মনিরামপুরের খেদাপাড়া ইউনিয়নে আলোচনার শীর্ষে সম্ভব চেয়ারম্যান প্রার্থী সরদার ইকবাল হোসেন

আব্দুল জব্বার, স্টাফ রিপোর্টার।।যশোরের মনিরামপুর উপজেলার খেদাপাড়া ইউনিয়নের ১ নং ওয়ার্ড খেদাপাড়া গ্রামের মৃত্য সাহেব আলী সরদারের চার ছেলে মেয়ের মধ্যে তৃতীয় জন হলেন, সরদার ইকবাল হোসেন। ছোট বেলা থেকে অন্যায়ের প্রতিবাদী একজন মানুষ। যার কারণে তখন থেকেই সকলের কাছে ভালোবাসায় সিক্ত হন তিনি। সরদার ইকবাল হোসেনের দাদা মরহুম আবুল হোসেন সরদারও ছিলেন, তৎকালীন বৃহত্তর খেদাপাড়া ওয়ার্ডের মেম্বার। মেম্বারের কার্যক্রম ও সমাজিক কর্মকান্ডে সবার কাছে ছিল প্রশাংসার পাত্র। দাদার মূখে বঙ্গবন্ধুর জীবনির গল্প শুনে বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে অনুপ্রানিত হয়ে বেড়ে উঠা সরদার ইকবাল হোসেনের, স্বপ্ন জাগে  মানুষের পাশে দাড়িয়ে কিছু করার। 

তিনি ২০০৪ সালে খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ালেখা কালে ছাত্রলীগের রাজনীতিতে প্রবেশ করে অল্প দিনের মধ‍্যে, রাজনীতিতে সক্রিয় হয়ে ওঠেন। ২০০৭ সাল থেকে ২০২০ সাল পর্যন্ত  একটানা ১৩ বছর ওয়াড আওয়ামী লীগের সভাপতির দায়িত্ব পালন করে এসেছেন সরদার ইকবাল হোসেন। দলের জন্য নিবেদিত এই নেতা সবার ভালবাসার মানুষ হয়ে উঠে। নিজ ওয়াড পেরিয়ে ইউনিয়নের প্রতিটা গ্রামের পাড়া মহল্লার মানুষের কাছে অতি প্রিয় পাত্র হয়ে উঠেছে। তাই ইউনিয়ন বাসীর দাবীর মুখে হাসি ফোটাতে আগামী ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে দলীয় মনোনয়ন পেয়ে নির্বাচন করবেন বলে জনসংযোগ চালিয়ে যাচ্ছেন তিনি।
 
ইউনিয়ন পরিষদের সম্ভব‍্য চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী বর্তমান ইউনিয়ন কৃষকলীগের সহ-সভাপতি  সরদার ইকবাল হোসেন, বঙ্গবন্ধু ও বর্তমান প্রধানমন্ত্রী জাতীর জনকের কন্যা জননেেত্রী শেখ হাসিনার, হাতকে শক্তিশালী করতে কাজ করতে চান।  এজন্য ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে দলীয় মনোনয়ন নিয়ে ইউনিয়ন বাসীর পাশে দাড়িয়ে সকলের সেবা প্রদানে কাজ করবেন বলে আশা প্রকাশ করেন। করোনা মহামারী সহ বর্তমান শীতে ইউনিয়নের শীতার্তদের মধ্যে শীত বস্ত্র বিতরন করেছেন। দীর্ঘদিন ধরে ইউনিয়নবাসীর প্রতিটা বাড়ি বাড়ি যাওয়া অব্যাহত রেখেছেন। ইউনিয়নটির কেউ অসুস্থ্য থাকলে স্ব-শরীরে উপস্থিত হয়ে সার্বিক খোঁজ খবর নেওয়া ও কেউ মারা গেলে ছুটে যান তিনি। এছাড়া যুব ও কিশোরদের আনন্দ মুখী করতে পর্যায়ক্রমে  ফুটবল,জার্সি, ক্রিকেট সামগ্রী বিতরণ করেছেন একাধিকবার। সামাজিক কর্মকান্ডে ভূমিকা রেখেই চলেছেন সরদার ইকবাল হোসেন। 

সরদার ইকবাল হোসেন, প্রকৃত ভোটের মাধ্যমেই নির্বাচিত হবার নীতিতে বিশ্বাসী হওয়ায় ভোটারদের কাছেই যাচ্ছেন তিনি। আগামী আসন্ন ইউনিয়ন নির্বাচনে সরদার ইকবাল হোসেনকে নৌকার প্রার্থী করা হবে, এমন প্রত্যাশা ইউনিয়নের রাজনৈতিক নেতাদের । সাধারণ মানুষের সঙ্গে কথা হলে তারা জানান, আমরা এবার যুবক চেয়ারম্যান প্রাথী সরদার ইকবাল হোসেনকে, চেয়ারম্যান প্রার্থী পেলে খুব খুশি হবো। আমরা চাই তার মতো লোক চেয়ারম্যান হোক। সে চেয়ারম্যান হলে আমরা ইউনিয়ন বাসী সকল ধরনের সহযোগিতা পাবো। সরদার ইকবাল হোসেন আমাদের বিপদ আপদে ছুটে আসে। সব ধরনের সহযোগিতা করে থাকে। করোনা পরিস্থিতিতে সবচেয়ে বেশি যাকে কাছে পাওয়া গেছে সে আমাদের নেতা সরদার ইকবাল হোসেন ।

নির্বাচন বিষয় সরদার ইকবাল হোসেনের নিকট জানতে চাইলে তিনি জানান, দল যদি আমাকে মনোনয়ন দিয়ে ইউনিয়ন পরিষদে চেয়ারম‍্যান পদে নির্বাচন করার সুযোগ দেয় তাহলে ইউনিয়নবাসীর মনের আশা পূর্ণ করে, জননেত্রীর উন্নয়ন আমার ইউনিয়নবাসীর মাঝেও ছড়িয়ে দিবো।

শেয়ার করুন
পূর্ববর্তী পোষ্ট
পরবর্তী পোষ্ট