সাংবাদিক রোজিনাকে হেনস্তা, বিচার বিভাগীয় তদন্ত দাবি জানিয়েছেন মেহেরপুর রিপোর্টার্স ক্লাবের সাংবাদিক বৃন্দ

তানভীর আহমেদ, মেহেরপুর জেলা প্রতিনিধি: অনুসন্ধানী সাংবাদিক রোজিনা ইসলামকে হেনস্তা করে গ্রেফতারের ঘটনায় প্রতিবাদ জানিয়েছে মেহেরপুর রিপোটার্স ক্লাবের  সাংবাদিক বৃদ্ধরা।
এক বিবৃতির মাধ্যমে রোজিনা ইসলামকে পেশাগত দায়িত্ব পালনকালে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ে টানা পাঁচ ঘণ্টা অবরুদ্ধ রাখা, শারীরিক ও মানসিকভাবে হেনস্তা করা, তাঁকে হাসপাতালে না নিয়ে শাহবাগ থানায় পাঠানো, ব্রিটিশ আমলের অফিসিয়াল সিক্রেটস অ্যাক্টে মামলা দায়ের, জামিন না দিয়ে থানায় আটক রাখা, ৫ দিনের রিমান্ডে নেয়ার আবেদন এবং জামিন আবেদন বাতিল হয়ে কারাগারে প্রেরণের ঘটনায় তীব্র প্রতিবাদ জানায় মেহেরপুর রিপোর্টার্স ক্লাব সংগঠনটি।

বিবৃতিতে সংগঠনটির সভাপতি মাবুবুল হক পলেন  ও সেক্রেটারি সহ সকল সাংবাদিক বৃন্দ, এই ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের শাস্তি এবং বিচার বিভাগীয় তদন্ত দাবি করেছেন।তারা আরও বলেন, একজন খ্যাতিমান সংবাদিকের সাথে যে আচরণ করা হয়েছে তা সভ্য সমাজ ও রাষ্ট্রে কখনো কল্পনা করা যায় না।

উল্লেখ্য, সোমবার (১৭ মে) সচিবালয়ে পাঁচ ঘণ্টার বেশি সময় আটকে রেখে দৈনিক প্রথম আলোর জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক রোজিনা ইসলামকে শাহবাগ থানায় হস্তান্তর করা হয়। রাতে রোজিনা ইসলামের বিরুদ্ধে ১৮৬০ সালের দণ্ডবিধির ৩৭৯ ও ৪১১ ধারায় চুরি এবং ১৯২৩ সালের 'অফিসিয়াল সিক্রেটস অ্যাক্টের' ৩ ও ৫ ধারায় গুপ্তচরবৃত্তি ও রাষ্ট্রীয় গোপন নথি নিজের দখলে রাখার অভিযোগ আনা হয়। স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের উপসচিব শিব্বির আহমেদ ও সমানী বাদী হয়ে মামলাটি করেন।

পরে মঙ্গলবার রোজিনা ইসলামকে আদালতে নেয়া হয়। এসময় পুলিশ তাকে পাঁচ দিনের রিমান্ডের আবেদন করে। তবে আদালত রিমান্ড আবেদন খারিজ করে দেন।

শেয়ার করুন

প্রকাশকঃ

অফিসঃ হাজী সিরাজুল ইসলাম সুপার মার্কেট, মোহাম্মদপুর মোড়, ছুটিপুর রোড, ঝিকরগাছা, যশোর।

পূর্ববর্তী প্রকাশনা
পরবর্তী প্রকাশনা