থাকতে চাই স্বাধীন পরাধীনের মাঝামাঝি স্থানে


 ইত্তেহাদ: আকাশের বুকে এক অর্ধচাঁদ আত্মপ্রশান্তির জন্য রোজরোজ দুয়েক ফোটা আলো দিয়ে যায়
বিষাধের রন্ধ্র ভরে তারকার সাথে আড্ডার আসর জমায়
কিঞ্চিৎ সুখের আশায় কোকিল ওড়ে বসন্তের খোলা আকাশের কোণে নিজের সহায় সম্বল জোগাড় করাতে ব্যস্ত হরিণ দৌঁড়ে বনে বনে।সবই জীবনের সুখপ্রাপ্তির  অদম্য প্রয়াস।

 দুর্দিন ভুলতে সুরাইয়ারা গানের আসর বসালো,পরীর নয়নজুড়ানো নৃত্য 
সুখের সময় তরান্বিত করতে ঘুমোট বাধা আকাশ হয়ে যায় মিলনতীর্থ
বিন্দু থেকে সিন্ধু হয়ে যায়,সিন্ধু আবার বনে বিন্দুতে
তনয় তনয়ার জুটি,সুখ শান্তির খুটি, আবার বনে শূন্যতে।

সবই বারংবার আসে ফিরে, সবাই খোঁজে প্রত্যাবর্তন।

অশান্তির কারণে শান্তির সৃষ্টি, আবার শান্তির কারণেই অশান্তির
সন্ধি হয় তাতে আবার থাকে দুরভিসন্ধি, দুরভিসন্ধির ভেতর অস্তিত্ব থাকেনা সন্ধির
প্রগাঢ় ভালোবাসায় নেমে রক্তিম সন্ধ্যা,কিন্তু বিদ্বেষে নামেনা সন্ধ্যা কভু
ক্ষমতার অস্তিত্ব আছে বলে অপপ্রয়োগের সৃষ্টি,দুর্ভেদ্য হৃদয়,আর্তনাদে ভাঙেনা তবু।

সবকিছুই আস্তে আস্তে বিপরীত পথে চালিত হবে,তাই মানুষ খুঁজবে প্রশান্তির কারাবাস। স্বাধীনতার নামে পরাধীনতার বেড়ী গলায় ঝুলিয়ে অন্ধকার কারাগার আমার কাছে বেশ।যেখানে আমি স্বাধীন পরাধীন কিছু বুঝবোনা। ইচ্ছে চলার,স্বাদও জাগবেনা। স্বাধীন তো ছিলামই না তাই পরাধীন শব্দটা আমার জন্য সৃষ্টি হয়নি।আমি থাকতে চাই স্বাধীন পরাধীনের মাঝামাঝি স্থানে।

শেয়ার করুন
পূর্ববর্তী পোষ্ট
পরবর্তী পোষ্ট