আগুন কেড়ে নিল ৩টি পরিবারের সর্বস্ব

মোঃএরশাদ হোসেন রনি, মোংলা:     
আগুনে পুড়ে ঘরের শেষ চিহ্নটুকুও আর নেই। যেখানটায় ঘর ছিল তার এক কোনায় পড়ে আছে আধা পোড়া চাল। এর পাশেই ছড়িয়ে-ছিটিয়ে রয়েছে পুড়ে যাওয়া জরুরী কিছু কাগজ পত্র।পোড়া ঘরের পাশেই নির্বাক বসে আছেন দিন মজুর আবু তালহা,শেখ মোঃ বাশার ও মোঃ আলমঙ্গীর।এখন কি করবেন, কোথায় যাবেন দিশা খুঁজে পাচ্ছে না অসহায় মানুষ গুলো। মোংলা উপজেলার মিঠাখালী ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের পূর্বপাড়া এলাকায় আগুনে পুড়েছে ৩টি অসহায় দিনমজুর  পরিবারের বসত ভিটা।

শনিবার(২৭ফেব্রুয়ারি) বিকালে মোংলা উপজেলার মিঠাখালি ইউনিয়নে ১নং ওয়ার্ড এলাকার শিকদার বাড়ি এ অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটে। পরে এলাকাবাসীরা চেষ্টা চালিয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। এসময়  ঘটনায় ফায়ার সার্ভিসের সদস্যরা রাস্তা ভাল না থাকায় গাড়ি নিয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছানোর আগেই বাড়ির সব ঘরগুলো পুড়ে যায়। পরে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন মিঠাখালি ইউপি চেয়ারম্যান ইস্রাফিল হাওলাদার,৪নং ওয়ার্ড সদস্য মোঃ আজমল শেখ সহ স্থানিয় আরো ইউপি সদস্য ও ফায়ার সার্ভিসের একটি ইউনিট।

ফায়ার সার্ভিসের ইউনিট প্রধান আসাদুজ্জামান  জানান, তাৎক্ষনিক ভাবে আগুন লাগার কারণ ও ক্ষতির পরিমাণ তদন্ত সাপেক্ষে নিরূপণ করা যাবে। তবে স্থানীয়রা ধারনা করছে বৈদ্যুতিক শর্ট সার্কিট থেকে আগুনের সূত্রপাত ঘটতে পারে। 

প্রতিবেশীরা বলেন,তাদের পরিবার গুলোর সদস্যেদের পড়নের কাপড় ছাড়া সব  কিছুই পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। ভয়াবহ এ অগ্নিকান্ডে পুড়ে ৩ টি ঘরসহ আনুমানিক প্রায় ১০ লক্ষ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে প্রাথমিক ভাবে ধারনা করা হচ্ছে।

এদিকে সন্ধ্যায় আগুনে ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা পরিদর্শন করেন মোংলা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা কমলেশ মজুমদার। তিনি ক্ষতিগ্রস্ত  পরিবার গুলোকে নগদ ২০০০টাকা,২বস্তা চাল,কম্বল দেয়ার আশ্বাস প্রদান করেন। রবিবার সকালে পরিবার গুলোর কাছে এই সহায়তা পৌছে দেয়া হবে জানান তিনি ।

শেয়ার করুন
পূর্ববর্তী পোষ্ট
পরবর্তী পোষ্ট