সিরাজগঞ্জে ১০ টাকা কেজির ৮ মেট্রিক টন চাল সহ ৩ জন আটক

 সিরাজগঞ্জে ১০ টাকা কেজির ৮ মেট্রিক টন চাল সহ ৩ জন আটক



মাসুদ রানা সিরাজগঞ্জ জেলাপ্রতিনিধিঃ  সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুরে দরিদ্রদের বরাদ্দকৃত ১০ টাকা কেজির ৮ মেট্রিক টন চাল পাচারকালে ৩ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। তারা হলো, পার্শ্ববর্তী উল্লাপাড়া উপজেলার পার সোনতলা গ্রামের ট্রাক চালক রুবেল (৩২), হেলপাড় আলম (৩৫) ও একই এলাকার নাগরৌহা গ্রামের রবিউল ইসলাম (৫৪)।

শাহজাদপুর থানার ওসি শাহিদ মাহমুদ এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি  আমাদের প্রতিনিধিকে জানান, উক্ত উপজেলার কৈজুরী ইউনিয়নের দরিদ্রদের জন্য বরাদ্দকৃত ১০ টাকা কেজির ৮ মেট্রিক টন (১৩৪ বস্তা) সরকারি চাল রোববার ভোররাতের দিকে কৈজুরী বাজার এলাকা থেকে পাচারের জন্য ট্রাকে উঠানো হয়। এসব গুদাম থেকে ট্রাকযোগে চাল নিয়ে উল্লাপাড়া যাচ্ছিল। এমন গোপন সংবাদের ভিত্তিতে থানারঘাট করতোয়া ব্রিজ এলাকায় অভিযান চালিয়ে চাল বোঝাই ওই ট্রাকসহ তাদের গ্রেফতার করা হয়।

এদিকে গ্রেফতাকৃতরা পুলিশের প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে জানায়, ১২ হাজার টাকা ভাড়ায় কৈজুরী থেকে উল্লাপাড়ায় এ চাল নিয়ে যাচ্ছিল। স্থানীয় প্রভাবশালী ব্যক্তির সহযোগিতায় এলাকার ডিলারদের কাছ থেকে এই চাল স্বল্পমূল্যে ক্রয় করেছে একাধিক ব্যবসায়ী। উপজেলা নির্বাহী অফিসার শাহ মো: শামসুজ্জোহা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

এ ব্যাপারে উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক মনির হোসেন বাদী হয়ে সংশ্লিষ্ট থানায় মামলা দায়ের করেন।

রিপোর্টার আফরোনাজ পান্না ও ক্যামেরাম্যান মোহাম্মদ লিটনকে সিটিজি ক্রাইম টিভি থেকে বহিষ্কার

 রিপোর্টার আফরোনাজ পান্না ও ক্যামেরাম্যান মোহাম্মদ লিটনকে সিটিজি ক্রাইম টিভি থেকে বহিষ্কার

 

প্রেস বিজ্ঞপ্তিঃ সিটিজি ক্রাইম টিভির রিপোর্টার আফরোনাজ পান্না ও ক্যামেরাম্যান মোহাম্মদ লিটন পারস্পরিক যোগসাজসে ও অবৈধ উদ্দেশ্যে চাঁদাবাজি, ধান্দা ও সিটিজি  ক্রাইম টিভির সুনাম ক্ষুন্ন হয় এমন অসাধু কাজে লিপ্ত থাকার কারণে সিটিজি ক্রাইম টিভি থেকে তাদেরকে বরখাস্ত করা হয়েছে। সিটিজি ক্রাইম টিভির চেয়ারম্যান আজগর আলী মানিক বলেন, সিটিজি ক্রাইম টিভির লোগো, কার্ড কিংবা পরিচয় বহন করে যদি অসাধুভাবে কোনো অপকর্ম করে। তবে এর জন্য সিটিজি ক্রাইম টিভি দায়ভার নেবে না।  সিটিজি ক্রাইম টিভির চেয়ারম্যান আজগর আলী মানিক স্বাক্ষরিত বহিস্কার নোটিশে জানানো হয়েছে, আফরোনাজ পান্না ও তার স্বামী লিটনকে স্থায়ীভাবে বহিস্কার করা হয়েছে।  সিটিজি ক্রাইম নিউজ ও সিটিজি ক্রাইম টিভির লোগো ব্যবহার করে তাদের আইডিতে আমাদের লোগো নকল করে পেইজ ব্যবহার করে প্রতারণার দায়ে এবং আমাদের আইডিগুলো হ্যাক করার কারণে তাদের দুজনকে স্থায়ীভাবে বহিস্কার ঘোষণা করা হলো।  তারা এই দুজন কোথাও আমাদের লোগো বা আমাদের নাম ব্যবহার করলে পুলিশকে ধরিয়ে দেওয়ার জন্য অনুরোধ করছি।’’(আদেশক্রমে সিটিজি ক্রাইম টিভির চেয়ারম্যান আজগর আলী মানিক)

ধর্ষণের দায়ে আইন ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর পদত্যাগ উচিৎ-মোমিন মেহেদী

ধর্ষণের দায়ে আইন ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর পদত্যাগ উচিৎ-মোমিন মেহেদী


প্রেস বিজ্ঞপ্তিঃ নতুনধারা বাংলাদেশ এনডিবির চেয়ারম্যান মোমিন মেহেদী বলেছেন, সারাদেশে একের পর এক ধর্ষণের ঘটনা ঘটেই চলছে; প্রতিরোধে ব্যর্থ আইন ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর পদত্যাগ উচিৎ করা। তিনি ২৭ সেপ্টেম্বর সকাল ১০ টায় বরিশাল জেলা এনডিবির আহবায়ক কমিটি গঠনের লক্ষ্যে অনুষ্ঠিত এক আলোচনা সভায় উপরোক্ত কথা বলেন। এসময় তিনি আরো বলেন, আইনের শাসন প্রতিষ্ঠায় ব্যর্থ আইনমন্ত্রীর পদত্যাগ যেমন প্রয়োজন, তেমন প্রয়োজন নির্মম খুন-গুম-ধর্ষণ প্রতিরোধে ব্যর্থ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর পদত্যাগ। বাংলাদেশের স্থাপতি জাতির পিতার কন্যা ব্যতিত কোন মন্ত্রী-এমপি-সচিব-আমলাই দেশকে ভালোবাসার উদারণ তৈরি করতে পারেনি। তার উপর যোগ হয়েছে ছাত্র-যুব ও মূল দুদলের রাজনৈতিক পাষন্ডতা-অপরাধ-দুর্নীতি-খুন-গুম-ধর্ষণের মহাউৎসব। ব্যর্থতার দায় এড়াতে পারবে না কেউ। আর তাই এই সব লোকদের বিরুদ্ধে জনসমর্থন তৈরির জন্য নতুনধারা বাংলাদেশ এনডিবি বরাবরই জোটের রাজনীতিকে ‘না’ বলে রাজপথে ছিলো, আগামীতেও থাকবে। 

সভায় সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান শান্তা ফারজানা, প্রেসিডিয়াম মেম্বার অধ্যাপক শুভঙ্কর দেবনাথ, মহাসচিব নিপুন মিস্ত্রী, যুগ্ম মহাসচিব তৈমূর রহমান খান, বরিশাল শাখার সাবেক সহ-সভাপতি তিলোত্তমা খন্দকার প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।   

কুমিল্লায় হোমনায় আস্থা স্কলারশিপ এবং বৃক্ষরোপণ উদ্বোধন

কুমিল্লায় হোমনায় আস্থা স্কলারশিপ এবং বৃক্ষরোপণ উদ্বোধন


শাহ আলম জাহাঙ্গীর 

ব্যুরো চিফ, কুমিল্লা

কুমিল্লার হোমনায় সামাজিক-শিক্ষামূলক স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন ‘আস্থা সোশ্যাল ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশন’র উদ্যোগে

অাজ রোববার ২৭ সেপ্টেম্বর শিক্ষার্থীদের বৃত্তি প্রদান এবং বৃক্ষরোপণ কর্মসূচির উদ্বোধন করা হয়েছে। 


প্রধান অতিথি কুমিল্লা-২ (হোমনা-তিতাস) আসনের সংসদ সদস্য সেলিমা আহমাদ মেরী কাশিপুর হাসেমিয়া উচ্চ বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে একটি কৃষ্ণচূড়া গাছের চারা রোপণ করে বৃক্ষরোপণ এবং বৃত্তি প্রদানের উদ্বোধন করেন। 


এ উপলক্ষে বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি সেলিমা আহমাদ মেরী এমপি,জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের  জন্ম শতবর্ষে  বৃক্ষরোপনে গুরুত্ব আরোপ করেন।


বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন ইউএনও রুমন দে এবং আস্থা সোশ্যাল ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশনের উপদেষ্টা এবং অনুষ্ঠানের প্রধান পূষ্ঠপোষক সুরাইয়া ইসলাম। 


আস্থা সোশ্যাল ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশনের ভাইস চেয়ারম্যান প্রভাষ চন্দ্র সাহার সভাপতিত্বে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন- হোমনা উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মো.মহাসীন সরকার, থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল কায়েস আকন্দ, স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আরএমও ডা. মো. শহীদ উল্লাহ, উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা মো. রমজান আলী,


ভাষানিয়া ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মো. কামরুল ইসলাম, বিদ্যালয়ের সহ প্রধান শিক্ষক আবুল বাসার সরকার, উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক গাজী ইলিয়াস,


স্বেচ্ছাসেবক লীগ সভাপতি দেলোয়ার হোসেন ফারুক, উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সাদেক সরকার, রফিকুল ইসলাম নকু, পৌর যুবলীগ সভাপতি জহিরুল ইসলাম প্রিন্স, যুবলীগ নেতা খাজা আহাম্মদ, আনোয়ার হোসেন প্রমুখ।


পরে ২০১৯ সালে অনুষ্ঠিত প্রাথমিক ও মাধ্যমিক স্কুল, মাদ্রাসার পিইসি, জেএসসি-জেডিসি পরীক্ষায় জিপিএ-৫প্রাপ্ত এবং ২০২০ সালে অনুষ্ঠিত এসএসসি পরীক্ষায় জিপিএএ-৫ প্রাপ্ত ছাত্র-ছাত্রীদের মাঝে আস্থা স্কলারশিপ ২০২০ প্রদান করা হয় এবং শিক্ষার্থীদের 

ঢাকার বাসায় আমন্ত্রণ জানান।

অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন শফিকুল ইসলাম খোকা।

মানিকগঞ্জ জেলার ঘিওর উপজেলায় সংবাদিকদের ওপর হামলা, আটক-১

মানিকগঞ্জ জেলার ঘিওর উপজেলায়  সংবাদিকদের ওপর হামলা, আটক-১



আব্দুর রাজ্জাক, মানিকগঞ্জ প্রতিনিধিঃমানিকগঞ্জে সংবাদ সংগ্রহকালে সাংবাদিকদের ওপর হামলার ঘটনা ঘটেছে। রবিবার সকাল সাড়ে ১১টায় ঘিওর উপজেলার পয়লা ইউনিয়নের বড়কুষ্টিয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় প্রাঙ্গনে এ ঘটনা ঘটে। হামলার শিকার সাংবাদিকরা হলেন-দ্য ডেইলি স্টার পত্রিকার জাহাঙ্গীর আলম বিশ্বাস, বাংলাভিশনের প্রতিনিধি আকরাম হোসেন এবং সময় টিভির প্রতিনিধি মো. ইউসুফ আলী।


রবিবার সকাল সাড়ে ১১টায়  ঘিওর উপজেলার পয়লা ইউনিয়নের বড়কুষ্টিয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ওই বিদ্যালয়ের দপ্তরী কাম নৈশপ্রহরী মো: জাফরকে বহিষ্কারের দাবিতে মানববন্ধন করে স্থানীয়রা। ওই নৈশ প্রহরীর বিরুদ্ধে মাদক ব্যবসা, দেহ ব্যবসাসহ নানা অভিযোগ থাকায় স্থানীয় সংবাদকর্মীরা ওই ঘটনাস্থলে যায়। মানববন্ধন শেষে বিক্ষোভ কর্মসূচীর ছবি সংগ্রহকালে সংবাদ কর্মীদের ওপর  হামলা করে এবং ক্যামেরা ছিনিয়ে নেয়ার চেষ্টা করে পয়লা ইউনিয়ন যুবলীগের বহিষ্কৃত সাধারণ সম্পাদক রেজা মন্ডল, ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি আব্দুল কুদ্দুস মন্ডল এবং তাদের সহযোগিরা।


ঘিওর থানার অফিসাইন-চার্জ (ওসি) আশরাফুল আলম বলেন, ‘সংবাদ কর্মীদের ওপর হামলার খবর পেয়ে আমি অতিরিক্ত পুলিশ সদস্যদের সাথে নিয়ে ঘটনাস্থলে যাই এবং সংবাদ কর্মীদের উদ্ধার করি। এই ঘটনায় হামলার শিকার দ্য ডেইলী স্টার ও আরটিভির প্রতিনিধি  জাহাঙ্গীর আলম বিশ্বাস বাদি হয়ে হামলাকারীদের বিরুদ্ধে একটি অভিযোগ করেছেন। প্রাথমিক তদন্তে ঘটনার সত্যতা থাকায়, আব্দুল কুদ্দুস মন্ডলকে ঘটনাস্থল থেকেই আটক করা হয়েছে। রেজা মন্ডলসহ অন্যদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।

প্রধানমন্ত্রীর শোক: মাহবুবে আলমের অবদান জাতি শ্রদ্ধার সঙ্গে স্মরণ করবে

 প্রধানমন্ত্রীর শোক: মাহবুবে আলমের অবদান জাতি শ্রদ্ধার সঙ্গে স্মরণ করবে


খোন্দকার আব্দুল্লাহ বাশার:বাংলাদেশের অ্যাটর্নি জেনারেল ও সিনিয়র আইনজীবী মাহবুবে আলমের মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।


রোববার রাতে এক শোকবার্তায় শেখ হাসিনা বলেন, দেশের আইন অঙ্গনে সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি মাহবুবে আলমের অবদান জাতি সবসময় শ্রদ্ধার সঙ্গে স্মরণ করবে।



 

শেখ হাসিনা আরও বলেন, তিনি একজন প্রথিতযশা আইনজীবী হিসেবে জাতীয় গুরুত্বপূর্ণ অনেক আইনী বিষয়ে অত্যন্ত দক্ষতার সঙ্গে ভূমিকা রেখেছেন এবং সবসময় ন্যায়নিষ্ঠ থেকে আইনপেশায় নিয়োজিত ছিলেন যা অনুসরণীয় হয়ে থাকবে।


প্রধানমন্ত্রী মরহুমের আত্মার মাগফিরাত কামনা করেন এবং তার শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান।


প্রসঙ্গত, রোববার সন্ধ্যায় ঢাকার সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) চিকিৎসাধীন অবস্থায় শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন বাংলাদেশের অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম।


গত ৪ঠা সেপ্টেম্বর জ্বর নিয়ে ঢাকা সিএমএইচে ভর্তি হন ৭১ বছর বয়সী মাহবুবে আলম। সেখানে নমুনা পরীক্ষায় তার করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ধরা পড়ে। চিকিৎসাধীন অবস্থায় গত ১৮ই সেপ্টেম্বর মাহবুবে আলমের শারীরিক অবস্থার হঠাৎ অবনতি ঘটলে আইসিইউতে নেয়া হয়।



 

ওই সময় আইনমন্ত্রী জানিয়েছিলেন, মাহবুবে আলমের সর্বশেষ করোনাভাইরাসের সংক্রমণ পরীক্ষায় ফলাফল নেগেটিভ এসেছিল।


মাহবুবে আলম ২০০৯ সালে অ্যাটর্নি জেনারেলের পদে নিয়োগ পান। তারপর মৃত্যু অবধি ওই পদে ছিলেন। পদাধিকার বলে বাংলাদেশ বার কাউন্সিলের চেয়ারম্যানও ছিলেন তিনি।


অ্যাটর্নি জেনারেল হিসেবে সর্বোচ্চ আদালতে একাত্তরে মানবতাবিরোধী অপরাধের মামলার বিচারে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছিলেন মাহবুবে আলম।


এছাড়া সংবিধানের পঞ্চম, সপ্তম, ত্রয়োদশ ও ষোড়শ সংশোধনী মামলা পরিচালনাও করেন তিনি।

প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি মনির খান ও সাধারণ সম্পাদক ড, মাহমুদুর রহমানকে শুভেচ্ছা জ্ঞাপন

প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি  মনির খান ও সাধারণ সম্পাদক ড, মাহমুদুর রহমানকে শুভেচ্ছা জ্ঞাপন





প্রেস বিজ্ঞপ্তিঃপ্রতিষ্ঠাতা সভাপতি  মোঃ মনির খান ও সাধারণ সম্পাদক ড, মাহমুদুর রহমানকে শুভেচ্ছা জ্ঞাপন করেছেন জননেত্রী শেখ হাসিনা পরিষদ কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সহ সম্পাদক দাইয়ানুর রহমান মিষ্টারনুর । বাংলাদেশের রাজনীতিতে অতীত অবদান রাখার জন্য এবং জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শের প্রতি আনুগত্য ও বিগত দিনে জননেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে ক্ষুধা মুক্ত,দূর্নীতি মুক্ত অসাম্প্রদায়িক মধ্যম আয়ের দেশ ও উন্নত ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মানের প্রত্যয় এবং অঙ্গ সংগঠনের প্রতি অবদান বিবেচনা করে বাংলাদেশ জননেত্রী শেখ হাসিনা পরিষদের কেন্দ্রীয় কার্য নির্বাহী সংসদের সভাপতি মনোনীত হয়েছেন মোঃ মনির খান,এবং সাধারণ সম্পাদক মনোনীত হয়েছেন ড মাহামুদুর রহমান। 

সম্মানিত সভাপতি ও সম্পাদক মহোদয় কে শুভেচ্ছা জ্ঞাপন করেছেন অত্র সংগঠনের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির সহ সম্পাদক দাইয়ানুর রহমান মিষ্টারনুর । 

রাষ্ট্রায়াত্ব পাটকল চালুর দাবিতে খুলনা ডিসি অফিস ঘেরাও

রাষ্ট্রায়াত্ব পাটকল চালুর দাবিতে খুলনা ডিসি অফিস ঘেরাও




তুহিন রানা (আব্রাহাম) খুলনা নগর প্রতিনিধিঃ খুলনার জেলা প্রশাসকের কার্যালয় (ডিসি অফিস) ঘেরাও কর্মসূচি পালন করে পাটকল রক্ষায় সম্মিলিত নাগরিক পরিষদ।

রোববার (২৭ সেপ্টেম্বর) বেলা ১১টা ৪৫ মিনিট থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত বন্ধ করে দেওয়া ২৫টি পাটকল অবিলম্বে রাষ্ট্রীয় মালিকানায় চালু, আধুনিকায়ন, অবসরপ্রাপ্ত ও কর্মরত শ্রমিকদের বকেয়া পাওনা এককালীন পরিশোধ করাসহ ১৪ দফা দাবিতে এ কর্মসূচি পালন করা হচ্ছে।

ঘেরাও কর্মসূচিতে সভাপতিত্ব করেন পাটকল রক্ষায় সম্মিলিত নাগরিক পরিষদের আহ্বায়ক অ্যাডভোকেট কুদরত-ই-খুদা।

পাটকল রক্ষায় সম্মিলিত নাগরিক পরিষদের নেতারা বলেন, বিজিএমসির দুর্নীতি ও লুটপাটের কারণে পাটকলে লোকসান হয়েছে। লুটপাটের জন্যই পাটকল ও পাটশিল্প আজ ধ্বংসের পথে। অথচ বিজিএমসির দুর্নীতি ও লুটপাটের ফলে সৃষ্ট লোকসানের দায় সাধারণ পাটকল শ্রমিকদের ওপর চাপাচ্ছে সরকার। দুর্নীতিবাজদের অন্যায় শাস্তির ফল ভোগ করছেন শ্রমিকেরা। অবিলম্বে পাটকল চালুর দাবি জানান তারা।

তারা আরও জানান, করোনাভাইরাস মহামারিতে সরকারি পাটকল বন্ধ করে দেওয়ায় অনেক শ্রমিকের জীবন চলছে পেশার বদল ঘটিয়ে মানবেতরভাবে। কর্মহারা এ্ই শ্রমিকদের কেউ কেউ সহজ পেশা হিসেবে রিকশা চালাচ্ছেন। কেউবা ফল বিক্রেতা কিংবা নির্মাণ শ্রমিকের কাজেও নেমেছেন। আর এখনও কাজ জোগাড় করতে না পেরে বেকার জীবন পার করছেন অনেকে।

ঘোরাও কর্মসূচিতে অংশ নেওয়া গণ সংহতি আন্দোলন খুলনা জেলা কমিটির আহবায়ক ও পাটকল রক্ষায় সম্মিলিত নাগরিক পরিষদের সদস্য মুনীর চৌধুরী সোহেল বলেন, বিজিএমসি এবং সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের দুর্নীতি ও ভ্রন্ত নীতির কারণে পাটশিল্পে লোকসান হচ্ছে। লোকসানের এই দায় নিষ্ঠুরভাবে শ্রমিকদের উপর চাপিয়ে দেওয়া হচ্ছে। তাদের অন্যায় দুর্নীতির ফল আজ শ্রমিকদের ভাগ করতে হচ্ছে। নিষ্ঠুর এ খেলা বন্ধ করতে হবে। লুটপাতের এ সিন্ডিকেট ভেঙ্গে দিতে হবে। ২৫টি পাটকল বন্ধ করা সরকারের সিন্ধান্ত। সরকার পাটকল বন্ধের জন্য এই করোনা কালকে বেছে নিয়েছে। যাতে শ্রমিকরা আন্দোলন করতে না পারে।

তিনি দ্রুত বন্ধ পাটকলগুলো চালুর দাবি জানান।

আত্রাইয়ে এক যুবতীর ভাসমান লাশ উদ্ধার

আত্রাইয়ে এক যুবতীর ভাসমান লাশ উদ্ধার




মোঃফিরোজ হোসাইন 

রাজশাহী ব্যুরো

নওগাঁর আত্রাইয়ে আত্রাই নদীতে অজ্ঞাতনামা যুবতীর (২২) ভাসমান লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। 


রোববার সকালে উপজেলার কাশিয়াবাড়ী স্লুইচগেট  সংলগ্ন খাল হতে অর্ধগলিত ভাসমান লাশ উদ্ধার করেছে আত্রাই থানা পুলিশ। লাশের মাথা মুখমন্ডল গলা এবং হাত ও পায়ে পোড়ার চিহ্ন রয়েছে।


আত্রাই থানা ওসি মোসলেম উদ্দিন বলেন, কয়েকদিন হতে নদীতে পানি বৃদ্ধি পেয়েছে। রাতের কোন সময় হয়তোবা লাশটি উজান হতে ভেসে এসেছে। রোববার সকালে লাশ ভাসতে দেখে এলাকাবাসী খবর দিলে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য নওগাঁ মর্গে পাঠিয়েছি। এ ঘটনায় ইউডি মামলা করা হয়েছে। ময়নাতদন্ত রিপোর্ট পেলে মৃত্যুর কারণ বোঝা যাবে। এ ঘটনায় প্রয়োজনীয় আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হচ্ছে।

মাধবপুরে ফেনসিডিল ও গাঁজাসহ ব্যবসায়ী আটক

 মাধবপুরে ফেনসিডিল ও গাঁজাসহ ব্যবসায়ী আটক



লিটন পাঠান, হবিগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি:হবিগঞ্জের মাধবপুরে বিপুল পরিমান ফেনসিডিল ও গাঁজাসহ এক মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করেছে পুলিশ

রোববার (২৭ সেপ্টেম্বর) সকালে গোপন সূত্রে খবর পেয়ে আন্দিউড়া ইউনিয়নের মুরাদপুর গ্রামে মাধবপুর থানার এসআই জহিরুল ইসলাম এবং এএস আই বিল্লাল হোসেন ও এসআই এনামুল অভিযান চালিয়ে ওই গ্রামের তালেব হোসেনের পুত্র রমজান (৩৮) এর বসতঘর থেকে ৯৫ বোতল ফেনসিডিল ৮ কেজি ভারতীয় গাজাঁ উদ্ধার করা হয়।


রমজানকে আটক করলেও অপর ২ মাদক ব্যবাসয়ী পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে কৌশলে পালিয়ে যায়।

অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোহাম্মদ ইকবাল হোসেন মাদক উদ্ধারের বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন আটককৃত ও পলাতকদের বিরুদ্ধে মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা রুজুর প্রস্তুতি চলছে।

নারীর প্রতি সহিংসতার শেষ কোথায়?

নারীর প্রতি সহিংসতার শেষ কোথায়?

বশেমুরবিপ্রবি প্রতিনিধি ঃবাংলাদেশে প্রতিনিয়ত ঘটে চলেছে নারীর প্রতি চরম সহিংসতার ঘটনা।ধর্ষন,যৌন হয়রানী, যৌতুকের দায়ে নির্যাতন ইত্যাদি হচ্ছে এর মধ্যে অন্যতম।

নারীর প্রতি সহিংসতা নিয়ে কথা হয় বশেমুরবিপ্রবির এক শিক্ষার্থী ( নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক)  সাথে।তিনি এই প্রতিবেদকে জানান," নারীর প্রতি সহিংসতা কয়েকটি ভাগে দেখি। যেমন,ব্যক্তির দ্বারা সহিংসতা, ধর্ষন,গৃহ নির্যাতন, যৌন হয়রানী, প্রজননগত জবরদস্তি, কন্যা শিশু হত্যা,প্রসবকালীন সহিংসতা, যুদ্ধকালীন সহিংসতা, যৌন দাসত্ব, কর্মকর্তা বা কর্মচারী দ্বারা সহিংসতা ইত্যাদি। "


কিন্তু কেন এই সহিংসতা?  এমন প্রশ্নের জবাবে ওই শিক্ষার্থী বলেন," রক্ষকই অনেক সময় হয় ভক্ষক।" 


নির্যাতিত নারী আইনশৃঙ্খলা বাহিনী দ্বারাও অনেক সময় নির্যাতিত হয় বলে মনে করেন তিনি।ধর্ষন মামলা না নেওয়া,নারীর চরিত্র সম্পর্কে বাজে মন্তব্য, মানসিক নির্যাতন ও নারীর প্রতি কুদৃষ্টি এই সহিংসতার অন্যতম কারন বলে তিনি মনে করেন।


কলেজ পড়ুয়া এক ছাত্রীর ফাতেমা আক্তার জানান," সামাজিক অবক্ষয়, পুরুষের নেতিবাচক দৃষ্টিভঙ্গি, আইনের সঠিক প্রয়োগের অভাব,যৌতুক প্রথা,যৌন লালসা,প্রেমে হতাশা,নারীকে দূর্বল ভাবা,নারীর পোশাক( কোন কোন ক্ষেত্রে ইত্যাদি নারীকে চরম সহিংসতার মধ্যে ফেলে দেয়"।


তার মতে,আইনের সঠিক প্রয়োগ,পুরুষ দৃষ্টিভঙ্গি বদলানো,নারীদের শক্ত অবস্হান এবং ধর্মীয় সঠিক ব্যাখ্যা পারে নারীর প্রতি সহিংসতার হার কমাতে।


অবশ্য বিষয়টা নিয়ে অন্যরকম ভাবেন নারীদের নিয়ে কাজ করেন এমন একজন স্বেচ্ছাসেবী নারী মুন্নি বেগম।তিনি বলেন,," সহিংসতা এখন চরম পর্যায়ে।যেভাবে পত্র পত্রিকায় দেখি মাথা ঘুরে যায়।আমরা নিরাপদ কোথায়?সরকার আরো কঠোর পদক্ষেপ নিলে,জনসচেতনতা বাড়ালে, নারীর প্রতি নেতিবাচক মনোভাব পরিবর্তন করলে,সর্বোপরি পুরুষকে বুঝতে হবে নারী কে? তার মা সেও কিন্তু নারী।তাহলে হয়তো এটা কমানো সম্ভব বলে আমি মনে করি।"

কেশবপুরে প্রতিবন্ধীদের সেবায় নিয়োজিত সুবোধ মিত্র ওয়েলফেয়ার ফাউন্ডেশন

 কেশবপুরে প্রতিবন্ধীদের সেবায় নিয়োজিত সুবোধ মিত্র ওয়েলফেয়ার ফাউন্ডেশন



যশোর ভ্রাম্যমাণ প্রতিনিধি:যশোর জেলার কেশবপুর উপজেলায় জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের অন্যতম বিশ্বস্ত সহচর, যশোর অঞ্চলের মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম একজন সংগঠক ও সাবেক এম.এন.এ স্বর্গীয় সুবোধ মিত্র বাবুর স্মৃতী এবং আদর্শ কে চিরজীবী করে রাখার উদ্দেশ্য বাস্তবায়নের জন্য, স্বর্গীয় সুবোধ মিত্র বাবুর পুত্র জনাব এ্যাডঃ মিলন মিত্র উদ্যোগ নিয়ে প্রতিষ্ঠিতা সম্পাদক হিসাবে প্রতিষ্ঠা করেন "সুবোধ মিত্র ওয়েলফেয়ার ফাউন্ডেশন" যা ২৫/০১/২০১২ ইং তারিখে, গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয় দ্বারা পরিচালিত সমাজসেবা অধিদফতর থেকে নিবন্ধিত "সুবোধ মিত্র ওয়েলফেয়ার ফাউন্ডেশন" রেজিষ্ট্রেশন নং- ১৫০৭/১২। বর্তমানে ফাউন্ডেশন এর সভাপতি জে. বি. মুন্না এবং সাধারণ সম্পাদক এ্যাডঃ মিলন মিত্র।

"প্রতিবন্ধীতা কোন প্রতিবন্ধকতা নয়"

এই শ্লোগানকে সামনে রেখে ২০১৩ সালে যশোর জেলার কেশবপুরে "সুবোধ মিত্র ওয়েলফেয়ার ফাউন্ডেশন" এর উদ্যোগে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের জাতীয় শিক্ষা নীতিমালা এর আলোকে স্থাপিত হয় "স্বর্গীয় সুবোধ মিত্র মেমোরিয়াল অটিজম ও প্রতিবন্ধী বিদ্যালয়"। একটি ভাড়া ভবনে সল্প সংখ্যক ছাত্র-ছাত্রী নিয়ে যাত্রা শুরু হয় বিদ্যালয়টির। পরবর্তীতে বিদ্যালয়ের নিজস্ব ভবন তৈরি করার জন্য জমি দান করেন স্বর্গীয় সুবোধ মিত্র বাবুর সহধর্মীনি অপর্না মিত্র।


২২-শে মে, ২০১৯ইং তারিখে বিদ্যালয়ের নিজস্ব ভূমীতে নুতন ভবনের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করেন তদকালীন  কেশবপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার জনাব মোঃ মিজানুর রহমান এবং ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন কেশবপুরের বিশিষ্ট ব্যাক্তিবর্গ। 

বিদ্যালয়ের নুতন ভবন টি ৩১-শে অক্টোবর,২০১৯ সালে উদ্বোধন করেন প্রয়াত সাংসদ ও সাবেক জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ইসমত আরা সাদেক। জাতীয় শিক্ষা নীতিমালা অনুসারে বিদ্যালয়ে আছেন ১৭জন শিক্ষক-শিক্ষিকা, ১জন কম্পিউটার অপারেটর, ১জন ফিজিওথেরাপিষ্ট, এবং ১৩জন অফিস স্টাফ। 


প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীদের যাতায়াতের জন্য বিদ্যালয় থেকে যানবাহন পাঠিয়ে দেওয়া হয় প্রতিটা শিক্ষার্থীর বাড়িতে, সেই জন্য ভাড়াই চালিত নসিমন এবং করিমন নামক গ্রাম্য পরিবহন ব্যবস্থার মাধ্যমে আপাতত চলছে প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীদের চলাচল। প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীদের পাঠ্য পুস্তকের পাশাপাশি চিত্ত্ব বিনোদন ও শরীর চর্চা, নাচ, গান, অংকন, আবৃতি ক্লাসের মাধ্যমে প্রতিভা বিকাশের জন্য একটি প্রচেষ্টা অব্যাহত রয়েছে বিদ্যালয়ে।


এ্যাডঃ মিলন মিত্রের একান্ত প্রচেষ্টায় প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীদের জন্য বিদ্যালয় চলাকালীন মধ্যাহ্ন ভোজের ব্যাবস্থা চলমান। যে সকল বাক ও শ্রবন প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থী রয়েছে, তাদের জন্য আছে ইশারা ভাষা শিক্ষার ব্যাবস্থা, এবং এই শিক্ষার মাধ্যমে তারা অতি সহজে নিজেদের মনের কথা প্রকাশ করতে পারে।


এই ব্যাপারে "সুবোধ মিত্র ওয়েলফেয়ার ফাউন্ডেশন" (এস এম ডব্লিউ এফ) এর সভাপতি জে. বি. মুন্নার সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, ফাউন্ডেশন এর সাধারণ সম্পাদক জনাব এ্যাডঃ মিলন মিত্র অক্লান্ত পরিশ্রম করে চলেছেন "স্বর্গীয় সুবোধ মিত্র মেমোরিয়াল অটিজম ও প্রতিবন্ধী বিদ্যালয়" এর সার্বিক উন্নয়নের জন্য, এবং তিনি তার প্রয়াত পিতার আদর্শ ধারণ করে কেশবপুরবাসীর পাশে আছেন এবং কেশবপুর উপজেলায় চারহাজারের অধিক প্রতিবন্ধী রয়েছে তাদের জীবন মান উন্নয়নের জন্য অক্লান্ত পরিশ্রম করে চলেছেন সাথে সাথে কেশবপুর পৌরসভার সাধারণ মানুষের সেবায় সর্বদা নিজেকে নিয়োজিত রেখেছেন। জে. বি. মুন্না আরও বলেন "স্বর্গীয় সুবোধ মিত্র মেমোরিয়াল অটিজম ও প্রতিবন্ধী বিদ্যালয়" নিয়ে আমাদের অনেক পরিকল্পনা রয়েছে, বিশেষ করে- বিদ্যালয় প্রাঙ্গনে একটি ফিজিওথেরাপি সেন্টার স্থাপন এবং বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের যাতায়াত এর জন্য নিজস্ব পরিবহন ব্যবস্থা এবং আবাসিক ব্যাবস্থার প্রয়োজন রয়েছে, সাথে সাথে তিনি সমাজের বিবেকবান বিত্তবানদের প্রতি বিনীত আহ্বান জানিয়েছেন; সমাজকল্যানে এবং অসহায় প্রতিবন্ধীদের পাশে থাকার জন্য এগিয়ে আসুন, এ্যাডঃ মিলন মিত্র যেমন তার পিতার আদর্শ ধারণ করে বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা স্থাপনের অগ্রযাত্রায় নিজেকে নিয়জিত রেখেছেন তদ্রূপ সকল বিবেকবান বিত্তশালী বর্গকে এগিয়ে আসতে হবে দেশের উন্নয়ন এবং অসহায়দের সেবায়।

ঝিকরগাছা উপজেলায় স্বল্প সুদে উদ্যোক্তা ঋণ প্রদাণ

ঝিকরগাছা উপজেলায় স্বল্প সুদে উদ্যোক্তা ঋণ প্রদাণ

মোঃ ইকরামুল করিম সৈকত, ঝিকরগাছা (যশোর) প্রতিনিধিঃমাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা অগ্রাধীকার মুলক প্রকল্পে ঝিকরগাছা উপজেলা বিআরডিবির আওতাধীন ইরেসপো প্রকল্প উদ্যেক্তা সদস্য মাগুরা মধ্যপাড়া মহিলা সমিতি বিআরডিবির সদস্য মনোয়ারা বেগমকে গবাদি পশুপালনের জন্য স্বল্প সুদে (১০০০০০) এক লক্ষ টাকা  উদ্যেক্তা ঋন প্রদান,

ঝরনা বেগম— সবজি ও হলুদ চাষে উদ্যেক্তা (১০০০০০) এক লক্ষ টাকা ও রাবেয়া খাতুন— রাইস মিল ট্রেডে উদ্যেক্তা ঋন (১০০০০০) এক লক্ষ টাকা বিতারন করা হয়।


উক্ত অনুষ্ঠানে ঝিকরগাছা উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান জনাব সেলিম রেজা ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান জনাব লুবনা তাক্ষী উপস্থিত ছিলেন।

নারীর প্রতি অব্যাহত সহিংসতার প্রতিবাদে দিনাজপুরে মহিলা পরিষদের মানববন্ধন

 নারীর প্রতি অব্যাহত সহিংসতার প্রতিবাদে  দিনাজপুরে মহিলা পরিষদের মানববন্ধন




মামুনুর রশিদ, দিনাজপুর প্রতিনিধি ॥ ‘নারীর প্রতি অব্যাহত সহিংস তা, নারী হত্যা, ধর্ষণ বন্ধ করো’ এই শ্লোগানকে সামনে রেখে সাভারের নিগা রায় হত্যা, খাগড়াছড়ির প্রতিবন্ধী আদিবাসী কিশোরীকে ধর্ষণের প্রতিবাদে ও দ্রুত বিচারের দাবীতে দেশব্যাপী কর্মসূচীর অংশ হিসেবে বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ দিনাজপুর জেলা শাখা মানববন্ধন কর্মসূচী পালন করেছে। 

২৭ সেপ্টেম্বর রোববার বেলা ১১ টায় দিনাজপুর প্রেসক্লাব সম্মুখ সড়কে ঘণ্টাব্যাপী মানববন্ধন কর্মসূচীতে সভাপতির বক্তব্যে মহিলা পরিষদের সভাপতি কানিজ রহমান বলেন, নারীর প্রতি সহিংসতা প্রতিদিনকার ঘটনা। বর্তমান সমাজব্যবস্থায় পরিবার, সমাজ ও রাষ্ট্রের প্রতিটি স্তরে পদে পদে নির্যাতিত হচ্ছে নারী। নারী নির্যাতনের ভয়াবহ দিকটি কত প্রকট হয়ে উঠছে তা প্রতিদিন পত্রিকার পাতা খুললেই আমাদের চোখের সামনে ধরা দেয়। প্রতিনিয়ত নারীরা ধর্ষণ, গণধর্ষণ, এসিড নিক্ষেপ, শারীরিক নির্যাতন এমনকি হত্যার শিকার হচ্ছে। ধর্ষণের পাশাপাশি হত্যা ও আত্মহত্যার প্রবণতাও বাড়ছে। বাড়ছে ব্যাপক মাত্রায় পারিবারিক নির্যাতন। পারিবারিক নির্যাতন রূপ নিচ্ছে ভয়ঙ্কর সহিংসতায়। নারীর প্রতি সহিংসতা বন্ধ করতে হলে বিচারহীনতার সংস্কৃতি বন্ধ ও সমন্বিত কর্মসূচি গ্রহণ করতে হবে। এজন্য প্রয়োজন পারিবারিক শিক্ষা এবং রাষ্ট্রীয় শিক্ষাব্যবস্থার আমূল পরিবর্তন।মানববন্ধন কর্মসূচীতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ মহিলা পরিষদ দিনাজপুর জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক ড. মারুফা বেগম। দিনাজপুর মহিলা পরিষদের সাংগঠনিক সম্পাদক রুবিনা আকতার-এর সঞ্চালনায় কর্মসূচীতে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন সংগঠনের সহ-সভাপতি মাহবুবা খাতুন, সুমিত্রা বেস্রা, মিনতি ঘোষ, সহ-সাধারণ সম্পাদক মনোয়ারা সানু, অর্থ সম্পাদক রতনা মিত্র, লিগ্যাল এইড সম্পাদক জিন্নুরাইন পারু, প্রচার সম্পাদক জেসমিন আরা, সদস্য-গোলেনুর বেগম, মিতালী, শুকলা কুন্ডু, নাজমা বেগম, রেহেনা বেগম, নুরুন নাহার, কবিজান, মিনতি এক্কা, শিবানী উড়াও, শিক্ষার্থী তামান্না আকতার তনু প্রমুখ।

দিনাজপুরের গৌরিপুর পানি নিয়ন্ত্রণ প্রকল্প পরিদর্শন করলেন পানি সম্পদ প্রতিমন্ত্রী জাহিদ ফারুক এমপি

 দিনাজপুরের গৌরিপুর পানি নিয়ন্ত্রণ প্রকল্প পরিদর্শন   করলেন পানি সম্পদ প্রতিমন্ত্রী জাহিদ ফারুক এমপি


মামুনুর রশিদ, দিনাজপুর প্রতিনিধি  ॥ দূর্যোগপূর্ণ আবহাওয়া উপেক্ষা করে দিনাজপুর সদর উপজেলার গৌরিপুর পানি নিয়ন্ত্রণ কাঠামো সেচ প্রকল্প নির্মাণ কাজ পরিদর্শন করলেন পানি সম্পদ প্রতিমন্ত্রী জাহিদ ফারুক এমপি। 

 দিনাজপুর সদর উপজেলার ৯নং আস্করপুর ইউনিয়নের গৌরিপুর পানি নিয়ন্ত্রণ কাঠামো সেচ প্রকল্প নির্মাণ কাজ সরজমিনে পরিদর্শন করেন পানি সম্পদ প্রতিমন্ত্রী জাহিদ ফারুক এমপি। এ সময় উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ডের মহাপরিচালক এ এম আমিনুল হক, পানি সম্পদ মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মো. মাহমুদুল ইসলাম, পানি উন্নয়ন বোর্ডের উত্তরাঞ্চলের প্রধান প্রকৌশলী যোতি প্রশাদ ঘোষ, জেলা প্রশাসক মো. মাহমুদুল আলম, ঠাকুরগাঁও পানি উন্নয়ন বোর্ডের তত্বাবধায়ক প্রকৌশলী সৈয়দ শাহিদুল আলম, দিনাজপুর পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মো. রাকিবুল হাসান, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) আবু সালেহ মো. মাহফুজুল আলম, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শচীন চাকমা, সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ইমদাদ সরকার, সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার এইচএসএম মাগফুরুল হাসান আব্বাসী, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সদর সার্কেল সুজন সরকার প্রমুখ।

গৌরিপুর পানি নিয়ন্ত্রণ কাঠামো সেচ প্রকল্প নির্মাণ কাজ পরিদর্শনে এসে পানি সম্পদ প্রতিমন্ত্রী জাহিদ ফারুক এমপি একটি গাছের চারা রোপণ করেন।

প্রিপেইড মিটারের কিছু অজানা তথ্য

প্রিপেইড মিটারের কিছু অজানা তথ্য

সুমন হোসেন, যশোর জেলা প্রতিনিধি:যশোর জেলা যেহেতু ডিজিটাল মিটারের আওতায় সেহেতু জেনে রাখুন বৈদ্যুতিক প্রিপেড ডিজিটাল মিটার ব্যবহারের কিছু তথ্যঃ

প্রথম বার ১০০০ টাকা রিচার্জে আপনি পাবেন ৭৯২ টাকা,

কারণঃ-

১। মিটার পরীক্ষার সময় আপনাকে প্রথমেই ১০০ টাকা মিটারের সাথে দেওয়া হয়েছিল। তাই প্রথম ১ বার ১০০ টাকা কাটবে।

২। ডিমান্ড চার্জ আগে প্রতি কিলো ওয়াট লোডের জন্য  ছিল ২৫ টাকা এখন ডিজিটাল মিটারের ক্ষেত্রে ১৫ টাকা। (প্রতি মাসে এক বার করে কাটবে)

৩। মিটার ভাড়া ৪০ টাকা। (প্রতি মাসে এক বার)

৪। সরকারি ভ্যাট আগেও ছিল ৫% এখনো ৫%।

৫। সার্ভিস চার্জ ১০ টাকা। (প্রতি মাসে একবার)

বিঃ দ্রঃ এই সব কারণে ডিজিটাল মিটার প্রথম ১০০০ টাকার কার্ড রিচার্জে ১০০০ টাকার স্থানে ৭৯২ টাকা দেখাবে, কিন্তু আপনি ঐ মাসেই যদি আবার ১০০০ টাকা রিচার্জ করেন তাহলে শুধু সরকারি ভ্যাট ৫% টাকা কাটার পর বাকি টাকা মিটারে রিচার্জ হবে। তাই ডিজিটাল মিটারের গ্রাহকদের আতঙ্কিত হওয়ার কোন কারণ নাই।

স্থিতি জানতে আরও কিছু বিশেষ তথ্যঃ

১। আপনি কত ইউনিট ব্যবহার করেছেন তা জানার জন্য  ৮০০ চাপুন।

২। আপনার মিটারে কত টাকা জমা আছে তা জানতে ৮০১ চাপুন।

৩। ইমার্জেন্সি ব্যালেন্স জানতে ৮১০ চাপুন।

৪। মিটার টি চালু অথবা বন্ধ করতে ৮৬৮ চাপুন।

৫। আপনার মিটারটি কত কিলোওয়ার্টের  তা জানতে ৮৬৯ চাপুন।

পোস্টটি প্রয়োজনীয় হলে শেয়ার করেন।

করোনায় বন্ধ বশেমুরবিপ্রবি ক্যাম্পাস পরিনত হয়েছে গরু- ছাগলের অবাধ বিচারণক্ষেত্রে

 করোনায় বন্ধ বশেমুরবিপ্রবি ক্যাম্পাস পরিনত হয়েছে গরু- ছাগলের অবাধ বিচারণক্ষেত্রে




  বশেমুরবিপ্রবি প্রতিনিধিঃ গোপালগঞ্জের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের  (বশেমুরবিপ্রবি) বন্ধ ক্যাম্পাসে অবাধ ও নিরবিচ্ছিন্নে ভাবে গরু,ছাগলসহ গবাদিপশুর চলাচল লক্ষ্য করা গেছে।করোনা মহামারীর ছুটি চলাকালীন এই চলাচলে চারণক্ষেত্র হয়ে উঠেছে 

 পুরো ক্যাম্পাস। 


ক্যাম্পাস বন্ধ থাকার কারনে প্রায়শই  বিভিন্ন স্থানে দেখা যাচ্ছে  গবাদিপশুর অবাধ চলাচল এবং ক্যাম্পাসে বেড়ে ওঠা গাছপালা খাওয়ার দৃশ্যও। আর এসব গবাদিপশুর  অবাধ চলাচলের কারণে যেখানে সেখানে গোবর পড়ে থাকায় নষ্ট হচ্ছে বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিবেশ।


গবাদিপশুর চারণভূমি প্রসঙ্গে অর্থনীতি বিভাগের ছাত্র সাদিদ হাসান বলেন,'বিশ্ববিদ্যালয়ে কিছুদিন যাবৎ অবস্থান করার ফলে  ক্যাম্পাসের গবাদিপশুর অবাধ চলাচল দেখতে পাচ্ছি। ক্যাম্পাসের ভিতরে ছোট-ছোট ফুল ও ফল গাছ খেয়ে ফেলার কারণে ও যেখানে সেখানে গোবর, মল-মূত্র থাকার কারণে নষ্ট হচ্ছে বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিবেশও।"


বিশ্ববিদ্যালয়ের গনিত বিভাগের শিক্ষার্থী  রিফাত আহমেদ বলেন, "বেশ কিছুদিন যাবত ক্যাম্পাসে বিভিন্ন স্থানে গরু-ছাগলের অবাধ বিচরনে বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিবেশ নস্ট হচ্ছে। এ ব্যাপারে প্রশাসন কিংবা ক্যাম্পাস রক্ষকদের দ্রুত প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া উচিত।"


বিশ্ববিদ্যালয়ের নিরাপত্তা কর্মকর্তা তরিকুল ইসলাম জানান, ‘ভিসি স্যারের বাংলোর পিছনে খালের জায়গায়টা অরক্ষিত থাকার কারণে স্থানীয় কিছু গ্রামবাসী ঐ স্থান দিয়ে টানা কয়েকদিন যাবৎ গরু নিয়ে প্রবেশ করে যাচ্ছে।তাদেরকে ব্যক্তিগতভাবে বাঁধা দিলেও অনেকেই তা মানছেন না।'


গ্রামবাসীকে সচেতন করার কথা জানিয়ে তিনি আরো বলেন, "এ বিষয়ে গ্রামবাসীকে সচেতন করার জন্য আমরা মাইকিং ব্যবস্থা করবো যাতে কেউ গরু নিয়ে ক্যাম্পাসে প্রবেশ না করে এবং এটা নিয়ে খুব দ্রুতই আমি ভিসি স্যারের সাথে কথা বলে স্যারের নির্দেশনার আলোকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবো।"

দিনাজপুরের পার্বতীপুরে মাটির ঘরের দেয়াল ধ্বসে একই পরিবারের ৪জন নিহত

 দিনাজপুরের পার্বতীপুরে মাটির ঘরের দেয়াল ধ্বসে একই পরিবারের ৪জন নিহত




মামুনুর রশিদ,দিনাজপুর প্রতিনিধিঃ দিনাজপুরের পার্বতীপুর উপজেলায় মাটির দেয়াল চাপা পড়ে দুই সন্তানসহ স্বামী-স্ত্রীর মৃত্যু হয়েছে। শনিবার (২৬ সেপ্টেম্বর) মধ্য রাতে  দিনাজপুরের পার্বতীপুর উপজেলার পলাশবাড়ী ইউনিয়নের ঝাউপাড়া গ্রামে এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহতরা হলেন, স্বপন (৩০), স্বপনের স্ত্রী সারজানা (২৫) ও তাদের দুই শিশুপুত্র হোসাইন (৭) ও হাসিবুর (৫)।

স্থানীয়রা জানান, শনিবার দিবাগত রাতের কোন এক সময় ঘটনাটি ঘটে। আজ রোববার ভোরে এলাকার লোকজন দেখতে পেয়ে তাদের উদ্ধার করে। তবে পূবেই তাদের মৃত্যু ঘটে। গত কয়েক দিনের টানা বর্ষনের কারনে এমনটা হয়েছে বলে জানান গ্রামবাসী।

এ ঘটনাটি পার্বতীপুর মডেল থানার ওসি মখলেছুর ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন।

ঝিনাইদহে পুলিশের অভিযানে গাঁজাসহ আটক -২

 ঝিনাইদহে পুলিশের অভিযানে গাঁজাসহ আটক -২

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি:ঝিনাইদহে ১১৫ গ্রাম গাঁজাসহ দুই মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করেছে সদর থানা পুলিশ। শনিবার রাতে পৌর এলাকার চানপাড়ায় সাইফুল ইসলাম নামে এক ব্যক্তির বসত ঘরের বারান্দায় মাটির গর্ত খুড়ে উপরে জুতা রেখে ঢেকে রাখা অবস্থায় গাঁজা উদ্ধার করা হয়। এসময় আটক করা হয় পৌর এলাকার চানপাড়ার বজলুর রহমানের ছেলে টুটুল হোসেন (২৭) ও চানপাড়ার বসবাসকারী জেলার শৈলকুপা উপজেলার খুলুম বাড়ীয়া গ্রামের পাঞ্জাব আলীর ছেলে সাইফুল ইসলাম (৪৫)।

ঝিনাইদহ সদর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোহাম্মদ মিজানুর রহমান জানান, শহরের আরাপপুর চাঁনপাড়া এলাকায় বেশ কিছু দিন ধরে মাদকদ্রব্য বেচা-কেনাসহ যুব সমাজকে মাদকাসক্ত হওয়ার সহায়তা করে আসছে। এমন খবরের ভিত্তিতে এস আই রফিকুল ইসলাম অভিযান চালিয়ে তাদেরকে আটক করে। এ ঘটনায় সদর থানায় একটি মামলা হয়েছে।

নওগাঁর বদলগাছী উপজেলা চপ্তরে পাহাড় পুরে বিশ্ববিদ্যালয় পূর্ণ পতিষ্ঠার দাবিতে মানববন্ধন

নওগাঁর  বদলগাছী উপজেলা চপ্তরে পাহাড় পুরে বিশ্ববিদ্যালয়  পূর্ণ পতিষ্ঠার  দাবিতে মানববন্ধন



রহমতউল্লাহ বদলগাছী নওগাঁ:নওগাঁ বদলগাছী উপজেলা চত্বরে পাহাড়পুর বিশ্ববিদ্যালয় পূর্ণ  প্রতিষ্ঠার দাবিতে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেন বদলগাছী উপজেলার সর্বস্তরের জনসাধারণ

আজ ২৭ই -সেপ্টেম্বর বেলা ১১টায় বদলগাছী উপজেলা চপ্তরে এ মানববন্ধন  অনুষ্ঠিত হয়। 

কাল মেঘ যেখানে  আচ্ছন্নতায়  পূর্ণতা  না পেয়ে ও পূর্ণতা  পেতে চায়।

তার অবসান ঘটাতে সচ্ছল  আকাশ যার পূর্ণ তার অধিকার  হরন হচ্ছে  বলে মনে হয়, তেমনি  নওগাঁর  বদলগাছী পাহাড়  পুর বৌদ্ধ  বিহার তথা সোমপুর মহাবিহার যা ৭৮১-৮২১ খ্রিষ্টাব্দ  পযন্ত ছিল বৌদ্ধ  ভিক্ষুকদের উপসানালয় কেন্দ্র  যা এশিয়ার প্রসিদ্ধ একটি বিহার যেখানে  জ্ঞান চর্চার জন্য আসতো দেশ-বিদেশ থেকে শিক্ষার্থীবৃন্দ তার ধারাবাহিকতা রক্ষায়


 নওগাঁ জেলার অনুমোদিত পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়। পাহাড়পুর কে কেন্দ্র করে পাহাড়পুরের অতীতের  ঐতিহ্যকে ফিরিয়ে আনতে নওগাঁ জেলা বদলগাছী উপজেলার সর্বস্তরের জনসাধারণনের জোর দাবি   পাহাড়পুরের নওগাঁয় অনুমোদিত পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় পূর্ণ প্রতিষ্ঠিত করা হক যা তাদের  অধিকার।

বাংলাদেশ সরকারের  অনুমেদিত  এ বিশ্ববিদ্যালয়টি নিয়ে চলছে বহূ দ্বিমত পোষন।  যা নিয়ে চলছে পুরা নওগাঁয়  অন্দলন বহু করমর্দন  মানববন্ধন ।


তবে পাহাড় পুর এলাকা বাসি জোর  দাবি  এখানে ইউনেস্কো ঘোষিত প্রসিদ্ধ কেন পাহাড়পুর বৌদ্ধবিহার যা অতিতে ছিল একটি বিশ্ব বিখ্যাত প্রসিদ্ধ বিশ্ববিদ্যালয় তার মান রক্ষার স্বার্থে এখানে বিশ্ববিদ্যালয়টি পুনঃপ্রতিষ্ঠা করা হক।

উক্ত মানববন্ধনে বক্তারা বলেন  মধ্যে আমাদের দাবি মানা না হলে আমরা রাজ পথে নামব

তবে আমাদের  দাবি ও আমাদের  অধিকার  রক্ষা করব ইনশাল্লাহ।

উক্ত  মানববন্ধনে সভাপতিত্ব করেন পাহাড়পুর বিশ্ববিদ্যালয় পুনঃ নির্মাণ পরিষদের নেতাকর্মী ও সদস্যবৃন্দ।

মাধবপুরে বাস-পিকআপ ভ্যান মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহত-১

মাধবপুরে বাস-পিকআপ ভ্যান মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহত-১



লিটন পাঠান, হবিগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি:হবিগঞ্জের মাধবপুরে  পিকআপ ভ্যান ও যাত্রীবাহী বাস মুখোমুখি সংঘর্ষে নুরুল আমিন লিওন নামে একজন নিহত হয়েছেন এ ঘটনায় আরও এক জন আহত হয়েছেন রবিবার (২৭ সেপ্টেম্বর) ভোর ৬ টার দিকে উপজেলার রিয়াজনগর এলাকায় অবস্থিত আর.এ.কে স্টার সিরামিক্স কোম্পানির সামনে এ দূর্ঘটনাটি ঘটে নিহত পিকআপ ভ্যান চালক।


নুরুল আমিন লিওন (১৮) কুমিল্লার চৌদ্দগ্রাম উপজেলার ধনমুড়ি গ্রামের। আহত ব্যাক্তি একই উপজেলার সিদ্দিকুর রহমানের ছেলে সাহাবউদ্দিন মিয়া (২২)

পুলিশ সূত্রে  জানা যায় , সকাল ৬ টার দিকে স্টার সিরামিক্স কোম্পানির সামনে দুটি গাড়ি ওভারটেক করেতে গেলে মুখোমুখি সংর্ঘষ বাঁধে।এতে পিকআপ ভ্যান চালক ঘটনাস্থলে নিহত হয়। এবং চালকের সহকারিকে গুরুত্বর আহত অবস্থায় হবিগঞ্জ সদর হাসপাতলে চিকিৎসার জন্য পাঠানো হয়েছে।


শায়েস্তাগঞ্জ হাইওয়ে থানার ওসি তৌফিকুল  ইসলাম তৌফিক দূর্ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, নিহত ব্যাক্তির লাশ দূর্ঘটনা স্থল থেকে উদ্ধার থানায় আনা হয়েছে। এবং আহত ব্যাক্তিকে হবিগঞ্জ সদর হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য পাঠানো হয়েছে

এদিকে, দূর্ঘটনাস্থল স্টার সিরামিক্স কোম্পানির সামনে মহাসড়কে অবৈধ র্পাকিং এর কারণে এ দূঘটনা ঘটেছে বলে দাবি স্থানীয়দের।


এ পর্যন্ত একই স্থানেই ছোট বড় দূর্ঘটনা ঘটেছে ২০টির ও বেশি এ পর্যন্ত এখানে প্রাণ হারিয়েছে ১৫ জনের মত এবং আহত হয়েছে অর্ধশত মানুষের চেয়ে ও বেশি। স্থানীয় সচেতন মহলের দাবি স্টার সিরামিক্স কোম্পানীর অবৈধ পার্কিং বন্ধ না করা গেলে এ দূঘটনা প্রতিনিয়ত ঘটতেই থাকবে।

নদী বাঁচলে দেশ বাঁচবে,এই স্লোগানে মোংলায় বিশ্ব নদী দিবস পালিত

 নদী বাঁচলে দেশ বাঁচবে,এই স্লোগানে মোংলায়  বিশ্ব নদী দিবস পালিত




মোঃএরশাদ হোসেন রনি, মোংলাঃবিশ্ব নদী দিবস উপলক্ষে মোংলায় ২৭ সেপ্টেম্বর   রবিবার সকাল ১০টায় পশুর নদী এবং মোংলা নদীর মোহনায়।' নদী বাচলে, দেশ বাচবে এই স্লোগানে'  বিশ্ব নদী দিবস পালন করা হয়। 


নদী দিবস উপলক্ষে পরিবেশবাদী সংগঠন পশুর রিভার ওয়াটারকিপার, বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলন ( বাপা ), ওয়াটারকিপার্স বাংলাদেশ এবং বাদাবন এর আয়োজনে দিনব্যাপি বিভিন্ন কর্মসূচি ঘোষণা করা হয়েছে। পশুর এবং মোংলা নদীর মোহনায় অনুষ্ঠিত এসব কর্মসুচির মধ্যে রয়েছে  প্লাস্টিক বর্জ্য পরিচ্ছন্নতা অভিযান, নদী রক্ষার দাবীতে মানববন্ধন,সাতার প্রতিযোগিতা এবং বিকালে  নদী মাতৃক বাংলাদেশ শীর্ষক শিশু চিত্রাংকণ প্রতিযোগিতা এবং নদী কেন্দ্রীক  গানের আড্ডা অনুষ্ঠিত হবে।    

  




রবিবার সকাল ১০টায় পশুর এবং মোংলা নদী সংলগ্ন এলাকায় প্রতীকী প্লাস্টিক বর্জ্য পরিচ্ছন্নতা অভিযানের মাধ্যমে বিশ্ব নদী দিবসের কর্মসুচির শুভ সূচনা করা হয়। এসময় উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলন ( বাপা ) এর বাগেরহাট জেলা কমিটির আহ্বায়ক পশুর রিভার ওয়াটারকিপার মোঃ নূর আলম শেখ, সুশাসনের জন্য নাগরিক সুজন মোংলার ভারপ্রাপ্ত সভাপতি অধ্যাপক নজরুল ইসলাম, পশুর রিভার ওয়াটারকিপার ভলান্টিয়ার নাজমুল হক, ইস্রাফিল বয়াতি, মাহারুফ বিল্লাহ, সুষ্মিতা মন্ডল, শুক্লা হালদার, জেলে সমিতির সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রশিদ হাওলাদার, ইয়ুথ লিডার রিয়াজ, বাদাবনের আল ইমরান ইজারদার প্রমূখ।

সকাল ১১টায় পশুর ও মোংলা নদীর মোহনায় নদীর তীরে নদী দখল এবং দূষণ বন্ধের দাবীতে আয়োজন করা হয় মানববন্ধন। মানববন্ধন চলাকালে সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন বাপা'র বাগেরহাট জেলা কমিটির আহ্বায়ক সাংবাদিক মোঃ নূর আলম শেখ। মানববন্ধনে বক্তারা বলেন নদী বাচলে দেশ বাচবে।  অপরিকল্পিত শিল্পায়ন এবং চিংড়ি চাষের ফলে উপকূলীয় অঞ্চলে প্রবাহমান নদী-খাল দখল হচ্ছে। এছাড়া প্লাস্টিক পণ্য, জাহাজী বর্জ্য, তেল-কয়লা-সার ইত্যাদির মাধ্যমে প্রতিনিয়ত পশুর ও মোংলা নদীর পানি দূষণ ক্রমান্বয়ে বৃদ্ধি পাচ্ছে। বক্তারা দখল এবং দূষণ বন্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণে প্রশাসনের কাছে জোর দাবী জানান। সকাল সাড়ে ১১টায় নদীর রক্ষায় সচেনতা সৃষ্টিতে সাতার প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়।

এছাড়া  বিকেল ৩টায় নদী মাতৃক বাংলাদেশ শীর্ষক শিশু চিত্রাংকণ প্রতিযোগিতা এবং নদী কেন্দ্রিক গানের আড্ডা অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে।বিকালের চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা ও গানের আড্ডা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত থাকবেন  উপজেলা নির্বাহি অফিসার কমলেশ মজুমদার। বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত থাকবেন  সহকারি কমিশনার ( ভূমি ) নয়ন কুমার রাজবংশী ও মোংলা থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ ইকবাল বাহার চৌধুরী। অনুষ্ঠানে সাতার এবং শিশু চিত্রাংকণে বিজয়ীদের মাঝেও পুরস্কার বিতরণ করা হবে।

চৌগাছা উপজেলা আওয়ামী যুবলীগের পক্ষ থেকে বৃক্ষরোপণ

চৌগাছা উপজেলা আওয়ামী যুবলীগের পক্ষ থেকে বৃক্ষরোপণ

স্টাফ রিপোর্টারঃ যশোরের চৌগাছা উপজেলার পাপাশাপোল আমজামতলা মডেল কলেজ প্রাঙ্গনে রবিবার সকাল ১০টায়  জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু কন্যা বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ এর সভাপতি মাননীয় প্রধানমন্ত্রী সফল রাষ্ট্রনায়ক দেশরত্ন শেখ হাসিনা এমপি'র ৭৪ তম শুভ জন্মদিন উপলক্ষে চৌগাছা উপজেলা আওয়ামী যুবলীগের আয়োজনে বৃক্ষরোপন কর্মসূচী অনুষ্ঠিত হয়েছে।  এসময় উপস্থিত ছিলেন চৌগাছা উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান ও উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক দেবাশীষ  মিশ্র জয়,যুগ্ম আহবায়ক সৈয়েদ শরিফুল ইসলাম,আনিচুর রহমান,পাশাপোল ইউনিয়ন যুবলীগ নেতা প্রভাষক মোঃ সবুজ হোসেন, পাশাপোল ইউনিয়ন ৪ নং ওয়ার্ডের মেম্বর মোঃ আশরাফুল ইসলাম নারায়নপুর ইউনিয়ন যুবলীগের নেতা রমজান আলী,পাশাপোল আমজামতলা মডেল কলেজের শিক্ষকবৃন্দ,উপজেলা ছাত্রলীগ নেতা এইচ এম ফিরোজ,সাজ্জাদ মল্লিকসহ বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ।

কুমিল্লার তিতাসে ছাত্রলীগ সভাপতির বিরুদ্ধে করা মিথ্যা সংবাদের প্রতিবাদে সংবাদ সম্মেলন ও মানববন্ধন

কুমিল্লার তিতাসে ছাত্রলীগ সভাপতির বিরুদ্ধে করা মিথ্যা সংবাদের প্রতিবাদে  সংবাদ সম্মেলন ও মানববন্ধন


শাহ আলম জাহাঙ্গীর

কুমিল্লা উত্তর জেলা প্রতিনিধি-


কুমিল্লার তিতাসে কুমিল্লা উঃ জেলা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও তিতাস উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি তোফাজ্জল হোসেন(সাদ্দাম) কে নিয়ে গত শুক্রবার ভোরের পাতা (অনলাইন সংস্করনে)মাদক সম্রাট বানিয়ে নিউজ প্রকাশিত হয়েছে। উক্ত সংবাদের প্রতিবাদে গতকাল২৬ সেপ্টেম্বর শনিবার দুপুর ১২ টার দিকে কুমিল্লা উত্তর জেলা ছাত্রলীগের গাজীপুরস্হ কার্যালয়ে তিতাস উপজেলা ছাত্রলীগ এর আয়োজনে সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। এতে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি তোফাজ্জল হোসেন(সাদ্দাম)।তিনি লিখিত বক্তব্যে বলেন,রাজনৈতিক ভাবে ব্যর্থ হয়ে মিথ্যা অপবাদ দিয়ে অামাকে রাজনৈতিক ভাবে হেয় করার চেষ্টা করছে একটা মহল,যেখানে অামি কখনো সিগারেট ই খাই নাই,সেখানে অামাকে মাদক সম্রাট বানিয়ে মিথ্যা মনগড়া সংবাদ প্রকাশ করা হয়েছে, যার সাথে বাস্তবতার কোন মিল নেই।অামি এ মিথ্যা ও কাল্পনিক সংবাদের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি। এসময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মোঃ নজরুল ইসলাম,সহ-সভাপতি আরিফুল ইসলাম(মুন্সি),পাভেল মাহমুদ প্রধান,মোঃ রফিকুল ইসলাম নিরব,সাংগঠনিক সম্পাদক আলাউদ্দিন আহমেদ,যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক জাহিদ হাসান প্রলয়,মেহরাব আলম সায়মন সিকদার, মোঃ মিজানুর রহমান,মোঃ এমরান হোসেন ও মোঃজহির উদ্দিন প্রমুখ।

ঝিনাইদহ সদর থানা পুলিশ হাতে গাঁজা সহ আটক-২

ঝিনাইদহ সদর থানা পুলিশ হাতে  গাঁজা সহ আটক-২

খোন্দকার আব্দুল্লাহ বাশার,খুলনা ব্যুরো প্রধান:ঝিনাইদহ সদর থানা পুলিশের একটি চৌকশ দল অভিযান চালিয়ে ১১৫ (একশত পনের) গ্রাম গাঁজাসহ দুই গাঁজা ব্যবসায়ীকে আটক করেছে।শনিবার ( ২৬ সেপ্টেম্বর) রাতে আটককৃতদের মধ্যে সাইফুল ইসলাম নামে একজনের বসত ঘরের বারান্দা হতে গাঁজা সহ তাদেরকে আটক করা হয়।এ ঘটনায় ঝিনাইদহ সদর থানায় নিয়মিত মামলা হয়েছে।


ঘটনার বিষয়ে ঝিনাইদহ সদর থানার ওসি মিজানুর রহমান বলেন, শহরের আরাপপুর চাঁন পাড়া এলাকায় এরা দীর্ঘদিন যাবত মাদকদ্রব্য (গাঁজা) বেচা- কেনা সহ যুব সমাজকে মাদকাসক্ত হওয়ার সহায়তা করে আসছিলো। খবর পেয়ে এস আই রফিকুল ইসলাম রফিক শনিবার রাতে অভিযান চালায়ে তাদেরকে আটক করে।

আটককৃত দুই জনের বিরুদ্ধে ঝিনাইদহ সদর থানায় নিয়মিত মামলা হয়েছে বলেও ওসি জানান।


আটককৃতদের মধ্যে একজন, চানপাড়া বসবাসকারী জেলার শৈলকূপা উপজেলার খুলুম বাড়ীয়া গ্রামের পাঞ্জাব আলীর ছেলে সাইফুল ইসলাম (৪৫) এবং অপরজন চানপাড়ার বজলুর রহমানের ছেলে টুটুল হোসেন (২৭)।

মহম্মদপুরে উপজেলা নির্বাহী অফিসার হিসেবে পদায়ন হয়েছেন রামানন্দ পাল

মহম্মদপুরে উপজেলা নির্বাহী অফিসার হিসেবে পদায়ন হয়েছেন রামানন্দ পাল


মোঃকুতুবুল আলম, মহম্মদপুর(মাগুরা)প্রতিনিধিঃমাগুরার মহম্মদপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার হিসেবে পদায়ন হয়েছেন রামানন্দপাল। তিনি ২০১৮ সালের সেপ্টেম্বর থেকে পিরোজপুর সদরে সহকারি কমিশনার হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। তিনি বিসিএস প্রশাসন ক্যাডার ৩৩ তম ব্যাচের কর্মকর্তা। তাঁর বাড়ি পঞ্চগড় জেলায়। 


জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের ১২ জুলাই ২০২০ তারিখের এক স্মারকে উপজেলা নির্বাহী অফিসার হিসেবে পদায়নের জন্য তাকে খুলনা বিভাগীয় কমিশনারের কার্যালয়ে ন্যাস্ত করা হয়। 

গত ২৩ সেপ্টেম্বর খুলনা বিভাগীয় কমিশনারের কার্যালয় থেকে এক প্রজ্ঞাপনে তাকে মহম্মদপুর উপজেলায়  পদায়ন করা হয়।

পটিয়ায় যুবলীগের বিলুপ্ত ৪ ইউনিয়ন কমিটি পুনরায় বহাল

পটিয়ায় যুবলীগের  বিলুপ্ত ৪ ইউনিয়ন কমিটি পুনরায় বহাল

 


সেলিম  চৌধুরী পটিয়া প্রতিনিধিঃ চট্টগ্রামের    পটিয়ায় উপজেলা যুবলীগ কর্তৃক বিলুপ্ত চার ইউনিয়ন যুবলীগের কমিটি পুনরায় বহালের আদেশ দিয়েছেন দক্ষিণ জেলা যুবলীগ। দক্ষিণ জেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক পার্থ সারথী চৌধুরী উপজেলা যুবলীগের আহব্বায়ক হাসান উল্লাহ চৌধুরী, যুগ্ম আহব্বায়ক ইমরান উদ্দিন বশির ও যুগ্ম আহব্বায়ক রিটন নাথকে এক চিঠির মাধ্যমে গত ২৩ সেপ্টেম্বর এ নির্দেশনা প্রদান করেন। তবে উপজেলা যুবলীগ জেলা যুবলীগ প্রদত্ত এ ধরনের কোন নির্দেশনা পত্র পাননি বলে জানান।

এর আগে গত ২ সেপ্টেম্বর উপজেলার খরনা ইউপি যুবলীগ সভাপতি বাপ্পী চৌধুরী ও সাধারণ সম্পাদক নুরুল আলম, জিরি ইউপি যুবলীগ সভাপতি জসিম উদ্দিন বাবু ও সাধারণ সম্পাদক মেজবাহ উদ্দিন সোহেল, আশিয়া ইউপি যুবলীগ সভাপতি মো. আলমগীর ও সাধারণ সম্পাদক মাহফুজুল আলম এবং দক্ষিণ ভূর্ষি ইউপি যুবলীগের আহব্বায়ক আহমদ নূর ও যুগ্ম আহব্বায়কের কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা করে উপজেলা যুবলীগ।

একই সাথে উপজেলা যুবলীগের পক্ষ থেকে একটি করে সম্মেলন প্রস্তুতির জন্য আহŸায়ক কমিটিরও ঘোষণা দেয়া হয়। কিন্তু নতুন করে দক্ষিণ জেলা যুবলীগ আগের কমিটি বহালের আদেশ দেয়ায় ওই চার ইউনিয়নে গ্রূপিং দেখা দিয়েছে।

এর জেরে গতকাল শুক্রবার একই স্থানে আশিয়া ইউনিয়ন যুবলীগের দুটি পক্ষ মতবিনিময় সভার ডাক দেয়। পরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্মদিনকে উপলক্ষ করে উভয় পক্ষ মতবিনিময় সভা স্থগিত করে পৃথক স্থানে দোয়া মাহফিলের আয়োজন করেন।

জানা গেছে, সম্প্রতি চার ইউনিয়ন কমিটি বিলুপ্ত করে উপজেলা যুবলীগের পক্ষ থেকে সম্মেলন প্রস্তুতির জন্য চারটি আহব্বায়ক কমিটি ঘোষণা করা হয়। নতুন কমিটির খরনা ইউপিতে আহব্বায়কের দায়িত্ব দেয়া হয় মিঠুন চক্রবর্ত্তীকে। জিরি ইউনিয়নে আহব্বায়কের দায়িত্ব দেয়া হয় শাহ আজিজকে। আশিয়া ইউনিয়নে আহব্বায়কের দায়িত্ব দেয়া হয় মোহাম্মদ হোসেনকে। আর দক্ষিণ ভূর্ষি ইউনিয়নে আহব্বায়কের দায়িত্ব দেয়া হয় মোহাম্মদ মোরশেদুল আলমকে।

এদিকে খরনা ইউনিয়ন যুবলীগের বিলুপ্ত কমিটির সভাপতি বাপ্পী চৌধুরী দক্ষিণ জেলা যুবলীগ ও কেন্দ্রীয় যুবলীগের কাছে এ বিষয়ে লিখিত অভিযোগ করেন। তাতে সংগঠনের গঠনতন্ত্র না মানার অভিযোগ আনা হয়। এরপর অভিযোগের প্রেক্ষিতে পটিয়া উপজেলা যুবলীগের কমিটির কাছ থেকে কমিটি বিলুপ্ত করার বিষয়টি জানতে বলা হয়।

উপজেলা যুবলীগের বর্তমান কমিটির আহব্বায়ক হাসান উল্লাহ চৌধুরী, যুগ্ম আহব্বায়ক ইমরান উদ্দিন বশির, যুগ্ম আহব্বায়ক মাস্টার রিটন নাথ। উপজেলার ১৭ ইউনিয়নে কমিটি রয়েছে। সাংগঠনিকভাবে উপজেলার আশিয়া, খরনা, জিরি ও দক্ষিণ ভূর্ষি ইউনিয়ন যুবলীগ সক্রিয় না থাকাসহ বিভিন্ন অভিযোগে কমিটি বিলুপ্ত করে নতুন কমিটি ঘোষণা করা হয়। এর মধ্যে খরনা ইউপি যুবলীগের সভাপতি বাপ্পী চৌধুরীর বিরুদ্ধে আর্থিক লেনদেনের অভিযোগ করে উপজেলা যুবলীগ।

‘সদ্য বিলুপ্ত’ খরনা ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি বাপ্পী চৌধুরী জানান, গঠনতন্ত্র না মেনে খরনাসহ চার ইউনিয়ন যুবলীগের কমিটি ভেঙে দেওয়া হয়েছে। যার কারণে জেলা ও কেন্দ্রীয় যুবলীগের কাছে লিখিত অভিযোগ করা হয়েছে। বেআইনিভাবে কমিটি বিলুপ্ত করার বিষয়টি প্রমাণ পাওয়ায় দক্ষিণ জেলা যুবলীগ চার কমিটি পুনরায় বহাল রাখেন। সাংগঠনিকভাবে দুর্বল করতে না পেরে আমার ব্যবসায়ীক লেনদেনের বিষয় নিয়ে বিভ্রান্তিকর তথ্য প্রচার করা হচ্ছে। জেলা কমিটির আদেশে আমরা সাংগঠনিক কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছি। উপজেলা যুবলীগ থেকে যেসব আহব্বায়ক কমিটি গঠন করা হয়েছিল, তারা মিলেমিশে কাজ করতে চাইলে আমাদের আপত্তি নেই। সকলে একসাথে কাজ করতে চাই।

এ বিষয়ে কথা বলতে উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম আহব্বায়ক ইমরান উদ্দিন বশিরের মুঠোফোনে একাধিকবার ফোন দেয়া হয়। কিন্তু তিনি ফোন রিসিভ না করায় এ বিষয়ে বক্তব্য জানা সম্ভব হয়নি।

উপজেলা যুবলীগের আহব্বায়ক হাসান উল্লাহ চৌধুরী জানান, সাংগঠনিক কাজে কোন ধরনের সম্পৃক্ত না থাকা এবং বিভিন্ন অভিযোগের প্রেক্ষিতে খরনাসহ চার কমিটি বিলুপ্ত করা হয়। সেখানে আহব্বায়ক কমিটিগুলো কাজ শুরু করেছে। বিলুপ্ত কমিটি পুনরায় বহাল রাখতে দক্ষিণ জেলা যুবলীগের কোন চিঠি উপজেলা যুবলীগ পায়নি।

তিনি বলেন, জেলা যুবলীগের নির্দেশনা পেলে উপজেলা যুবলীগ নেতৃবৃন্দ এক সাথে বসে এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেব।


সিলেটে প্রজন্মলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক আলমগীর আলম সংবর্ধিত

 সিলেটে প্রজন্মলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক আলমগীর আলম সংবর্ধিত

সেলিম চৌধুরী, পটিয়া প্রতিনিধিঃ বাংলাদেশ আওয়ামী মুক্তিযোদ্ধা প্রজন্মলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক ও চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলার সভাপতি আলমগীর আলম গত বৃহস্পতিবার  তিন দিনের সিলেট বিভাগ সফর কালে গত শনিবার   বাংলাদেশ আওয়ামী মুক্তিযোদ্বা প্রজন্মলীগ সিলেট জেলা ও মহানগর কমিটির নেতৃবৃন্দরা তাকে সিলেটে ফুলের শুভেচ্ছা জানিয়ে  স্বাগতম জানান। এর পর  বিকেলে সিলেটের রোজবি হোটেল হলরুমে এক মতবিনিময় ও সংবর্ধনার আয়োজন করেন। 


সিলেট মহানগর আওয়ামী মুক্তিযোদ্ধা প্রজন্মলীগের সভাপতি আলী হোসাইনের সভাপতিত্বে আয়োজিত সংক্ষিপ্ত সভায় প্রধান অতিথি ও সংর্বধিত অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামী মুক্তিযোদ্বা প্রজন্মলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক আলমগীর আলম। 


 বক্তব্য রাখেন সিলেট জেলা প্রজন্মলীগের সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মাদ সোহেল,মহানগর কমিটির সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ শাকিল,প্রজন্মলীগ নেতা মোহাম্মদ সুমন,সামাদ,চট্টগ্রামের পটিয়া পৌরসভা কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক হাসান মানিক, জাকির হোসেন প্রমুখ।এতে সংর্বধিত অতিথি কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক আলমগীর আলম বলেন বাংলাদেশ আওয়ামী মুক্তিযোদ্বা  প্রজন্মলীগ আজ সারাদেশে সুসংগঠিত কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি এডভোকেট আসাদুজ্জামান দূর্জয়ের নেতৃত্বে তিনি সিলেটের সাংগঠনিক কর্মকান্ডের প্রসংশা করে বলেন নতুন প্রজন্মই আগামীর স্বপ্ন আগামীর ভবিষ্যৎ তাদের জাতির পিতার আর্দশে ও মহান মুক্তিযোদ্ধের চেতনায় গড়ে তুলতে সকলকে ঐক্যবদ্ব হয়ে কাজ করার আহবান জানান। পরে ফুল দিয়ে আলমগীর আলমকে সংর্বধিত করা হয়।

নগরকান্দায় মুক্তিযোদ্ধা আব্দুর রব মুন্সীর রাষ্টীয় মর্যাদায় দাফন সম্পন্ন

 নগরকান্দায় মুক্তিযোদ্ধা আব্দুর রব মুন্সীর রাষ্টীয় মর্যাদায় দাফন সম্পন্ন




ফরিদপুর প্রতিনিধিঃফরিদপুরের নগরকান্দায় যথাযোগ্য রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় মুক্তিযোদ্ধা আব্দুর রব মুন্সীর দাফন সম্পন্ন হয়েছে।

শনিবার বিকাল ৩  টায় ফরিদপুরের নগরকান্দা উপজেলার পুরাপাড়া ইউনিয়নের বনকগ্রামের মৃত মোজাহার মুন্সীর ছেলে মুক্তিযোদ্ধা আব্দুর রব মুন্সীর দাফন যথাযোগ্য রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় তার নিজ বাড়িতে সম্পন্ন হয়েছে । উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জেতী প্রু'র উপস্থিতে  মুক্তিযোদ্ধা আব্দুর রব মুন্সীকে গার্ড অফ অনার প্রদান করেন নগরকান্দা থানার  ওসি (তদন্ত ) মোঃ মিরাজ হোসেন ও তার সঙ্গীয় ফোর্স । আব্দুর রব মুন্সী শনিবার সকাল ৭ টায় ফরিদপুর হার্ড ফাউন্ডেশন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যায়। এ সময় তার বয়স হয়েছিল ৭৭ বৎসর । তিনি বেশ কিছু দিন যাবত রক্ত শূন্যতায় ভুগতে ছিলেন । রাষ্টীয় মর্যাদা ও জানাজা শেষে তার লাশ গ্রামের কবর স্থানে দাফন করা হয়েছে । তিনি ৫ পুত্র ,নাতী নাতনী , আত্মীয়সহ ও অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন ।

পল্লীবিদ্যুতের গাফিলাতি, নবীনগরে বিদ্যুৎপৃষ্টে গৃহবধুর মৃত্যু

পল্লীবিদ্যুতের গাফিলাতি, নবীনগরে বিদ্যুৎপৃষ্টে গৃহবধুর মৃত্যু


এস.এম অলিউল্লাহ , ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা প্রতিনিধিঃব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগর উপজেলা ইব্রাহিমপুর সাহা পাড়ায় গতকাল শুক্রবার সকালে পল্লীবিদ্যুতের গাফিলাতির কারণে বিদ্যুৎপৃষ্ট হয়ে এক গৃহবধুর মর্মান্তিক মৃত্যু হয়। সে ইব্রাহিমপুর সাহা পাড়ার শান্তি রঞ্জন সাহার স্ত্রী লক্ষী রাণী সাহা (৩৫),দুই খুটির মাঝখান থেকে বিদ্যুতের তার ছিঁড়ে পুকুর ঘাটে পড়ে থাকায়  এই দূর্ঘটনা ঘটে।

সরেজমিনে গিয়ে জানা যায়,লক্ষী রানী সাহা সকালে  রান্নাবান্নার কাজে পুকুর ঘাটে   গেলে তাকে ঐখানে বিদ্যুতের ছিঁড়া তার পেচানোরত  অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখে প্রতিবেশী টুম্পা রানী সাহা।


এই সম্পর্কে টুম্পা রানী সাহা বলেন, আমি ঘর থেকে বের হয়ে পুকুরের ঘাটে লক্ষ্য করে দেখি লক্ষী রানী সাহা ঘাটলার উপরে পড়ে আছে, আমি কাছে গিয়ে তাকে উঠাতে চাইলে আমাকে কে যেন জোরে ধাক্কা দিয়ে দূরে ঠেলে দেয়।পরোক্ষণে আমি আমার স্বামীকে ডেকে এনে এগিয়ে গিয়ে দেখি তার হাতের মুঠোতে বিদ্যুতের ছেঁড়া তারের একাংশ ও সারা শরীলে তার পেচানো  রয়েছে এবং হাতের খানিকটা বিদ্যুতের  আগুনো জ্বলে গেছে,পরে আমার চিল্লাচিল্লিতে আশেপাশের লোকজন হাজির হয়।


ঘটনার আরেক প্রত্যেহ্মদর্শী তাদের নিকট আত্মীয়  নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বৃদ্ধা বলেন,আমরা বার বার পল্লী বিদ্যুতের লোকজনের কাছে ঝুঁকিপূর্ন লাইন ঠিক করার কথা বলেও কোন প্রতিকার পাইনি,তারা এসে কি করে না করে তাদের জিজ্ঞেসা করলে বলে লাইন ঠিক হয়ে গেছে। আজ আরো অনেক লোক মারা যেত এদের গাফিলতির কারনে ,পল্লী বিদ্যুতের লোকজনের গাফিলতির কারনেই লক্ষী মারা গেছে বলে কান্না শুরু  করে দেয়।


যেখানে প্রত্যেক মাসে বিদ্যুৎ বিলের সাথে সার্ভিস চার্জ বাবদ টাকা নেয়া হচ্ছে তারপরও তারা কেন ঠিকমত সার্ভিস করছে না এই সম্পর্কে  এ জি এম কম বদর উদ্দিন এর নিকট জানতে চাওয়া হলে তিনি জানান,লাইন কভার দেয়ার জন্য  দুই খুঁটির মাঝে ১৫০ ফিট দূরত্ব  থাকে কিন্তু এখানে এর বেশি থাকায় তার ছেঁড়ার ঘটনাটি ঘটেছে, তাছাড়া পাশে কয়েকটি কাঁঠাল গাছও রয়েছে এবং ঘরের  বারান্দায় ২০০ টাকার যে খুটি ব্যবহার হয় তা দিয়ে সাপোর্টিং লাইন টানা হয়েছে।   আমি নিজে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি।এই রকম আরো অনেক জায়গায় ঝুঁকিপূর্ন লাইন রয়েছে,দ্রুত এই সকল ঝুঁকিপূর্ন লাইনে কাজ করা হবে।


এই বিষয়ে সুশীলরা মনে করেন,পল্লী বিদ্যুতের যদি গাফিলতি না থাকতে তবে অল্প বয়সে লক্ষীর প্রাণ ঝরে যেত না,তাই অতি দ্রুত দায়িত্বে অবহেলাকারীদের শাস্তি দবিসহ এই উপজেলার সকল ঝুঁকিপূর্ন লাইন সংস্কারের  জন্য জোর দাবি জানান।