দারুল আরকাম মাদ্রাসার প্রকল্পটি অনুমোদনের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে আন্তরিক অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা

প্রেস বিজ্ঞপ্তিঃ ধর্ম মন্ত্রণালয়ধীন ইসলামিক ফাউন্ডেশন পরিচালিত দারুল আরকাম মাদ্রাসা আগামী পাঁচ বছরের জন্য প্রকল্প অনুমোদন করায় মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে আন্তরিক অভিনন্দন। 

দীর্ঘ ১৭ মাস দারুল আরকাম মাদ্রাসার দুই হাজার ২০জন শিক্ষকের বেতন ভাতা বন্ধ থাকায় দুই হাজার২০জন আলেম শিক্ষক ও শিক্ষিকা মানবেতর জীবন যাপন করছিলেন। অনেক ষড়যন্ত্রের মধ্যে এই শিক্ষক আলেমরা কখনো এই প্রকল্পের প্রতিষ্ঠাতা মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর উপর বিশ্বাস হারান নাই।

 আল্লাহর দরবারে তাদের ফরিয়াদ কবুল হয়েছে। আগামী প্রকল্পে তাদের বেতন মাসিক ১২৫০০(বার হাজার পাঁচশত) টাকা  নির্ধারণ করা হয়েছে বলে বিশ্বস্ত সূত্রে জানতে পেরেছি। 

এখন তাৎক্ষণিক  প্রতিজন শিক্ষকের  এর জন্য ২৫০০০/=পঁচিশ হাজার টাকা বরাদ্দ প্রদান করা হয়েছে।

আমাদের বিশ্বাস তাদের সকল বকেয়া পরিশোধ করে দারুল আরকাম মাদ্রাসা গুলির শিক্ষা বেগবান করা হবে। বর্তমান ধর্ম প্রতিমন্ত্রী জনাব মোঃ ফরিদুল হক খান প্রধানমন্ত্রীর মুখ্যসচিব, ধর্ম সচিব কে জানাই আন্তরিক অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা। 

বিশেষ করে মাননীয় সংসদ সদস্য জনাব নজিবুল বাশার মাইজভান্ডারী সাহেবের  একান্ত প্রচেষ্টা  স্মরণীয় হয়ে থাকবে। 

ইসলামিক ফাউন্ডেশনের সাবেক মহাপরিচালক মরহুম শামীম মোহাম্মদ আফজাল কে আজকে স্মরণ করতে হয়। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ইচ্ছায় ও জনাব শামীম আফজালের প্রচেষ্টায় অতি অল্প সময়ে  সমগ্র দেশে ১০১০টি  দারুল আরকাম মাদ্রাসা প্রতিষ্ঠা লাভ করেছিল।এই প্রকল্পের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট ইসলামিক ফাউন্ডেশন এর কর্মকর্তাবৃন্দ, ধর্ম মন্ত্রণালয় কর্মকর্তাবৃন্দ সহ সকলকে আন্তরিক অভিনন্দন।

 এছাড়া বাংলাদেশ ইসলামিক ঐক্য জোটের চেয়ারম্যান জনাব মিছবাহুর  রহমান চৌধুরী আওয়ামী লীগের সিনিয়র নেতৃবৃন্দ, কয়েকজন মাননীয় সংসদ সদস্য বৃন্দ যারা এই দারুল আরকাম মাদ্রাসা ও মজলুম আলেমদের  প্রতি সহানুভূতি দেখিয়েছেন তাদের শুকরিয়া আদায় করছি। দারুল আরকাম এর প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে আমরা চেষ্টা করেছি প্রকল্পটি স্বার্থক হউক এবং টিকে থাকুক, আমাদেরএই ক্ষুদ্র প্রচেষ্টা যেন আল্লাহ কবুল করেন। আমিন

শেয়ার করুন

প্রকাশকঃ

অফিসঃ হাজী সিরাজুল ইসলাম সুপার মার্কেট, মোহাম্মদপুর মোড়, ছুটিপুর রোড, ঝিকরগাছা, যশোর।

পূর্ববর্তী প্রকাশনা
পরবর্তী প্রকাশনা