শ্যামনগরে করোনায় আক্রান্ত ব্যক্তির সৎকার সিডিও ইয়ুথ টিম

হুদা মালী শ্যামনগর প্রতিনিধি : সাতক্ষীরা শ্যামনগর উপজেলার গৌরিপুর গ্রামের বিধান চন্দ্র মন্ডল (৩৭) গতকাল করোনা আক্রান্ত মৃত্যুবরণ করেন। দীর্ঘ সময় অতিবাহিত হলেও পরিবারের লোকজন ও আত্মীয়-স্বজন মৃত্যু ব্যক্তির সৎকারের জন্য এগিয়ে আসেননি। বিষয়টা নিয়ে এলাকায় তোলপাড় সৃষ্টি হয়।

শ্যামনগর সিডিও ইয়ুথ টিমের প্রতিষ্ঠাতা গাজী আল ইমরানের নেতৃত্বে ও দিক নির্দেশনা মোতাবেক সমাধি কাজে সহযোগিতা করেন সিডিও ইয়ুথ টিমের সাধারণ সম্পাদক হাফিজুর রহমান, সিডিও ইয়ুথ টিম সদর ইউনিয়ন সভাপতি আনিসুর রহমান (মিলন) ,সদস্য জামাল বাদশা।
এসময় উপস্থিত ছিলেন, সিডিও উপদেষ্টা আমিনুর রহমান (বকুল), মানবতার ফেরিওয়ালারা সেখানে গিয়ে দেখতে পাই হতদরিদ্র পরিবারের সন্তান ছিলেন বিধান চন্দ্র।তার স্ত্রী এবং ছোট দুটি শিশুর সন্তান ছাড়া আর কাউকে চোখে মিলে না। 
এ বিষয়ে মুঠোফোনে জানতে চাইলে গাজী আল ইমরান বলেন, ভোরবেলা ঘুম থেকে ওঠার আগেই একটি অজানা নাম্বার থেকে ফোন আসলো,বললেন ভাই আমি সাতক্ষীরা হিন্দু যুব পরিষদের সাধারণ সম্পাদক। শ্যামনগরের গৌরিপুর বিধান চন্দ্র মন্ডল (১০জুন) বৃহস্পতিবার গতকাল মারা গেলেও এখনো তার সৎকার করা হয়নি।এসময় তিনি  সিডিও পরিবারের সহযোগিতা চান।তিনি আরো বলেন শ্যামনগর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মহোদয়ের সাথে কথা হয়েছে। তিনি আপনার সাথে যোগাযোগ করতে বলেছেন।পরে আবার একটা ফোন এলো, উপজেলা চেয়ারম্যান এস এম আতাউল হক দোলন সৎকারের জন্য আমাকে বলেন। তখন আমি সিডিও ইয়ুথ টিমের কিছু সাহসী সহযোদ্ধাদের কাছে বললে তারা নির্দ্বিধায় রাজি হয়ে যান। 

সৎকারে অংশ নেয়া রক্তের ফেরিওয়ালা হাফিজ বলেন, জীবনে অনেক ধরনের কাজ করেছি সিডিওতে এসে তার মধ্যে এই কাজটি আমাদের কাঁদিয়েছে। আমি ভাবতেই পারছিনা একজন মানুষ দীর্ঘ ১৫ ঘণ্টা মরে পড়ে আছে তার সমাধি করার জন্য কেউ এগিয়ে আসেনি। আরেক সহযোদ্ধা মিলন বলেন, নিহত ব্যক্তির পরিবারে দুইটা শিশু সন্তান আছে তাদের চোখের পানি এবং সমসাময়িক অবস্থা আমার কাছে খুবই হৃদয়বিদারক মনে হয়েছে। অপর সহযোদ্ধা' জামাল বাদশা বলেন পুরা পরিবার এখন দিশেহারা হয়ে পড়েছে। তিনি ছিলেন ওই পরিবারের একমাত্র উপার্জনক্ষম ব্যক্তি। তার এই অকাল মৃত্যুতে পরিবারটি নিঃস্ব হয়ে গেছে।

 সরকারি কর্তা ব্যক্তিদের পরিবারকে সুদৃষ্টি দেয়ার জন্য অনুরোধ করেছেন। সিডিওর উপদেষ্টা আমিনুর রহমান (বকুল) বলেন, বিধানের মত এমন অনাকাঙ্ক্ষিত মৃত্যু এড়ানোর জন্য সকলকে সরকারি বিধি মেনে চলার জন্য অনুরোধ করেন।

শেয়ার করুন

প্রকাশকঃ

অফিসঃ হাজী সিরাজুল ইসলাম সুপার মার্কেট, মোহাম্মদপুর মোড়, ছুটিপুর রোড, ঝিকরগাছা, যশোর।

পূর্ববর্তী প্রকাশনা
পরবর্তী প্রকাশনা