মিরসরাইয়ে সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান গিয়াসের বিরুদ্ধে মানববন্ধন ও মিছিল

মিরসরাইয়ে সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান গিয়াসের বিরুদ্ধে মানববন্ধন ও মিছিল

মিরসরাই প্রতিনিধি
: মিরসরাই উপজেলার মঘাদিয়া ইউনিয়নে গৃহবধুকে কু-প্রস্তাবের বিচারের দাবিতে সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান গিয়াস উদ্দিনের বিরুদ্ধে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ মিছিল পালন করেছেন এলাকাবাসী। বুধবার (২৬ মে) সকাল ১১টায় মঘাদিয়া ইউনিয়ন পরিষদের সামনে তারা এ কর্মসূচি পালন করেন। 'জি ভাইরাসকে বয়কট করুন এলাকাবাসী, 'গিয়াস ভাইরাসের কু-কর্মের বিচার চাই, 'কু-প্রস্তাবকারী নারী লোভী ভন্ড গিয়াসের বিচার চাই, সহ বিভিন্ন বক্তব্য ব্যানার তুলে ধরে।

মানববন্ধন কর্মসূচিতে গৃহবধু ফারহানা আক্তার বলেন, উনি আমাকে কু-প্রস্তাব দেন। আমি যেন জনসম্মুখে কিছু না বলি আমাকে সরোয়ারের মাধ্যমে হুমকি-ধমকি দেন। বিচার চাওয়া দাবিতে আমার স্বামী (আনোয়ার হোসেন মোর্শেদ) কে দিয়ে আমাকে ডিভোর্স পেপার পাঠায়। আমি এর বিচার চাই। 

মানববন্ধন কর্মসূচিতে মঘাদিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর হোসাইন মাষ্টার বলেন, মিরসরাইতে ইতিমধ্যে আত্যহত্যা বেড়েই চলেছে, এসবের পেছনে নিপাত্ত আমাদের শরণাপন্ন প্রতিনিধির কাছে মেয়েরা গেলে মেয়েদের হয়রানি করা হচ্ছে। আমি ফারহানাকে ধন্যবাদ জানাই সেই সাহস করে আমাদের কাছে এসেছে। আমরা যদি আমাদের অবস্থান থেকে প্রতিবাদ না করি তহলে গিয়াস মিয়ার মত প্রতিনিধিরা ওনাদের কারণে আমাদের সমাজের মানসম্মান ক্ষুন্ন হচ্ছে আওয়ামীলীগের শৃঙ্খলা নষ্ট হচ্ছে। তাই আমি বলতে চাই আমাদের মিরসরাইতে সর্ব সম্মতিক্রমে জিভাইরাস নামে কথিত গিয়াস উদ্দিনকে বয়কট করতে হবে।

মানববন্ধন কর্মসূচিতে বক্তব্য রাখেন, আবু নছর রিপন, আব্দুল আল রবিন, শাখাওয়াত রনি প্রমুখ।উল্লেখ্য : ফারহানা আক্তারের বিয়ে হয় মিরসরাই উপজেলার ১৩ নং মায়ানী ইউনিয়নের ০৫ নং ওয়ার্ডের মুকছুদ কেরাণী বাড়ীর আনোয়ার হোসেন মোর্শেদ সাথে প্রায় ৪ মাস আগে বিয়ে হয়। বিয়ের কিছুদিন যেতে না যেতে স্বামীর অত্যাচারের শিকার হন এই গৃহবধু। সমাধান চাইতে দারস্থ হন স্বামীর নানা সম্পর্কের নানা সম্পর্কের সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান গিয়াস উদ্দিনের কাছে। সেখানে সমাধানের পরিবর্তে উল্টো গিয়াস উদ্দিন ওই নারীকে দেন কু-প্রস্তাব। গিয়াস উদ্দিনের পক্ষ থেকে এই অনৈতিক প্রস্তাবের বিষয়ে কাউকে কিছু না বলতে ওই নারীকে দেওয়া হয়েছে হুমকিও। গত ২২ মে এ হুমকির ঘটনায় একটি সাধারণ ডায়েরি করে ওই গৃহবধু।

শেয়ার করুন

প্রকাশকঃ

অফিসঃ হাজী সিরাজুল ইসলাম সুপার মার্কেট, মোহাম্মদপুর মোড়, ছুটিপুর রোড, ঝিকরগাছা, যশোর।

পূর্ববর্তী প্রকাশনা
পরবর্তী প্রকাশনা