আশাশুনি উপজেলার মরিচ্চাপ নদীর উপর বেইলি ব্রিজ ভেঙ্গে ইট বোঝাই ট্রাক নদীতে

আহসান উল্লাহ বাবলু আশাশুনি সাতক্ষীরা প্রতিনিধি :সাতক্ষীরার আশাশুনি উপজেলার মরিচ্চাপ নদীর বেইলি ব্রিজ ভেঙে ইটবোঝাই ট্রাক নদীতে, উপজেলা সদরের সাথে সাতক্ষীরা জেলার যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন। সোমবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে ইট বোঝাই ট্রাক সেতুর উপর দিয়ে যাওয়ার সময় ব্রিজটি ভেঙ্গে পড়ে নদীর চরে। তবে, এসময় ট্রাকে থাকা চার জনের কারও কোন ক্ষতি না হলেও ব্রীজে যাতয়াত বন্ধ হয়ে যাওয়ায় সাততক্ষীরা-আশাশুনি মেইন সড়কে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে জনদুর্ভোগ চরমে উঠেছে।

সরেজমিনে দেখা গেছে আশাশুনি উপজেলার মরিচ্চাপ নদীর উপর বেইলি ব্রিজ দীর্ঘদিন ধরে জরাজীর্ণ অবস্থায় ছিল কোনরকম জোড়াতালি দিয়ে সড়ক ও জনপথ বিভাগ চলাচলের উপযোগী করে তোলে। দীর্ঘদিন ধরে ব্রিজ সংস্কারের মাধ্যমে যোগাযোগ রাখা হয়েছিল এবং সড়ক ও জনপথ বিভাগের পক্ষ থেকে ব্রীজের দুই পাশে সাইনবোর্ডে মাধ্যমে সতর্ক করা হয়েছিল ৫ টনের বেশি কোন যানবাহন ব্রিজের উপর দিয়ে যাতায়াত করতে পারিবে না। 
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, সেতু কর্তৃপক্ষ ক্ষতিগ্রস্ত ব্রীজে ১০ টনের বেশী মালামাল বহনে নিষেধাজ্ঞা জারী করলেও ইট ভাটার ট্রাক চালকরা সেটা মানেন না। সকালে উপজেলার শ্রীকলস গ্রামের আব্দুস সামাদের এমএমবি ইটভাটা থেকে প্রায় ১৮ টন ইট লোড নিয়ে ৩ টি ট্রাক সাতক্ষীরার দিকে রওয়ানা দেয়। এ সময় স্থানীয়রা সেতুর উপর দিয়ে না যাওয়ার জন্য ট্রাক চালকদের নিষেধ করেন। তার পরও তারা তাদের নিষেধ না শুনে ট্রাক গুলো নিয়ে ওই সেতুুর উপর দিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। এক পর্যায়ে দ্বিতীয় ট্রাকটি (যশোর ট ১১-১৭৬৫) ওই ব্রীজের মাঝামাঝি স্থানে যাওয়ার পর বিকটশব্দে ব্রীজের শীড ভেঙ্গে ইট সহ নদীর চরে আটকে যায়। পরে সেখানে সব ধরনের যানবাহন পারাপার বন্ধ হয়ে যায়। দুপুর পর্যন্ত সড়ক ও জনপদ বিভাগের কাউকে ঘটনাস্থলে আসতে দেখা যায়নি। দুর্ঘটনা কবলিত ট্রাকের লোকজন তাদের ইট সরাতে দেখা যায়। বর্তমানে ব্রীজের সরু বীট দিয়ে অত্যন্ত ঝুঁকি নিয়ে সাতক্ষীরা-আশাশুনি সড়কে পায়ে হেটে যাতায়াত করছেন সাধারন যাত্রীরা।

ট্রাক ড্রাইভার সাতক্ষীরা শহরের ইটাগাছার নাইমুর রহমান জানান, তার ট্রাকে প্রায় ১৩ টন ইট লোড ছিলো। আগের গাড়ীটিতে প্রায় ১৮ টন ইট বোঝাই ছিলো। ওই গাড়ীটি যাওয়ার পরপরই তিনি গেলে দুর্ঘটনায় পড়ে যান। তবে, এতে তাদের কারও কোন ক্ষতি হয়নি। তিনি আরো জানান, এরকম মালামাল নিয়ে তারা নিয়মিত যাওয়াত করে থাকলেও কোন সমস্যা হয়না। যত দ্রুত সম্ভব ট্রাকটি অপসারন করানোর চেষ্টা চলছে বলে তিনি জানান।

এ বিষয়ে আশাশুনি উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এবিএম মোস্তাকিম এর নিকট জানতে চাইলে তিনি এ প্রতিবেদককে বলেন, আশাশুনি মরিচ্চাপ নদীর উপর বেইলি ব্রিজ দীর্ঘদিন ধরে অবহেলিতভাবে ছিল কোনরকম সংস্কার করে এই উপজেলার সাথে সাতক্ষীরা জেলার যোগাযোগ রক্ষা করা হয়েছিল। কিন্তু ব্রিজে ভারী যানবাহন চলাচল নিষেধ এর পরেও অতিরিক্ত লোড নিয়ে ইট বোঝাই ট্রাক যাওয়ার ফলে বেইলি ব্রিজটি ভেঙে যায়ে এ জনপদের মানুষ এখন চরম ভোগান্তিতে পড়েছে। আমি সড়ক ও জনপথ বিভাগের কর্মকর্তা সাথে কথা বলেছি তিনি আশ্বস্ত করেছেন তিন থেকে চার দিনের মধ্যে ব্রিজটি মেরামত করা এবং যোগাযোগ ব্যবস্থা স্বাভাবিক করা হবে।তবে, স্থাণীয়রা দ্রুত এই সেতু সংস্কার করে যাতায়াত ব্যবস্থা সচল করার জন্য সংশ্লিষ্ট দপ্তরসহ প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করেন।

শেয়ার করুন

প্রকাশকঃ

অফিসঃ হাজী সিরাজুল ইসলাম সুপার মার্কেট, মোহাম্মদপুর মোড়, ছুটিপুর রোড, ঝিকরগাছা, যশোর।

পূর্ববর্তী প্রকাশনা
পরবর্তী প্রকাশনা