যেখানেই থাকিনা কেন গান নিয়েই থাকি - সাহেদ দুলাল

বিনোদন ডেস্কঃ ছেলেবেলা থেকেই গান নিয়ে যার এক আকাশ স্বপ্ন। শুধুমাত্র গানের নেশায় যিনি সুযোগ পেলেই দেশে ছুটে আসেন। গেয়ে যান নতুন নতুন গান। বলছি প্রবাসী কণ্ঠশিল্পী সাহেদ দুলাল এর কথা। পেশাদার কাজে সিঙ্গাপুরে থাকেন তিনি। আছেন দীর্ঘদিন যাবৎ। কিন্তু মনেপ্রাণে তিনি একজন গানপ্রেমী মানুষ। আর তাই ছুটিতে দেশে আসলেই নতুন নতুন গান করেন তরুণ এই সঙ্গীতশিল্পী। 
গ্রামে বেড়ে ওঠা সাহেদ দুলাল ছোট বেলা থেকেই গানের পিছনে ছোটা শুরু করেন। এলাকায় যে কোন সঙ্গীতানুষ্ঠান সহ স্কুল কিংবা কলেজের ফাংশন গুলোতে নিয়মিত গান গাইতেন তিনি। আর এভাবেই এগিয়ে যান সঙ্গীতাঙ্গনে। শিক্ষক, সহপাঠী ও বন্ধুদের উৎসাহ ও অনুপ্রেরণায় পা বাড়ান মিডিয়া পাড়ায়। আর এভাবেই এক সময় পরিচয় ঘটে স্বনামধন্য গীতিকবি প্রদীপ সাহার সাথে। আর এরপরই অডিও পাড়ায় নিজের নাম লেখান সাহেদ দুলাল। একসময়ের সঙ্গীতাঙ্গন কাঁপানো জুটি প্রদীপ সাহা ও রাজেশ এর কথা ও সুরে এবং ইবরার টিপুর সঙ্গীতায়োজনে ২০০৮ সালে বাজারে আসে সাহেদ দুলাল এর প্রথম একক এ্যালবাম 'তোমার জন্য নিখোঁজ হবো'। এ্যালবামটি প্রকাশিত হয়েছিলো স্বনামধন্য প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান সিএমভি এর ব্যানারে। 
প্রথম একক এ্যালবাম দিয়েই বেশ সাড়া ফেলেন সাহেদ। এরপর 'নষ্ট যুবক' শিরোনামে একটি মিক্সড এ্যালবামে গান করেন তিনি। কিন্তু সিভি বা এ্যালবাম যুগের অবসানের পর বেশকিছু সিংগেল ট্র‍্যাক উপহার দিয়েছেন তরুণ এই মেধাবী সঙ্গীতশিল্পী। আর এই গানগুলো লিখেছেন ও সুর করেছেন গীতিকবি যাযাবর পলাশ এবং প্রদীপ সাহা ও রাজেশ। সঙ্গীতায়োজন করেছেন গুণী সঙ্গীত পরিচালক ওয়াহেদ শাহীন এবং মুশফিক লিটু। গানগুলো যথাক্রমে অডিও ভিডিও প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান বঙ্গ বিডি, শীশ মিডিয়া, সিএমভি সহ আরও বেশকিছু ব্যানার থেকে প্রকাশিত হয়। এছাড়াও প্রকাশের অপেক্ষায় রয়েছে বেশকিছু নতুন গান।
এদিকে গানের নেশায় তিনি সিঙ্গাপুরেই গড়ে তুলেছেন জিরো ইফেক্ট নামের একটি ব্যান্ড দল। বাংলাদেশী সহ এই ব্যান্ড দলে সদস্য হিসেবে রয়েছেন বেশ কয়েকটি দেশের নাগরিক। সিঙ্গাপুরের বিভিন্ন কনসার্ট ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে নিয়মিত এই ব্যান্ড সহ গান পরিবেশন করেন সাহেদ দুলাল। 
গান ও বাস্তবতা নিয়ে তরুণ এই কণ্ঠশিল্পী জানালেন, আমি গানকে প্রচন্ডরকম ভালোবাসি। গান যেন আমার রক্তের সাথে মিশে গেছে। আর তাই যেখানেই থাকিনা কেন গানকে ছাড়তে পারিনা। যদিওবা চলমান করোনা পরিস্থিতিতে সিঙ্গাপুরে সবধরনের আয়োজন বন্ধ রয়েছে। তবে ঘরে বসেই গানের রেওয়াজ ও আড্ডা হয় নিয়মিত। তবে এবার দেশে ফিরলে পুরোপুরি গান নিয়েই ব্যস্ত থাকতে চাই। সবার কাছে দোয়া চাই, যেন সুস্থ ও সুন্দরভাবে আবারও দেশে ফিরতে পারি এবং আমার অপ্রকাশিত গানগুলো প্রকাশের পাশাপাশি আরও নতুন নতুন গান সবাইকে উপহার দিতে পারি।

শেয়ার করুন
পূর্ববর্তী পোষ্ট
পরবর্তী পোষ্ট