চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে করা প্রকাশিত সংবাদের বিরুদ্ধে মুক্তিযোদ্ধা ও শিক্ষকদের নিন্দার ঝড়

মোঃএরশাদ হোসেন রনি, মোংলাঃ
মোংলায় এক ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে ভিত্তিহীন অভিযোগের ভিত্তিতে সংবাদ পরিবেশনের কারণে মুক্তিযোদ্ধাদের মাঝে উত্তেজনা সৃষ্টি হয়েছে। মিঠাখালী ইউনিয়নের চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে করা সংবাদের জেরে বৃহস্পতিবার সকালে সংবাদ সম্মেলনও করেন মুক্তিযোদ্ধাদের একপক্ষ। 

এদিন মুত্তিযোদ্ধা যুগল কিশোর হালদার লিখিত বক্তব্যে চেয়ারম্যন ইস্রাফিল হাওলাদারের বিরুদ্ধে বিভিন্ন পত্রিকায় প্রকাশিত হওয়া সংবাদের তীব্র নিন্দা জানিয়ে এ সংবাদ মিথ্যা ও বানোয়াট বলেও উল্লেখ করেন। 

তিনি এসময় দাবি করেন, সাজানো ও দুরভিসন্ধিমূলক এ সংবাদ একটি স্বার্থান্বেষী মহল পূর্ব থেকেই নিজেদের মধ্যে যোগসুত্র স্থাপন করে প্রকাশিত করে। কল্পনাপ্রসূত ও অসৎ উদ্দেশে এই প্রতিবেদনটি করানো হয় বলেও দাবি করেন একাত্তরের রনাঙ্গনের এই মুক্তিযোদ্ধা। 

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন, মিঠাখালী ইউনিয়ন মক্তিযোদ্ধা কমান্ডার শেখ আব্দুল ওয়াদুদ, মক্তিযোদ্ধা আব্দুল আজিজ ও রফিকুল ইসলাম। 

এছাড়া চেয়ারম্যান ইস্রাফিল হাওলাদারের বিরুদ্ধে শিক্ষক লাঞ্চনার অভিযোগে করা প্রকাশিত অপর একটি সংবাদেরও প্রতিবাদ জানানো হয় সংবাদ সম্মেলনে। স্থানীয় শান্তিময় নিম্ন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক পরিতোষ মিস্ত্রি লিখিত বক্তেব্যে ওই সংবাদের নিন্দা জানান। সংবাদটি উদ্দ্যেশেমূলক বলে দাবি করা হয় এসময়। 

এ সংবাদ সম্মেলনে প্রধান শিক্ষক পরিতোষ মিস্ত্রি ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন শিক্ষক ভবেষ চন্দ্র হাওলাদার, দুলাল হালদার, ধিমান মিস্ত্রি, বিথিকা শিকদার, কৃত্যনিয়া,  ও বিশ্বনাথ মজুমদার। 

প্রসঙ্গত, গত দুদিন ধরে মিঠাখালী ইউনিয়নের চেয়ারম্যন ও উপজেলা যুবলীগের সভাপতি ইস্রাফিল হাওলাদারকে শিবির ক্যাডার উল্লেখ করে তার সন্ত্রাসী বাহিনী গড়ে তুলে নিরীহ মানুষের ওপর অত্যাচার ও শিক্ষকদের লাঞ্চনা করার সংবাদ প্রকাশ পায়। 
এ ব্যাপারে চেয়ারম্যান ইস্রাফিল বলেন, 'আমার কিছু বলার নাই যা সত্য মুক্তিযোদ্ধা ও শিক্ষরাই তাই সংবাদ সম্মেলনে বলেছেন।

শেয়ার করুন
পূর্ববর্তী পোষ্ট
পরবর্তী পোষ্ট