অজয় কান্তি মন্ডল পেলেন চীন সরকারের আউটস্ট্যান্ডিং ইন্টারন্যাশানাল স্টুডেন্টস স্কলারশিপ

অজয় কান্তি মন্ডল চীন সরকারের 'আউটস্ট্যান্ডিং ইন্টারন্যাশানাল স্টুডেন্টস স্কলারশিপ-২০২০' অর্জন করেছেন। সারা বিশ্ব থেকে প্রতিবছর লক্ষ লক্ষ ছাত্রছাত্রী পড়ালেখা উদ্দেশ্যে চীনে পাড়ি জমান এসব ছাত্রছাত্রীদের অর্জনের উপর চীন সরকারের শিক্ষা মন্ত্রণালয় প্রতি বছর এই অ্যাওয়ার্ড দিয়ে থাকেউক্ত অ্যাওয়ার্ড প্রদানের ক্ষেত্রে চীনের শিক্ষা মন্ত্রণালয় ছাত্রছাত্রীদের বেশ কিছু সৃষ্টিশীল দিককে প্রাধন্য দেয়এসবের মধ্যে সবচেয়ে বেশি প্রাধন্য দেওয়া হয় ছাত্রছাত্রীদের অসাধরন একাডেমিক ব্যাকগ্রাউন্ড এবং অত্যান্ত ভালো মানের গবেষণা পরিচালনা করার দক্ষতাএছাড়া ছাত্রছাত্রীদের পড়ালেখার পাশাপাশি অন্যান্য সামাজিক কর্মকান্ড এবং খেলাধুলায় অংশগ্রহণ, চীনের সাথে অন্যান্য দেশের বন্ধুপ্রতিম সম্পর্ক গড়ে তোলায় তাদের অবদান, চীনের নিয়ম কানুন মেনে চলার পাশাপাশি চীনের প্রতি পজেটিভ মনোভাব পোষণ করার মত উল্লেখযোগ্য বিষয় গুলোকে প্রাধান্য দেওয়া হয়। 

অজয় কান্তি মন্ডল ফুজিয়ান এগ্রিকালচার এন্ড ফরেস্ট্রি ইউনিভার্সিটির ইতিহাসে দ্বিতীয় কোন ইন্টারন্যাশনাল স্টুডেন্ট এবং প্রথম কোন বাংলাদেশী হিসেবে এই পুরস্কার পাওয়ার গৌরব অর্জন করেছেন। অজয়ের এই অর্জন চীন ফুজিয়ান এগ্রিকালচার এন্ড ফরেস্ট্রি ইউনিভার্সিটি'র ইন্টারন্যাশনাল কলেজ এবং ম্যাটেরিয়াল ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ তাদের ওয়েবসাইটে প্রকাশের পাশাপাশি চীনের বেশ কিছু মিডিয়া গুরুত্বের সাথে নিউজ করেছে।

অজয় কান্তি মন্ডল ২০১৮ সালে ফুজিয়ান এগ্রিকালচার এন্ড ফরেস্ট্রি ইউনিভার্সিটিতে পিএইচডি ডিগ্রীর উদ্দেশ্যে চীন সরকারের স্কলারশিপ (CSC Scholarship) পেয়েছিলেন বর্তমানে তিনি চীনের ফুজিয়ান প্রদেশে স্ত্রী এবং কন্যা সহ অবস্থান করছেনতিনি ফুজিয়ান এগ্রিকালচার এন্ড ফরেস্ট্রি ইউনিভার্সিটি'র 'ম্যাটেরিয়াল ইঞ্জিনিয়ারিং' কলেজের লিগনোসেলুলোজ ডিভিশানে গবেষণা করছেন। পিএইচডি পর্যায়ে তার গবেষণার বিষয় পেপার মিলের অব্যবহৃত বর্জ্য থেকে 'লিগনিন' পৃথক করে পাইরোলোসিস এর মাধ্যমে বায়ো-ফুয়েল তৈরি করে সেটা ব্যবহার উপযোগী করা সহ লিগনিন থেক অন্যান্য মূল্যবান পণ্য বানানো বিগত দুই বছরে তিনি গবেষণা কর্মকাণ্ড বেশ সফলতার সাথেই সম্পন্ন করেন। বর্তমানে তিনি লিগনিন থেকে এনার্জি স্টোরেজ ডিভাইস বানানোর কাজ করছেন ইতোমধ্যে তিনি ফার্স্ট অথর হিসেবে তার পিএইচডি গবেষণার অংশবিশেষ আন্তর্জাতিক মানের খ্যাতিসম্পন্ন জার্নালে চারটি গবেষণা পত্র প্রকাশ করেছেন এছাড়া তিনি কো-অথর হিসেবে বেশ কয়েকটি খ্যাতিসম্পন্ন গবেষণা পত্র প্রকাশ করেছেন।

বিগত ২০১৯ সালের ডিসেম্বরে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয় কর্তৃক আয়োজিত "বিসিএসআইআর কংগ্রেস ২০১৯" শীর্ষক সেমিনারে একটি গবেষণা প্রবন্ধ উপস্থাপন করতে চীন সরকারের অর্থায়নে অন্যান্য দেশের স্বনামধন্য বিজ্ঞানীদের সাথে কয়েকদিনের জন্য তিনি  সংক্ষিপ্ত বাংলাদেশ সফরে এসেছিলেন এছাড়া সম্প্রতি তিনি তার গবেষণা কাজের একটি অংশ চীনের নানজিং বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃক আয়োজিত সেমিনারে উপস্থাপন করেন সেখানে অসংখ্য গবেষক, শিক্ষক, ছাত্র ছাত্রীদের উপস্থাপনা থেকে তার উপস্থাপনাটি প্রথম পুরুস্কার অর্জনের পাশাপাশি তিনি অসাধারণ প্রতিভা সম্পন্ন পুরুস্কার অর্জন করেন তার এই অর্জন ফুজিয়ান এগ্রিকালচার এন্ড ফরেস্ট্রি ইউনিভার্সিটি এবং নানজিং বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইটে গুরুত্ব সহকারে প্রকাশ করে

অজয় কান্তি মন্ডল সাতক্ষীরা জেলার আশাশুনি উপজেলার হাড়িভাঙ্গা এলাকার নাটানা গ্রামের শ্রীদাম চন্দ্র মন্ডল এবং সাবিত্রী মন্ডলের একমাত্র সন্তান তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে রসায়ন শাস্ত্রে প্রথম শ্রেণীতে স্নাতক এবং ভৌত রসায়নে সর্বোচ্চ নম্বর পেয়ে প্রথম শ্রেণীতে প্রথম স্থান অধিকার করে স্নাতকোত্তর সম্পন্ন করেন। এরপর তিনি একটা বিশ্ববিদ্যালয়ে কিছুদিন শিক্ষকতা করেন পরবর্তীতে বাংলাদেশ সরকারের বহুমুখী গবেষণা প্রতিষ্ঠান বাংলাদেশ বিজ্ঞান ও শিল্প গবেষণা পরিষদে (সাইন্স ল্যাব) যোগদান করে বর্তমানে ঊর্ধ্বতন বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা পদে কর্মরত আছেন

দেশের সেরা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সেরা হওয়ার পরে বিদেশে গিয়েও সেরা হওয়ার এই অর্জন এমনটাই শিক্ষা দেয় প্রতিভার বহিঃপ্রকাশ অনস্বীকার্য। মেধাবীদের কেউ দমিয়ে রাখতে পারেনা। আমরা সবাই অজয়ের এই সাফল্যে আনন্দিত। অজয় আমাদের দেশের প্রতিনিধত্ব করে দেশের সুনাম বয়ে আনবে। আরও ভালো থেকে ভালো করবে এটাই আমাদের প্রত্যাশা।    


শেয়ার করুন
পূর্ববর্তী পোষ্ট
পরবর্তী পোষ্ট