সিরাজগঞ্জ রতনকান্দিতে খাদ্য বন্ধব কর্মসূচীর চাল কম দেবার প্রতিবাদ করায় ইউপি মহিলা সদস্যকে পেটালেন ডিলার



সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধিঃ সিরাজগঞ্জে খাদ্য বন্ধব কর্মসূচীর চাল বিতরণে অনিয়মের প্রতিবাদ করায় ইউপি মহিলা কাউন্সিলারকে পেটালেন ডিলার। এ ঘটনায় ইউপি মহিলা কাউন্সিলার সেলিনা খাতুন সদর থানা ও র‌্যাব ১২ কার্যালয়ে এবং উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবর একটি অভিযোগ দায়ের করেন। সোমবার সকাল ১২ টায় ০১নং রতনকান্দি ইউনিয়নের একডালা গ্রামে স্বল্প মূল্য খাদ্য শস্য ১০ টাকা কেজির ৩০ কেজি চাল বিতরনের সময় সরকারী নিয়োগকৃত ডিলার সোহেল রানা পরি ও তার চাচা জয়নাল আবেদীন এ ঘটনাটি ঘটিয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন ১নং রতনকান্দি ইউনিয়নের ১, ২ ও ৩ নং ওয়ার্ডের সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর সেলিনা খাতুন। অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, ইউপি কাউন্সিলর সেলিনা খাতুনের কাছে তার নিজ এলাকার ১০ টাকা কেজি চালের কার্ড ধারীরা অভিযোগ করেন যে, প্রতি কার্ডে ৩০ কেজি চাল বিতরণের স্থলে ২৫ থেকে ২৬ কেজি চাল বিতরণ করা হয়েছে। সুবিধাভোগীদের অভিযোগের ভিত্তিতে সেলিনা খাতুন ডিলারকে অবগত করতে যান। এ সময় ডিলারের চাচা চয়নাল আবেদীন সেলিনা খাতুনকে অশালিন ভাষায় গালি দেয়। এক পর্যায়ে ডিলার সোহেল রানা পরী, জয়নাল আবেদীন ও লিমন ইউপি কাউন্সিলর কে লাথি, কিল, ঘুষি মেরে জখম করে। সেলিনা খাতুন ওই ঘটনার ন্যায় বিচারের আশায় উপজেলা চেয়ারম্যান মোঃ রিয়াজ উদ্দিনকে অবগত করলে কোন সাড়া না পেয়ে সদর থানা ও র‌্যাব-১২ কার্যালয়ে অভিযোগ দায়ের করেছেন। বিষয়টি সরজমিনে তদন্তপূর্বক ব্যবস্থা গ্রহনের দাবী জানিয়েছেন ইউপি কাউন্সিলর সেলিনা খাতুন। এ বিষয়ে সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ আনোয়ার পারভজ বলেন, বিষয়টি অবগত হয়েছি। তদন্ত পূর্বক দ্রæত ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এ বিষয়ে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কিছু কার্ডধারী ভুক্তভোগী  তারা বলেন, সোহেল রানা পরি যত দিন ধরে ১০ টাকা কেজি চাল বিতরণ শুরু করেছে, সে কোন দিনও আমাদের ৩০ কেজি চাল দেয়নি। আমরা চাল কিনে খাচ্ছি তাহলে আমরা কেন ২৫/২৬ কেজি চাল খাবো? যে ডিলার একজন মহিলা কাউন্সিলরের সাথে এ ধরনের ব্যবহার করতে পারে, তার কাছ থেকে সাধারণ কার্ডধারী ভুক্তভোগীরা কি রকম আচরণ আশা করা করতে পারে, সাধারণ মানুষের মনে প্রশ্ন? এ ঘটনায় এলাকায় উত্তেজনায় বিরাজ করছে।

শেয়ার করুন
পূর্ববর্তী পোষ্ট
পরবর্তী পোষ্ট