নওগাঁয় ধান কাটা কে কেন্দ্র করে নিহত-১

রহমতউল্লাহ,নওগাঁ  প্রতিনিধি: নওগাঁর নিয়ামতপুর উপজেলায়  বোরো ধান কাটাকে কেন্দ্র করে আদিবাসী দুই পক্ষের সংঘর্ষে একজন নিহত হয়েছেন। এ সময় দুই মহিলাসহ আটজন আহত হয়েছেন।২১ এপ্রিল, বুধবার বিকেলে ৩টায় উপজেলার পাড়ইল ইউনিয়নের মাসনা ধান ক্ষেতে সংঘর্ষ হয়।

নিহত বুধু সরদার (৬০) উপজেলার পাড়ইল ইউনিয়ন বান্দইল বিচিবাড়ী গ্রামের মসি সরদারের ছেলে। পুলিশ ও স্থানীয় এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, পাড়ইল ইউনিয়নের মাসনা মাঠে বান্দইল বিচিবাড়ী গ্রামের তারণ সরদারের আরএস রেকর্ডভুক্ত ৩ একর ৫৬ শতক জমিতে বুধু সরদার, তারানু সরদার, খোকা টপ্প, বিধান সরদার বোরো ধান রোপন করেন। বুধবার বিকেলে ৩টায় তারা জমিতে ধান কাটতে যান। এসময় মাসনা গ্রামের জগলালের ছেলে বঙ্গপাল ও সুচুর ছেলে সেভিনের নেতৃত্বে ভাড়াটিয়া লাঠিয়াল বাহিনী নিয়ে হাসুয়া, তীর ধনুক দেশীয় অস্ত্র নিয়ে তাদের উপর হামলা করে।

এতে বুধু সরদার, মন্টুর স্ত্রী বুঝমনি (৫০), মৃত- খগনার ছেলে সারিতন (৩৫) চাঁপাইনবাবগঞ্জের গোমস্তাপুর উপজেলার হরিসপুর দেওপুরা গ্রামের মজিদের ছেলে বিজয় (১৫), জেলার পোরশা উপজেলার নোনাহার গ্রামের সিনাইয়ের মেয়ে কবিতা (১৯) এবং হামলাকারীদের মাসনা গ্রামের মহাদেবের ছেলে অতিস কুজুর (৫০), দেবেন্দ্রর ছেলে রিপন (৩০), প্রসান্ত (৩৫) আহত হয়।

আহতদের প্রথমে নিয়ামতপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হলে সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বিকেল ৫টার দিকে বুধু সরদার মারা যান। অন্যান্য আহতদের মধ্যে গুরুতর সারিতন, বিজয়, কবিতাকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে।
নিয়ামতপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা হুমায়ন কবির নিহতের বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, ঘটনায় জড়িত অভিযোগে দুজনকে আটক করা হয়েছে। এখন পর্যন্ত কোনো মামলা হয়নি।লাশ ময়নাতদন্তের জন্য আজ বৃহস্পতিবার নওগাঁ সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

শেয়ার করুন
পূর্ববর্তী পোষ্ট
পরবর্তী পোষ্ট