ঝিকরগাছার আট বছরের মেয়ে কোহিলীর পায়ের চিকিৎসার জন্য সাহায্যের আবেদন

আব্দুল জব্বার, স্টাফ রিপোর্টার।।যশোরের ঝিকরগাছা উপজেলার ৭নং নাভারণ ইউনিয়নের বাইশা গ্রামের ভ‍্যান চালক পিতা নুরনবী মেয়েকে বাঁচাতে সমাজের হৃদয় বান ও বিত্তশালী মানুষের নিকট আর্থিক সহযোগিতা চেয়েছেন।

পড়াশোনার প্রতি প্রবল আগ্রহ অসহায় পিতা নুরনবীর মেয়ে কোহিলীর গাছের ডাল পড়ে বাম পায়ের মাজার নিচে থেকে হাঁটু পর্যন্ত তিনটি স্থানের হাড় ভেঙে গিয়েছে। প্রাথমিকভাবে কোহিলি বাবা সর্বোচ্চ সামর্থ্য অনুযায়ী মেয়ের চিকিৎসা করেছেন। কিন্তু বর্তমানে ডাক্তারের পরামর্শ অনুযায়ী অপারেশন, উন্নত চিকিৎসা এবং মেয়েকে হাসপাতালে ভর্তি রাখতে হবে। আর এজন্য প্রয়োজন প্রায় ১ লক্ষ টাকার। আর্থিকভাবে অসচ্ছল ভ্যানচালক নুরনবীর এই টাকা জোগাড় করা অসম্ভব হয়ে দাঁড়িয়েছে। পরিবারের একমাত্র উপার্জনক্ষম ব্যক্তি নুরনবীর তিন মেয়ে ও একটি ছেলে এর মধ্যে কোহিলী ও কাকলী জমজ দুই বোন। ভ্যানচালক বাবার এই স্বল্প আয় দিয়েই কোন রকমে চলে সংসার। নিতান্তই এই দরিদ্র মানুষটির বাড়ি অন্যের জায়গায় অবস্থিত।

ভ্যান চালক নূরনবীর পক্ষে কোনভাবেই চিকিৎসার খরচ বহন করা সম্ভব নয়। এমতাবস্থায় কোহিলির অসহায় ও নিরুপায় ভ্যানচালক পিতা, মেয়ের অপারেশনে সুচিকিৎসার জন্য সকল হৃদয় বান ও দানশীল ব্যক্তির কাছে সামর্থ্য অনুযায়ী সাহায্য কামনা করেছেন।কোহিলীকে সাহায্য পাঠানোর ঠিকানা: বিকাশ নাম্বার: ০১৮১৭৮৮১৬৪১ (নূরনবী)।

শেয়ার করুন

প্রকাশকঃ

অফিসঃ হাজী সিরাজুল ইসলাম সুপার মার্কেট, মোহাম্মদপুর মোড়, ছুটিপুর রোড, ঝিকরগাছা, যশোর।

পূর্ববর্তী পোষ্ট
পরবর্তী পোষ্ট