কিশোরগঞ্জে টেন্ডারের বালু ক্রয় করে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের কপালে চিন্তার ভাঁজ

লাতিফুল আজম,নীলফামারী প্রতিনিধিঃনীলফামারীর কিশোরগঞ্জে বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ডের তত্ত্বাবধানে চাড়ালকাটা নদী খননের স্তুপকৃত বালু,পত্রিকায় প্রকাশিত টেন্ডার বিজ্ঞপ্তি মাধ্যমে সিয়াম ট্রেডার্স-ঢাকা, ১৬ লাখ টাকা মূল্যে ক্রয় করে নির্ধারিত মাপের বালু চুরি হয়ে যাওয়ায় ১০ শতাংশ বালু  মজুদ পাওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। 
উপজেলার বাহাগিলী ইউনিয়নের উঁচু সন্ন্যাসী পাড়া গ্রামের ৩৫ ও ৩৬ নং বালুর লটে এ ঘটনাটি ঘটে। এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও সৈয়দপুর পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী বরাবর লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।
 অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, সিয়াম ট্রেডার্সের স্বত্বাধিকারী সোহাগ হোসেন, সরেজমিন অনুসন্ধান না করে পত্রিকায় প্রকাশিত টেন্ডার আহ্বানের মাধ্যমে ১৬লাখ টাকায় ৩৫ ও ৩৬ নং লটের বালু সরবরাহ করতে এসে দৃশ্যমান হয়, স্তুপকৃত ৯০শতাংশ বালু রাতের আধারে চুরি হয়ে যাওয়ায় ২ লটে ১০ শতাংশ বালু জমা আছে। উক্ত  লটের বালু লুট হয়ে যাওয়ায় সঠিক মাপ বুঝিয়ে না দেয়ায় সিয়াম ট্রেডার্সের স্বত্বাধিকারী পুঁজি হারিয়ে নিঃস্ব হয়ে পড়েছেন। সেখানে উক্ত পরিমান বালু না থাকায় অন্য দিক থেকে মাপের পরিমান বালু বুঝে দেয়ায় জন্য সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাকে অনুরোধ জানান।  
এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী অফিসার রোকসানা বেগম জানান অভিযোগ পেয়েছি, ওনি বালুর লট দেখে কিংবা না দেখে ক্রয় করেছেন তা আমি জানিনা। আর বালু ইজারা দেয়ার ইখতিয়ার সম্পূর্ণরুপে পানি উন্নয়ন বোর্ডের।
সৈয়দপুর পানি উন্নয়ন বোর্ডের নিবার্হী প্রকৌশলী কৃষ্ণ কমল সরকার বলেন, সিয়াম ট্রেডার্স বালুর লট, কোড দেখে বালু ক্রয় করেছেন। ওই লটের বালু ইতিমধ্যে সরবরাহ করে এখন ভিন্ন কথা বলছেন। 
বাহাগিলী ইউপি চেয়ারম্যান আতাউর রহমান শাহ্ দুলু বলেন, সিয়াম ট্রেডার্সের মালিক বালু সরবরাহ করার  আগে অধিকাংশ বালু রাতের আধারে চুরি হয়ে যায়।

শেয়ার করুন
পূর্ববর্তী পোষ্ট
পরবর্তী পোষ্ট