অল্প সময়ের মধ্যে আম্ফানে ক্ষতিগ্রস্ত কয়রার অভ্যন্তরিন রাস্তাঘাট সংস্কারের কাজ শুরু হবে এমপি বাবু

অল্প সময়ের মধ্যে আম্ফানে ক্ষতিগ্রস্ত কয়রার অভ্যন্তরিন রাস্তাঘাট সংস্কারের কাজ শুরু হবে                                                 এমপি বাবু
মোহাঃফরহাদ হোসেন কয়রা খুলনা প্রতিনিধি: কয়রা উপজেলার উত্তর বেদকাশি ইউনিয়নে ঘূর্ণিঝড় আম্পানে বেঁড়িবাধ ভেঙ্গে বিধ্বস্থ হওয়া অভ্যন্তরিন রাস্তাঘাট পরিদর্শন শেষে আগামী সপ্তাহে কাজ শুরু করার আশ্বাস দেন কয়রা-পাইকগাছার সংসদ সদস্য আলহাজ্ব আক্তারুজ্জামান বাবু। গত সোমবার দুপুরে উত্তর বেদকাশীর কাছারীবাড়ি, কাটমারচর এলাকার ১০ কিলোমিটার রাস্তার এ করুণ অবস্থা পরিদর্শন করেন তিনি। পরিদর্শন কালে সংসদ সদস্য আক্তারুজ্জামান বাবু আগামী সপ্তাহে জনগণের ভোগান্তি লাঘবে রাস্তার কাজ শুরু করার আশ্বাস প্রদান করে বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ঘোষনা শহরের সুবিধা নিশ্চিত করা হবে গ্রাম। পরিকল্পিত ও টেকসই উন্নয়নে গ্রামের প্রতিটি সড়ক হবে পাকা। আগে যেসব সড়ক দিয়ে মানুষ হেঁটে যাতায়াত করতে দুর্ভোগ পোহাতো, আগামীতে সেইসব সড়কে চলাচল করবে সবধরনের গাড়ি। সরকারের প্রতিটি সেক্টর এখন গ্রামীণ জনপদের সড়ক উন্নয়নে টেকসই পদ্ধতি গ্রহন করেছেন। তিনি আরও বলেন, চলমান গ্রামীণ অবকাঠামোগত উন্নয়ন কাজসমুহ সমাপ্ত হলেই জননেত্রী শেখ হাসিনার ঘোষনা মোতাবেক আগামীতে কয়রা- পাইকগাছার প্রতিটি জনপদ দৃশ্যমান করা হবে। যোগাযোগ খাতের অভাবনীয় পরিবর্তনে গ্রামের মানুষ পাবে শহরের সুবিধা। এলাকাবাসি জানায়, উপজেলার অবহেলিত গ্রামগুলোর মধ্যে একটি হচ্ছে কাটমারচর। গ্রামটি নদীর পাড়ে হওয়ায় প্রতি বছর বন্যায় আক্রান্ত হয়। তাদের যোগাযোগ মাধ্যমের রাস্তাঘাট প্রতি বছর ক্ষতিগ্রস্ত হয়ে থাকে। স্থানীয় সংসদ সদস্যের পরিদর্শনে তার মুখ থেকে আগামী ১০ দিনের মধ্যে বিধ্বস্থ রাস্তা সংস্কার,  উঁচু ও প্রশস্থ করণের  কাজ শুরুর করার আশ্বাসে শান্তির নিঃশ্বাস ফেলে স্থানীয় সংসদকে ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞা জানান কাটমারচর বাসীসহ পাশ্ববর্তী গ্রামের মানুষ। এ সময় উপস্থিত ছিলেন, কয়রা উপজেলা চেয়ারম্যান আলহাজ্ব এস এম শফিকুল ইসলাম, উপজেলা নির্বাহী অফিসার অনিমেষ বিশ্বাস, ভাইস চেয়ারম্যান এ্যাড. কমলেশ কুমার সানা, স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান সরদার নূরুল ইসলাম কোম্পানী, জেলা যুবলীগ নেতা শামীম সরকার, উত্তর বেদকাশী আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক গনেশ চন্দ্র মন্ডল, যুবলীগ নেতা এ্যাডঃ আরাফাত হোসেন, উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি শরিফুল ইসলাম টিংকু, সাধারন সম্পাদক আমিনুল হক বাদল, জাকারিয়া হোসেন, আওছাফুর রহমান সহ দলীয় নেতাকর্মী ও স্থানীয় গন্যমাণ্য ব্যক্তিবর্গ।

শেয়ার করুন
পূর্ববর্তী পোষ্ট
পরবর্তী পোষ্ট