বাংলাদেশ আওয়ামী ছাত্র পরিষদ নাগরপুর সদর ইউনিয়নের কমিটি অনুমোদন

 বাংলাদেশ আওয়ামী ছাত্র পরিষদ নাগরপুর সদর ইউনিয়নের কমিটি অনুমোদন


হাসান সাদী,নাগরপুর (টাঙ্গাইল) প্রতিনিধিঃবাংলাদেশ আওয়ামী ছাত্র পরিষদ নাগরপুর সদর ইউনিয়নের কমিটি অনুমোদন, আজ ২৭শে সেপ্টেম্বর ২০২০ রোজ মঙ্গলবার,বাংলাদেশ আওয়ামী ছাত্র পরিষদের নাগরপুর উপজেলা শাখা সংগ্রামী সভাপতি জনাব হারুন আহমেদ ও বিপ্লবী সাধারন সম্পাদক আব্দুল্লাহ আল হাসান এর সাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে ৫১জন বিশিষ্ট ৬মাস মেয়াদী এক কমিটির অনুমোদন দেওয়া হয় এতে সভাপতি করা হয় জনাব মোঃ মামুনুর রশীদ এবং সাধারন সম্পাদক করা হয় জনাব মোঃ ফাহাদ হোসেন কে।

গফরগাঁওয়ে ফ্রান্সে নবীজির অবমাননার প্রতিবাদ কর্মসূচি

গফরগাঁওয়ে ফ্রান্সে নবীজির অবমাননার প্রতিবাদ  কর্মসূচি

আশিকুজ্জামান মিজান ময়মনসিংহ প্রতিনিধিঃজেলার গফরগাঁও উপজেলার দেউলপাড়া জামিয়া মুমিনা খাতুন মহিলা মাদ্রাসা ও দেউলপাড়া মডেল হিফজুল কুরআন মাদ্রাসার উদ্যোগে আজ মঙ্গলবার ২৭/১০/২০২০ সকাল ১০ টায় বিশ্ব নবী হযরত মুহাম্মদ (সাঃ) কে অবমাননার প্রতিবাদে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করে। এসময় জামিয়ার সম্মানিত সভাপতি হাফেজ মাওলানা জামাল আহমদ আনওয়ারী ও প্রিন্সিপাল মাওঃ মুমিনুল হক সাহেবের যৌথ উদ্যোগে মুসলিম উম্মার কলিজার টুকরা বিশ্ব নেতা বিশ্ব নবী হযরত মুহাম্মদ( সাঃ) কে নিয়ে ব্যঙ্গচিএ তৈরি ও তার নেতৃত্ব দানকারী ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট এর দ্রুত বিচারের দাবিতে প্রতিবাদে ঝড় তুলেন জামিয়া মুমিনা খাতুন মহিলা মাদ্রাসা ও দেউলপাড়া মডেল হিফজুল কুরআন মাদ্রাসার সকল ছাত্র ছাত্রী, উস্তাদ ও শুভাকাঙ্ক্ষীরা।এতে উপস্থিত ছিলেন অবসরপ্রাপ্ত সার্জেন্ট আবুল কালাম আজাদ সহ-সভাপতি অত্র জামিয়া।হাবিবুর রহমান বেপারী আঃ মালেক দপ্তরী,ফখরুদ্দীন দপ্তরী হাঃ বেলাল হোসেন সহ ও আর অনেকে।এসময় নেতাকর্মীরা ফরাসি পণ্য বর্জনেরও আহবান জানান।একই সাথে ফরাসি প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোকে ক্ষমা চাওয়ার আহ্বানও জানান, বিক্ষোভকারীরা।

নগরকান্দায় সড়ক দুর্ঘটনায় প্রসূতির মৃত্যু আহত ৩

 নগরকান্দায় সড়ক দুর্ঘটনায় প্রসূতির মৃত্যু আহত ৩


ফরিদপুর প্রতিনিধিঃফরিদপুরের নগরকান্দায় সড়ক দুর্ঘটনায় এক প্রসূতির মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। জানাযায়, মঙ্গলবার (২৭ অক্টোবর) দুপুরের দিকে উপজেলার কাইচাইল ইউনিয়নের পাঁচ কাইচাইল গ্রামের বিল্লাল মিয়ার স্ত্রী সামিয়া আক্তার (২০) এর হটাৎ প্রসব বেদনা শুরু হলে পরিবারের সদস্যরা তাকে জেলা সদরে নেওয়ার উদ্দেশ্যে সিএনজি চালিত অটোরিকশা যোগে যাচ্ছিলেন। পথিমধ্যে ফরিদপুর-বরিশাল মহা সড়কের বাখুন্ডা নামক স্থানে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে সিএনজি চালিত অটোরিকশাটি সড়কের খাদে পড়ে যায়। এসময় ঘটনাস্থলেই প্রসূতি সামিয়া আক্তারের মৃত্যুর হয়। এবং সাথে থাকা স্বামী বিল্লাল মিয়া সহ আরো ৩ জন গুরুতর আহত হয়। আহতদেরকে উদ্ধার করে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।মৃত সামিয়া আক্তার পার্শ্ববর্তী ফুলসুতি ইউনিয়নের বাউতিপাড়া গ্রামের মৃত আবু কালাম মাতুব্বরের ছোট মেয়ে। এ ঘটনায় এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

পাকশাইল তারুণ্য সমাজকল্যাণ সংস্থা মাধ্যমে হান্নান মিয়া কে উপহার প্রদাণ

পাকশাইল তারুণ্য সমাজকল্যাণ সংস্থা মাধ্যমে হান্নান মিয়া কে  উপহার প্রদাণ


আকরাম হোসাইন মৌলভীবাজার জেলা প্রতিনিধি :: জেলার  বড়লেখা উপজেলার পাকশাইল তারুণ্য সমাজকল্যাণ সংস্থা মাধ্যমে  তালিমপুর গ্রামের মৃত জহুর উদ্দিন এর ছেলে আব্দুল  হান্নান মিয়াকে তারুণ্য সমাজকল্যাণ সংস্থা উপহার স্বরূপ (২০০০/= টাকা প্রদাণ করা হয়। হান্নান সাহেবে শারীরিক অসুস্থ হওয়ায় তিনি  সকলের নিকট দোয়া চেয়েছেন।আর্থিক অনুদান দিয়ে সহযোগিতা করেছেন কুয়েত প্রবাসী সফল ব্যবসায়ী আমাদের গ্রামের কৃতি সন্তান দানবীর ব্যক্তিত্ব "জনাব এবাদুর রহমান" পিতা জনাব হাজী লিয়াকত আলী। অর্থ প্রদান এর সময় উপস্থিত ছিলেন তারুণ্য সমাজকল্যাণ সংস্থা'রসভাপতি, ফরহাদ আহমেদ রাহেল।সমাজকল্যাণ সম্পাদক, হাফিজুর রহমান সহ অনন্য সদস্য বৃন্দ। এভাবেই "তারুণ্য পরিবার" মানবিকতার দায়বদ্ধতা এড়াতে সদা-সর্বদা-সবসময় বদ্ধ পরিকর। ইনশাআল্লাহ্‌।।জয় হউক মানবতার।

মুক্তিযুদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ডের ১০ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন

মুক্তিযুদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ডের ১০ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী পালন




মোঃ নাসির চৌধুরী তানভীর, নবীগঞ্জ উপজেলা প্রতিনিধিঃ নবীগঞ্জ উপজেলা ও পৌর শাখার উদ্যোগে  বাংলাদেশ মুক্তিযুদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ডের ১০ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে আজ  রাত সাতটার সময় আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়।

এতে সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশ মুক্তিযুদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ডের নবীগঞ্জ উপজেলা শাখার সহ সভাপতি দিলারা হোসেন ও অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন বাংলাদেশ মুক্তিযুদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ডের নবীগঞ্জ পৌর শাখার আহ্বায়ক রাজিব দাস।

এতে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ মুক্তিযুদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ডের নবীগঞ্জ উপজেলা শাখার সাংগঠনিক সম্পাদক সুবিনয় দাশ,সহ সাংগঠনিক সম্পাদক বিপুল দাশ,সদস্য মোস্তাক আহমেদ,নবীগঞ্জ পৌর শাখার সদস্য সচিব ভূষন চন্দ্র দাশ।মুক্তিযুদ্ধার সন্তান মোঃ নাসির চৌধুরী তানভীর, মোঃ জুবেল আহমেদ,রিপন দাশ,রুপক চন্দ্র দাশ,শাহ আলম,মোঃ আল আমীন,রিংকু চন্দ্র দাশ,গোলজার মিয়া,সুকান্ত চন্দ্র দাশ,মুক্তিযুদ্ধার প্রজন্ম মোস্তাক হোসেন সানি সহ মুক্তিযুদ্ধার সন্তান ও প্রজন্ম বৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

ঝিনাইদহে পানিতে ডুবে শিশুর আবিরের মৃত্যু

ঝিনাইদহে পানিতে ডুবে শিশুর আবিরের মৃত্যু

 


ঝিনাইদহ প্রতিনিধিঃ  শৈলকুপায় পানিতে ডুবে আবির নামের (৪) এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে। সে ওই গ্রামের সাহেব কুমারের একমাত্র সন্তান।  আজ মঙ্গলবার বিকাল পাঁচটার দিকে উপজেলার আশ্রয়ন প্রকল্প এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। 

শিশুটির  বাবা জানান বিকালে আবির বাড়ির পাশে খেলা করছিল। পরে তাকে দেখতে না পেয়ে পরিবারের লোকজন অনেক খোঁজাখুঁজি করে। পাশের পুকুরে আবিরের দেহ ভেসে উঠলে তাকে উদ্ধার করে ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। এ বিষয়ে শৈলকুপা থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জাহাঙ্গীর আলম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন

কচুয়া প্রাইমারী স্কুলের কমিটি গঠন

কচুয়া প্রাইমারী স্কুলের কমিটি গঠন




আহসান উল্লাহ বাবলু, আশা শুনি,  সাতক্ষীরা  প্রতিনিধিঃ উপজেলার কুল্যা ইউনিয়নের কচুয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের কমিটি গঠন করা হয়েছে। মঙ্গলবার সকাল ১০টায় এসএমসির কমিটি গঠন উপলক্ষে বিদ্যালয়ের  হলরুমে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। সহকারী উপজেলা শিক্ষা অফিসার আবু সেলিম এর সভাপতিত্বে উক্ত অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন  বীরমুক্তিযোদ্ধা নুর উদ্দীন সানা, নাজিমুদ্দীন, গ্রাম্য ডাক্তার বৃক্ষপ্রেমী আনিছুর রহমান, প্রধান শিক্ষক আলমগীর হোসেন, সহকারী শিক্ষক আব্দুস সাত্তারসহ শিক্ষকবৃন্দ, ম্যানেজিং কমিটির সদস্যবৃন্দ ও স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ।সভায় উপস্থিত সদস্যবৃন্দ সর্বসম্মতিক্রমে স ম খলিলুর রহমানকে এসএমসি সভাপতি ও এসএম সালাউদ্দীন ইউসুফকে সহ-সভাপতি নির্বাচিত করেন। কমিটির অন্যান্য সদস্যরা হলেন, মাধ্যমিক শিক্ষক প্রতিনিধি করুনাময় সানা, ওমর ছাকী ফেরদৌস (পলাশ), ইউপি সদস্য রফিকুল ইসলাম পান্না, ফেরদৌসি টুম্পা, আলমগীর হোসেন, রোজিনা খাতুন, ইয়াসমিন জাহান, সহকারী শিক্ষক মিনতি রাণী ও সদস্য সচিব প্রধান শিক্ষক মিলি চৌধুরী।

আশাশুনি উপজেলা নির্বাহী অফিসার খাস জমি ও রাস্তা পরিদর্শন করেন

আশাশুনি উপজেলা নির্বাহী অফিসার খাস জমি ও রাস্তা পরিদর্শন করেন

আহসান উল্লাহ বাবলু আশাশুনি সাতক্ষীরা  প্রতিনিধিঃ আশাশুনিতে ‘ক’ শ্রেণীর ভূমিহীন (জমি নাই, ঘর নাই) দের মুজিব শতবর্ষে  প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপহার হিসেবে ঘর প্রদানের লক্ষ্যে খাস জমি  উপজেলা নির্বাহী অফিসার মীর আলিফ রেজা পরিদর্শন করেছেন।  মঙ্গলবার উপজেলার খাজরা ও আনুলিয়া ইউনিয়নের ‘ক’ শ্রেণীর ভূমিহীদের ঘর প্রদানের লক্ষ্যে ঐ এলাকার বিভিন্ন খাস জমি পরিদর্শন করেন তিনি। এরপর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এলজিএসপি-৩ এর আওতায় ২ লক্ষ টাকা বরাদ্দকৃত আনুলিয়া ইউনিয়নের মধ্যম একসরা দাখিল মাদ্রাসা হতে গাজীবাড়ি গামী সোলিংকরণ রাস্তার কাজ পরিদর্শন করেন। এসময় সহকারী কমিশনার (ভূমি) শাহীন সুলতানা, আনুলিয়া ইউনিয়ন ভূমি সহকারী কর্মকর্তা রফিকুল ইসলাম ও খাজরা ইউনিয়ন ভূমি সহকারী কর্মকর্তা আব্দুল গনি উপস্থিত ছিলেন।

ঝিনাইদহে দুই ব্যাক্তির লাশ উদ্ধার

 ঝিনাইদহে দুই ব্যাক্তির লাশ উদ্ধার




খোন্দকার আব্দুল্লাহ বাশার,খুলনা ব্যুরো প্রধানঃঝিনাইদহের কালীগঞ্জ উপজেলার ১ নং সুন্দরপুর দুর্গাপুর ইউনিয়নের কাদিরকোল গ্রামের একটি পুকুর থেকে রূপকুমার (৫০) ও সদর উপজেলার চন্ডিপুর গ্রাম থেকে আমির হোসেন (৫০) নামে দুই ব্যক্তির মৃতদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।  মঙ্গলবার সকালে লাশ দুইটি উদ্ধার করা হয়। রূপকুমার দত্ত পাশ্ববর্তী কোটচাদপুর উপজেলার ফাজিলপুর বাজারপাড়া এলাকার কেষ্ট দত্তের ছেলে। অন্যদিকে আমির হোসেন চন্ডিপুর গ্রামের মশকত আলীর ছেলে। কোটটাঁদপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ মাহাবুবুল আলম জানান গত রোববার রাত থেকে রূপকুমার দত্ত নিখোজ ছিল। মঙ্গলবার সকালে কাদিরকোল গ্রামের  ইজ্জত আলী বিশ্বাসের  পুকুরে তার মৃতদেহ দেখতে পেয়ে পুলিশকে খবর দেয়। খবর পেয়ে কোটচাঁদপুর থানা পুলিশ লাশ উদ্ধার করে। ময়না তদন্ত শেষে রুপকুমারের মৃত্যুর কারন জানা যাবে বলে ওসি জানান। এদিকে ঝিনাইদহ সদরের বেতাই পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ এসআই সিরাজুল আলম জানান, মঙ্গলবার সকালে চন্ডিপুরের জালাল মুন্সির ঝাল ক্ষেত থেকে আমির হোসেনের লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। তিনি পারিবারিক ঝামেলার কারণে আত্মহত্যা করতে পারেন বলে পুলিশ প্রাথমিকভাবে ধারণা করছে।  তবে গ্রামবাসির একটি সুত্র জানায় দুই দিন আগে আমিরের ছেলে ও এলাকার কিছু মানুষ তাকে লাঞ্চিত করে। এ বিষয়ে তিনি ঝিনাইদহ সদর সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার আবুল বাশারের কাছে মৌখিক অভিযোগ করেন। পুলিশ বিষয়টি তদন্ত করাকালে আমিরের মৃত্যু রহস্যজনক বলে গ্রামবাসি মরেন করছেন।

নওগাঁর আত্রাইয়ে সাব-রেজিস্ট্রি অফিসের নকল নবীশদের কমিটি গঠন

 নওগাঁর আত্রাইয়ে সাব-রেজিস্ট্রি অফিসের নকল নবীশদের কমিটি গঠন


রাজশাহী ব্যুরোঃনওগাঁর আত্রাই উপজেলার সাব-রেজিস্ট্রি অফিসের নকল নবীশের কমিটি গঠন করা হয়েছে।মঙ্গলবার ২৭ অক্টোবর সকাল ১০টায় আত্রাই সাব-রেজিস্ট্রি অফিসে জরুরি এক মিটিংয়ে নকল নবীশের আগের কমিটি ভেঙে দিয়ে ফারহাদুজ্জামান কে সভাপতি ও আকরাম হোসেনকে সাধারণ সম্পাদক করে তিন বছর মিয়াদের নব নকল নবীশের কমিটি গঠন করা হয়।

নকল নবীশের নব গঠিত কমিটি গঠনের সময় উপস্থিত ছিলেন, সাবরেজিস্ট্রার মোঃ নাজমুল হাসান, আত্রাই দলিল লেখক সমিতির সভাপতি আলহাজ্ব কায়েম উদ্দিন সরদার সাধারণ সম্পাদক চৌধুরী গোলাম মোস্তফা বাদল,আত্রাই দলিল লেখক কেন্দ্রীয় দাখিল মাদ্রাসার সভাপতি আবুহেনা মোস্তফা কামাল এবং অফিস সহকারী মোঃ মকলেছুর রহমান।

নব গঠিত নকল নবীশের নতুন সদস্যরা হলেন,সহসভাপতি, মো.একরামুল বারী,মোঃময়নূল ইসলাম, সহ সম্পাদক, মো.ইসমাইল হোসেন,সাংগঠনিক সম্পাদক, আখতারুজ্জামান, প্রচার সম্পাদক, মো.জিয়াউর রহমান,দপ্তর সম্পাদক, মো.ফিরোজ খান,মহিলা বিষয়ক সম্পাদক, শ্রীমতী চপলা রানী পাল,কোষাধ্যক্ষ, মো.হাফিজুর রহমান,কার্য্যনির্বাহী সদস্য মো.জাফর ইমান,মহাতাব হোসেন,মো.মিজানুর রহমান,মোছা.শিউলি আকতার,মোছা.রাবেয়া সুলতানা সহ সকল নকল নবীশ বৃন্দ।

ইসলাম ধর্ম নিয়ে আপত্তিকর মন্তব্য, নোবিপ্রবি'র দুই শিক্ষার্থীর শাস্তি দাবি

ইসলাম ধর্ম নিয়ে আপত্তিকর মন্তব্য, নোবিপ্রবি'র দুই শিক্ষার্থীর শাস্তি দাবি

 


নোবিপ্রবি প্রতিনিধিঃ নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (নোবিপ্রবি) ২০১৭-১৮ শিক্ষাবর্ষের পরিবেশ বিজ্ঞান ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা বিভাগের শিক্ষার্থী প্রতীক মজুমদার এবং একই শিক্ষাবর্ষের ফার্মেসি বিভাগের আরেক শিক্ষার্থী পাল দীপ্ত এর বিরুদ্ধে ইসলাম ধর্ম নিয়ে আপত্তিকর মন্তব্য এবং কটূক্তির অভিযোগ উঠেছে।

মঙ্গলবার (২৭ অক্টোবর) এসব অভিযোগের প্রেক্ষিতে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ শিক্ষার্থীরা কঠোর শাস্তি দাবি করেন এ দুই শিক্ষার্থীর। এদিকে এ ঘটনায় ক্ষুদ্ধ শিক্ষার্থীরা মানববন্ধন  করে তাদের বহিষ্কারের দাবিতে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে  মানববন্ধনের আয়োজন করে। মানববন্ধন শেষে স্মারকলিপি দেয় তারা। শাহরিয়ারের সঞ্চালনায় মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন বায়েজিদুল ইসলাম মজুমদার, নাঈম এইচ সোহাগসহ অনেকে। মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, বঙ্গবন্ধুর অসাম্প্রদায়িক বাংলায় ইসলাম ধর্ম নিয়ে এমন আপত্তিকর মন্তব্য সহ্য করা যায় না। কাদের প্রশ্রয়ে তারা এমন উগ্রপন্থী কার্যকলাপ চালাচ্ছে তা নিয়েও প্রশ্ন তোলেন। বক্তারা আরো বলেন, কোন ধর্মেই অন্য ধর্মকে কটূক্তি করার বিধান নেই। সাম্প্রদায়িকতা ছড়াচ্ছে এরা। মানববন্ধনে প্রতীক এবং দীপ্তর দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেন তারা। 

এদিকে, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তাদের বিভিন্ন ফেসবুক পোস্টের স্ক্রিনশট ও কমেন্ট ভাইরাল হওয়ার পর ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া জানাচ্ছে শিক্ষার্থীরা। স্ক্রিনশটগুলোতে দেখা যায়, প্রতীক মুসলমানদের জান্নাতের ৭২ হুর নিয়ে আপত্তিকর মন্তব্য করেছেন। ওদের সাথে খেলার মতো জোর তার মাজায় নেই, সে অক্ষম বলে মন্তব্য করেছেন। পাশাপাশি পর্নস্টার নাতাশা, সানি লিওন ও মিয়া খলিফার সঙ্গে তুলনা করেছেন তাদের। হযরত আদম (আঃ) ছবি দেখতে চেয়েছেন। আরেক স্ক্রিনশটে তিনি যৌতক, বাল্যবিবাহ, বউ পেটানো, নারী নির্যাতন, ইভটিজিং, সমকামিতা, ধর্ষণ, খুন, এসিড নিক্ষেপ, সন্ত্রাসী কার্যকলাপের জন্য আলেমদের দায়ী করেছেন।

বিশ্ববিদ্যালয় সাধারণ শিক্ষার্থীদের অভিযোগ, অভিযুক্ত শিক্ষার্থীরা দীর্ঘদিন ধরে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে বিভিন্ন পোস্ট ও কমেন্টের মাধ্যমে ইসলাম ও মুসলমানদের ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত করে নানা মন্তব্য করে আসছিলেন।অভিযুক্ত শিক্ষার্থী প্রতীক মজুমদার বলেন, 'বিষয়গুলোর জন্য আমি ক্ষমাপ্রার্থী।' আরেক অভিযুক্ত শিক্ষার্থী পাল দীপ্ত বলেন, 'গত কালকের পোস্টের জন্য আমি সকলের কাছে ক্ষমা প্রার্থী সকলেই আমাকে ক্ষমা করে দিবেন। আমি আসলে কোন ধর্ম কে ছোট করে দেখার জন্য এই পোস্ট করিনি। আমি মজার ছলে এটা লিখে ফেলেছি, বিষয়টি এভাবে স্পর্শকাতর হবে কখনোই ভাবিনি। আবারও সকলের কাছে ক্ষমাপ্রার্থী।'এবিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর ড. নেওয়াজ মোহাম্মদ বাহাদুর বলেন, ‘বর্তমান বিশ্বে বাংলাদেশ সাম্প্রদায়িক সম্প্রতির এক অনন্য উদাহরণ। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা অসাম্প্রদায়িক  রাষ্ট্র গঠনে নিরলস কাজ করছেন। নোবিপ্রবিও কখনোই সাম্প্রদায়িকতাকে আশকারা দেয় নাই,  দিচ্ছেনা এবং ভবিষ্যতেও দেবেনা। ইসলাম ধর্ম নিয়ে কটূক্তি বিষয়ক সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের ব্যাপারটা নোবিপ্রবি প্রশাসনের দৃষ্টি গোচর হয়েছে। বিষয়টি নিয়ে আমি মাননীয় উপাচার্য ও ট্রেজারার স্যারের সাথে কথা বলেছি।  প্রশাসন শিগগরিই এব্যাপারটি যাচাই বাছাই করে বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন অনুযায়ী করণীয় নির্ধারণ করবে বলে আমাকে জানানো হয়েছে।   এ ব্যাপারে কাউকে উস্কানিমূলক বক্তব্য না দেয়ার জন্যে অনুরোধও করেন তিনি। '

আশাশুনি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক আব্দুল গফুরের দাফন সম্পন্ন

 আশাশুনি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক আব্দুল গফুরের দাফন সম্পন্ন



আহসান উল্লাহ   বাবলু আশাশুনি সাতক্ষীরা প্রতিনিধিঃআশাশুনি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক মোঃআব্দুল গফুরের দাফন সম্পন্ন হয়েছে। মঙ্গলবার সকাল ১০ টায় আশাশুনি ইদগাহ ময়দানে মরহুমের জানাজা নামাজ শেষে পারিবারিক কবরস্থানে তাকে দাফন করা হয়।মরহুমের জানাজা নামাজে আশাশুনি ডিগ্রী কলেজের অবসরপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ রুহুল আমিন, অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক মাওলানা আবুল কাশেম, আশাশুনি সদর ইউ,পি চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক স,ম সেলিম রেজা মিলন, জাতীয় পার্টির সাধারণ সম্পাদক ইয়াহিয়া ইকবাল,উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুস সামাদ বাচ্চু, আওয়ামী লীগ নেতা রফিকুল ইসলাম মোল্লা, রাজু আহমেদ পিয়াল,সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান ও উপজেলা কৃষক লীগের সভাপতি স ম সেলিম রেজা সেলিম, উপজেলা শ্রমিক লীগের সভাপতি ঢালী মোঃ সামসুল আলম, সাবেক ছাত্রনেতা হোসেনুজ্জামান হোসেন, ইউপি সদস্য তরিকুল আওয়াল সেজে, শিক্ষক আবুল কালাম আজাদ বুলবুলসহ শিক্ষক, সাংবাদিক, রাজনৈতিক ও সামাজিক নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। এ সময়, প্রয়াত শিক্ষক (অবসরপ্রাপ্ত) মোঃ আব্দুল গফুরের পুত্র পুলিশ কর্মকর্তা শাহরিয়ার মিলন ও বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা ফররুখ শিয়ার স্বপন তাদের পিতার জন্য সকলের কাছে দোয়া চান। জানাজার নামাজে ইমামতি করেন মরহুমের ভাগ্নে মাওলানা রোকনুজ্জামান।আগামী শুক্রবার জুম্মা বাদ মসজিদে মরহুমের দোয়া অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হবে। উক্ত দোয়া অনুষ্ঠানে সকলকে পরিবারের পক্ষ থেকে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে।

পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী উপলক্ষে হত দরিদ্রদের মাঝে রেড ক্রিসেন্টের খাদ্য সামগ্রী বিতরণ

 পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী উপলক্ষে হত দরিদ্রদের মাঝে রেড ক্রিসেন্টের খাদ্য সামগ্রী বিতরণ




রিয়াজুল করিম রিজভী,চট্টগ্রাম ব্যুরো প্রধানঃপবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী উপলক্ষে হত দরিদ্র মানুষের মুখে হাসি ফোটানোর লক্ষ্য নিয়ে আজ ২৭ অক্টোবর বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি চট্টগ্রাম জেলা ইউনিটের উদ্যোগে যুব রেড ক্রিসেন্ট, চট্টগ্রামের বাস্তবায়নে খাদ্য সামগ্রী ষোলকবহর ওয়ার্ডে বিতরণ করা হয়। বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির ম্যানেজিং বোর্ড সদস্য ও জেলা রেড ক্রিসেন্টের ভাইস চেয়ারম্যান ডাঃ শেখ শফিউল আজম এর সভাপতিত্বে উক্ত খাদ্য সামগ্রী বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন চসিক নির্বাচনে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ মনোনিত মেয়র পদপ্রার্থী এম.রেজাউল করিম চৌধুরী। যুব রেড ক্রিসেন্ট, চট্টগ্রামের যুব প্রধান মোঃ ইসমাইল হক চৌধুরী ফয়সাল এর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ষোলকবহর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি আতিকুর রহমান, ষোলকবহর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শেখ সরওয়াদী, চট্টগ্রাম সিটি রেড ক্রিসেন্টের কার্যকরী পর্ষদ সদস্য আনোয়ার আজম, বিশিষ্ট রাজনীতিবিদ ও সমাজসেবক শাহজাহান সুফি, শেখ মাকসুদুর রহমান, মোঃ সাইফুল ইসলাম, মোঃ মাহবুবল আলম, যুব রেড ক্রিসেন্ট চট্টগ্রামের রক্ত বিভাগীয় উপ প্রধান ইস্তাকুল ইসলাম চৌধুরীসহ যুব স্বেচ্ছাসেবকরা। নগরীর ষোলকবহর ওয়ার্ডের প্রতিবন্ধী, হত দরিদ্র ২০০ জনকে চাউল, ডাল, চিনি, সুজি, লবণ উপকরণ সমূহ বিতরণ করা হয়।খাদ্য বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি এম.রেজাউল করিম চৌধুরী বলেন, রেড ক্রিসেন্ট মানবতার সেবায় প্রতিনিয়ত কাজ করে থাকে। করোনা ভাইরাস পরিস্থিতিতেও মাঠে থেকে স্বেচ্ছাসেবকরা মানুষকে সেবা দিয়ে গেছে। ঈদে মিলাদুন্নবী উপলক্ষে প্রতিবন্ধী, হত দরিদ্রদের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ আসলে প্রশংসনীয়।

যুবদলের ৪২ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে ঝিনাইদহে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত

যুবদলের ৪২ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে ঝিনাইদহে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত



খোন্দকার আব্দুল্লাহ বাশার,খুলনা ব্যুরো প্রধানঃবাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী যুবদলের ৪২ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষে ২৭  অক্টোবর ঝিনাইদহ জেলা যুবদলের উদ্যোগে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয়।  উক্ত আলোচনা  সভায় সভাপতিত্ব করেন,ঝিনাইদহ জেলা যুবদলের সিনিয়র সহ সভাপতি, মোঃ মিজানুর রহমান সুজন।সঞ্চালনা করেন, ঝিনাইদহ জেলা যুবদলের সংগ্রামী সাধারন সম্পাদক, মোঃ আশরাফুল ইসলাম পিন্টু।প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, সাবেক ঝিনাইদহ জেলা জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরামের সভাপতি ও আইনজীবী সমিতির একাধিকবার নির্বাচিত সভাপতি ও সাধারন সম্পাদক, ঝিনাইদহ জেলা বিএনপি'র আহবায়ক, বীর মুক্তিযোদ্ধা,অধ্যক্ষ, জননেতা এ্যাডঃ এম এম মশিয়ুর রহমান।প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন,ঝিনাইদহ ২ আসনের একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের বিএনপি মনোনীত প্রার্থী, হরিনাকুণ্ডু উপজেলা পরিষদের সাবেক সুযোগ্য সফল চেয়ারম্যান, সাবেক ছাত্রনেতা ও জেলা বিএনপির সদস্য সচিব, জননেতা আলহাজ্ব এ্যাডঃ এম এ মজিদ।বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, ঝিনাইদহ জেলা বিএনপি'র যুগ্ম আহবায়ক মোঃ আক্তারুজ্জামান, জেলা বিএনপি'র যুগ্ম আহবায়ক, মোঃ জাহিদুজ্জামান মনা, জেলা বিএনপি'র যুগ্ম আহবায়ক, মোঃ আব্দুল মজিদ বিশ্বাস( ছোট মজিদ) ঝিনাইদহ সদর উপজেলা বিএনপি'র সাংগঠনিক সম্পাদক, এ্যাডঃ জিয়াউল হক ফিরোজ, সহ ঝিনাইদহ জেলা যুবদলের সহ সভাপতি, মোঃ মনিরুল ইসলাম, জেলা যুবদলের সহ সভাপতি, আরিফুল ইসলাম আনন, জেলা যুবদলের সহ সভাপতি,মোঃ মাহাবুবুর রহমান ইপিয়ার,জেলা যুবদলের সহ সভাপতি, মোঃ রবিউল ইসলাম রবি,  মোঃনাসের হোসেন সোহাগ, জেলা যুবদলের সহ সভাপতি, মোঃ কামরুজ্জামান গামা, জেলা যুবদলের সিনিয়র যুগ্ম সাধারন সম্পাদক, মোঃ আবুল বাসার বাঁসী,জেলা যুবদলের যুগ্ম সাধারন সাধারন সম্পাদক, মোঃ ইমতিয়াজ আহাম্মেদ সোহেল,জেলা যুবদলের যুগ্ম সাধারন সম্পাদক মোঃ রাজু আহাম্মেদ, জেলা যুবদলের সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ মোস্তাক আহাম্মেদ, সহ সাংগঠনিক সম্পাদক, মোঃ আসিফ ইকবাল, জেলা যুবদলের সহ সাংগঠনিক সম্পাদক, মোঃ আতিক উজ্জ্বল, জেলা যুবদলের সহ সাংগঠনিক সম্পাদক,আবু দাউদ মন্ডল, জেলা যুবদলের দপ্তর সম্পাদক, মোঃ মসিউর রহমান, জেলা যুবদলের সহ ক্রীড়া সম্পাদক, মোঃ সাজ্জাত শাহ, ঝিনাইদহ পৌর যুবদলের আহবায়ক,  মোঃ মনিরুজ্জামান মাসুম, ঝিনাইদহ পৌর যুবদলের সদস্য সচিব, মোঃ মোক্তার হোসেন, সদর উপজেলা যুবদলের সদস্য সচিব, মোঃ জুলফিকার আলী ভুট্টা, সদর উপজেলা যুবদলের যুগ্ম আহবায়ক,মোজাম্মেল হক মোজাম, সহ জেলা বিএনপি ও অঙ্গওসহযোগী সংগঠনের অগনিত নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

সাতক্ষীরা সদরের গদাইবিলের পানি নিষ্কাশন কমিটির জরুরি সভা অনুষ্ঠিত

 সাতক্ষীরা সদরের গদাইবিলের পানি নিষ্কাশন কমিটির জরুরি সভা অনুষ্ঠিত



আজহারুল ইসলাম সাদী, স্টাফ রিপোর্টারঃসাতক্ষীরা পৌরসভার কাটিয়া, ব্রক্ষরাজপুর ইউনিয়ন এর শাল্যে, মাছখোলা, বেড়াডাঙ্গা, লাবসা ইউনিয়নের তালতলা, গোপীনাথপুর, এলাকার মধ্যবর্তি স্থান গদাই বিলের পানি দ্রুত নিষ্কাশন করে, বোরো ধান চাষাবাদ করার লক্ষে..

আজ মঙ্গলবার (২৭অক্টোবর) বিকাল সাড়ে ৪ টার সময় পবিত্র কোরআন তেলাওয়াত এর মধ্য দিযে, কাটিয়া লস্করপাড়া পদ্মপুকুর জামে মসজিদ প্রাঙ্গনে,  উক্ত আলোচনা সভায়, গদাইবিল পানি নিষ্কাশন কমিটির সভাপতি, মোঃ মুনজুর হোসেন এর সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন,  সাতক্ষীরা জেলা জাতীয় পাটির সাধারণ সম্পাদক  মোঃ আশরাফুজ্জামান আশু, বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, সাতক্ষীরা পৌরসভার প্যানেল মেয়র ও ১নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মোঃ আব্দুস সেলিম, সাতক্ষীরা পৌরসভার মহিলা কাউন্সিলর জোসনা আরা, গদাইবিল পানি নিষ্কাশন কমিটির সাধারণ সম্পাদক সোলাইমান হোসেন, মো আসাদুজ্জামান, মোঃ আব্দুল কাদের প্রমুখ।

উক্ত আলোচনা অনুষ্ঠানে অত্রএলাকার ৬টি গ্রামের ভুক্তভোগী কয়েকশতাধিক মানুষ উপস্থিত ছিলেন, আলোচনা সভায় বক্তারা বলেন,  দীর্ঘদিন জলাবদ্ধতার কবলে থাকা কৃষকরা চাষাবাদ করতে না পারায় বাঙালির প্রধান খাদ্য, ধান উৎপাদন করতে না পারায় অত্যান্ত বিপর্যয়ের মধ্যে দিনাতিপাত করছে।তাদের অনেকেরই প্রধান আয়ের উৎস ধান চাষাবাদ। দীর্ঘদিন গদাইবিলের জলাবদ্ধতার কবলে থাকায় তারা মানবেতর জীবনযাপন করছে। তাই যাহাতে গদাইবিলের পানি দ্রুত নিষ্কাশনের ব্যবস্থা হয় সে লক্ষে প্রধান ও বিশেষ অতিথিদের কাছে আকুল আবেদন করেন।সভায় অতিথিবৃন্দ ভুক্তভোগী কৃষকদের সুবিধার্থে, জলাবদ্ধতা থেকে নিরসন কল্পে, দ্রুত ঘের মালিকদের সমন্বয়ে সেচ কল্পের কাজ শুরুর লক্ষে সীদ্ধান্ত গ্রহণ করেন।সমগ্র আলোচনা অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন বিশিষ্ট সমাজ সেবক মোঃ শফিউদ্দিন ময়না।

যুবদলের ৪২ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে বর্ণাঢ্য রেলি ও আলোচনা

যুবদলের ৪২ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে বর্ণাঢ্য রেলি ও আলোচনা

 



মোঃকুতুবুল আলম, 

মহম্মদপুর(মাগুরা)প্রতিনিধি,

মাগুরায় বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী যুবদলের ৪২ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে বর্ণাঢ্য রেলি ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।আজ সকাল ১১ টায় মাগুরা শহরের ইসলামপুর পাড়াস্থ বিএনপি  অফিস চত্বরে জেলা যুবদলের সভাপতি এ্যাডভোকেট ওয়াসিকুর রহমান কল্লোলের সভাপতিত্বে প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীর সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। সমাবেশে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন এডভোকেট বাবু নিতাই রায় চৌধুুুরী সাবেক মন্ত্রী ও ভাইস চেয়ারম্যান বাংলাদেশ জাতীয়বাদী দল কেন্দ্রীয় কমিটি।


সভায় বক্তব্য রাখেন উদ্ভোধক কেন্দ্রীয় বিএনপি নেত্রী নেওয়াজ হালিমা আরলি, জেলা বিএনপি আহবায়ক আলী আহমেদ, সদস্য সচিব আকতার হোসেন, যুগ্ম আহবায়ক আহসান হাবিব কিশোর, খান হাসান ইমাম সুজা, আলমগীর হোসেন, বিএনপি নেতা সৈয়দ রফিকুল ইসলাম তুষার ,স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি আশরাফুজ্জামান শামীম, ছাত্রদলের সভাপতি আব্দুর রহিম, সাধারন সম্পাদক আবু তাহের সবুজ, ফিরোজ আহমেদ, আমিরুল ইসলাম প্রমুখ।সভায় বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মী উপস্থিত ছিল।


বক্তারা তাদের বক্তব্যে বর্তমান সরকারের সমালোচনা করেন এবং ব্যর্থ সরকার আর জনগন দেখতে চায়না বলে উল্লেখ করে সরকারের পদত্যাগ দাবি করেন।

বাংলাদেশ স্কাউটের উদ্যোগে শীতকালীন সবজি বীজ ও চারা বিতরণ

বাংলাদেশ স্কাউটের উদ্যোগে শীতকালীন সবজি বীজ ও চারা বিতরণ



আকরাম হোসাইন মৌলভীবাজার জেলা প্রতিনিধি :: মৌলভীবাজারের বড়লেখা উপজেলায় মুজিববর্ষ স্মরণে বাংলাদেশ স্কাউট, আয়োজনে কৃষকদের মধ্যে শীতকালীন সবজি বীজ ও চারা বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার,বড়লেখা ও বাংলাদেশ স্কাউট বড়লেখা উপজেলার সভাপতি মোঃ শামীম আল ইমরান। বর্ণি ইউনিয়ন পরিষদে আয়োজিত এ অনুষ্ঠানে ৫০ জন  কৃষকের মাঝে ৬ ধরনের শীতকালীন সবজি বীজ ও চারা বিতরণ করা হয়।এসময় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা জনাব দেবল সরকার, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা হাওলাদার আজিজুল ইসলাম, স্কাউট সম্পাদক জনাব মোঃ রিয়াজুল ইসলাম, বর্ণি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মোঃ নিজাম উদ্দিন, বর্ণি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সেক্রেটারি জনাব জুবায়ের আহমেদ, উপজেলা স্কাউটের কমিশনার জনাব প্রতাপ কুমার দত্ত। বর্ণি ইউনিয়ন পরিষদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান জনাব মোঃ সাহাব উদ্দিনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এ অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন উপজেলা স্কাউটের সহ সাধারণ সম্পাদক জনাব মোঃ নাজিম উদ্দিন।

বগুড়া ধুনটে সাম্প্রদায়িক সম্প্রতির ঐতিহ্য ‘বউ মেলা’ অনুষ্ঠিত

বগুড়া ধুনটে সাম্প্রদায়িক সম্প্রতির ঐতিহ্য ‘বউ মেলা’ অনুষ্ঠিত

মোঃ সবুজ মিয়া বগুড়া প্রতিনিধিঃ শারদীয় দুর্গা উৎসবের শেষ মুহুর্ত প্রতিমা বিসর্জন। গতকাল দুপুরের পর থেকেই মন্ডপগুলোতে বাজতে থাকে বিদায়ী সানাই এর সুর। উৎসবের সমাপনী এ সুর যেন হৃদয়কে বিষাদময় করে তোলে। এমন করুণ সুরেও রঙিন হয়ে ওঠে বগুড়ার ধুনট পৌর এলাকার ইছামতি নদী তীরের সরকারপাড়া গ্রাম। প্রতিমা বিসর্জন ঘিরে এ গ্রাম জমে ওঠে সাম্প্রদায়িক সম্প্রতির মেলা। স্থানীয় ভাবে ‘বউ মেলা’ নামে পরিচিত এ মেলা প্রকৃত অর্থে হিন্দু-মুসলমানের ভ্রাতৃত্ববোধের প্রকাশ ঘটায়।

সরকারপাড়া গ্রামের ৬৮ বছর যাবত শারদীয় দুর্গাপূজা উদযাপন করেন গ্রামবাসী। গ্রামের মন্দিরে পাশেই রয়েছে ইছামতি নদী। ধুনট পৌর এলাকার সরকারপাড়া, দাসপাড়া, ধুনট সদর, কলেজপাড়াসহ কয়েকটি পূজা মন্ডপের প্রতীমা সরকারপাড়ায় ইছামতি নদীতে বিসর্জন দেওয়া। প্রতীমা বিসর্জন ঘিরে ইছামতির তীরে হরেক রকমের দোকানীরা পণ্যের পসরা সাজায়। ধীরে ধীরে প্রতিমা বিসর্জন এবং দোকানগুলো ঘিরে মেলা বসতে শুরু করে।
প্রতিমা বিসর্জন বেলার এ মেলাকে ঘিরে প্রতি বছর হিন্দু-মুসলিমসহ বিভিন্ন ধর্মের হাজার হাজার মানুষের সমাগম ঘটে। যার কারনে গ্রামবাসী মেলায় শৃঙ্খলা রক্ষায় একটি সিদ্ধান্ত নেন। দুপুর ২টা থেকে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত মেলার মূল অংশে পুরুষদের প্রবেশ নিষেধ। শুধুমাত্র নারীদের জন্য মেলাটি সুরক্ষিত করা হয়। আর এখান থেকেই এ মেলা ‘বউ মেলা’ হিসেবে পরিচিতি লাভ করে।
সরকারপাড়া গ্রামের পূজা উদযাপনের জন্য প্রতি বছরই একটি কমিটি গঠন করা হয়। এ কমিটির লোকজন পূজা পরিচালনায় ভ‚মিকা রাখেন। ওই কমিটির অধীনে ‘বউ মেলা’ পরিচালনার জন্য পৃথক একটি স্বেচ্ছাসেবক কমিটি করা হয়। সরকারপাড়াসহ কয়েকটি গ্রামের হিন্দু-মুসলমান পুরুষদের সমন্বয়ে স্বেচ্ছাসেবক কমিটি হয়। স্বেচ্ছাসেবকরা মেলার মূল অংশে পুরুষদের প্রবেশ পথ বন্ধ রাখেন। মেলায় নারীরা অবাধে কেনাকাটার সুযোগ পাওয়ায় প্রতিবছর এ মেলায় নারী দর্শনার্থীদের সমাগম বাড়ছে। তবে এবছর করোনা পরিস্থিতির কারনে মেলায় দোকানের সংখ্যা অনেক কমেছে। তবে কমেনি দর্শনার্থীদের সমাগম।
মেলায় আসা পূর্ণিমা জানান, করোনা পরিস্থিতির মধ্যেও আমাদের জীবন যাত্রা স্বাভাবিক। সরকারপাড়া মেলা ঐতিহ্যবাহী একটি মেলা। প্রতিবছর এই দিনে মেলায় আসা, কেনাকাটা করা, আনন্দ করার জন্য অপেক্ষায় থাকি। যার কারনে করোনা পরিস্থিতির মধ্যেও মেলায় এসেছি। এবছর মেলায় দোকানের সংখ্যা অনেক কম। তবে মেলায় এসে আনন্দের কোন কমতি হয়নি।
সরকারপাড়া গ্রামের পূজা উদযাপন কমিটির সভাপতি সুধীর সরকার বলেন, প্রতি বছরই প্রতিমা বিসর্জন উপলক্ষে এ মেলার আয়োজন করা হয়। এখানে সব ধর্মের মানুষের সমাগম ঘটে। ঐতিহ্য বজায় রেখে এবারও বউ মেলা সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির উজ্জল দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে।

নড়াইলের কালিয়া ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের সমাবেশে ১৪৪ ধারা জারি

 নড়াইলের কালিয়া ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের সমাবেশে ১৪৪ ধারা জারি


মো: অাজিজুর বিশ্বাস স্টাফ রিপোর্টার নড়াইল।।নড়াইলের কালিয়ায় আওয়ামী লীগের দুপক্ষ একই সময়ে কর্মসূচি ঘোষণা করায় সংঘর্ষের আশঙ্কায় কালিয়া শহরে ১৪৪ ধারা জারি করেছে প্রশাসন।২৭/১০/২০২০ তারিখ:  মঙ্গলবার দুপুরে ওই কর্মসূচির ডাক দিয়েছিলো কালিয়া উপজেলা ছাত্রলীগ।কালিয়া উপজেলা ও পৌর ছাত্রলীগের কমিটি ঘোষণা করার ঘটনায় কালিয়া আওয়ামী লীগের দুপক্ষ ওই কর্মসূচি ঘোষণা করে।

নড়াইলের সহকারী পুলিশ সুপার (কালিয়া সার্কেল) রিপন চন্দ্র সরকার জানান, মঙ্গলবার দুপুরে আওয়ামী লীগের দুপক্ষ জনসভা করার ঘোষণা দেওয়ায় প্রচুর লোকসমাগম হতে পারে।এতে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতি হওয়ার আশঙ্কায়, ইউএনও নাজমুল হুদা কালিয়া 

 বেলা ১১টা থেকে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত সব ধরনের সভা, সমাবেশ, মিছিল, পাঁচ বা ততোধিক ব্যক্তির একত্রে চলাচল, মোটরসাইকেল শোভাযাত্রা ও অস্ত্রশস্ত্র বহন নিষিদ্ধ করেছে।এই অাদেশ  অমান্যকারীদের বিরুদ্ধে ১৪৪ ধারা অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এ নিয়ে কালিয়ায়  মাইকিং করা হচ্ছে।দলীয় সূত্র জানায়, আট বছর ধরে কালিয়া উপজেলা ও পৌর শাখা ছাত্রলীগের কমিটি কার্যকর ছিল।গত ২২ অক্টোবর সন্ধ্যায় সংবাদ বিজ্ঞপ্তি দিয়ে ওই দুই শাখার নতুন কমিটি ঘোষণা করে জেলা ছাত্রলীগ। উপজেলা কমিটিতে এফ এম সোহাগকে সভাপতি ও রাইসুল ইসলামকে সাধারণ সম্পাদক এবং পৌর কমিটির এম এম তানবীরুল ইসলামকে সভাপতি ও প্রশান্ত কুমার দাসকে সাধারণ সম্পাদক ঘোষণা করা হয়। ঘোষিত ওই কমিটি কালিয়া উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান কৃষ্ণপদ ঘোষ ও সালামাবাদ ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান শামীম আহমেদের অনুসারীদের নিয়ে গঠন করা হয়েছে।নতুন ওই কমিটি ঘোষণার প্রতিবাদ জানিয়ে নড়াইল-১ (কালিয়া-সদরের একাংশ) আসনের সাংসদ বি এম কবিরুল হক  মুক্তি বিশ্বাস এবং তাঁর সমর্থিত আওয়ামী লীগ ও ছাত্রলীগের নেতারা পাল্টা কমিটি ঘোষণা দেন। তাঁদের উপজেলা কমিটিতে ইয়ামিন বিশ্বাসকে সভাপতি ও মহিবুল ইসলামকে সাধারণ সম্পাদক এবং পৌর কমিটিতে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক হিসেবে নেয়ামত হোসেন ও রাইসুল ইসলামের নাম ঘোষণা করা হয়।  কোনো সম্মেলন ছাড়াই গঠনতন্ত্রবহির্ভূত ও একতরফাভাবে কমিটি করেছে জেলা ছাত্রলীগ। 

ওই কমিটি আমি ও কালিয়ার জনগণ মানি না। আমরা যাদের দায়িত্ব দিয়েছি, তারাই কালিয়ায় ছাত্রলীগের কার্যক্রম পরিচালনা করবে।এ বিষয়ে নড়াইল-১ আসনের সাংসদ বি এম কবিরুল হক মুক্তি  আজ মঙ্গলবার সকালে সাংবাদিকদের বলেন, ‘আমাদের দায়িত্ব দেওয়া নতুন কমিটিকে নিয়ে আজ দুপুরে কালিয়া শহরে আনন্দমিছিল করার কথা ছিল। ১৪৪ ধারা জারি করায় তা করছি না। তবে অবৈধভাবে জেলা ছাত্রলীগ নতুন কমিটি করেছে। এর প্রতিবাদে কালিয়া উপজেলার প্রত্যেক ইউনিয়নে আজ বিক্ষোভ মিছিল হবে।তিনি আরও বলেন, ‘আমি যাদের চিনি না, জানি না,যারা কোনো দিন জয়বাংলা স্লোগান দেয়নি, এসব লোকজনকে দিয়ে কোনো সম্মেলন ছাড়াই গঠনতন্ত্রবহির্ভূত একতরফাভাবে কমিটি করেছে জেলা ছাত্রলীগ। ওই কমিটি অামরা মানি না। আমরা যাদের দায়িত্ব দিয়েছি, তারাই কালিয়ায় ছাত্রলীগের কার্যক্রম পরিচালনা করবে।নড়াইল জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক রকিবুল ইসলাম( পলাশ) মুঠোফোনে বলেন, মাননীয় সংসদ নড়াইল ১,অাসন কবিরুল হক মুক্তি যে কথা বলেছেন অামি ওনার কথার সঙ্গে দ্বিমত পোষণ করি। গঠনতন্ত্র অনুযায়ী কনিটি অনুমোদন দেওয়া হয়েছে।

মোংলায় সবার জন্য স্বাস্থ্যসেবা ও কর্মসংস্থানের দাবীতে ডিবিএম'র মানববন্ধন

মোংলায় সবার জন্য স্বাস্থ্যসেবা ও কর্মসংস্থানের দাবীতে ডিবিএম'র মানববন্ধন

মোঃএরশাদ হোসেন রনি, মোংলাঃ সবার জন্য স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত, খাদ্য ও পু্িষ্ট নিরাপত্তা এবং কর্মসংস্থানের দাবীতে গণতান্ত্রিক বাজেট আন্দোলন ডিবিএম'র আয়োজনে মোংলার মিঠেখালি বাজারে ২৭ অক্টোবর মঙ্গলবার সকালে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।মঙ্গলবার সকালে মানববন্ধন চলাকালে সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন গণতান্ত্রিক বাজেট আন্দোলন বাগেরহাট জেলা কমিটির সভাপতি সাবেক উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মোঃ নূর আলম শেখ। সমাবেশে বক্তব্য রাখেন সুশাসনের জন্য নাগরিক সুজন মোংলার ভারপ্রাপ্ত সভাপতি অধ্যাপক শেখ নজরুল ইসলাম, নাগরিক নেতা নাজমুল হক, ডিবিএম'র মাহারুফ বিল্লাহ, কবি সাইফুল্লাহ শেখ, শিক্ষক নেতা ইমরান হোসেন খান, ক্রীড়া সংগঠক পরাগ মনি রাজু, শ্রমিক নেতা আব্দুল করিম প্রমূখ। সমাবেশে বক্তারা বলেন দরিদ্র মেহনতি মানুষ নিয়মিতই রাষ্ট্রকে কর দিচ্ছে কিন্তু করের টাকার যথাযথ ব্যবহার না হওয়ার কারনে তারা সেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। করোনাকালে এটা স্পষ্ট হয়েছে যে, তথাকথিত উন্নয়নের ঢেউ দরিদ্র শ্রমজীবি মানুষের দুয়ারে পৌছায় নাই। দেশের প্রায় ৫০%  মানুষ  সামান্য দুতিন মাসও আর্থিকভাবে টিকে থাকার সামর্থ অর্জন করতে পারে নাই। সরকার মাত্র ৫০ লাখ পরিবারকে ২৫০০ টাকা করে দেবার চেষ্টা করেছে তাও সবার ঘরে সে টাকা পৌছায় নাই। সমাবেশে বক্তারা আরো বলেন করোনা কালে এটা স্পষ্ট হয়েছে যে, স্বাস্থ্যখাতটি দুর্নীতিগ্রস্থ। স্বাস্থ্যসেবা সামগ্রী কেনার নামে জনগনের করের টাকা নয়-ছয় করছে কয়েকটি মাফিয়া চক্র। এই স্বাস্থ্যখাতের পুনর্গঠন এবং দুর্নীতির মূলৎপাটন ছাড়া মানুষের বাঁচার উপায় নাই।

হিলিতে রবি ফসলের আবাদ বৃদ্ধিতে করণীয় শীর্ষক আলোচনা সাভা অনুষ্ঠিত

 হিলিতে রবি ফসলের আবাদ বৃদ্ধিতে করণীয় শীর্ষক আলোচনা সাভা অনুষ্ঠিত


কৌশিক চৌধুরী, হিলি প্রতিনিধিঃ”মুজিব বর্ষের অঙ্গীকার কৃষি হবে দৃর্বার” এই স্লোগানকে সামনে রেখে দিনাজপুরের হিলিতে ২০২০-২০২১ অর্থবছরে রবি ফসলের আবাদ বৃদ্ধিতে করণীয় শীর্ষক আলোচনাসভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

আজ মঙ্গলবার বেলা ১১ টায় হাকিমপুর উপজেলা হলরুমে উপজেলা প্রশাসন ও কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর আয়োজনে উপজেলার সকল কৃষকদের নিয়ে রবি ফসলের আবাদ বৃদ্ধিতে করণীয় শীর্ষক আলোচনাসভায় সভাপতিত্ব করেন হাকিমপুর উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা আব্দুল রাফিউল আলম।এসময় হাকিমপুর উপজেলা চেয়ারম্যান হারুন উর রশিদ, উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা নাজনিন সুলতানা, মৎস্য কর্মকর্তা মোছাঃ উম্মে সিদ্দিকা প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

নারী ও শিশু ধর্ষন-নির্যাতনের বিচারের দাবীতে দিনাজপুরে মানববন্ধন

 নারী ও শিশু ধর্ষন-নির্যাতনের বিচারের দাবীতে দিনাজপুরে মানববন্ধন

 

মুনুর রশিদ,দিনাজপুর প্রতিনিধিঃ সারাদেশে অব্যাহত নারী ও শিশু ধর্ষন, নির্যাতনসহ হত্যার প্রতিবাদে এবং জরিতদের দ্রুত বিচারের দাবীতে দিনাজপুরে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে।আজ সকালে দিনাজপুর প্রেসক্লাবের সামনে জেলা পেশাজীবী ফোরম ও ইউনিটি ফর এনজিও’র যৌথ আয়োজনে উক্ত মানববন্ধনটি অনুষ্ঠিত হয়। এসময় বক্তারা, দেশে বিভিন্ন সময়ে ঘটে যাওয়া নারী ও শিশুদের উপর নির্যাতন, ধর্ষন এবং হত্যার তিব্র নিন্দা জানান। পাশাপাশি এইসব ঘটনা রোধে দোষীদের দ্রুত বিচারের আওতায় এনে শাস্তি প্রদানের জন্য সরকারের প্রতি জোর দাবী জানান। মানববন্ধনে উপস্থিত ছিলেন জেলা পেশাজীবী ফোরামের সভাপতি আব্দুল হামিদ, সোসাইটি ফর উদ্যোগের নির্বাহী পরিচালক উম্মে নেহার, সিটিএস-এর পরিচালক আমিনুল ইসলাম প্রমূখ।

দিনাজপুরে জাতীয়তাবাদী যুবদলের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী অনুষ্ঠিত

 দিনাজপুরে জাতীয়তাবাদী যুবদলের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী অনুষ্ঠিত


মামুনুর রশিদ,দিনাজপুর প্রতিনিধিঃ দিনাজপুরে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী যুবদলের ৪২তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে রক্তদান কর্মসূচী ও আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়।

আজ সকালে দিনাজপুর জেলা বিএনপি’র দলীয় কার্যালয়ে যুবদলের আয়োজনে ও তৈয়বা মজুমদার ব্লাড ব্যাংকের সহযোগিতায় স্বেচ্ছায় রক্তদান কর্মসূচী ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। রক্তদান কর্মসূচীতে দলীয় নেতাকর্মীসহ স্থানীয়রা রক্তদান করেন। পরে দুপুরে একটি আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। এসময় উপস্থিত ছিলেন জেলা যুবদলের সভাপতি মোন্নাফ মুকুল, সাধারণ সম্পাদক মাসুদুল ইসলাম মাসুদসহ অন্যান্য নেতাকর্মীরা। অপর দিকে অনুষ্ঠান চলাকালীন সময় দলীয় কার্যালয়ের সামনে পুলিশী নিরাপত্তা ছিল লক্ষ্য করার মত।

ট্রেন দুর্ঘটনার স্থান পরিদর্শন করেন সংসদ সদস্য ঝিনাইদহ-৩

 ট্রেন দুর্ঘটনার স্থান পরিদর্শন করেন  সংসদ সদস্য ঝিনাইদহ-৩

নিউজ ডেস্ক' ঝিনাইদহের কোটচাঁদপুর,সাফদারপুর স্টেশনে২৭/১০/২০(মঙ্গলবার) আনুমানিক রাত ১ঃ৪০ এ ২টি মালবাহী ট্রেনের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এ সময় ৫টি তেলবাহী ট্যাংকার লাইনচ্যুত হয়েছে।এতে খুলনার সঙ্গে সারাদেশের রেল যোগাযোগ ১০ ঘন্টা বন্ধ ছিলোতবে এ দুর্ঘটনায় কারো হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি।কোটচাঁদপুর দমকল বাহিনীর স্টেশন অফিসার আব্দুর রাজ্জাক এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন দুর্ঘটনার খবর পেয়ে ঝিনাইদহ ৩ আসনের জাতীয় সংসদ সদস্য ও রেলপথ মন্ত্রনালয় স্থায়ী কমিটির সদস্য আলহাজ্ব এ্যাডঃ শফিকুল আজম খান চঞ্চল,  অতিরিক্ত পুলিশ সুপার, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান রিয়াজ হোসেন ফারুক, কোটচাঁদপুর সার্কেল মোহাইমিনুল ইসলাম ও কোটচাঁদপুর উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক শাহাজান আলী দূর্ঘটনাকবলিত স্থান পরিদর্শন করেন।  ঘটনা স্থান পরিদর্শন করে মাননীয় সংসদ সদস্য বলেনঃ এমন ঘটনা খুবই দুঃখজনক কতব্যরত ব্যাক্তিদের কাছে এ বিষয়ে তলপ করা হবে । এছাড়া আরও বলেন আমার দেশের অনেক অর্থ ক্ষতি হলো এটা কম কথা নয়। সে আরও বলেন যতো দ্রুত সম্ভব ক্ষতিগ্রস্থ বগি গুলো সরিয়ে  লাইন মেরামতের কাজ শেষ করতে।

কোন ভাবে ট্রেন চলাচলের ব্যাঘাত না ঘটে সাধারণ মানুষ সমস্যায় না ভোগে।

সাংবাদিক হাসান সাদী অসুস্থ,পরিবারের পক্ষ থেকে দেশবাসীর কাছে দোয়া প্রার্থনা

 সাংবাদিক হাসান সাদী অসুস্থ,পরিবারের পক্ষ থেকে দেশবাসীর  কাছে দোয়া প্রার্থনা



ডা.এম.এ.মান্নান,টাংগাইল জেলা প্রতিনিধি:টাংগাইলের নাগরপুর উপজেলা দুয়াজানী কলেজ পাড়ার সন্তান সাবেক মেধাবী ছাত্র অভিবাবক, জনপ্রিয় অনলাইন পোর্টাল দৈনিক কপোতাক্ষ নিউজ নাগরপুর উপজেলা প্রতিনিধি সজিব হুসাইন মোহাম্মদ হাসান গুরুতর অসুস্থ। গত কয়েকদিন যাবত ধরে জ্বর,ঠান্ডা  সহ নানান শারিরিক রোগে গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়েছে।নিজ বাসভবনে  চিকিৎসাধীন আছেন। হাসান সাদীর চাচাতো ভাই ডা.এম.এ.মান্নান-সাংবাদিক হাসান সাদীর  আশু সুস্হতার জন্য নাগরপুর বাসী সহ দেশবাসীর  কাছে দোয়া প্রার্থনা করছেন। মহান আল্লাহ যেন অতিদ্রত সুস্হতা দান করেন,আমিন।

নড়াইলের কালনা সেতু হলে স্বপ্ন পূরণ হবে ১০ জেলার মানুষের

 নড়াইলের কালনা সেতু হলে স্বপ্ন পূরণ হবে ১০ জেলার মানুষের


মো: আজিজুর বিশ্বাস স্টাফ রিপোর্টার নড়াইল।।নড়াইল সহ দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের ১০ জেলার সঙ্গে সড়ক পথে ঢাকার যোগাযোগের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ নড়াইলের লোহাগড়া উপজেলার ওপর দিয়ে প্রবাহিত মধুমতি নদীর ওপর কালনা ফেরিঘাটে নির্মাণাধীন কালনা সেতুর কাজ দ্রুত গতিতে এগিয়ে চলছে।আমাদের প্রতিনিধি অাজিজুর বিশ্বাস জানান, বাস্তবায়ন হতে চলেছে নড়াইল, গোপালগঞ্জ, ফরিদপুর, যশোরসহ দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের ১০টি জেলার মানুষের স্বপ্ন।২০১৮ সালের ৫ সেপ্টেম্বর এ সেতুর নির্মাণ কাজ শুরু হওয়ার পর ইতোমধ্যে সেতুটির নির্মাণ কাজ ৩৬ ভাগ শেষ হয়েছে।

সবকিছু ঠিক থাকলে ২০২১ সালের সেপ্টেম্বর মাসের মধ্যে সেতুটির নির্মাণ কাজ সম্পন্ন হবে। এই সেতু চালু হলে দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের ১০টি জেলার অপার সম্ভাবনার দ্বার উন্মোচিত হবে। বদলে যাবে এ অঞ্চলের আর্থ-সামাজিক অবস্থা।বর্তমান প্রধানমন্ত্রী ২০০৮ সালের ১৯ ডিসেম্বর নড়াইলের সুলতান মঞ্চে এক নির্বাচনী জনসভায় ঘোষণা দিয়েছিলেন আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় এলে এ অঞ্চলের উন্নয়নে লোহাগড়ার কালনা পয়েন্টে মধুমতি নদীতে সেতু নির্মাণ করা হবে।ওই ঘোষণার আগে ও পরে আন্দোলন-সংগ্রাম, এ অঞ্চলের মানুষের দাবি এবং প্রধানমন্ত্রীর ঘোষণা অবশেষে বাস্তবায়ন হতে চলেছে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, জাপান ইন্টারন্যাশনাল কর্পোরেশন এজেন্সির (জাইকা) সহযোগিতায় ও দেশীয় অর্থে এ সেতুটি নির্মিত হচ্ছে। জাপানের টেককেন কর্পোরেশন ওয়াইবিসি জেভি কোম্পানি ও বাংলাদেশের আব্দুল মোনেম লিমিটেড যৌথভাবে নড়াইল জেলার সীমান্তবর্তী লোহাগড়া উপজেলার কালনা এবং অপরপ্রান্ত গোপালগঞ্জের কাশিয়ানী উপজেলার ভাটিয়াপাড়ায় মধুমতি নদীর ওপর ৬ লেন বিশিষ্ট ৬শ’ ৯০ মিটার দৈর্ঘ্য এবং ২৭ দশমিক ১০ মিটার প্রস্থের এ সেতু নির্মাণের কাজ করছে।এই সেতুর দুই অংশে ৪ দশমিক ২৭৩ কি. মি. সংযোগ সড়ক নির্মাণ করা হচ্ছে।প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২০১৫ সালের ২৪ জানুয়ারি এ সেতুর ভিত্তিপ্রস্থর স্থাপন করেন এবং ২০১৮ সালের ৩০ অক্টোবর নির্মাণ কাজের উদ্বোধন করেন।সেতুর নির্মাণ ব্যয় ধরা হয়েছে ৯শ’ ৫৯ কোটি ৮৫ লাখ টাকা। ইতোমধ্যে সেতুর সবগুলো পাইলিং শেষ হয়েছে।১৩টি স্প্যানের ওপর বসবে ১শ’ ৬০টি পিসি গার্ডার। একটি গার্ডারের ঢালাই শেষ হয়েছে। অন্যগুলোর কাজ কালনা ঘাটে হচ্ছে।স্টিলের একটি স্প্যান তৈরি হচ্ছে ভিয়েতনামে।১২টি পিলারের মধ্যে সাতটির কাজ শেষ হয়েছে। অন্যগুলোর কাজ চলছে। সংযোগ সড়কের মাটির কাজ চলছে। সড়ক ও জনপথ (সওজ) বিভাগের আওতায় এ সেতু নির্মাণ হচ্ছে।কালনা সেতু নির্মিত হলে যশোরের বেনাপোল স্থল বন্দর-নড়াইলের কালনা সেতু-পদ্মা সেতু-ঢাকা-সিলেট-তামাবিল সড়কের মাধ্যমে ‘আঞ্চলিক যোগাযোগ’ স্থাপিত হবে। বেনাপোল স্থল বন্দর থেকে আমদানি-রফতানি পণ্য সরাসরি কালনা এবং পদ্মা সেতু হয়ে ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে পণ্য পরিবহনে সুবিধা পাবেন ব্যবসায়ীরা।ঘণ্টার পর ঘণ্টা কালনা ফেরী ঘাটের দু’পারে আর বসে থেকে জনগণের ভোগান্তি পোহাতে হবে না। সময় বাঁচবে।কৃষি পরিবহন ও বিপণন সহজ হবে। এক কথায় বৃদ্ধি পাবে দেশের দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ড, পাল্টে যাবে মানুষের জীবনযাত্রার মান।নড়াইল ও সড়ক জনপথ এবং বিভিন্ন সূত্রে জানা গেছে, এ সেতুটি এশিয়ান হাইওয়ের অংশ। কালনা সেতু নির্মিত হলে নড়াইল-ঢাকা ১২৭ কিলোমিটার, যশোর-নড়াইল-ঢাকা ১৬১ কলোমিটার, দেশের সর্ববৃহৎ স্থলবন্দর বেনাপোল-নড়াইল-ঢাকা ২০১ কলোমিটার, খুলনা-যশোরের বসুন্দিয়া-নড়াইল-ঢাকা ১৯০ কলোমিটার দূরত্ব হবে।অর্থাৎ সেতুটি নির্মিত হলে ঢাকার সাথে নড়াইল-যশোর অঞ্চলের দূরত্ব কমবে প্রায় ২শ’ কিলোমিটার। একইভাবে ঢাকার সঙ্গে শিল্প ও বাণিজ্যিক শহর নওয়াপাড়া, খুলনা ও মোংলা বন্দর এবং সাতক্ষীরা ও মাগুরাসহ দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের ১০টি জেলার দূরত্ব কমবে।বাস, ট্রাক ও প্রাইভেট গাড়ির চালকরা জানান, কালনা ফেরিঘাটে নদী পারাপারের জন্য রয়েছে নামমাত্র ফেরিষেবা।অপ্রতুল ফেরি ব্যবস্থার কারণে প্রয়োজন সত্ত্বেও এ ফেরিঘাট দিয়ে প্রতিদিন অল্পসংখ্যক গাড়ি পার হতে পারে। প্রায়ই কুয়াশা ও নাব্যতা সংকটে পড়ে ফেরি চলাচল বন্ধ হয়ে যায়।ফলে নদীর উভয় পাড়ে দীর্ঘ জটে পড়ে যানবাহন। তাই বাধ্য হয়েই ঘুরে মাগুরা, ফরিদপুর হয়ে গাড়ি চলাচল করে। এতে বছরে প্রায় দুই কোটি লিটারের বেশি অতিরিক্ত জ্বালানি তেল খরচ হয়। এছাড়া সময় অপচয় হয় ৫-৬ ঘণ্টা।কালনা সেতু নির্মাণকারী প্রতিষ্ঠান আব্দুল মোমেন কনস্ট্রাকশানের হাইওয়ে প্রকৌশলী মো. জোনায়েদ রাহবার বলেন, আশা করা হচ্ছে নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে কাজ সমাপ্ত হবে।


নির্মাণাধীন এ সেতুর সড়ক ও জনপথের দায়িত্বপ্রাপ্ত ডিপিএম প্রকৌশলী সৈয়দ গিয়াস উদ্দিন জানান, নির্মাণাধীন কালনা সেতুর ৩৬ ভাগ কাজ ইতোমধ্যে শেষ হয়েছে। নির্দিষ্ট সময়ে কাজ শেষ করার চেষ্টা চলছে। ছয় লেনের এই সেতু হবে দেশের অন্যতম দৃষ্টিনন্দন সেতু।

সাতক্ষীরা'র শাঁখরা-কোমরপুরে এক অজ্ঞাত পাগলীর সন্তান প্রসব

 সাতক্ষীরা'র শাঁখরা-কোমরপুরে এক অজ্ঞাত  পাগলীর সন্তান প্রসব


আজহারুল ইসলাম সাদী, স্টাফ রিপোর্টারঃসাতক্ষীরা জেলার দেবহাটার উপজেলার শাঁখরা কোমরপুরে এক পাগলী, একটি পুত্র সন্তানের জন্ম দিয়েছেন। গত বৃহস্পতিবার রাত ৯টার দিকে পাগলীর ফুটফুটে পুত্র সন্তানটির জম্ম হয়।স্থানীয়রা জানান, পাগলীটি  গত ৫-৬ মাসের মত শাখরা বাজারে অবস্থান করছে। 

পাগলীর কাছে তার পরিচয় জানতে চাইলে একবার বলছে মৌলভীবাজার জেলা, আবার  বলছে হবিগঞ্জ জেলার সায়েস্তাগঞ্জ থানার মলাটি গ্রামে তার বাড়ি, স্বামীর নাম শুকুর আলী,তার আরো দুইটি কন্যা সন্তান আছে,যাদের নাম ফুরফুরি এবং সীমা। 

বর্তমানে এই পাগলী মা ও শিশু দু'জনেই সুস্থ আছেন। পাগলীটি তার বাচ্চাটির নাম রেখেছে মাসুম বিল্লাহ (রাজপুত্র)। এদিকে বাচ্চাটি নেওয়ার জন্য অনেক লোকজন ছুটে আসছেন কিন্তু হাল ছাড়ছেন না পাগলীটি।সন্তানকে বুকের ভিতরে আগলে রেখে বসেই আছে। তবে পাগলীর অস্বাভাবিক আচরণে শিশুটির নিরাপত্তা নিয়ে উদ্বিগ্ন হয়ে পড়েছে এলাকাবাসী। বর্তমানে জেলা পরিষদের সদস্য আল ফেরদাউস আলফার আর্থিক সহযোগীতায় পাগলী ও তার বাচ্চাটি দেখাশুনা করছে অত্রালাকার ধাত্রী আকলিমা বেগম।

প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগে সময়ের অসঙ্গতি ও আমার ভাবনা

প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগে সময়ের অসঙ্গতি ও আমার ভাবনা




"বিশ্বে যা কিছু সৃষ্টি চির কল্যাণকর,
অর্ধেক তার করিয়াছে নারী অর্ধেক তার নর"
জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামের উক্তিটি খুবই যৌক্তিক এবং বাস্তবভিত্তিক একটি বানী।পৃথিবীতে যতগুলো ধর্ম রয়েছে তার মধ্যে একেবারে আধুনিক, সহজ এবং চমৎকার ধর্ম হচ্ছে ইসলাম ধর্ম। আর ইসলাম ধর্ম নারীকে দিয়েছেন যথেষ্ট মর্যাদা ও সম্মান। যা কুরআন, হাদীস এবং ইসলামের পূর্ব ইতিহাসের দিকে লক্ষ্য করলে স্পষ্টত প্রতীয়মান।যা মুসলিম ও একজন মানব হিসেবে অকপটে মেনে নিচ্ছি। কারন নারী মা হিসেবে,সেবিকা হিসেবে, শিক্ষক হিসেবে এমনকি সমাজ বিনির্মানে প্রচুর অবদান রেখেছেন। যা ইতিহাসে কালের সাক্ষী হয়ে রয়েছে। তবে কিছু জায়গায় নারীকে একটি পরিত্রাণ দিয়ে পুরুষ কে সেখানে স্থান দেয়া সম্ভবত সময়ের একটি যৌক্তিক আবেদন।জ্বি!  বলছি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সহকারী শিক্ষক নিয়োগে পুরুষের পদটি একটু বিস্তৃত করনে।
 একটি প্রবাদ রয়েছে যে, "প্রয়োজনই আবিস্কারের উদ্ভাবক" সব কিছুই আবিষ্কার হয় প্রয়োজনের তাগিদে।
 ইংরেজি একটি কথা যা না বললেই নয়
"Hungry dog is an angry dog " ক্ষুধায় জ্বালায় বাচবিচার থাকে না। সাম্প্রতিক আমরা লক্ষ্য করেছি যে, প্রতিটি পত্র পত্রিকা ও নিয়োগ বিজ্ঞাপ্তিতে খুব সুন্দর ও পরিপাটি করে লিখা এবছর প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগে থাকছে না কোন কোটা পদ্ধতি। অথচ ৬০%, নারী, ২০% পোষ্য কোটা ও ২০% পুরুষ  নামক বেড়াজালে আবদ্ধ এই নিয়োগ প্রক্রিয়া টি।যার কারনে বিশাল অংকে অবমূল্যায়ন করা হয় মেধাবীদের। প্রাথমিক নিয়োগে নারীদের এই বিশাল অগ্রাধিকার কোন এক প্রশ্নের উত্তরে বিশিষ্ট মহল থেকে  বলা হয় যে,এই প্রতিষ্ঠান গুলোতে ছোট ছোট ছেলেমেয়েদের পড়াশুনা করানো হয়।আর এত শিক্ষা দানকারীদের প্রয়োজন হয় প্রচুর ধৈর্য ও সহনশীল মনোভাব। যা একমাত্র নারীদেরই রয়েছে।আমি এই কথাটির সাথে কিছুটা একমত হলেও পুরোপুরি মেনে নিতে পারছি।কারন "Hungry dogs is an angry dog "
তাছাড়া দেখতে হবে নারীদের চাকুরী টা বেশী দরকার না ছেলেদের???????
একটা ছেলের উপর নির্ভর করে অনেক গুলো সদস্য। সাম্প্রতিক বিভিন্ন জরিপে দেখা যায় যে, অনেক চাকরি প্রার্থী বিশেষ কারনে নিয়োগ না পেয়ে আত্মহত্যার মধ্য জঘন্য পথকে বেঁচে নিয়েছে।
এবার দেখুন আমাদের সংবিধান কি বলে? সংবিধানের দ্বিতীয় ভাগের ১৯নং অনুচ্ছেদে বলা আছে,জাতীয় জীবনের সর্বস্তরের মহিলাদের অংশগ্রহণ ও সুযোগের সমতা রাষ্ট্র নিশ্চিত করিবেন।
অন্যদিকে সংবিধানের তৃতীয় ভাগের ২৯নং অনুচ্ছেদে রয়েছে, প্রজাতন্ত্রের কর্মে নিয়োগ বা পদলাভের ক্ষেত্রে সকল নাগরিকের জন্য সুযোগের সমতা থাকবে।
সংবিধানের একই ভাগের ২য় অনুচ্ছেদের বলা আছে,সকল নাগরিক আইনের দৃষ্টিতে সমান এবং আইনের সমান আশ্রয় লাভের অধিকারী। 
বর্তমান প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ প্রক্রিয়ায় সংবিধানের এই ধারা গুলো মান্য হয় কিনা বিচার পাঠক মহলে।
সংবিধানের ধারাগুলো মান্য করে নিয়োগ দান করলে দেশে হয়ত বেকারের সংখ্যা কিছু টা হলেও কমত।
সরকারি উন্নয়ন গবেষণা প্রতিষ্ঠান বিআইডিএসের ২০১৯ সালের ডিসেম্বরে একটি গবেষণায় দেশে মাধ্যমিক থেকে স্নাতকোত্তর ডিগ্রিধারী তরুণদের এক-তৃতীয়াংশ পুরোপুরি বেকার বলে যে তথ্য উঠে এসেছে, তাতে আমরা উদ্বিগ্ন না হয়ে পারি না। এই গবেষণায় দেখা যায়, শিক্ষিত যুবকদের মধ্যে সম্পূর্ণ বেকার ৩৩ দশমিক ৩২ শতাংশ। বাকিদের মধ্যে ৪৭ দশমিক ৭ শতাংশ সার্বক্ষণিক চাকরিতে, ১৮ দশমিক ১ শতাংশ পার্টটাইম বা খণ্ডকালীন কাজে নিয়োজিত। প্রতিষ্ঠানটির মহাপরিচালক কে এ এস মুর্শিদের নেতৃত্বে একটি দল ১৮ থেকে ৩৫ বছর বয়সের শিক্ষিত তরুণদের নিয়ে ফেসবুক ও ই-মেইলের মাধ্যমে এই অনলাইন জরিপ পরিচালনা করেছে। জরিপ অনুযায়ী, শিক্ষা শেষে এক থেকে দুই বছর পর্যন্ত বেকার ১১ দশমিক ৬৭ শতাংশ, দুই বছরের চেয়ে বেশি সময় ধরে বেকার ১৮ দশমিক শূন্য ৫ শতাংশ। ছয় মাস থেকে এক বছর পর্যন্ত বেকার ১৯ দশমিক ৫৪ শতাংশ।
এর আগে বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরোর (বিবিএস) সর্বশেষ জরিপে দেশে মোট শ্রমশক্তির ৪ দশমিক ২ শতাংশ বেকার বলে জানানো হয়েছিল। বিবিএসের জরিপের তুলনায় বিআইডিএসের অনলাইন জরিপে শিক্ষিত যুবকদের মধ্যে বেকারত্বের হার বেশি। বাংলাদেশে বেকারত্বের ভয়াবহতা জানতে কোনো জরিপের প্রয়োজন হয় না। বিসিএস ক্যাডার সার্ভিস কিংবা অন্য কোনো খাতে একটি শূন্য পদে চাকরিপ্রার্থীর সংখ্যা দেখলেই সেটি অনুমান করা যায়।

বেসরকারি বা আন্তর্জাতিক কোনো সংস্থা এই জরিপ করলে সরকারের নীতিনির্ধারকেরা হয়তো অসত্য বলে উড়িয়ে দিতেন। কিন্তু সরকারি প্রতিষ্ঠানের এই জরিপের সত্যতা নিয়ে প্রশ্ন করার সুযোগ আছে বলে মনে হয় না। কেবল বিআইডিএস বা বিবিএসের জরিপ নয়, দেশি-বিদেশি প্রায় সব জরিপ ও পরিসংখ্যানেই বাংলাদেশে শিক্ষিত জনগোষ্ঠীর মধ্যে উচ্চ বেকারত্বের তথ্য-উপাত্ত উঠে এসেছে। কয়েক বছর আগে ইকোনমিক ইনটেলিজেন্স ইউনিটের জরিপে বলা হয়েছিল, বিশ্বে বাংলাদেশেই শিক্ষিত বেকারের হার সর্বোচ্চ।
প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ নূতন নীতিমালায় শিক্ষাগত যোগ্যতা ও কোটার ব্যাপারে বলা হয়েছে, সহকারী শিক্ষক পদে পুরুষ ও নারী উভয়ের ক্ষেত্রেই শিক্ষাগত যোগ্যতা স্নাতক করা হয়েছে। এ বিধিতে বলা হয়েছে, কোনো স্বীকৃত বিশ্ববিদ্যালয় হতে দ্বিতীয় শ্রেণি বা সমমানের সিজিপিএসহ স্নাতক বা অনার্স অথবা সমমানের ডিগ্রি থাকতে হবে। বয়সসীমা ২১ থেকে ৩০ বছর।
তবে নারী প্রার্থীদের জন্য ৬০ শতাংশ কোটা বহাল থাকবে। ২০ শতাংশ পোষ্য কোটা ও বাকি ২০ শতাংশ পুরুষ প্রার্থীদের জন্য বরাদ্দ রাখা হয়েছে। এ ক্ষেত্রে বিজ্ঞান বিষয়ে পাস প্রার্থীদের অগ্রাধিকার দেয়া হবে। যদি ২০ শতাংশ কোটা পূরণ না হয়, তবে মেধার ভিত্তিতে নিয়োগ দেয়া হবে।
জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের জারিকৃত পরিপত্রে বলা হয়, নবম গ্রেড (আগের প্রথম শ্রেণী) এবং দশম থেকে ১৩তম গ্রেডের (আগের দ্বিতীয় শ্রেণী) পদে সরাসরি নিয়োগের ক্ষেত্রে বিদ্যমান কোটা পদ্ধতি বাতিল করা হল। এখন থেকে মেধার ভিত্তিতে নিয়োগ দেয়া হবে। তবে তৃতীয় ও চতুর্থ শ্রেণীর পদে কোটা ব্যবস্থা আগের মতোই বহাল থাকবে। শিক্ষার্থী ও চাকরি প্রার্থীদের দীর্ঘদিনের আন্দোলনের পর নবম থেকে ১৩তম গ্রেডের সরকারি চাকরিতে বিদ্যমান কোটা বাতিলের চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেয় মন্ত্রিসভা। পরদিনই পরিপত্র জারি হল। এর মাধ্যমে ৪৬ বছর ধরে প্রথম ও দ্বিতীয় শ্রেণীর সরকারি চাকরিতে যে কোটা ব্যবস্থা ছিল তা বাতিল হয়ে গেল। সরকারি চাকরিতে নিয়োগে এতদিন ৫৬ শতাংশ পদ বিভিন্ন কোটার জন্য সংরক্ষিত ছিল। এর মধ্যে মুক্তিযোদ্ধার সন্তানদের জন্য ৩০ শতাংশ, নারী ১০ শতাংশ, জেলা ১০ শতাংশ, ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠী ৫ শতাংশ, প্রতিবন্ধী ১ শতাংশ। পরিপত্রে বলা হয়, ‘সরকার সকল সরকারি দফতর, স্বায়ত্তশাসিত, আধা-স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠান এবং বিভিন্ন কর্পোরেশনের চাকরিতে সরাসরি নিয়োগের ক্ষেত্রে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের ১৯৯৭ সালের ১৭ মার্চ জারি করা কোটা পদ্ধতি সংশোধন করল।তবে কমিটির একটি সুপারিশ অনুযায়ী, ভবিষ্যতে পর্যালোচনা করে যদি কোনো অনগ্রসর জনগোষ্ঠীর জন্য কোটা অপরিহার্য হয়, তাহলে সরকার সেই ব্যবস্থা নিতে পারবে- এ বিষয়ে পরিপত্রে কিছু বলা হয়নি।
সাম্প্রতিক প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সহকারী  শিক্ষক পদটি ১৩তম গ্রেড করা হয়েছে। আর তাই এখানে ৬০% নারী কোটা,২০%পোষ্য ও ২০% পুরুষ কোটা পদটি সংস্কার করার জোর অনুরোধ করছি,তার অন্যতম একটি কারন চাকুরী টা মেয়েদের চেয়ে পুরুষের অত্যধিক বেশি প্রয়োজন। 
এই লিখাটি হাজার যুবকের চোখের জল আর কলিজা ছেঁড়া আর্তনাদের ভাষা।
সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ পর্যন্ত লেখাটি পৌঁছলে আশু কার্যকরী ব্যবস্থা নেয়ার জোর অনুরোধ করছি। 

লেখক ও শিক্ষক, 
মোঃ আওলাদ হোসেন 
দৌলতখান, ভোল।

দিনাজপুরের নবাবগঞ্জে প্রেমিককে বেধেঁ রেখে প্রেমিকাকে গণধর্ষণ

 দিনাজপুরের নবাবগঞ্জে প্রেমিককে বেধেঁ রেখে প্রেমিকাকে গণধর্ষণ

স্টাফ রিপোর্টারঃ আর.জে মিজানুর রহমান ইমনঃ দিনাজপুরের নবাবগঞ্জে প্রেমিককে বেধেঁ রেখে প্রেমিকা (১৯) কে গণধর্ষণ এ ঘটনায় প্রেমিক রিয়াজুল ইসলাম বাদী হয়ে পাঁচ যুবকের বিরুদ্ধে নবাবগঞ্জ থানায় মামলা করেছেন । এ ঘটনায় পুলিশ চার জনকে গ্রেপ্তার করেছে । গ্রেপ্তারকৃত আসামীরা হলেন, নবাবগঞ্জ উপজেলার গোলাপগঞ্জ ইউনিয়নের শগুনখোলা গ্রামের শরিয়ত হোসেনের ছেলে শাহিনুর ইসলাম (৩০) মৃত ইসমাইল হোসেনের ছেলে আব্দুল আজিজ ওরফে আজিম (৩১) ফতেহপুর মাড়াস গ্রামের আব্দুল মতিনের ছেলে সাজেদুর ইসলাম (২০) আবু তাহেরের ছেলে শাহারুল ইসলাম (২১) এবং পলাতক রয়েছে শওগুন খোলা গ্রামের খলিলের ছেলে রেজওয়ান (২০) । ধর্ষণকারী গ্রেফতারকৃত আসামীদের (২৬ই অক্টোবর) মঙ্গলবার বেলা ১২টায় দিনাজপুর আদালতে পাঠানো হয়েছে । নবাবগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) অশোক কুমার চৌহান জানান, সাত মাস আগে একটি অনুষ্ঠানে পার্শ্ববর্তী বিরামপুর উপজেলার ঐ তরুণীর সাথে নবাবগঞ্জ উপজেলার রামভদ্রপুর গ্রামের রিয়াজুল করিমের সাথে পরিচয় হয়, এরপর তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে । (২৫ই অক্টোবর) সোমবার বিকেলে ওই তরুণী রিয়াজুলের সঙ্গে নবাবগঞ্জের আশুড়ার বিলে দেখা করতে আসেন । এ সময় শাহিনুরের নেতৃত্বে পাঁচ যুবক রিয়াজুল এবং তার প্রেমিকাকে আটক করে মারধর করে ও টাকা মোবাইল কেড়ে নেয় এবং রিয়াজুলকে তাদের কাছে বিকাশের মাধ্যমে আরো টাকা দিতে বলেন । এ সময় আজিম, সাজেদুর, শাহারুল এবং রেজওয়ান বিলের সাথের শালবনের গভীরে নিয়ে রিয়াজুলকে গাছের সাথে বেধেঁ রেখে ঐ তরুণীকে বনের মধ্যে তুলে নিয়ে গিয়ে গণ ধর্ষণ করে । ধর্ষণ শেষে শাহিনুর তরুণীকে নবাবগঞ্জ বিরামপুর সড়কে রেখে আসে । এ সময় সুযোগ বুঝে রিয়াজুল দৌড়ে এসে আশুড়া বিল পরিচালনা কমিটিকে ঘটনাটি খুলে বললে, আশুড়া বিল পরিচালনা কমিটির লোকজন পুলিশকে অবহিত করেন । নবাবগঞ্জ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) শামছুল ইসলাম জানান, পুলিশ খবর পেয়ে দ্রুত ওসি অশোক কুমার চৌহানের নেতৃত্বে একটি দল অভিযান চালিয়ে শাহিনুর, আজিম, সাজেদুর এবং শাহারুলকে গ্রেপ্তার করে ।

অসম্পূর্ণ গল্প মোঃ রাসেল মিয়া

অসম্পূর্ণ গল্প                মোঃ রাসেল মিয়া

     



    তোমার অস্তাচলে তাকিয়ে

  আচলের সুদীপ্ত বলিরেখাটি বিলাপ করে,

    আমি তা সহ্য করি;

  ভস্মতূল্য স্মৃতিপদক বসনখানি রিক্ত বলে

  শক্ত করে হুমকি দেয় বারবার,

  আমি তাও সহ্য করি।

  আমাদের অপূর্ণাঙ্গ ইচ্ছাসুখগুলো      বিদ্রোহী হয়ে

 আমার বিরুদ্ধবাদ শ্লোগান দেয়,

 আমি তা হজম করি;

 হিমস্নাত মুহূর্তগুলো বয়োজীর্ণ নুহ্য হয়ে

 আবুল-তাবুল বকে সারাক্ষণ,

 আমি তাও হজম করি।

হৃদয়ের নীলাম্বুধি তলগুলো অগ্নিদীপ্ত হয়ে

ক্ষষে ক্ষষে পরছে অনেককাল গহীনে,

আমি তা অনুভূতিহীন;

রৌদ্রদীপক মনোভবগুলো আঘাতসহ শোচ্য হয়ে

লাফিয়ে লাফিয়ে আঘাত করছে,

আমি তাও অনুভূতিহীন।

নিতন্দ্রা রজনীযোগের অবশিষ্টাংশ উন্মাদী হয়ে

আতকে আতকে আহাজারি করে,

আমি অবিচলিত থাকি;

নিরস্র অাকাঙ্খাগুলো মস্তিষ্কে রক্তজল ঢালে

ঝাঁজিয়ে ঝাঁজিয়ে ঝাঁজড়া করে,

আমি তাও অবিচলিত থাকি।

বিশ্বাসঘাতী কণ্ঠীত শব্দকোষগুলো দৃঢ় হয়ে

নিরবলম্বনের কারণ জানতে চায়,

আমি নিরব থাকি;

প্রশ্নদৃষ্টির চোখগুলো সোচ্চার আরোহী হয়ে

উত্তর জানতে চায় বারবার,

আমি তাও নিরব থাকি।



সকলজন্মা সমবেতভাবে একটি উত্তর জানতে চায়-

"একটাই গল্প, তাও আবার এতো অল্প?"

আমি চোখ বন্ধ করে অস্ফুটে বলি-

"হ্যা, তা-ই আমাদের অসম্পূর্ণ গল্প।"

কোঁটচাদপুর দুই মালবাহি ট্রেনের মুখোমুখি সংঘর্ষ

কোঁটচাদপুর দুই মালবাহি ট্রেনের মুখোমুখি সংঘর্ষ

তাহের খাঁন কোটচাঁদপুর (ঝিনাইদহ) /খোন্দকার   বাশারঃকোটচাঁদপুর ২টি মালবাহী ট্রেনের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়েছে। এ সময় ৫টি তেলবাহী ট্যাংকার লাইনচ্যুত হয়েছে। এতে খুলনার সঙ্গে সারাদেশের রেল যোগাযোগ বন্ধ রয়েছে।আজ মঙ্গলবার (২৭ অক্টোবর) রাত ২টার দিকে কোটচাঁদপুরে সাফদারপুর রেল স্টেশনে এ দুর্ঘটনা ঘটে।  উক্ত ঘটনার পেক্ষিতে লক্ষাধিক টাকার তেল নষ্ট হয়েছে বলে জানিয়েছেন কর্মকর্তারা। বাংলাদেশ রেলওয়ে পর্যবেক্ষন টিম খুব ভোরে সেখানে উপস্থিত হন এবং দ্রুততার সঙ্গে লাইন মেরামত এবং ক্ষতিগ্রস্ত ট্যাংক সরিয়ে নিয়ে সারাদেশের সাথে খুলনার ট্রেন যোগাযোগ চালু করার জন্য চেষ্টা করে যাচ্ছেন। তবে এ দুর্ঘটনায় কারো হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি। তবে সাফদারপুর স্টেশন মাস্টার এর পক্ষ থেকে এখনও কোন বিস্তারিত কিছু বলা হয়নি দুর্ঘটনার কারন কি।

দুর্ঘটনার খবর পেয়ে কোটচাঁদপুর দমকল  বাহিনীর সদস্যরা রাতেই সেখানে অবস্থান নেয়। প্রাথমিক উদ্ধার কাজে  অংশ নেন তারা। এছাড়া পুলিশ বাহিনী ও আনসার সদস্যরা তৎপর রয়েছে।  জনসাধারণের প্রবেশ ও অগ্নি সংযোগ থেকে বিরত থাকতে বলা হয়েছে।  কোটচাঁদপুর দমকল বাহিনীর প্রধান আব্দুর রাজ্জাক তাদের কাজ দ্রুততার সঙ্গে করার আশা দিয়েছেন।

ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাতঃ জবি শিক্ষার্থী তিথি সরকারকে সাময়িক বহিষ্কার করে তদন্ত কমিটি গঠন

ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাতঃ জবি শিক্ষার্থী তিথি সরকারকে সাময়িক বহিষ্কার করে তদন্ত কমিটি গঠন


জবি প্রতিনিধিঃজগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০১৭-১৮ শিক্ষাবর্ষের প্রাণিবিদ্যা বিভাগের শিক্ষার্থী তিথি সরকারের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ‘ফেসবুক’-এ হযরত মুহাম্মদ (সঃ) সম্পর্কে কটুক্তি করে ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত করার ঘটনায় তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। এর আগে তাকে স্থায়ী বহিষ্কারের নোটিশও দেয়া হয়েছে এবং কেনো জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে তাকে স্থায়ীভাবে বহিষ্কার করা হবে না, তা লিখিতভাবে আগামী ১০ (দশ) দিনের মধ্যে রেজিস্ট্রার দপ্তর বরাবর জানানোর জন্য নির্দেশ প্রদান করা হয়েছে।সোমবার (২৬ অক্টোবর) উপাচার্য মহোদয়ের আদেশক্রমে রেজিস্ট্রার প্রকৌশলী মোঃ ওহিদুজ্জামান স্বাক্ষরিত ওয়েবসাইটে প্রকাশিত দুইটি পৃথক পৃথক অফিস আদেশে এসব তথ্য জানানো হয়।

তদন্ত কমিটির অফিস আদেশে বলা হয়েছে, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণিবিদ্যা বিভাগের ২০১৭-২০১৮ শিক্ষাবর্ষের স্নাতক (সম্মান) শ্রেণির শিক্ষার্থী জনাব তিথি সরকার (Tithy Sarker), রোলঃ B-170604057, কর্তৃক ইন্টারনেট-এ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ‘ফেসবুক’-এ ইসলাম ধর্মের মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সঃ) সম্পর্কে কটুক্তি করে ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত করার ঘটনা তদন্ত করে প্রতিবেদন দাখিল করার জন্য জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় আইন-২০০৫ এর ধারা ১১(১০) এর উপাচার্য মহোদয়ের ক্ষমতাবলে সিন্ডিকেটের অনুমোদন সাপেক্ষে একটি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।উক্ত তদন্ত কমিটিতে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজনেস স্টাডিজ অনুষদের ডীন ও সিন্ডিকেট সদস্য অধ্যাপক ড. এ. কে. এম. মনিরুজ্জামানকে আহবায়ক এবং ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগের অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ আবদুল অদুদ ও কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. মোঃ আবু লায়েককে সদস্য হিসেবে রাখা হয়েছে। উক্ত কমিটির সাচিবিক দায়িত্ব পালন করবেন ডেপুটি রেজিস্ট্রার জনাব মোঃ আল হেলাল উদ্দিন। কমিটিকে আগামী তিন সপ্তাহের মধ্যে উপাচার্য মহোদয়ের নিকট রিপোর্ট পেশ করতে অনুরোধ করা হয়েছে।

উল্লেখ্য যে, তিথি সরকার দীর্ঘদিন ধরে সামাজিক মাধ্যম ফেসবুকে বিভিন্ন পোস্ট ও কমেন্টের মাধ্যমে ইসলাম ধর্মানুভূতিতে আঘাত করে এমন মন্তব্য করে আসছিলেন। সেসব পোস্ট ও কমেন্টের স্ক্রিটশর্ট বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন গ্রুপ ও ছাত্র-ছাত্রীদের পোস্টের মাধ্যমে ভাইরাল হলে সামাজিক মাধ্যমে এ বিষয়ে সমালোচনার ঝড় উঠে। এরপরই তিথি সরকারকে স্থায়ী বহিষ্কারের দাবি জানায় বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। এদিকে তিথী সরকারের বহিষ্কার দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল কর্মসূচি করেছে বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ শিক্ষার্থীরা। সাধারণ শিক্ষার্থীদের পক্ষ থেকে তিথি সরকারকে স্থায়ী বহিষ্কার করতে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনকে ৭২ ঘণ্টার আল্টিমেটাম দেওয়া হয়। বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন সাধারণ শিক্ষার্থীদের এই দাবি ৭২ ঘণ্টা পূর্বেই মেনে নিয়ে তিথি সরকারকে সাময়িক বহিষ্কার করে।

অন্যদিকে, অভিযোগ ওঠার পর নিজের নিরাপত্তা চেয়ে রাজধানীর পল্লবী থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেছেন তিথী সরকার। তার ফেসবুক আইডি হ্যাক করে কেউ দীর্ঘদিন যাবত ধর্ম নিয়ে কটূক্তি করছে বলে নিজের নিরাপত্তা চেয়ে আইনি সহায়তা নিয়েছেন তিনি। অভিযোগের পরপরই বাংলাদেশ ছাত্র অধিকার পরিষদ জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের দপ্তর সম্পাদক তিথী সরকারকে সংগঠন থেকে সাময়িকভাবে বহিস্কার করা হয়েছে। একই সাথে তিথি সরকারকে কেন স্থায়ীভাবে বহিষ্কার করা হবেনা সে বিষয়ে ৭ দিনের মধ্যে কারণ দর্শানোর জন্যও সংগঠন থেকে আদেশ দেয়া হয়েছে। অনেকে তিথি সরকার ছাত্র অধিকার পরিষদে যুক্ত থাকার বিষয়ে সংগঠনটির নিন্দা জানায়। এরপরই জবি ছাত্র অধিকার পরিষদ থেকে তিথি সরকারকে সাময়িক ভাবে বহিস্কারের বিজ্ঞপ্তি দিতে দেখা যায়। তিথি সরকার বিশ্ব হিন্দু সংগ্রাম পরিষদ, বাংলাদেশ শাখার সাংস্কৃতিক সম্পাদক ও জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের আহ্বায়ক হিসেবেও দায়িত্বরত রয়েছেন।