নারায়ণগঞ্জে মসজিদে এসি বিস্ফোরণ, বহু হতাহত

 নারায়ণগঞ্জে মসজিদে এসি বিস্ফোরণ, বহু হতাহত




সিপন,নারায়ণগঞ্জ:নারায়ণগঞ্জ শহরের খানপুর তল্লা এলাকায় একটি মসজিদে এয়ার কন্ডিশনার (এসি) বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে। এতে অন্তত পনের থেকে বিশ জন মুসল্লি গুরুতর অগ্নিদগ্ধ হয়েছেন। তাদের মধ্যে অনেকের অবস্থা আশঙ্কাজনক।


শুক্রবার রাতে এশার নামাজ চলাকালীন সময়ে শহরের তল্লা বাইতুস সালাম মসজিদে এ বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে।ঘটনাস্থলে ফায়ার সার্ভিসের ইউনিট ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনী কাজ করছে। আহতদেরকে শহরের ভিক্টোরিয়া হাসপাতাল ও গুরুতর আহতদের ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে

ভোলার বাটামারাতে ছাগলে আলু পাতা খাওয়াকে কেন্দ্র করে বৃদ্ধাকে বেদড়ক মারপিট

 ভোলার বাটামারাতে ছাগলে আলু পাতা খাওয়াকে কেন্দ্র করে বৃদ্ধাকে বেদড়ক মারপিট



জেলা প্রতিনিধি দৌলতখান (ভোলা) যে কোন ক্ষুদ্র বিষয় নিয়ে দেশে মারামারী,আর হানাহানি যেন নিত্য নৈমিত্তিক বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে।মারামারি থেকে রক্ষা পায় না আবাল,বৃদ্ধা,বনিতা বা ললনারাও।তবে সবচেয়ে খারাপ লাগে তখনই, যখন দেখি কিছু বেয়াদপ আর লম্পট কোয়ালিটির কিছু ছেলেপেলে বাবার বয়সিদের গায়ে হাত তুলে।এই বেয়াদপরা শুধু হাত তুলেই ক্ষান্ত হয় না,ঘটায় লোমহর্ষক ঘটনা।এমনটাই ঘটেছে আজ সকাল অানুমানিক ৭টার দিকে ভোলা বোরহানউদ্দিনের উত্তর বাটামারা ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ডে।আজ শুক্রবার সকাল আনুমানিক ৭টার দিকে উত্তর বাটামারা ৫নং ওয়ার্ডের তালুকদার বাড়ীর বাসিন্দা ফরমুজুল হোসেন(৫৫) সকালে বাসায় অবস্থান করছেন।উল্লেখ করা প্রয়োজন ফরমুজুল হোসেন এক্সিডেন্ট করে একটা পা হারিয়েছেন।যার কারনে সে ছোট একটা পানের দোকান করে সংসার চালায়।এদিকে তার একই বাড়ীর বাসিন্দা নিরব(৩৫), ফরমুজুল হোসেনের ছাগলের বাচ্ছা নিরবের নাকি আলু পাতা খেয়ে পেলেছে।আলু পাতা খাওয়াকে কেন্দ্র করে ফরমুজুলের সাথে তর্কাতর্কি করেন। এক পর্যায়ে নিরব অসুস্থ ফরমুজুল হোসেনকে নিরবের বাবা বশু বেপারী,তার ভাই সোহেল,জুয়েল ও তাদের বৌ সহ ফরমুজুল হোসেন সহ তার এসএসসি পড়ুয়া ছেলে রাজিব(১৭) এবং তার বাড়িতে বেড়াইতে আসা মেয়ে রত্না(২০) এর উপর দেশীয় লাঠিসোটা দিয়ে বেদরক মারপিট করে।মধ্যযুগীয় কায়দায় এই হায়েনার হাত থেকে রেহাই পায় রত্নার দুই বছর বয়সের ছেলেও।এতে ফরমুজুল ও তাঁর ছেলে রাজিব ও মেয়ে রত্না এবং রত্মার দুই বছরের ছেলেকে অশংকা জনক অবস্থায়  হাসপাতালে ভর্তি করান। তারা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছে।আহত পরিবারের সাথে কথা বলে জানা যায় এখন পর্যন্ত থানায় কোন অভিযোগ হয় নি।রুগী আগে সুস্থ হোক তার পর আমরা আইনের আশ্রয় নিবো।

সরজ জমিনে যেয়ে জানা যায়, নিরব এবং তার পরিবার ঐ এলাকার সকলের সাথে এহেন নোংরা কাজ করে থাকে।তাদের প্রায় প্রতি মাসেই বিচার সালিশি হয়ে থাকে।বিচার সালিশ যেন তাদের নিত্য নৈমিত্তিক বিষয়।কোন ধরনের বিচার সালিশি তারা কিছুই মনে করে না।

উপকূলীয় অঞ্চলে সবুজ বনায়ন গড়ে তুলতে মানব কল্যান ইউনিটের ৪৯ হাজার গাছ রোপন

উপকূলীয় অঞ্চলে সবুজ বনায়ন গড়ে তুলতে  মানব কল্যান ইউনিটের ৪৯ হাজার গাছ রোপন

 



 মোহাঃ ফরহাদ হোসেন কয়রা(খুলনা)প্রতিনিধিঃ কয়রা-পাইকগছার সংসদ সদস্য আলহাজ্ব মোঃ আক্তারুজ্জামান বাবু বলেছেন, পরিবেশ রক্ষায় গাছ লাগানোর কোনো বিকল্প নেই। বাড়ির উঠান, ছাদ, সড়ক, অফিস-আদালতের যেখানে পরিত্যক্ত জায়গা রয়েছে, সেখানেই গাছ লাগাতে হবে। বনজ, ফলজ ও ভেষজ সব ধরনের গাছ লাগালে পরিবেশ রক্ষা সম্ভব হবে। প্রাকৃতিক দুর্যোগ থেকে রক্ষা পেতে উপকূলেই সবুজ বেষ্টনী গড়ে তোলার পরিকল্পনার কথা তুলে ধরে এমপি আক্তারুজ্জামান  বাবু বলেন, উপকূলীয় অঞ্চলে সবুজ বনায়ন ঝড়, জলোচ্ছাস থেকে মানুষকে বাঁচায়, দেশকে বাঁচায়। তাই দেশকে বাঁচাতে হলে বৃক্ষরোপণ করতে হবে। তিনি  গতকাল ৪ সেপ্টেম্বর  সকাল সাড়ে ১০ টায় কয়রার এ্যাওয়ার্ড পাওয়া স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন মানব কল্যাণ ইউনিটের আয়োজনে গিভ বাংলাদেশ, বন্ধু ফাউন্ডেশন, আমরাই বাংলাদেশের সহযোগীতায় সবুজ কয়রা গড়ার লক্ষে কয়রা মদিনাবাদ সরকারী মডেল মাধ্যমিক বিদ্যালয় মাঠে স্বাধীনতার ৪৯ বছর পূর্তী উপলক্ষে ৪৯ মিনিটে ৪৯ হাজার গাছের চারা রোপনের উদ্বোধনী  অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য তিনি এ কথা বলেন। এ সময় তিনি উপকূলীয় এলাকাসহ প্রতিকূল পরিবেশে যারা বৃক্ষরোপণ করছেন তাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। এক সাথে একই সময় কয়রার ৭ টি ইউনিয়নে এ সকল চারা রোপন করা হয়। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এ সময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার অনিমেষ বিশ্বাস, উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি জিএম মোহসিন রেজা, কয়রা সদর ইউপি চেয়রম্যান মোহাঃ হুমায়ুন কবির,উপজেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক এস এম বাহারুল ইসলাম,  জেলা যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক জসিম উদ্দিন বাবু, জেলা যুবলীগ নেতা শামীম সরকার, মানব কল্যাণ ইউনিটের সভাপতি আল আমিন ফরহাদ, সাধারন সম্পাদক জাহানে আলম উজ্জল, পাইকগাছা যুবলীগ নেতা আব্দুল্লাল আল মামুুুন, কয়রা উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি শরিফুল ইসলাম টিংকু, ছাত্রলীগ নেতা শিমুুুল প্রমুখ।

আশাশুনি সদর ইউনিয়নের বানভাসি মানুষের মাঝে ত্রাণ বিতরণ

 আশাশুনি সদর ইউনিয়নের বানভাসি মানুষের মাঝে ত্রাণ বিতরণ

আহসান উল্লাহ বাবলু উপজেলা প্রতিনিধিঃ  আশাশুনির সদর ইউনিয়নের বানভাসি মানুষের মাঝে ত্রাণ বিতরণ করা হয়েছে। শুক্রবার দুপুরে সদর ইউনিয়নের বানভাসি মানুষের মাঝে ত্রাণ বিতরণ করেন ইউপি চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক স,ম সেলিম রেজা মিলন। আশাশুনি সদর ইউনিয়নের ৮ ও ৯ নং ওয়ার্ডের বিল কমলাপুর, দাসেরহাটি, ডাঙ্গা কমলাপুর, বিল নাটানা গ্রামে প্লাবিত বানভাসি পরিবারকে চাল, ডাল, চিনি, গুড়া দুধ, চিড়া-মুড়ি ও গুড়সহ শুকনা খাবারের একটি প্যাকেজ ১০০ টি পরিবারের  মাঝে  বিতরণ করা হয়। এ সময় উপস্থিত ছিলেন ইউপি সদস্য সিরাজুল ইসলাম,সন্তোষ কুমার মন্ডল, ইন্দ্রানী মণ্ডল প্রমুখ

নন্দীগ্রাম পৌর নির্বাচনে মেয়র পদপ্রার্থী হবেন একে এম ফজলুল হক কাসেম

নন্দীগ্রাম পৌর নির্বাচনে মেয়র পদপ্রার্থী হবেন একে এম ফজলুল হক কাসেম

 




নন্দীগ্রাম (বগুড়া) প্রতিনিধি:


বগুড়ার নন্দীগ্রাম পৌরসভার নির্বাচনে মেয়র পদপ্রার্থী হিসাবে সকলের নিকট দোয়া ও ভালোবাসা চেয়েছেন নন্দীগ্রাম উপজেলা শিল্প ও বণিক সমিতির সহ সভাপতি উপজেলা কমিউনিটি পুলিশিং ফোরামের সাধারণ সম্পাদক উপজেলা দুর্নীতি প্রতিরোধ পুনর্গঠন কমিটির সহ সভাপতি বিশিষ্ট সমাজ সেবক একেএম ফজলুল হক কাসেম  । গত ৩১ ই আগস্ট সোমবার একে এম ফজলুল হক কাসেম'র ব্যক্তিগত ফেসবুক স্ট্যাটাসে যা লিখেছেন তা হুবহু তুলে ধরা হলো-প্রিয় নন্দীগ্রাম পৌরবাসী, সালাম ও শুভেচ্ছা নিবেন। আমি এ,কে,এম ফজলুল হক কাশেম। আমি আপনাদেরই সন্তান ও ভাই সমতুল্য। সুদীর্ঘ পথ চলায় আপনাদের ভালোবাসা ও সহযোগিতায় পেশাগত দিক থেকে আপনাদের কাছাকাছি মিশবার সুযোগ হয়েছে। মহান আল্লাহ্ তায়ালার অসীম রহমতে ব্যবসা বাণিজ্যের মাধ্যমে সুনাম ও সুখ্যাতি অর্জন করেছি। বিভিন্ন উন্নয়নমূলক সামাজিক কর্মকান্ডে যুক্ত হবার সুযোগ হয়েছে। বর্তমানেও তা অব্যাহত রেখেছি।আসন্ন নন্দীগ্রাম পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদপ্রার্থী হয়েআপনাদের সকলের নিকট দোয়া ও ভালোবাসা চাই। গত ২০১৫ সালের নির্বাচনে আপনাদের পাশে ছিলাম। আপনাদের সহযোগিতায় সন্তোষ জনক ভোট পেয়েছিলাম। আমি বিশ্বাস করি, আপনাদের নিরলস প্রচেষ্টা আমাকে এতো ভোট পেতে সাহয্য করেছিলো। এবছরেও আপনাদের পাশে থেকে আমার নীতি, আদর্শ, সততা, ত্যাগ,শ্রম ও মেধা দিয়ে নন্দীগ্রাম পৌরবাসীর সেবা করার সুযোগ চাই।পৌরসভার ০৯ টি ওয়ার্ডের সকল ভোটার ভাই ও বোনদের কাছে আহবান জানাই আপনারা গত নির্বাচনের ন্যায় এবছরেও আপনাদের সহযোগিতা অব্যাহত রাখবেন। ইনশাআল্লাহ।।।।

সিরাজগঞ্জ ছোনগাছাতে প্রয়াত মোহাম্মদ নাসিমের স্মরণে স্মরণসভা ও দোয়া মাহফিল

 সিরাজগঞ্জ ছোনগাছাতে প্রয়াত মোহাম্মদ নাসিমের স্মরণে স্মরণসভা ও দোয়া মাহফিল




মাসুদ রানা সিরাজগঞ্জ জেলাপ্রতিনিধিঃআওয়ামীলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য, সাবেক মন্ত্রী ও ১৪ দলের মুখপাত্র প্রয়াত মোহাম্মদ নাসিমের স্মরণে স্মরণসভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। শুক্রবার বিকেলে সদর উপজেলার ছোনগাছা ইউনিয়নের ছোনগাছা বাজারে এই স্মরণ সভা অনুষ্ঠিত হয়।

ছোনগাছা ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি সহিদুল আলমের সভাপতিত্বে স্মরণ সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মোহাম্মদ নাসিমের ছেলে সিরাজগঞ্জ-১ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য প্রকৌশলী তানভীর শাকিল জয়।

স্মরণ সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন জেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি আব ইউসুফ সূর্য, সহ-সভাপতি এ্যাড আব্দুর রহমান,  সহ-সভাপতি ইসহাক হোসেন, পৌর মেয়র আব্দুর রউফ মুক্তা, পৌর আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক দানিউল হক, কেন্দ্রীয় মহিলা আওয়ামীলীগের যুগ্ন সম্পাদক জান্নাত আরা হেনরী, জেলা যুবলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক এ্যাড আব্দুল হাকিম, পৌর কাউন্সিলর সেলিম আহম্মেদ, জেলা সেচ্ছাসেবক লীগের সধারণ সম্পাদক জিহাদ আল হাসান সহ জেলা আওয়ামীলীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ, প্রস্তাবিত মনসুর নগর থানা ও ছোনগাছা আওয়ামীলীগের নেতৃবৃন্দ।

স্মরণ সভার শুরুতে প্রয়াত মোহাম্মদ নাসিমের আত্নার মাগফিরাত কামনায় দোয়া ও এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয়।

মোংলায় ধর্ষন করতে গিয়ে রুবেল শেখ নামের এক যুবককে ধরে পুলিশে দিয়েছে স্থানীয় জনতা

মোংলায় ধর্ষন করতে গিয়ে রুবেল শেখ নামের এক যুবককে ধরে পুলিশে দিয়েছে স্থানীয় জনতা





মোংলা প্রতিনিধি


মোংলায় রাতের অন্ধকারে কিশোরীকে ধর্ষন করতে গেলে রুবেল শেখ নামের এক যুবককে আটক করে পুলিশে দিয়েছে  স্থানীয় জনতা। বৃহস্পতিবার দিনগত রাত আড়াইটার দিকে উপজেলার বৈদ্যমারী বাজার সংলগ্ন গ্রামের ঘরে ডুকে কিশোরীকে জোর পুর্বক ধর্ষন করার চেষ্টা করে। এসময় কিশোরীর ডাক চিৎকারে ধর্ষক রুবেল পালিয়ে যাওয়ার সময় জনতা তাকে হাতেনাতে ধরে ঘরে আটকে রাখে। খবর পেয়ে জনতার হাত থেকে রুবেলকে উদ্ধারের পর আটক করে মোংলা থানায় নিয়ে আসে পুলিশ। এ ব্যাপারে মামলার প্রস্তুতি চলছে। 


কিশোরীর বড় ভাই বাচ্চু লাহরী ও প্রত্যাক্ষদশর্ীরা জানায়, বেশ কয়েকদিন থেকে আমাদের বাড়ীর আশপাশ এলাকায় ঘোরাফেরা করতেছিল রুবেল শেখ নামের যুবক। বৃহস্পতিবার দিনগত রাতে প্রতিদিনের ন্যায় রাতের খাবার খেয়ে নিজ ঘরে ঘুমিয়ে ছিল লাল মিয়া লাহরীর কিশোরী কন্যা (১৯)। বাড়ীর সবাই ঘুমিয়ে পড়লে রাতের অন্ধকারে কিশোরীর ঘরের দরজা দিয়ে প্রবেশ করে চিলা ইউনিয়নের ফেলির খন্ড এলাকার তরিকুল শেখথর ছেলে রুবেল শেখ। ঘুমান্ত কিশোরীকে জোর পুবর্ক ধর্ষন করার চেষ্টা করে রুবেল। এসময় কিশোরীর ডাক চিৎকার দিলে পাশের ঘর থেকে এসে বড় ভাই বাচ্চু লাহরী রুবেলকে বোনের রুমে দেখতে পায়। মুহুর্তের মধ্যে  আশাপাশের লোকজন এসে রুবেলকে ঘরের মধ্যেই হাতেনাতে আটকে রেখে তার পরিবারের লোকজনকে খবর দেয়। সকাল সাড়ে ৯টার দিকে রুবেল শেখথর চাচা আলম শেখ, গোলাম শেখ ও কামরুল শেখ ঘটনাস্থলে এসে কিশোরীর পরিবারকে কিছু টাকা দিয়ে রুবেলকে ছড়িয়ে নেয়ার চেষ্টা করে বলে অভিযোগ কিশোরীর পরিবারের। স্থানীয় জনতার চাপের মুখে রুবেলকে ছড়িয়ে নিতে না পেরে ভুক্তভোগী পরিবারকে প্রান নাশের হুমকি দিয়ে চলে যায় রুবেলের তিন চাচা। স্থানীয়রা দুপুরে বিষয়টি নিয়ে মোংলা থানার সরনাপন্ন হলে জনতার হাত থেকে উদ্ধারের পর রুবেলকে মোংলা থানার পুলিশের এস আই অমিত ও এ এস আই আতিকুর রহমান আটক করে থানায় নিয়ে আসে বলে জানায় মোংলা থানার এ দুই পুলিশ অফিসার। 


রুবেল শেখথর স্বজন ইউপি সদস্য সোহরাফ শেখ জানায়, বৈদ্যমারী বাজার সংলগ্ন একটি বাড়ীতে রুবেলকে স্থানীয়রা আটকে রেখে পুলিশের কাছে দিয়েছে। এব্যাপারে ওই কিশোরীর পরিবারের সাথে মিট মিমাংশা করার চেষ্টা করে ব্যার্থ হয়েছি। শুক্রবার সন্ধ্যায় মেয়েটি থানায় মামলা করতে এসেছে, পুলিশের সাথে আলোচনা করে সমাধানের চেষ্টা করা হচ্ছে।


মোংলা থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ ইকবাল বাহার চৌধুরী জানায়, বৈদ্যমারী বাজার সংলগ্ন সুন্দরবন ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ড আগলাদিয়ে গ্রামে একটি ধর্ষনের ঘটনায় রুবেল নামের এক যুবককে আটক করা হয়েছে। এব্যাপারে ধষিতা কিশোরীকে অভিযোগ দেয়ার জন্য বলা হয়েছে। মামলা হওয়ার পরেই রুবেলকে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠানো হবে বলে জানায় পুলিশের এ কর্ম

দামুড়হুদার বিষ্ণুপুরে দোকান মালিক সমিতির প্রীতি ফুটবল খেলা অনুষ্ঠিত

দামুড়হুদার বিষ্ণুপুরে দোকান মালিক সমিতির প্রীতি ফুটবল খেলা অনুষ্ঠিত




মোঃকাউসার আলী

চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি

আজ শুক্রবার (৪ সেপ্টেম্বর)বিকাল সাড়ে ৪ টায় চুয়াডাঙ্গা জেলার দামুড়হুদা উপজেলার বিষ্ণুপুর কালিতলা বাজার  দোকান মালিক সমিতির মধ্যে এক প্রীতি ফুটবল খেলা অনুষ্ঠিত হয়।উক্ত খেলায় কালিতলা বাজারে অবস্থিত ২নং এবং ৩নং ওয়ার্ডের দোকান মালিকগণ অংশগ্রহণ করে।খেলাটি ১-১ গোলে ড্র হয় এবং এ খেলা দেখতে বিষ্ণুপুরসহ আশেপাশের গ্রামের হাজার হাজার দর্শক উপস্থিত হয়।উক্ত খেলায় কালিতলা বাজার দোকান মালিক সমিতির সভাপতি জনাব হাজি মোঃকুতুব উদ্দীন উপস্থিত থেকে পুরস্কার বিতরণ করেন এবং তিনি বলেন সামনে এ ধরণের খেলা অনেক বড় পরিসরে আয়োজন করা হবে।

নারায়নগঞ্জে এশিয়ার সবচেয়ে বড় বিনিয়োগ করবে জাপান

নারায়নগঞ্জে এশিয়ার সবচেয়ে বড় বিনিয়োগ করবে জাপান




ডেস্ক রিপোর্টঃ   রাস্তায় বের হলেই অহরহ জাপানি গাড়ি চোখে পরে। বাংলাদেশের মানুষ জাপানি গাড়ির প্রতি একটু বেশিই আকৃষ্ট। জাপান বুঝতে পেরেছে, বাংলাদেশে তাদের গাড়ির বড় বাজার রয়েছে। তাই বাংলাদেশে গাড়ি তৈরির কারখানা করতে চায় দেশটি।


দেশে যেহেতু ১০০টি স্পেশাল ইকোনমিক জোন গড়ে তোলা হচ্ছে। যদি জাপান এগুলোতে বিনিয়োগ করে তাহলে তারা লাভবান হবে। আর বাংলাদেশে যেহেতু জাপানের গাড়ির বড় বাজার রয়েছে। তাই বাংলাদেশে জাপান গাড়ি তৈরীর কারখানা করতে চায়। এছাড়া নারায়নগঞ্জের আড়াইহাজার স্পেশাল ইকোনমিক জোনে জাপান সবচেয়ে বড় বিনিয়োগ করবে, যে বিনিয়োগ হবে এশিয়ার মধ্যে সর্ববৃহৎ বিনিয়োগ। লাভ ইউ জাপান।

হবিগঞ্জ জেলার আজ আলোচিত তিন ঘটনা!

হবিগঞ্জ জেলার আজ আলোচিত তিন ঘটনা!

লিটন পাঠান, হবিগঞ্জ জেলা প্রতিনিধিঃ হবিগঞ্জের পৌর শহরের নিউ মুসলিম কোয়ার্টার এলাকায় বোতল ভর্তি ইয়াবা ট্যাবলেটসহ মাদক ব্যবসায়ী রুবেল মিয়াকে গণধোলাই দিয়ে পুলিশে সোপর্দ করেছে স্থানীয় জনতা শুক্রবার (৪ সেপ্টেম্বর ) দুপুরে শহরের নিউ মুসলিম কোয়ার্টার এলাকায় এ ঘটনাটি ঘটে।

পুলিশ জানায়- বোতলের ভেতর করে ইয়াবা পাচার করছিল রুবেল মিয়া। বিষয়টি স্থানীয় লোকজন আচঁ করতে পেরে তাকে আটক করে।


পরে তার কাছে ইয়াবা পাওয়ায় তাকে বেঁধে গণধোলাই দিয়ে পুলিশকে খবর দেয়। খবর পেয়ে সদর থানার এসআই মো. আবু নাঈমসহ একদল পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে উত্তেজিত জনতাকে শান্তে করেন এবং রুবেল মিয়াকে আটক করে থানায় নিয়ে আসেন। আটককৃত রুবলে শহরের গোঁসাইপুর আশকর নগর এলাকার এক ব্যক্তির বাসা ভাড়া নিয়ে বসবাস করে আসছে সে বড়কান্দি এলাকার বাসিন্দা বলে জানা গেছে।


হবিগঞ্জের একটি আবাসিক হোটেল থেকে তিন দিন পর ঢাকা থেকে অপহরণ হওয়া এক ব্যক্তিকে উদ্ধার করেছে হবিগঞ্জ জেলা গোয়েন্দা পুলিশ।

এ সময় দুই অপহরণকারীকে আটক করা হয়। শুক্রবার (৪-সেপ্টেম্বর) দুপুরে হবিগঞ্জ পুলিশ সুপার কার্যালয়ের সভাকক্ষে প্রেস ব্রিফিংয়ের মাধ্যমে সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শৈলেন চাকমা।

এর আগে গত বুধবার রাতে অভিযান চালিয়ে শহরের সিনেমা হল রোড এলাকার আবাসিক হোটেল পলাশ থেকে অপহৃতকে উদ্ধার করা হয়।


পুলিশ সুপার বলেন- ঢাকা তেজগাঁও ‘সিভিল এভিয়েশন স্কুল এন্ড কলেজের ক্লিনার আলতাফ হোসেনের মোবাইলের বিকাশ একাউন্টে ১ লাখ টাকা রয়েছে জানতে পেরে তাকে অপহরণের পরিকল্পনা করে পূর্ব পরিচিত শরবত বিক্রেতা মনিরুল ইসলাম। গত ৩১ আগস্ট আলতাফ হোসেনকে অপহরণ করে হবিগঞ্জ নিয়ে আসে মনিরুলসহ দুই অপহরণকারী। পরে তারা আলতাফ হোসেনের পরিবারের কাছে ১ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করে আলতাফ হোসেনকে না পেয়ে তার পরিবার।


তেজগাঁও থানায় সাধারণ ডায়েরি করেন এবং বিষয়টি র‌্যাবকে অবগত করলে র‌্যাব জানতে পারে তারা হবিগঞ্জ রয়েছে। এ খবর হবিগঞ্জ গোয়েন্দা পুলিশের কাছে আসলে পুলিশ অভিযান চালিয়ে তাকে উদ্ধার করে।হবিগঞ্জের একটি আবাসিক হোটেল থেকে তিন দিন পর ঢাকা থেকে অপহরণ হওয়া এক ব্যক্তিকে উদ্ধার করেছে হবিগঞ্জ জেলা গোয়েন্দা পুলিশ। এ সময় দুই অপহরণকারীকে আটক করা হয়। আজ শুক্রবার দুপুরে হবিগঞ্জ পুলিশ সুপার কার্যালয়ের। 


সভাকক্ষে প্রেস ব্রিফিংয়ের মাধ্যমে সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শৈলেন চাকমা। এর আগে গত বুধবার রাতে অভিযান চালিয়ে শহরের সিনেমা হল রোড এলাকার আবাসিক হোটেল পলাশ থেকে অপহৃতকে উদ্ধার করা হয়।

পুলিশ সুপার বলেন- ঢাকা তেজগাঁও ‘সিভিল এভিয়েশন স্কুল এন্ড কলেজের’ ক্লিনার আলতাফ হোসেনের মোবাইলের বিকাশ একাউন্টে ১ লাখ টাকা রয়েছে

জানতে পেরে তাকে অপহরণের পরিকল্পনা করে।


পূর্ব পরিচিত শরবত বিক্রেতা মনিরুল ইসলাম, গত ৩১ আগস্ট আলতাফ হোসেনকে অপহরণ করে হবিগঞ্জ নিয়ে আসে মনিরুলসহ দুই অপহরণকারী। পরে তারা আলতাফ হোসেনের পরিবারের কাছে ১ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করে। আলতাফ হোসেনকে না পেয়ে তার পরিবার তেজগাঁও থানায় সাধারণ ডায়েরি করেন এবং বিষয়টি র‌্যাবকে অবগত করলে র‌্যাব জানতে পারে তারা হবিগঞ্জ রয়েছে। এ খবর হবিগঞ্জ গোয়েন্দা পুলিশের কাছে আসলে পুলিশ অভিযান চালিয়ে তাকে উদ্ধার করে।


হবিগঞ্জ শহরে সাধারণের মাঝে মাস্ক বিতরণ করা হয়েছ (৪-সেপ্টেম্বর) দুপুরে হবিগঞ্জ সদর মডেল থানার মোড়ে ও আধুনিক সদর হাসপাতাল ক্যাম্পাসে মাস্ক বিতরণ করা হয়। উক্ত মাস্ক বিতরণ করে হবিগঞ্জ অনলাইন টিভি সাংবাদিক ইউনিটি। এ সময় হবিগঞ্জ সদর মডেল থানার ডিউটি অফিসার এস আই মোঃ হারুনুর রশিদ ও নারী পুলিশ উক্ত মাস্ক বিতরণে সহযোগিতা করেন।


করোনা ভাইরাস সংক্রমণ থেকে নিয়ন্ত্রণ রাখতে। মাস্কের ব্যবহার শীর্ষে তাই স্বাস্থ্য বিধি মেনে লোকজন যাতয়াত করার লক্ষে পথচারীকে মাস্ক দেয়া হয়েছে।

ইউনিটির সিনিয়র সহ-সভাপতি অপু চৌধুরী এস এম আবুল কাসেম, সাধারন সম্পাদক মোঃ রহমত আলী কোষাধ্যক্ষ মোঃ তাভীর হেসাইন ও দপ্তর সম্পাদ শাহ মামুনুর রহমান। উপস্থিত ছিলেন।

তথ্য মন্ত্রালয় থেকে নিবন্ধনের অনুমতি পেল ৯২ পত্রিকার অনলাইন পোর্টাল

 তথ্য মন্ত্রালয় থেকে নিবন্ধনের অনুমতি পেল ৯২ পত্রিকার অনলাইন পোর্টাল





টাংগাইল জেলা প্রতিনিধি:

ঢাকা মহানগর ও বিভাগীয় শহরের ৯২টি দৈনিক পত্রিকার অনলাইন পোর্টালকে নিবন্ধনের অনুমতি দিয়েছে সরকার।  দৈনিক পত্রিকার এই পোর্টালগুলো নির্বাচিত করে তথ্য মন্ত্রণালয় থেকে বিজ্ঞপ্তি জারি করা হয়েছে। এর আগে গত ৩০ জুলাই ৩৪টি নিউজ পোর্টালকে নিবন্ধনের জন্য নির্বাচিত করে তথ্য মন্ত্রণালয়।


তথ্য মন্ত্রণালয়ের বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, অনলাইন নিউজ পোর্টাল নিবন্ধনের ধারাবাহিক প্রক্রিয়ার অংশ হিসেবে ৯২টি দৈনিক পত্রিকার অনলাইন পোর্টালকে প্রাথমিকভাবে নিবন্ধনের অনুমতি প্রদান করা হলো।

প্রাথমিকভাবে নিবন্ধনের অনুমতিপ্রাপ্ত ৯২টি পোর্টালকে সরকারি বিধি-বিধান অনুসরণ করে নির্ধারিত ফি জমা দিয়ে এই বিজ্ঞপ্তি প্রকাশের তারিখ থেকে ২০ কার্যদিবসের মধ্যে নিবন্ধন সম্পন্ন করার জন্য অনুরোধও জানানো হয়েছে।


উল্লেখ্য, গত ৩১ আগস্ট ‘জাতীয় অনলাইন গণমাধ্যম নীতিমালা, ২০১৭ (সংশোধিত, ২০২০)’ এর খসড়া অনুমোদন দেয় মন্ত্রিসভা। সংশোধিত নীতিমালা অনুযায়ী, রেডিও, টেলিভিশন (টিভি) ও পত্রিকার অনলাইন পোর্টাল এবং আইপি টিভির জন্য নিবন্ধন নিতে হবে।


পরের দিনই  সচিবালয়ে তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদের সাথে বৈঠক করেন দৈনিক পত্রিকার সম্পাদকদের সংগঠন সম্পাদক পরিষদের নেতারা। সেখানে তথ্যমন্ত্রী জানান, অনলাইন নিউজ পোর্টাল নিবন্ধনের ক্ষেত্রে দৈনিক পত্রিকাগুলোর অনলাইন ভার্সন অগ্রাধিকার পাবে।

ঢাকা মহানগরের যে দৈনিক পত্রিকাগুলো নিবন্ধন পাবে সেগুলো হলো- দৈনিক নয়া দিগন্ত, বাংলাদেশ প্রতিদিন, প্রথম আলো, কালের কণ্ঠ, যুগান্তর, ইত্তেফাক, আমাদের সময়, জনকণ্ঠ, সমকাল, সংবাদ, ভোরের কাগজ, মানবকণ্ঠ, প্রতিদিনের সংবাদ, ইনকিলাব, বাংলাদেশের খবর, আমার সংবাদ, আমাদের অর্থনীতি, মানবজমিন, ভোরের ডাক, আলোকিত বাংলাদেশ, আজকালের খবর, ঢাকা প্রতিদিন, বর্তমান, বণিক বার্তা, জনতা, খোলা কাগজ, গণকণ্ঠ, সময়ের আলো, যায় যায় দিন, লাখোকণ্ঠ, বাংলাদেশের আলো, দেশ রূপান্তর, দৈনিক ঢাকা টাইমস, দৈনিক বাংলা, জাগরণ, বাংলাদেশ জার্নাল, আমার সময়, আমাদের নতুন সময়, আমার বার্তা, দিনকাল, বাংলাদেশ কণ্ঠ, নবচেতনা, হাজারিকা প্রতিদিন, সংবাদ সারাবেলা, অগ্নিশিখা ও জবাবদিহি।


ইংরেজি দৈনিকের মধ্যে এশিয়ান এইজ, বাংলাদেশ পোস্ট, বাংলাদেশ টুডে, ফিনান্সিয়াল এক্সপ্রেস, ইন্ডিপেন্ডেন্ট, নিউ এইজ, অবজারভার, ডেইলি স্টার, ডেইলি সান, ডেইলি ট্রাইব্যুনাল ও ঢাকা ট্রিবিউন।

আশাশুনিতে চাঁদা দাবির অভিযোগে কথিত ৪ সাংবাদিক আটক, মোটরসাইকেল জব্দ

আশাশুনিতে চাঁদা দাবির অভিযোগে কথিত ৪ সাংবাদিক আটক, মোটরসাইকেল জব্দ

   



আহসান উল্লাহ বাবুল উপজেলা প্রতিনিধি   : আশাশুনি উপজেলার ভোদাটা ইউনিয়নের বেহুলা গ্রামের এক নিকাহ রেজিষ্টারের কাছে ১০ হাজার টাকা চাঁদাদাবির অভিযোগে ৪জন কথিত সাংবাদিককে গ্রেফতার করেছে থানা পুলিশ। বৃহষ্পতিবার রাতে তাদেরকে আশাশুনি উপজেলার বেউলা গ্রাম থেকে গ্রেপ্তার করা হয়। থানা পুলিশের হাতে গ্রেফতারকৃত সাতক্ষীরা সদর উপজেলার বকচরা গ্রামের মোন্তাজ মোল্লার ছেলে মোঃ আব্দুল মান্নান, একই গ্রামের আফসার উদ্দীন সরদারের ছেলে মোঃ হাফিজুর রহমান, একই উপজেলার কুকরালী গ্রামের মোকিম হোসেনের ছেলে মোঃ মোশারফ হোসেন আব্বাস ও আশাশুনি উপজেলার আদালতপুর গ্রামের আবুল কাশেম সরদারের ছেলে মোঃ রবিউল ইসলাম বর্তমানে সাতক্ষীরায় বসবাস করেন।


আশাশুনি উপজেলার বেউলা গ্রামের ওসমান গণি সরদারের ছেলে মোঃ আসাদুজ্জামান সরদার এ প্রতিবেদককে জানান, বৃহষ্পতিবার বিকালে আব্দুল মান্নান, মোশারফ হোসেন আব্বাস, হাফিজুর রহমান ও রবিউল নামের চার ব্যক্তি দু’টি মোটর সাইকেলে তার বাড়িতে যায়। এ সময় তারা নিজেদেরকে এক একটি নাম নাজানা সংবাদপত্র ও অন লাইনের স্টাফ রিপোর্টার পরিচয়ে বাল্য বিবাহ দেওয়া অভিযোগে তার কাছে ১০ হাজার টাকা চাঁদা চান। টাকা না দিলে পুলিশ দিয়ে ধরিয়ে দেওয়া ও পত্রিকায় নিউজ করার হুমকি দেন। একপর্যায়ে তাদেরকে বাড়িতে বসিয়ে রেখে তিনি জেলা রেজিষ্টারকে ফোন করেন। তিনি বিষয়টি থানাকে অবহিত করার কথা বলেন। তবে সাংবাদিকদের সঙ্গে বাক বিতণ্ডাকালে স্থানীয়রা ছুঁটে এলে অবস্থার বেগতিক বুঝে ওই ৪জন কথিত সাংবাদিক মোটর সাইকেল নিয়ে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করলে জনগন মোটর সাইকেলের চাবি তুলে নেয়। তখন তারা দৌড়ে সেখান থেকে পালিয়ে যায়।

আশাশুনি থানা সূত্রে জানা যায়, বৃহস্পতিবার রাতে  থানার অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মাদ গোলাম কবির সুকৌশলে মোবাইল করে তাদের ফেলেে আসা মোটরসাইকেল নিয়ে যেতে বলেন। তখন  থেকেই এস আই গাজী নূর নবীর নেতৃত্বে একদল পুলিশ ঘটনাস্থলে হাজির হন। পুলিশের মোবাইল পেয়ে তারা রাতে বেউলা গ্রামের নিকাহ রেজিষ্টারের বাড়িতে যায়।এসময় পুলিশ এসে চাঁদা দাবির অভিযোগের সত্যতা পেয়ে ওই চার চাঁদাবাজকে গ্রেপ্তার করে। তখন তাদের ব্যবহৃত ২টি মোটর সাইকেল জব্দ করা হয়।

আশাশুনি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোহাম্মদ গোলাম কবিরের নিকট জানতে চাইলে তিনি বলেন, কথিত সাংবাদিক পরিচয়দানকারী এই আসামিরা সাতক্ষীরা জেলা ব্যাপী একটি চাঁদাবাজির নেটওয়ার্ক তৈরি করেছিল। এ ঘটনায় বেউলা গ্রামের নিকাহ রেজিষ্টার মোঃ আসাদুজ্জামান বাদি হয়ে গ্রেপ্তারকৃত ৪জনের নাম উল্লেখ করে শুক্রবার সকালে থানায় একটি ৫( ৯)২০২০ নং মামলা দায়ের করেছেন।গ্রেপ্তারকৃতদের বিচারার্থে দুপুরে বিজ্ঞ আদালতে প্রেরন করা হয়েছে।

শৈলকুপায় মুজিব শতবর্ষ ফুটবল টুর্ণামেন্ট ২০২০ এর ফাইনাল খেলা অনুষ্ঠিত

 শৈলকুপায় মুজিব শতবর্ষ  ফুটবল টুর্ণামেন্ট ২০২০ এর ফাইনাল খেলা অনুষ্ঠিত



সম্রাট হোসেন, শৈলকুপা( ঝিনাইদহ) প্রতিনিধিঃ”মাদক কখনই নয়, সুশিক্ষা ও খেলাধুলা করতে পারে বিশ্বজয়” এ স্লোগান কে সামনে রেখে ঝিনাইদহের শৈলকুপা উপজেলার গাড়াাগঞ্জ ডিগ্রি কলেজ মাঠে মুজিব শতবর্ষ ফুটবল টুর্নামেন্ট ২০২০ এর আয়োজন করা হয় গাড়াগঞ্জ ক্রীড়া সংস্থার আয়োজনে উক্ত ফুটবল টুর্নামেন্টের ফাইনাল খেলা যে দুটি দল অংশগ্রহণ করে সিনিয়র ব্যাচ এবং হ্যালো এসএসসি ২০১৮ । প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন ঝিনাইদহ শৈলকুপা আসনের জাতীয় সংসদ সদস্য সাবেক মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী আব্দুল হাই এমপি বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন শৈলকুপা উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এবং শৈলকুপা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শিকদার মোশারফ হোসেন, উপজেলা নির্বাহি অফিসার মোঃ সাইফুল ইসলাম, অফিস ইনচার্জ মোঃ জাহাঙ্গীর আলম , ইউপি চেয়ারম্যান সাব্দার হোসেন মোল্লা,অধ্যক্ষ  তরিকুল ইসলাম, আফরোজা নাসরিন লিপি ফুটবল খেলা ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন শৈলকুপা উপজেলা আওয়ামী যুবলীগের সভাপতি সাবেক উপজেলা ভাইস-চেয়ারম্যান শামীম হোসেন মোল্লা । খেলাটি সার্বিক তত্ববধন করেন মেহেদি হাসান তুহিন। গাড়াগঞ্জ ক্রীড়া সংস্থা  খেলাটি আয়োজন করে ।

দিনাজপুরে ইউএনও’র উপর দুর্বৃত্তদের হামলার প্রতিবাদ ও জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবীতে মানববন্ধন

 দিনাজপুরে ইউএনও’র উপর দুর্বৃত্তদের হামলার প্রতিবাদ ও জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবীতে মানববন্ধন


মামুনুর রশিদ,দিনাজপুর প্রতিনিধিঃ দিনাজপুরের ঘোড়াঘাট উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্ত ওয়াহিদা খানমসহ তার পিতা মুক্তিযোদ্ধা ওমর আলী উপর হামলার প্রতিবাদের দিনাজপুরে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত। আজ সকালে দিনাজপুর প্রেসক্লাবের সামনে করোনা দূর্যোগকালীন সম্মিলিত স্বেচ্ছাসেবা টিম ও নাগরীক উদ্যোগের যৌথ ব্যানারে ঘন্টাব্যাপী মানববন্ধনের আয়োজন করা হয়। সময় বক্তারা ইউএনও’র উপর হামলার প্রতিবাদ ও ঘটনার সাথে জরিতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবী জানান। তারা আরো বলেন, বাংলাদেশের ইতিহাসে ইউএনওর উপর এমন হামলা এটাই প্রথম। মানববন্ধনের উপস্থিত ছিলেন নাগরীক উদ্যোগের সভাপতি আবুল কালাম আজাদ, মহিলা পরিষদের সভানেত্রী কানিজ রহমানসহ স্থানীয় গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ।

বঙ্গবন্ধুর ঘনিষ্ঠ সহচর ও সংবিধান প্রণয়ন কমিটির সদস্য এম. আব্দুর রহিমের চতুর্থ মৃত্যুবার্ষিকীতে শ্রদ্ধাঞ্জলী

 বঙ্গবন্ধুর ঘনিষ্ঠ সহচর ও সংবিধান প্রণয়ন কমিটির সদস্য এম. আব্দুর রহিমের চতুর্থ মৃত্যুবার্ষিকীতে শ্রদ্ধাঞ্জলী




মামুনুর রশিদ,দিনাজপুর প্রতিনিধি : দিনাজপুরের শতাধিক সংগঠন ও প্রতিষ্ঠানের শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পনের মধ্যদিয়ে বঙ্গবন্ধুর ঘনিষ্ট সহচর ও মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক প্রয়াত প্রবীন রাজনীতিক স্বাধীনতা পদক প্রাপ্ত এ্যাডভোকেট এম. আব্দুর রহিমকে সর্বস্তরের মানুষ শ্রদ্ধাভরে স্মরণ করেছেন। আজ ৪ সেপ্টেম্বর ছিল প্রয়াত জননেতার চতুর্থ মৃত্যু বার্ষিকী।

প্রয়াত জননেতার চতুর্থ মৃত্যুবার্ষিকী পালন উপলক্ষে “এম. আব্দুর রহিম সমাজকল্যাণ ও মুক্তিযুদ্ধ গবেষণা কেন্দ্র, দিনাজপুর” এর গৃহিত কর্মসূচির অংশ হিসেবে সকাল ১০ টায় জেলা প্রশাসন কার্যালয় চত্বরে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পণের মধ্য দিয়ে দিনব্যাপী কর্মসুচির সূচনা হয়। প্রথমে গবেষণা কেন্দ্রের কার্যকরী সভাপতি বীরমুক্তিযোদ্ধা মো. সফিকুল হক ছুটু, হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক রুহুল আমিনসহ সাধারন সম্পাদক চিত্ত ঘোষের নেতৃত্বে নেতৃবৃন্দ জাতির পিতার প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধাঞ্জলি জ্ঞাপনের পর মরহুমের ছোট ছেলে জাতীয় সংসদের হুইপ ইকবালুর রহিম এমপি শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পন করেন। 

এরপর সকাল ১১টায় দিনাজপুর সদর উপজেলার জালালপুরে প্রয়াত এই রাজনীতিকের সমাধিতে প্রথমে এম. আব্দুর রহিম সমাজকল্যান ও মুক্তিযুদ্ধ গবেষনা কেন্দ্রের পক্ষ হতে পুষ্পার্ঘ্য অর্পন করা হয়। এরপর মরহুমের বড় ছেলে বিচারপতি এম. ইনায়েতুর রহিম ও ছোট ছেলে জাতীয় সংসদের হুইপ ইকবালুর রহিম এমপিও শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করেন । এসময় জেলা ও দায়রা জজ আজিজ আহমেদ ভুঞাঁ, মুখ্য বিচারিক মো. আয়েজ উদ্দিন-এর নেতৃত্বে বিজ্ঞ বিচারকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। 

এর পর পর্যায়ক্রমে জেলা প্রশাসনের পক্ষে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) সামিউল ফেরদৌস , পুলিশ প্রশাসনের পক্ষ থেকে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার শচিন চাকমা ও সদর সার্কেল সুজন সরকার, উপজেলা প্রশাসনের পক্ষে হতে নির্বাহী অফিসার মোঃ মাগফুরুল হাসান আব্বাসী,  শ্রদ্ধাঞ্জলি শেষে মুক্তিযোদ্ধা সংসদ, হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ, এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল, বিএমএ-এর নেতৃবৃন্দ। এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ এর অধ্যক্ষ ডাঃ অধ্যাপক ডাঃ শিবেস সরকার, হাসপাতালের পরিচালক ডাঃ নির্মল চন্দ্র দাস, সদর উপজেলা চেয়ারম্যান এমদাদ সরকার, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান জেসমিন আরা জোসনা, দিনাজপুর প্রেস ক্লাব সভাপতি স্বরুপ বকসী ও সাধারন সম্পাদক গোলাম নবী দুলাল, দিনাজপুর শিল্প ও বণিক সমিতির সভাপতি সুজাউর রব চৌধুরীর নেতৃত্বে ব্যবসায়ী সমাজের প্রতিনিধিবৃন্দ, শহর আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি রায়হান কবীর সোহাগ ও সাধারন সম্পাদক খালেকুজ্জামান রাজুর নেতৃত্বে শহর আওয়ামীলীগ, দিনাজপুর সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি ওয়াহেদুল আলম আটিস্ট এর নেতৃত্বে সাংবাদিক ইউনিয়নের নেতৃবৃন্দ, জেলা ক্রীড়া সংস্থা’র সাধারন সম্পাদক সুব্রত মজুমদার ডলারের নেতৃত্বে ত্রুীড়া সংগঠক ও খেলোয়াড়বৃন্দ, জেলা আইনজীবি সমিতি’র সভাপতি নুরুজ্জামান জাহানী’র নেতৃত্বে আইনজীবিবৃন্দ, আওয়ামী লীগসহ বিভিন্ন অঙ্গ সংগঠনের নেতৃবৃন্দ, মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সুলতানা বুলবুল ও সাধারণ সম্পাদক তারিকুন বেগম লাবুন, দিনাজপুর নাট্য সমিতি, উদীচী, নবরুপী, সুইহারী সংগীত নিকেতন, মণিমেলা, আবৃত্তি কানন, ভৈরবী, জেলা সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটসহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসহ প্রায় শতাধিক বিভিন্ন সংগঠনের পক্ষ থেকে প্রয়াত এই জননেতার প্রতি শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পন করে। এ ছাড়া ইউনিয়নের বিভিন্ন চেয়ারম্যান গন শ্রদ্ধা জানান।

দুপুর ১২টায় সমাধিস্থলে অনুষ্ঠিত হয় মিলাদ মাহফিল ও দোয়া। দোয়া পরিচালনা করেন মরহুমের বড় ছেলে বিচারপতি এম. ইনায়েতুর রহিম। দোয়া অনুষ্ঠানে দেশ ও জাতির কল্যাণ কামনা ও সম্প্রতি দুর্বৃত্তদের দ্বারা আঘাতপ্রাপ্ত ঘোড়াঘাট উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা ওয়াহিদা খানমের দ্রুত সুস্থ্যতা কামনা করে দোয়া করা হয়। দোয়া অনুষ্ঠানে সর্বস্তরের মানুষ অংশ নেয়। প্রাণঘাতী করোনা সংক্রমন প্রতিরোধে সরকার ঘোষিত স্বাস্থ্যবিধি অনুসরন করে এবছর মৃত্যুবার্ষিকী’র পালনের কর্মসূচি সংকোচিত করা হয়।

সিরাজগঞ্জ শীর্ষ মাদক২ ব্যবসায়ী ১৫০০ পিচ ইয়াবা সহ গ্রেপ্তার

সিরাজগঞ্জ শীর্ষ মাদক২ ব্যবসায়ী ১৫০০ পিচ ইয়াবা সহ গ্রেপ্তার

মাসুদ রানা সিরাজগঞ্জ জেলাপ্রতিনিধিঃ সিরাজগঞ্জ  সদর উপজেলার খোকশাবাড়ী ইউনিয়নে মাদক বিরোধী অভিযান চালিয়ে ১৫০০ পিচ ইয়াবাসহ শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ী মাসুদ রানা (২৮) ও রুবেল হোসেন (৩১) কে আটক করেছে পুলিশ। শুক্রবার দুপুরে এতথ্য নিশ্চিত করেছেন সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হাফিজুর রহমান।

আটককৃতরা হলেন, সদর উপজেলার ভাটপিয়ারী পশ্চিমপাড়া গ্রামের মৃত আমির হোসেনের ছেলে রুবেল হোসেন ও ব্রাক্ষ্মন বয়রা গ্রামের দুলাল মন্ডলের ছেলে মাসুদ রানা।

সদর থানার এএসআই ইবনে জুবায়ের জানান, বৃহস্পতিবার রাতে খোকশাবাড়ী ইউনিয়নের তালুকদার মোড়ে মাদক ক্রয়-বিক্রয় হচ্ছে এমন গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালিয়ে ওই দুইজনকে আটক করা হয়। এসময় তাদের কাছ থেকে ১৫০০ পিচ ইয়াবা উদ্ধার করা হয়। তিনি আরও বলেন, শুক্রবার দুপুরে উদ্ধারকৃত আলামত ও আসামীদের আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

নওগাঁ-৬ আসনে উপ-নির্বাচন মনোনয়ন প্রত্যাশী সুমনের মোটরসাইকেল শোডাউন

 নওগাঁ-৬ আসনে উপ-নির্বাচন  মনোনয়ন প্রত্যাশী সুমনের মোটরসাইকেল শোডাউন


মোঃ ফিরোজ হোসাইন 

রাজশাহী ব্যুরো


 নওগাঁ-৬ (আত্রাই-রাণীনগর) আসনে উপ-নির্বাচনকে ঘিরে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী অ্যাডভোকেট ওমর ফারুক সুমন বিশাল মোটরসাইকেল শোডাউন করেছেন। শুক্রবার বিকেলে আত্রাই ও রাণীনগর  উপজেলার বিভিন্ন এলাকা ঘুরে এই শোডাউন করেন তিনি।

এদিন বিকেল ৩ টায় আত্রাই উপজেলা নিজ গ্রাম রসুলপুর থেকে প্রায় শত শত মোটরসাইকেল নিয়ে উপজেলা সদর আহসানগঞ্জ স্টেশন হয়ে শোডাউন শুরু করেন। এরপর আত্রাই থেকে আবাদপুকুর হয়ে রাণীনগর উপজেলার বিভিন্ন এলাকা প্রদক্ষিণ করে নিজ গ্রামে এসে সমাপ্ত করেন। এ সময় বিভিন্ন মোড়ে মোড়ে  পথশোভা ও জনগণের সঙ্গে কুশল বিনিময় করেন নওগাঁ জেলা আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবকলীগ সাধারণ সম্পাদক, সাবেক উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও সাংসদ মুক্তিযোদ্ধা মো. ওহিদুর রহমানের ছেলে অ্যাডভোকেট মো. ওমর ফারুক সুমন। শোডাউনে আওয়ামী লীগ, যুবলীগ,ছাত্রলীগ,কৃষকলীগ, শ্রমিকলীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ  বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাকর্মীসহ সর্বস্তরের জনগণ এ শোভাযাত্রায় অংশ নেয়।

আবাদপুকুর বাজারে সংক্ষিপ্ত বক্তৃতায় তিনি বলেন এলাকায় মাদক, সন্ত্রাস ও জঙ্গীবাদ নির্মূল করে সরকারের উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে আমি উপ-নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেতে দলীয় মনোনয়ন উত্তোলন করেছি। আওয়ামী লীগের সঙ্গে আমাদের রক্ত মিশে আছে। ২০১৮ সালে নির্বাচনে আমি এই আসন থেকে দলীয় মনোনয়ন তুলেছিলাম। আশা করছি, এবার প্রধানমন্ত্রী আমাকে বঞ্চিত করবেন না।

তিনি আরো বলেন, প্রধানমন্ত্রী যদি আমাকে মনোনয়ন দেন তাহলে বিপুল ভোটে জয়লাভ করে সরকারকে এ আসন উপহার দিতে পারবো।

গত ২৭ জুলাই এমপি ইসরাফিল আলম মারা গেলে আসনটি শূন্য হয়। ইতোমধ্যে ৩৪ জন মনোনয়ন প্রত্যাশী আওয়ামী লীগ দলীয় মনোনয়ন উত্তোলন করেছেন। নির্বাচন কমিশন থেকে আগামী ১৭ অক্টোবর নির্বাচনের দিন ধার্য করে তপশীল ঘোষণা করা হয়েছে।

নওগাঁর রাণীনগর-কালীগঞ্জ ২২ কিলোমিটার রাস্তার কাজ- শেষ হবার কোন লক্ষ্মণ নেই

 নওগাঁর রাণীনগর-কালীগঞ্জ ২২ কিলোমিটার রাস্তার কাজ- শেষ হবার কোন লক্ষ্মণ নেই

 


ফিরোজ হোসাইন 

রাজশাহী ব্যুরো

নওগাঁর রাণীনগর - আবাদপুকুর-কালীগঞ্জ আঞ্চলিক মহা সড়কের কাজ দীর্ঘ তিন বছরেও শেষ হয়নি। দীর্ঘ দিন ধরে রাস্তার কাজ বন্ধ থাকায় ভরা বর্ষা মৌসুমে খানা খন্দকে ভরপুর হয়ে গেছে। ইতোমধ্যে মঙ্গলবার হাতিরপুল নামক সেতুতে ফাটল ধরায় মালবাহী ভারী যানবাহন চলাচল বন্ধ হয়ে গেছে। ফলে এলাকার লাখ লাখ মানুষের ভোগান্তির যেন শেষ হচ্ছে না। কবে নাগাদ শেষ হবে এই রাস্তার কাজ ?এমন ভাবনা যেন সাধারণ মানুষকে ব্যকুল করে তুলেছে।জানাগেছে,নওগাঁর রাণীনগর-আবাদপুকুর-কালীগঞ্জ পর্যন্ত আঞ্চলিক মহাসড়কটি ছিল এলজিইডি’র আওতায়। সড়কে অতিরিক্ত যান বাহন চলাচল এবং দীর্ঘ এলাকা জুরে মানুষের জীবন মান উন্নয়নের লক্ষে গত চার বছর আগে এলজিইডি থেকে সড়ক জনপদ বিভাগে হস্তান্তর করা হয়। এই সড়কটি নওগাঁ থেকে রাণীনগর এবং রাণীনগর থেকে আবাদপুকুর-কালীগঞ্জের মধ্য দিয়ে নাটোরের সিংড়ার ঢাকা ও রাজশাহী মহা সড়কের সাথে মিলিত হয়েছে। রাস্তাটি প্রসস্ত্য এবং মজবুত পাকাকরনের জন্য গত ২০১৮ সালে টেন্ডার দেয়া হয়। দীর্ঘ ২২ কিলোমিটার রাস্তা এবং ২৬টি কালভার্ট ও চার টি সেতু নির্মানে মোট ব্যয় ধরা হয় ১০৫ কোটি টাকা। রাস্তা,কালভার্ট ও সেতু নির্মানে সময় দেয়া হয় ২০১৯ সালের ডিসেম্বর পর্যন্ত। কিন্তু ওই সময়ের মধ্যে কাজ শেষ করতে না পারায় সংশ্লিষ্ঠ ঠিকাদাররা একের পর এক অতিরিক্ত সময় চেয়ে আবেদন করতে থাকেন। স্থানীয়রা বলছেন,এখন পর্যন্ত রাস্তার কেবলমাত্র কার্পেটিং তুলে কোন রকমে রোলার দিয়ে ফেলে রাখা হয়েছে। দীর্ঘ দিন এমন অবস্থায় পরে থাকায় রাস্তা জুরে ছোট বড় গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। এতে বৃষ্টির পানি জমাট হয়ে অনেক জায়গায় হাঁটু কাদায় পরিনত হয়েছে। ফলে যান বাহন চলাচল করছে অত্যন্ত জীবনের ঝুঁকি নিয়ে। এ ছাড়া গত তিন বছর অতিবাহিত হলেও এপর্যন্ত কালভার্ট এবং সেতু নির্মান কাজ শেষ করতে পারেনি। অধিকাংশ সেতু-কালভার্ট ভেঙ্গে কাজ না করেই ফেলে রাখা হয়েছে। ফলে পার্শ্ব রাস্তা নষ্ট হয়ে যাওয়ায় প্রতিনিয়ত ঘটছে দূর্ঘটনা। গত প্রায় ৫/৬ মাস ধরে রাস্তার কাজ একদম বন্ধ থাকায় হতাশায় পরেছেন এলাকাবাসি। রাস্তার এমন বেহাল দশার অযুহাতে পরিবহন মালিকরা দফায় দফায় ভাড়া বৃদ্ধি করছেন। ফলে ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছেন পথচারীরা। এদিকে কাজের ধীর গতির কারণে গত বছর সাংবাদিকদের কাছে এলাকাবাসীর দূর্ভোগের কথা তুলে ধরে স্থানীয় এমপি ইসরাফিল আলম চরম ক্ষোভ প্রকাশ করে দ্রুত কাজ শেষ করার তাগিদ দিয়েছিলেন। এরপর কাজের কিছু তোর জোর শুরু হলেও করোনা ভাইরাসের কারণে আবারও কাজ বন্ধ হয়ে যায়। এরপর এখনো কাজ শুরু হয়নি। এমপি ইসরাফিল আলম গত মাসের ২৭ তারিখে মারা যাওয়ায় এলাকার উন্নয়ন কর্মকাণ্ড ও চলমান কাজ নিয়ে একদম হতাশায় পরেছেন এলাকাবাসি। রাস্তার যাত্রী নাহিদ হোসেন,মকলেছুর রহমান,আবু হাসানসহ কয়েকজন চরম ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, গত তিন বছর ধরে আমরা ভোগান্তি পোহাচ্ছি। ভারী মালা মাল পরিবহন,জরুরী রোগী নিয়ে রাস্তায় চলা চল করা অত্যন্ত কষ্ট সাধ্য হয়ে পরেছে। এলাকার অভিভাবক এমপি বেঁচে থাকতে তাগিদ দিয়েও রাস্তার কাজ শেষ হয়নি। এখনতো তিনি বেঁচে নেই, তাগিদ দেয়ার মানুষও নেই! কবে নাগাদ শেষ হবে এই রাস্তার কাজ একমাত্র আল্লাহই ভাল জানেন। এলাকাবাসীর দূর্ভোগ লাগব করতে তারা দ্রুত কাজ শেষ করার জন্য সংশ্লিষ্ঠদের প্রতি জোর দাবি জানিয়েছেন। নওগাঁ সড়ক ও জনপদ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী হামিদুল হক বলেন,করোনা ভাইরাসের প্রভাবে এবং লকডাউনের কারণে লেবার সংকট এবং মালপত্র না পাওয়ায় ঠিকাদার ঠিকমত কাজ করতে পারেনি। আশা করছি খুব দ্রুত সময়ের মধ্যে কাজ শুরু হবে এবং চলতি বছরের নভেম্বর থেকে ডিসেম্বরের মধ্যেই কাজ শেষ হবে।

নওগাঁয় বিনামূল্যে শিশু স্কুল বাংলাদেশ মানবাধিকার কমিশনের উদ্যোগে পরিচালিত

 নওগাঁয় বিনামূল্যে শিশু স্কুল বাংলাদেশ মানবাধিকার কমিশনের উদ্যোগে পরিচালিত

 




মোঃ ফিরোজ হোসাইন 

রাজশাহী ব্যুরো


নওগাঁর সদর উপজেলার কাদোয়া গ্রামে কয়েক বছর ধরে  

বাংলাদেশ মানবাধিকার কমিশনের উদ্যোগে বিনামূল্যে পরিচালিত শিশু স্কুল পরিদর্শন করা হয়েছে।

গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেলে কয়েক বছর ধরে বিনামূল্যে পরিচালিত হয়ে আসছে একটি শিশু স্কুল। গ্রামের শিক্ষা অনুরাগী পরিবার, পান্না ও তার দুই সন্তানকে নিয়ে কোনো পারিশ্রমিক ছাড়া কয়েক বছর ধরে চালিয়ে যাচ্ছেন স্কুলটি।বিষয় টি জানার পার নওগাঁ সদর উপজেলার মানবাধিকার কমিশনের সভাপতি মোঃ ওয়াজকুরুন,তিলকপুর ইউনিয়ন মানবাধিকার সভাপতি, অবঃসাজেন্ট এবি সিদ্দিক, জাকির হোসেন সাংগঠনিক সম্পাদক, সহ আরো অনেকে।

সভাপতি বলেন নিজেদের একটি শিশু স্কুল চালানো মহান কাজ। তিনি বলেন আমার নিজের তহবিল থেকে কিছু সহায়তা প্রদান করতে পেরে ভালো লাগছে। সমাজের সকলের সহায়তা, ও প্রশাসনেরউদ্যোগে গ্রহনে আহবান জানান।

শ্যামনগরে ইজি বাইক-মটর সাইকেল মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহত-১

 শ্যামনগরে ইজি বাইক-মটর সাইকেল মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহত-১




আজহারুল ইসলাম সাদী, জেলা প্রতিনিধিঃ


শ্যামনগরে ইজি বাইক ও মটর সাইকেল এর মুখোমুখি সংঘর্ষে আনিছুর রহমান (৭৫) নামে এক বৃদ্ধ নিহত হয়েছেন।  

শুক্রবার (৪ সেপ্টেম্বর)  দুপুর দেড়াটার দিকে উপজেলার সুন্দবন সিনেমা হলের সামনে এ দূর্ঘটনা ঘটে। তিনি মঠবাড়িয়া গ্রামে মৃত মকবুল শিকারীর ছেলে।


প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান কালিগঞ্জ হতে মটর সাইকেল যোগে শ্যামনগরে আসার সময় বিপরীত দিক থেকে ইজি বাইকের সাথে মুখোমুখি সংঘর্ষে গুরত্বর আহত হয় আনিছুর রহমান। দ্রুত উদ্ধার করে তাকে, শ্যামনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসার সময় তিনি মারা যান। শ্যামনগর থানার  অফিসার ইনচার্জ (ওসি) নাজমুল হুদা  বলেন, পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করেছে। ইজি বাইক ও মটর সাইকেলটি থানায় আটক রাখা হয়েছে।

গুলবাগপুর হাটখোলা জামে মসজিদের কমিটি গঠন

 গুলবাগপুর হাটখোলা জামে মসজিদের কমিটি গঠন




স্টাফ রিপোর্টারঃ  গুলবাগপুর হাটখোলা জামে মসজিদের কমিটি গঠন।যশোর জেলার ঝিকরগাছা উপজেলার গুলবাগপুর গ্রামের হাটখোলা জামে মসজিদের পরিচালনা পর্ষদ আজ ( ৪ ঠা সেপ্টেম্বর) শুক্রবার জুম্মার নামের আগেই সকল মুসল্লীর উপস্থিতিতে এ-ই কমিটি গঠিত হয়। 

উক্ত কমিটির সভাপতি নির্বাচিত হয়েছেন মোঃ  নয়ন হোসেন, সেক্রেটারী হিসেবে দ্বায়িত্ব পেয়েছেন মোঃ আজিরুর রহমান ( আইজুল)  এবং কোষাধ্যাক্ষ হয়েছেন মোঃ শফিয়ার রহমান ( শফি)।এ-ই কমিটির মেয়াদ আগামী তিন বছর। 


দিনাজপুর ইউএনও ওয়াহিদার ওপর হামলায় দুই হামলাকারী গ্রেফতার ,স্বীকারোক্তি প্রদাণ

দিনাজপুর ইউএনও ওয়াহিদার ওপর হামলায় দুই হামলাকারী  গ্রেফতার ,স্বীকারোক্তি প্রদাণ





খোন্দকার আব্দুল্লাহ বাশার। 

খুলনা ব্যুরো প্রধান। 

দিনাজপুরের ঘোড়াঘাটে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ওয়াহিদা খানম ও তার বাবা ওমর আলী শেখকে হাতুড়িপেটা ও ধারালো অস্ত্র দিয়ে গুরুতর আহত করার ঘটনায় দুই জনকে আটক করেছে পুলিশ ও র‌্যাবের যৌথ একটি টিম। তারা হলো জাহাঙ্গীর হোসেন ও আসাদুল হক (৩৫)। জাহাঙ্গীর হোসেন ঘোড়াঘাট উপজেলা যুবলীগের আহ্বায়ক এবং আসাদুল হক ঘোড়াঘাট উপজেলা যুবলীগের সদস্য। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন হাকিমপুর থানার ওসি ফেরদৌস ওয়াহিদ। 


শুক্রবার (৪ সেপ্টেম্বর) ভোর ৫টার দিকে হাকিমপুর থানাধীন হিলির কালিগঞ্জ এলাকা থেকে আসাদুলকে আটক করা হয়। সে ঘোড়াঘাট উপজেলার ওসমানপুরের আমজাদ হোসেনের ছেলে। আসাদুলই ইউএনওর মাথায় হাতুড়ি দিয়ে আঘাত করে বলে জানিয়েছে পুলিশ।


হাকিমপুর থানা পুলিশ জানায়, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে হাকিমপুর, বিরামপুর ও ঘোড়াঘাট থানা এবং র‌্যাব রংপুরের একটি দল যৌথভাবে শুক্রবার ভোররাত ৪টা ৫০ মিনিটের দিকে হিলির কালিগঞ্জ এলাকায় অভিযান চালিয়ে আসাদুল হককে আটক করে। তাকে রংপুরে র‌্যাব কার্যালয়ে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।


এদিকে ঘোড়াঘাট থানার ওসি আমিরুল ইসলাম জানিয়েছেন, র‌্যাব ও পুলিশের একই টিম জাহাঙ্গীরকে আটক করেছে। সেও ওই ঘটনার সঙ্গে জড়িত। 


স্থানীয় একাধিক সূত্র জানিয়েছে, জাহাঙ্গীর ও আসাদুলের বিরুদ্ধে এর আগেও বিভিন্ন সময়ে হামলা, চাঁদাবাজি, মাদকসেবনসহ বিভিন্ন অভিযোগ রয়েছে। সম্প্রতি ত্রাণ বিতরণকালে ঘোড়াঘাট পৌর মেয়রের ওপর তারা হামলা চালালে মামলাও দায়ের করা হয়। এছাড়াও যুবলীগে তাদের নামে একাধিক অভিযোগ তুলে ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য চিঠি দেওয়া হয়। তবে কোনও ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি।


প্রসঙ্গত, বুধবার দিনগত রাত আড়াইটার দিকে উপজেলা পরিষদ চত্বরে ইউএনও’র সরকারি বাসভবনে ঢুকে হামলা করে দুর্বৃত্তরা। গেটে দারোয়ানকে বেঁধে ফেলে তারা। পরে বাসার পেছনে গিয়ে মই দিয়ে উঠে ভেনটিলেটর ভেঙে বাসায় প্রবেশ করে হামলাকারীরা। ভেতরে ঢুকে ভারী ও ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে এবং আঘাত করে ইউএনও ওয়াহিদাকে গুরুতর আহত করে তারা। এ সময় মেয়েকে বাঁচাতে এলে বাবা মুক্তিযোদ্ধা ওমর আলী শেখকে (৭০) জখম করে দুর্বৃত্তরা। পরে তারা অচেতন হয়ে পড়লে মৃত ভেবে হামলাকারীরা পালিয়ে যায়। ভোরে স্থানীয়রা টের পেয়ে তাদের উদ্ধার করেন।


ওয়াহিদা খানম বর্তমানে ঢাকায় চিকিৎসাধীন। অস্ত্রোপচার শেষে তাকে অবজারভেশনে রাখা হয়েছে। অস্ত্রোপচার সফল হলেও ইউএনও ওয়াহিদা আশঙ্কামুক্ত নন বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা। বৃহস্পতিবার (৩ সেপ্টেম্বর) রাতে ইউএনও ওয়াহিদার চিকিৎসায় গঠিত মেডিক্যাল বোর্ডের সদস্য ও ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব নিউরো সায়েন্সেস অ্যান্ড হসপিটালের অধ্যাপক ডা. জাহিদুর রহমানের নেতৃত্বে এ অস্ত্রোপচার সম্পন্ন হয়। রাত সোয়া ৯টা থেকে শুরু হয়ে রাত সোয়া ১১টা পর্যন্ত চলে এই অস্ত্রোপচার।


ডা. জাহিদুর রহমান বলেন, যখন প্রথম তাকে নিয়ে আসা হয় তখন ব্যান্ডেজ করা ছিল, অস্ত্রোপচার কক্ষে নেওয়ার পর দেখা যায় মাথায় মোট নয়টা আঘাতের চিহ্ন। একটা খুব বড়, যার ভেতর দিয়ে হাড় ভেঙে ভেতরে ঢুকে গিয়েছিল। বাকি আটটা ইনজুরি ছিল। তার ভেতরে ছিল মাথার দুই পাশে তিনটা করে ছয়টি, মুখের ওপরে একটি, নাকের ওপরে একটি এবং চোখের নিচে একটি। ভেতরে ঢুকে যাওয়া হাড় বের করা হয়েছে, রক্তরক্ষণ বন্ধ করা হয়েছে। অন্য আঘাতগুলোও সব রিপেয়ার করা হয়েছে। আমার আশাবাদী। তবে এটা হেড ইনজুরি, ব্রেইনের ভেতরে রক্তক্ষরণের ব্যাপার। তিনি দ্রুত সুস্থ হয়ে যাবেন কিনা এখনই আমরা বলতে পারবো না। তাকে অন্তত ৭২ ঘণ্টা পর্যবেক্ষণ রাখার পর বলতে পারবো।


তিনি শঙ্কামুক্ত কিনা প্রশ্নে ডা. জাহিদুর রহমান বলেন, এখনই শঙ্কামুক্ত কথাটা আমরা বলবো না। আগে ৭২ ঘণ্টা পর্যবেক্ষণে রাখতে হবে। কারণ তার মাথায় আঘাত লেগেছে, মস্তিস্কে রক্তক্ষরণ হয়েছে। ডান পাশ প্যারালাইজড ছিল সেটা আশা করি সচল হয়ে যাবে। তবে তাতে সময় লাগবে।

নওগাঁয় ছ' মিলের কারনে আবাসিক এলাকায় জনগণ অতিষ্ট

 নওগাঁয় ছ' মিলের কারনে  আবাসিক  এলাকায় জনগণ অতিষ্ট





মোঃ ফিরোজ হোসাইন, রাজশাহী ব্যুরোঃ নওগাঁয় সদর উপজেলার (খাঁস নওগাঁ মফিজপাড়া মুনসুর হাজির বাড়ির সামনে জনবসতি এলাকায়) ছ’ মিল চালানোর কারণে অতিষ্ট হয়েছেন  জন সাধারণ এমন একটি অভিযোগ পাওয়া গেছে। এই ছ,মিল বন্ধের দাবিতে এলাকাবাসী লিখিত ভাবে বিভিন্ন সরকারী দপ্তরে প্রয়োজনীয় ব্যাবস্থা গ্রহণের জন্য অনুলিপি প্রেরণ করেছেন।


অভিযোগ সূত্রে ও এলাকাবাসীরা জানান, এই ছ’ মিলের বিকট শব্দ দূষণের ফলে ছেলে মেয়েদের পড়াশোনা ও ঘুমের ব্যাপক ক্ষতি হচ্ছে। কাঠের পঁচা দুর্গন্ধের ফলে বাচ্চাদের শারীরিক ও মানসিক ক্ষতির সম্ভাবনা সৃষ্টি ও কাঠের গুড়া বাড়ির জানালা দিয়ে ডুকে আসবাসপত্র নষ্ট হচ্ছে। এলাকার পরিবেশ মারাত্মক ভাবে ক্ষতির সম্মুখীন হচ্ছে। গাড়ি থেকে কাঠ নামানোর সময় রাস্তায় প্রচুর যানজট সৃষ্টি হয় এবং ব্যাপক শব্দ হয়। দীর্ঘ ২০ বছর যাবৎ এ প্রতিষ্ঠানটি চালু থাকলেও সে সময় জনবসতি অনেক অল্প ছিল কিন্তু বর্তমানে জনসংখ্যা ও বসতবাড়ি বৃদ্ধির কারণে ছ’মিল ব্যাপক সমস্যার সৃষ্টির কারণ হয়ে দাড়িয়েছে। বন বিভাগ, পরিবেশ অধিদপ্তর ও ফায়ার সার্ভিস ও পৌরসভার ছাড়পত্র না নিয়েই চলছে ছ’ মিল । দীর্ঘদিন ধরে ছ’ মিলের কার্যক্রম চললেও ব্যবস্থা নেয়নি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ।

সাতক্ষীরা'র বদ্দিপুরে জলাবদ্ধতা নিরসনের দাবিতে ঝাটা ও জুতা নিয়ে বিক্ষোভ

 সাতক্ষীরা'র বদ্দিপুরে জলাবদ্ধতা নিরসনের দাবিতে ঝাটা ও জুতা নিয়ে বিক্ষোভ

 


আজহারুল ইসলাম সাদী,জেলা প্রতিনিধিঃসাতক্ষীরা'র শহরের বদ্দিপুর এলাকার জলাবদ্ধতা নিরসনের দাবীতে বিক্ষোভ সমাবেশ করেছে এলাকাবাসী। আজ শুক্রবার (৪ সেপ্টেম্বর)  সকাল ১০টার সময় বদ্দিপুর তিন রাস্তার মোড়ে হাটু পানির উপর দাড়িয়ে উক্ত বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।


সমাবেশের বক্তারা তীব্র ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, গত ৭ বছর সাতক্ষীরা পৌরসভার ৩নং ওয়ার্ডের বদ্দিপুর এলাকার সহস্রাধীক মানুষ পানির মধ্যে বসবাস করছে। বছরের ৭/৮ মাস এলাকা জলাবদ্ধ থাকে। কিন্তু পৌরসভার পক্ষ থেকে জলাবদ্ধতা নিরসনে কার্যকর কোন পদক্ষেপ গ্রহণ করা হচ্ছে না।


মে মাস থেকে এলাকার আড়াই শতাধিক পরিবারের মধ্যে হাতেগোন কিছু পরিবারকে ১০ কেজি করে চাল এবং একজনকে ১ হাজার ও আর একজনকে আড়াই হাজার টাকা দিয়ে প্রচার করা হচ্ছে এলাকায় ব্যাপক ত্রাণ তৎপরতা চালাচ্ছেন তার, যা সম্পূর্ণ মিথ্যা।


এলাকাবাসীরা আরো অভিযোগ করে বলেন, গত ২ সেপ্টেম্বর পৌরসভার পক্ষ থেকে এলাকাবাসীর যাতায়াতের জন্য দুটি ট্রলি প্রদান করা হয়েছে। কিন্তু আমারা বলেছিলাম ট্রলি না দিয়ে এলাকায় পানি সেচের যে মেশিন রয়েছে সেখানে খরচ করলে পানি কিছুটা হলেও কমবে। কিন্তু পানি সেচে সহায়তা না করে লোক দেখানোর জন্য ট্রলি প্রদান করা হয়েছে বলে এলাকাবাসী অভিযোগ করেন।


বদ্দিপুর জনক্যাণ সমিতির সভাপতি লুৎফর রহমানের সভাপতিত্বে বিক্ষোভ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন সাধারণ সম্পাদক আলমগীর হোসেন মনু, সদস্য হোসেন আলী, আব্দুর রহিম, রবিউল ইসলাম প্রমুখ।

সমাবেশ থেকে পৌর কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে বিভিন্ন স্লোগান দেওয়া হয় এবং মহিলাদের ঝাটা ও জুতা প্রদর্শন করতে দেখা যায়।

তাদের দাবি অচিরেই জলাবদ্ধতা নিরসনে জরুরি পদক্ষেপ নেয়া হোক।

নিয়ম বর্হিভূত মাদ্রাসার ল্যাব ব্যবহার ও গোপন তথ্য চুরির অভিযোগে থানায় অভিযোগ দায়ের

নিয়ম বর্হিভূত মাদ্রাসার ল্যাব ব্যবহার ও গোপন তথ্য চুরির অভিযোগে থানায় অভিযোগ দায়ের

 



মোংলা (বাগেরহাট) প্রতিনিধিঃমোংলায় আলহাজ্ব কোরবান আলী আলিম মাদ্রাসার ‘শেখ রাসেল ডিজিটাল ল্যাবথটি ব্যক্তিগত ট্রেনিং সেন্টারের কাজে নিয়ম বর্হিভূত ব্যবহার ও ওই মাদ্রাসার গোপন তথ্য চুরির অভিযোগ উঠেছে অপর আরেক মাদ্রাসার শিক্ষকের বিরুদ্ধে। ওই শিক্ষকের যত্রতত্র ব্যবহারের কারণেই ইতিমধ্যে ওই ল্যাবের দুইটি ল্যাপটপ নষ্ট হয়ে গেছে। এ ঘটনায় ওই শিক্ষকের বিরুদ্ধে কোরবান আলী আলিম মাদ্রাসার ম্যানেজিং কমিটির পক্ষ থেকে থানায় লিখিত অভিযোগ দাখিল করা হয়েছে। ছাত্র শিবিরের সাবেক নেতা ও ইসলামী আদর্শ একাডেমিথর আইসিটি বিভাগের শিক্ষক মোঃ রফিকুল ইসলামের এমন বিতর্কিত কর্মকান্ডের কারণে আলহাজ্ব কোরবান আলী আলিম মাদ্রাসার শিক্ষকদের মধ্যে ব্যাপক তোলপাড় শুরু হয়েছে।  


অভিযোগ ও মাদ্রাসা সূত্রে জানা যায়, করোনার কারণে সারা দেশে সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ করে দেয় সরকার। তখনই মাদ্রসা বন্ধের সুযোগ কাজে লাগায় একাডেমি মাদ্রাসার শিক্ষক ও ইমেজভিশন কম্পিউটার ট্রেনিং সেন্টার মালিক সাবেক শিবির নেতা মোঃ রফিকুল ইসলাম। আলহাজ্ব কোরবান আলী আলিম মাদ্রাসার এক শিক্ষককে ম্যানেজ করেই শেখ রাসেল ডিজিটাল ল্যাব কক্ষের চাবি নিয়ে নিয়মিত ব্যক্তিগত কম্পিউটার ট্রেনিং সেন্টারের ক্লাস নিতে থাকেন রফিকুল ইসলাম। 


আলহাজ্ব কোরবান আলী আলিম মাদ্রাসা কর্তৃপক্ষ জানান, কম্পিউটারে অনভিজ্ঞ বহিরাগত লোকদের হাতে ল্যাপটপ তুলে দিয়ে নিয়মিত ট্রেনিং সেন্টারের ক্লাস নেয়ার কারণে তাদের ল্যাব সেন্টারের দুইটি ল্যাপটপ নষ্ট হয়ে গেছে। একই সাথে মাদ্রাসার কিছু গোপন তথ্য চুরি করেছে রফিকুল ইসলাম। দীর্ঘ কয়েক মাস তাদের মাদ্রাসার ডিজিটাল ল্যাব সেন্টারটি ব্যবহার করার বিষয়টি তারা জানতেন না। সরকারী ছুটি থাকার সুযোগে কতিপয় শিক্ষককে ম্যানেজ করে রফিকুল ইসলাম তাদের মাদ্রাসার ল্যাবটি ব্যবহারের কারণে অনেকটা ক্ষতিতে পড়েছে আলহাজ্ব কোরবান আলী আলিম মাদ্রাসা। 


মাদ্রাসা কর্তৃপক্ষ আরো জানান, ৩১ আগষ্ট বিষয়টি মাদ্রাসা কতর্ৃপক্ষের নজরে আসে। তারা বিষয়টি ম্যানেজিং কমিটির নজরে আনলে কমিটির সভাপতি ‘শেখ রাসেল ডিজিটাল ল্যাবথর কক্ষে তালা লাগিয়ে দেন এবং শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলার পরবর্তী সরকারী নির্দেশনা না আসা পর্যন্ত কক্ষটি বন্ধ থাকবে এমন সাইনবোর্ড ঝুলিয়ে দেন। একই সাথে নিয়ম বর্হিভূত কক্ষটি ব্যবহারের কারণ জানতে ইমেজ ভিশন ট্রেনিং সেন্টারের মালিক ও ইসলামী আদর্শ একাডেমির আইসিটি শিক্ষক রফিকুল ইসলামকে তলব করেন কোরবান আলী মাদ্রাসা কমিটি। ম্যানেজিং কমিটির ডাকে রফিকুল ইসলাম সাড়া না দেয়ায় বাধ্য হয়ে কমিটির পক্ষ থেকে একটি লিখিত অভিযোগ দাখিল করেন মোংলা থানায়। 


ব্যক্তিগত ট্রেনিং সেন্টারের কাজে কেন কোরবান আলী আলিম মাদ্রাসার শেখ রাসেল ডিজিটাল ল্যাব ব্যবহার করেছেন, এমন প্রশ্নের জবাবে রফিকুল ইসলাম বলেন, তিনি ব্যক্তিগত ট্রেনিং সেন্টারের কাজে ব্যবহার করেননি। আলহাজ্ব কোরবান আলী আলিম মাদ্রাসার প্রধান মাওলানা গোলাম মোস্তফা এবং আইসিটি শিক্ষক মইন উদ্দিন বিষয়টি জানতেন। 


তবে খোঁজ নিয়ে জানা যায়, মইন উদ্দিন আলহাজ্ব কোরবান আলী মাদ্রাসার আরবি শিক্ষক। আর শাহিনুর ইসলাম ও হাসান মাহমুদ নামে দুইজন আইসিটি শিক্ষক রয়েছে ওই মাদ্রসায়।  


নাম প্রকাশে না করা শর্তে কোরবান আলী আলিম মাদ্রাসার এক শিক্ষক বলেন, মুলত কম্পিউটার ট্রেনিং সেন্টারের নামে রফিকুল ইসলাম সার্টিফিকেট বিক্রির ব্যবসা করেন। পাশাপাশি জামায়াত শিবিেিরের রাজনীতির গোপনীয় কর্মকান্ড পরিচালনা করেন। ছাত্র শিবিরের রাজনীতির সাথে এক সময় জড়িত ছিলেন তিনি। বর্তমানে সরকারী দলের ক্ষমতাবান নেতার আর্শিবাদ নিয়ে রফিকুল ইসলাম এমন নানা বিতর্কিত কর্মকান্ড চালিয়ে যাচ্ছেন। ওই ক্ষমতার দাপটে রফিকুল ইসলাম গত ২ সেপ্টেম্বর কোরবান আলী আলিম মাদ্রাসার শিক্ষক তৌহিদুল ইসলামের বাড়িতে গিয়ে তাকে হুমকি ধামকিও দেন। এবং তাদের ডিজিটাল ল্যাব ব্যবহারের কথা কেউকে না বলার জন্যও ভীতি দেখান।


এ বিষয়ে মোংলা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ ইকবাল বাহার চৌধুরী বলেন, তিনি একটি লিখিত অভিযোগ পেয়েছেন। তবে অভিযোগকারীকে এ বিষয়টি শিক্ষা অফিসারসহ যথাযথ শিক্ষা বোর্ডকেও অবহিত করার জন্যেও বলা হয়েছে। #

বীরগঞ্জে ব্রীজের নীচে এক যুবকের লাশ উদ্ধার

 বীরগঞ্জে ব্রীজের নীচে এক যুবকের  লাশ উদ্ধার



খাদেমুল ইসলাম রাজ 

বীরগঞ্জ উপজেলা প্রতিনিধিঃ


দিনাজপুর বীরগঞ্জ উপজেলায় ১১নং মরিচা ইউনিয়নের কোনপাড়া এলাকায়   আরিফ নামের এক যুবকের লাশ উদ্ধার করছেন, বীরগঞ্জ থানা পুলিশ। ৪ সেপ্টেম্বর -২০২০ শুক্রবার সকালে ব্রীজের নিচে স্থানীয়রা যুবকের লাশ দেখা পায়। মৃত যুবক হলেন – উপজেলার নিজপাড়া ইউনিয়নের দেবীপুর ডিলারপাড়া গ্রামের মৃত : আব্দুল রহিম (বাংরু) ছেলে আরফি হোসেন (২৮)।

বীরগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ আব্দুল মতিন প্রধান সাংবাদিকদের জানান, বীরগঞ্জ থানার এস আই নাজমুল ইসলাম ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশ উদ্ধার করেন। লাশ দিনাজপুর এম আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

নওগাঁর আত্রাইয়ে হঠাৎ পুকুরে মাছ মরে যাওয়ায় কোটি টাকার ক্ষতি মৎস্য চাষিদের মাথায় হাত

নওগাঁর আত্রাইয়ে হঠাৎ পুকুরে মাছ মরে যাওয়ায় কোটি টাকার ক্ষতি মৎস্য চাষিদের মাথায় হাত






মোঃ ফিরোজ হোসাইন

রাজশাহী ব্যুরো


নওগাঁর আত্রাই উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় বৈরী আবহাওয়ার কারণে পুকুর-জলাশয়ের পানিতে গ্যাসের সৃষ্টি হয়ে অক্সিজেনের অভাব দেখা দিয়েছে। এতে গত বুধবার থেকে প্রচুর মাছ মরে মৎস্যচাষিদের কোটি টাকার ক্ষতি হয়েছে। তারা নিরুপায় হয়ে মাছ ধরে এনে উপজেলার বিভিন্ন হাটে-বাজার ও আত্রাই মাছের আড়তে কম দামে বিক্রি করছে।

উপজেলা মৎস্য কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, পুকুর-জলাশয়ে বৃষ্টির পানি পড়ে অক্সিজেন সংকট দেখা দেওয়ায় উপজেলার পুকুর-জলাশয়ের মাছ মরে যাচ্ছে।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে উপজেলার বান্ধাইখাড়া, হাটকালুপাড়া, শাহাগোলা, বহলা, চাপড়া,দীঘা দমদমা,মনোয়ারীসহ বিভিন্ন এলাকার অধিকাংশ পুকুর-জলাশয়ের এ মাছ মরে যাওয়ার দৃশ্য। হাট-বাজার ও আড়ত গুলোতে গিয়ে দেখা গেছে, শত শত মৎস্যচাষিরা বাজারে মরা মাছ নিয়ে ভিড় জমিয়েছে।

বুধবার সকাল থেকে উপজেলার আহসাগঞ্জ রেলওয়ে স্টেশন বাজার মাছের টোল মুক্ত আড়ত, ভবানীপুর, নওদুলী ও বান্ধাইখাড়া মাছ বাজারসহ বিভিন্ন মাছের আড়তগুলোতে লোকজনের ভিড় লক্ষ করা গেছে। ৩ থেকে ৪ কেজি ওজনের রুই, কাতলা ও সিলভার মাছ ৪০ থেকে ৭০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হয়েছে। ক্রেতাদের প্রয়োজনের চেয়ে অতিরিক্ত মাছ ক্রয় করতে দেখা গেছে। কেউ কেউ আবার মরা মাছ দেখে না কিনেই বাড়িতে ফিরছে।

উপজেলার আহসানগঞ্জ ইউনিয়নের মৎস্যচাষী সালাম মন্ডল জানান, তার সব পুকুরের অর্ধেকের বেশি মাছ মরে গেছে। এতে তার প্রায় ১২/১৪ লক্ষ টাকার ক্ষতি হয়েছে।


হাটকালুপাড়া গ্রামের মৎস্যচাষী আসাদুজ্জামান টকি জানান, সকালে জানতে পারেন তার পুকুরের মরা মাছ ভাসছে। পরে পুকুরে গিয়ে দেখতে পান অনেক মাছ মরে ভাসছে। পরে মাছগুলো কিছু তুলে বাজারে নেয়। বাকি মাছ মরে পচে গেছে।


এ বিষয়ে উপজেলার সিনিয়র মৎস্য কর্মকর্তা পলাশ চন্দ্র দেবনাথ জানান, দুর্যোগ পরবর্তী সময়ে পুকুরগুলোতে অক্সিজেনের সল্পতা দেখা দেয়। আবার অনেক সময় বায়ুমন্ডলে যদি কোনো কারণে এসিটিক বাতাস প্রবাহিত হয় আর ঠিক ওই সময়ে বৃষ্টি হলে বৃষ্টির সঙ্গে বাতাসের এসিড মিশ্রিত হয়ে পানিতে পড়ে। আর তখন পানিতে অক্সিজেন সল্পতা দেখা দেয়। ফলে পানি বিষাক্ত হয়ে মাছ মরে ভেসে ওঠে। ক্ষতিগ্রস্ত মাছচাষিদের তালিকা প্রস্তুত করা হচ্ছে বলে জানান এক কর্মকর্তা।

ঝিনাইদহ কোটচাঁদপুরে প্রবাসীর স্ত্রীর লাশ বাগান থেকে উদ্ধার

ঝিনাইদহ কোটচাঁদপুরে প্রবাসীর স্ত্রীর লাশ বাগান থেকে উদ্ধার



খোন্দকার আব্দুল্লাহ বাশার। 

খুলনা ব্যুরো প্রধানঃঝিনাইদহের কোটচাঁদপুর থেকে নুপুর খাতুন (৩০) নামে এক প্রবাসীর স্ত্রীর লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। আজ শুক্রবার সকালে উপজেলার সাব্দারপুর ইউনিয়নের দুব্লকুন্ডো গ্রামের একটি বাগান থেকে লাশটি উদ্ধার করা হয়। নিহত নুপুর খাতুন ওই গ্রামের দুবাই প্রবাসী মোজাম্মেল ব্যাপারীর স্ত্রী।


কোটচাঁদপুর থানার ওসি মাহবুবুল আলম জানান, সকাল ১১টার দিকে দুর্গাপুর গ্রামের কবরস্থানের পাশের একটি বাগানে নুপুর খাতুনের লাশ পড়ে থাকতে দেখে এলাকাবাসী।


পুলিশ খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে তার লাশ উদ্ধার করে। এসময় নিহতের চোঁখ উপড়েনো ও গলায় ফাঁস লাগানোর চিহ্ন পাওয়া যায়।


ওসি আরও জানান, নুপুর খাতুন গতকাল বৃহস্পতিবার (৩ সেপ্টেম্বর) রাত ৮ টার দিকে বাড়ি থেকে বের হয়ে যায়। এরপর থেকেই তিনি নিখোঁজ ছিলেন।


তবে কি কারণে এই হত্যাকাণ্ড ঘটেছে তা নিশ্চিত হতে পারেনি পুলিশ।

আশাশুনি উপজেলা কৃষক দলের পক্ষ থেকে কৃষকদের মাঝে শীত কালিন সবজি বীজ বিতরন

আশাশুনি উপজেলা কৃষক দলের পক্ষ থেকে কৃষকদের মাঝে শীত কালিন সবজি বীজ  বিতরন




আহসান উল্লাহ বাবলু উপজেলা প্রতিনিধিঃ আশাশুনি উপজেলা কৃষক দলের পক্ষ থেকে  কেন্দ্রিয় নির্দেষনা ও সাতক্ষীরা জেলা কৃষকদলের পরামর্শে কৃষকদের মাঝেশীত কালিন শজ্বী বীজ  


 বিতরন করাহয়। উক্ত বিতরনের সময় উপস্থিত ছিলেন আশাশুনি উপজেলা কৃষক দলের আহ্বায়ক জনাব আমির হোসেন বাদশাহ, সদস্য সচিব মশিউর রহমান মিলটন,যুন্ম আহ্বায়ক মো:খোরশেদ আলম সহ অন্যান নেত্রীবৃন্দ।

দেশে যত্র তত্র ইবতেদায়ী মাদ্রাসার নিয়োগ নামে হাতিয়ে নিচ্ছে মোটা অংকের টাকা

 দেশে যত্র তত্র ইবতেদায়ী মাদ্রাসার নিয়োগ নামে হাতিয়ে নিচ্ছে মোটা অংকের টাকা




মোঃ আওলাদ হোসেন 

জেলা প্রতিনিধি ভোলা (দৌলতখান)


সাম্প্রতিক দেখা যায়, দেশের বিভিন্ন যায়গায় ইবতেদায়ী মাদ্রাসায় শিক্ষক নিয়োগ দিবে বলে বেশ কয়টি গ্রুপ বিশাল অংকের টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে গ্রামের অসহায় নারী পুরুষদের নিকট থেকে।

বিশেষ করে ভোলা জেলার দৌলতখান উপজেলায় এই ব্যবসাটি বেশ রমরমা ভাবেই চলছে। এক শ্রেণির দালাল চক্র অনেক গুলো মাদ্রাসা নামে বেনামে প্রতিষ্ঠান খুলে শিক্ষক নিয়োগ বানিজ্য করছে।একেকজন শিক্ষক থেকে৫০,০০০ থেকে ৩লক্ষ টাকা পর্যন্ত নিয়েছে।

যেখানে মান্য করা হয় না, কোন ধরনের নিয়ম।অথচ ইবতেদায়ী মাদ্রাসার জনবল কাঠামোতে বেশ কত গুলো শর্ত দেয়া হয়েছে। যার একটাও নেই এসকল প্রতিষ্ঠানে।যেমন প্রতিষ্ঠানটিতে কমপক্ষে ৬রুম বিশিষ্ট একটি টিনশেটের ঘর থাকতে হবে।খেলার মাঠ,দুটি টয়লেট, ও পুকুর থাকতে হবে।প্রতিষ্ঠানের নামে গ্রাম এলাকাতে ০.৩৩ একর জমির বৈধ দলীল থাকতে হবে।প্রতিবছর সমাপনী পরীক্ষাতে গ্রাম অঞ্চলে কমপক্ষে ১৫ জন ছাত্র  ছাত্রী অংশগ্রহণ করতে হবে।

প্রতিষ্ঠান কমপক্ষে ১৫০-২০০ জন ছাত্রছাত্রী থাকতে হবে।

কিছু নামধারী লোক গ্রামের সহজ সরল মানুষ গুলোকে এমপিও হবে এমন পরামর্শ দিয়ে হাতিয়ে নিচ্ছে টাকা।আর অসহায় মানুষ গুলো চাকুরী পাবে এই আশায় সুদের উপর টাকা এনে তাদের মন জয় করে।আর মানুষ চেহারার এই জানোয়াটগুলি যায় টাকার বনে।অথচ স্বাধীনতার পরে এখন পর্যন্ত কোন স্বতন্ত্র ইবতেদায়ী মাদ্রাসা এমপিও হয় নি।বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শিক্ষা বান্ধব। তিনি স্বতন্ত্র ইবতেদায়ী মাদ্রাসা এমপি ভূক্ত করার প্রকল্প হাতে নিলে আগে সরকার থেকে বেতনভুক্ত এমন প্রতিষ্ঠান গুলেকেই এমপিও ভূক্তির তালিকায় আনবেন এটাই স্বাভাবিক। 

অতএব যারা টাকা চায় তাদের কে আইনের হাতে তুলে দিন।কারন কোথাও প্রতিষ্ঠান দরকার হলে সরকার প্রতিষ্ঠান প্রতিষ্ঠা করবেন।অতএব চাকুরীর আসায় অন্ধ হবেন না।

সরকারি বাসভবনে ঢুকে বাবাসহ ইউএনওকে কুপিয়ে জখম

 সরকারি বাসভবনে ঢুকে বাবাসহ ইউএনওকে কুপিয়ে জখম





নাঈমুর রহমান স্টাফ রিপোর্টারঃদিনাজপুরের ঘোড়াঘাট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ওয়াহিদা খানম (৩৫) ও তার বাবা ওমর আলীকে কুপিয়ে গুরুতর জখম করেছে দুর্বৃত্তরা। 


আহত ইউএনও রংপুর ডক্টরস ক্লিনিকে আইসিইউতে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য এয়ার অ্যাম্বুলেন্সে ঢাকায় পাঠানো হচ্ছে বলে জানা গেছে। তার বাবা রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসাপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।


বুধবার (২ সেপ্টেম্বর) দিবাগত রাত আড়াইটার দিকে ইউএনওর সরকারি বাসভবনে এ হামলার ঘটনা ঘটে।


এদিকে ঘটনার পর উপজেলা পরিষদ চত্বর ঘিরে রেখেছে প্রশাসন। দিনাজপুর -৬ আসনের সংসদ সদস্য শিবলী সাদিক, দিনাজপুরের জেলা প্রশাসক মো. মাহমুদুল আলম, পুলিশ সুপার আনোয়ার হোসেন ঘটনাস্থলে উপস্থিত রয়েছেন।


জানা যায়, বুধবার দিবাগত রাত আড়াইটার দিকে একদল দুর্বৃত্ত ইউএনওর সরকারি আবাসিক ভবনে ঢুকে ইউএনও ওয়াহিদা খানমকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কোপাতে শুরু করে। এ সময় তার চিৎকারে তার সঙ্গে থাকা বাবা ছুটে এসে মেয়েকে বাঁচানোর চেষ্টা করলে দুর্বৃত্তরা তাকেও কুপিয়ে যখম করে।


পরে অন্যান্য কোয়ার্টারের বাসিন্দারা বিষয়টি টের পেয়ে পুলিশকে খবর দেন।


 এ সময় তাদেরকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করে প্রথমে ঘোড়াঘাট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে তাদেরকে রংপুরে পাঠানো হয়। সেখানে ইউএনও ওয়াহিদা খানমকে রংপুর ডক্টরস ক্লিনিকে আইসিইউতে ও তার বাবাকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসাপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।


ঘোড়াঘাট থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আমিরুল ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, ঠিক কি কারণে এ ঘটনা ঘটেছে তা জানা যায়নি। বিষয়টি তদন্ত করা হচ্ছে।

ঘোড়াঘাটে ইউএনও উপর হামলার প্রধান আসামী আসাদুল ইসলাম আটক

ঘোড়াঘাটে ইউএনও উপর হামলার প্রধান আসামী আসাদুল ইসলাম আটক




সিপন,স্টাফ রিপোর্টারঃদিনাজপুরের ঘোড়াঘাট উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ওয়াহিদা খানম ও তার বাবার ওপর হামলার ঘটনায় প্রধান আসামি আসাদুল ইসলামকে (৩৫) নামের একজনেক আটক করতে সক্ষম হয়েছে র‍্যাব।

শুক্রবার ভোর পাঁচটার দিকে হাকিমপুর উপজেলার কালীগঞ্জ থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। আটকের পর আসাদুলকে রংপুরে নিয়ে গেছে র‍্যাব। আসাদুল ঘোড়াঘাট উপজেলার ওসমানপুর (সাগরপুর) গ্রামের আমজাদ হোসেনের ছেলে।

আটকের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন হাকিমপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ওয়াহিদ ফেরদৌস।

তিনি আরো জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে হাকিমপুর, বিরামপুর ও ঘোড়াঘাট থানা এবং র‌্যাবের একটি দল যৌথভাবে বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালায়। অভিযানের এক পর্যায়ে ভোর ৪টা ৫০ মিনিটে কালীগঞ্জ এলাকা থেকে আসাদুলকে আটক করা হয়।

আশাশুনিতে সাংবাদকি পরিচয়ে চাঁদাবাজী করতে গিয়ে মোটর সাইকেল ফেলে পলায়ন

 আশাশুনিতে সাংবাদকি পরিচয়ে চাঁদাবাজী করতে গিয়ে মোটর সাইকেল ফেলে পলায়ন

 


আহসান উল্লাহ বাবলু উপজেলা  প্রতিনিধিঃ      আশাশুনি উপজেলার বুধহাটায় সাংবাদিক পরিচয়ে নিকাহ রেজিস্ট্রারের কাছে চাঁদাবাজী করতে গিয়ে ৪ জন মটর সাইকেল ফেলে পালিয়েছেন। বৃহস্পতিবার বিকালে বুধহাটা ইউনিয়নের বেউলা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। 


থানা সূত্র ও নিকাহ রেজিস্ট্রার আঃ আলিম জানান, বৃহস্পতিবার বিকার ৩.৩০ টার দিকে সাতক্ষীরা থেকে আব্দুল মান্নান, হাফিজুর রহমান, মোশাররফ হোসেন ও রবিউল ইসলাম বেউলা গ্রামে নিকাহ রেজিস্ট্রারের বাড়িতে গিয়ে উপস্থিত হন। তারা নিজেদেরকে টিভি চ্যানেল থেকে এসেছে (সাংবাদিক) পরিচয় দিয়ে বাল্য বিবাহসহ বিভিন্ন বিবাহ সংক্রান্ত তথ্য চাওয়ার ছলে টাকা দাবীর চেষ্টা করে। বিষয়টি আচ করতে পেরে নিকাহ রেজিস্ট্রার উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার এক পর্যায়ে তারা মটর সাইকেল নিয়ে কেটে পড়ার চেষ্টা করলে চাবি কেড়ে নেওয়া হয়। তখন কৌশলে সাংবাদিক নামধারীরা মটর সাইকেল পেলে পালিয়ে যায়। এব্যাপারে থানাকে অবহিত করলে পুলিশ মটর সাইকেল দু’টি থানা হেফাজতে নিয়েছে। এব্যাপারে মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছিল। চক্রটি ইতিপূর্বে শোভনালী, আশাশুনি সদর ও কালিগঞ্জ উপজেলাসহ বিভিন্ন স্থানে নিকাহ রেজিষ্ট্রারদের কাছে চাঁদাবাজী করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপস্থিতিতে এডমিরাল র‌্যাংক ব্যাজ পরানো হলো নৌবাহিনী প্রধানকে

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপস্থিতিতে   এডমিরাল র‌্যাংক ব্যাজ পরানো হলো নৌবাহিনী প্রধানকে





নিউজ ডেস্কঃ  প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপস্থিতিতে আজ সকালে গণভবনে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে নৌবাহিনী প্রধান ভাইস এডমিরাল মোহাম্মদ শাহীন ইকবালকে এডমিরালের নতুন র‌্যাংক ব্যাজ পরিয়ে দেয়া হয়েছে।


প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব ইহসানুল করিম জানান, সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল আজিজ আহমেদ ও বিমান বাহিনী প্রধান এয়ার চিফ মার্শাল মসিউজ্জামান সেরনিয়াবাত নতুন নৌবাহিনী প্রধানকে এডমিরালের র‌্যাংক ব্যাজ পরিয়ে দেন।


প্রেস সচিব আরো জানান, ব্যাজ পরানোর অনুষ্ঠান শেষে নতুন নৌবাহিনী প্রধান প্রধানমন্ত্রীর সাথে সাক্ষাত করেন। এ সময়ে প্রধানমন্ত্রী দায়িত্ব পালনে নৌবাহিনী প্রধানের সাফল্য এবং তাকে এ ব্যাপারে সব ধরণের সহযোগিতার আশ্বান দেন।


অনুষ্ঠানে এ সময়ে সশস্ত্র বাহিনী বিভাগের প্রিন্সিপাল স্টাফ অফিসার (পিএসও) লেফটেন্যান্ট জেনারেল মোহাম্মদ মাহফুজুর রহমান এবং প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ের সচিব মো. তোফাজ্জল হোসেন মিয়া উপস্থিত ছিলেন।


এর আগে সরকার সহকারী নৌবাহিনী প্রধান (অপারেশন্স) রিয়ার এডমিরাল মোহাম্মদ শাহীন ইকবালকে নতুন নৌবাহিনী প্রধান (চিফ অব ন্যাভাল স্টাফ-সিএনএস) হিসেবে নিয়োগ দেয়।


গত ১৮ জুলাই প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় এ সংক্রান্ত একটি গেজেট নোটিফিকেশান প্রকাশ করে। এতে বলা হয়, এই নিয়োগ ২৫ জুলাই অপরাহ্ন থেকে কার্যকর হবে এবং মোহাম্মদ শাহীন ইকবাল ভাইস এডমিরাল পদে উন্নীত হবেন।

গত ২৬ জুলাই গণভবনে প্রধানমন্ত্রীর উপস্থিতিতে এক অনুষ্ঠানে তাকে ভাইস এডমিরালের র‌্যাংক ব্যাজ পরিয়ে দেয়া হয়।


নোটিফিকেশানে বলা হয়, মোহাম্মদ শাহীন ইকবাল ২০২৩ সালের ২৪ জুলাই পর্যন্ত তিন বছর নৌবাহিনী প্রধান হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন। তিনি সাবেক নৌ বাহিনী প্রধান এডমিরাল আওরঙ্গজেব চৌধুরীর স্থলাভিষিক্ত হলেন। আওরঙ্গজেব চৌধুরী ২৫ জুলাই অবসরে যান।

পটিয়া কর্মরত সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময় সভায় এসিল্যান্ড ইনামুল হাসান

 পটিয়া কর্মরত সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময় সভায় এসিল্যান্ড ইনামুল হাসান





আরিফুল ইসলাম,পটিয়াঃ-চট্টগ্রামের উপজেলা সহকারী কমিশনার ভূমি ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্র্যাট ইনামুল হাসান, ৩ সেপ্টেম্বর বৃহস্পতিবার  দুপুরে পটিয়ার কর্মরত সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময়কালে        বলেছেন, মাঠ পর্যায়ে সরকারের একজন প্রতিনিধি হিসেবে সহকারী কমিশনারদের দায়িত্ব হলো রাষ্ট্রের সম্পত্তির সংস্কার,সংরক্ষন ও রক্ষণাবেক্ষণ করা।তিনি  তাঁর কার্যালয়ে গণমাধ্যম কর্মীদের সাথে মতবিনিময় সভায় এসব কথা বলেন। পটিয়ার প্রশাসনিক ঐতিহ্য তুলে ধরে তিনি বলেন, ব্রিটিশ আমল থেকেই  পটিয়া মহাকুমা প্রশাসনিক মর্যাদা লাভ করে। সে কারণে পটিয়ার আলাদা একটা প্রশাসনিক মর্যাদা রয়েছে। পটিয়ার    খাসমহলে অবস্থিত পটিয়া ভূমি অফিস শত বছরের ঐতিহ্য নিয়ে বিশাল জমির উপর প্রতিষ্ঠিত।  প্রায় ৪ একর ভূমির উপর পটিয়া ভূমি অফিস, মসজিদ, পুকুর ও বাড়ি রয়েছে। এইসবের  এলাকাটির সীমানা প্রাচীর না থাকায় অফিস ও বাড়িগুলোতে বসবাসকারী সরকারি কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের পরিবারের জন্য নিরাপদ নয়।নতাছাড়া দক্ষিন,পূর্ব ও পশ্চিমাংশে কিছু এলাকা বেদখল হয়ে গেছে।এমতাবস্থায় পটিয়া ভূমি অফিসের সীমানা প্রাচীর নির্মাণের জন্য উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের কাছে প্রস্তাব পাঠানো হয়েছে বলে জানান।   ভূমি অফিসের অভ্যন্তরে বাড়িগুলোতে নয়টি পরিবার বসবাস করে। ১৯৯১ সালে এই বাড়িগুলো পরিত্যক্ত ঘোষণা করা হয়েছিল বর্তমানে যারা বসবাস করছেন তারা কেউ এগুলোর জন্য সরকারি কোষাগারে ভাড়া পরিশোধ করেন না।  সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে তিনি জানান,  বাড়িগুলো মহকুমা থাকার সময় ম্যাজিস্ট্রেট কলোনী হিসেবে পরিচিতি । এখন তিনি ছাড়াও একজন সিনিয়র সহকারী জজ সেখানে বসবাস করেন। ম্যাজিস্ট্রেট কলোনিতে তৃতীয় ও চতুর্থ শ্রেণীর কর্মচারীরা কর্মকর্তাদের সাথে সমমানের বাসায় কিভাবে থাকেন জানতে চাইলে তিনি বলেন তারা আগে থেকেই সেখানে বসবাস করে আসছেন। মতবিনিময় সভায় উপস্থিত ছিলেন, প্রবীণ সাংবাদিক হারুনুর রশিদ সিদ্দিকী, আবদুল হাকিম রানা, জাহাঙ্গীর আলম, নুরুল ইসলাম, বিকাশ চৌধুরী, আবেদুজ্জামান আমিরী, সেলিম চৌধুরী, নুর হোসেন,সুজিত দত্ত, রবিউল আলম, গোলাম কাদের, কামরুল, তাপস দে, ফারুক বিঞ্জু সহ আরোও অনেক উপস্থিতছিলেন।     ইনামুল হাসান গণমাধ্যম কর্মীদের সহযোগিতা প্রত্যাশা করে বলেন, কারো সাথে বিরোধ নয়, সুসম্পর্ক নিয়ে থাকতে চান। ভূমি অফিসের যেকোন সংবাদ  করার সময় তার বক্তব্য নেয়ার আহবান জানান।