লোহাগড়া নির্বাচন অফিসে কার্ড বাবদ টাকা চাওয়ার অভিযোগ


মো:আজিজুর বিশ্বাস স্টাফ রিপোর্টার নড়াইলঃনড়াইলের লোহাগড়া উপজেলা নির্বাচন অফিস সহায়ক মো: সিরাজ এর নামে ভোটার কার্ড  করে দেওয়ার কথা বলে দুই হাজার টাকা চেয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। 

ভুক্তভোগী রুপা বলেন অামি অামার ভাই কে নিয়ে ৮/১১/২০২০ তারিখ : রবিবার সকাল ১০ টার দিকে লোহাগাড়া নির্বাচন অফিসে যাই, ভাইয়ের জন্য নতুন ভোটার আইডেন্টি কার্ড করব বলে, সেখানে গিয়ে অফিসের লোকদের সাথে কথা  তারা অামাদের অনলাইনে আবেদন করতে বলেন, তখন আমি তাদের কাছে জিজ্ঞাসা করি এ কার্ড পেতে কতদিন সময় লাগবে, তখন অফিসের সিরাজ নামে একজন ব্যক্তি, বলে অনেক দিন সময় লাগবে, ও তখন সে আমাকে ইশারা দিয়ে নিচে যাইতে বলে, আমি দুই তলা থেকে নিচে নেমে অাসলে সে আমাকে অফিসের বারান্দার পাশে ডাকে, ও বলে তোমার কাছে থাকা মোবাইল,  পালস ব্যাগ তোমার ভাইয়ের কাছে দিয়ে এদিকে আসো, আমি সিরাজের কথামতো সেখানে গেলে সে আমাকে বলে ২ হাজার টাকা দিলে ১০ দিনে কার্ড করে দিবে। 

এ সময় অফিস সহায়ক সিরাজাের সাথে দরকষাকষি হয়, পরে সে অামাদের ফিরিয়ে দেয়।এরপর দিন ৯/১১/২০২০ তারিখ : সোমবার সকালে মো: মুন্না মোল্ল্যা (২২)  ও তার মা নির্বাচন অফিসে গিয়ে কথা বলতে চাই সিরাজের সাথে তখন সিরাজ সাহেব তাদের সাথে কথা না বলে এড়িয়ে যাই। এর পরে মুন্না মোল্লা সাংবাদিকদের কাছে বলেন আমরা টাকা দিতে পারি নাই, বলে অামার ভোটার আইডেন্টি কার্ড করাতে পারিনাই। আমরা গরিব মানুষ টাকা নাই বলে কি দেশের নাগরিত্ব কার্ড করতে পারবো না।

মো: সিরাজের সাথে এ বিষয়ে কথা বললে তিনি অস্বীকার করেন। ও বলেন অামি কোনো টাকা চাই নি, তাদেরকে অনলাইনে আবেদন করতে বলেছি। 

এই টাকা চাওয়ার বিষয়ে কথা হয় মো: জসিম উদ্দিন, উপজেলা নির্বাচন অফিসার লোহাগড়া নড়াইল এর সাথে তিনি বলেন সরকারি নিয়ম ছাড়া, ও অনলাইন আবেদন ছাড়া কেউ কোন সুযোগ নিতে পারবে না, নিয়ম যা আছে সবাই এইভাবে কার্ড পাবে। তিনি আরো বলেন টাকার বিষয়টা আমি শুনি নাই, অফিসের কারো টাকা নেয়ার কোনো নিয়ম নেই। 


শেয়ার করুন
পূর্ববর্তী পোষ্ট
পরবর্তী পোষ্ট