ঝালকাঠির রাজাপুরে মাদরাসার ছাত্রিকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ধর্ষন

এইচ এম জহিরুল ইসলাম মারুফ,স্টাফ রিপোর্টারঃ ঝালকাঠির রাজাপুরের বাদুরতলা গ্রামে নবম শ্রেণীর এক মাদ্রাসার ছাত্রীকে বিয়ের প্রলোভনে ধর্ষণের অভিযোগে মামলা করে আসামীর আত্মীয়স্বজনদের হুমকিতে বিপাকে পড়েছে ওই ছাত্রীর পরিবার। মামলা দায়েরের ৬ দিন অতিবাহিত হলেও পুলিশ আসামীকে গ্রেফতার করতে না পারায় আসামীর স্বজনরা এ মামলা তুলে নেয়াসহ নানাভবে হুমকি দিয়ে আসছে।

মামলা সূত্রে জানা গেছে, ওই ছাত্রীকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে উপজেলার পশ্চিম বাদুরতলা গ্রামের হাসান মোল্লার ছেলে নাছির মোল্লা ধর্ষণ করে। এ ঘটনায় ওই ছাত্রী বাদি হয়ে ১৪ এপ্রিল নাছির মোল্লার বিরুদ্ধে রাজাপুর থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা (নং ১০/৭৩) দায়ের করেন।

মঙ্গলবার (২০ এপ্রিল) সকালে ছাত্রীর অটোচালক ভাই অভিযোগ করে জানান, মামলা দায়েরের ৬ দিন অতিবাহিত হলেও পুলিশ আসমীকে গ্রেফতার করতে পারেনি। কিন্তু আসামীর স্বজনরা নানা ভাবে তাদের পরিবারের লোকজনকে মামলা তুলে নিতে হুমকি দেয়ায় সবাই আতংকিত হয়ে পড়েছেন।

এদিকে ধর্ষণের ঘটনা এলাকায় জানাজানি হলে লোকলজ্জায় ওই ছাত্রী মানষিকভাবে অসহায় হয়ে পড়েছে এবং আত্মহত্যার চেষ্টা করছে বলেও দাবি ওই ছাত্রীর ভাইয়ের। বাদির অটোচালক ভাই ও দিনমজুর বাবাকে আসামীর আত্মীয়রা প্রাণনাশেরও হুমকি দিচ্ছে। ধর্ষক ও তার আত্মীয়স্বজন এলাকার বেপরোয়া মাস্তান টাইপের ও উচ্ছৃঙ্খল বলেও অভিযোগ করেন ওই ছাত্রীর ভাই। এ বিষয়ে রাজাপুর থানার ওসি মোঃ শহিদুল ইসলাম জানান, মামলা দায়েরের পর থেকে আসামী পলাতক থাকায় তাকে গ্রেফতার করা সম্ভব হয়নি। তবে গ্রেফতারের চেষ্টা অব্যাহত আছে। ওই ছাত্রীর পরিবারকে হুমকির অভিযোগ পেলে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

শেয়ার করুন
পূর্ববর্তী পোষ্ট
পরবর্তী পোষ্ট