্যানেলটি কখনই ইসলামের বিরুদ্ধে না। কখনও কোন রিপোর্ট কেও দেখাতে না পারলেও তাদের জামায়াতপন্থি চেতনার কারনে একাত্তরকে সহ্য করতে পাচ্ছেন না । অবিলম্বে তাদের বক্তব্য প্রত্যাহারের দাবি জানিয়ে বিচারের আওতায় আনার জন্য সরকারের কাছে দাবি জানান।

আশাশুনিতে নারী ধর্ষণ ও শিশু নির্যাতন প্রতিরোধে পুলিশের র‍্যালী ও সমাবেশ

আশাশুনিতে  নারী ধর্ষণ ও শিশু নির্যাতন প্রতিরোধে পুলিশের র‍্যালী ও সমাবেশ

 

আহসান উল্লাহ বাবলু আশাশুনি সাতক্ষীরা প্রতিনিধি::  ‘নারীরপ্রতি সহিংসতা নিরসনে আপনার পুলিশ আপনার পাশে’ এ স্লোগানকে সামনে রেখে আশাশুনিতে র‍্যালী ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। 

শনিবার সকালে আশাশুনি থানা পুলিশের আয়োজনে কর্মসূচি পালন করা হয়।ধর্ষণ ও নারী-শিশু নির্যাতন প্রতিরোধে সচেতনা সৃষ্টির লক্ষে থানা অফিসার ইনচার্জ মো. গোলাম কবীরের সভাপতিত্বে থানা সড়কের সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও আওয়ামীলীগের সভাপতি এবিএম মোস্তাকিম।এসআই হাসানুজ্জামানের সঞ্চালনায় এসময় উপস্থিত ছিলেন ও বক্তব্য রাখেন আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সদর ইউপি চেয়ারম্যান স ম সেলিম রেজা মিলন, মহিলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক সেলিনা আক্তার সেলু, আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুস সামাদ বাচ্চু, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সহ-সভাপতি রাজ্যেশ্বর আওয়ামী লীগ নেতা ও খাজরা ইউপি চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী ওহিদুল ইসলাম, মোল্যা রফিকুল ইসলাম, শ্রমিকলীগের সভাপতি ঢালী সামছুল আলম, স্বেচ্ছাসেবকলীগের সভাপতি এসএম সাহেব আলী, প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক সমীর রায়, পূজা উদযাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক রণজিৎ বৈদ্য, আওয়ামীগ নেতা নারী নেত্রী শাপলা খাতুনসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক ও সামাজিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ। প্রধান অতিথির বক্তব্যে এবিএম মোস্তাকিম বলেন- ধর্ষকেরা কোন দলের নয়, তাদের পরিচয় একটাই তারা নরপশু দেশ ও জাতির শত্রু। তাই এদের নিবৃত করতে প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা যুগান্তকারী পদক্ষেপ গ্রহণ করেছেন। মহামান্য রাষ্ট্রপতি ইতোমধ্যে অধ্যাদেশ জারি করে ধর্ষকের শাস্তি মৃত্যুদণ্ড প্রদানের আইন করেছেন। তাই সচেতন হয়ে নারী ও আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল হতে সকলের প্রতি আহ্বান জানান।এর আগে একটি র‍্যালী থানা চত্বর থেকে শুরু হয়ে সদরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে। এছাড়া এদিন থানা পুলিশের আয়োজনে উপজেলার সবকয়টি ইউনিয়নের পুলিশিং বীটে ধর্ষণ ও নারী-শিশু নির্যাতন প্রতিরোধে সচেতনা সৃষ্টির লক্ষে অনুরুপ র‍্যালী ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে।  

বন্ধ হোক নারী নির্যাতন-নিশ্চিত হোক দেশের উন্নয়ন

বন্ধ হোক নারী নির্যাতন-নিশ্চিত হোক দেশের উন্নয়ন

                            

ডা.এম.এ.মান্নান,টাংগাইল জেলা প্রতিনিধিঃ“বন্ধ হোক নারী নির্যাতন-নিশ্চিত হোক দেশের উন্নয়ন ” এ স্লোগান কে সামনে রেখে সারাদেশের ন্যায় টাঙ্গাইলের নাগরপুর থানা পুলিশের উদ্যোগে নাগরপুর উপজেলা ১২ টি ইউনিয়নে নারী ধর্ষণ ও নির্যাতন বিরোধী বিট পুলিশিং সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

আজ শনিবার,১৭ অক্টোবর ২০২০ খ্রি.সকালে নাগরপুরের সকল ইউনিয়নে নারী ধর্ষন ও নির্যাতন বিরোধী বিটি পুলিশিং সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। বিট পুলিশিং সমাবেশে বক্তরা বলেন, একটি দেশ বা জাতি তার সমাজের অর্ধেক অংশ নারী। নারীকে থামিয়ে দিয়ে উন্নত হতে পারে না।নারীদের সম্মান দেখাতে হবে এবং তাদের নিরাপত্তা দেওয়া আমাদের সকলের দায়িত্ব। নারী উন্নয়নে বর্তমান সরকার কাজ করে যাচ্ছে।  ধর্ষণের কারন হিসাবে সামাজিক অবক্ষয়, নীতি নৈতিকতা, ধর্মীয় অনুশাসন না মেনে চলাকে দায়ী করেন বক্তরা। 

এ সময় উপস্থিত ছিলেন,নাগরপুর  অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোঃ আলম চাঁদ সহ প্রত্যেক বিটের দায়িত্ব প্রাপ্ত সকল পুলিশ সদস্য, সকল ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ও ইউপি সদস্য বৃন্দ, সুশীল সমাজ, শিক্ষকগণ,সাংবাদিক বৃন্দ সহ স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ।

দৌলতপুরে নারী ধর্ষণ ও নির্যাতন বিরোধী বিট পুলিশিং সমাবেশ

দৌলতপুরে নারী ধর্ষণ ও নির্যাতন বিরোধী বিট পুলিশিং সমাবেশ


কুষ্টিয়া জেলা প্রতিনিধি //এম,ডি,আল আসিবুজ্জামান চঞ্চলঃকুষ্টিয়ার দৌলতপুরের মথুরাপুর ইউনিয়ন পরিষদে নারী ধর্ষণ ও নির্যাতন বিরোধী বিট পুলিশিং সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। আজ ১৭ ই অক্টোবর শনিবার সকাল ১১ ঘটিকায় এই নারী ধর্ষণ ও নারী নির্যাতন বিরোধী পুলিশিং বিট অনুষ্ঠিত হয়। 

এসময় উপস্থিত ছিলেন কুষ্টিয়া দৌলতপুর থানার ওসি (তদন্ত)  সাহাদৎ, দৌলতপুর উপজেলা আওয়ামীলীগের তথ্য বিষয়ক সম্পাদক টিপু নেওয়াজ,মথুরাপুর পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ সন্জিত কুমার বাড়ই ও সভাপতিত্ব করেন মথুরাপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সর্দার হাসিমুদ্দীন হাসু। এসময় ওসি তদন্ত অফিসার সাহাদৎ  বলেন,নারী নির্যাতন ও ধর্ষনের ঘটনা ঘটলে  তাৎক্ষণিক পুলিশকে জানানোর জন্য।

ধর্ষকের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তুলতে হবে-ওসি মাহবুবুল আলম

 ধর্ষকের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তুলতে হবে-ওসি মাহবুবুল আলম


খোন্দকার আব্দুল্লাহ বাশার, খুলনা ব্যুরো প্রধানঃ নারীর প্রতি সহিংসতা নিরসনে আপনার পুলিশ আপনার পাশে, নারী ধর্ষণ ও নির্যাতন বিরোধী বিট পুলিশিং সমাবেশ অক্টোবর ২০২০ শনিবার সকালে  কোটচাঁদপুর অনুষ্ঠিত হয় ।অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি জনাব মোঃ মাহবুবুল আলম অফিসার ইনর্চাজ কোটচাঁদপুর মডেল থানা,বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পৌর আওয়ামিলীগ আহ্বায়ক মোঃ ফারজেল হোসেন মন্ডল, ৭ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর খোন্দকার শারাফৎ হোসেন, ৮ নাং ওয়াড কাউন্সিলর মোঃ সোহেল আল মামুন, যুবলীগ নেতা মীর মনির হোসেন, এ্যাডঃ আশরাফুল আলম, সাংবাদিক খোন্দকার আব্দুল্লাহ বাশার, শহিদুল ইসলাম সহ এলাকার স্থানীয় নারী পুরুষ ও গন্য মান্য বেক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।  অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন  জনাব মোঃ মাসুদুর রহমান এস আই ( নিঃ) ৩ নাং বিট  মডেল থানা ৩ নাম্বার বিট পুলিশিং কমেটি।

সন্দ্বীপে বিট পুলিশের উদ্যোগে নারী নির্যাতন প্রতিরোধে সমাবেশ

সন্দ্বীপে বিট পুলিশের উদ্যোগে নারী নির্যাতন প্রতিরোধে সমাবেশ


এম.এ আকাশ,সন্দ্বীপ প্রতিনিধিঃধর্ষণ ও নারী নির্যাতনের বিরুদ্ধে জনসচেতনতা তৈরির লক্ষ্যে ও  দেশব্যাপী  ৬ হাজার ৯১২টি বিট পুলিশিং এলাকায় সমাবেশের অংশ হিসেবে সন্দ্বীপ পৌরসভাস্থ ১ নং বিটের উদ্যোগে নারী নির্যাতন বিরোধী সমাবেশ ও লাইভ প্রোগ্রাম সম্পন্ন হয়েছে। 

আজ ১৭ অক্টোবর সন্দ্বীপ পৌরসভার ব্রাক্ষন সাঁকোর পাশে ১ নং বিট পুলিশের কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত সভায় সভাপতিত্ব করেন পৌরসভা আওয়ামীলিগের সভাপতি মোক্তাদের মাওলা সেলিম।১ নং বিট পুলিশের দায়িত্বে থাকা এসআই মোঃ সিরাজ এর উপস্থাপনায় এতে বক্তব্য রাখেন পৌর কাউন্সিলর আলাউদ্দিন বাবলু, সাবেক ছাত্রনেতা মোঃ শামীম,সন্দ্বীপ প্রেসক্লাবের সাংগঠনিক সম্পাদক  বাদল রায় স্বাধীন, নারী নেত্রী পলি রানী নাথ, কাসেম হায়দার মহিলা  কলেজের শিক্ষার্থী  ময়না বেগম,সন্দ্বীপ মডেল  উচ্চ বিদ্যালয়ের ছাত্রী সাথী আক্তার প্রমুখ। এছাড়াও এলাকার বিভিন্ন নারী,পুরুষ, মসজিদের ইমামসহ সমাজের বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ অংশগ্রহণ করছেন। 

সমাবেশে অংশগ্রহণকারীরা ধর্ষণ ও নারী নির্যাতনবিরোধী পোস্টার, লিফলেট, প্ল্যাকার্ড প্রদর্শনের মাধ্যমে জনসাধারণকে ধর্ষণ ও নারী নির্যাতনের বিরুদ্ধে এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়ে এ ধরনের ঘৃণ্য অপরাধের বিরুদ্ধে সচেতন থেকে দেশের সামাজিক শৃঙ্খলা এবং জনগণের শান্তি ও নিরাপত্তা বিধানকল্পে ধর্ষণ, নারী ও শিশু নির্যাতনের প্রতিটি ঘটনায় জড়িত অপরাধীকে আইনের আওতায় এনে কঠিন শাস্তি প্রদান করে দৃষ্টান্ত স্থাপনের আহব্বান জানান। বক্তারা আরো বলেন এ সমস্ত নির্যাতনের বিচার দাবী না করে একটি কুচক্রি মহল এই ইস্যুকে কাজে লাগিয়ে প্রধানমন্ত্রীর বিরুদ্ধে বিভিন্ন কটুক্তি ও ওনার পদত্যাগের দাবী করে ঘোলা পানিতে মাছ শিকারের চেষ্টা করছে তাদেরকেও চিহৃিত করে দ্রুত আইনের আওতায় আনা হউক।

ব্যারিস্টার সুমন ফুটবল একাডেমি এখন সন্দ্বীপ খেলবে নভেম্বর মাসে

 ব্যারিস্টার সুমন ফুটবল একাডেমি এখন সন্দ্বীপ খেলবে নভেম্বর মাসে


রিয়াজুল করিম রিজভী,চট্টগ্রাম ব্যুরো প্রধানঃসন্দ্বীপ আবাহনী ক্রীড়া চক্র এর উদ্যোগে আগামী মাসের প্রথম সপ্তাহে সন্দ্বীপ আসছে ব্যারিস্টার সুমন ফুটবল একাডেমি।আগামী ৬-১১-২০২০ প্রথম ম্যাচে পরস্পর মোকাবেলা করবে সন্দ্বীপ উপজেলা একাদশ VS ব্যারিস্টার সুমন ফুটবল একাডেমি, ভেন্যু- কোস্ট গার্ড মাঠ,উপজেলা।

সন্দ্বীপ আবহানী ক্রীড়া চক্র

আগামী ৭-১১-২০২০ দ্বিতীয় ম্যাচে পরস্পর মোকাবেলা করবে সন্দ্বীপ আবাহনী ক্রীড়া চক্র VS ব্যারিস্টার সুমন ফুটবল একাডেমি,ভেন্যু- সাউথ সন্দ্বীপ হাই স্কুল মাঠ, শিবের হাট।

উক্তম্যাচ গুলো পরিচালনায় করতে সকল শ্রেণীপেশার মানুষের কাছে সহায়তা  চেয়েছেন আবহানী ক্রীড়া চক্রের সভাপতি সাহেদ সারোয়ার শামীম।

ফাতেমা খানম মেডিকেল কলেজ নির্মাণাধীন ভবনের ছাদ ধসে হতাহত!

ফাতেমা খানম মেডিকেল কলেজ নির্মাণাধীন ভবনের ছাদ ধসে হতাহত!

মোঃ আওলাদ হোসেন,জেলা প্রতিনিধি (দৌলতখান) ভোলাঃ জ (১৭ অক্টোবর) আনুমানিক ১০ঃ৪৫ মিনিটের সময় ভোলা জেলার, ভোলা সদর থানাধীন বাংলাবাজার ফাতেমা খানম মেডিকেল কলেজ প্রস্তাবিত এর নির্মাণাধীন ছাদ ধসে পড়ে গুরুতর আহত প্রায় ১০। সাধারণ মানুষ ও প্রতক্ষদর্শীরা জানান,  নিহত ১। তবে এই সংবাদ লেখা পর্যন্ত  পুলিশের সূত্র এখনো পাওয়া যায়নি।তারা বলেন সকাল ১০ঃ৪৫ ঘটিকার দিকে আচমকা বিকট শব্দ শুনে দেয়াল টপকিয়ে ভিতরে যাই এবং পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসকে ফোন করি। ১০ মিনিটের মধ্যে তারা পৌছলে ৫-৬ কে দ্রুত সদর হাসপাতালে পাঠাই। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান,ছাঁদের চাপার নিচে এখনো লোক থাকতে পারে তাই উদ্ধার কাজ চলছে। এখন পর্যন্ত এদের মধ্যে ১ জন মৃত্যু ধারনা করছে প্রতক্ষদর্শী।

শিশুদের জন্য এনআইসিইউ ও বড়দের জন্য আইসিইউ সেবা চালু করলো যশোর আদ-দ্বীন সকিনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল

শিশুদের জন্য এনআইসিইউ ও বড়দের জন্য আইসিইউ সেবা চালু করলো যশোর আদ-দ্বীন সকিনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল

নিউজ ডেস্কঃ শিশুদের জন্য এনআইসিইউ ও বড়দের জন্য আইসিইউ সেবা চালু করলো যশোর আদ-দ্বীন সকিনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল।  চিকিৎসা সেবা উন্নততর করার লক্ষ্যে গতকাল শুক্রবার (১৬ অক্টোবর) এ দুটি সেবা উদ্বোধন করেন আদ-দ্বীন ফাউন্ডেশনের নির্বাহী পরিচালক ডা. শেখ মহিউদ্দিন। এ সময় তিনি এনআইসিইউ এবং আইসিইউ কার্যক্রম পরিদর্শন করেন। সাধারণ রোগীর ভোগান্তি কমাতে প্রাথমিক পর্যায়ে ৩টি আইসিইউ বেড ও ১৩টি এনআইসিইউ বেড স্থাপন করা হয়েছে। বর্তমানে বিভাগ দুটিতে ৮ জন ডাক্তার, ৪ জন বিশেষজ্ঞ ডাক্তার এবং ১২ জন নার্স দায়িত্ব পালন করবেন। পরবর্তীতে  বেড সংখ্যা এবং ডাক্তারের সংখ্যা বৃদ্ধি করা হবে বলে জানান হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। এছাড়াও যশোর অঞ্চলের মানুষের উন্নত চিকিৎসা সেবা প্রদান করা এ হাসপাতালের অন্যতম লক্ষ্য বলেও জানান কর্তৃপক্ষ।

আদ-দ্বীন ফাউন্ডেশনের ব্যবস্থাপনা প্রধান প্রফেসর ডা. নাহিদ ইয়াসমিন জনান, গরীব ও অসহায় রোগীদেরকে স্বল্প খরচে চিকিৎসা সেবা প্রদান করায় এ প্রতিষ্ঠানের মূল লক্ষ্য। অন্যান্য এনআইসিইউ ও আইসিইউ এর চেয়ে এখানে খরচ অত্যন্ত কম। সঠিক সময়ে সঠিক সেবা প্রদান করায় আমারদের মূল্য উদ্দেশ্য বলেও তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

এ উদ্দেশ্যকে স্বাগত জানিয়েছেন হাসপাতালে ভর্তি রোগীদের স্বজনেরা।



মাদক ব্যবসায়ীর হামলায় জয়পুরহাট র‍্যাব-৫ এর দুই সদস্য আহত

মাদক ব্যবসায়ীর হামলায় জয়পুরহাট র‍্যাব-৫ এর দুই সদস্য  আহত

রহমতউল্লাহ, নওগাঁ বদলগাছীঃ দলগাছীতে ধাওয়া করে আটক করতে গিয়ে মাদক ব্যবসায়ীর হামলায় র‌্যাব-৫ এর দুই সদস্য আহত হয়েছেন। এ সময় শাহীন আলম (২৮) নামের এক মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করা হয়েছে।শুক্রবার (১৬ অক্টোবর) রাত ৮টায় বদলগাছী উপজেলার চকজালাল এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। আটক শাহীন ধামইরহাট উপজেলার মহিষগাড়ী গ্রামের মোজাফ্ফর রহমানের ছেলে।

র‌্যাব-৫ জয়পুরহাট ক্যাম্প কোম্পানি কমান্ডার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার এমএম মোহাইমেনুর রশিদ বলেন, বদলগাছী উপজেলার চকজালাল এলাকায় একটি মোটরসাইকেলে চলাচলকারী মাদক ব্যবসায়ীকে ধাওয়া করে র‌্যাব সদস্যরা। এ সময় তাদের কাছে থাকা দেশীয় অস্ত্র কুড়াল, কাস্তে ও বাঁশের লাঠি ইত্যাদির দ্বারা র‌্যাব সদস্যের ওপর হামলা করে। এতে র‌্যাবের দুই সদস্য জখম হয়।

এ সময় ১৮৪ বোতল ফেন্সিডিল, একটি মাটরসাইকেল, একটি কুড়াল ও একটি কাস্তে উদ্ধারসহ মাদক ব্যবসায়ী শাহীন আলমকে আটক করা হয়। আহত দুই র‌্যাব সদস্যকে বদলগাছী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা দেয়া হয়। আটক আসামিসহ পলাতকদের বিরুদ্ধে বদলগাছী থানায় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা হয়েছে।

কুলাউড়ায় ছাগল উদ্ধার করতে গিয়ে প্রাণ হারালেন দুই চা শ্রমিক

কুলাউড়ায় ছাগল উদ্ধার করতে গিয়ে প্রাণ হারালেন দুই চা শ্রমিক

মোঃরেজাউল ইসলাম শাফি,  কুলাউড়া উপজেলা প্রতিনিধিঃকুলাউড়া উপজেলার শরীফপুর ইউনিয়নের সীমান্তবর্তী চাতলাপুর চা বাগানে ছাগল উদ্ধার করতে গিয়ে  সেফটি ট্যাংকে পড়ে শ্বাসরুদ্ধ প্রাণ হারালেন চাচা ও ভাতিজা।তারা হলেন, উপজেলার শরীফপুর ইউনিয়নের চাতলাপুর এলাকার বাউরী টিলার মৃত মোহন বাউরীর ছেলে  দুর্গা চরণ বাউরী (৪৫) ও রাবন বাউরীর ছেলে চা শ্রমিক রাজু বাউরি (২৫)। তারা সম্পর্কে চাচা ভাতিজা ছিলেন বলে স্থানীয় সুত্রে জানা যায়।

এ ঘটনা সম্পর্কে জানতে চাইলে চাতলাপুর বাগানের সভাপতি সাধন বাউরি জানান, বাউরি টিলা এলাকায় রাবন বাউরির বাসার টয়লেটের প্রায় ৪০ ফুট গভীর একটি সেফটি ট্যাংকে দুইটি ছাগল পড়ে যায়। এক পর্যায় ছাগল উদ্ধার করতে  দুর্গা চরণ বাউরী ট্যাংকের নিচে নামেন। অনেক্ষন যাবৎ চাচা ট্যাংকের নিচ থেকে উঠে না আসায় ভাতিজা রাজু বাউরি ট্যাংকের ভিতর নামেন চাচা দুর্গা চরণ বাউরীকে উদ্ধার করতে। অতঃপর আর উঠে আসতে পারেনি। ট্যাংকের ভিতরেই শ্বাসরুদ্ধ হয়ে দুজনই মারা যায়। পরে ঘটনার খবর পেয়ে কুলাউড়া ও কমলগঞ্জ ফায়ার সার্ভিসের উদ্ধারকারী দল  বিকাল ৪টায় ঘটনাস্থলে গিয়ে এক ঘন্টা চেষ্টার পর মৃতদেহ উদ্ধার করে।এ প্রসঙ্গে আরো জানা যায়, লাশ ময়নাতদন্তের জন্য মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালেএ মর্গে প্রেরণ করা হবে।