এতটুকু বুক কাঁপেনা জি এম মুছা

ভয়ংকর করোনার থাবায় ভয়ে জড়ো সড়ো বিশ্বব্যাপী আবাল বৃদ্ধ বনিতা,জানালা খুলে তাকাবার সাধ্যকোথায়, একটু হাঁছি, কাশি দিলেই আপনজন তো দূরের কথা ;বাড়ীর পোষা হাঁস- মুরগী –কুকুর; বিড়াল ছানাটাও পর্যন্ত দৌড়ে পালিয়ে বাঁচতে চায়,অবুঝ শিশুটি মায়ের বুকে মুখলুকাতে দ্বিধায় ভোগে, রাতের আঁধরে মাকে ছেড়ে একাকা মেঝেতে ঘুমায়,এত কিছুর পরও রোজারেখেও  যুবতি রেহাই পায়না ধর্রষকের হাত থেকে! করোনা রোগীকে ধর্ষন করতে ছাড়েনি পুলিশ- ডাক্তার- তার চেয়ে বড় বেশিভয়ংকর ভাড়া দিতে ব্যার্থ  আর্ন্তসত্বা নারীকে পাড়িয়ে মারার নিষ্টুর অত্যাচারের দৃশ্য! মানুষ কতটা পাষান- আর হৃদয় হীন হলে এমনটি করতে পারে মানুষ,শুনেছি কাক নাকি কাকের মাংশ খায়না,এখনতো কেহ কাহকে ছাড়তে রাজিনয়, উগ্র কাকেরাও যেমন মৃত নারী কাককে  ধর্ষন করতে ছাড়েনা নিষ্টুর ধর্ষক খুনি,অত্যাচারী সাধারন মানুষ, রাজা-বাদশারাও তাদের অত্যাচারীর খড়গ   কখোনও দেখিনি - খাপমুক্ত করতে, খুনি ধর্ষকের তেমনি নেই মায়া- মমতা মনুষত্ব বোধ এরাকি জম্মায়নি কোন নারীর গর্ভে? ওদের এতটুকু বুঁক কাঁপেনা নারী,শিশু-ধর্ষনের পর হত্যা-মানুষ খুনের উষ্ণ তাঁজা রক্তের ¯স্রোত দেখেও ।।

শেয়ার করুন

প্রকাশকঃ

অফিসঃ হাজী সিরাজুল ইসলাম সুপার মার্কেট, মোহাম্মদপুর মোড়, ছুটিপুর রোড, ঝিকরগাছা, যশোর।

পূর্ববর্তী প্রকাশনা
পরবর্তী প্রকাশনা