১নং বর্ণি ইউনিয়নসহ দেশবাসীকে মহান বিজয় দিবসের শুভেচ্ছা

বাংলাদেশের স্বাধীনতার ইতিহাসে এক গৌরবগাঁথা দিন ১৬ ডিসেম্বর। বাঙালির নিজস্ব জাতিসত্ত্বার উন্মেষের দিন। এদিনেই মহান স্বাধীনতাযুদ্ধে বিজয় সূচিত হয়। বিশ্বের মানচিত্রে অভ্যুদয় ঘটে স্বাধীন বাংলাদেশের। মহান বিজয় দিবসের এই শুভক্ষণে আমার প্রাণপ্রিয় ১নং বর্ণি ইউনিয়নসহ দেশবাসীকে জানাই আন্তরিক শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন।

দীর্ঘ দুই যুগের বেশি শোষণশৃঙ্খল ভেঙে বাঙালি জাতি ৩০ লক্ষ শহীদের রক্তের বিনিময়ে ১৯৭১ সনে এই দিনে একটি স্বাধীন সার্বভৌম রাষ্ট্র অর্জন করে।
নয় মাসের রক্তঝরা সশস্ত্র সংগ্রামের মাধ্যমে এই গৌরব দীপ্ত বিজয় ।সকল মুক্তিযোদ্ধা তিরিশ লক্ষ মা বোন আর বীরাঙ্গনাদেরপ্রতি গভীর শ্রদ্ধা , পুষ্পাঞ্জলী সহ দিবসটি পালন করা হয়।

বাঙালি জাতির শ্রেষ্ঠ অর্জন স্বাধীনতা। কিন্তু তা একদিনে অর্জিত হয়নি। দীর্ঘ আন্দোলন সংগ্রাম ও নানা চড়াই-উৎরাই পেরিয়ে ১৯৭১ সালের ২৬ মার্চ বাঙালি জাতির অবিসংবাদিত নেতা সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ঐতিহাসিক স্বাধীনতার ঘোষণা দেন। বঙ্গবন্ধুর আহ্বানে ও নেতৃত্বে দীর্ঘ নয় মাস সশস্ত্র মুক্তিযুদ্ধের মাধ্যমে অর্জিত হয় চুড়ান্ত বিজয়। আমি আজ বিনম্র চিত্তে পরম শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করছি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে,যাঁর অপরিসীম ত্যাগ ও আপোষহীন নেতৃত্বে পৃথিবীর মানচিত্রে জন্ম নেয় স্বাধীন-সার্বভৌম বাংলাদেশ। বিনম্র শ্রদ্ধা জানাই মহান স্বাধীনতাযুদ্ধে বীর শহীদদের প্রতি।


                        আকরাম হোসাইন
'ব্যবস্থাপনা সম্পাদক-দৈনিক খবরের ডাকঘর পত্রিকা'
'মৌলভীবাজার জেলা প্রতিনিধি-দৈনিক কপোতাক্ষ নিউজ পত্রিকা'-'প্রতিনিধি-দৈনিক ইতি কথা পত্রিকা'

শেয়ার করুন
পূর্ববর্তী পোষ্ট
পরবর্তী পোষ্ট