যবিপ্রবির সাবেক ভিসি ড. অধ্যাপক আনোয়ারকে অবাঞ্চিত ঘোষণা

যবিপ্রবির সাবেক ভিসি ড. অধ্যাপক আনোয়ারকে অবাঞ্চিত ঘোষণা
স্টাফ রিপোর্টার : জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছবি বিকৃতকারী যবিপ্রবির সাবেক ভিসি প্রফেসর ড. আনোয়ার হোসেনের বিরুদ্ধে হাইকোর্টের ঘোষিত রায় দ্রুত বাস্তবায়নের দাবিতে যশোরে মানববন্ধন করেছে মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চ। এসময় যশোর ড. আনোয়ার হোসেনকে অবাঞ্চিত ঘোষণা করা হয়।
বৃহস্পতিবার বেলা ১১টার দিকে প্রেসক্লাব যশোরের সামনে এই মানববন্ধন করেন সংগঠনটির নেতাকর্মীরা। পরে জেলা প্রশাসনের মাধ্যমে একই দাবিতে প্রধানমন্ত্রীর কাছে স্মারকলিপি দেয়া হয়।

স্মারকলিপিতে বলা হয়, যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ডেস্ক ক্যালেন্ডারে বারংবার জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছবি বিকৃত করা হয়েছে। যে ঘটনায় যশোরবাসীর মতো আমরা ক্ষুব্ধ-মর্মাহত হই। যার পরিপ্রক্ষিতে যশোর জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক, বর্তমানে সদর উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেন বিপুল মহামান্য হাইকোর্টে একটি রীট পিটিশন (যার নং ৬৫১০/২০১৯) দায়ের করেন। যে মামলার রায়ে হাইকোর্ট ২০২০ সালের ১৫ জানুয়ারি যবিপবি ভিসি প্রফেসর ড. আনোয়ার হোসেনকে দোষি সাবস্ত করেন। ঘোষিত রায়ে বলা হয়- 'জাতির পিতা ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর ছবি বিকৃতি -রাষ্ট্রদ্রোহীতার শামিল, উপাচার্য এ দায় এড়াতে পারেন না। মন্ত্রী পরিষদ সচিবকে রায় প্রাপ্তির একমাসের মধ্যে ব্যবস্থা গ্রহণ করে অবহিত করতে বলা হলো।

কিন্তু করোনা মহামারীর কারণে হাইকোর্টের এই রায় এখনো কার্যকর করা যায়নি। আমরা চাই দ্রæত হাইকোর্টের এই রায় বাস্তবায়নের মাধ্যমে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছবি বিকৃতকারীদের বিরুদ্ধে দ্রæত আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হোক। স্মারকলিপির সাথে হাইকোর্টের রায়ের পর দৈনিক ইত্তেফাক, দৈনিক বাংলাদেশ প্রতিদিন, দৈনিক সমকাল, বাংলা ট্রিবিউন ও দৈনিক কালেরকণ্ঠ পত্রিকায় প্রকাশিত প্রতিবেদন সংযুক্ত করা হয়।
ছবি বিকৃতির সাথে জড়িতদের সরকারি কোন দায়িত্বশীল পদের জন্য অযোগ্য ঘোষণার জন্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হস্তক্ষেপ কামনা করা হয় স্মারকলিপিতে।

স্মারকলিপি দেয়ার আগে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছবি বিকৃতকারী যবিপ্রবির সাবেক ভিসি প্রফেসার ড. আনোয়ার হোসেনের কুশপুত্তলিকা দাহ করার কর্মসূচি থাকলেও পুলিশের হস্তক্ষেপে তা সম্ভব হয়নি।
মানববন্ধন চলাকালে বক্তব্য দেন যশোর জেলা মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের সভাপতি মাহবুব আলম বিদ্যুৎ, সাধারণ সম্পাদক আহসানুল করিম রহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক ওবায়দুল ইসলাম রাকিব, যশোর শহর মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের সভাপতি তছিকুর রহমান রাসেল, সাধারণ সম্পাদক আব্দুল কাদের প্রমুখ

শেয়ার করুন

প্রকাশকঃ

অফিসঃ হাজী সিরাজুল ইসলাম সুপার মার্কেট, মোহাম্মদপুর মোড়, ছুটিপুর রোড, ঝিকরগাছা, যশোর।

পূর্ববর্তী প্রকাশনা
পরবর্তী প্রকাশনা