জীবন মানেই যুদ্ধ



একজন মানুষের জীবন শুরু হয় জন্ম থেকেই।আর তখন থেকে প্রত‍্যেকে জীবনের মানে খুঁজে বেড়ায় কিন্তু এই জীবনের মানে কি খুঁজে শেষ করা যায়?শেষ করা যায় না কোনোদিন। জীবন মানেই অঘোষিত একটা যুদ্ধ। এই যুদ্ধ হলো প্রতিনিয়ত লড়াই করে বেঁচে থাকার যুদ্ধ।


রাস্তায় চলতে ফিরতে কখনও ভাবি প্রতিনিয়ত রিকশা চালায় যে ব্যক্তি তার কি জীবনের প্রতি কোনো বিরক্তি নেই? আবার সারাদিন যে ব‍্যাক্তি গার্মেন্টসে প্রতিনিয়ত কাপড় সেলাই করে কখনও সেই ব্যক্তিটাকেও নিয়ে ভাবি,তার কি কাজ করতে কোনো বিরক্তি নেই?রাস্তায় প্লাস্টিকের জিনিসপত্র খোঁজাখুঁজি করা টোকাইদের কি ঐসব কাজ করতে   বিরক্তি নেই?


অবশ্যই ওদের বিরক্তি আছে। তবুও বেঁচে থাকার সংগ্রাম করেই আমাদের বেঁচে থাকতে হয়।প্রতিনিয়ত বুকে কষ্ট, আর মুখে হাসি নিয়েই তাদের পথচলা,শুধুমাত্র তাদের কাছেই জীবনের মানেটা একটু ভিন্ন।

জীবনকে বাচিয়ে রাখতে জীবনের ক্ষুধা মেটাতে,আর ছেলেমেয়েদের মুখে হাসি ফোটাতে,শুধুমাত্র দু মুঠো ভাতের জন্য তাদের নিত্যকার জীবনের কাজকর্ম যেটা জীবনের জন্য কঠিন একটা যুদ্ধ।এই হাড়ভাঙা পরিশ্রম, এই দু মুঠো ভাতের জন্য যুদ্ধ এটাই হয়তো জীবনের জন্য বড় কিছু।যেটা অট্রলিকায় যারা বসবাস করেন তারা সহজে বুঝতে পারবেনা।

মধ্যবিত্ত মানুষের জীবনের জন্য সবসময় কঠিন পরিশ্রম করতে হয় । তাদের ইচ্ছা,স্বপ্ন সব বাস্তবতার কাছে হার মানে। নিজ পরিবার,ভাইবোনদের জন্য নিজের  জীবনের বেশির ভাগ সময়ই অতিবাহিত করে দিনমজুর সাধারণ শ্রমিকরা। তাদের জীবনের মানে অনেকটা ভিন্ন। এসব কথা যখনই ভাবি তখনই সবকিছু কেমন যেনো গোলমেলে মনে হয়।

জীবন সংগ্রামের মাধ্যমে আমরা আমাদের জীবনের রঙ বদলাই। একজন মানুষ তখনই সুখী হয়। যখন তিনি কঠোর পরিশ্রম করে তার পরিবারের সবার চাহিদা সহজে মেটাতে পারে।পরিশ্রম করে একজন টোকাই হয়তোবা  বিত্তবান হতে পারে না তবে টোকাই তার জীবনকে সবসময় সুখী হিসেবে আমাদের সমাজের কাছে পেশ করতে পারে।কিন্তু যখন একজন, বিত্তবান গরীব হয়ে যায় তখনই তিনি বুজতে পারে একজন টোকাই এর জীবন কিভাবে অতিবাহিত হয়। 

আসলে সবার জীবন এমন ভাবেই অতিবাহিত হয়। আজ কেউ ধনী, আবার কাল সেই ব‍্যাক্তি গরীব হয়ে যায়। ভাঙাগড়ায় জীবন চলে,আর জীবন জীবনের মতোই চলে। কিন্তু যুদ্ধটা সবাইকেই করতে হয়। কেউ জেতে আবার কেউ জীবন যুদ্ধে হারে।

নবীন লেখক মোঃ ফিরোজ খান
ঢাকা বাংলাদেশ


শেয়ার করুন
পূর্ববর্তী পোষ্ট
পরবর্তী পোষ্ট