তারাকান্দার কাকনী ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে মোস্তফা কামাল কে চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী হিসেবে দেখতে চায় ইউনিয়ন

গোলাম মোস্তফা ফুলপুর প্রতিনিধিঃময়মনসিংহ জেলার তারাকান্দা উপজেলার  ৩নং কাকনী ইউনিয়ন পরিষদের আসন্ন নির্বাচনে নৌকা প্রতীকের পদপ্রার্থী'র চেয়ারম্যান হিসেবে মোঃ মোস্তফা কামালকে কে দেখতে চায় কাকনী ইউনিয়ন বাসী।

সে লক্ষ্য ও উদ্দেশ্যকে সামনে রেখেই সম্প্রতি তিনি এলাকায় ব্যাপক জনসংযোগ,ধর্মীয়, সামাজিক,সাংস্কৃতিক,রাজনৈতিক কার্যক্রম ও এলাকার উন্নয়নমূলক সকল কর্মকাণ্ডে নিয়মিত  নিজেকে সম্পৃক্ত  করছেন।

গৃহায়ণ ও গণপূর্ত প্রতিমন্ত্রী শরীফ আহমেদ'র একান্ত প্রিয় ও আস্থাভাজন একজন মানুষ হিসেবে কাজ করে গেছেন।বিগত সকল নির্বাচনে জননেতা ভাষাসৈনিক শামছুল হক এম,পি ও শরীফ  আহমেদ এম,পি'র জন্য নিরলস ভাবে কাজ করে গেছেন।

ব্যক্তি হিসেবেও তিনি একজন  পরোপকারী,চিন্তাশীল, দানবীর সেইসাথে একজন উত্তম সংগঠক হিসেবে এলাকায় ইতিমধ্যে যথেষ্ট সুনাম কুড়িয়েছেন।  

এবারের নির্বাচনে ৩নং কাকনী ইউনিয়নে একাধিক প্রার্থী হবার সম্ভাবনা আছে।তবে সুদীর্ঘ রাজনৈতিক পরিক্রমায় তাদের মাঝে অন্যতম বলে অনেকেই এ প্রতিবেদক কে জানিয়েছেন।

৩নং কাকনী ইউনিয়নের আওয়ামীলীগ নেতা গরীব দুঃখী মানুষের বন্ধু,স্থানীয় বিশিষ্ঠ সমাজ সেবক সৎ যোগ্য ও ত্যাগী আওয়ামীলীগ নেতা মোস্তফা কামাল কে দল থেকে মনোনয়ন প্রদানে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী এবং উপজেলা ও জেলা আওয়ামীলীগ নেতাদের প্রতি এলাকাবাসী দৃষ্ঠি আকর্ষন করেছেন।

কর্মীবান্ধব মোস্তফা কামাল বলেন,সারাজীবন দলের জন্য কাজ করেছি, বিনিময়ে কোন ধরনের সুযোগ সুবিধা নেইনি, আর নেওয়ার ইচ্ছেও নেই।তবে নির্বাচনে অংশ নিতে চাই এলাকার সার্বিক উন্নয়নের জন্য। কারণ ইতিমধ্যে যারা জনপ্রতিনিধি হয়েছে, তারা সবাই নিজের আখের গোছাতে ব্যস্ত সময় অতিবাহিত করেছে, জনসাধারণের বা দলীয় কর্মী সমর্থকদের কথা কেউ ভাবেন নাই।আমি বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে বাস্তবায়ন করে জননেত্রী শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করতে চাই, আমাদের এলাকায় কখনো মন্ত্রী ছিল না জননেতা শরীফ আহমেদ কে পুনরায় পূর্ণমন্ত্রী হিসেবে দেখতে চাই এবং তাকে সার্বিক সহযোগিতা করতে চাই।

সেই সাথে এ ইউনিয়নের রাস্তা ঘাটের উন্নয়ন, কর্মসংস্থান বৃদ্ধি ও মাদক মুক্ত সমাজ গড়ে তুলতে কাজ  করতে চাই।

এলাকার বসবাসরত লোকজন স্থানীয় সমাজসেবক গরীব দুঃখী মেহনতী মানুষের পরম বন্ধু মোঃ মোস্তফা কামাল কে আসন্ন ইউপি নির্বাচনে দল থেকে চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসাবে দেখতে চায় এমন তথ্যই উঠে এসেছে জনমত জরিপে।

এলাকাবাসী বলেন,আসন্ন ৩ নং কাকনী  ইউপি নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থী মনোনয়নের ক্ষেত্রে সৎ ও যোগ্য ব্যক্তিকে চেয়ারম্যান প্রার্থী মনোনয়ন দিলে এলাকার দূর্নীতি মুক্ত উন্নয়ন এবং আইন শৃংখলা পরিস্থিতি উন্নতি হবে। এলাকার বিশিষ্ট সমাজ সেবক দীর্ঘদিনের পরীক্ষিত ত্যাগী নেতা মোঃ মোস্তফা কামাল কে ইউপি নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থীর পদে দলের মনোনয়ন দেওয়ার জন্য আকুল আবেদন জানিয়েছেন তৃণমূলের সমর্থকেরা।

রাজনীতিবিদ হিসেবে একজন পরিচ্ছন্ন ইমেজের মানুষ হিসেবে পুরো উপজেলাতেই খুবই পরিচিত ও সকলের প্রিয় মানুষ তিনি।  এলাকার সমাজিক, সাংস্কৃতিক, রাজনৈতিকসহ নানামুখী উন্নয়নমূলক কর্মকান্ডে আগে থেকেই নিয়মিত অংশগ্রহণ করেছেন তিনি।তাই এবার ইউনিয়নের সকল জনসাধারণের সুখ-দুঃখকে সাথী করে পুরো ইউনিয়নের সার্বিক উন্নয়নের দায়িত্বভার গ্রহণ করতে চান মোস্তফা কামাল। 

তৃণমূল হতে শুরু করে কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ যথাযথ অনুসন্ধান ও গোয়েন্দা সংস্থার প্রতিনিধি দিয়ে যাচাই-বাছাই করলে শতভাগ মনোনয়ন পাবেন বলে আশাবাদী এ রাজনৈতিক নেতা।

শেয়ার করুন
পূর্ববর্তী পোষ্ট
পরবর্তী পোষ্ট