ফলোআপঃ যশোরের শার্শার বাগআঁচড়ায় আলোচিত শিশু চুরি হওয়া ৩ দিন পর উদ্ধার আটক ২

আব্দুল জব্বার, স্টাফ রিপোর্টার।।যশোরের শার্শা উপজেলার বাগআঁচড়া বাজার থেকে চুরি হওয়ার ৩ দিন পর ২৪ দিন বয়সী শিশু তাসিনকে উদ্ধার করেছে সাতক্ষীরার  কলারোয়া থানার পুলিশ। তার পর শার্শা থানায় হস্তান্তর করা হয় সহযোগিতায় ছিলেন পিবিআই পুলিশ। 

উদ্ধারের পর শিশুটিকে তার বাবা-মায়ের কাছে ফিরিয়ে দেয়া হয়েছে।শিশুটি উদ্ধারের পর এসব তথ্য জানিয়েছেন, শার্শা থানার ইনচার্জ বদরুল আলম। এর সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে সালমা খাতুন (২৩), ও লুৎফর গাজী (৫৫), নামে দুজনকে আটক করা হয়। আটক সালমা খাতুন কলারোয়া সোনাবাড়ীয়া গ্রামের মিলন গাজীর স্ত্রী ও লুৎফর গাজী একই গ্রামের বাছের গাজীর ছেলে। তারা সম্পর্কে বউমা শ্বশুর।

জানাগেছে, গত ২০শে জানুয়ারী ১৫-২০ দিন আগে নাম ঠিকানা না জানা অজ্ঞাত এক মহিলা এনজিও কর্মি পরিচয় দিয়ে, তাদের বাসায় গিয়ে গর্ভবতী কার্ড করে দিবে বলে প্রলোভন দেখায়।সেই মোতাবেক অজ্ঞাত সেই মহিলা আশরাফুলের বাসায় গিয়ে বুধবার সকালে ৩০ হাজার টাকা দিবে বলে, তাসিনের মাতা ও দাদাকে বাগআঁচড়া বাজারে নিয়ে আসে।

এক পর্যায়ে উভয়ে নাস্তা করার জন্য বাগআঁচড়া বাজারের রিফাত হোটেলে প্রবেশ করলে, অজ্ঞাত মহিলা তাসিনের মাতা ও দাদাকে নাস্তার টেবিলে বসিয়ে নাস্তা করায় এবং তাসিনকে নিজের কাছে নিয়ে হোটেল থেকে কৌশলে বেরিয়ে পালিয়ে যায়।

এর কিছুক্ষণ পর হোটেলের চারপাশে এবং মেইন সড়কগুলো খোঁজাখুঁজি করেও তার সন্তানসহ ওই নারীকে খুঁজে পাওয়া যায়নি।

এরপর গত ২১ তারিখ থেকে শিশু তাসিমকে উদ্ধারে তল্লাশি কার্যক্রম শুরু করে তারা। পরে শার্শা থানা পুলিশ ও পিবিআইয়ের যৌথ প্রচেষ্টায় গত ২৩ তারিখ শনিবার সন্ধার সময়, কলারোয়া সোনাবাড়ীয়া গ্রাম থেকে উদ্ধার করা হয়।

শার্শা থানার ওসি বদরুল আলম জানান, শিশু বাচ্চা চুরি হওয়ার পর আমরা তাকে উদ্ধারের জন্য মাঠে নামি। সাথে থাকা পিবিআইয়ের সহযোগিতায় কলারোয়া সোনাবাড়ীয়া থেকে উদ্ধার করতে সক্ষম হয় এবং এর সাথে জড়িত থাকার অপরাধে দুজনকে আটক করা হয়।

শেয়ার করুন
পূর্ববর্তী পোষ্ট
পরবর্তী পোষ্ট