সিভিল সার্জনের উপস্থিত খবর পেয়ে ক্লিনিক মালিক পলাতক-৩

আব্দুল জব্বার, স্টাফ রিপোর্টার।। যশোরের ঝিকরগাছা উপজেলার বাঁকড়া বাজারে সিভিল সার্জনের পরিদর্শনের খবর পেয়ে ক্লিনিক তালাবদ্ধ করে পালিয়ে যায় তিন ক্লিনিক মালিক। এসময় ৫ টি ক্লিনিকে তালা ঝুলিয়ে দেন সিভিল সার্জন শেখ আবু শাহিন।গতকাল (২৮ শে নভেম্বর )শনিবার সকাল ১০. টার সময় যশোরের সিভিল সার্জন ডাঃ শেখ আবু শাহিন, ঝিকরগাছার বাঁকড়া বাজারে  পরিদর্শন করেন। পরিদর্শনের খবর পেয়ে  বাঁকড়া পারবাজারের কপোতাক্ষ সার্জিক্যাল ক্লিনিকের মালিক আব্দুর রশিদ, পারপাজার সার্জিক্যাল ক্লিনিকের মালিক লিলি খাতুন ও স্টার ক্লিনিকের মালিক আবুল হাসেম, ক্লিনিক বন্ধ করে পালিয়ে যায়। সিভিল সার্জন এসে তাদের প্রতিষ্ঠান বন্ধ দেখতে পান।

কয়েক মাস আগে সিভিল সার্জন ডাঃ শেখ আবু শাহিন বাঁকড়ায় পরিদর্শন করে ক্লিনিক চালানোর বৈধতা না থাকায় তাদের ক্লিনিক বন্ধ রাখার নির্দেশ দেন। কিন্তু তারা সিভিল সার্জনের নির্দেশ অমান্য করে, ক্লিনিকের জমজমাট ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছিলেন। 

শনিবারে সিভিল সার্জন তাদের ক্লিনিকে গিয়ে প্রতিষ্ঠান খোলা পাননি। সিভিল সার্জন আসার আগেই তারা ক্লিনিক বন্ধ করে পালিয়ে যান।

এদিকে সিভিল সার্জন ডাঃ শেখ আবু শাহিন বাঁকড়ায় পরিদর্শনে গিয়ে বাঁকড়া সার্জিক্যাল ক্লিনিক, স্টার ক্লিনিক, পারবাজার কপোতাক্ষ সার্জিক্যাল ক্লিনিক, পারবাজার সার্জিক্যাল ক্লিনিক, একতা মেডিকেল সেন্টারে তালা ঝুলিয়ে দেন এবং সায়রা সার্জিক্যাল ক্লিনিক ও বিকে ডায়াগনস্টিক সেন্টারকে পুরোপুরি আইন মানার হুঁশিয়ারি করেন। 

তালাবদ্ধ মালিকদের ক্লিনিক চালানোর বৈধতা অর্জন করলে তাদের ক্লিনিক খুলে দেবেন বলে জানান। এ সময় সিভিল সার্জন ডাঃ শেখ আবু শাহিনের সাথে ছিলেন, উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা অফিসার ডা. হাবিবুর রহমান।এ সময় সিভিল সার্জন ডাঃ শেখ আবু শাহিন সাংবাদিকদের জানান, ক্লিনিক বিষয়ে কোনো অনিয়ম মেনে নেয়া হবে না। কাগজপত্র ও নিয়ম মানলে বৈধতা দেয়া হবে।


শেয়ার করুন
পূর্ববর্তী পোষ্ট
পরবর্তী পোষ্ট