পটিয়া পৌরসভায় কাউন্সিলর পদে নিবার্চনে করবে গোলাম কাদের

পটিয়া পৌরসভায় কাউন্সিলর পদে নিবার্চনে করবে গোলাম কাদের

পটিয়া (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি: আসন্ন পটিয়া পৌরসভা নির্বাচনে ৩নং ওযার্ডে জনগনের সাধারণ সেবা নিশ্চিত করতে ও পরিবর্তনের লক্ষ্যেই কাউন্সিলর পদে নিবার্চন করতে চান সাবেক ছাত্রনেতা ও পটিয়া পৌরসভা আওয়ামী যুবলীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক মোঃ গোলাম কাদের। তিনি বলেন, ‘‘মাননীয় প্রাধনমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে ও জাতীয় সংসদের মাননীয় হুইপ পটিয়ার উন্নয়নের রূপকার মাটি ও মানুষের প্রিয় নেতা আলহাজ্ব সামশুল হক চৌধুরী এমপি মহোদয়ের চলমান উন্নয়নের ধারা অব্যহত রাখতে’ সাধারন জনগনের দোয়া ও সহয়োগিতা আগামী পটিয়া পৌরসভা নিবার্চনে ৩নং ওয়ার্ড থেকে কাউন্সিলর পদে নিবার্চনে অংশগ্রহণ কবো।  

জানাযায়, মোঃ গোলাম কাদের স্কুল জীবন থেকেই জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শ ধারণ করে তার হাতে গড়া সংগঠন বাংলাদেশ ছাত্রলীগ সংগঠনের সাথে সম্পৃক্ত হই। ছাত্রলীগ করতে গিয়ে ২০০৩ সালে গুয়াদন্ডী এলাকার প্রথম ১৫আগষ্ট জাতীয় শোক দিবস পালন করতে গিয়ে সেই দিন স্থানীয় বিএনপি নেতারা বঙ্গবন্ধুর ভাষন প্রচার করতে দেয়নি। এমনকি সেইদিন বিএনপি জামাত জোটের কতিপয় নেতাকর্মীরা প্রচারের মাইক ভেঙ্গে পেলে। ঐদিন রাতে ঘরে পুলিশ পাটিয়ে হয়রানি করে। এরপর সাবেক ছাত্রনেতা জমির উদ্দিনকে উপজেলা এলাকায় দলীয় কার্যালয়ে সামনে পুলিশ আটক করলে সেই দিন গাড়ি ভাংচুর ঘটনায় ষড়যন্ত্রমূলক মিথ্যা মামলার আসামী করা হয়। উক্ত মামলায় ৩নং ওয়াডে গোলাম কাদের (ডাকনাম নুরুল ইসলাম), তার মেজ ভাই নাজিম উদ্দিন, সহযোদ্ধা এসএম আমান উল্লাহ আমিরী, আবু তৈয়বসহ বেশ কয়েক জন আসামী করা হয়েছিল। উক্ত মামলার বর্তমান হুইপ আলহাজ্ব সামশুল হক চৌধুরী এমপি মামলার বাদীকে তার গাড়ির ক্ষতিপূরণ দিয়ে মামলাটি নিষ্পত্তি করেন।  

আবদুস সোবহান রাহাত আলী উচ্চ বিদ্যালয়ের মাঠে আওয়ামী লীগের জনসমাবেশ ছিল। ঐদিন পটিয়া পৌরসভার ৩নং ওয়ার্ড থেকে কেউ মিছিল সহকারে সমাবেশে যোগদান করার সাহস করেনি। সেই দিন শতাধিক কর্মীসমর্থক নিয়ে মিছিল সহকারে আমি ও আমার সহযোদ্ধা আমান উল্লাহ আমিরী নেতৃত্বে আমির ভান্ডার রেলগেইট এলাকা থেকে জনসভায় যোগদান করি। মিটিং শেষ করে আমির ভান্ডার রেলগেইট এলাকায় আসলে আমি ও কয়েক জন সহযোদ্ধার উপর বিএনপির সন্ত্রাসীরা অর্তকিত হামলা চালিয়ে আহত করে। আজ অনেকেই অন্যদল থেকে আওয়ামীলীগের এসে সুযোগ সুবিধা ভোগ করছে তারা ঐদিন আওয়ামীলীগ, যুবলীগ ও ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের হামলা মামলা দিয়ে হয়রানির নেপথ্য কাজ করেছি। তারা আজ আওয়ামীলীগের বড় নেতা দাবি করছে। তাদের কারণে ২০০১ সাল বিএনপি সরকার ক্ষমতায় আসার পর ৫টি বছর আওয়ামীলীগ, যুবলীগ ও ছাত্রলীগের অসংখ্যা নেতাকর্মীকে রাতে ঘরে পুলিশ পাটিয়ে ঘুমাতে দেয়নি।  

এ ব্যাপারে আসন্ন পটিয়া পৌরসভা নিবার্চনে ৩নং ওয়ার্ডে সম্ভাব্য কাউন্সিলর প্রার্থী মোঃ গোলাম কাদের জাতীয় সংসদের মাননীয় হুইপ ও পটিয়ার এমপি আলহাজ্ব সামশুল হক চৌধুরীর কাউন্সিলর প্রার্থী মনোনয়নের ক্ষেত্রে দলের ত্যাগী নেতাকর্মীদরে মূল্যায়ন করার সু-দৃষ্টি কামনা করেন। 

ইতিপূর্বে সম্ভাব্য কাউন্সিলর পদপ্রার্থী মোঃ গোলাম কাদের আওয়ামীলীগের দুঃসময়ে বিভিন্ন আন্দোলন সংগ্রামে রাজপথে অগ্রভাগে নেতৃত্ব দিয়েছিলেন। সে দলকে সু-সংগঠিত করতে দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছেন। এর মধ্যে বর্তমানে পটিয়া পৌরসভা আওয়ামী যুবলীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক, সাবেক সহ-সভাপতি পটিয়া সরকারি কলেজ ছাত্রলীগ, আজীবন সদস্য পটিয়া ক্লাব,  সহ প্রকাশনা সম্পাদক ১০দিন ব্যাপী শোহাদায়ে কারবালা মাহফিল আমির ভান্ডার দরবার শরীফ, সদস্য ১২দিনব্যাপী খতমে সালাওয়াতে রাসূল মাহফিল আমির ভান্ডার শরীফ, সদস্য গাউসিয়া খেদমত পরিষদ ৩নং ওয়ার্ড, সদস্য গুয়াদণ্ডী সমাজ উন্নয়ন পরিষদ, সাবেক ক্রীড়া সম্পাদক পটিয়া প্রেসক্লাবসহ বিভিন্ন সামাজিক সংগঠনের সাথে জড়িত রয়েছে।


শেয়ার করুন
পূর্ববর্তী পোষ্ট
পরবর্তী পোষ্ট