বাংলাদেশ নামের সাথে বঙ্গবন্ধু নামটি সব সময় উচ্চারিত হবে

মোঃএরশাদ হোসেন রনি, মোংলা     
 বাংলাদেশ নামের সাথে বঙ্গবন্ধু নামটি সব সময় উচ্চারিত হবে। তাঁর কারনে পৃথিবীর মানচিত্রে বাংলাদেশ নামটি স্থান পেয়েছে। বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সফলতায় দুর্দম গতিতে উন্নয়ন কর্মকান্ড এগিয়ে চলছে। নিজস্ব অর্থায়নে পদ্মাসেতু নির্মান সারা বিশ্বের কাছে বাংলাদেশের অনন্য ভাবমূর্তি প্রতিষ্ঠা করেছে। বঙ্গবন্ধুর আদর্শিক চেতনাকে পাথেয় করে ২০৪১ সালে বাংলাদেশ উন্নত দেশের তালিকায় পৌছাবে। সেদিন মনে করি জাতির জনকের স্বপ্ন শতভাগ বাস্তবায়িত হবে। 

১৭ মার্চ বুধবার সকালে উপজেলা পরিষদ চত্বরে মোংলা উপজেলা প্রশাসন আয়োজিত জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এঁর জন্মশত বার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ের উপমন্ত্রী বেগম হাবিবুন নাহার এমপি একথা বলেন।

বুধবার সকাল ১০ টায় বঙ্গবন্ধুর জীবনভিত্তিক আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন উপজেলা নির্বাহি অফিসার কমলেশ মজুমদার। আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন উপজেলা চেয়ারম্যান আবু তাহের হাওলাদার, মোংলা পোর্ট পৌরসভার মেয়র বীর মুক্তিযোদ্ধা শেখ আব্দুর রহমান, থানা অফিসার ইনচার্জ মোঃ ইকবাল বাহার চৌধুরী ও সহকারি কমিশনার (ভূমি) নয়ন কুমার রাজবংশী। 

আলোচনা সভার আগে প্রধান অতিথি উপমন্ত্রী বেগম হাবিবুন নাহার এমপি শিশুদের নিয়ে বঙ্গবন্ধুর জন্মশত বার্ষিকীর কেক কাটেন।  এর আগে সকাল ৯টায় উপমন্ত্রী বেগম হাবিবুন নাহার এমপিথর নেতৃত্বে র‍্যালী সহকারে পৌর পার্কে বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য্যে শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পন করা হয়। এসময় উপজেলা প্রশাসন, মোংলা পোর্ট পৌরসভা, মোংলা থানা পুলিশ, আওয়ামীলীগ ও সহযোগী সংগঠন, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটসহ বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি সংস্থা শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পন করে। 

সকাল সাড়ে ৯টায় উপমন্ত্রী বেগম হাবিবুন নাহার এমপি মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্সে বঙ্গবন্ধুর ম্যুরালে বীর মুক্তিযোদ্ধাদের সাথে নিয়ে শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পন করেন। অন্যদিকে বিকেল ৪টায় পৌরসভা চত্বরে মোংলা পোর্ট পৌরসভা আয়োজিত বঙ্গবন্ধুর জন্মশত বার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবসের আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবেউপস্থিতথাকবেন  উপমন্ত্রী বেগম হাবিবুন নাহার এমপি। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করবেন পৌর মেয়র বীর মুক্তিযোদ্ধা শেখ আব্দুর রহমান।

এছাড়া উপজেলা প্রশাসন ও মোংলা পোর্ট পৌরসভা আয়োজিত অন্যান্য কর্মসুচির মধ্যে ছিলো পবিত্র কোরআন তেলাওয়াত ও দোয়া, রচনা ও চিত্রাংকন প্রতিযোগিতা, বঙ্গবন্ধুর আত্মার মাগফিরাত কামনা করে বিশেষ মোনাজাত/প্রার্থনা, ব্যাডমিন্টন প্রতিযোগিতা, এতিমখানায় কেক এবং মিষ্টি বিতরণ। 

মোংলা সরকারি কলেজ আয়োজিত বঙ্গবন্ধুর জন্মশত বার্ষিকীর অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন অধ্যক্ষ মোঃ গোলাম সরোয়ার। অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন অধ্যাপক আনোয়ার হোসেন, অধ্যাপক কুবের চন্দ্র মন্ডল, প্রভাষক শ্যামা প্রসাদ সেন, প্রভাষক প্রদীপ অধিকারী, প্রভাষক মনোজ কান্তি বিশ্বাস, প্রভাষক মমতাজ খানম, প্রভাষক সাহারা বেগম, প্রভাষক নিগার সুলতানা সুমী প্রমূখ। এছাড়া মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষও নানা অনুষ্ঠানের আয়োজন করে বলে জানা যায়।##

শেয়ার করুন
পূর্ববর্তী পোষ্ট
পরবর্তী পোষ্ট