মোংলা পৌর নির্বাচনকে কেন্দ্র করে কাউন্সিলর প্রার্থীর নারীকর্মীকে শ্লীলতহানী

মোঃএরশাদ হোসেন রনি, মোংলাঃমোংলা পোর্ট পৌরসভার নির্বাচনে ২নং ওয়ার্ডে আ্ওয়ামীলীগ মনোনীত কাউন্সিলর প্রার্থী শরিফুল ইসলামের উটপাখি প্রতীকের নারীকর্মীকে শ্লীলতাহানির চেষ্টা করেছে প্রতিদ্বন্ধি প্রার্থী জলিল শিকদার ওরফে টাইগার জলিল। কাউন্সিলর প্রার্থী এইচ এম শরিফুল ইসলাম এব্যাপারে জলিল শিকদারের বিরুদ্ধে উপজেলা নির্বাহি অফিসার, উপজেলা নির্বাচন অফিসার এবং মোংলা থানা অফিসার ইনচার্জ এর কাছে লিখিত অভিযোগ জানিয়েছেন।


লিখিত অভিযোগে আওয়ামীলীগ মনোনীত কাউন্সিলর প্রাথর্ী এইচ এম শরিফুল ইসলাম জানান প্রতিদ্বন্ধি কাউন্সিলর প্রার্থী আব্দুল জলিল শিকদার ওরফে টাইগার জলিল গত ৯ জানুয়ারি বেলা ১২টার সময়ে মোংলার ৭নং কলেজ রোডে উট পাখি প্রতীকের নির্বাচনী প্রচারনার সময় নারীকর্মী লোটাস বেগম স্বামী আলমগীর হোসেনথর মুখের নেকাব খুলে শ্লীলতাহানির চেষ্টা করে। প্রত্যক্ষদর্শী লিলি বেগম এবং নাসিমা বেগম জলিল শিকদারের বিরুদ্ধে আনীত শ্লীলতাহানির অভিযোগের সত্যতা স্বীকার করেছেন। ১০ জানুয়ারি রবিবার বেলা ১২টায় মোংলা প্রেসক্লাবে সাংবাদিক সম্মেলনে কাউন্সিলর প্রার্থী এইচ এম শরিফুল ইসলাম বলেন জলিল শিকদার একজন ভয়ংকর সন্ত্রাসী এবং বৈধ অস্ত্র ব্যবহার করে নিরীহ ভোটারদের ভয়ভীতি দেখাচ্ছে। দিনে দুপুরে নারীকর্মীর শ্লীলতাহানির অভিযোগে জলিল শিকদার ওরফে টাইগার জলিলের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবী করছি। এবিষয়ে জানতে চাইলে মোংলা থানার ওসি মোঃ ইকবাল বাহার চৌধুরী বলেন অভিযোগ পেয়েছি বিষয়টি নির্বাহি ম্যাজিস্ট্রেটথর তদন্ত করছেন। নির্বাহি ম্যাজিস্ট্রেট নয়ন কুমার রাজবংশী জানান অভিযোগ পাওয়ার সাথে সাথে ঘটনাস্থলে যাই কিন্তু অভিযুক্ত জলিল শিকদার ওরফে টাইগার জলিলকে পাওয়া যায়নি। আইন-শৃংখলা বাহিনীসহ সংশ্লিষ্ট সবাইকে সতর্ক থাকতে বলেছি যাতে ঘটনার পুনরাবৃত্তি না ঘটে।


শেয়ার করুন
পূর্ববর্তী পোষ্ট
পরবর্তী পোষ্ট