রামচন্দ্রপুর জামে মসজিদের উদ্যোগে ঈদে মিলাদুন্নবী উদযাপন

রামচন্দ্রপুর জামে মসজিদের উদ্যোগে ঈদে মিলাদুন্নবী উদযাপন



আজহারুল ইসলাম সাদী, স্টাফ রিপোর্টারঃ

যথাযোগ্য মর্যাদায় সাতক্ষীরা'র বিভিন্ন মসজিদে  ১২ই রবিউল আওয়াল ঈদ-ই-মিলাদুন্নবী (সাঃ) পালিত হয়েছে। 

শুক্রবার (৩০ অক্টোবর) বাদ মাগরিব সাতক্ষীরা  সদরের রামচন্দ্রপুর জামে মসজিদ পরিচালনা কমিটির আয়োজনে ঈদ-ই-মিলাদুন্নবী (সাঃ) উপলক্ষ্যে মিলাদ, দোয়া  ও উপঢোকন বিতেণ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

মুফতি মাওলানা আক্তারুজ্জামান এর সভাপতিত্বে, প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে, আলোচনা ও উপঢৌকন বিতরণ করেন,  সাতক্ষীরা সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মোঃ আসাদুজ্জামান বাবু।

এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন, আলহাজ্ব রুহুল আমিন সরদার, মোঃ বাবলুর রহমানসহ এলাকার গন্যমান্য ব্যাক্তিগণ।

৫৭০ খ্রিস্টাব্দের ১২ রবিউল আউয়াল ইসলামের শেষ নবী মহানবী হজরত মুহাম্মদ সল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম, আরবের মরু প্রান্তরে মা আমিনার কোল আলো করে জন্মগ্রহণ করেন।

৬৩২ খ্রিস্টাব্দের এ দিনে মাত্র ৬৩ বছর বয়সে তিনি ইন্তেকাল করেন।

মাগুরার মহম্মদপুরে রিসাইক্লিং প্লাস্টিক কারখানা তৈরী

 মাগুরার মহম্মদপুরে রিসাইক্লিং প্লাস্টিক কারখানা তৈরী



আবু নাঈম কাজী,স্টাফ রিপোর্টারঃমাগুরা জেলার মহম্মদপুর উপজেলায়  সর্বপ্রথম প্লাস্টিক কাচামাল তৈরির কারখানা করলেন,  মো: আশরাফুল ইসলাম।  তিনি মহম্মদপুর সদরে রহমান মোল্লায় ছেলে।  তার এই ক্ষুদ্র শিল্পতে  মহিলা পুরুষ দিয়ে মোট ৫০ জন লোকের কর্মসংস্থানের ব্যাবস্থা হয়েছেন। মহম্মদপুরের বিভিন্ন জায়গা, বাজারে রাস্তায় পাশে পড়ে থাকা বোতল অসহায় দরিদ্র লোক  সংগ্রহ করে নিয়ে কারখানায় বিক্রি করছেন।  অন্যদিকে পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষা পাচ্ছে ।  অনেকেই বাড়িতে প্লাস্টিকের ভাঙ্গা চেয়ার, টেবিল ও অন্যন্য  দ্রব্য বিক্রি করে কিছু নগদ অর্থ পেয়ে উপকারিত হচ্ছে। এই বিষয়ে এক শ্রমিগের কাছে জানতে চাইলে বলেন,  আগে অনেক দুঃখ কষ্ট করে জীবন পার করছিলাম,  মহম্মদপুর কোন মিল, কলকারখানা,  কর্মসংস্থানের ব্যবস্হা ছিলো না। খুব কষ্ট খেয়ে হঠাৎ এই জায়গা এসে  বোতলের মুখ বাচাই করে দিনে ২১৫ টাকা করে পেয়ে পরিবার পরিজন নিয়ে সুখে জীবন পার করছি এখন।  এই বিষয়ে কারখানা মালিক মো: আশরাফুল ইসলাম জানান ,  আমার এই ক্ষুদ্র শিল্পতে শত শত লোকের কর্মসংস্থানের ব্যাবস্হা করাই লক্ষ আমার।   আস্তে আস্তে উন্নতি মেশিন  আনবো, ও প্লাস্টিকের এই ক্ষুদ্র থেকে বৃহত্তর করার  লক্ষ নিয়ে কাজ করছি।

ফলোআপঃ পটিয়ার ছনহরা মুরালী এলাকায় বেলালের নেতৃত্বে মাদক ব্যবসা জমজমাট

 ফলোআপঃ পটিয়ার  ছনহরা মুরালী এলাকায়  বেলালের নেতৃত্বে  মাদক ব্যবসা জমজমাট

পটিয়া (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধিঃ- চট্টগ্রামের পটিয়া উপজেলার ছনহরা ইউনিয়ন মুরালী ঘাট এলাকা ও কালি বাড়ি সংলগ্ন এলাকায় বেলাল এর নেতৃত্বে জমজমাট মাদক ও ইয়াবা এবং জুয়ার খেলার আসর বসিয়ে টাকা আদায় করছে মর্মে এলাকার লোকজন সুএে জানাগেছে। সে ঐ এলাকার মনসেফ  আলী ছেলে। আগে সে  সিএনজি গাড়ি চালাতেন। এখন গাড়ি চালানো ছেড়ে     কালি বাড়ির সামনে চায়ের দোকান দিয়ে দোকানটি কৌশলে বন্ধ রেখে সামনে তালা লাগিয়ে দোকানের ভিতর      জমজমাট মাদক ও  ইয়াবা ব্যাবসা চালিয়ে যাচ্ছে। তার পাশাপাশি দোকানের ভিতরে জুয়ার খেলার আসর বসে বলে ঐ এলাকায় লোকজন অভিযোগ তুলেন। ছাগল মুরগী পালনের আড়ালে এইসব অসামাজিক কার্যকলাপে জড়িয়ে আছে বেলাল। সে সরকার দলীয় কথিপয় লোকজনের সহায়তায় মাদক ব্যাবসা করছে বলে হাসেম, মিটু অভিযোগ করে বলেন বেলাল এখন মাদক ব্যাবসা করে কয়েক লাখ টাকা মালিক বনেছেন। তার নিয়ন্ত্রণে তালসরা এলাকায় মাদক বিকিকিনি হয় বলে এলাকার লোকজনের সাথে কথা বলে জানাগেছে। এ ব্যাপারে মাদকদ্রব্য অধিদপ্তর কর্মকর্তা মোঃ সাইফুল ইসলাম জানান এলাকার লোকজনের অভিযোগ যাচাই করে ঘটনার সত্যাতা পেলে থাকে আইনের আওতায় আনা হবে। মাদক কারবারির কোন স্থান নেই।

নাগরপুরে সচিবের অর্থায়নে ঘর পেলেন ২ গৃহহীন

নাগরপুরে সচিবের অর্থায়নে ঘর পেলেন ২ গৃহহীন

 

ডা.এম.এ.মান্নান,টাংগাইল জেলা প্রতিনিধি: মুজিববর্ষে প্রধানমন্ত্রীর অঙ্গীকার গৃহহীন থাকবে না কোন পরিবার। এই ঘোষনাকে সাধুবাদ জানিয়ে প্রধানমন্ত্রীর সরকারি অর্থের পাশাপাশি প্রকল্পের সাথে একাত্বত্তা ঘোষনা করেন সারা দেশের সচিববৃন্দ।প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে সকল সচিব নিজ উপজেলায় গৃহহীন ২টি পরিবারকে ঘর করে দিবেন।

সেই ধারাবাহীকতায় টাঙ্গাইলের নাগরপুর উপজেলার মোকনা ইউনিয়নের কোনড়া গ্রামের কৃতি সন্তান মন্ত্রীপরিষদের সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলামের নিজ অর্থায়নে ২টি পরিবারকে ঘর করে দেন।আজ শুক্রবার সকালে জেলা প্রশাসক মো. আতাউল গনি ঘর নিমার্ণের কাজ পরিদর্শন করেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন, নাগরপুর উপজেলার সহকারি কমিশনার (ভূমি) তারিন মসরুর, পাকুটিয়া ইউপি চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা ছিদ্দিকুর রহমান ছিদ্দিক , প্রকল্প বাস্তায়ন কর্মকর্তা আবু বকর সিদ্দিক, খন্দকার হুমায়ুন কবীর, সমাজসেবক খন্দকার সাজ্জাদ হোসেন আপেল।

পরিদর্শনকালে জেলা প্রশাসক আতাউল গনি বলেন, মুজিববর্ষে প্রধানমন্ত্রীর অঙ্গীকার গৃহহীন থাকবে না কোন পরিবার। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ঘোষনা অনুযায়ী নাগরপুর ওমির্জাপুরের দুই সচিব মহোদয় নিজস্ব অর্থায়নে নিজ এলাকায় ২টি গৃহহীন পরিবারকে ১টি করে ঘর নির্মাণ করে দিচ্ছেন।

টাঙ্গাইল জেলায় প্রধানমন্ত্রী সরকারি অর্থে ৫৬৪টি গৃহহীন পরিবারকে ঘর করে দিচ্ছেন। সেই সাথে বেসরকারি ভাবে জেলা আওয়ামীলীগের সহায়তায় ৫০টি, স্থানীয় এমপি, ধনাঢ্যব্যক্তি, জেলার নিবার্হী কর্মকর্তাবৃন্দ ওজনপ্রতিনিধিদের সহযোগীতায় আমরা আরো ১৪৮টি ঘর করে দেওয়ার প্রতিশ্রুতি পেয়েছি।ইতিমধ্যে জেলা প্রশাসকের পক্ষে থেকে করটিয়ায় দোলেনা বেগম নামে এক গৃহহীন পরিবারকে ঘর করে দিয়েছি। তিনি আরো বলেন আমি মনে করি টাঙ্গাইল জেলায় গৃহহীনদের ঘর করে দেওয়াটা একটি সামাজিক আন্দোলনে রুপান্তরিত হয়েছে।

কুলাউড়ায় ঈদে মিলাদুন্নবী(সঃ) উদযাপন সম্পন্ন!

 কুলাউড়ায় ঈদে মিলাদুন্নবী(সঃ) উদযাপন সম্পন্ন!

মোঃরেজাউল ইসলাম শাফি, কুলাউড়া উপজেলা প্রতিনিধিঃকুলাউড়া উপজেলা ৮নং রাউৎগাঁও ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ডের আলহেরা ইসলামি যুব সংঘের উদ্যোগে, ফ্রান্সের রাষ্ট্রীয় মদদে রাসুল (সাঃ) এর ব্যাঙ্গচিত্র প্রদর্শনের প্রতিবাদ এবং পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী(সঃ) উদযাপন  উপলক্ষে মোবারক র‍্যালি,আলোচনা ও মিলাদ মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়।  ৩০ অক্টোবর শুক্রবার বাদ জুমা মোবারক র‍্যালি ও প্রতিবাদ বিক্ষোভ  করা হয় এলাকার বিভিন্ন স্থানে। আলহেরা ইসলামি যুব সংঘের সভাপতি মোঃরেজাউল ইসলাম শাফি এর পরিচালনায় উক্ত অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, বিশিষ্ট সমাজ সেবক মোঃসিরাজুল ইসলাম শায়েখ, পশ্চিম ভবানীপুর জামে মসজিদের ইমাম ও খতিব হাফিজ মাওঃডা:আব্দুর রাজ্জাক, মৈশাজুড়ি জামে মসজিদের ইমাম হাফিজ সিতার আলী, উত্তর ভবানীপুর জামে মসজিদের ইমাম মাওঃফখরুল ইসলাম, তালামীযে ইসলামীয়া ৮নং রাউৎগাঁও ইউপি শাখার সভাপতি মোঃবদরুল ইসলাম, ভবানীপুর ছি,পি দাখিল মাদ্রাসার সহকারী শিক্ষক মাওঃজসিম উদ্দিন, ভবানীপুর ইসলামী আদর্শ সোসাইটির সাবেক সভাপতি মোঃনজরুল ইসলাম,  আলহেরা ইসলামি যুব সংঘের প্রধান উপদেষ্টা মোঃজাহিদ হোসেন রুবেল, উপদেষ্টা শিফুল আমীন, সি.সহ সভাপতি ক্বারী মাওঃআশরাফ আলী সুবেক, সাধারণ সম্পাদক আবুল কালাম আজাদ, সি.সহ সাধারণ সম্পাদক জাহিদ আহমদ, প্রচার সম্পাদক মনসুর আহমদ, অফিস সম্পাদক পাবেল আহমদ, অর্থ সম্পাদক জুনেদ আহমদ,, সহ প্রচার সম্পাদক হোসাইন আহমদ, ছালেখ,নাঈম,শাহিন,ফুয়াদ,মুন্না,মেহেদী,ছায়েম,রনি প্রমুখ।এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন ভবানীপুর এলাকার গণ্যমান্য ব্যাক্তিবর্গ, রাজনীতিবিদ,  সমাজসেবক ও বিভিন্ন সামাজিক ও রাজনৈতিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ অংশগ্রহন করেন। র‍্যালি শেষে ভবানীপুর দারোগা বাড়িতে আলোচনা ও মিলাদ মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়।

আলোচনায় বক্তারা বক্তব্যে ফ্রান্সের ঐ ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে ফ্রান্সের  সকল পণ্য এবং দূতাবাস বয়কট করার দাবী জানান এবং বাংলাদেশ সরকার কে ফ্রান্সের সাথে সকল কুটনৈতিক সম্পর্ক বিচ্ছিন্ন করার দাবী জানান।

কুলাউড়ায় হিংগাজিয়া'র বিক্ষোভ মিছিল সম্পন্ন!

 কুলাউড়ায় হিংগাজিয়া'র বিক্ষোভ মিছিল সম্পন্ন!

মোঃরেজাউল ইসলাম শাফি, কুলাউড়া উপজেলা প্রতিনিধিঃফ্রান্সের রাষ্ট্রীয় মদদে রাসুল (সাঃ) এর ব্যাঙ্গচিত্র প্রদর্শনের প্রতিবাদে হিংগাজিয়ার ঐক্যবদ্ধ মুসলিম জনতা আজ শুক্রবার বাদ জুমা এক বিক্ষোভ মিছিল বের করে রাজপথে। এতে হিংগাজিয়া এলাকার গণ্যমান্য ব্যাক্তিবর্গ, রাজনীতিবিদ,  সমাজসেবক ও বিভিন্ন সামাজিক ও রাজনৈতিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ অংশগ্রহন করেন। মিছিল শেষে স্থানীয় হিংগাজিয়া বাজারে এক পথসভা অনুষ্ঠিত হয়। পথসভায় মোঃ সাদিকুর রাহমান ও মুহিবুর রহমানের যৌথ পরিচালনায় এতে বক্তব্য রাখেন বিশিষ্ট রাজনীতিবিদ, আতিয়াবাগ চা বাগানের ব্যবস্থাপক শেখ আবু নায়েম মিসবাহ, বিশিষ্ট রাজনীতিবিদ ও শিক্ষানুরাগী জহিরুল ইসলাম জহির, বিশিষ্ট সমাজ সেবক দেলোয়ার হোসেন, বিশিষ্ট সমাজসেবক দিলোয়ারুস শাহাদাৎ রিয়াজ, ৯ নং ওয়ার্ড আল ইসলাহর সাংগঠনিক সম্পাদক আলমাস আহমদ, সিলেট পূর্ব জেলা তালামীযের প্রচার সম্পাদক সুয়েব আহমদ, বিশিষ্ট শিক্ষানুরাগী শেখ সজিবুস শাহাদাৎ, শিক্ষানুরাগী সুহেল আহমদ প্রমুখ।

এতে বক্তারা বক্তব্যে ফ্রান্সের ঐ ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে ফ্রান্সের  সকল পণ্য এবং দূতাবাস বয়কট করার দাবী জানান এবং বাংলাদেশ সরকার কে ফ্রান্সের সাথে সকল কুটনৈতিক সম্পর্ক বিচ্ছিন্ন করার দাবী জানান।

ঝিকরগাছায় ৩,০ গোল ব্যাবধানে চ্যাম্পিয়ন

ঝিকরগাছায় ৩,০ গোল  ব্যাবধানে চ্যাম্পিয়ন

মোঃ ইকরামুল করিম সৈকত,  ঝিকরগাছা প্রতিনিধিঃশুক্রবার বিকা‌লে ঝিকরগাছার বারবাকপুর মাদ্রাসা মা‌ঠে বারবাকপুর ফ্রেন্ডস ক্লাব আ‌য়ো‌জিত ১৬ তম বীর‌শ্রেষ্ট নূর মোহাম্মদ স্মৃ‌তি ফুটবল টূর্না‌মে‌ন্টের ফাইনাল খেলা অনু‌ষ্ঠিত হয়।

 ঝিকরগাছার শিমু‌লিয়া ফুটবল একাদশ বনাম শার্শা  লক্ষনপুর ফুটবল একাদশের মধ্যে ফাইনাল খেলা অনুষ্ঠিত হয়। ফাইনাল খেলা উপল‌ক্ষে আ‌য়ো‌জিত অনুষ্ঠা‌নে প্রধান অ‌তি‌থি হিসা‌বে উপ‌স্থিত ছি‌লেন য‌শোর-২ আস‌নের সংসদ সদস্য বীরমু‌ক্তি‌যোদ্ধা মেজর জেনা‌রেল (অবঃ) অধ্যাপক ডাঃ না‌সির উ‌দ্দিন। বি‌শেষ অ‌তি‌থি হিসা‌বে উপ‌স্থিত ছি‌লেন ঝিকরগাছা উপ‌জেলা চেয়ারম্যান ম‌নিরুল ইসলাম, ঝিকরগাছা থানার অ‌ফিসার ইনচার্জ আব্দুর রাজ্জাক, উপ‌জেলা ভাইস চেয়ারম্যান সে‌লিম রেজা ও ম‌হিলা ভাইস চেয়ারম্যান লুবনা তাক্ষী।ফ্রেন্ডস ক্লা‌বের সভাপ‌তি প্রভাষক লিয়াকত আলীর সভাপ‌তি‌ত্বে উক্ত অনুষ্ঠা‌নে আ‌রো উপ‌স্থিত ছি‌লেন য‌শোর জেলা যুবলী‌গের সহ সভাপ‌তি আজাহার আলী,উপ‌জেলা আওয়ামীলী‌গের সা‌বেক প্রচার সম্পাদক মোর্তজা ইসলাম বাবু,  উপ‌জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপ‌তি র‌ফিকুল ইসলাম বাপ্পী, সা‌বেক সাধারন সম্পাদক শামীম রেজা, উপ‌জেলা ছাত্রলী‌গের সাধারন সম্পাদক কামাল হো‌সেন, যুবলীগ নেতা শা‌হিদুর রহমান শিপলু, এমামুল হা‌বিব জগলু,  মাগুরা ইউ‌নিয়‌নের চেয়ারম্যান আব্দুর রাজ্জাক, গঙ্গানন্দপুর ইউ‌নিয়‌নের সা‌বেক চেয়ারম্যান আমিনুর রহমান, গদখালী ইউ‌নিয়ন আওয়ামীলীগ নেতা প্রভাষক আশরাফ আলী, শ‌হিদুল ইসলাম খোকন , মাহাবুবুর রহমান দুলাল, মেম্বর র‌ফিকুল ইসলাম, শিমু‌লিয়া  ইউ‌নিয়ন আওয়ামীলীগ সভাপ‌তি ম‌তিয়ার সরদার, ত‌রিকুল ইসলাম, য‌শোর জেলা ট্রাক ও ট্যাংলরী শ্র‌মিক ইউ‌নিয়‌নের সাধারন সম্পাদক জাহাঙ্গীর সরদার প্রমূখ।  উক্ত খেলায় শিমু‌লিয়া একাদশ ,  লক্ষনপুর একাদশ কে ৩-০ গো‌লে পরা‌জিত হ‌য়ে চ্যা‌ম্পিয়ন হওয়ার গৌরব অর্জন ক‌রে।

রবিউল আওয়াল ঈদ-ই-মিলাদুন্নবী (সাঃ) পালিত

রবিউল আওয়াল ঈদ-ই-মিলাদুন্নবী (সাঃ) পালিত


আহসান উল্লাহ বাবলু,আশাশুনি সাতক্ষীরা   প্রতিনিধি ঃ আশাশুনিতে যথাযোগ্য মর্যাদায় ১২ই রবিউল আওয়াল ঈদ-ই-মিলাদুন্নবী (সাঃ) পালিত হয়েছে। শুক্রবার বাদ মাগরিব থানা সদর জামে মসজিদ পরিচালনা কমিটির আয়োজনে ঈদ-ই-মিলাদুন্নবী (সাঃ) উপলক্ষ্যে মিলাদ ও দোয়া অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। মসজিদের ইমাম প্রভাষক হাফেজ বাকী বিল্লাহর পরিচালনায় দোয়া অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন-আশাশুনি থানা সদর জামে মসজিদ পরিচালনা কমিটির সভাপতি, উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক ও জেলা পরিষদ সদস্য মহিতুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক শিক্ষক মু. আসিব ইকবাল, মাওঃ রুস্তম আলী, হাফেজ মাওঃ জাহিদুল ইসলাম, আব্দুল হাকিম, আবু সাইদ, জাতীয় পার্টির সভাপতি সাবেক মেম্বর রুহুল আমিন, ডাঃ নূরুল আমিন, মসজিদ পরিচালনা কমিটির সদস্য শহিদুজ্জামান বাবলু, আব্দুর রহমান মিঠু, আব্দুল ওয়াদুদ, শেখ শাহাজাহান আলী, মোরশেদ মাহবুব লিপ্টন, আবু হেনা মোস্তফা কামাল, আশাশুনি উপজেলা রিপোর্টাস ক্লাবের সহ-সভাপতি এমএম সাহেব আলী, মসজিদের মুসল্লী খালিদ হোসেন, রবিউল ইসলাম, মুয়াজ্জিন বিল্লাল হোসেন, যুবলীগ নেতা মিজানুর রহমান, সহ মসজিদ পরিচালনা কমিটির নেতৃবৃন্দ ও মুসল্লীগণ। 

আশাশুনির দরগাহপুর শেখ বাকের আলী ফোরকানিয়া মাদ্রাসা উদ্বোধন

 আশাশুনির দরগাহপুর শেখ বাকের আলী ফোরকানিয়া মাদ্রাসা উদ্বোধন


আহসান উল্লাহ বাবলু, আশা শুনি, সাতক্ষীরাপ্রতিনিধিঃ  উপজেলাধীন দরগাহপুর শেখ রাসেল মিনি স্টেডিয়াম সংলগ্ন মরহুম শেখ বাকের আলীর স্মরণে আলহাজ্ব শেখ কুতুব উদ্দীন ও তার পুত্র শেখ সাইফুল ইসলাম এর প্রচেষ্টায় একটি ফোরকানিয়া মাদ্রাসা প্রতিষ্ঠা করেন। বৃহস্পতিবার মাগরিব বাদ আলহাজ্ব শেখ ফৌজদার রহমানের সভাপতিত্বে উদ্বোধনী অনুষ্ঠান ও এক মিলাদ মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। এসময় উপস্থিত ছিলেন আলহাজ্ব শেখ কুতুব উদ্দীন, শেখ আব্দুস সাত্তার, শেখ ওয়াজেদ আলী, শেখ মহসিন আলী, শেখ সাইফুল ইসলাম, প্রভাষক শেখ মনিরুল ইসলাম, দরগাহপুর প্রেসক্লাব’র সভাপতি শেখ হিজবুল্লাহ, শেখ মামরুল ইসলাম, শেখ নাদিম আলী, হাফেজ শেখ শাহারুল ইসলাম, হাফেজ শেখ হিমন আলী, শেখ এসকেন্দার আলী, শেখ আব্দুল তুহিন। মোনাজাত পরিচালনা করেন দরগাহপুর বাগদাদীয়া রহমানিয়া দারুল কুরআন মাদ্রাসার শিক্ষক মো: মনিরুল ইসলাম।

হযরত মোহাম্মদ (সাঃ) কে নিয়ে ব্যাঙ্গ চিত্র প্রদর্শন ও কটুক্তির প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ

 হযরত মোহাম্মদ (সাঃ) কে নিয়ে ব্যাঙ্গ চিত্র প্রদর্শন ও কটুক্তির প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ




আহসান উল্লাহ বাবলু, আশা শুনি, সাতক্ষীরা    প্রতিনিধিঃফ্রান্সে বিশ্বনবী হযরত মোহাম্মদ (সাঃ) কে নিয়ে ব্যাঙ্গ চিত্র প্রদর্শন ও কটুক্তির প্রতিবাদে আশাশুনিতে বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। শুক্রবার জুম্মার নামাজ শেষে আশাশুনি থানা সদর জামে মসজিদ পরিচালনা কমিটি ও মুসল্লীদের আয়োজনে ও একদল তরুন যুবকদের ব্যবস্থাপনায় মসজিদের সামনে হতে একটি বিশাল বিক্ষোভ মিছিল বাজারের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে একই স্থানে এসে প্রতিবাদ সমাবেশ করে। সমাবেশে সভাপতিত্ব করেন আশাশুনি থানা সদর জামে মসজিদ পরিচালনা কমিটির সভাপতি, উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক ও জেলা পরিষদ সদস্য মহিতুর রহমান। সমাবেশে উপস্থিত ছিলেন ও বক্তব্য রাখেন-আশাশুনি থানা সদর জামে মসজিদ পরিচালনা কমিটির সাধারণ সম্পাদক শিক্ষক মু. আসিব ইকবাল, ইমাম প্রভাষক হাফেজ বাকী বিল্লাহ, মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল করিম, আব্দুল আজিজ, আওয়ামীলীগ নেতা মুজিবুর রহমান, আছাদুল ইসলাম, আবু সাইদ, জাতীয় পার্টির সভাপতি সাবেক মেম্বর রুহুল আমিন, সাংগঠনিক সম্পাদক আবুল বাশার, বিএনপি নেতা নূরুল হক খোকন, প্রভাষক জহুরুল ইসলাম, মসজিদ পরিচালনা কমিটির সদস্য শহিদুজ্জামান বাবলু, আব্দুর রহমান মিঠু, আব্দুল ওয়াদুদ, শেখ শাহাজাহান আলী, মোরশেদ মাহবুব লিপ্টন, আবু হেনা মোস্তফা কামাল, উপজেলা রিপোর্টাস ক্লাবের সহ-সভাপতি এমএম সাহেব আলী, আশাশুনি প্রেসক্লাব সদস্য বাহবুল হাসনাইন, হাবিবুল্লাহ বিলালী, মুয়াজ্জিন বিল্লাল হোসেন, যুবলীগ নেতা মিজানুর রহমান, আইয়ুব আলী, তৈবার রহমান, ইমরান হোসেন, উজ্জল, আক্তারুল, শহিদুল ইসলাম, ছাত্রলীগ নেতা রাজ, শাহারুল, তিতাস, শাওন, আব্দুল আলিম, স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতা বাবুল আক্তার, মুসল্লী আব্দুল কুদ্দুস হাওলাদার, খালিদ হোসেন, আমির হামজা খোকন, রবিউল ইসলাম রবি, শাহিন রেজা, রফিবুল ইসলাম, আব্দুল হাই, মসজিদ পরিচালনা কমিটির নেতৃবৃন্দ, সম্মিলিত মুসল্লীগণ সহ বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতাকর্মীবৃন্দ। মানববন্ধন চলাকালে বক্তারা বলেন-অবিলম্বে ফ্রান্সের সকল পণ্য বর্জণ করতে হবে এবং ফ্রান্স সরকার সহ যেসমস্ত নাস্তিক ও ইসলামের দুশমনরা বিশ্ব নবীর এহেন ব্যাঙ্গচিত্র প্রদর্শন ও কটুক্তির সাথে জড়িত তাদের দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তি দিবে হবে।

নওগাঁয় গ্যাস ট্যাবলেট খেয়ে আত্নহত্যা -১

নওগাঁয়   গ্যাস ট্যাবলেট খেয়ে আত্নহত্যা -১



রাজশাহী ব্যুরোঃনওগাঁর আত্রাইয়ে বিথি রানী (২২) গ্যাস ট্যাবলেট খেয়ে আত্নহত্যা করেছে। বিথি তিলাবাদুরি উত্তর পাড়া গ্রামের বিলাশ চন্দ্র দাসের স্ত্রী।ঘটনা ঘটেছে ভোঁপাড়া ইউনিয়নের তিলাবাদুরী গ্রামে।পরিবার সূত্রে জানা যায়, সকালে বিথীর ছোট সন্তানের পায়ে তোরা হারিয়ে গেলে বাচ্চাকে মারধর করে। এতে শ্বশুর শাশুড়ী বিথীকে বকাঝকা করলে বিকাল ৩টায় দিকে সবার অজান্তে বাড়িতে রাখা গ্যাস টেবলেট খায়। পরে বিষয়টি জানাজানি হলে তাকে দ্রুত রানীনগর উপজেলায় স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

এবিষয়ে আত্রাই থানা অফিসার ইনচার্জ মোঃ মোসলেম উদ্দিন সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন বিষয়টি অবগত হয়েছি।তবে কেউ অভিযোগ করেনি।

বগুড়ায় আগামী ৩ নভেম্বর থেকে মহিলা ফুটবল দল গঠনে বাছাই

বগুড়ায় আগামী ৩ নভেম্বর থেকে  মহিলা ফুটবল দল গঠনে বাছাই



মোঃ সবুজ মিয়া বগুড়া প্রতিনিধিঃ বাংলাদেশ ফুটবল ফেডারেশন এর ব্যবস্থায় অনুষ্ঠিত জেএফএ অ-১৪ মহিলা জাতীয় ফুটবল চ্যাম্পিয়নশীপ ২০২০, অংশগ্রহণের লক্ষ্যে বগুড়া জেলা অ-১৪ মহিলা ফুটবল দল এর বাছাই আগামী ৩রা নভেম্বর ২০২০, সকাল ১০.০০ ঘটিকায়, বীর মুক্তিযোদ্ধা মমতাজ উদ্দিন স্টেডিয়াম (শহীদ চান্দু স্টেডিয়াম সংলগ্ন) মাঠে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে।

প্রত্যেক বালিকা খেলোয়াড়ের বয়স অ-১৪ হতে হবে অর্থা ০১ নভেম্বর ২০০৬ খ্রিঃ এর পরে হতে হবে। বয়স নির্দ্ধারনের ক্ষেত্রে পিএসসি’র সনদ, জন্ম নিবন্ধন এবং ২(দুই) কপি সদস্য তোলা পাসপোর্ট সাইজ ছবি সংগে আনতে হবে।

আগ্রহী খেলোয়াড়দের খেলার সরঞ্জাম অর্থাৎ জার্সি, প্যান্ট, এ্যাংলেট, হুজ, বুট (যদি থাকে) সহ যথাসময়ে বগুড়া জেলা ফুটবল এ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক জনাব মোঃ শফিকুল ইসলাম বাবু, মোবাইলঃ ০১৭১১২০৩৯৫১ এবং যুগ্ম সম্পাদক জনাব মোঃ সহিদুল ইসলাম স্বপন, মোবাইলঃ ০১৭১১৯৫৪৮৬২ এর সহিত নিকট রিপোর্ট করতে বলা হলো।

বগুড়া মাটিডালী হতে মহাস্থান পর্যন্ত থ্রি-হুইলার চলাচলে আইজিপি‘র আশ্বাস

বগুড়া মাটিডালী হতে মহাস্থান পর্যন্ত থ্রি-হুইলার চলাচলে আইজিপি‘র আশ্বাস


মোঃ সবুজ মিয়া বগুড়া প্রতিনিধিঃ বগুড়া শহরের মাটিডালী বিমান মোড় হইতে মহাস্থান পর্যন্ত বগুড়া-রংপুর মহাসড়কে  থ্রি-হুইলার বন্ধ থাকায় চরম জন দুর্ভোগ সৃষ্টি হয়েছে। তা লাঘবে অতিরিক্ত মহা-পুলিশ পরিদর্শক (হাইওয়ে পুলিশ) মল্লিক ফখরুল ইসলাম বিপিএম, পিপিএম এর আশ্বাস প্রদান।বগুড়া শহর থেকে ২টি মহাসড়কে মাটিডালী হইতে বনানী, মাটিডালী হইতে লিচুতলা, মাঝিড়া থেকে বি-ব্লক পর্যন্ত থ্রি-হুইলার চলাচল করলেও মাটিডালী বিমান মোড় থেকে মহাস্থান পর্যন্ত মহাসড়কে চলাচল বন্ধ রয়েছে। ফলে জনগণ চরম দুর্ভোগের শিকার হচ্ছেন।মাটিডালী হইতে মহাস্থান পর্যন্ত মহাসড়কের দুপাশে বিশ্ববিদ্যালয়,পাঁচ তারকা হোটেল, ভারতীয় ভিসা সেন্টার, ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ, মেডিকেল কলেজ, নার্সিং কলেজ, টেকনিক্যাল ইনন্সিটিউট, ১০০০ শয্যার হাসপাতাল, ১২টি ভোকেশনাল ও কারিগরি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, মাদ্রাসা, এতিম খানা, বৃদ্ধা নিবাস, হাট-বাজার, এনজিও অফিস, শিল্প ও বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠান গড়ে উঠেছে।এসব প্রতিষ্ঠানে ছাত্র-ছাত্রী, ডাক্তার, নার্স, শিক্ষক, রোগী, ক্রেতা-বিক্রেতাগণ প্রতিনিয়ত মহাস্থান টু মাটিডালী কিংবা মাটিডালী টু মহাস্থান যাতায়াত করে। থ্রী-হুইলার চলাচল না করায় জন দুর্ভোগের সৃষ্টি হয়েছে। জনগণের দাবী বিকল্প যানবাহনের ব্যবস্থা না করে এসব ছোট যান চলাচল বন্ধ করা সঠিক হয়নি।এছাড়াও মহাস্থানগড় প্রত্নতাত্ত্বিক নিদর্শনের জন্য গুরুত্বপূর্ণ হওয়ায় প্রতিনিয়ত অসংখ্য দেশী-বিদেশী পর্যটক মহাস্থান ও গোকুলে সারা বছরই ভ্রমণ করে থাকে। মহাস্থানের অনন্তবালা গ্রামের জাকির হোসেন জানান আমার মেয়ে অসুস্থ হয়েছিল, আগে থ্রি-হুইলারে ১৫ মিনিটের মধ্যেই টিএমএসএস হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া যেতো।কিন্তু এখন ১ ঘন্টা সময়ের মধ্যেও যাওয়া সম্ভব হয় না। শাখারিয়া গ্রামের কৃষক মোজাহার আলী জানান জমির ফসল তুলে অল্প খরচেই থ্রি-হুইলার করে মাত্র ১০ মিনিটেই মহাস্থান বাজারে বিক্রি করতে পারতাম, এসব যানবাহন বন্ধ থাকায় অনেক কষ্টে অধিক সময় ও খরচে ভ্যানে করে সবজি নিয়ে মহাস্থান যেতে হয়। এই রাস্তায় থ্রি-হুইলার না চলায় ভোগান্তির শেষ নেই।তাই স্থানীয় জনগণ, শিক্ষার্থী, চাকুরী জীবি, নার্স, ট্যুরিস্ট সবাই থ্রি-হুইলার চলাচলের সুযোগ দেয়ার জন্য প্রশাসনের নিকট আবেদন জানান। মাটিডালী বিমান মোড় থেকে মহাস্থান পর্যন্ত থ্রি-হুইলার চলাচলের সুযোগ বর্ধিত করার বিষয়ে অতিরিক্ত মহা পুলিশ পরিদর্শক (হাইওয়ে) মল্লিক ফখরুল ইসলাম বিপিএম, পিপিএম সরকারী কাজে হোটেল মম ইনে অবস্থানকালে থ্রি-হুইলার মালিক চালক ও জনগণের  পক্ষে টিএমএসএস এর নির্বাহী পরিচালক তার নিকট লিখিত আবেদন করেন। তিনি এ বিষয়ে বিবেচনা করার জন্য অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (হাইওয়ে পুলিশ) বগুড়াকে নিদের্শনা দেন এবং স্থায়ী সমাধানের আশ্বাস দেন।

আশাশুনি সদর ইউপি চেয়ারম্যান মিলনের মতবিনিময় সভা

আশাশুনি সদর ইউপি চেয়ারম্যান মিলনের মতবিনিময় সভা


আহসান উল্লাহ বাবলু, আশাশুনি সাতক্ষীরা  প্রতিনিধিঃ  আশাশুনি সদর ইউপি চেয়ারম্যান স ম সেলিম রেজা মিলন এর মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। শুক্রবার বিকালে সদর ইউনিয়নের দুই নম্বর ওয়ার্ডের মধ্যপাড়ায় এ সভা অনুষ্ঠিত হয়। মতবিনিময় সভায় উপস্থিত সকলে চেয়ারম্যান মিলনের বিগত দিনের কর্মকান্ডে খুশি হয়ে বলেন, দুই নম্বর ওয়ার্ডে অবকাঠামোগতভাবে অনেক উন্নয়ন হয়েছে এবং সরকারের দেয়া বিভিন্ন সুযোগ-সুবিধা সঠিকভাবে বন্টন হওয়ায় আমরা কেউ বঞ্চিত হয় নাই। এ সময় চেয়ারম্যান মিলন বলেন, বিগত দিনে আপনাদের ভোটে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হওয়ার পর থেকে আমি সব সময় আপনাদের কল্যাণে নিয়োজিত থেকে কাজ করে আসছি। সরকারি যাবতীয় সুযোগ-সুবিধা আমি অন্যায় দুর্নীতিকে প্রশ্রয় না দিয়ে প্রকৃত সুফলভোগীদের মাঝে বিতরণ করেছি।মাদক, সন্ত্রাস, দুর্নীতি, অনিয়ম ও চাঁদাবাজদের বিরুদ্ধে আমি শক্ত অবস্থানে থেকে প্রতিহত করার চেষ্টা করেছি।যার কারণে এলাকায় একটি শান্তিপূর্ণ পরিবেশের সৃষ্টি হয়েছে। ভবিষ্যতে যাহাতে সাধারণ মানুষের পাশে থেকে সকলকে সেবা দিতে পারেন এবং সদর ইউনিয়নকে একটি মডেল ইউনিয়ন হিসেবে গড়ে তুলতে পারেন সেজন্য তিনি সকলের সহযোগিতা কামনা করেন। এসময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক মনিরুজ্জামান বিপুল, সদর ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি তৈবুর রহমান  তৈবার, উপজেলা মোটরসাইকেল শ্রমিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক ফেরদৌস, হান্নান গাজী, হায়াত গাজীসহ গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ।

ফ্রান্সে মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সা.) ব্যঙ্গচিত্র প্রদর্শনের প্রতিবাদে তেঁতুলিয়া মানববন্ধন

 ফ্রান্সে মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সা.) ব্যঙ্গচিত্র প্রদর্শনের প্রতিবাদে তেঁতুলিয়া মানববন্ধন

সাব্বির হোসেন রকি, বংপুর ব্যুরোঃ 'রাসূলের অপমানে যদি না কাঁদে তোর মন, মুসলিম নয় তুই মুনাফিক রাসূলের দূশমন"পঞ্চগড় জেলার তেঁতুলিয়া উপজেলায় ফ্রান্সের রাজধানী প্যারিসে মহানবী হযরত মোহাম্মদ (সা.) ব্যঙ্গচিত্র প্রদর্শনের প্রতিবাদে আজ (৩০ অক্টোবর ) রোজ শুক্রবার  আসরের নামাজের পর তেতুলিয়া চৌরাস্তা বাজারে ইমাদ আকিদা রক্ষা কমিটি, তেঁতুলিয়া উপজেলার শাখা আয়োজনে মানববন্ধন  অনুষ্ঠিত হয়েছে। উক্ত মানববন্ধন কর্মসূচি বক্তারা সমাবেশে ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, রাষ্ট্রীয় পৃষ্টপোষকতায় ফ্রান্সে মহানবী হযরত মোহাম্মাদ (সা.)-এর ব্যঙ্গচিত্র প্রর্দশন করে যে ধৃষ্টতা দেখিয়েছে তা বিশ্বের দুই শ’ কোটি মুসলমানের হৃদয়ে চরম আঘাত করেছে এবং ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। আমরা ওই ঘটনার তীব্র নিন্দা ও ঘৃণা প্রকাশ করছি। এই অসভ্য কর্মকাণ্ড বন্ধ করতে হবে এবং অবিলম্বে ফরাসি প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁকে ক্ষমা চাইতে হবে।এসময় মানববন্ধন কর্মসূচি উপস্থিত ছিলেন, মাওলানা মোঃআঃহান্নান  প্রধান উপদেষ্টা ইমান আকিদা রক্ষা কমিটি পঞ্চগড় জেলা শাখা,মাওলানা মোঃমোখলেছুর রহমান, সভাপতি  ইমান আকিদা রক্ষা কমিটি, তেতুলিয়া উপজেলা শাখা।আরো উপস্থিত ছিলেন  মাওলানা মোঃখাদেমুল ইসলাম, ইমাম, ভজনপুর জামে মসজিদ, জনাব মোঃসোহরাব আলী,সভাপতি,তেঁতুলিয়া প্রেস ক্লাব।বক্তারা আরো দাবী জানান, বাংলাদেশ থেকে ফ্রান্সের সকল পণ্য বয়কট করতে হবে,বাংলাদেশ থেকে ফ্রান্সের দূতাবাস সরিয়ে ফেলতে হবে।

ফ্রান্সে মহানবী হযরত মোহাম্মদ (সা.) কে কটাক্ষ ও ব্যঙ্গ চিত্র প্রদর্শনীর প্রতিবাদে গণ মিছিল

 ফ্রান্সে মহানবী হযরত মোহাম্মদ (সা.) কে কটাক্ষ ও ব্যঙ্গ চিত্র প্রদর্শনীর প্রতিবাদে গণ মিছিল


মোঃ ফিরোজ হোসাইন, রাজশাহী ব্যুরোঃনওগাঁর আত্রাইয়ে ফ্রান্সে মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সা.)-কে কটাক্ষ করে ব্যঙ্গচিত্র প্রদর্শনীর প্রতিবাদে গণ মিছিল ও বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করেছেন তৌহীদী জনতা ।শুক্রবার (৩০অক্টোবর) বাদ জুমা আত্রাই ০ পয়েন্ট থেকে এ কর্মসূচি পালিত হয়৷এ সময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলার বিভিন্ন ইসলামী সংগঠনের নেতা-কর্মী।এ কর্মসূচির আয়োজকের প্রধান বলেন, ‘ফান্সে সরকারের প্রত্যক্ষ মদতে ইসলামকে অবমাননা করে রাসুল (সা.)-কে নিয়ে ব্যঙ্গচিত্র প্রদর্শন করা হয়েছে। এর প্রতিবাদে আজ আমরা এখানে সমবেত হয়েছি। শুধু ফ্রান্সে নয়, বিশ্বের অনেকগুলো দেশে এ ধরনের কর্মকাণ্ড বেড়ে গেছে। আমরা সেই সব ঘটনার নিন্দা জানাই এবং এ বিষয়ে প্রশাসনের দ্রুত হস্তক্ষেপ কামনা করছি।

ফ্রান্স সরকার তাদের নিজেদের সেক্যুলার হিসেবে দাবি করে। একটি সেক্যুলার রাষ্ট্র সরাসরি কোনও ধর্মকে আঘাত করে কিছু করতে পারে না। আমরা এর তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি এবং সারাবিশ্বের মুসলমান দেশকে প্রতিবাদ জানানোর আহ্বান জানাচ্ছি।

নড়াইলের লোহাগড়ায় সরকারি রাস্তার গাছ হরিলুট চলছে

নড়াইলের লোহাগড়ায় সরকারি রাস্তার গাছ হরিলুট চলছে


মো: অাজিজুর বিশ্বাস স্টাফ রিপোর্টার নড়াইল।। নড়াইলের লোহাগড়ায় বন বিভাগের বিরুদ্ধে সড়ক ও জনপথ বিভাগের কামঠানা-কাউড়িখোলা সড়কের দু’পাশের প্রায় ১৫০টি বিভিন্ন প্রজাতির সরকারী গাছ বিনা টেন্ডারে কেটে বিক্রি করার অভিযোগ উঠেছে।এই গাছগুলির আনুমানিক মূল্য প্রায় ৫ লক্ষাধিক টাকা।এলাকাবাসির অভিযোগে জানা গেছে, সড়ক ও জনপথ বিভাগের অধিন কামঠানা-কাউড়িখোলা সড়কের প্রায় দুই কিলোমিটার এলাকায় দুই পাশ দিয়ে বাবলা, রেন্ট্রি, মেহগনি, গামারীসহ বিভিন্ন প্রজাতির ছোট-বড় কয়েক শতাধিক গাছ ছিল।গাছগুলি রোপন করেছিলো কাউড়িখোলা-কামঠানা বনায়ন সমিতি সদস্যরা।সমিতির সভাপতির দায়িত্ব আছেন মনি মিয়া, প্রায় ৩০ বছর ধরে তাদের তত্বাবধায়নে গাছগুলো বড় হয়ে উঠে। 

অথচ সমিতির সদস্যদের এবং ইউনিয়ন পরিষদের প্রাপ্য অংশ না দিয়ে এমনকি তাদের না জানিয়ে বিনা টেন্ডারে গাছগুলি কেটে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। এমনটি অভিযোগ ওঠে মনি মিয়া,  অাজম, ও বনায়ন সমিতি কয়েক জন সদস্য, নাম না প্রকাশ্যে কিছু এলাকার মানুষ ও সদস্যগণ অভিযোগ করে বলেন, গাছ কাটার ব্যাপারে কোন মিটিং বা রেজুলেশন না করে গাছ কাটার কাজ শুরু করেছে।এ ব্যাপারে সমিতির সভাপতি মনি মিয়া শেখের সাথে যোগাযোগ করে তাকে পাওয়া যায়নি। এর একদিন পরে মনি মিয়ার সাথে সাক্ষাতে কথা হলে তিনি বলেন, আমরা অফিসের সাথে যোগাযোগ করে গাছ কাটতেছি, ও গাপ অফিসে পাঠাবো, সাংবাদিকদের প্রশ্নে মনি মিয়া আরো বলেন, আমরা অফিসের ফরেস্টার দের সাথে যোগাযোগ করে গাছ কাটছি। 

ওই ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নজরুল শিকদার ও সমিতির সম্পাদক আব্দুর ছত্তারসহ কমিটির অনেকেই জানান, আমাদের না জানিয়ে গত কয়েক দিন ধরে বন বিভাগের লোকেরা শ্রমিক দিয়ে রাস্তার দুই পাশের রোপন করা মূল্যবান রেন্ট্রি, বাবলা, গামারীসহ প্রায় ২০০টি অতি মূল্যবান গাছ কেটে নিয়ে গেছে। যার মূল্য প্রায় ৫ লক্ষাধিক টাকা।স্থানীয় অনেকেই জানান, বন বিভাগের লোকসহ ওই সমিতির দুই একজন মিলে কাটা গাছের বেশীর ভাগ গুড়ি লোহাগড়ার কালনা সড়কের পাশে অবস্থিত সমিল এলাকার তিন-চার জায়গায় রেখে সেখান থেকে বিক্রি করছে। সেখান থেকে বেশ কিছু গাছের গুড়ি গত শনিবার সকালে ট্রাকে করে অন্যত্র নিয়ে যেতেও দেখা গেছে।

সোমবার ‘সরেজমিনে যেয়ে দেখা গেছে, কামঠানা-কাউড়িখোলা সড়ক চওড়া করে পাকাকরনের জন্য ভেকু ম্যাশিন দিয়ে রাস্তা খোড়া হচ্ছে।সড়কের দুই পাশে প্রায় শতাধিক গাছের গোড়া কাটা ও গর্ত করে গোড়ার অংশ খুচে নিয়ে যাওয়ার চিহ্ন রয়েছে। কাটা গাছের কিছু গুড়ি রাস্তার পাশে রয়েছে। অনেক গুড়ি পার্শ্ববর্তী কামঠানা গ্রামের ইমরুল মুন্সি ও আলমগীরের বাড়ীতে লুকানো ছিলো।লোহাগড়ার কয়েকটি স’মিলের পাশে বড় গাছের গুড়ি রাখা হয়ে ছিলো। এছাড়া উপজেলা বন বিভাগ চত্বরে ছোট বড় প্রায় ২০/২৫ টি গাছের ছোট ছোট গুড়ি নেওয়া হয়েছে।

জানতে চাইলে গাছ কাটার কাজে নিয়োজিত বন বিভাগের কর্মচারী ইকবাল হোসেন জানান, কামঠানা-কাউড়িখোলা সড়কটির বর্তমান অবস্থা থেকে চওড়া করা হচ্ছে। যার কারণে দু’পশের বেশ কিছু গাছ কাটা হয়েছে। গাছ গুলি উপজেলা বন বিভাগের অফিস চত্বরে রাখা হচ্ছে । তিনি বিক্রয়ের বিষয়ে কিছুই বলতে পারেন না।স’মিলের পাশে রাখা গাছের গুড়ি সম্পর্কে জানতে চাইলে তিনি জানান কে বা কারা সেখানে রেখেছে তা তিনি সেটা জানেন না।এ ব্যাপারে জেলা বন বিভাগের কর্মকর্তা আব্দুর রশিদ জানান, সড়ক ও জনপত বিভাগ আমাদের না জানিয়ে দ্রুত কাজ শুরু করায় রাস্তার পাশের কিছু গাছ ভেঙ্গে পড়ার আশংকায় কেটে লোহাগড়ার বন বিভাগের অফিস চত্বরে রেখে দেওয়া সিদ্ধান্ত হয়। দ্রুত সড়কের কাজ শুরু হওয়ায় টেন্ডার বা যে সকল নিয়ম কানুন আমাদের আছে তার কোনটাই করা সম্ভব হয়নি। পথে বা অন্য কোথাও কেউ কোন গাছ রেখেছে কিনা বা বিক্রি করেছে কিনা তা আমার জানা নেই।

উপজেলা পর্যায়ে সাংবাদিকতার মানোন্নয়নে কাজ করতে হবে

উপজেলা পর্যায়ে সাংবাদিকতার মানোন্নয়নে কাজ করতে হবে

মিরসরাই প্রতিনিধি:দিনব্যাপী মিরসরাই প্রেস ক্লাবের বার্ষিক সাধারণ সভা, পুনর্মিলনী, মোড়ক উন্মোচন ও ওয়েবসাইট উদ্বোধন সম্পন্ন হয়েছে। শুক্রবার (৩০ অক্টোবর) সকাল ১০টায় উপজেলা সদরের পার্কইন রেস্টুরেন্টে দিনব্যাপী চলা কর্মসূচীর প্রথম অধিবেশন শুরু হয় বার্ষিক সাধারণ সভার মধ্য দিয়ে। দুপুরের পরে শুরু হওয়া পূনর্মিলনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে সংবাদ সংস্থা ইউএনবি’র সম্পাদক মাহফুজুর রহমান বলেন, ‘উপজেলা পর্যায়ে একটি প্রেস ক্লাবের প্রধান দায়িত্ব হচ্ছে সাংবাদিকতার মানোন্নয়নে কাজ করা। এটি করতে পারলে আজকের বাস্তবতায় সাংবাদিকদের যে চ্যালেঞ্জ তা মোকাবেলা করা সম্ভব হবে।’ 

সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক এনায়েত হোসেন মিঠুর সঞ্চালনায় ও সভাপতি নুরুল আলমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানের উদ্বোধন করেন বিশিষ্ট কথা সাহিত্যিক আব্দুল কাইয়ুম নিজামী। এসময় অনুষ্ঠান উপলক্ষ্যে প্রকাশিত স্মরণিকার মোড়ক উন্মোচন ও মিরসরাই প্রেস ক্লাবের পূর্ণাঙ্গ ওয়েব সাইটের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন অতিথিরা।পূনর্মিলনীতে বক্তারা আরও বলেন, ‘সাংবাদিকদের পরিবেশিত সংবাদ বস্তুনিষ্ঠ ও শতভাগ সত্য হতে হবে। তবেই জনগণ তা গ্রহণ করবে। সংবাদ যদি এক পেশে হয়, সংবাদের যদি কোন ভিত্তি না থাকে তাহলে জনগণ তা গ্রহণ করবে না। মফস্বল সাংবাদিকরা অনেক সংকট ও নিরাপত্তা ছাড়া সাংবাদিকতা করেন। সংবাদপত্র যদি সমাজের দর্পন হয়ে থাকে তা হলে সাংবাদিকরা হলো সংবাদের দর্পন।’বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, ক্লাবের দাতা সদস্য শাহীদুল ইসলাম চৌধুরী, ক্লাবের প্রতিষ্ঠাতা আহ্বায়ক মুহাম্মদ নিজাম উদ্দিন, দাতা সদস্য নুরুল আলম, মোঃ শেখ সেলিম,  ইঞ্জিনিয়ার আশরাফ উদ্দিন সোহেল, ক্লাবের কার্যনির্বাহী সদস্য মুহাম্মদ জয়নাল আবেদীন। আলোচনা সভা শেষে মিরসরাই প্রেস ক্লাবের প্রতিষ্ঠাতা সদস্য, আজীবন ও দাতা সদস্যদের হাতে সম্মাননা স্মারক তুলে দেন অতিথিরা। সকালের অধিবেশনে ক্লাবের সাধারণ সাধারণ সম্পাদক এনায়েত হোসেন মিঠুর সঞ্চালনায় সভাপতি নুরুল আলমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সাধারণ সভায় ক্লাবের ২০১৯ সালের জুন থেকে ২০২০ সালের সেপ্টেম্বর মাসের আর্থিক হিসাব পেশ করেন কোষাধ্যক্ষ মোহাম্মদ ইউসুফ।এসময় বক্তব্য রাখেন ক্লাবের প্রতিষ্ঠাতা মুহাম্মদ নিজাম উদ্দিন, প্রতিষ্ঠাতা সদস্য সচিব মো. নুর নবী আজাদ, প্রতিষ্ঠাতা সদস্য মো. সেলিম উদ্দিন, শাহাদাৎ হোসেন পারভেজ, বোরহান উদ্দিন জাফর, সাধারণ সদস্য মাসুদ ফেরদৌস কবির। সাধারণ সভায় ক্লাবের গঠনতন্ত্রের তৃতীয় সংশোধনী খসড়া প্রস্তাব উপস্থাপন করেন সাধারণ সম্পাদক এনায়েত হোসেন মিঠু। পরবর্তীতে উপস্থিত সদস্যদের মুক্ত আলোচনার মাধ্যমে তৃতীয় সংশোধনী কন্ঠভোটে পাশ হয়।


 সাধারণ সভায় উপস্থিত ছিলেন, প্রতিষ্ঠাতা আহ্বায়ক মুহাম্মদ নিজাম উদ্দিন, সদস্য সচিব মো. নুরুন নবী আজাদ, সদস্য বোরহান উদ্দিন জাফর, সেলিম উদ্দিন, শারফুদ্দীন কাশ্মীর, হেদায়েত উল্ল্যাহ চৌধুরী, কামাল উদ্দিন বিটু, শাহাদাৎ হোসেন পারভেজ, ওয়াজি উল্ল্যাহ, উজ্জ্বল দাশ, মীর হোসেন। কার্যনির্বাহী কমিটির সহ-সভাপতি সাইফুল হক সিরাজী, শাহাদাৎ হোসেন চৌধুরী, যুগ্ম সম্পাদক এম মাঈন উদ্দিন, আনোয়ার হোসেন, প্রচার সম্পাদক আজিজ আজহার, সাহিত্য সম্পাদক মুহাম্মদ দিদারুল আলম, সাংস্কৃতিক সম্পাদক বাবলু দে, তথ্য ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক সাদমান সময়, ক্রীড়া সম্পাদক ফিরোজ মাহমুদ, দপ্তর সম্পাদক শাহ আব্দুল্লাহ আল রাহাত, সহ দপ্তর সম্পাদক ইকবাল হোসেন জীবন, প্রকাশনা সম্পাদক সৈয়দ আজমল হোসেন। কার্যনির্বাহী সদস্য মুহাম্মদ জয়নাল আবেদীন, আশরাফ উদ্দিন। সাধারণ পরিষদের সদস্য মাসুদ ফেরদৌস কবির, রিগান উদ্দিন, সাফায়েত মেহেদী উপস্থিত ছিলেন।

রাসূল সা. এর ব্যাঙ্গ কার্টুন প্রত্যাহারের আহবান

রাসূল সা. এর ব্যাঙ্গ কার্টুন প্রত্যাহারের আহবান


চট্টগ্রাম প্রতিনিধি, হাসান রিফাতঃচট্টগ্রাম নগরীর  -স দ,হালিশহর-পতেঙ্গা ওলামা ঐক্য পরিষদের সভাপতি মাওলানা হারুন আজিজি বলেন, “বাকস্বাধীনতার নামে ফ্রান্স ইসলামবিরোধী চরম অসভ্য ও নোংরা খেলায় মেতে উঠেছে। ফ্রান্সের প্রধানমন্ত্রীও এর আগে ইসলাম ধর্ম নিয়ে অবমাননাকর বক্তব্য দিয়েছে। এসব উগ্র কর্মকান্ড প্রমাণ করে ফ্রান্স সরকার ইসলাম ও মুসলমানদের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করেছে। ফ্রান্স সরকারের বিরুদ্ধে অবস্থান নেয়া বিশ্বের মুসলমানদের নৈতিক ও ঈমানি দায়িত্ব।” তিনি বাংলাদেশ সরকারকে সংসদে ফ্রান্সের বিরুদ্ধে নিন্দা প্রস্তাব জ্ঞাপনের জন্য দাবি জানান।



ফ্রান্সে রাসূল সা. এর প্রকাশ্যে ব্যঙ্গ কার্টুন প্রকাশের প্রতিবাদে আজ ৩০ অক্টোবর,  জুমাবার বাদ জুমা ষ্টিলমিল বাজারস্থ আলী প্লাজা চত্ত্বরে - দ,হালিশহর-পতেঙ্গা ওলামা ঐক্য পরিষদের উদ্যোগে আয়োজিত বিক্ষোভ মিছিল পূর্ব সমাবেশে তিনি এসব কথা বলেন।


ওলামা ঐক্য পরিষদের সভাপতি, মাওলানা হারুন আজিজির সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় বক্তব্য রাখেন ওলামা ঐক্য পরিষদের সেক্রেটারি, মাওলানা জিয়াউল হক নোমানী। বিশিষ্ট ব্যবসায়ি, জনাব লোকমান হোসেন সওদাগর।  সাংগঠনিক সম্পাদক হাফেজ মাওলানা রুহুল্লাহ। হোসাইন আহমদ পাড়া কেন্দ্রীয় জামে মসজিদের খতিব, মাওলানা ইবরাহীম খলিল। পতেঙ্গা আলিয়া মাদরাসা মসজিদের খতিব  মাওলানা মাহমুদুল ইসলাম।  ফুলছড়ি পাড়া জামে মসজিদের খতিব মাওলানা খালেদুররহমান। বায়তুল জান্নাত জামে মসজিদের খতিব হাফেজ মাওলান আব্দুল্লাহ আল মামুন৷ রশীদিয়া মাদরাসার পরিচালক, মাওলানা হাফেজ ইমদাদুল্লাহ ভূইয়া। জমিরিয়া মাদরাসার পরিচালক, মাওলানা হাবিবুল্লাহ। আল আমিন মাদরাসার পরিচালক, মাওলানা আমিনুল্লাহ। মাওলানা সাদ্দাম হোসাইন,  দারুল আরহাম মাদরাসার পরিচালক হাফেজ মাওলানা শওকত মাহমুদ  প্রমুখ সহ স্থানীয় বিভিন্ন মাদরাসা-মসজিদের    দায়িত্বশীল পরিচালকগণ উপস্থিত ছিলেন।

সমাবেশে বক্তারা আরও বলেন, “ফ্রান্স সরকার রাষ্ট্রীয়ভাবে পুলিশ পাহারায় মুহাম্মদ সা. এর ব্যঙ্গচিত্র প্রদর্শন করে মুসলিম উম্মাহ’র কলিজায় আঘাত করেছে। ফ্রান্সের প্রধানমন্ত্রী ম্যাক্রো ব্যঙ্গচিত্র প্রকাশ করে মুসলিমবিদ্বেষী হিসেবে পরিচয় দিয়েছে। অবিলম্বে ব্যঙ্গচিত্র প্রত্যাহার করে মুসলমানদের কাছে ক্ষমা চাইতে হবে।সর্বশেষ কর্ণফুলী ইপিজেড মোড়ে মিছিল দোয়া ও মুনাজাতের মাধ্যমে সমাবেশের সমাপ্তি ঘোষণা  করা হয়।

সবুজ সংখ্যা মোঃ রাসেল মিয়া

    সবুজ সংখ্যা              মোঃ রাসেল মিয়া


চির সবুজ 


আমি রোদে পুড়ব, বৃষ্টিতে ভিজব

ফুল হয়ে ফুটব, পাখি হয়ে উড়ব

আমি প্রকৃতি হব।

আমি জোস্নার সৌন্দর্যের অবগাহনে সিক্ত হব

আমি চৈত্রের পূর্ণিমা রাতে বসে বসে সুখতারা গুনব

আমি প্রকৃতি হব।

আমি নদীর উপর কল্পনার ঘর বানাব

আমি হংস মিথুনের মত ভেসে বেড়াব

আমি প্রকৃতি হব।

আমি পিপীলিকার মত অনন্তকাল হাঁটব

আমি উদাস কবির মত পথে প্রান্তরে ঘুরব

আমি প্রকৃতি হব।

আমি ৰ্যাপা বাউলের মত গাছের ছায়ায় একতারা বাজাব

আমি লালন মেলায় সুরের বন্যায় হারিয়ে যাব

আমি প্রকৃতি হব।

আমি ভোরের মৃদুমন্দ হাওয়ায় শরীর জুড়বো

আমি মাঝির সাথে গলা ছেড়ে গান গাইব

আমি প্রকৃতি হব।

আমি শীতের সকালে শিউলী ফুল কুড়বো

আমি টিয়া পাখির সাতে কানে কানে কথা কব

আমি মায়াবী রাতে সাগরের গর্জন শুনব

আমি আকাশ পানে মায়াভরা স্বপ্ন বুনব

আমি মাটি হব কখন্ও পাহাড় হব

কখন্ও বিচ্ছিন্ন দ্বীপে মৌন হয়ে বসে থাকব

আমি প্রকৃতি হব।

আমি গাছের পাতায় শরীর ডাকব

আমি প্রকৃতির ফল ভক্ষণ করব

আমি ঝড়না হয়ে গড়িয়ে পড়ব

আমি মাঝ দরিয়ায় নৌকা বাইব

আমি প্রকৃতি হব।

আমি কখন্ও শিশু কখন্ও বৃদ্ধ হব

কখন্ও পুরুষ, আবার কখন্ও নারী হব

আমি প্রকৃতির সন্তান হব

আমি প্রকৃতি হয়ে প্রকৃতিকে জয় করব

আমি প্রকৃতি হব ।।

দেশরত্ন শেখ হাসিনা সমুদ্রবিজ্ঞান ইনস্টিটিউটের প্রস্তাবিত স্থান পরিদর্শনে ইউজিসি

 দেশরত্ন শেখ হাসিনা সমুদ্রবিজ্ঞান ইনস্টিটিউটের প্রস্তাবিত স্থান পরিদর্শনে ইউজিসি

নোবিপ্রবি প্রতিনিধিঃনোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের(নোবিপ্রবি) অধীনে চালু হতে যাওয়া ‘দেশরত্ন শেখ হাসিনা সমুদ্রবিজ্ঞান ও সামুদ্রিক সম্পদ ব্যবস্থাপনা ইনস্টিটিউট’ এর প্রস্তাবিত স্থান পরিদর্শন করেছেন বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন(ইউজিসি) এর পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিচালক মো. কামাল হোসেন ও সিনিয়র সহকারী পরিচালক মোহাম্মদ ইউছুফ আলী খান।

আজ শুক্রবার দুপুরে স্থানটি পরিদর্শন করেন তারা। ইউজিসি টিমের সঙ্গে নোবিপ্রবি উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. দিদার-উল-আলমের নেতৃত্বে কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ ফারুক উদ্দিন, প্রক্টর ও শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক ড. নেওয়াজ মোহাম্মদ বাহাদুরসহ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক ও কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। নোয়াখালী জেলা প্রশাসনের নির্দেশনায় সার্বিক সহযোগিতায় ছিলেন সুবর্ণচর উপজেলার সহকারী কমিশনার ভূমি আরিফ হোসেন ও স্থানীয় ইউনিয়নের চেয়ারম্যানসহ ভূমি সংশ্লিষ্ট অন্যান্য ব্যক্তিবর্গ। জানা গেছে, ইউজিসি প্রতিনিধি দল পরিদর্শন শেষে সন্তোষ প্রকাশ করেন এবং উক্ত ইনস্টিটিউট স্থাপনে প্রয়োজনীয় সহযোগিতার আশ্বাস প্রদান করেন।

উল্লেখ্য , ৫৫০ একর আয়তনের প্রস্তাবিত এ ইনস্টিটিউটের প্রাক্কলিত বাজেট ধরা হয়েছে ৩ হাজার ১ কোটি টাকা।  সমুদ্র সম্পদ নিয়ে গবেষণা, গভীর সমুদ্রে জাহাজ নিয়ে অনুসন্ধান ও আহরণ, ম্যানগ্রোভ বনাঞ্চল তৈরি,  ডেল্টা ফরমেশন নিয়ে গবেষণাসহ নিত্য নতুন জ্ঞান নির্ভর একটি আন্তর্জাতিক গবেষণা ইনস্টিটিউট স্থাপনের উদ্দেশ্যে ২০১৫ সালে  প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনা মোতাবেক তৎকালীন ভাইস চ্যান্সেলর অধ্যাপক ড. মো.  আবুল হোসেনের উদ্যোগে উক্ত প্রকল্পের প্রাথমিক কার্যক্রম শুরু হয়। নোবিপ্রবি পরিকল্পনা ও উন্নয়ন ওয়ার্কস দপ্তর এই প্রকল্পের সার্বিক কার্যক্রম তদারকির দায়িত্ব পালন করছেন।

রাসূলুল্লাহ (সাঃ) এর অবমাননার প্রতিবাদে বড়লেখায় বিক্ষোভ মিছিল

 রাসূলুল্লাহ (সাঃ) এর অবমাননার প্রতিবাদে বড়লেখায়  বিক্ষোভ মিছিল

আকরাম হোসাইন মৌলভীবাজার জেলা প্রতিনিধি :: মৌলভীবাজারের বড়লেখা উপজেলায় ফ্রান্সে রাষ্ট্রীয় মদদে মহানবী হযরত মুহাম্মদ সা. এর ব্যাঙ্গচিত্র প্রদর্শন এবং মুসলমানদের উপর হামলা ও নিপীড়নের প্রতিবাদে মাওঃ মুফতী রুহুল আমিন সাহেবের নেতৃত্বে জুম্মার নামাজের পর এক বিশাল বিক্ষোভ মিছিল বড়লেখা কেন্দ্রীয় মসজিদের সামন থেকে অনুষ্ঠিত হয়।বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশআজ (৩০ অক্টোবর, শুক্রবার, জুম্মার নামাজের পর অনুষ্ঠিত হয়।বিক্ষোভ সমাবেশে" সভাপতিত্ব করেন:- বড়লেখা বাজারের বিশিষ্ট ব্যবসায়ী সেলিম উদ্দিন।বিক্ষোভ সমাবেশের নেতৃত্ব দেন বড়লেখা কেন্দ্রীয় জামে মসজিদের খতিব,মাওঃ মুফতী রুহুল আমিন সাহেব।পথসভায় উপস্থিত ছিলেনউপজেলা জমিয়তের সভাপতি মাওঃ শায়েখ রমিজ উদ্দীন।বড়লেখা প্রেসক্লাবের সদস্য সচিব, বিশিষ্ট সাংবাদিক, কলামিস্ট এম.এম আতিকুর রহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক মাওঃ মাহবুবুর রহমান, যুবনেতা মাওঃ শাহাব উদ্দীন যুবনেতা মাওঃ জাকারিয়া আল আরশাদ, বড়লেখা উপজেলা ছাত্র জমিয়তের যুগ্ম আহবায়ক মাওঃ ওলিউর রহমান শামিম, যুগ্ম সদস্য সচিব হাফিয ফাহিম আহমদ প্রমুখ।

অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন:-লেখক ও সাংবাদিক আকরাম হোসাইন, বড়লেখা উপজেলা যুব জমিয়তের প্রচার সম্পাদক মাওঃ মুজাহিদুল ইসলাম,পরিশেষে, সভাপতির আলোচনা ও মুনাযাতের মাধ্যমে সভার সমাপ্তি ঘোষণা করা হয়।

ঝিকরগাছায় ৩য় শ্রেণী কর্মচারী পরিষদের প্রথম ত্রিবার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত

ঝিকরগাছায় ৩য় শ্রেণী কর্মচারী পরিষদের প্রথম ত্রিবার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত

মোঃ ইকরামুল করিম সৈকত, ঝিকরগাছা (যশোর) প্রতিনিধিঃ যশোরের ঝিকরগাছা উপজেলায় স্থানীয় বি.এম হাই স্কুল মাঠে বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ৩য় শ্রেণী কর্মচারী পরিষদের যশোর জেলা শাখার প্রথম ত্রিবার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। 

শুক্রবার সকাল ১০ ঘটিকায় ঝিকরগাছা বি.এম হাই স্কুল মাঠে বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ৩য় শ্রেণী কর্মচারী পরিষদের যশোর জেলা শাখার প্রথম ত্রিবার্ষিক সম্মেলনে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন  যশোর-২ আসনের মাননীয় জাতীয় সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা মেজর জেনারেল (অব.) অধ্যাপক ডাঃ মোঃ নাসির উদ্দিন। সংগঠনটির কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক মো. শামীম পারভেজের সভাপতিত্বে উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. মনিরুল ইসলাম, ওসি আব্দুর রাজ্জাক, ভাইস চেয়ারম্যান সেলিম রেজা, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান লুবনা তাক্ষী, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার এ.এস.এম জিল্লুর রশিদ, বি.এম হাই স্কুলের প্রধান শিক্ষক আ. সামাদ।প্রধান ও সাংগঠনিক আলোচক ছিলেন, সংগঠনটির সিনিয়র সহ সভাপতি মো. মোস্তফা ভূঁইয়া ও সাধারণ সম্পাদক মো. হাবিবুর রহমান।এছাড়াও নারগিছ নাহার, ইশা তালুকদার, আব্দুল হান্নান, আব্দুল কাদের, ইয়াছিন আলী, আলীম দাড়িয়া, মধূসূদন সরকার,যুবলীগ নেতা রফিকুল ইসলাম বাপ্পী সহ অনেকেই উপস্থিত ছিলেন।

দ্বিতীয় সন্তান ভূমিষ্ঠের আনন্দ মুছে গেল প্রথম সন্তানকে হারিয়ে

 দ্বিতীয় সন্তান ভূমিষ্ঠের আনন্দ মুছে গেল প্রথম সন্তানকে হারিয়ে

কাজী মোঃ সাজ্জাদ হাসান ঃনিখোঁজের দুদিন পর ডোবায় মিলল শিশু আরিয়ানের লাশ দ্বিতীয় সন্তান ভূমিষ্ট হওয়ার আনন্দ মুছে গেল প্রথম সন্তানকে হারিয়ে। নিখোঁজের দুদিন পর গতকাল ডোবায় মিলল ঢাকার ব্যবসায়ী সাইফুল ইসলাম জুয়েলের প্রথম সন্তানের লাশ। নগরীর হালিশহর ‘এ’ ব্লক বাস স্ট্যান্ডের কাছে নির্মাণাধীন একটি ভবনের ডোবা থেকে মো. মেহেরাজ ইসলাম আরিয়ানের (৬) লাশটি উদ্ধার করা হয়। আরিয়ান পাহাড়তলী থানার শাপলা আবাসিক এলাকায় নানার বাসায় বেড়াতে এসেছিল। যেখান থেকে আরিয়ানের লাশ উদ্ধার করা হয় তার অদূরেই নানার বাসা। গত মঙ্গলবার বিকালে বাসা থেকে বের হয়ে সে নিখোঁজ হয়।

জানা যায়, ঢাকার ব্যবসায়ী সাইফুল ইসলাম জুয়েলের দ্বিতীয় সন্তানের জন্ম হয় গত ৭ আগস্ট। সাইফুলের শ্বশুর মো. মঈনউদ্দীন তাঁর মেয়ে ও নাতি-নাতনিকে ১৮ আগস্ট শাপলা আবাসিক এলাকায় নিজ বাড়িতে নিয়ে আসেন। উদ্দেশ্য নবজাতক ও তার মায়ের দেখাশোনা করা। কিন্তু সাইফুল দম্পতির আনন্দ বিষাদে পরিণত হল বড় ছেলেকে হারিয়ে। আজাদীর কাছে প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করতে গিয়ে পুত্রশোকে কাতর সাইফুল ইসলাম বলেন, ‘ভাই, কী বলব? এসে আমার ছেলের ডেডবডি পাইছি। মেরে ফেলে গেছে আমার ছেলেটাকে।’

সাইফুল ইসলাম জুয়েল ঢাকার নাখালপাড়ায় সপরিবারে বসবাস করেন। আগামী সপ্তাহে পরিবার নিয়ে তাঁর ঢাকায় ফিরে যাওয়ার কথা ছিল। আগামী জানুয়ারিতে শিশু আরিয়ান স্কুলে ভর্তি করার কথা। স্বজনদের দাবি, এটি সুস্পষ্ট হত্যাকাণ্ড। হালিশহর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রফিকুল ইসলাম আজাদীকে বলেন, ‘আমরা ময়নাতদন্তের পর নিশ্চিত হতে পারব। ধারণার উপর ভিত্তি করে মন্তব্য করতে চাই না। সিআইডির ক্রাইমসিন ইউনিট বিভিন্ন আলামত জব্দ করেছে। মামলার বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন।’

হালিশহর ওসি রফিকুল ইসলাম আজাদীকে বলেন, ‘গত ২৭ অক্টোবর সন্ধ্যা ছয়টার দিকে আরিয়ান নানার বাসা থেকে কাউকে কিছু না বলে বের হয়ে আর ফিরে আসেনি। এ ঘটনায় তার মা মারজান আক্তার ওই রাতেই পাহাড়তলী থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেছিলেন। এছাড়া এলাকাতে মাইকিং করা হয়েছিল। আজ (গতকাল বৃহস্পতিবার) দুপুরে স্থানীয়রা আমাদের জানায়, শাপলা আবাসিকের বিপরীতে হালিশহর থানাধীন দারুল ফোরকান মাদ্রাসার পাশে নির্মাণাধীন একটি ভবনের ভেতর জমে থাকা পানিতে এক শিশুর লাশ ভাসছে।

লাকসামে এক ব্যক্তিকে ডিবির পরিচয়ে অপহরণ

 লাকসামে এক ব্যক্তিকে ডিবির পরিচয়ে অপহরণ

 


লাকসাম প্রতিনিধিঃকুমিল্লার লাকসাম উপজেলার বাকই দক্ষিণ ইউনিয়নের বরইগাও গ্রামের আনুমানিক রাত ১.১৫ মিনিটে ডিবির পরিচয়ে মোস্তফা কামাল নামে একজনকে অপহরণ করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। গত ২৮/১০/২০২০ইং রোজ বুধবার দিবাগত রাত ১.১৫ ঘটিকার সময় মোস্তফা কামাল (ভিটকিম ৩০) কে মৎস্য খামার থেকে অপহরণ করা হয়েছে। 

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, মোস্তফা কামাল ( ৩০) এর  জায়গায় সম্পতি বিরোধ নিয়ে দীর্ঘ ১ বছর ধরে তার তিন ভাই বিভিন্ন ভাবে শত্রুতা চালিয়ে যাচ্ছে। তাকে বিভিন্ন ভাবে সন্ত্রাস দ্বারা হামলা করেছে এবং উভয় পক্ষের মধ্যে নন জি, আর মোকদ্দমা ৫১/২০ ও ৫৪/২০ কুমিল্লা নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সি,আর,পি,সি চলিত অবস্থায় আছে। 

উক্ত অভিযোগ সূত্রে আরো জানা যায়, পূর্ব জের শত্রুাও মামলা মোকদ্দমা সূত্র ধরে গত ২৮/১০/২০২০ইং রোজ বুধবার দিবাগত রাত ১.১৫ ঘটিকার সময় বাদীর বাড়ির পশ্চিম দিকে মৎস্য খামার পাহার দেওয়ার জন্য মোস্তফা কামাল (ভিটকিম ৩০) ও শামীম অবস্থান করেন। একপর্যায়ে তারা ২ জন ঘুমিয়ে পড়লে মোস্তফা কামাল (ভিটকিম ৩০) এর তিন ভাই পূর্ব পরিকল্পনা সূত্র ধরে যুক্তিকভাবে  তারা আরে ৪/৫ জন মুখোশ ধারী সন্ত্রাসী নিয়ে মৎস্য খামারের বেড়া কেঁটে অবৈধ প্রবেশ করে মোস্তফা কামাল (ভিটকিম ৩০) কে ঘুমন্ত অবস্থায়  অচেতনতা নাশক ঔষধ নাকে লাগিয়ে অজ্ঞান করে তার সাথে থাকা শামীম কে বালিশ দিয়ে হত্যা করা চেষ্টা করে এবং ভিটকিমকে অজ্ঞান অবস্থায় কোলে তুলে নিয়ে অজ্ঞাত অবস্থায় অপহরণ করে। অপহরণ করে নিয়ে যাওয়ার সময় শামীম কে কাউকে না বলার হুমকি দেয়। শামীম ভিটকিম কে কোথায় নিয়ে যাওয়ার কথা বললে তারা বলে আমরা ডিভির লোক তাকে থানায় নিয়ে যাচ্ছি। আত্মীয় সূএ জানা যায়, মোস্তফা কামালকে অপহরণের পর তাঁকে কুমিল্লা ডিভি অফিস সহ বিভন্ন জায়গায় খোঁজাখুজি করে  ভিটকিমের সন্ধান পায়নি তার আত্মীয় স্বজনরা। তাদের বিশ্বাস ভিটকিমকে অজ্ঞত স্হানে আটক করে তাকে হত্যা করে লাশ গুম করেছে।ভিটকিমের আত্মীয়রা খোঁজাখুজির কাজে ব্যস্ত থাকায় মামলা করতে দেরি করে ফেলেছে। পরেদিন তারা কুমিল্লার বিজ্ঞ লাকসাম থানার সিনিঃ জুডিঃ ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে লিখত আকারে দরখাস্ত করেন যার নম্বর সি,আর ২৯১। উক্ত মামলা দায়ের অভিযুক্তরা হলেন তার তিন ভাই আঃ সত্তার (৫০), পিতা হাজী নুরু মিয়া, আঃ মফিজ(৪৫), পিতা হাজী নুরু মিয়া, আঃ মোনাফ(৪০) এছাড়াও তাদের সাথে অজ্ঞাত ৪/৫ জন সন্ত্রাসী। 

উক্ত মামলার স্বাক্ষীগন হলেন মোস্তফা কামাল ভিটকিম(৩০), পিতা হাজী নুরু মিয়া, শামীম পিতা মৃত রুহুল আমিন, রমিজ উদ্দীন মেম্বার(৫০) পিতা মৃত অহেদ আলী, আঃ জব্বার(৫৫) পিতা মৃত রজব আলী, আবুল কাশেম(৪৫) পিতা মৃত আঃ মজিদ, এসমত(৪৫) পিতা মৃত আঃ কাদের, আঃ জনি(১৭) পিতা মোস্তফা তাঁরা সবাই একই গ্রামের বাসিন্দা।

বুড়িমারীতে পবিত্র কুরআন শরীফ অবমাননার অভিযোগে পিটিয়ে হত্যা, লাশে আগুন!

 বুড়িমারীতে পবিত্র  কুরআন শরীফ অবমাননার অভিযোগে পিটিয়ে হত্যা,  লাশে আগুন!




কুড়িগ্রাম প্রতিনিধিঃলালমনিরহাটের পাটগ্রাম উপজেলার বুড়িমারী ইউনিয়নের বুড়িমারী কেন্দ্রীয় জামে মসজিদের ভেতরের কুরআন  অবমাননা ও হাদিস শরীফ রাভার সেলফ তছনছ করার অভিযোগে এক ব্যক্তিকে পিটিয়ে হত্যার পর  গায়ে আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দিয়েছে বিক্ষুব্ধ জনতা।

বৃহস্পতিবার মাগরিবের নামাজের আগে বুড়িমারী ইউনিয়ন পরিষদ চত্ত্বরে ঘটে এ ঘটনা। 

এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন বুড়িমারী ইউনিয়ন পরিষদের ১নম্বর ওয়ার্ড সদস্য হাফিজুল ইসলাম।

ইউপি সদস্য হাফিজুল ইসলাম  বর্ণনা করে বলেন, ‘আসরের নামাজ শেষে বুড়িমারী কেন্দ্রীয় জামে মসজিদে দুইজন বহিরাগত  পরিচয়ধারী ব্যক্তি যায়। মসজিদের খাদেম জুবেদ আলীকে সাথে নিয়ে একজন মসজিদের ভেতরে প্রবেশ করে কোরআন শরীফ ও হাদিসের বই রাখার তাকে অস্ত্রো আছে বলে তল্লাশি শুরু করে। এক পর্যায়ে মসজিদের সামনে থাকা ৫/৬জন মুসল্লি প্রবেশ করে ওই ব্যক্তিকে এবং বারান্দায় থাকা অপর ব্যক্তিকে সিঁড়িতে বসিয়ে মারধর করছিল। খবর পেয়ে আমি ঘটনাস্থলে গিয়ে ওই দুই ব্যক্তিকে নিয়ে এসে পাশে বুড়িমারী ইউনিয়ন পরিষদের একটি কক্ষের ভেতরে ঢুকে তালা লাগিয়ে রাখি। আমাদের পেছনে শতাধিক লোকজন ছিলো। মুহুর্তে শত শত লোকজন জড়ো হতে থাকে। আমি ও স্থানীয় রফিকুল ইসলাম প্রধান নামে একজন ব্যক্তি পাটগ্রাম থানার ওসি সুমন কুমার মোহন্ত, ইউএনও কামরুন নাহার, উপজেলা চেয়ারম্যান রুহুল আমীন বাবুল ও বুড়িমারী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এসএম নেওয়াজ নিশাতকে ফোনে কল দিলে তারাও আসেন। এরই মধ্যে হাজার হাজার উত্তেজিত জনতা কারো কথাই না শুনে পরিষদের দরজা-জানালা ভেঙে একজন ব্যক্তি বাইরে বেড় করে ইউনিয়ন পরিষদ চত্তরেই সবার সামনে পিটিয়ে হত্যা করে। পরে লাশ টেনে হিচড়ে নিয়ে গিয়ে লালমনিরহাট-বুড়িমারী জাতীয় মহাসড়কের বুড়িমারী প্রথম বাঁশকল এলাকায় কাঠখড়ি ও পেট্রোল দিয়ে আগুন ধরিয়ে দিয়ে পুড়ে ছাই করে দেয়। সেখানে ৫/৬ হাজার উত্তেজিত মানুষ কারো কোনো নিয়ন্ত্রণ ছিল না।’

তিনি মোবাইলে বলেন, ‘আমরা লোক দুইজনের সাথে কথা বলার সময় পাইনি। তাই পরিচয় নেওয়া সম্ভব হয়নি। এমন কি তাদের ধর্ম সম্পর্কেও জানা সম্ভব হয়নি।’

বুড়িমারী কেন্দ্রীয় জামে মসজিদের মুয়াজ্জিন আফিজ উদ্দিন বলেন, ‘আমি আসরের নামাজ শেষ করে বাইরে বেড় হয়ে যাওয়ার সময় দেখতে পাই খাদেম জুবেদ আলীকে দুইজন অপরিচিত ব্যক্তি সালাম দিয়ে হ্যান্ডশেক করে কথা বলছিল। এরপর তারা মসজিদের ভেতরে ঢুকে যায়। আমিও চলে যাই। পরে ঘটনার কথা এসে শুনেছি। কিন্তু বিস্তারিত কিছু জানি না।’

জানতে চাইলে ওই মসজিদের খাদেম জুবেদ আলী বলেন, ‘আমাকে ওই ব্যক্তি র‌্যাব ও আর্মির পরিচয় দিয়ে বলে যে, কোরআন শরীফ ও হাদীস রাখার তাকে না কি অস্ত্র আছে খুজতে শুরু করে। এক পর্যায়ে সবকিছু তছনছ করে। মসজিদের বারান্দায় থাকা অপর জনকে সহ অপরিচিত দুই ব্যক্তিকে মসজিদের বারান্দার সিড়িতে মারধর করে।  প্রশাসক আবু জাফর ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, সেখান সার্বিক পরিস্থিতি এখনই বলার মতো নয়। শুনেছি ইউনিয়ন পরিষদে সহ বিভিন্ন জায়গায় অগ্নিসংযোগ করা হচ্ছে। একজনকে মেরে আগুনে পুড়ে ফেলা হয়েছে। অতিরিক্ত আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যও সেখানে পাঠানো হয়েছে।

তিস্তা নদী ব্যবস্থাপনায় মহাপরিকল্পা গ্রহণ করায় প্রধানমন্ত্রী কে অভিনন্দন

 তিস্তা নদী ব্যবস্থাপনায় মহাপরিকল্পা গ্রহণ করায় প্রধানমন্ত্রী কে অভিনন্দন

 


মোঃ রশিদুল ইসলাম রিপন,লালমনিরহাট প্রতিনিধি,কালমাটি পাকার মাথা, লালমনির হাটে, তিস্তা নদীর মহাপরিকল্পা গ্রহণ করায়, তিস্তা নদী খনন, বাধ নিমার্ণ এবং লালমনির হাট টু হারাগাছ রংপুর মহাসড়কে সংযোগ সেতু চাই আন্দোলন কমিটি এবং তিস্তা পাড়ের মানুষের পক্ষ থেকে মাননীয় প্রধান মন্ত্রী কে প্রাণঢালা অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা জানানো হয়। 

প্রায় পাঁচ হাজার মানুষ সেখানে উপস্থিত হয়। সভাপতিত করেন মোঃ রবিউল ইসলাম স্বপন আহবায়ক তিস্তা নদী খনন বাধ নিমার্ণ এবং লালমনির হাট টু হারাগাছ মহাসড়কে সংযোগ সেতু চাই আন্দোলন কমিটি।আরও বক্তব্য রাখেন খায়রুজ্জান, আইয়ুব আলী, চন্দ্র শেখর, নির্মল রায়, আশিকুর রহমান, মশিয়ার রহমান সহ এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তি বর্গ।

লাভের মুখ দেখছেন তরমুজ চাষী মেহেদী

 লাভের মুখ দেখছেন তরমুজ চাষী   মেহেদী

 


সুমন হোসেন, যশোর জেলা প্রতিনিধিঃ চায়না জাতের তরমুজ চাষ করে মেহেদী নামের বালক লাভের মুখ দেখছেন। মোঃ ইনতাজুল ইসলাম ১০ কাটা জমিতে চায়না জাতের তরমুজ চাষ করে ২ মাসেই ৫০,০০০ টাকারো বেশি মুনাফা ভোগ করছেন। মেহেদী হাসান জানায়, চায়না জাতের তরমুজ সাধারন মানুষের ভোগের প্রবনতা অনেক বেশি দেখা যাচ্ছে।   যশোরের ছুটিপুর রোডে পতেঙ্গালীতে মোট ৬ বিঘারো বেশি চাষ করছে। মানুষ লাভের আশায় এটা চাষের  ঝুকি নিচ্ছে।যশোরের পতেঙ্গালীতে  বেশি চাষ হয়। ফলটি গুনে ও মানে অতুলনীয় হওয়াতে বিদেশি সাংস্থা থেকেও পরিদর্শন করে গবেষনা চালিয়ে দেখা গেছে ফলটি পুষ্টিগুন অনেক বেশি অন্য তরমুজের থেকে।যশোরে এমন উদ্যোগী চাষের প্রশংসাও করছে পথচারীরা।  মেহেদী হাসান যশোর-ছুটিপুর রোডে একটা চালা টানিয়ে সে তরমুজের ব্যবসা করছেন। দেখা যায় কেজি প্রতি ৫০-৬০ টাকা করে নিচ্ছে। ভোক্তাদের চাহিদা থাকাতে ২ মাসে তরমুজের আবাদ শেষ হয়ে যায়। মেহেদী ৩ বছর ধরে এই তরমুজের চাষ করে আসছে। মেহেদী হাসান,  এবছর ২ রকম তরমুজের চাষ করেছেন। মেহেদী হাসান জানায়, বিএডিসি থেকে তরমুজ চাষের জন্য কোনো সাহায্য সহোযিতা করা হয় নি। সরকারি সাহায্য ছাড়ায় নিজ উদ্যোগে চাষের কাজ করে এখন অনেক লাভ করেছেন।পরবর্তীতেও তারা এই চাষ ধরে রেখে মানুষের আটো উদ্যোগী হয়ে চাষ করার পরামর্শ দিবেন বলে জানায়। এই চায়না জাতের তরমুজ চাষ করতে  কীটনাশক  হিসাবে ব্যবহার করা হয়, গোল্ডাজিন, সিলেটিটজিন, প্রিমিয়ার, ছিকোগ্রিন, ম্যানকোছিল ব্যবহার করে থাকেন। পোকার উপদ্রব বেশি না হলেও, জালি আসার সময়ে কীটে আল মারলে ফসলের উৎপাদন কম হয়।এই জাতের বীজ সচারাচর পাওয়া না গেলেও, বিল্লাল নামের ব্যক্তি বীজের সরবরাহ করে থাকেন।

শৈলকুপায় ওয়ার্ড বিএনপির সভাপতি আব্দুর রহমান এর জানাজায় জনতার ঢল

শৈলকুপায় ওয়ার্ড  বিএনপির সভাপতি আব্দুর রহমান এর জানাজায় জনতার ঢল




শৈলকুপা প্রতিনিধিঃঝিনাইদহ জেলার শৈলকুপা উপজেলার ১৫ নং ফুলহরি ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ড ( কাজিপাড়া)  বিএনপির সভাপতি আব্দুর রহমান (৬০) ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়ে গতকাল রাত ৮ টার সময় নিজ বাড়িতে মৃত্যু বরণ করেন। আব্দুর রহমান এর জানাজা আজ সকাল ১০ টার সময় তার নিজ বাড়িতে অনুষ্ঠিত হয়েছে।এ সময় উপস্থিত ছিলেন শৈলকুপা উপজেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি ও সাবেক সংসদ সদস্য আলহাজ্ব আব্দুল ওহাব সাহেব, শৈলকুপা উপজেলা বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক রাকিবুল হাসান দিপু, সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক সাজ্জাদুর রহমান সাজ্জাদ, বর্তমান কমিটির যুগ্ম আহাব্বায়ক, ওসমান সাহেব, মনিরুল ইসলাম হুটু, ফিরোজ বিশ্বাস। আরো উপস্থিত ছিলেন শৈলকুপা উপজেলা যুবদলের সদস্য সচিব জমির উদ্দিন, ছাত্র নেতা লিটন সহ বিএনপি, যুবদল, ছাত্র দল, সেচ্ছাসেবক দলের নেতা কর্মীরা।

মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সঃ) এর ব্যাঙ্গ চিত্র প্রদর্শনের প্রতিবাদে বিক্ষোভ

মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সঃ) এর ব্যাঙ্গ চিত্র প্রদর্শনের  প্রতিবাদে  বিক্ষোভ

 


মোঃআবু নাঈম কাজী,স্টাফ রিপর্টারঃমাগুরা জেলার মহম্মদপুর উপজেলার  বাবুখালীতে ফ্রান্সে মহানবী (সঃ) এর ব্যাঙ্গ চিত্র প্রদর্শ’নের প্রতিবাদে ২৯ অক্টোবর রোজ বৃহস্পতিবার  বিকাল সাড়ে ৪টায়  বাবুখালী বাজার হাই স্কুল ফুটবল মাঠে  আলেম-ওলামাদের ডাকে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ অনুষ্টিত হয়। মহানবী (সঃ) কে অবমাননা কারীর ছবি পুড়িয়ে বিক্ষোভ করেন। এ সময় বক্তব্যে রাখেন ১নং বাবুখালী ইউপি চেয়ারম্যান মীর মোঃ সাজ্জাদ আলী জেলা পরিষদ সদস্য মোঃ আলী আহমেদ মৃধা (মিন্জু) জনাব আলী আহমেদ  স্যার সহ অনেক আলেম ওলামায়ে কেরামগন । বলেন আমরা আজ থেকে ফ্রান্সের সকল ধরনের পন্য বর্জ্রন করব। আমাদের মনে খুব দুঃখ লাগে। যখন আমাদের প্রিয় নবী হযরত মুহাম্মদ (সঃ)এর নামে বাজে কোন কিছু শোনা যায়। সবার মুখে একটাই কথা আমরা আজ থেকে ফ্রান্সের সব কিছু,বর্জ্রন করব। সমাবেশে একটাই স্লোগান, মহানবী (সঃ) কে অবমাননা কারীর ফাঁসি চাই। অবশেষে শেষ বক্তব্যে ও মোনাজাতের মাধ্যমে সমাবেশ সমাপ্ত করেন হাফেজ মাওলানা কাজী মোঃ শাহাদাৎ হোসেন ।

ব্যাপক সমালোচনার মুখে অবশেষে বদলী হলেন শৈলকুপার ইউএনও

ব্যাপক সমালোচনার মুখে অবশেষে বদলী হলেন শৈলকুপার ইউএনও


সম্রাট হোসেন,  ঝিনাইদহ  প্রতিনিধিঃঅবশেষে  ঝিনাইদহ জেলার শৈলকুপা উপজেলা  ছাড়লেন শৈলকুপার ইউএনও মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম। তাকে বদলী করা হয়েছে পরিকল্পনা কমিশনে। জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের এপিডি অনুবিভাগের উপ সচিব আলিয়া মেহের স্বাক্ষরিত এ বদলীর আদেশ আজ ২৯ অক্টোবর জারী করা হয়।

সাম্প্রতি ঘর নির্মাণ নিয়ে নানা অনিয়ম আর দুর্নীতির অভিযোগ ওঠে।   প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের অর্থায়নে 'জমি আছে ঘর নাই' আশ্রয়ণ-২ প্রকল্পে শৈলকুপায় ৩৭ টি ঘর নির্মাণের শুরু থেকে দুর্ণীতির অভিযোগ ওঠে। উপকারভোগীরা অভিযোগ তোলে নিন্মমানের ইট, বালি, সিমেন্ট দিয়ে ঘর নির্মাণ কাজ চলে।  নির্মানাধীন অবস্থায় ধ্বসে পড়ে বিভিন্ন এলাকার ৫ টি ঘর। ডিবিসি নিউজ সহ  গণমাধ্যমে এসব নিয়ে ফলাও করে সংবাদ প্রকাশ হয়। যা গত সপ্তাহে অনুসন্ধানে নামে দুদক।  

দুদকের সরেজমিন অনুসন্ধানের এক সপ্তাহের মাথায় ইউএনও শৈলকুপা ছাড়লেন। এর এক সপ্তাহ আগে ঘর নির্মানের সাথে জড়িত ইউএনওর কার্যালয়ের অফিস সহকারী মিন্টু ও আরেক অফিস সহকারী আক্তার হোসেন কে শৈলকুপা থেকে সরিয়ে অন্যত্র বদলী করা হয়। শৈলকুপার পিআইওর সাথেও এর আগে বিরোধে জড়িয়ে পড়েছিলেন ইউএনও মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম। মোঃ  সাইফুল ইসলাম  গত ১ বছরের কিছু সময় আগে ঝিনাইদহের হরিনাকুন্ডু উপজেলা থেকে বদলী হয়ে  শৈলকুপা আসেন।  শৈলকুপা এসে একের পর এক নানা বিতর্কে জড়িয়ে পড়েন।  স্যোশাল মিডিয়া সহ গণমাধ্যমে বিস্তর লেখালেখি হয়।  অবশ্য ইউএনও  মাঝে মধ্যে তার ফেসবুক আইডিতে এসব ঘটনা কে মিথ্যাচার দাবি করে আত্মপক্ষ সমর্থন করে ব্যাখ্যা দেন।  তবে শেষ পর্যন্ত তাকে ছাড়তে হলো শৈলকুপা।  উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ সাইফুল ইসলাম কে পরিকল্পনা কমিশনের সিনিয়র সহকারি প্রধান হিসেবে বদলী করা হয়েছে।  আজ ২৯ অক্টোবর ২০২০ইং  জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের এপিডি অনুবিভাগের উপ সচিব আলিয়া মেহের স্বাক্ষরিত এ বদলীর আদেশ জারী করা হয়।

কালিগঞ্জের বসন্তপুর রিভার ড্রাইভ ইকো পার্কের ভিত্তি প্রস্তর উদ্বোধন

কালিগঞ্জের বসন্তপুর রিভার ড্রাইভ ইকো পার্কের ভিত্তি প্রস্তর উদ্বোধন




আজহারুল ইসলাম সাদী, স্টাফ রিপোর্টারঃসাতক্ষীরা জেলার কা‌লিগঞ্জ উপজেলাবাসীর  দীর্ঘদি‌নের দা‌বির প্রেক্ষি‌তে, অব‌শে‌ষে উপ‌জেলার সীমান্ত ঘেষা তিন নদীর মোহনার বসন্তপু‌রের, চন্দ্রভবন‌কে, ঐতিহাসিক স্থান ও পিকনিক স্পট হিসেবে ঘোষণা করা হয়েছে। 

বৃহসপতিবার (২৯ অক্টোবর) বিকাল ৫ টায় কালিগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ মোজাম্মেল হক রাসেল এর সভাপতিত্বে, প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে,  "বসস্তপুর রিভার ড্রাইভ ইকো পার্কের" ভিক্তি প্রস্তর এর শুভ উদ্বোধন ক‌রেন, সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসক এস.এম মোস্তফা কামাল। 

এসময় উপ‌স্থিত ছি‌লেন, কালিগঞ্জ  উপ‌জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান সাঈদ মে‌হেদী, কালিগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি নরীম আলি মাস্টার, সাধারণ সম্পাদক তারালি ইউপি চেয়ারম্যান এনামুল হোসেন ছোট, মথুরেশপুর ইউপি চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান গাইনসহ স্থানীয় জনপ্রতি‌নি‌ধি ও রাজ‌নৈ‌তিক নেতৃবৃন্দ।

কালিগঞ্জ  উপ‌জেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোজা‌ম্মেল হক রা‌সেল জানান, দর্শনার্থী ও ভ্রমণ পিপাসুদের জন্য, চলতি বছ‌রের ফেব্রুয়ারি মা‌সে, রামজননী ভব‌নের সাম‌নে, পিক‌নি‌কের অা‌য়োজন ক‌রে সাংবা‌দিক, শিল্পী, ক‌বি সা‌হিত‌্যতিকসহ প্রশাস‌নের কর্মকর্তাবৃন্দ।সেখা‌নে ঐতিহাসিক পরিতাক্ত ভবনটিকে ঘিরে পিকনিক স্পট ঘোষণা করার দাবী ওঠে।সেই থেকে বসন্তপুরে পার্ক স্থাপ‌নের জন্য তিনি তার, ঐকান্তিক প্রচেষ্টা আর নিরলস পরিশ্রমের ফল স্বরূপ, সরেজমিনে সাধারণ মানুষদের কাছে তথ্য নি‌তে শুরু ক‌রেন। একপর্যায়ে চন্দ্রভবনের সকল তথ‌্য সংগ্রহ ক‌রে, জেলা প্রশাস‌কের কা‌ছে পার্ক তৈরীর জোরা‌লো দা‌বি তু‌লে ধ‌রেন।এরই ফলশ্রতিতে, সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসক এসএম, মোস্তফা কামাল,বসন্তপুর রিভার ড্রাইভ ইকো পার্ক নামটি অনু‌মোদন দি‌য়ে, উ‌দ্বোধ‌ন করলেন। 

সাতক্ষীরা জেলার, কালিগঞ্জ উপজেলার বসন্তপ‌ুরে পার্ক তৈরী ও নামকরণ করায় কালিগঞ্জবাসী সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসক এসএম, মোস্তফা কামাল ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোজাম্মেল হক রাসেল উভয়ের প্রতি, কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন।

কালিগঞ্জে সড়ক দূর্ঘটনায় এক ব্যবসায়ীর মৃত্যু

 কালিগঞ্জে সড়ক দূর্ঘটনায় এক ব্যবসায়ীর মৃত্যু

আজহারুল ইসলাম সাদী, স্টাফ রিপোর্টারঃসাতক্ষীরা জেলার কালিগঞ্জে সড়ক দূর্ঘটনায় এক ব্যবসায়ীর মৃত্যু হয়েছে।বৃহস্পতিবার (২৯ অক্টোবর) সকালে উপজেলার নাজিমগঞ্জ-শীতলপুর সড়কে এ দূর্ঘটনাটি ঘটে।নিহত ব্যবসায়ীর নাম সন্তোষ শর্মা (৫৭)। তিনি উপজেলার বসন্তপুর গ্রামের মৃত উপেন্দ্র শর্মার ছেলে ও নাজিমগঞ্জ বাজারের গ্লাস হাউসের স্বত্ত্বাধিকারী।

স্থানীয়রা জানান, ব্যবসায়ী সন্তোষ শর্মা সকালে বাড়ি থেকে বের হয়ে নাজিমগঞ্জ বাজারে যাওয়ার সময়, পথিমধ্যে নাজিমগঞ্জ-শীতলপুর সড়কে একটি বালুর ট্রাক তাকে বহনকারী যাত্রীবাহি ভ্যানকে সজোরে ধাক্কা দেয়। এতে তিনি গুরুতর আহত হন।স্থানীয়রা তাকে দ্রুত উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান। 

তার মৃত্যুতে এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে। কালিগঞ্জ থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মিজানুর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।