কিশোরীগঞ্জে জোর করে বাল্য বিয়ে দেওয়ায় স্কুল ছাত্রীর আত্মহত্যা

 কিশোরীগঞ্জে জোর করে বাল্য বিয়ে দেওয়ায় স্কুল ছাত্রীর আত্মহত্যা



মোঃ লাতিফুল আজম কিশোরগঞ্জ নীলফামারী প্রতিনিধি:

জোর করে বাল্য বিয়ে দেওয়ায় গলায় দঁড়ি দিয়ে আত্মহত্যা করেছে পিংকি আক্তার(১৪) নামে স্কুল ছাত্রী। 


আজ বৃহস্পতিবার(১৭ সেপ্টেম্বর/২০২০) দুপুরে ঘটনাটি ঘটে কিশোরীগঞ্জ উপজেলার চাঁদখানা ইউনিয়নের বসুনিয়া পাড়া গ্রামের মেয়েটির নানার বাড়িতে। নিহত পিংকি একই ইউনিয়নের বোর্ড অফিসপাড়া গ্রামের কৃষক রাজু মিয়ার মেয়ে ও চাঁদখানা দ্বি-মূখী উচ্চ বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেনীর ছাত্রী। বিকালে পুলিশ পিংকির লাশ ময়না তদন্তের জন্য উদ্ধার করে জেলার মর্গে প্রেরন করে।


পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, ৩২ দিন আগে পিংকির সঙ্গে বিয়ে হয়। নীলফামারী সদরের চাপড়া সরনজামী ইউনিয়নের লতিফ চাপড়া গ্রামের সাঈদুল ইসলামের ছেলে লাজু মিয়া(২৫) সাথে। লাজু মিয়া উত্তরা ইউপিজেডের একটি কারখানায় কাজ করে।


এলাকাবাসী জানায়, বাল্য বিয়েতে মত ছিলনা পিংকির। বিয়ে হলেও পিংকিকে আনুষ্ঠানিকভাবে তুলে দেয়া দেয়া হয়নি। তাই সে বাবার বাড়ি ছেড়ে নানা শাহাদৎ হোসেনের বাড়িতে থাকতো। 


গতকাল বুধবার(১৬ সেপ্টেম্বর/২০২০) তার স্বামী শ্বশুড়বাড়ি গেলে তাকে পাঠিয়ে দেয়া হয় পিংকির অবস্থানের নানার বাড়িতে। সেখানে তার স্বামী রাতে অবস্থান করে। এ অবস্থায় সবার অগোচরে সে ঘরের ভেতর গলায় ওড়না পেচিয়ে আত্মহত্যা করে বলে পরিবারের দাবি। তবে এলাকাবাসীর অভিযোগ পিংকির অনিচ্ছার বিরুদ্ধে তাকে বাল্যবিয়ে দেওয়া হয়েছে।


কিশোরীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ আব্দুল আউয়াল বলেন, বাল্য বিয়ের কারনে পিংকির আত্মহত্যার ঘটনায় থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা নিয়ে লাশ ময়না তদন্তের জন্য জেলার মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে।

নতুনধারা চাঁদপুর শাখা আহবায়ক কাজল হাসান

নতুনধারা চাঁদপুর শাখা আহবায়ক কাজল হাসান






প্রেস বিজ্ঞপ্তিঃ ডা. কাজল হাসানকে আহবায়ক ও সাকিলা আহমেদ মায়াকে সদস্য সচিব করে নতুনধারা বাংলাদেশ এনডিবি চাঁদপুর জেলা আহবায়ক কমিটি অনুমোদন দিয়েছেন চেয়ারম্যান মোমিন মেহেদী, সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান শান্তা ফারজানা এবং মহাসচিব নিপুন মিস্ত্রী। ১৭ সেপ্টেম্বর বিকেলে অনুমদিত ১১ সদস্য বিশিষ্ট কমিটির অন্যান্যরা হলেন- যুগ্ম আহবায়ক রবিন আহসান, নির্লিপ্ত ইব্রাহিম, সদস্য- আজহার করিম চৌধুরী, সাবিত আনোয়ার, খান মোহাম্মদ জারিফ, আনোয়ারা পারভীন, বিনয় চন্দ্র ভদ্র, দবিরুল আলম খান এবং মোস্তফা কামাল রাজ।  

নভেম্বরে অনুষ্ঠিতব্য নতুনধারা বাংলাদেশ এনডিবির জাতীয় সম্মিলনকে কেন্দ্র করে সকল শাখার কার্যকরি কমিটি বিলুপ্ত করে আহবায়ক কমিটি গঠনের সূত্রতায় ‘রি-অরাগানাইজিং টিম’-এর তত্বাবধায়নে দেশের ৪৪ টি জেলা ও ১০৪ টি উপজেলার কার্যকরি কমিটি বিলুপ্ত করার ধারাবাহিকতায় আহবায়ক কমিটি অনুমোদনের কার্যক্রম শুরু হয়েছে। এই কর্মসূচী চলাকালে বায়ান্নকে প্রেরণা-একাত্তরকে চেতনা এবং সকল বীরের প্রতি যথাযথ সম্মান প্রদর্শনের মধ্য দিয়ে দারিদ্র-দুর্নীতি-সন্ত্রাস-খুন-গুমমুক্ত বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে আগ্রহী যে কেউ চাইলেই ০১৫৭২-৩০৯৮৭৪ নাম-ঠিকানা-জাতীয় পরিচয়পত্র নম্বর লিখে এসএমএস করলেই প্রাথমিক সদস্য করে রিপ্লাই ম্যাসেজ এবং কল করা হবে বলে জানিয়েছেন প্রেসিডিয়াম মেম্বার রাজেন্দ্র দাস মন্টু।


তোর মাঝেই আমি রুদ্র অয়ন

তোর মাঝেই আমি  রুদ্র অয়ন





আমার পরাণ প্রিয়া তুই
তোর মাঝেই যে আমি রই,
চোখের আড়াল হলে তুই
আমি বড় বেসামাল হই! 

শরৎ কালে কাশের বনে
ফুলেরা যেনো নাচন তোলে,
হৃদয়ে আমার শুধু তুই
তোর প্রেমেতে হৃদয় দোলে। 

জীবন জুড়ে থাক না তুই
আয় না এক হয়েই রই,
আমার মাঝে শুধুই তুই
তোর মাঝেতেও আমি হই।


- রুদ্র অয়ন
ঢাকা, বাংলাদেশ    

সিরাজগঞ্জে বেলকুচিতে স্কুল ছাত্রীকে বাল্য বিয়ে থেকে রক্ষা করলেন ইউএনও

 সিরাজগঞ্জে বেলকুচিতে স্কুল ছাত্রীকে বাল্য বিয়ে থেকে রক্ষা করলেন ইউএনও




 মাসুদ রানা সিরাজগঞ্জ জেলাপ্রতিনিধিঃসিরাজগঞ্জে বেলকুচিতে স্কুল ছাত্রীকে বাল্য বিয়ে থেকে রক্ষা করলেন ইউএনও

সিরাজগঞ্জের বেলকুচি পৌরসভার দেলুয়া এলাকায় পঞ্চম শ্রেণির ছাত্রীকে বাল্য বিয়ে থেকে রক্ষাকরলেন বেলকুচি উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও নির্বাহী  ম্যাজিস্ট্রেট মো. আনিসুররহমান। বুধবার বিকালে দেলুয়া গ্রামের কনের বাড়ীতে আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী নিয়েভ্রাম্যমাণ আদালত উপস্থিত হন। তখন কনের বাড়ীতে বেলকুচি পৌরসভার দেলুয়া গ্রামের পঞ্চমশ্রেণির ছাত্রী (১৫) এর সাথে টাংগাইল জেলার সদর উপজেলার চর ক্ষিদির গ্রামের বেকার যুবক(১৯) এর সাথে বিয়ের আয়োজন চলছিল। বর ও কনে অপ্রাপ্ত বয়স্ক হওয়ায় ভ্রাম্যমাণ আদালত বাল্যবিয়ে বন্ধ করে কনের মাতা ও বরের নানা প্রত্যেককে ৫ হাজার টাকা করে জরিমানা করেন এবং বরেরপিতা কনের মাতাকে বাল্য বিয়ের কুফল সম্পর্কে বুঝালে তারা তাদের ভুল বুঝতে পারেন এবংতাদের ছেলে ও মেয়েকে প্রাপ্ত বয়স্ক না হওয়া পর্যন্ত বিবাহ দিবেন না বলে মুচলেকা দেন। এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন পেশকার মো. হাফিজ উদ্দিন ও আনসার বাহিনীর সদস্যবৃন্দ।

আশাশুনি মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ অবসরের পরও দায়িত্ব পালন করছেন

 আশাশুনি মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ অবসরের পরও দায়িত্ব পালন করছেন

আহসান উল্লাহ বাবলু  সাতক্ষীরা জেলা প্রতিনিধি: আশাশুনি মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ সাইদুল ইসলাম চাকুরীর বয়সসীমা শেষ হলেও কলেজের দায়িত্ব পালন করায় বিষয়টি নিয়ে ব্যাপক আলোচনা হচ্ছে। কিভাবে তিনি দায়িত্ব পালন করছেন এমন প্রশ্ন ঘুরপাক খাচ্ছে। বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের (স্কুল ও কলেজ) জনবলকাঠামো ও এমপিও নীতিমালা- ২০১৮ এ উল্লেখ আছে, “---বয়স ৬০ বছর পূর্ণ হবার পর কোন প্রতিষ্ঠান প্রধান/সহঃ প্রধান/শিক্ষক-কমচারীকে কোনো অবস্থাতেই পুনঃ নিয়োগ কিংবা চুক্তিভিত্তিক নিয়োগ দেওয়া যাবেনা।” শিক্ষা মন্ত্রণালয় ০৬/০৬/২০১১ তাং পরিপত্র ও ০৯/০৭/২০১২ তাং সংশোধনী মোতাবেক দেখা যায় প্রতিষ্ঠান প্রধান (অধ্যক্ষ/প্রধান শিক্ষক) না থাকলে সহকারী প্রধান/উপাধ্যক্ষ দায়িত্ব পালন করবেন, তিনি না থাকলে জ্যেষ্ঠতম সহকারী শিক্ষক/ জ্যেষ্ঠ সহকারী অধ্যাপক দায়িত্ব পালন করবেন। কিন্তু আশাশুনি মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ ০১/০৯/২০২০ তাং ৬০ বছর পূর্ণ হয়েছে। এরপরও তিনি দায়িত্ব হস্তান্তর না করে দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এমপিও নীতিমালা ও কাঠামো-২০১৮ মোতাবেক দায়িত্ব পালনের সুযোগ না থাকায় এনিয়ে ব্যাপক আলোচনা ও সামালোচনা হচ্ছে। শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তরের বেসরকারি কলেজ শাখার ১০/০৮/২০২০ তাং ৩৭.০২.০০০০.১০৫.২৭.০৩৬.১৯.২৫১ নং স্মারকে অধ্যক্ষের দায়িত্বভার হস্তান্তরকরণ প্রসঙ্গে একপত্রে দেখাগেছে, ঢাকা মহানগরের ইউনিভারসিটি উইমেনস ফেডারেশন কলেজের অধ্যক্ষ আফরোজা ইয়াসমিন এর বয়স ৬০ বছর পূর্ণ হওয়ায় জ্যেষ্ঠ শিক্ষকের কাছে দায়িত্বভার হস্তান্তর না করায় পত্র প্রাপ্তির ৭ (সাত) কর্মদিবসের মধ্যে জ্যেষ্ঠ শিক্ষকের কাছে ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষের দায়িত্বভার প্রদানের নির্দেশ প্রদান করেন। সুতরাং আশাশুনি মহিলা কলেজের অধ্যক্ষের বয়স ৬০ বছর পূর্ণ হওয়ার পরও কিভাবে দায়িত্ব পালন করছেন তা ক্ষতিয়ে দেখতে উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের সুদৃষ্টি কামনা করেছেন সংশ্লিষ্টরা। এব্যাপারে কলেজের অধ্যক্ষ সাইদুল ইসলাম জানান, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় আমাকে গণিত শিক্ষক হিসাবে এক বছরের পাঠ দানের অনুমতি দিয়েছে। জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজুলেশন ও চাকুরী বিধি অনুযায়ী গভর্নিং বডি সিনিঃ শিক্ষক হিসাবে আমাকে এক বছরের জন্য ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষের দায়িত্ব অনুমোদন করেছেন। এখানে কোন অনিয়ম করা হয়নি।

আশাশুনিতে মনসা ও বিশ্বকর্মা পূজা অনুষ্ঠিত

আশাশুনিতে মনসা ও বিশ্বকর্মা পূজা অনুষ্ঠিত





আহসান উল্লাহ বাবলু সাতক্ষীরা জেলা  প্রতিনিধি: আশাশুনি উপজেলার কুল্যা ইউনিয়নের পুরোহিতপুরে প্রতি বছরের ন্যায় এবারও সর্পদেবী মনসা ও বিশ্বকর্মা পূজা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৃহস্পতিবার পুরোহিতপুর দাশপাড়া মন্দির কমিটির আয়োজনে দিনব্যাপী এ পূজায় নিজেদের মনষ্কামনা পূরণে নানা ধরনের মানত করেছেন ভক্তরা। সকাল থেকে বিভিন্ন এলাকার ভক্তরা আসতে থাকে, দুপুরের দিকে ভক্তদের আগমনে উক্ত এলাকা কানায় কানায় পরিপূর্ণ হয়ে ওঠে। সরেজমিনে ঘুরে দেখা যায়, বিভিন্ন বয়সের ও বিভিন্ন পেশার মানুষ এ পূজা উপলক্ষে আনন্দ উপভোগ করেছেন। পূজাকে কেন্দ্র করে প্রতি বছর উক্ত স্থানে একদিনের জন্য মেলা বসে থাকে। মেলার স্টলগুলোর মধ্যে মৃৎ শিল্পের স্টলগুলো সবার কাছে বেশ জনপ্রিয়। এছাড়াও বঁাশের তৈরী শিল্প, মনোহরীসহ বিভিন্ন ধরনের স্টল উক্ত মেলায় স্থান পায়। মেলা উপলক্ষ্যে সকল ধর্মের মানুষ সেখানে উপস্থিত হয় এবং বিভিন্ন ধরনের জিনিস ক্রয় করেন। মেলাটি যেন ধর্ম বর্ণ নির্বিশেষে সকল মানুষের মিলন মেলায় পরিনত হয়। পূজা ও মেলা উপলক্ষে সেখানে উপস্থিত হয়ে ভক্ত ও দর্শনার্থীদের সাথে শুভেচ্ছা বিনিময় করেন, কুল্যা ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল বাছেত আল হারুন চৌধুরী, কুল্যা ইউপির সম্ভাব্য চেয়ারম্যান প্রার্থী সাজ্জাদুল হক টিটুল ও এসএম ওমর ছাকী পলাশ, ৭নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য আলমগীর হোসেন আঙ্গুর, সম্ভাব্য ইউপি সদস্য প্রার্থী আব্দুল মোমিন, মহিলা মেম্বার আনোয়ারা খাতুন, সম্ভাব্য মহিলা মেম্বার প্রার্থী আরতী সরকার। এছাড়াও আশাশুনি উপজেলার বিভিন্নস্থানে মনসা ও বিশ্বকর্মা পূজা অনুষ্ঠিত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে।

আশাশুনির হাঁড়িভাঙ্গা বাজার আধুনিকায়নে মতবিনিময় সভা

আশাশুনির হাঁড়িভাঙ্গা বাজার আধুনিকায়নে মতবিনিময় সভা





আহসান উল্লাহ বাবলু সাতক্ষীরা জেলা প্রতিনিধি   :


আশাশুনি উপজেলার সদর ইউনিয়নের হাড়িভাঙ্গা বাজার আধুনিকায়নের লক্ষ্যে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল সকালে আশাশুনি সদর ইউপি চেয়ারম্যান স ম সেলিম রেজা মিলনের সভাপতিত্বে হাড়িভাঙ্গা মৎস্য সেটে এ মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়। মতবিনিময় সভায় সভাপতির বক্তব্যে সদর ইউপি চেয়ারম্যান ও হাড়িভাঙ্গা বাজার কমিটির সভাপতি স ম সেলিম রেজা মিলন বলেন, সদর ইউনিয়নের ঐতিহ্যবাহী হাঁড়িভাঙ্গা বাজার আধুনিকায়ন ও মডেল বাজার হিসাবে বাস্তবায়নের লক্ষ্যে আমি কাজ করে যাচ্ছি। ঐতিহ্যবাহী এ বাজারের উন্নয়ন সাধন করাই আমার একমাত্র লক্ষ্য। এ ব্যাপারে তিনি সকলের সহযোগিতা কামনা করেন।মতবিনিময় সভায় উপস্থিত ছিলেন অবঃ সার্জেন্ট রুহুল কুদ্দুস, ডাঃ বিশ্বজীৎ মন্ডল, ইউপি সদস্য সন্তোষ কুমার মন্ডল, বিশিষ্ঠ ব্যাবসায়ী উত্তম পাইন, গোপাল চন্দ্র সরকার, নবকুমার সরকার, পঙ্কজ সরকার, মোঃ ফজলে করিম, মোঃ মতিউর রহমান, মোঃ মফিজুল খাঁ, বাজারের ব্যবসায়ী ও সকল শ্রেণী পেশার মানুষ।

বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের লোকজনের হাতে প্রেমিকা রক্তাক্ত!

বিয়ের দাবিতে প্রেমিকের  লোকজনের হাতে প্রেমিকা রক্তাক্ত!




সম্রাট হোসেন, ঝিনাইদহ প্রতিনিধিঃঝিনাইদহের শৈলকুপায় বিয়ের দাবীতে পেুমিকের বাড়িতে যাওয়ায় প্রেমিকাকে মারপিট করেছে প্রেমিকের লোকজন প্রেমিকা বর্তমান আহত অবস্থায়, হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে। জানা যায়, শৈলকুপার খাস বকদিয়া গ্রামের মনিরুল ইসলামের মেয়ে সকিনা খাতুন(১৯) ঢাকায় গার্মেন্টসে চাকুরী করতো সেই সুবাদে একই গ্রামের জিহাদের ছেলে জিকু (২১)ঢাকায় একই প্রতিষ্ঠানে চাকুরী নেয় এরপর তাদের উভয়ের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। জিকু বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে তার ভাড়াকৃত বাসায় সকিনাকে নিয়ে অবস্থান করে এক পর্যায়ে  তাদের মধ্যে  শারিরীক সম্পর্ক গড়ে উঠে । ঢাকায় অবস্থান কালে সখিনা বিয়ের কথা বললে জিকু তালবাহানা শুরু করে এবং ঢাকা থেকে পালিয়ে শৈলকুপা চলে আসে বলে সখিনা জানায়। উপায়ান্তর না দেখে সখিনা ঢাকা থেকে বাড়ি চলে আসে।বাড়িতে আসার পর বিয়ের দাবীতে পেুমিক জিকুর বাড়িতে গেলে প্রেমিকা সখিনাকে জিকু ও তার পরিবারের লোকজন মারপিট করে আহত করে।,আহত অবস্থায় সখিনাকে  হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।  


 এ ব্যপারে শৈলকুপা থানা ইনচার্জ জাহাঙ্গীর হোসেন বলেন অভিযোগ পেয়েছি তদন্তপূর্বক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

ঝিকরগাছায় সংবাদ প্রকাশ করায় সাংবাদিককে অশ্রাব্যভাষায় গালি ও হুমকি : থানায় জিডি

ঝিকরগাছায় সংবাদ প্রকাশ করায় সাংবাদিককে অশ্রাব্যভাষায় গালি ও হুমকি : থানায় জিডি

ঝিকরগাছা (যশোর) প্রতিনিধিঃযশোরের ঝিকরগাছা দৈনিক সত্যপাঠ ও জাতীয় সাপ্তাহিক আঁচড় পত্রিকার ঝিকরগাছা প্রতিনিধি এবং দৈনিক নওয়াপাড়া পত্রিকার ঝিকরগাছা অফিস সহকারী সাংবাদিক আফজাল হোসেন চাঁদকে সংবাদ প্রকাশের জেরধরে গালিগালাজ ও হুমকি প্রদর্শন করেছে একটি মহল। এই বিষয়ে ০২জনকে বিবাদী করে ঝিকরগাছা থানায় সাধারণ ডাইরী করেছেন তিনি।

সাধারণ ডাইরী সূত্রে জানা যায়, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২০ ইং তারিখ সকাল অনুঃ ১১টার দিকে ‘ঝিকরগাছা রেলওয়ে স্টেশনের পরিতাক্ত স্থানে একক ভাবে লীজ ও বন্দোবস্তের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ সমাবেশ ও মানববন্ধন’ এর জন্য একটি সংবাদ প্রকাশের জন্য প্রতিবাদ সমাবেশ ও মানববন্ধন আহবায়ক ও পৌরসভার ৬নং ওয়ার্ডের বীর মুক্তিযোদ্ধা মো: ইদ্রিস আলী তাকে দাওয়াত দেন। সময়মত তিনি সংবাদ সংগ্রহনের জন্য উক্ত স্থানে গেলে কৃষ্ণনগর (প্রাক্তন রেল স্টেশন ভবন সংলগ্ন) গ্রামের মৃত. আব্দুল লতিফের ছেলে তারিক মাহমুদ তার ব্যবহাহৃত ০১৭১১-১৮২৯৩৫ নাম্বার থেকে আমাকে মিতালী সিনেমা হলের পার্শ্বে ডাকেন। তিনি উক্ত স্থানে গেলে, সেখানে থাকা কাটাখাল কালীতলা গ্রামের মৃত. আব্দুর রউফ মন্ডলের ছেলে মোঃ কামারুল ইসলাম ও তারিক মাহমুদ তাকে (আফজাল হোসেন চাঁদ) প্রতিবাদ সমাবেশ ও মানববন্ধনের সংবাদ প্রচারের জন্য নিষেধ করেন। কিন্তু সে প্রতিবাদ সমাবেশ ও মানববন্ধনের সংবাদ বন্ধ না করায় ১৬ সেপ্টেম্বর রাত ৯টা ১৬ মিনিটের সময় মোঃ কামারুল ইসলাম তাকে ০১৯১৯-৩৯৭১৭১ নাম্বার হতে কল করে অকথ্য ভাষায় গালিগালজ ও হুমকি প্রদর্শন করেন। সেই টা তার মোবাইলে রের্কড রয়েছে। এমতাবস্থায় তারা সাংবাদিক আফজাল হোসেন চাঁদ এর উপর  বিভিন্ন ভাবে ক্ষতি সাধন করতে পারে বলে তিনি মনে করেন থানায় সাধারণ ডায়রী করেছেন। সাধারণ ডাইরী নং ৭০৫, তাং ১৭/০৯/২০২০ইং।

ঝিকরগাছা থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ আব্দুর রাজ্জাক জানান, ‘ঝিকরগাছা রেলওয়ে স্টেশনের পরিতাক্ত স্থানে একক ভাবে লীজ ও বন্দোবস্তের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ সমাবেশ ও মানববন্ধন’ এর একটি সংবাদ প্রচার বন্ধ করতে সাংবাদিক আফজাল হোসেন চাঁদকে গালিগালাজ ও হুমকি দিয়েছে। সে আমার নিকট আইনী সহযোগিতা চেয়ে সাধারণ ডাইরী করেছে। ঘটনার বিষয়ে তদন্তপূর্বক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ

 প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ




দৈনিক জনতা ও দৈনিক সকালের সময়, দৈনিক দেশ বার্তা পএিকায় ১৬ই সেপ্টেম্বর এবং একই সাথে   বিভিন্ন অনলাইন পত্রিকার পটিয়া অটো টেম্পো শ্রমিক সমবায় ইউনিয়নের ৫৪ লাখ টাকা আত্মসাৎ  শিরোনামে প্রকাশিত সংবাদের তিব্র নিন্দা প্রতিবাদ জানিয়েছেন পটিয়া অটো টেম্পো শ্রমিক সমবায় সমিতির সভাপতি বদিউল আলম, সাধারণ সম্পাদক মো: বদিউল আলম। স্বাক্ষরিত প্রতিবাদ লিপিতে শ্রমিক নেতৃবৃন্দ উল্লেখ করেন, জনৈক শ্রমিক খোরশেদ আলম, আবদুল মজিদ  (মইশ্যা) আকতার হোসেন, মো: ছগির আহমদ, এরশাদ, লোকমান হোসেন, পাপ্পু সহ গুটিকয়েক শ্রমিক সংগঠনের নাম ভাঙ্গিয়ে বিভিন্ন অপকর্মে সাথে লিপ্ত রয়েছে। এর ধারাবাহিকতা পটিয়া অটো টেম্পো শ্রমিক সমবায় ইউনিয়নে তারা বিভিন্ন ভাবে বিশৃঙ্খকলা সৃষ্টি করে আসছে। এর এক পর্যায়ে সমিতির সভাপতি বদিউল আলম বিগত সময়ে  পটিয়া আদালতে মামলা ও থানায় অভিযোগ দায়ের করে। পরবর্তিতে বাদী বদিউল আলমের সাথে জনৈক কতিপয় শ্রমিক সাাথে ভবিিষ্যতে এই ধরনের আর কাজ করবে না মর্মে মুচলেকা দেয় এবং তিনশত টাকা মূল্যমানের ননজুটিশিয়াল ষ্টাম্পে  স্বাক্ষর দেয়। তারা ভবিষ্যতে  সংগঠন বিরোধী কোন কাজ করবে না এবং কোন মারামারি, ঝগড়া ঝাটি করবে না বলে লিখিত দেয়। যার ষ্টাম্প নং- কব ৯৬২২৮২৭-

৯৬২২৮২৮-৯৬২২৮২৯ স্বাক্ষর গ্রহণ করে। কিন্তু উক্ত মজিব, খোরশেদ, আকতার গং তা না মেনে গায়ের জোরে সংগঠন বিরোধী বিভিন্ন অপকর্মে লিপ্ত থেকে সংবাদ প্রতিবেদকে মিথ্যা তথ্য দিয়ে সংগঠনে ভাবমুর্তি খুন্ন করে। তারা যে অভিযোগ এনেছেন তাহা   সর্ম্পৃণ মিথ্যা ভিত্তিহীন উদেশ্য প্রনোদিত বিদায়   আমরা উক্ত সংবাদের সবস্তরের জনগণকে বিভান্ত্র না হওয়ার অনুরোধ জানাচ্ছি। পাশাপাশি পটিয়ার  আইন শৃঙ্ঘলা রক্ষাকারী বাহিনীকে এসব অপর্কম হুতাদের আইনের আওতায় আনার দাবি জানাচ্ছি। সংগঠনের যে ব্যাক্তি শহিদুল ইসলাম  শেখু  টাকা 



আত্মসাৎ  করেছে তার বিরুদ্ধে সমিতির পক্ষ থেকে পটিয়া জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্টে আদালতে মামলা চলমান রয়েছে। শ্রমিক নেতা   বদিউল আলম জানান প্রতিপক্ষ কুচক্রি মহল মজিব-খোরশেদ, আকতার গং বিভিন্ন সময় সমিতির কাজ থেকে চাঁদা দাবি করে আসতেছে। উক্ত দাবিকৃত চাঁদার টাকা না দেওযায় সাধারণ শ্রমিকসহ আমি বদিউল আলমকে বিভিন্নভাবে  হত্যার হুমকি ধামকি দিচ্ছে বলে তিনি দাবি করেন। 

প্রতিবাদকারী

মো: বদিউল আলম 

সভাপতি পটিয়া অটো -টেম্পো শ্রমিক সমবায় সমিতি।

০১৮১৩৮৯২১৮৭

পটিয়ায় আওয়ামী মুক্তিযোদ্ধা প্রজন্মলীগের ১৩ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত

 পটিয়ায় আওয়ামী মুক্তিযোদ্ধা প্রজন্মলীগের ১৩ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত





সেলিম চৌধুরী পটিয়া প্রতিনিধিঃ  বাংলাদেশ আওয়ামী মুক্তিযোদ্বা প্রজন্মলীগ পটিয়া উপজেলা ও পৌরসভার আয়োজনে সংগঠনের ১৩ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে আগামীকাল শুক্কুরবার  এক দোয়া মাহফিল পটিয়া আদালত জামে মসজিদ প্রাঙ্গনে বাদে আসর অনুষ্ঠিত হবে। 


এতে সংগঠনের সকলকে যথা সময়ে উপস্থিত থাকার জন্য অনুরোধ জানাচ্ছি। 


নিবেদকঃ শফিকুল ইসলাম শফি সভাপতি,মোহাম্মদ জয়নাল আবেদীন সাধারণ সম্পাদক, পটিয়া পৌরসভা।সৈয়দ মোহাম্মদ মহিউদ্দিন সাগর সভাপতি, মোহাম্মদ ইদ্রিস সাধারণ সম্পাদক পটিয়া উপজেলা। 

বাংলাদেশ আওয়ামী মুক্তিযোদ্বা প্রজন্মলীগ পটিয়া উপজেলা ও পৌরসভা চট্টগ্রাম দক্ষিণ 

নন্দীগ্রাম উপজেলা যুবলীগ কর্মীর বাড়ি থেকে ২৮ বস্তা সরকারি চাল উদ্ধার

 নন্দীগ্রাম উপজেলা যুবলীগ কর্মীর বাড়ি থেকে ২৮ বস্তা সরকারি চাল উদ্ধার





নন্দীগ্রাম (বগুড়া) প্রতিনিধিঃ---বগুড়ার নন্দীগ্রাম উপজেলার ৫নং ইউনিয়নের বর্ষন গ্রামে, উপজেলা যুবলীগের সদস্য মোঃ কামরুল হাসানের বাড়ি থেকে সরকারি ভিজিডি'র ২৮বস্তা চাল জব্দ করেছেন, নন্দীগ্রাম উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভুমি), মোঃ নুরুল ইসলাম।


 জানা গেছে, যুবলীগ কর্মী কামরুল হাসানের নির্দেশে তার বাবা মোঃ মোকছেদ আলী, বড় ভাই রফিকুল ইসলাম ও চাচা আবু বক্কর সিদ্দিক সুবিধাভোগী সদস্যদের কাছ থেকে সরকারি ভিজিডি'র চাল কম দামে ক্রয় করে অতিরিক্ত লাভেয় আশায়, তাদের বাড়িতে মজুদ রেখেছে এমন সংবাদে, ১৭ই সেপ্টেম্বর রোজ বৃহস্পতিবার বেলা ৩টায়, থানা পুলিশকে সাথে নিয়ে, উপজেলার বর্ষন গ্রামে যুবলীগ কর্মী কামরুল হাসানের বাড়িতে অভিযান চালিয়ে তার ঘরের বারান্দা থেকে এই চাল উদ্ধার করেন, এ সময় পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে যুবলীগ কর্মী  কামরুল হাসান, তার বাবা মোঃ মোকছেদ আলী ও ভাই রফিকুল ইসলাম ও চাচা মোঃ আবু বক্কর সিদ্দিক দৌড়ে পালিয়ে যায়।


 উক্ত বিষয়ে অভিযান পরিচালনা কারী উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভুমি) মোঃ নুরুল হক জানান, আমরা অভিযান চালিয়ে ১৫বস্তা সরকারী চটের বস্তায় ও ১৩ বস্তা প্লাস্টিকের বস্তায় মোট ২৮বস্তা চাল উদ্ধার করে থানায় জমা দিয়েছি, ঘটনার সাথে জরিত সবাই আমাদের উপস্থিতি টের পেয়ে পালিয়ে গেছে, কাউকে গ্রেফতার করা সম্ভব হয়নি, এ বিষয়ে মামলার প্রস্তুতির চলছে।

বাস্তবক চেয়রম্যানের হিলি স্থলবন্দরে পরিদর্শন

 বাস্তবক চেয়রম্যানের হিলি স্থলবন্দরে পরিদর্শন

কৌশিক চৌধুরী,হিলি প্রতিনিধিঃ

হিলি স্থলবন্দরের অপারেশনাল কার্যক্রম সরেজমিনে পরিদর্শণ করলেন বাংলাদেশ স্থলবন্দর কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান অতিরিক্ত সচিব তরিকুল ইসলাম। চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পাবার পর হিলি স্থলবন্দরে এটিই তার প্রথম সফর।


আজ সকাল ১১টায় বাংলাদেশ স্থলবন্দর কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান অতিরিক্ত সচিব তরিকুল ইসলাম পানামা হিলি পোর্ট লিংক লিমিটেডের অভ্যন্তরে বিভিন্ন স্থাপনা ও বন্দরের অপারেশনাল কার্যক্রম ঘুরে দেখেন। এসময় তিনি বন্দরের লেবার শ্রমিকসহ বন্দর সংশ্লিষ্টদের সাথেও কথা বলেন।


পরিদর্শন শেষে পানামা হিলি পের্টের সভাকক্ষে বন্দর পরিচালনা কারি প্রতিষ্ঠান, বিজিবি কর্তৃপক্ষ, আমদানি-রফতানিকারক, সিএন্ডএফ এজেন্টসহ বন্দর ব্যবহারকারীদের সাথে বৈঠক করেন। এসময় জয়পুরহাট ২০ বিজিবি ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক হাকিমপুর উপজেলা চেয়াম্যান, হারুন উর রশিদ, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আব্দুর রাফেউল আলম, পৌর মেয়র জামিল হোসেন চলন্ত প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।


পরে তিনি বন্দর পরিচালনাকারি প্রতিষ্ঠান পানামা পোর্ট লিংক লিমিডেট, বিজিবি কর্তৃপক্ষ, আমদানি-রফতানিকারক, সিএন্ডএফ এজেন্টসহ বন্দর ব্যবহারকারীদের সাথে বৈঠক করেন। এসময় জয়াপুরহাট ২০ বিজিবি’র অধিনায়ক লেঃ কর্ণেল ফেরদৌস হোসেন টিপু,হাকিমপুর উপজেলা চেয়াম্যান, হারুন উর রশিদ, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আব্দুর রাফেউল আলম, পৌর মেয়র জামিল হোসেন চলন্ত প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

 

পরিদর্শন শেষে বাস্তবক চেয়রম্যান তরিকুল ইসলাম জানান, হিলি স্থলবন্দরের গুরুত্ব বিবেচনা করে বন্দরের আমদানি-রফতানি আরো গতিশীল কি ভাবে করা তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

চাকুরীতে প্রবেশের বয়সসীমা ৩৫ বছর করার এক দফা দাবীতে দিনাজপুরে মানববন্ধন কর্মসুচী পালন

চাকুরীতে প্রবেশের বয়সসীমা ৩৫ বছর করার এক দফা দাবীতে দিনাজপুরে মানববন্ধন কর্মসুচী পালন

মামুনুর রশিদ, প্রতিনিধি দিনাজপুর :“বিশ্ব যখন ৪০ এর উর্ধ্বে আমরা কেন বঞ্চিত মা, ৩৫ একটি যৌক্তিক দাবী ৩৫ এখন সময়ের দাবী“ শ্লোগান নিয়ে এক দফা বাস্তবায়নের দাবীতে দিনাজপুরে ঘন্টাব্যাপী মানববন্ধন কর্মসুচী পালন করেছে বাংলাদেশ সাধারন ছাত্র পরিষদ দিনাজপুর জেলা শাখার কর্মী ও সমর্থকেরা।

চাকুরীতে প্রবেশের বয়সসীমা ৩৫ বছর করার এক দফা দাবীতে ১৭ সেপ্টেম্বর বৃহস্পতিবার সকালে দিনাজপুর প্রেসক্লাবের সন্মুখ সড়কে বাংলাদেশ সাধারন ছাত্র পরিষদ দিনাজপুর জেলা শাখার ব্যান্যারে ঘন্টাব্যাপী মানববন্ধন পালন করেছে সুবিধা বঞ্চিতরা। 

মানববন্ধনচলাকালে সংগঠনের জেলা সমন্বয়ক দিলীপ কুমার পলোর‘র সভাপতিত্বে সংক্ষিপ্ত সমাবেশে বক্তারা জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার উদ্দেশ্য বলেন,মাগো শিক্ষা জীবন শেষ করতেই আমাদের বয়সসীমা ২৭/২৮ বছর পার হয়ে যায় তাহলে কিভাবে আমরা সরকারী চাকুরীতে প্রবেশ করতে পারবো। আপনি আমাদের মা জননী বেশী কিছু চাইনা মা শুধুমাত্র চাকুরীতে প্রবেশের বয়সসীমাটা বাড়িয়ে ৩৫ করে দিলেই হবে। 

তারা বলেন,প্রতিবেশী দেশ ভারতসহ বিশ্বের বহু দেশেই সরকারী চাকুরীতে বয়সসীমা ৩৫-৪০ রয়েছে কিন্তু আমাদের দেশেই এখানো এটা করা সম্ভব হচ্ছেনা।

২০১৪ সাল থেকে চাকুরীতে বয়সসীমা ৩৫‘র জন্যে দীর্ঘদিন ধরে আমরা আপনার সন্তানেরা দেশের আনাচে-কানাচে আন্দোলন সংগ্রাম করে যাচ্ছি শুধু বয়স সীমাটা বাড়ানোর জন্যে কিন্তু হচ্ছেনা। বক্তারা বলেন,আমাদের দেশের শিক্ষাঙ্গনের সেসনজোটসহ নানান সমস্যার কারনে শিক্ষার্থীদের লেখা পড়া শেষ করতেই চলে যায় ২৮-২৯ বছর। 

এরপরেও দেশের বর্তমান ব্যবস্থায় নানান জটিলতার কারনে একজন শিক্ষার্থীর শিক্ষালয়ে পড়াশোনাকালিন সময়েই তার চাকুরীর বয়স শেষ হয়ে যায়, পরে তাকে পাবলিক চাকুরী নইলে বেকারত্বের অভিশাপ ঘাড়ে নিয়ে ধুকে ধুকে নি:শেষ হতে হয়। তাই মা জননী মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার কাছে আমাদের দাবী একটাই আপনি আমাদের দাবীটা মেনে নিয়ে বেঁেচ থাকার আলোটা জ্বালিয়ে দিন মা।

প্রধান অতিথি হিসেবে মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন ৩৫‘র উদ্দ্যোগক্তা ও প্রধান সমন্বয়কারী ইমতিয়াজ হোসেন ও বাংলাদেশ সাধারন ছাত্র পরিষদের সিনিয়র সহ সভাপতি মো: আল কাওসার। এছাড়াও অন্যান্যের মাঝে আরো বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ সাধারন ছাত্র পরিষদ দিনাজপুর জেলা শাখার সাংগঠনিক সম্পাদ গোলাপ সারোয়ার হোসেন, ঠাকুরগাও জেলা সমন্বয়কারী মো: আব্দুস সবুর ও সাংগঠনিক সম্পাদক মো: জুয়েল রানা প্রমুখ। 

একই দাবীতে সমাবেশে তারা ঘোষনা করেন ১৮ সেপ্টেম্বর শুক্রবার সকাল ১০টায় লালমনিরহাট জেলার মিশনমোড় গোলস্তরে তারা ধারাবাহিক কর্মসুচীর অংশ হিসেবে মানববন্ধন কর্মসুচী পালন করবে, এই কর্মসুচী সফল করতে নেতাকর্মী ও সর্মথক সকলকে আহবান জানানো হয়েছে।

দিনাজপুর জেলা প্রতিবন্ধী ফেডারেশনের ত্রৈমাসিক সভা অনুষ্ঠিত

দিনাজপুর জেলা প্রতিবন্ধী ফেডারেশনের ত্রৈমাসিক সভা অনুষ্ঠিত



মামুনুর রশিদ,প্রতিনিধি দিনাজপুর :সংগঠনের উন্নয়নকল্পে বিভিন্ন বিষয়ভিত্তিক উদ্দ্যোগ গ্রহন ও পরিকল্পনা বাস্তবায়নের লক্ষে দিনাজপুর জেলা প্রতিবন্ধী ফেডারেশনের ত্রৈমাসিক সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

১৭ সেপ্টেম্বর বৃহস্পতিবার বিকালে প্রেসক্লাব মিলনায়তনে দিনাজপুর  জেলা প্রতিবন্ধী ফেডারেশনের আয়োজনে এবং সিডিএ‘দিনাজপুরের সহযোগীতায় অনুষ্ঠিত ত্রৈমাসিক আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন সংগঠনের সভাপতি মাধুরী রানী কুন্ডু। এসময় প্রথমেই বিগত দিনের উন্নয়ন ও বিষয়ভিত্তিক কর্ম পরিকল্পনার বিস্তারিত তুলে বক্তব্য রাখেন সংগঠনের সম্পাদক অনামিকা পান্ডে। 

তিনি তার বক্তব্যে সংগঠনের উন্নয়ন ও সুষ্ঠ পরিকল্পনা অনুযায়ী করণীয় বিষয়ভিত্তিক মতামত তুলে ধরে সকলকে বক্তব্য রাখার আহবান জানান। সভায় উপস্থিত অনেকেই সংগঠনের আগামী দিনের জন্য বিভিন্ন দিকনির্দেশনামুলক প্রস্তাবনা তুলে বক্তব্য রাখে।

অনুষ্ঠিত ত্রৈমাসিক সভায় বক্তব্য রাখেন সম্পীতি উন্নয়নের হালিমা খাতুন,সিডিডি দিনাজপুরের প্রকল্প অফিসার শৈলেন চন্দ্র রায়,দিনাজপুর বুদ্ধি ও অটিষ্টিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো: আবুল শাহনেওয়াজ , জেলা প্রতিবন্ধী ফেডারেশনের উপদেষ্টা তামজিদা পারভিন এবং সিডিএ‘র ব্যবস্থাপক(বাস্তবায়ন) আবু সুফিয়ান মুহাম্মদ সুলতান।

হবিগঞ্জে ক্রেতাদের পকেট কাটছেন পেয়াজ ব্যবসায়ীরা

 হবিগঞ্জে ক্রেতাদের পকেট কাটছেন পেয়াজ ব্যবসায়ীরা



লিটন পাঠান, হবিগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি:হবিগঞ্জের বাজারে কৌশলে ক্রেতাদের পকেট কাটছেন সুযোগ সন্ধানী অসাধু পেয়াজ ব্যবসায়ীরা। শুধু তাই নয়, চোরের মায়ের বড় গলার মত একে অন্যের ঘাড়ে দুষ চাপাচ্ছেন পাইকারী ও খুচরা বিক্রেতা। এমন তথ্যই বেড়িয়ে এসেছে সমাচারের অনুসন্ধানে। এ অবস্থায় খোদ প্রশাসনকেই ভাবিয়ে তুলছে বিষয়টি। জানা যায়, হবিগঞ্জের বাজারে মাত্র ১ দিনের ব্যবধানে হঠাৎ করেই বেড়ে গেছে পেয়াজের দাম। বুধবার যে পেয়াজের দাম ছিল ৪০ থেকে ৪৫ টাকা কেজি (১৭ সেপ্টেম্বর) একই পেয়াজ বিক্রি হয়েছে ৭০ থেকে ৮০ টাকায়। 


অনুসন্ধানে জানা যায় (১৬ সেপ্টেম্বর) দিবাগত রাতে কে,বা-কারা হঠাৎ করেই পেয়াজের দাম বাড়ার গুজব ছড়িয়ে দেয়। এমন গুজবে গতকাল বুধবার বাজারে হুমড়ি খেয়ে পড়েন ক্রেতারা। যার প্রয়োজন ১ কেজি তিনিও কিনেন ৫ কেজি। ফলে বাজারে হঠাৎ করে অস্বাভাবিক ভাবে বেড়ে যায় পেয়াজের চাহিদা। এ অবস্থায় দাম বাড়িয়ে দেন এক শ্রেণীর সুযোগসন্ধানী অসাধু ব্যবসায়ী।

হবিগঞ্জ শহরের চৌধুরী বাজারের ব্যবসায়ী আঃ কাইয়ূম জানান যে পেয়াজ ১দিন আগেও ৪০ টাকা কেজি।


দরে বিক্রি হয়েছে সেই পেয়াজ আজ (বৃহস্পতিবার) ৮০টাকায় বিক্রি হচ্ছে তিনি জানান তাদের কিছুই করার নেই বেশি দামে কিনতে হয়, তাই বেচতে হয় বেশী দামে তবে শহরের ঐতিহ্যবাহী শরীফ স্টোরের ম্যানেজার দ্বীন মোহাম্মদ লিটন জানান, তারা বিক্রি করছেন ৬৫ টাকা দরে চৌধুরী বাজারের খুচরা ব্যবসায়ী জামাল মিয়া ও মিনহাজ উদ্দিন জানান, তারা পাইকারী দোকানদারদের কাজ থেকে ৬৫ টাকা দরে ক্রয় করে ৭০ টাকায় বিক্রি করছেন।


তাদের অভিযোগ ৬৫ টাকা দিয়ে কিনলেও তাদের রশিদ দেয়া হয় ৪৫ টাকার বাধ্য হয়ে এভাবেই তাদের কিনতে হয়। তবে এ অভিযোগ অস্বীকার করে শহরের নারিকেল হাটার মেসার্স রকি এন্টার প্রাইজের স্বত্তাধিকারী পাইকারী ব্যবসায়ী আজিজুর রহমান রকি জানান ভারতীয় পেয়াজ আমদানী বন্ধ হওয়ায় বাজারে সরবরাহ কমেছে, পাশাপাশি বেড়েছে চাহিদা ফলে কোথাও কোথাও দাম কিছুটা হেরফের হতে পারে।


 তবে খুচরা ব্যবসায়ীরা মিথ্যে বলছে এটা তাদের কৌশল তিনি জানান বুধবার পর্যন্ত তারা ৪৫ টাকা কেজি দরেই বিক্রি করেছেন। জানতে চাইলে হবিগঞ্জের জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ কামরুল হাসান জানান, অভিযোগ গুলো তিনি শুনেছেন বিষয়টি নিয়ে ভাবছেন তিনি এ লক্ষে আজ সকালে তার কার্যালয়ে ব্যবসায়ীদের সাথে বৈঠক করবেন তিনি জানান, অনিয়ম করলে কাউকে ছাড় দেয়া হবে না প্রয়োজনে ভ্রাম্যমাণ আদালত মাঠে নামানো হবে।

হবিগঞ্জে ইউপি চেয়ারম্যান মুকুল স্বপদে বহাল

হবিগঞ্জে ইউপি চেয়ারম্যান মুকুল স্বপদে বহাল

লিটন পাঠান, হবিগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি:হবিগঞ্জ জেলা নবীগঞ্জ উপজেলার আওয়ামী লীগের সভাপতি ও গজনাইপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ইমদাদুর রহমান মুকুলের সাময়িক বহিষ্কারাদেশ স্থগিত করেছেন হাইকোর্টের একটি বেঞ্চ। রোববার (২৩ আগস্ট) হাইকোর্টের বিচারপতি এম. খসরুজ্জামান ও বিচারপতি এম. মাহমুদ হাসান তালুকদারের দ্বৈত বেঞ্চ এ আদেশ প্রদান করেন। ইমদাদুর রহমান মুকুলের পক্ষে রিট মামলাটি পরিচালনা করেন সুপ্রিমকোর্টের সিনিয়র আইনজীবী ও সাবেক মন্ত্রী আব্দুল মতিন খসুরুজ্জামান। স্বপদে বহাল হওয়ার পর বৃহস্পতিবার (১৭ সেপ্টেম্বর ) গজনাইপুর ইউনিয়ন পরিষদে এক সুধী সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। 


সভায় উপস্থিত ছিলেন দেবপাড়া ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল মুহিত চৌধুরী, সাবেক ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান সৈয়দ মাহমুদ আলম মাহবুব, বীর মুক্তিযোদ্ধা আজমান আলী সাবেক মেম্বার আশরাফ আলী প্রমুখ। চেয়ারম্যান ইমদাদুর রহমান মুকুল তার বক্তব্য বলেন, আমি ছাত্র জীবন থেকে আওয়ামীলীগের রাজনীতির সাথে জড়িত। ছাত্রলীগ নেতা থেকে আজ আমি নবীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি। গজনাইপুর ইউনিয়নের একাধিক বার আপনাদের ভালবাসায় ও সহযোগিতায় চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছি।


চাল আত্মসাতের যে অভিযোগ আমার বিরুদ্ধে উঠেছিল এই অভিযোগের কারণে আমি ২ মাস ১৫ দিন চেয়ারম্যান পদ থেকে সাময়িক বহিষ্কার ছিলাম। আমি যদি চাল আত্মসাৎ করতাম তাহলে কি আমার চেয়ারম্যান পদ ফিরে পেতাম। আমি তখনও বলেছি, এখনও বলছি, আমি চাল আত্মসাৎ করি নাই। একটি মহল আমার আমার সম্মানহানি করার জন্য আমার নামে এই আত্মসাতের মিথ্যা অভিযোগ করেছিল। সঠিক তদন্ত করে করার পর আমার নামে যে আত্মসাতের অভিযোগ ছিল তা মিথ্যা প্রমাণিত হয়েছে তাই আমি আমার চেয়ারম্যানপদ ফিরে পেলাম।


উল্লেখ্য সরকারের ১০ টাকা কেজি চাল বিতরণের খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির তালিকা প্রণয়নে গজনাইপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মুকুলের বিরুদ্ধে অনিয়মের অভিযোগ ওঠে এবং বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমে সেটি প্রকাশিত ও প্রচারিত হয়। এর প্রেক্ষিতে নবীগঞ্জ উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা ৩ সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করেন। গঠিত তদন্ত কমিটি সরেজমিনে তদন্ত করে প্রতিবেদন দাখিল করেন। পরে উপজেলা প্রশাসন শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ে সুপারিশ পেশ করে। 


ওই সুপারিশের প্রেক্ষিতে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয় গত ৭ জুলাই এক প্রজ্ঞাপনের মাধ্যমে গজনাইপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ইমদাদুর রহমান মুকুলকে সাময়িক বরখাস্ত করে। পাশাপাশি চেয়ারম্যান ইমদাদুর রহমান মুকুলকে কেন এ পদ থেকে স্থায়ীভাবে বরখাস্ত করা হবে না মর্মে কারণ দর্শানোর নোটিশ প্রদান করে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়।

নবীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও গজনাইপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ইমদাদুর রহমান মুকুল ওই আদেশের বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে।


সুপ্রিমকোর্টের হাইকোর্ট বিভাগে রিট পিটিশন দাখিল করেন। দীর্ঘ শুনানি শেষে বিজ্ঞ আদালত গজনাইপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ইমদাদুর রহমান মুকুলের সাময়িক বহিষ্কারাদেশ স্থগিত ঘোষণা করেন।

আশাশুনিতে বেতনা নদীর চর থেকে অজ্ঞাত ব্যক্তির লাশ উদ্ধার

আশাশুনিতে বেতনা নদীর চর থেকে  অজ্ঞাত ব্যক্তির লাশ উদ্ধার



আহসান উল্লাহ বাবলু উপজেলা  প্রতিনিধি: আশাশুনিতে এক অজ্ঞাত ব্যক্তির লাশ উদ্ধার করেছে থানা পুলিশ বৃহস্পতিবার বিকালে উপজেলার বুধহাটা ইউনিয়নের উত্তর চাপড়া বেলায়েত সরদারের ছেলে খোকন সরদারের বাড়ির সামনে বেতনা নদীর চর থেকে এ লাশ উদ্ধার করেন। চাঁপড়া গ্রামের মৃত মুন্সি শহর আলী গাজীর পুত্র মোঃ আনারুল হক জানান, দুপুর আনুমানিক দুইটার দিকে রাস্তায় দাঁড়িয়ে হঠাৎ একটা লাশ দেখতে পেয়ে গ্রামপুলিশ নাজমুল হুদা ও ইউপি সদস্য রবিউল ইসলামকে বলে থানা পুলিশকে খবর দিলে আশাশুনি থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ গোলাম কবির, (ওসি) তদন্ত মাহফুজুর রহমানসহ পুলিশ ফোর্স এসে লাশ উদ্ধার করেন। মৃত ব্যক্তির বয়স আনুমানিক ৬৫ বছর। আশাশুনি থানার অফিসার ইনচার্জ গোলাম কবির জানান, অজ্ঞাত মৃত ব্যক্তির গায়ে দৃশ্যমান কোন চিহ্ন পাওয়া যায়নি তবে পোস্ট মাডাম রিপোর্টের পরে আমরা এটার আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

সাতক্ষীরায় বিপুল পরিমান মাদকদ্রব্য ধ্বংস করেছে বিজিবি। ৩৩ বিজিবি ব্যাটালিয়ন

 সাতক্ষীরায় বিপুল পরিমান মাদকদ্রব্য ধ্বংস করেছে বিজিবি। ৩৩ বিজিবি ব্যাটালিয়ন

 



আহসান উল্লাহ বাবলু  সাতক্ষীরা জেলা প্রতিনিধি : সাতক্ষীরায় বিপুল পরিমান মাদকদ্রব্য ধ্বংস করেছে বিজিবি। ৩৩ বিজিবি ব্যাটালিয়ন সদরে বৃহস্পতিবার ( ১৭ সেপ্টেম্বর) বেলা সাড়ে ১১ টায় এসব মাদকদ্রব্য ধ্বংস করা হয়।

সাতক্ষীরা ৩৩ বিজিবি ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লেঃ কর্ণেল মোহাম্মদ গোলাম মহিউদ্দিন খন্দকার জানান, ১ কোটি ৯১ লাখ ৫৮ হাজার ৮০০ টাকা মূল্যের ধ্বংসকৃত মাদকদ্রব্যের মধ্যে রয়েছে ১৭,৩০০ বোতল ভারতীয় বোতল, ১,৩৯৫ বোতল বিভিন্ন প্রকার মদ, ২৫৭ কেজি গাঁজা, ২২,৬৪৮ পিস ইয়াবা, ৭,৬৩৮ পিস বিভিন্ন প্রকার নেশা জাতীয় ট্যাবলেট এবং ২০,০০০ প্যাকেট বিড়ি / সিগারেট ও অন্যান্য তামাক জাতীয় দ্রব্য। তিনি আরো জানান, ২০১৯ সলের ১২ এপ্রিল হতে চলতি বছরের ৩০ জুন পর্যন্ত সীমান্ত এলাকাসহ বিভিন্ন স্থান থেকে মালিকবিহীন এসব মাদকদ্রব্য আটক করা হয়েছিলো।


মাদকদ্রব্য ধ্বংস কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন, বিজিবি খুলনা সেক্টর কমান্ডার কর্ণেল মোঃ আরশাদুজ্জামান খান, সাতক্ষীরা ৩৩ বিজিবি ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লেঃ কর্ণেল মোহাম্মদ গোলাম মহিউদ্দিন খন্দকার, মেজর রেজা আহমেদ, অতিরিক্ত পরিচালক (অপারেশন), নির্বাহি ম্যাজিস্ট্রেট মোছাঃ মুর্শিদা খাতুন, সদর থানার ওসি মোঃ আসাদুজ্জামান, সাতক্ষীরা মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের পরিদর্শক মোঃ তাজুল ইসলাম, সহকারি রাজস্ব কর্মকর্তা আবুল হোসেন, সাতক্ষীরা প্রেসক্লবের সভাপতি নূর ইসলাম সহ প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ার সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

আওয়ামীলীগ প্রার্থী আনোয়ার হোসেন হেলাল মনোনয়নয় পত্র জমা দিলেন

আওয়ামীলীগ প্রার্থী আনোয়ার হোসেন হেলাল মনোনয়নয় পত্র জমা দিলেন


মোঃ ফিরোজ হোসাইন 

 রাজশাহী ব্যুরো


নওগাঁ-৬ (আত্রাই-রাণীনগর) আসনের উপনির্বাচনে আওয়ামী লীগ প্রার্থী আনোয়ার হোসেন হেলাল মনোনয়নয়পত্র জমা দিয়েছেন।


বৃহস্পতিবার দুপূরে জেলা নির্বাচন অফিসার মাহমুদ হাসানের কাছে মনোনয়নপত্র জমা দেন।


এ সময় জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাবেক সাংসদ বীরমুক্তিযোদ্ধা আব্দুল মালেক, রাণীনগর আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা আব্দুর রউফ দুলু, আত্রাই উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি নিপেন্দ্রনাথ দত্ত দুলাল, রাণীনগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মফিজ উদ্দিন, আত্রাই উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক চৌধুরী গোলাম মোস্তফা বাদল, মনোনয়ন প্রত্যাশী ড. ইউনুস আলী, আত্রাই উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান এবাদুর রহমান, রানীনগর উপজেলা চেয়ারম্যান ভারপ্রাপ্ত ফরিদা বেগম,আত্রাই উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি আক্কাস আলী প্রামানিকসহ আত্রাই-রাণীনগর আওয়ামী লীগের দলীয় নেতা-কর্মী ও সমর্থকরা উপস্থিত ছিলেন।


আওয়ামী লীগ থেকে মনোনয়ন দেওয়ায় দেশরত্ন ও আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ হাসিনাকে ধন্যবাদ জানিয়ে আওয়ামী লীগের একক প্রার্থী আনোয়ার হোসেন হেলাল শতভাগ জয়ের আশা ব্যক্ত করে বলেন, জননেত্রী শেখ হাসিনা উন্নয়নের রোল মডেল। আমি নির্বাচিত হলে সুশীল সমাজকে সঙ্গে নিয়ে স্বচ্ছ ও জবাবদিহিতা মূলক গ্রামীণ অবকাঠামোগত উন্নয়ন তথা অগ্রাধিকার ভিত্তিতে রাস্তাঘাট, কালভাট, মসজিদ-মাদ্রাসা, মন্দির, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও বেকার যুবক-যুবতীদের যথাযথ প্রশিক্ষনের মাধ্যমে কর্মসংস্থান সৃষ্টি করে স্বাবলম্বী করে তোলার কাজ করব। নারী ও শিশুনির্যাতন, মানব পাচার, এসিড, সন্ত্রাস, বাল্যবিবাহ এবং মাদক, চোরাচালানের বিরুদ্ধে জনমত গড়ে তুলবো। এছাড়াও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে যে ভাবে সারাদেশের উন্নয়ন হচ্ছে সেই ধারা অব্যাহত রাখতে সার্বক্ষণিক কাজ করবো। এর পাশাপাশি সামাজিক কাজসহ এলাকার মানুষের সার্বক্ষণিক পাশে থাকব।

আত্রাইয়ে বিএনপির মনোনিত প্রার্থীর মনোনয়ন ফরম জমাদান উপলক্ষে মতবিনিময় সভা

আত্রাইয়ে বিএনপির মনোনিত প্রার্থীর মনোনয়ন ফরম জমাদান উপলক্ষে মতবিনিময় সভা





মোঃ ফিরোজ হোসাইন    

রাজশাহী ব্যুরো


নওগাঁর আত্রাইয়ে বিএনপির মনোনিত প্রার্থীর মনোনয়ন ফরম জমাদান উপলক্ষে এক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকাল ১১টায় আত্রাই উপজেলা সাব-রেজিষ্ট্রি অফিসের পাশে রেজুর মিল চত্বরে বিএনপির অস্থায়ী কার্যালয়ে উপজেলা বিএনপির উদ্যোগে এক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়।

আত্রাই বিএনপির আহবায়ক কমিটির সভাপতি আলহাজ্ব আঃ জলিল চকলেট এর সভাপতিত্বে এসময় বক্তব্য রাখেন যুগ্ন আহবায়ক বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ আব্দুল মান্নান, আব্দুল মান্নান সরদার, তসলিম উদ্দিন ,আব্দুল হাকিম, রেজাউল নবী তালুকদার, এসএম ফারুক বখত, আসাদুজ্জামান আসাদ, বিএনপি নেতা এমদাদুল হক পিন্টু, সাইফুল ইসলাম, রায়হান কবির রতন প্রমুখ। এছাড়া যুবদল শ্রমিকদল, স্বেচ্ছাসেবক দল, ইউনিয়ন বিএনপির নেতানেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

বক্তরা আগামী ১৭ অক্টোবর উপনির্বাচনে বিএনপির মনোনিত প্রার্থী শেখ রেজাউল ইসলাম রেজু’র পক্ষে নেতাকর্মীদের ঐকোবদ্ধ হয়ে ধানের শীষের বিজয় করার আহবান জানানো হয়।

নওগাঁর আত্রাইয়ে পুনরায় বৃদ্ধি পাচ্ছে আত্রাই নদীর পানি, হতাশায় ভুগছে আত্রাইয়ের চাষীরা

 নওগাঁর আত্রাইয়ে পুনরায় বৃদ্ধি পাচ্ছে আত্রাই নদীর পানি,  হতাশায় ভুগছে আত্রাইয়ের চাষীরা



মোঃ ফিরোজ হোসাইন 

রাজশাহী ব্যুরো

আবারও গত কয়েক দিন থেকে উজান থেকে নেমে আসা ঢলে আত্রাই নদীর পানি ফের বাড়ছে । টানা দেড় মাসেরও বেশি সময় বন্যার পানির সঙ্গে যুদ্ধের পর কৃষকেরা চাষাবাদের প্রস্তুতি নিতে শুরু করলেও পানি বাড়ায় শঙ্কায় রয়েছেন জেলার আত্রাই উপজেলার চাষিরা।


আত্রাই নদীর পানি কখনও কমছে, ফের কখনও বাড়ছে। পানির এই হ্রাস-বৃদ্ধিতে নদীর অরক্ষিত তীরে ভাঙনের আশঙ্কাও রয়েছে। এ ছাড়া নদী তীরবর্তী নিম্নাঞ্চলের মানুষের মধ্যে ব্যাপক বন্যার আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে। বন্যায় ফসল হারানো কৃষক আবার নতুন ফসল লাগানোর প্রস্তুতি নিলেও তারা এখন আতঙ্কে আছে।


বেশ কয়েক দিন ধরে নদীর পানি বাড়ায় মানুষের মধ্যে আতঙ্ক দেখা দিয়েছে। তবে এখন পর্যন্ত বন্যার কোন সতর্কবার্তা দেয়নি বন্যা পূর্বাভাস ও সতর্কীকরণ কেন্দ্র। এ কারণে এবারও সেপ্টেম্বরে বন্যার আশঙ্কায় অনেক কৃষক শীতকালীন সবজির আবাদ শুরু করতে দ্বিধায় ভুগছেন। এ ছাড়া সাম্প্রতিক বন্যায় এখনো বিধ্বস্ত বন্যাদুর্গত এলাকাগুলো। ভেঙে যাওয়া ঘরবাড়ি মেরামত করতে পারেননি নিম্ন আয়ের মানুষ


রাস্তাঘাট ভেঙে চৌচির। সড়কে তৈরি হয়েছে খানাখন্দ। ব্রিজ-কালভার্টের সংযোগ সড়ক পানির তোড়ে ভেঙে যাওয়ায় অনেক এলাকা যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে। বন্যার পানি নামলেও শুরু হয়নি ক্ষতিগ্রস্ত সড়ক মেরামতের কাজ। দীর্ঘদিনের বন্যায় অনেক পরিবার অর্থনৈতিকভাবে ভেঙে পড়েছে। এতে নদীতে পানি বাড়তে দেখলেই আতঙ্ক জেঁকে বসছে বন্যাদুর্গত এলাকার মানুষের মধ্যে।

উপজেলা কৃষি অফিস সূত্র জানায়, উপজেলার ৮ ইউনিয়নে প্রায় ৬ হাজার হেক্টর জমিতে আমন ধানের চাষ হয়। এর মধ্যে মনিয়ারী, ভোঁপাড়া ও শাহাগোলা ইউনিয়নে সর্বাধিক পরিমাণ জমিতে আমন চাষ করা হয়। গত বছর আমন চাষের মৌসুমে রেকর্ড পরিমাণ জমিতে চিনি আতপ ধানের চাষ হয়েছিল। এতে করে কৃষকরা ব্যাপক লাভবানও হয়েছিল। এবারে আগাম বন্যার পানি মাঠে চলে আসায় আমনচাষ ব্যহত হতে পারে।


উপজেলার উঁচলকাশিমপুর গ্রামের বেলাল হোসেন বলেন, আমাদের বোরো ধান কেটে শেষ না করতেই মাঠে জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়েছে। মাঠ পানিতে ভরে গেছে। জমির পানি একটু কমলেও আবারও বাড়ার কারনে আমন ধানের আবাদ এবারে করা সম্ভব হবে না।


চৌথল গ্রামের কৃষক আলতাফ হোসেন বলেন, আমাদের এলাকার জমিগুলোতে যেমন বোরো চাষ হয়। তেমনি আমন ধানে চাষও ব্যাপক হয়ে থাকে। গতবার আমরা প্রচুর পরিমানে চিনি আতপ ধানের চাষ করেছিলাম। তাতে ফলনও হয়েছিল ভাল। কিন্তু এবারে বীজতলা তৈরি করতেই পারলাম না। কিভাবে আমন চাষ করবো তা নিয়ে হতাশায় রয়েছি।


এ বিষয়ে উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ কেএম কাউছার হোসেন বলেন, হঠাৎ করে আবারও আত্রাই নদীর পানি বৃদ্ধির ফলে মাঠে জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়েছে। নদীর পানি কিছুটা কমলে মাঠের পানিও কমে যাবে। আমরা আশা করছি মাঠে পানি নেমে গেলে কৃষকরা পুরোদমে আমনচাষ করতে পারবে।

ঝিনাইদহ কে সি কলেজ ছাত্র সংসদের সাবেক ভিপি মিঠু ভায়ের ২৯ তম শাহাদাৎ বার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনা ও দোয়া মহাফিল

 ঝিনাইদহ কে সি কলেজ ছাত্র সংসদের সাবেক ভিপি মিঠু ভায়ের ২৯ তম শাহাদাৎ বার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনা ও দোয়া মহাফিল

খোন্দকার আব্দুল্লাহ বাশার। 

খুলনা ব্যুরো প্রধানঃসড়কের 

ঝিনাইদহ কেসি কলেজ ছাত্রদলের সাবেক ভিপি শহীদ শাহাজাহান নূর(মিঠু)ভাইয়ের ২৯তম শাহাদাৎ বার্ষিকীর  আলোচনা ও দোয়া উপলক্ষে ঝিনাইদহ জেলা ছাত্রদলের বিশাল ছাত্র সমাবেশ                                      উক্ত ছাত্র সমাবেশে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সাবেক ঝিনাইদহ জেলা জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরামের সভাপতি ও আইনজীবী সমিতির একাধিকবার নির্বাচিত সভাপতি ও সাধারন সম্পাদক, ঝিনাইদহ জেলা বিএনপি'র আহবায়ক, বীর মুক্তিযোদ্ধা, অধ্যক্ষ,জননেতা এ্যাডঃ এম এম মশিয়ুর রহমান।

প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ঝিনাইদহ ২ আসনের একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের বিএনপি মনোনীত প্রার্থী, হরিনাকুণ্ডু উপজেলা পরিষদের সাবেক সুযোগ্য সফল চেয়ারম্যান, সাবেক ছাত্রনেতা ও জেলা বিএনপির সদস্য সচিব, জননেতা আলহাজ্ব এ্যাডঃ এম এ মজিদ।

বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় মৎসজীবিদলের যুগ্ন আহ্বায়ক জনাব এ,কে,এম ওয়াজেদ আলী,ঝিনাইদহ জেলা বিএনপির যুগ্ম আহ্বায়ক জনাব জাহিদুজ্জামান মনা,ঝিনাইদহ জেলা বিএনপির যুগ্ন আহ্বায়ক জনাব মুন্সী কামাল আজাদ পান্নু, ঝিনাইদহ জেলা বিএনপির যুগ্ন আহ্বায়ক জনাব আব্দুল মজিদ বিশ্বাস জেলা যুবদলের সাধাঃসম্পাঃ আশরাফুল ইসলাম পিন্টু জেলা বিএনপির সদস্য আসিফ ইকবাল মাখন,জেলা যুবদলের সহ সভাপতি আরিফুল ইসলাম আনন,সহ সভাপতি জাহিদ বিশ্বাস যুগ্ন সম্পাঃআবুল বাশার বাশী যুগ্ন সম্পাঃ  রাজু আহম্মেদ, জেলা সেচ্ছাসেবকদলের যুগ্ম সম্পাঃ রিন্টু মুন্সী, সাংগঠনিক সম্পাঃ সফিকুল ইসলাম (শফি বিশ্বাস)সহ জেলা বিএনপি অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের সিনিয়ার নেতৃবৃন্দ,,,                                                          উক্ত সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন ঝিনাইদহ জেলা ছাত্রদলের যুগ্ন সম্পাঃ জনাব বাবলুর রহমান বাবলু, পরিচালনা করেন ঝিনাইদহ জেলা ছাত্রদলের সাংগঠনিক সম্পাঃ জনাব সাহেদুর রহমান সাহেদ।

আশাশুনির বড়দলে স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতৃবৃন্দের সঙ্গে মতবিনিময় করলেন শম্ভুজিত মন্ডল

 আশাশুনির বড়দলে স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতৃবৃন্দের সঙ্গে মতবিনিময় করলেন শম্ভুজিত মন্ডল




আহসান উল্লাহ বাবলু উপজেলা প্রতিনিধিঃ  আশাশুনি উপজেলার বড়দল ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতৃবৃন্দের সঙ্গে মতবিনিময় করলেন সাতক্ষীরা-০৩ আসনের জাতীয় সাংসদ প্রতিনিধি ও আশাশুনি উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক শম্ভুজিত মন্ডল। বুধবার রাত ৯টায় বড়দল ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবক লীগের স্থায়ী কার্যলয়ে এ মতবিনিময় সভার আয়োজন করা হয়। মতবিনিময় কালে উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি রফিকুল ইসলাম মোল্যা, বড়দল ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল আলিম মোল্ল‍্যা, উপজেলা শ্রমিকলীগের সভাপতি, আশাশুনি সদর ইউপি'র চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী ঢালী মোঃ সামছুল আলম,

উপজেলা আ'লীগের দপ্তর সম্পাদক ও বড়দল ইউপি চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী জগদীশ চন্দ্র সানা, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি এস এম সাহেব আলী, উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক রনজিত কুমার বৈদ‍্য, আওয়ামীলীগ নেতা আব্দুল হান্নান মন্টু সরদার, শীতলপুর প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আবুল কালাম, আওয়ামীলীগ নেতা ও কুল্যা ইউপির চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী এস এম ওমর সাকী পলাশ, আশাশুনি রিপোর্টার্স ক্লাবের সভাপতি মোস্তাফিজুর রহমান, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগ সাংগঠনিক মৃণাল কান্তি মন্ডল, আশাশুনি রিপোর্টার্স ক্লাবের

প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক বি এম আলাউদ্দীন, আল-আমিন যুব সংঘের সভাপতি এস এম শরীফ,  আ'লীগ নেতা সাজ্জাদ হোসেন, মহাশিন আলী লিটনসহ উপজেলা ও ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ ও অঙ্গ-সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। সমগ্র অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন বড়দল ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি আব্দুল আজিজ ও নুরুজ্জামান মালি।

২০ সেপ্টেম্বর থেকে সৌদি আরবে বিমানের নতুন ফ্লাইট শিডিউল

২০ সেপ্টেম্বর থেকে সৌদি আরবে বিমানের নতুন ফ্লাইট শিডিউল

মোহাম্মদ বেলাল উদ্দিন  সিনিয়র স্টাফ রিপোর্টারঃআসুন ২০ সেপ্টেম্বর থেকে সৌদি আরবে বিমানের নতুন ফ্লাইট শিডিউল জেনে নেওয়া যাক। বিশ্বজুড়ে কোভিড-১৯ এর বিস্তারের কারণে  বিগত ১৫ মার্চ হতে সৌদি আরবের সকল আন্তর্জাতিক ফ্লাইট বন্ধ রয়েছে। আজকে বিমান বাংলাদেশ এয়ার লাইন্স তাদের ওয়েবসাইটে বাংলাদেশ সৌদি নতুন বাণিজ্যিক ফ্লাইটের শিডিউল প্রকাশ করেছে। 


আন্তর্জাতিক ফ্লাইটের অপেক্ষায় যখন প্রবাসীরা দিন গুনছেন ঠিক তখনই সুখবর নিয়ে এল বিমান।    যদিও ইতিমধ্যে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের কিছু বিশেষ ফ্লাইট পরিচালিত হয়েছে যাতে করে সৌদি আরবে আটকা পড়া প্রবাসী বাংলাদেশীরা দেশে ফিরে যেতে পারবেন


তবে, সব জল্পনা কল্পনার অবসান ঘটিয়ে ২০ সেপ্টেম্বর থেকে সৌদি আরব যাত্রায় আবারও স্বাভাবিক হচ্ছে বিমানের ফ্লাইট।


একনজর তাদের অফিশিয়াল ওয়েবসাইটে প্রকাশিত হওয়া শিডিউল  : 


ঢাকা- জেদ্দা- চট্টগ্রাম আগামী ২০ সেপ্টেম্বর ২০২০ তারিখ হতে প্রতি রবিবার চলবে।


২০ সেপ্টেম্বরের এই ফ্লাইটের মধ্য দিয়েই বিমান চলাচল স্বাভাবিক হতে যাচ্ছে আবার।


ঢাকা-দাম্মাম-ঢাকা ফ্লাইট আগামী ২১ সেপ্টেম্বর ২০২০ তারিখ হতে প্রতি সোম এবং বৃহস্পতিবার চলবে।

ঢাকা-রিয়াদ-ঢাকা আগামী ২১ সেপ্টেম্বর ২০২০ তারিখ হতে প্রতি সোম এবং বৃহস্পতিবার ও শনিবার চলবে।

চট্টগ্রাম- জেদ্দা- ঢাকা আগামী ২১ সেপ্টেম্বর ২০২০ তারিখ হতে প্রতি সোমবার চলবে


ঢাকা- জেদ্দা- ঢাকা আগামী ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০ তারিখ হতে প্রতি রবিবার চলবে


তবে অবশ্যই সৌদি স্বাস্থ্যমন্ত্রণালয় আন্তর্জাতিক ফ্লাইট চালুর ব্যাপারে চূড়ান্ত পর্যায়ের স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করবে। এ ব্যাপারে কোন ছাড় প্রদান করা হবে না।


বাংলাদেশ বিমান থেকে যাত্রীদের স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ সহ যে যে বিশেষ নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে : 


১। প্রবাসীদের ক্ষেত্রে শুধুমাত্র যাদের ভিসা ( এক্সিট, এন্ট্রি, ইকামা, ভিসিট ভিসা)  ইত্যাদির মেয়াদ রয়েছে তারা সৌদি আরব ত্যাগ বা প্রবেশ করতে পারবেন। যাত্রীরা এসকল ভিসার মেয়াদ সৌদি আবসার অ্যাপ হতে চেক করে নিতে পারবেন।


২। সৌদি আরবে আসার পুর্বে  অবশ্যই  যাত্রীদের ঐ দেশের সরকার  কর্তৃক স্বীকৃত কোন ল্যাব হতে কোভিড-১৯ টেস্টে নেগেটিভ সার্টিফিকেট নিয়ে বিমানে উঠতে হবে।


৩। যারা সৌদি আরবে আসবেন বা সৌদি আরব ত্যাগ করবেন তাদেরকে অবশ্যই সৌদি স্বাস্থ্যমন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা অনুসরণ করতে হবে।


৪/  সকল যাত্রীদের অবশ্যই তাওয়ক্কালনা ও তাতামান এই দুইটি অ্যাপ ডাউন লোড করতে হবে।

বন্ধ হয়ে যাওয়া ঢাকা- পায়রা বন্দর নৌ রুটটি পুনরায় চালু

বন্ধ হয়ে যাওয়া ঢাকা- পায়রা বন্দর নৌ রুটটি পুনরায় চালু




নাহিদ পারভেজ, কলাপাড়া উপজেলা প্রতিনিধি:

তারিখ ১৭/০৯/২০২০


পটুয়াখালী ৪ আসনের মাননীয় সংসদ সদস্য জনাব মোঃ মহিব্বুর রহমান মহিব অদ্য ১৬/০৯/২০২০ রোজ বুধবার দুপুর ১২ টায় ঢাকা সদরঘাটে ঢাকা পায়রা বন্দর নতুন দোতালা লঞ্চ নৌ রুটটি শুভ উদ্বোধন করেন।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন পটুয়াখালী ৩ আসনের মাননীয় সংসদ সদস্য জনাব এস এম শাহজাদা সাজু সহ কলাপাড়া, রাঙ্গাবালী, চরকাজল, দশমিনা, ও আউলিয়াপুরের ঢাকায় অবস্থানরত গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ।

এর আগে ঢাকা-পায়রা বন্দর নৌ রুটটি পুনরায় চালু করার জন্য কলাপাড়ার এমপি মহোদয় ডিউ লেটার প্রদান করেন।

নতুন রূপে ঢাকা-পায়রা বন্দর দোতলা লঞ্চ সার্ভিস চালু হওয়ায় মাননীয় নৌ প্রতিমন্ত্রী জনাব খালিদ মাহমুদ চৌধুরী এমপি,পটুয়াখালী ৪ আসনের মাননীয় সংসদ সদস্য জনাব মোঃ মহিব্বুর রহমান মহিব,পটুয়াখালী ৩ আসনের মাননীয় সংসদ সদস্য জনাব এস এম শাহজাদা সাজু, ,বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এ্যাড আফজাল হোসেন, জাতীয় শ্রমিকলীগ কলাপাড়া উপজেলা শাখার সভাপতি হীরা হাওলাদার স্বপন, জাতীয় শ্রমিক লীগ কলাপাড়া উপজেলা শাখার সাংগঠনিক সম্পাদক নূর জামাল খালাসী, মোহাম্মদ তানভীর মুন্সি সহ যাদের সহযোগীতায় এই নৌ রুটটি পুনরায় চালু হয়েছে তাদের সকলের প্রতি ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছে কলাপাড়া ও রাঙ্গাবালীর সাধারন জনগন।

নতুন সময়সূচী অনুযায়ী ঢাকা থেকে প্রতিদিন ৫.৩০ মিনিটে পায়রা বন্দর এর উদ্দেশ্যে ছেড়ে যাবে এবং পায়রা বন্দর থেকে ঢাকার উদ্দেশ্যে ছেড়ে আসবে দুপুর ১২.৩০ মিনিটে

৯০ দশকের ঝিনাইদহ কে সি কলেজ ছাত্র সংসদের ভিপি মিঠু'র ২৯ তম শাহাদৎ বার্ষিকী

৯০ দশকের ঝিনাইদহ কে সি কলেজ ছাত্র সংসদের ভিপি  মিঠু'র ২৯ তম শাহাদৎ বার্ষিকী

খোন্দকার আব্দুল্লাহ বাশার। 

খুলনা ব্যুরো প্রধান। 

ঝিনাইদহ সরকারী কে সি কলেজ ছাত্র সংসদের  মিঠু-বাদশা পরিষদের ৯০ দশকের ভিপি,  স্বৈরাচার এরশাদ বিরোধী আন্দোলনের অন্যতম সংগঠক, ঝিনাইদহ জেলা ছাত্র দলের সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শহীদ শাহজাহান নূর মিঠুর আজ ২৯ তম শাহাদৎ বার্ষিকী। 

.                             

১৭ই সেপ্টেম্বর ১৯৯১সালের আজকের এই দিনে তৎকালীন সময়ের সবচেয়ে জনপ্রিয় ছাত্রনেতা সরকারি কেসি কলেজ ছাত্র সংসদের নির্বাচিত জনপ্রিয়  ভিপি শহীদ শাহজাহান নূর( মিঠু) একটি সন্ত্রাসী সংগঠনের কিছু লোক তাকে হত্যা করে।   আল্লাহ  তুমি আমাদের সকলের প্রিয় মিঠুকে জান্নাত দান করুন আমিন।

ঝালকাঠিতে "দুরন্ত ফাউন্ডেশনের"দ্বিতীয় বর্ষপূর্তি উপলক্ষে কেক কাটা ও অনুষ্ঠান

 ঝালকাঠিতে "দুরন্ত ফাউন্ডেশনের"দ্বিতীয় বর্ষপূর্তি উপলক্ষে কেক কাটা ও অনুষ্ঠান


এইচ এম জহিরুল ইসলাম মারুফ।

ঝালকাঠি জেলা  প্রতিনিধি:-


‘তরুন নেতৃত্বে শক্তি, দেশ গড়ার মূল ভিত্তি’ এই প্রতিপাদ্য নিয়ে অনুষ্ঠিত হলো ঝালকাঠির সেচ্ছাসেবী সামাজিক সংগঠন ‘’দুরন্ত ফাউন্ডেশন’ এর দ্বিতীয় বর্ষপুর্তির অনুষ্ঠান। সংগঠনটির সভাপতি তাহসিন মৃধা অনিক এর সভাপতিত্বে বুধবার বিকেলে ঝালকাঠি প্রেস ক্লাব মিলনায়তনে আয়োজিত অনুষ্ঠানমালার মধ্যে ছিলো আলোচনা সভা, দোয়া-মুনাজাত ও কেককাটা। আলোচনা অনুষ্ঠান শেষে সংগঠনটির কর্মকর্তা ও বিশেষ অতিথিদের সাথে নিয়ে প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীর কেক কাটেন অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মো: আরিফুর রহমান। এ অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন যুব উন্নয়ন অধিদপ্তর ঝালকাঠি প্রশিক্ষণ কেন্দ্রের সহকারী পরিচালক মো: মহসিন, ঝালকাঠি সরকারী মহিলা কলেজের অধ্যাপক ড. মো: শামীম আহসান, ঝালকাঠি সরকারী কলেজের রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের প্রভাষক সরওয়ার আলম সিকদার এবং ঝালকাঠি প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক এড. মো: আককাস সিকদার। আলোচনা সভার শুরুতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন সংগঠনের কর্মকর্তা মো: জুবায়ের আদনান। এ সময় দুরন্ত ফাউন্ডেশন কর্তৃক গত দু’বছরের সকল সামাজিক কর্মকান্ড তুলে ধরা হয়। একইসাথে ভিডিওগ্রাফির মাধ্যমে তা দেখানো হয়। অনুষ্ঠানে ঝালকাঠির বিভিন্ন সেচ্ছাসেবী সংগঠনের কর্মকর্তা ও সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানমালা সঞ্চালনায় ছিলেন তরুণ নারী সংগঠক সৈয়দা মাহফুজা মিষ্টি।

সাতক্ষীরা রেজিষ্ট্রি অফিসের ষ্ট্যাম্প ভেন্ডার সহ তার সহকারী দুই ঘন্টা জিম্মি

সাতক্ষীরা রেজিষ্ট্রি অফিসের ষ্ট্যাম্প ভেন্ডার  সহ তার সহকারী দুই ঘন্টা জিম্মি




সাতক্ষীরা জেলা প্রতিনিধিঃ

সাতক্ষীরা জেলার ট্রেজারী শাখা হইতে দুই ষ্ট্যাস্প ভেন্ডার সহকারী, ট্রাজারী চালানের মাধ্যমে,  সরকারি নন- জুডিশিয়াল ষ্ট্যাম্প তুলে নিয়ে যাওয়ার সময় নাম না প্রকাশ করা জৈনিক ব্যাক্তি ডিবি পরিচয়ে কোর্ট চত্বর হইতে দুই ষ্ট্যাম্প ভেন্ডার সহকারীর পিছু নেয়।  দুই ষ্ট্যাম্প ভেন্ডার সহকারী,  পলাশপোল এর মধ্য দিয়ে রেজিষ্ট্রি অফিসে যাওয়ার পথে,

দু'জন কে স্টেডিয়াম এর পাশ্ব হইতে মটর সাইকেল সহ দাঁড় করিয়ে বলে জ্বাল  জ্বাল ষ্ট্যাম্প নিয়ে কোথায় যাচ্ছিস এবং কোন জায়গা থেকে ছাপিয়ে আনছিস। ষ্ট্যাম্প ভেন্ডার সহকারীহণ জানান আমরা ট্রেজারী চালানের মাধ্যমে ষ্ট্যাম্প নিয়ে আসছি।


তার পরেও ডিবি অফিসে কর্মরত বলে পরিচয় দানকারী ব্যাক্তি  সেখানে দেড় ঘন্টা  দাঁড়িয়ে রাখার মধ্যে তাদের ক্রেতারা তাদের কাছে কল দিলে ও ভেন্ডারদের সহকারীকে, তিনি কথা না বলতে দিয়ে দু'জনের মোবাইল কেড়ে নেন।


এদিকে দু'জনকে না পেয়ে তাদের ক্রেতা আত্নীয় দের মধ্যে নানা টেনশন চিন্তা ভাবনার উদ্যেগ দেখা দেখা দেয়।


দু'জন ভেন্ডার ১৬ +৭= ২৩০০০ টাকার ষ্ট্যাম্প তোলায় তিনি বিষ্ময় প্রকাশ করে বলেন এতো টাকার ষ্ট্যাম্প কোথায় পাইলি!


তোদের খবর আছে? 


দেড় ঘন্টা পর তিনি তার স্যারকে ডাকেন তার স্যার একটি প্রাইভেটকার যোগে এসে দু'জনকে নিয়ে যেতে বলেন যেখান হতে ষ্ট্যাম্প নিয়ে এসেছে সেখানে।


সেই সাথে দু'জনের ভিডিও ছবি তুলে রাখেন।


ট্রেজারী শাখায় খোঁজ নিয়ে ষ্ট্যাম্প মিল করে জানতে পারেন ষ্ট্য্যাম্প সব সরকারি ভাবে চালানের মাধ্যমে তোলা।


তার পরেও দু'জনের ভিডিও ধারণ করে স্বীকারোক্তি আদায় করে নেয়, তাদের কোন হয়রানি করা হয়নি মর্মে।

অথচ দেড় থেকে দুই ঘন্টা তাদের হয়রানি করা হয় বলে ভুক্তভোগী দুই ষ্ট্যাম্প ভেন্ডার সহকারী জানান। তাদের মোবাইল কেড়ে নেয়ার ফলে তাদের ক্রেতা ও স্বজনরা তাদের নিখোঁজ এর কারনে বিভ্রান্তিতে পড়েন। তার কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন স্যারের অডারে আমি এটা করেছি তবে স্যারের নাম জানতে চাইলে তিনি জানাননি?


প্রকৃত ষ্ট্যাম্প কে জ্বালিয়াতি ষ্ট্যাস্প ভেবে এই হয়রানি করার কারণে সাতক্ষীরা জেলা ষ্ট্যাম্প ভেন্ডারদের মধ্যে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।

পটিয়া ছনহরায় ইদ্রিস মিয়া, ভট্টাচার্য্য, সর্দার পাড়া সড়কের বেহালদশা দুর্ভোগ চরমে

 পটিয়া ছনহরায়  ইদ্রিস মিয়া, ভট্টাচার্য্য, সর্দার পাড়া সড়কের বেহালদশা দুর্ভোগ চরমে

 সেলিম চৌধুরী,পটিয়া প্রতিনিধিঃ পটিয়া উপজেলার  ছনহরা ইউনিয়নের ইদ্রিস মিয়া সড়ক এবং একই ইউনিয়নের ২ নম্বর ওয়ার্ডে ভট্টাচার্য্য সড়ক ও সর্দার পাড়া সড়কের বেহালদশা। দেখে মনে হচ্ছে রাস্তাগুলো মৃত্যুর ফাঁদ।  রাস্তা ভেঙ্গে বড় পুকুরের চারিদিকে বিলিন হয়ে গেছে  । এক সময় পটিয়া উপজেলা চেয়ারম্যান থাকাকালে আলহাজ্ব ইদ্রিস মিয়া রাস্তাটি  সংস্কার করেছিল। বিগত ৫ বছরে কোন উন্নয়ন ছুঁয়া লাগেনি। বিষয়টি ২ নম্বর ওয়ার্ড মেম্বার মোস্তাক কে একাধিকবার এলাবাসী জানালেও রাস্তাটি সংস্কার করার জন্য কোন উদ্যােগ নেয়নি। ফলে সর্দার পাড়া এবং ভট্টাচার্য্য পাড়ার হাজার হাজার চলাচল করতে চরমভাবে দু্র্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। এমনকি এলাকার নারী পুরুষের অভিযোগ গত ২/৩ বছর রাস্তা ভেঙ্গে যাওয়ার কারণে বড় পুকুরে পড়ে তিন শিশুর মর্মান্তিক মৃত্যু হয়েছে। বৃষ্টি পডলে ঘর থেকে বের হতে পারেনা সর্দার পাড়া ভট্টাচার্য্য  পাড়ার লোকজন। এমনকি গাড়ি চলাচল বন্ধ। কোন রোগী অসুস্থ হলে হয়তোবা ডেলিভারি রোগী কোলে করে নিতে কষ্ট সীমাহীন কষ্ট হয়। এছাডাও ইদ্রিস মিয়া সড়কের    পানি নিষ্কাশনের কালভার্ট না থাকায় কয়েক হাজার একর জমিতে জলাবদ্ধতায় চাষাবাদ ব্যহত হচ্ছে। এবং রাস্তার উপর দিয়ে বর্ষাকালে পানি প্রবাহিত হওয়ায় কাপেটিং, ব্রিক সলিং ও কাচা রাস্তা ভেঙ্গে গিয়ে বড় বড় গর্তে পরিণত হয়েছে। ফলে এলাকার জনসাধারনকে চলাচলে দূর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে প্রতিনিয়ত। এতে সরকারের লাখ লাখ টাকা অপচয় হচ্ছে। এলাকাবাসীরা সড়ক গুলোতে কালভার্ট নির্মাণ করে পানি নিষ্কাশনের ব্যবস্থা করে জলাবদ্ধতা দূরীকরণ করে চাষাবাদে উপযোগী করার জন্য সরকারের নিকট দাবি জানিয়েছেন। সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়,  বর্ষা মৌসুমে পানি চলাচলের জন্য কোন কালভার্ট না থাকায় আশে-পাশের এলাকাগুলো জলাবদ্ধতার সৃষ্ঠি হয়। ২ নম্বর ওয়ার্ডে কয়েকটি গ্রাম পানিতে ডুবে গিয়ে  ব্রিক সলিং, কাপেটিং রাস্তাগুলো ভেঙ্গে গিয়ে বড় বড় গর্তে পরিণত হয়। এলাকাবাসীরা অভিযোগ করেন, এ সড়কে পানি চলাচলের কয়েকটি পুরানো নালা থাকলেও পানি নিস্কান হচ্ছে না এলাকার লোকজনের দাবি।  বর্ষাকালে এলাকায় জলাবদ্ধতা হয়। ছনহরা ইউনিয়ন পরিষদের ২ নম্বর ওয়ার্ডের সর্দার পাড়া ভট্টাচার্য্য পাড়ার আশে পাশের বেশ কয়েটি রাস্তার বেহাদশা দেখে মনে হয় এলাকাটি দীর্ঘদিন উন্নয়ন বঞ্চিত। যেন কেউ দেখার নেই। বর্ষাকালে রাস্তার উপর দিয়ে পানি চলাচল করায় রাস্তা ভেঙ্গে গিয়ে জনসাধারনকে দূর্ভোগের শিকার হতে হয়। এর ফলে বিগত ১০ বছর ধরে ছনহরা উত্তর, দক্ষিণ, পূর্ব, পশ্চিম ও পাশ্ববর্তী আশিয়া ও বাতুয়া গ্রামের প্রায় ২ হাজার একর জমিতে চাষাবাদ ব্যহত হচ্ছে। এ সড়কের কয়েকটি স্থানের কালভার্ট নির্মিত হলে এলাকাবাসী চাষাবাদ ও বর্ষাকালের জলাবদ্ধতার থেকে মুক্তি পাবে।এ ব্যাপারে ছনহরা ইউপি চেয়ারম্যান আবদুর রশিদ দৌলতির সাথে একাধিকবার ফোন করে তার বক্তব্য পাওয়া যায়নি।   জানায়ায়, ছনহরা ইউনিয়নের আলমদার পাড়া রাস্তার মাথা থেকে সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান ইদ্রিস মিয়া সড়ক, ছিকন খলিফা (রা:) সড়ক থেকে ভাটিখাইন ঠেগঁরপুনি সড়ক পর্যন্ত এবং চাটরা বরিয়া রামহরি দাশ সড়ক হইয়ে কচুয়াই ইউপি‘র ভাইয়ারদিঘির পাড় পর্যন্ত ৩টি সড়ক বৃষ্টি’র পানিতে ভেঙ্গে গিয়ে রাস্তায় কাপেটিং, ব্রিক সলিং উঠে গিয়ে বড় বড় গর্তে পরিণত হয়েছে। এ সড়ক দিয়ে ছনহরা ইউনিয়নসহ আশিয়া, কচুয়াই, ভাটিখাইন ইউনিয়নের জনসাধারনের চলাচলের দূর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। এ সড়কে কালভার্ট না থাকায় বর্ষামৌসুমে রাস্তার উপর দিয়ে পানি চলাচল করে থাকে। বিশেষ করে ছনহরা ইউনিয়ন ২ নম্বর ওয়ার্ডের ভট্টাচার্য সড়ক সর্দার পাড়ার দ্রুত সংস্কার করে ও কয়েকটি কালভার্ট নির্মাণের জন্য  জাতীয় সংসদের  হুইপ পটিয়ার এমপি  সামশুল হক চৌধুরী, পটিয়া উপজেলার চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মোতাহারুল ইসলাম চৌধুরী, প্রকল্প 


কর্মকর্তা  মহোদয়ের সু-দৃষ্টি কামনা করেন এলাকাবাসী।