২৫ মার্চের কালরাতের পর বাঙ্গালী জাতি সশস্ত্র সংগ্রাম শুরু করে- উপমন্ত্রী হাবিবুন নাহার

মোঃএরশাদ হোসেন রনি, মোংলা  ২৫ মার্চের কালরাতের পর বাঙ্গালী জাতি সশস্ত্র শুরু করে। পাকিস্তানিদের নৃশংসতম হত্যাকান্ডের পর বাঙ্গালী জাতি বুঝতে পেরেছিলো অহিংস পথে আর দাবী আদায় করা সম্ভব না। তাই ২৫ মার্চ রাতেই বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বেতার বার্তার মাধ্যমে স্বাধীনতা ঘোষনা করেন। পরিশেষে নয় মাস সশস্ত্র সংগ্রামের পর বাঙ্গালী জাতি স্বাধীনতা লাভ করে। জাতীয় গণহত্যা দিবস দিবস উপলক্ষে মোংলায় ২৫ মার্চ বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় মোংলা পোর্ট পৌরসভার আয়োজনে রিমঝিম চত্বরে মোমবাতি প্রজ্জ্বলন কর্মসুচির আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ের উপমন্ত্রী বেগম হাবিবুন নাহার এমপি একথা বলেন।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা ৭টায় মোমবাতি প্রজ্জ্বলন কর্মসুচিতে সভাপতিত্ব করেন পৌর মেয়র বীর মুক্তিযোদ্ধা শেখ আব্দুর রহমান। আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন উপজেলা চেয়ারম্যান আবু তাহের হা্ওলাদার, উপজেলা নির্বাহি অফিসার কমলেশ মজুমদার, সহকারি কমিশনার (ভূমি) নয়ন কুমার রাজবংশী, অফিসার ইনচার্জ মোঃ ইকবাল বাহার চৌধুরী ও উপজেলা আ্ওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মোঃ ইব্রাহিম হোসেন। কর্মসুচিতে উপস্থিত ছিলেন পৌর আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক শেখ কামরুজ্জামান জসিম, মহিলা আওয়ামীলীগের দুলালী শিকারী, সাবেক উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মোঃ নূর আলম শেখ, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী তালুকদার আক্তার ফারুক, ইউপি চেয়ারম্যান মোল্লা মোঃ তারিকুল ইসলাম, রিকশা শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক এরশাদুজ্জামান সেলিম প্রমূখ। অন্যদিকে সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় উপজেলা প্রশাসন আয়োজিত দামেরখন্ড বধ্যভূমিতে শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পন, মোমবাতি প্রজ্জ্বলন, আলোচনা সভা ও ব্লাকআউট কর্মসুচিতে সভাপতি এবং প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন উপজেলা নির্বাহি অফিসার কমলেশ মজুমদার। আলোচনা সভায় অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন সহকারি কমিশনার (ভূমি) নয়ন কুমার রাজবংশী, সুন্দরবন ইউপি চেয়ারম্যান শেখ কবির হোসেন, আওয়ামীলীগ নেতা সদ্য বিনা প্রতিদ্বন্ধিতায় নির্বাচিত মিঠাখালী ইউপি চেয়ারম্যান উৎপল মন্ডল প্রমূখ। এছাড়া আওয়ামীলীগ এবং সহযোগী সংগঠনের উদ্যোগে  গণহত্যা দিবস উপলক্ষে শহীদ মুক্তিযোদ্ধাদের স্মরণে শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পন এবং মোমবাতি প্রজ্জ্বলন করা হয়।  এছাড়া উপজেলা প্রশাসনের নির্দেশে জাতীয় কর্মসুচির অংশ হিসেবে  রাত ৯ টা থেকে ৯টা ১ মিনিট পর্যন্ত বাতি নিভিয়ে সমগ্র উপজেলায় ব্লাকআউট কর্মসুচি পালন করা হবেমোংলায় উপমন্ত্রী হাবিবুন নাহার
২৫ মার্চের কালরাতের পর
বাঙ্গালী জাতি সশস্ত্র সংগ্রাম শুরু করে

মোঃএরশাদ হোসেন রনি, মোংলা   
২৫ মার্চের কালরাতের পর বাঙ্গালী জাতি সশস্ত্র শুরু করে। পাকিস্তানীদেও নৃশংসতম হত্যাকান্ডের পর বাঙ্গালী জাতি বুঝতে পেরেছিলো অহিংস পথে আর দাবী আদায় করা সম্ভব না। তাই ২৫ মার্চ রাতেই বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বেতার বার্তার মাধ্যমে স্বাধীনতা ঘোষনা করেন। পরিশেষে নয় মাস সশস্ত্র সংগ্রামের পর বাঙ্গালী জাতি স্বাধীনতা লাভ করে। জাতীয় গণহত্যা দিবস দিবস উপলক্ষে মোংলায় ২৫ মার্চ বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় মোংলা পোর্ট পৌরসভার আয়োজনে রিমঝিম চত্বরে মোমবাতি প্রজ্জ্বলন কর্মসুচির আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ের উপমন্ত্রী বেগম হাবিবুন নাহার এমপি একথা বলেন।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা ৭টায় মোমবাতি প্রজ্জ্বলন কর্মসুচিতে সভাপতিত্ব করেন পৌর মেয়র বীর মুক্তিযোদ্ধা শেখ আব্দুর রহমান। আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন উপজেলা চেয়ারম্যান আবু তাহের হা্ওলাদার, উপজেলা নির্বাহি অফিসার কমলেশ মজুমদার, সহকারি কমিশনার (ভূমি) নয়ন কুমার রাজবংশী, অফিসার ইনচার্জ মোঃ ইকবাল বাহার চৌধুরী ও উপজেলা আ্ওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক মোঃ ইব্রাহিম হোসেন। কর্মসুচিতে উপস্থিত ছিলেন পৌর আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক শেখ কামরুজ্জামান জসিম, মহিলা আওয়ামীলীগের দুলালী শিকারী, সাবেক উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মোঃ নূর আলম শেখ, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী তালুকদার আক্তার ফারুক, ইউপি চেয়ারম্যান মোল্লা মোঃ তারিকুল ইসলাম, রিকশা শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক এরশাদুজ্জামান সেলিম প্রমূখ। অন্যদিকে সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় উপজেলা প্রশাসন আয়োজিত দামেরখন্ড বধ্যভূমিতে শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পন, মোমবাতি প্রজ্জ্বলন, আলোচনা সভা ও ব্লাকআউট কর্মসুচিতে সভাপতি এবং প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন উপজেলা নির্বাহি অফিসার কমলেশ মজুমদার। আলোচনা সভায় অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন সহকারি কমিশনার (ভূমি) নয়ন কুমার রাজবংশী, সুন্দরবন ইউপি চেয়ারম্যান শেখ কবির হোসেন, আওয়ামীলীগ নেতা সদ্য বিনা প্রতিদ্বন্ধিতায় নির্বাচিত মিঠাখালী ইউপি চেয়ারম্যান উৎপল মন্ডল প্রমূখ। এছাড়া আওয়ামীলীগ এবং সহযোগী সংগঠনের উদ্যোগে  গণহত্যা দিবস উপলক্ষে শহীদ মুক্তিযোদ্ধাদের স্মরণে শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পন এবং মোমবাতি প্রজ্জ্বলন করা হয়।  এছাড়া উপজেলা প্রশাসনের নির্দেশে জাতীয় কর্মসুচির অংশ হিসেবে  রাত ৯ টা থেকে ৯টা ১ মিনিট পর্যন্ত বাতি নিভিয়ে সমগ্র উপজেলায় ব্লাকআউট কর্মসুচি পালন করা হবে.

শেয়ার করুন
পূর্ববর্তী পোষ্ট
পরবর্তী পোষ্ট