জন্মদিনে হাজারো মানুষের ভালোবাসায় সিক্ত হলেন তরুন প্রজন্মের আইকন যুবনেতা মাহমুদ

এইচ এম জহিরুল ইসলাম মারুফ,স্টাফ রিপোর্টার: মোঃমাহমুদুল হাসান মাহমুদ ১৯৮৭ সালের মে মাসের এই দিনে ঝালকাঠি জেলার রাজাপুর সদর থানার এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন।পিতার মাধ্যমে আওয়ামীলীগের আদর্শে উদ্বুদ্ধ হয়ে স্কুল জীবন থেকেই ছাত্রলীগের মাধ্যমে পথ চলা।তিনি ২০০১ সালে রাজাপুর পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের ছাত্রলীগের দায়িত্বে ছিলেন।

তখন বিএনপি-জামাত জোট সরকারবিরোধী আন্দোলনে তার কর্মনিষ্ঠা ও দায়িত্বশীলতায় সন্তুষ্ট হয়ে ২০০৩ সালে রাজাপুর শহর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব দেওয়া হয় এবং তারই প্রচেষ্টায় পুরো উপজেলা ব্যাপী  ছাত্রলীগের কর্মী সংঘটিত হয় এবং অত্যন্ত নিষ্ঠার সাথে ২০০৩ সাল থেকে ২০১৫ সাল পর্যন্ত রাজাপুর শহর ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেন। ২০০৭ সালের ১১ই জানুয়ারি পরবর্তী সময়ে জননেত্রী শেখ হাসিনার মুক্তি আন্দোলনে সামনে থেকে নেতৃত্ব দিয়েছেন এই নেতা।জামায়াত এবং বিএনপির সন্ত্রাস ও নৈরাজ্যের  বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ান।

বিএনপি-জামাত জোট সরকারের সময়ে এই নেতা অনেক নির্যাতনের শিকার হয় এবং তার বাড়িতে ভাঙচুর ও লুটপাট করা হয়।যে বিষয়ে তৎকালীন এবং বর্তমান  সময়ের আওয়ামীলীগ নেতাকর্মীরা অবগত।এবং তৎকালীন পত্রপত্রিকায় এ বিষয় প্রকাশিত হয়েছিল।রাজনৈতিক প্রতিহিংসার শিকার হয়ে তিনিসহ ছাত্রলীগ-যুবলীগের ১৬ জন নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে রাজাপুর থানায় জি/আর রাজনৈতিক মামলা চলমান।

বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ ঝালকাঠি জেলা শাখা কর্তৃক ৫ম উপজেলা পরিষদের উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে দলীয় মনোনয়নের জন্য কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের নিকট সুপারিশ প্রাপ্ত হয়েছিল।শিক্ষাজীবনে তিনি জীববিজ্ঞানে স্নাতক,ফিসারিজে স্নাতকোত্তর, ফিনান্সে এমবিএ  ও এল.এল.বি শেষ করে বর্তমানে শিক্ষানবিশ আইনজীবী হিসেবে ঝালকাঠি কোর্টে প্রাক্টিসরত আছেন।

২০১৫ সাল থেকে ২০২০ সাল পর্যন্ত তিনি অত্যন্ত সুনামের সহিত প্রথমে রাজাপুর উপজেলা ছাত্রলীগের সহ সভাপতি পরবর্তীতে উপজেলা ছাত্রলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতির দায়িত্ব পালন করেন।এছাড়াও তিনি রাজাপুর যুব ক্লাব ও পাঠাগারের প্রতিষ্ঠাতা সাধারণ সম্পাদক দায়িত্বসহ বিভিন্ন সামাজিক-সাংস্কৃতিক  ও গঠনমূলক কর্মকান্ডে জড়িত আছেন।

ছোট বেলা থেকে লেখালেখিতে পারদর্শী হওয়ায় তিনি বর্তমানে জাতীয় দৈনিক পর্যবেক্ষণ পত্রিকার রাজাপুর উপজেলা প্রতিনিধি হিসেবে কর্মরত। তাছাড়াও তার  নিজের পরিচালিত অনলাইন নিউজ পেপার দৈনিক নবজাগরণ২৪.নিউজ এর নির্বাহী সম্পাদকের দায়িত্বে রয়েছে।

বর্তমানে তিনি ১২৫, ঝালকাঠি-১ আসনের মাননীয় সংসদ সদস্য বজলুল হক হারুন মহোদয়ের জনসংযোগ অ্যাম্বাসেডর হিসেবে দায়িত্বরত আছেন।
এবং তিনি রাজাপুরে লিটল মাস্টার স্কলাস্টিক স্কুলের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান।বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের চিন্তা আদর্শ ও দিক নির্দেশনার আলোকে সোনার বাংলা নির্মাণে জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে অবিচল আস্থা রেখে ডিজিটাল বাংলাদেশ বাস্তবায়নের লক্ষ্যে নিজেকে নিয়োজিত রেখে জনগণের ন্যায্য অধিকার প্রতিষ্ঠায় সর্বদা সচেষ্ট ও অঙ্গীকারবদ্ধ থাকার কথা ব্যক্ত করেছেন।এবং তার জন্মদিনে সেই সাথে সবার কাছে দোয়া প্রার্থনা করেছেন।

শিক্ষা-দীক্ষা, মানবিক দৃষ্টিভঙ্গি, মহত্তম জীবনবোধ, সততা, সাহস,পরিচ্ছন্ন রাজনীতি, দক্ষতা ও দূরদর্শী নেতৃত্বে সকলের প্রিয়পাত্র হওয়াতে আজ রাজাপুরবাসীর মুখে হাসির ঝিলিক দেখা যাচ্ছে। 
সবদিকে কি যেনো এক আনন্দের হুল্লোড় পড়েছে।আজ যেনো তাদের আনন্দের দিন।

এই লড়াকু সৈনিককে রাজাপুরের হাজারো মানুষ বিনম্র শ্রদ্ধা, সালাম আর হৃদয় নিংড়ানো ভালোবাসা জানাতে উদগ্রীব।আজ ফেসবুক ও গণমাধ্যমসহ বিভিন্ন মাধ্যমে জন্মদিনের শুভেচ্ছা ও সালাম জানিয়ে  প্রিয় নেতার প্রতি ভালোবাসা প্রকাশ করতেছে।ফেসবুক থেকে তার প্রতি ভালোবাসা প্রকাশের কিছু লেখা নিম্নে দেয়া হলো..
এইচ এম জহিরুল ইসলাম মারুফের শুভেচ্ছা.......
শুভ জন্মদিন প্রিয় অবিভাবক ও আমার রাজনৈতিক দীক্ষাগুরু,
রাজপথের লড়াকু সৈনিক,
জনমানুষের নেতা, গরীব-নিরীহ-অসহায় মানুষের জন্য আকুল প্রাণ,সকলের প্রিয় নেতা "মাহমুদুল হাসান মাহমুদ"ছাত্রনেতা এ এম আবু রাসেল আকনের শুভেচ্ছা.........
আপনি শুধু একজন নেতাই নয় বরং কর্মীবান্ধব ও সুসংগঠিত পরিচ্ছন্ন রাজিনীতির পরিচিত মুখ,রাজনৈতিক মাঠে ধৈর্য ও সহ্যের জীবন্ত উদাহরন, সৎ,নীতিবান,সাহসী,বিচক্ষণ,পরিশ্রমী ও নির্ভীক, রাজনৈতিককর্মী।

মেহেদী হাসান অভির শুভেচ্ছা.......
আপনি একজন যোগ্য কর্মী গড়ে তোলার কারিগর। আপনার দিক নির্দেশনাতেই একজন কর্মী দেশপ্রেমীক হয়ে গড়ে উঠে। মানুষকে আপন করে নেওয়ার অদ্ভুত ক্ষমতা রয়েছে আপনার মাঝে ছাত্রনেতা আসলাম হোসেন এর শুভেচ্ছা..........রাজনৈতিক অঙ্গনে অনেক মুখোশধারী নেতা রয়েছে। খুবই অল্পসংখ্যক মানুষই আছে যারা মানুষকে ভালোবেসে মানুষের পাশে দাঁড়ায়,আপনি সেই সকল মানুষের মধ্যে অন্যতম একজন। এভাবে আজীবন মানুষের পাশে থেকে মানুষের কল্যাণে কাজ করে যান।এমন হাজারো নেতা,কর্মী ও জনগন তাকে শুভেচ্ছা জানিয়েছে।

শেয়ার করুন

প্রকাশকঃ

অফিসঃ হাজী সিরাজুল ইসলাম সুপার মার্কেট, মোহাম্মদপুর মোড়, ছুটিপুর রোড, ঝিকরগাছা, যশোর।

পূর্ববর্তী প্রকাশনা
পরবর্তী প্রকাশনা