সিরাজগঞ্জে নিষিদ্ধ ঔষধ রাখায় ৩৫ হাজার টাকা জরিমানা

মাসুদ রানা,সিরাজগঞ্জ জেলাপ্রতিনিধিঃ
সিরাজগঞ্জ শহরের বাহিরগোলা এবং  নর্থ বেঙ্গল  মেডিকেল কলেজর সামনে থেকে বিভিন্ন ঔষধের দোকানে অভিযান পরিচালনা করে ৩৫ হাজার  টাকা জরিমানা করেছে ভ্রাম্যমাণ আদালত।গতকাল বুধবার  বিকালে  জেলা প্রশাসনের সহকারী কমিশনার ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট ফয়সাল আহমেদের নেতৃত্বে এ ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালিত হয়।অভিযানে সার্বিক সহায়তা করেন মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রন অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক  জাহিদুল ইসলাম,ড্রাগ সুপার  আহসান হাবীব সহায়তা করেন।আনসার ব্যাটেলিয়ান ও পুলিশ বাহিনী। জেলা প্রশাসনের সহকারী কমিশনার ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট ফয়সাল আহমেদ  জানান , বুধবার গোপন তথ্যের ভিত্তিতে ঔষধ ফার্মেসীগুলোতে এ অভিযান চালানো হয়। এসময় অনুমোদন না থাকা স্বত্বেও প্যাথেডিন, মরফিন জাতীয় মেডিসিন বিক্রি করায় তিন ফার্মেসীকে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে পরিচালিত মোবাইল কোর্টে অর্থদন্ড প্রদান করা হয়েছে এবং ঔষধ ব্যবসায়ীদের এ বিষয়ে সতর্ক করা হয়েছে।ব্যথানাশক হিসেবে পরিচিত পেথ্যেডিন, মরফিন মাদক হিসেবে অনেক মাদক সেবীরা ক্রয় করে থাকে।ক্ষেত্র বিশেষে যার মূল্য ২৫০-৩০০ টাকা রাখা হয় প্রত্যেকটির জন্য।এভাবে মাদকের ব্যবহার বৃদ্ধি পাওয়ায় মাদক সেবীর সংখ্যা কমছে না।অনেক ঔষধ ব্যবসায়ী অধিক লাভের আশায় লাইসেন্স থাকা স্বত্বেও অবৈধভাবে প্যাথোডিন,মরফিন মাদকসেবীেদের কাছে বিক্রি করে দিচ্ছে/দিয়ে থাকেন।এ বিষয়ে মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রন অধিদপ্তর,সিরাজগঞ্জ শাখা তাদের কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছেন।ইতোমধ্যে অবৈধ ব্যবসায়ীদের চিহ্নিত করা হয়েছে এবং নিয়ন্ত্রন আরোপ করা হয়েছে।জরিমানাকৃত  ফার্মেসীগুলো হলো, খান ফার্মেসীর মালিক লিটনকে ১৫হাজার টাকা, নীলা ফার্মেসীর  মালিক জাহাঙ্গীরকে  ১০ হাজার টাকা এবং তামান্না ফার্মেসীর মালিক  সুমনকে  ১০হাজার টাকা অর্থ  দন্ড  করা  হয়।এছাড়াও র্ফার্মেসীগুলোর লাইসেন্স নবায়নকরন সহ নিয়ম মেনে ফার্মেসী পরিচালনা করার  নির্দেশনা প্রদান করেন এই সহকারী  কমিশনার  ।জনস্বার্থে এ অভিযান চলতে থাকবে।

শেয়ার করুন
পূর্ববর্তী পোষ্ট
পরবর্তী পোষ্ট