খুলনায় দশম দিনেও করোনা স্বাস্থ্যবিধি নিশ্চিতকরণে মোবাইল কোর্টের অভিযান অব্যাহত


তুহিন রানা (আব্রাহাম) ; খুলনা নগর প্রতিনিধিঃ
করোনা ভাইরাস সংক্রমণের সম্ভাব্য দ্বিতীয় ওয়েভ মোকাবেলার প্রস্তুতি হিসেবে আজ ২১ নভেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ তারিখে সুযোগ্য জেলা প্রশাসক ও বিজ্ঞ জেলা ম্যাজিস্ট্রেট, খুলনা জনাব মোহাম্মদ হেলাল হোসেন পিএএ এর নির্দেশে এবং বিজ্ঞ অতিরিক্ত জেলা ম্যজিস্ট্রেট, খুলনা জনাব মোঃ ইউসুপ আলীর তত্ত্বাবধানে নগরীর ডাক বাংলা, শান্তিধাম মোড়, রয়েলের মোড়, সাতরাস্তা মোড়সহবিভিন্ন স্থানে মোবাইল কোর্টের অভিযান পরিচালিত হয়। মোবাইল কোর্টের অভিযান পরিচালনা করেন জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট জনাব মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ-আল-ফয়সাল এবং জনাব দেবাশীষ বসাক। 

কর্তব্যরত নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মাস্ক-বিহীন অসংখ্য মানুষকে চলাফেরা করতে দেখেন। এসব মানুষের কিছু সংখ্যক আর্থিকভাবে স্বচ্ছল অথচ অসচেতনভাবে মাস্ক পরিধান করেন না। কিছু মানুষ আছেন যারা স্বাস্থ্যবিধি মেনে মাস্ক পরিধানের নিমিত্তে নিয়মিত মাস্ক ক্রয়ের ক্ষমতা রাখেন না। এরকম পরিস্থিতিতে জেলা প্রশাসন, খুলনা এক অনন্য উদ্যোগ গ্রহণ করে। 

স্বচ্ছল অথচ মাস্ক পরার বিধান অমান্যকারী ব্যক্তিগণকে জরিমানা আরোপ না করে সেই অর্থে মাস্ক ক্রয় করে গরীব-দুঃখী মানুষকে বিতরণ করতে বলা হয়। আইন অমান্যকারী স্বচ্ছল ব্যক্তিরা নিজ অর্থে মাস্ক ক্রয় করে রিক্সাচালক, দিনমজুর, ভিক্ষুকসহ অসহায় গরীব মানুষকে মাস্ক বিতরণ করেন। 

এছাড়াও অপ্রাপ্ত বয়স্ক আইন অমান্যকারীর অভিভাবকদের ফোন করে তার পরিবারের সদস্যদের সচেতন হতে এবং মাস্ক পরিধান ব্যতীত বাড়ির বাইরে বের না হওয়া নিশ্চিত করতে যত্নবান হওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়। 

মোবাইল কোর্ট পরিচালনাকালে মাস্ক সাথে না থাকায় এবং যথাযথভাবে মাস্ক পরিধান না করায় ৭ (সাত) জনকে মোট ৩,৫৫০/- (তিন হাজার পাঁচশত পঞ্চাশ) টাকা অর্থদণ্ড প্রদান করা হয়। 'সংক্রামক রোগ (প্রতিরোধ, নিয়ন্ত্রণ ও নির্মূল) আইন, ২০১৮' এর সংশ্লিষ্ট ধারার বিধান মোতাবেক এসব জরিমানা করা হয়। 

সম্প্রতি করোনা ভাইরাস সংক্রমণের হার বেড়ে যাওয়ায় গত ০৮ নভেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ তারিখের জেলা আইন-শৃঙ্খলা কমিটির সভার সর্বসম্মত সিদ্ধান্তের প্রেক্ষিতে ০৯ নভেম্বর, ২০২০ তারিখ থেকে জেলা প্রশাসন কঠোর অবস্থা গ্রহণ করে। মোবাইল কোর্ট পরিচালনায় সহযোগিতা করেন এপিবিএন এবং খুলনা সদর থানা পুলিশের সদস্যগণ। স্বাস্থ্যবিধি নিশ্চিতকরণে জেলা প্রশাসনের এমন অভিযান অব্যাহত থাকবে।

শেয়ার করুন
পূর্ববর্তী পোষ্ট
পরবর্তী পোষ্ট