মোংলার বুড়বুড়িয়া এলাকার একটি বাড়ীতে দুর্ধর্ষ চুরি

মোঃএরশাদ হোসেন রনি, মোংলাঃ মোংলার বুড়বুড়িয়া এলাকার একটি বাড়ীতে দুর্ধর্ষ চুরির ঘটনা ঘটেছে। রাতের আধারে কাঠের ঘরের দরজার কড়া খুলে ভিতরে প্রবেশ করে ইষ্টিল ও কাঠের আলমারীতে থাকা স্বণার্লংকার,নগদ টাকাসহ অন্যান্য মালামাল নিয়ে যায় চোরেরা। 

উপজেলার সুন্দরবন ইউনিয়নের ৪ নম্বর ওয়ার্ডের বুড়বুড়িয়া গ্রামের মৃত হামিক শিকারীর বসত বাড়ীর ঘরে সোমবার(১৮ জানুয়ারী) দিবাগত রাতে চুরির ঘটনা ঘটেছে। ওই রাতে বাড়ীতে কেউ না থাকায় স্থানীয় সংঘবদ্ধ চোরের দল কৌশলে কাঠের ঘরের দরজার ভিতরে লাগানো কড়া খুলে ভিরতে ঢুকে। পরে ঘরে থাকা ইষ্টিল ও কাঠের দুইটি আলমারীর তালা ভেঙ্গে তাতে থাকা দুই ভরি ওজনের স্বর্ণের গহনা, একটি মনিটর ও একটি ল্যাপটপ, গৃহকর্মী তানজিনা বেগমের (৪৫) হজের যাওয়ার জন্য গচ্ছিত নগদ ৯০ হাজার টাকাসহ অন্যান্য মালামাল নিয়ে যায়। পরে মঙ্গলবার(১৯ জানুয়ারী) সকালে তানজিনা বেগমের প্রতিবেশী আত্মীয় সাফিয়া বেগম (৫০) ওই ঘরের দরজা খোলা দেখে সেখানে যান। গিয়ে দেখেন ঘরের মধ্যে সকল মালামাল এলোমেলো পড়ে রয়েছে। তারপর গৃহকর্মী তানজিনা বেগমকে মোবাইলে বিষয়টি জানান। গত ১ জানুয়ারী তানজিনা বেগম তার মেয়ে কেয়া শিকারীকে (২৬) নিয়ে কক্সবাজারে ছেলে তরু শিকারীর কাছে বেড়াতে যান। চুরির এ ঘটনায় পরিবারটির পক্ষ থেকে থানায় অভিযোগ দেয়ার প্রস্তুতি চলছে।

গৃহকর্মী তানজিনা বেগম বলেন, তিনি হজ্ব করতে যাওয়ার উদ্দেশ্য নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে অল্প অল্প করে ৯০ হাজার টাকা বাড়ীতে জমিয়ে রেখেছিলেন। সেই টাকা, দুই ভরি ওজনের স্বর্ণের গহনা, বিদেশ থেকে ছেলের পাঠানো মনিটর ও ল্যাপটপসহ আরো বেশ কিছু মালামাল চোরে চুরি করে নিয়ে গেছে। বিষয়টি পুলিশকে জানানো হয়েছে বলে জানান তিনি। 

এ ঘটনায় মোংলা থানার সেকেন্ড অফিসার এসআই জাহাঙ্গীর আলম বলেন, চুরির খবরটি শুনেছি, সেখানে পুলিশও পাঠানো হয়েছে। এ বিষয়ে অভিযোগ পেলেই আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানান তিনি।

শেয়ার করুন
পূর্ববর্তী পোষ্ট
পরবর্তী পোষ্ট