নওগাঁর বদলগাছীতে বিভিন্ন স্থান থেকে ইয়াবা ও চোলাই মদসহ ৫ জন গ্রেফতার

  নওগাঁর বদলগাছীতে বিভিন্ন স্থান থেকে ইয়াবা ও চোলাই মদসহ ৫ জন গ্রেফতার

 



রহমত উল্লাহ বদলগাছী উপজেলা নওগাঁ রাজশাহী। 

 নওগাঁর বদলগাছীতে বিভিন্ন স্থান থেকে ইয়াবা ও চোলাই মদসহ ৫ জন গ্রেফতার।

নওগাঁ জেলা বদলগাছী উপজেলার বিভিন্ন স্থান হতে ইয়াবা ও চোলাই মদসহ ৫ জনকে আটক করেন  পুলিশ ।

এ যেন এক বিকলঙ্গ সমাহার দফায় দফায় মাদক চোরা চালানি 

অতিষ্ঠ এলাকাবাসী ও প্রশাসন।

 এক বিবৃতিতে জানাজায় ৪ সেপ্টেম্বর রাতে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে এসআই আবু শামা ওএসআই মন্জু মিয়াঁ ও সঙ্গী ফোর্স সহ অভিযান চালিয়ে ৩ নং পাহাড়পুর ইউপির  বিভিন্ন স্থান হতে মাদক ব্যবসায়ীদের আটক করেন

আটক কৃত আসামি ধর্মপুর গ্রামের আব্দুল ওয়াহাবের ছেলে রুবেল হোসেন (৩৪) কে ৫ লিটার চোলাই মদসহ আটক করেন

ও ৩ নং পাহাড়পুর ইউনিয়ন রসুলপুর গ্রামের রিপনের স্ত্রি রুমা আক্তার (৩৩) জয়পুরহাট জেলার সদর থানার টেকড়া গ্রামের বেলালের স্ত্রী পারুল বেগম (৩৫) ও নুরুল হুদার ছেলে আলাউদ্দিন  (৫৫) কে আটক  করেন।

এবং  ৩ নং পাহাড়পুর ইউনিয়ন এর চাপাডাল গ্রামের আব্দুর রহমানের ছেলে আনিসুর কে ৩০ পিস ইয়াবা সহ আটক করেন চাপাডাল কোল্ড স্টোরের সামনে হতে। 


 ও ঘটনাস্থল হতে  চোলাই মদ তৈরীর বিপুল পরিমাণ  উপকরণ জব্দ করা হয়।

ঘটনাটির সত্যতা যাচাইয়ের চৌধুরীর জুবায়ের আহমেদ বিষয়টির  সত্যতা নিশ্চিত করে  বলেন নওগাঁ জেলার বদলগাছী থানাতে মাদক নিয়ন্ত্রণ আইনে পৃথক পৃথক তিনটি মামলা করা হয়

সিরাজগঞ্জে ইসলামিক ফাউণ্ডেশনের প্রশিক্ষণ কর্মশালায় সনদ বিতরণে -এসপি হাসিবুল আলম

 সিরাজগঞ্জে ইসলামিক ফাউণ্ডেশনের প্রশিক্ষণ  কর্মশালায়  সনদ  বিতরণে  -এসপি হাসিবুল আলম





 মাসুদ রানা সিরাজগঞ্জ জেলাপ্রতিনিধিঃ প্রতিনিধিঃসিরাজগঞ্জের মসজিদ ভিত্তিক শিশু ও গণ শিক্ষা কার্যক্রমের শিক্ষক ও অভিভাবকদের পরামর্শ সভা (উঠান বৈঠক) বাস্তবায়ন বিষয়ক ২ দিন ব্যাপী ( টি ও টি) প্রশিক্ষণ কর্মশালায় সমাপনী ও সনদ পত্র বিতরণ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

ইসলামিক ফাউন্ডেশন সিরাজগঞ্জ জেলা কার্যালয়ের আয়োজনে  শনিবার  (৫ সেপ্টম্বর) জেলা পরিবার পরিকল্পনা হল রুমে ইসলামিক ফাউন্ডেশন সিরাজগঞ্জের উপ পরিচালক মো: ফারুক আহম্মেদের সভাপতিত্বে ওই প্রশিক্ষণ কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে প্রশিক্ষনার্থীদের মাঝে 

সনদ  বিতরণ  করেন পু‌লিশ সুপার হা‌সিবুল আলম বি‌পিএম।এ সময় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান একটি স্বাধীন, শোষণ ও দারিদ্র্যমুক্ত বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠার স্বপ্ন দেখেছিলেন। এ জন্য তিনি আজীবন সংগ্রাম করেছেন। বঙ্গবন্ধু অনুধাবন করেছিলেন সোনার বাংলাদেশ গড়তে নৈতিক বোধসম্পন্ন মানুষ তৈরি করা জরুরি। আর এই চিন্তা থেকেই বঙ্গবন্ধু ইসলামিক ফাউন্ডেশন প্রতিষ্ঠা করেন। ইসলামিক ফাউন্ডেশন জাতির পিতার সেই স্বপ্ন পূরণে আলোকিত মানুষ তৈরির কাজ করে যাচ্ছে।

বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন,জেলা পরিবার পরিকল্পনার উপ পরিচালক মো: তারিকুল ইসলাম, ইসলামিক ফাউন্ডেশন সিরাজগঞ্জের সহকারী পরিচালক মো: মিরাজুল ইসলাম প্রমূখ।

এসময় বঙ্গবন্ধু  শেখ  মুজিবুর  রহমান  এবং  সকল শহীদের  আত্মার  মাগফিরাত  কামনা করে দোয়া ও মোনাজাত  করেন ইসলামিক ফাউণ্ডেশনের মোহাম্মদ  শাহীন সরকার

যশোর ব্যাটালিয়ন (৪৯ বিজিবি) অভিযানে অস্ত্র ও গাঁজা সহ আটক - ৩

যশোর ব্যাটালিয়ন (৪৯ বিজিবি) অভিযানে অস্ত্র ও গাঁজা সহ আটক - ৩



 




খোন্দকার আব্দুল্লাহ বাশার। 

খুলনা ব্যুরো প্রধান। 

বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) কর্তৃক যশোর সীমান্ত হতে ভারতীয় ১১টি পিস্তল, ২২টি ম্যাগাজিন, গুলি ৫০ রাউন্ড এবং ১৪ কেজি গাঁজাসহ ০৩ জন আসামী আটক 


শনিবার ৫ সেপ্টেম্বর বিকাল সাড়ে ৩ টার সময়  গোপন তথ্যের ভিত্তিতে  বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) এর যশোর রিজিয়নের যশোর ব্যাটালিয়ন (৪৯ বিজিবি) এর আওতাধীন রঘুনাথপুর বিওপিতে কর্মরত হাবিঃ সিগঃ মোঃ মিজানুর রহমান এর নেতৃত্বে একটি বিশেষ অভিযান পরিচালনা করা হয়। উক্ত অভিযানে মেইন পিলার ২১/৬ এস হতে আনুমানিক ৮০০ গজ বাংলাদেশের অভ্যন্তরে ২নং ঘিবা নামক স্থান  হতে ভারতীয় ১১ টি পিস্তল, ২২ টি ম্যাগাজিন, ৫০ রাউন্ড গুলি এবং ১৪ কেজি গাঁজাসহ ০৩ জন আসামী আটক করা হয়। আটককৃত আসামীদের নাম (১) মোঃ সাজজুল (৩০), পিতা-মোঃ এজুবার মিয়া, গ্রাম-ঘিবা, পোষ্ট-ধান্যখোলা, থানা-বেনাপোল পোর্ট, জেলা-যশোর, (২), মোঃ আলমগীর হোসেন (৪০), পিতা-মৃত-সাবেদ আলী, গ্রাম-সর্বাঙ্গহুদা, ডাকঘর-ধান্যখোলা, থানা-বেনাপোল পোর্ট, জেলা-যশোর, (৩) মোঃ আনারুল ইসলাম (৩৫), পিতা-মোঃ শহিদ বিশ্বাস, গ্রাম-সর্বাঙ্গহুদা, ডাকঘর-ধান্যখোলা, থানা-বেনাপোল পোর্ট, জেলা-যশোর। 


আটককৃত ভারতীয় অস্ত্র, গোলাবারুদ এবং গাঁজাসহ আসামীদের  বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

"মানুষের মুখে হাসি ফুটাতে রাজনীতিতে আসি" - ইউসুফ আবদুল্লাহ হারুন, এমপি

"মানুষের মুখে হাসি ফুটাতে   রাজনীতিতে আসি"  - ইউসুফ আবদুল্লাহ হারুন, এমপি



শাহ আলম জাহাঙ্গীর 

ব্যুরো চিফ, কুমিল্লা


মানুষকে কিছু দিয়ে  মানুষের মুখে হাসি ফুটাতে আমি রাজনীতিতে আসি। নিতে নয়। করোনার দুঃসময়ে ও এলাকার উন্নয়নে মানুষের পাশে থেকে সাহায্য করেছি। শিক্ষা, কৃষি,  বিদ্যুৎ, যোগাযোগ ক্ষেত্রে অনেক উন্নয়ন করেছি।  প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দূরদর্শী নেতৃত্বে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে।

সম্প্রতি মুরাদনগরের ঐতিহ্যবাহী রামচন্দ্রপুর বাজারে

অগ্নিকান্ডে ক্ষতিগ্রস্ত  দোকান মালিকদের মাঝে নির্মান সামগ্রী  ক্রয়ে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয় কর্তৃক বরাদ্দকৃত চেক বিতরণকালে আজ

শনিবার বিকেলে রামচন্দ্রপুর কেন্দ্রীয় জামে মসজিদ প্রাঙ্গনে অনুষ্ঠিত এক জনসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে স্থানীয় সাংসদ আলহাজ্ব ইউসুফ আবদুল্লাহ হারুন, এফসিএ এ কথা বলেন।

উপজেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি আলহাজ্ব আবুল হাসেম হাসুর সভাপতিত্বে অন্যান্যদের মধ্যে

বক্তব্য রাখেন কুমিল্লা উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের 

সভাপতি ম. রুহুল আমিন, মুরাদনগর উপজেলা

 পরিষদ চেয়ারম্যান ড. আহসানুল আলম সরকার কিশোর, সাবেক উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান  আলহাজ্ব হারুন আল রশিদ, ইউএনও অভিষেক দাশ, মুক্তিযোদ্ধা মোহাম্মদ হানিফ সরকার, সাবেক উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মো. রফিকুল ইসলাম,কুমিল্লা উত্তর জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ইসমাইল হোসেন,চেয়ারম্যান কামালউদ্দিন,

রামচন্দ্রপুর উত্তর ইউপি আওয়ামীলীগের সভাপতি হাজি জীবন মিয়া, আলহাজ্ব গোলাম তৌহিদ মোবারক ,  আবু হানিফ মেম্বার প্রমুখ।তাছাড়া সভায় জেলা পরিষদের সদস্য বিশ্বজিত,  সাবেক সদস্য নাসির উদ্দিন শিশির,  ভিপি জাকির হোসেনসহ অন্যান্য নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন। বক্তারাএলাকার উন্নয়নে সাংসদের প্রতি জোর দাবি

করেন। 

প্রধান অতিথি বাজারের হারানো ঐতিহ্য নিয়ে দুঃখপ্রকাশ করে বলেন, অতীতের কথা ভুলে গিয়ে সকলে আওয়ামীলীগের পতাকাতলে  সুশৃঙ্খলভাবে ঐক্যবদ্ধ হোন। এলাকায় সন্ত্রাস,  চাঁদাবাজি,  মাদক

কোনোভাবে সহ্য করা হবে না। একসময় এ বাজার নিয়ে গর্ব হতো।  তিনি বাজার উন্নয়নের জন্য ৪ কোটি টাকার নবসূচনার একটি কর্মপরিকল্পনা বাস্তবায়নের আশ্বাস প্রদান করেন।

সম্প্রতি প্রয়াত ইউপি চেয়ারম্যান  আলহাজ্ব ছফু মিয়া সরকারের স্মরণে  এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয়।

হবিগঞ্জে ভূমি অধিগ্রহনে আটকে আছে ৭০ বছরের স্বপ্ন

 হবিগঞ্জে ভূমি অধিগ্রহনে আটকে আছে ৭০ বছরের স্বপ্ন


লিটন পাঠান, হবিগঞ্জ জেলা প্রতিনিধিঃহবিগঞ্জ জেলা চুনারুঘাট উপজেলায় প্রায় ৭০ বছর আগে ভারত-বাংলাদেশ সীমান্তের বাল্লা নামক স্থানে স্থলবন্দর চালু করা হয়েছিল। কিন্তু নানান জটিলতায় কিছুদিন পরই তা বন্ধ হয়ে যায়। ১৯৯১ সালে আবার চালু হয় ৪ দশমিক ৩৭ একর জায়গা নিয়ে গড়ে উঠা এই স্থলবন্দর। কিন্তু সংশ্লিষ্ট বিভাগের গড়িমসির কারণে স্থলবন্দর হিসেবে এখনো পূর্ণাঙ্গ রূপ পায়নি। বর্তমানে পণ্য আমদানি-রপ্তানি করা হচ্ছে নৌকায় বা মাথায় করে। ১৯৫১ সালে চালু হওয়া এই স্থলবন্দর দুই দেশের সীমান্তকে বিভক্ত করা খোয়াই নদীর 


কারণেই মূলত নজর কাড়তে পারেনি ব্যবসায়ীদের। মাঝেমধ্যে সিমেন্ট রসুন হদুল শুটকিসহ বিভিন্ন পণ্য আমদানি-রপ্তানি হয়ে থাকে। বর্ষা মৌসুমে নৌকা আর শুকনো মৌসুমে শ্রমিকরা মাথা ও কাঁধে করে পণ্য এপার থেকে ওপার করে থাকেন। ফলে একদিকে ঝুঁকি অন্যদিকে আমদানি-রপ্তানিকারকদের অতিরিক্ত অর্থ ব্যয় হচ্ছে। ব্যবসায়ীদের দাবি ছিল আধুনিকায়ন করা হলে এই স্থলবন্দরের মাধ্যমে দুই দেশের ব্যবসা-বাণিজ্যের প্রসার ঘটতো। কিন্তু দীর্ঘ ৭০ বছরেও বন্দরটি আধুনিকায়নের কোন লক্ষণই দেখছেন না স্থানীয়রা।


একের পর এক জটিলতার কারণে মুখ থুবড়ে পড়ে আছে হবিগঞ্জবাসীর দীর্ঘদিনের এই স্বপ্ন। দীর্ঘ প্রতিক্ষার পর জায়গা সংক্রান্ত জটিলতার অবসান ঘটাতে বাল্লা ছেড়ে কেদারাকোট এলাকায় নজর দেয় দুই দেশের বাণিজ্য মন্ত্রণালয়। সেই মোতাবেক ২০১২ সালের ১১ জুন দুই দেশের বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের যৌথ প্রতিনিধিদল কেদারাকোট এলাকাটি পরিদর্শন করে কিন্তু তখনও এর সমাধান খুঁজে পাওয়া যায়নি পরবর্তীতে আবারও কয়েক দফা পরিদর্শন করেন বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তারা পরিদর্শন শেষে উভয়পক্ষই 


কেদারাকোটে স্থলবন্দর করার ব্যাপারে একমত হয়। ২০১৭ সালে ৮ জুলাই স্থলবন্দর কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান তপন কুমার চক্রবর্তী হবিগঞ্জে এক মতবিনিময় সভায় জানান, ওই বছরে একনেক সভায় স্থলবন্দর প্রতিষ্ঠার অনুমোদন পেয়েছে। অবকাঠামো তৈরির জন্য অর্থও বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। ২০১৮ সালের জুলাইয়ে স্থলবন্দর কর্তৃপক্ষ হবিগঞ্জ জেলা প্রশাসকের কাছে ২১ একর জমি অধিগ্রহণের প্রস্তাব পাঠায়।


প্রস্তাবিত জমিতে বসতবাড়ি থাকায় আপত্তি জানান স্থানীয়রা এ অবস্থায় থমকে যায় পুরো প্রক্রিয়াই। তবে ২০১৯ সালের ৩০ জানুয়ারি প্রশাসন ও বন্দর কর্তৃপক্ষের সমন্বয়ে স্থলবন্দরের জন্য ১৩ একর ভূমি অধিগ্রহণে ভ‚মি জরিপ সম্পন্ন করা হয়। অভিযোগ রয়েছে এলাকার প্রভাবশালীরা অধিক মুনাফার লোভে স্থলবন্দরের আশপাশের জমি ও অধিগ্রহণের আওতাধীন সব জমি আগেভাগে কম দামে কিনে নিয়েছেন। 


এখন সেই জমির দাম কয়েকগুণ বেশি দাবি করায় বন্দর কর্তৃপক্ষ জমি অধিগ্রহণে উৎসাহ হারিয়ে ফেলেছে। যার কারণে বাল্লা বন্দর প্রতিষ্ঠা মুখ থুবড়ে পড়েছে। এ ব্যাপারে চুনারুঘাট-মাধবপুর আসনের সংসদ সদস্য বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন প্রতিমন্ত্রী  অ্যাডভোকেট মাহবুব আলী বলেন, বাল্লা স্থলবন্দর হবিগঞ্জের জন্য বড় ধরনের একটি পাওয়া যার কাজ অচিরেই শুরু হবে।


করোনা মহামারী পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলেই নিয়মতান্ত্রিক প্রক্রিয়ায় কাজ চলবে। খুব দ্রুত জমি অধিগ্রহণ জটিলতা নিরসন হবে। হবিগঞ্জের এডিসি (রাজস্ব) তারেক মোহাম্মদ জাকারিয়া বলেন বাল্লা স্থলবন্দরের জায়গার দাম নির্ধারণ করে মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়েছে টাকা পেলে পরবর্তী প্রক্রিয়া শুরু হবে।

যুব স্বেচ্ছাসেবক লীগ চট্টগ্রাম জেলা কমিটির মাসিক সমন্বয় সভা অনুষ্ঠিত

 যুব স্বেচ্ছাসেবক লীগ চট্টগ্রাম জেলা কমিটির মাসিক সমন্বয় সভা অনুষ্ঠিত




রিয়াজুল করিম রিজভী

চট্টগ্রাম ব্যুরো প্রধান


বাংলাদেশ আওয়ামী যুব স্বেচ্ছাসেবক লীগ চট্টগ্রাম জেলা কমিটির মাসিক সমন্বয় সভা ০৪/০৯/২০২০ খ্রিস্টাব্দ তারিখে বিকাল ৪ ঘটিকায় টাইগারপাস মাজার কলোনি সমাজ কল্যাণ অফিসে জেলা কমিটির সম্মানিত সভাপতি মোঃ আবদুল্লাহ এর সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক মোঃ নাছির উদ্দীনের সঞ্চালনায় পবিত্র কোরআন তিলাওয়াত এবং গীতা পাঠের মাধ্যমে অনুষ্ঠিত হয়। সভায় উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামী যুব স্বেচ্ছাসেবক লীগ চট্টগ্রাম জেলা কমিটির সহ সভাপতি জাহেদা বেগম, বাংলাদেশ আওয়ামী যুব স্বেচ্ছাসেবক লীগ চট্টগ্রাম জেলা কমিটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক যীশু দে, সহ সম্পাদক সাংবাদিক শাহনাজ পারভীন,সহ সম্পাদক মোঃ নুরুল আলম, অর্থ সম্পাদক মোঃ মোশাররফ হোসেন, সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ শাহজালাল রানা, দপ্তর সম্পাদক রোকন উদ্দিন জয়, মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সম্পাদক এ্যাংলো দাশ গুপ্ত, ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক মোঃ মোশাররফ হোসাইন, আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক মোঃ ইলিয়াস, শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার অমল রুদ্র ,  শিল্প ও বাণিজ্য বিষয়ক সম্পাদক ডাঃ দিবাকর চন্দ্র দাস, যুব ও ক্রিড়া বিষয়ক সম্পাদক বিপ্লব দাশ,স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা আয়াজ শাহীন, মোঃ সাইদুল ইসলাম, মোঃ মোস্তফা আলী, মোঃ নাছির উদ্দিন, মোঃ কামাল উদ্দিন, মোঃ হেলাল উদ্দিন, মোঃ হারুন রশিদ, বিপ্লব নন্দী, মোঃ সাহাব উদ্দিন, প্রকাশ দাশ, জুয়েল চন্দ্র দাস, মোঃ হাবিব আহমদ প্রমুখ।

বাংলাদেশ তৃণমূল সাংবাদিক কল্যাণ সংগঠন রংপুর বিভাগের অনুমোদন

বাংলাদেশ তৃণমূল সাংবাদিক কল্যাণ সংগঠন রংপুর বিভাগের অনুমোদন



খাদেমুল ইসলাম রাজ 

বীরগঞ্জ উপজেলা প্রতিনিধিঃ


কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি অর রশিদ ও সাধারণ-সম্পাদক রাসেল হোসেন,অর্থ-সম্পাদক এস কে সুমন মাহমুদ, আড়াপাড়া মাদ্রাসা সংলগ্ন সাভার (আশুলিয়া) কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে,০৩/০৯/২০২০ তারিখে রংপুর বিভাগীয় আহ্বায়ক কমিটি অনুমোদন দেয়া হয়েছে ।


আগামী এক বছরের জন্য প্রদীপ কুমার রায় কে আহ্বায়ক করে ও ৭ জন যুগ্ন-আহ্বায়ক ও১ জন সদস্য সচিব এবং ৩৬ জন সদস্য বিশিষ্ট কমিটির লিখিত সাক্ষরের মাধ্যমে মোট ৪৫ জনের অনুমোদন দেয়া হয়। অদ্যকার রংপুর বিভাগে অনুমোদিত কমিটির প্রদীপ কুমার রায় আহ্বায়ক,যুগ্ন-আহ্বায়ক শেখ শফিকুল ইসলাম, খাদেমুল ইসলাম,সাদেকুল ইসলাম সুবেল,দূর্লভ কুমার রায়,লুৎফর রহমান,সিরাজুল ইসলাম,পি.কে রায় এবং সদস্যা সচিব নয়ন দাস কে মনোনীত করা হয়। কমিটি উল্লেখ করেন যে সারদেশের সকল সাংবাদিক ভাইদের কল্যাণে ও দুঃসময়ে পাশে থেকে সকল রকম সহযোগিতা করার প্রত্যয়ে এ সংস্থাটির শোভাযাত্রা শুরু হয়েছে।খুব তারা সারাদেশের বিভাগে,জেলায় ও থানায় কমিটি অনুমোদন গঠন করা হবে।

বিরল প্রেস ক্লাবের ১ম তলা ভবনের শুভ উদ্বোধন

বিরল প্রেস ক্লাবের ১ম তলা ভবনের শুভ উদ্বোধন

মামুনুর রশিদ,দিনাজপুর প্রতিনিধি ঃ নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌদুরী এমপি বলেন, আজ জমির দলিল হস্তান্তর এবং ভবন উদ্বোধন করা হলো। এটা আমাদের বিরলের আপামর জনসাধারণের জন্য এবং সাংবাদিকদের জন্য একটি মাইলফলক হিসাবে আজকের এই দিনটি থাকবে। আজকের এই দিনে বিরল প্রেস ক্লাব নবযাত্রা শুরু করলো। একটি স্থায়ী ঠিকানা, প্রত্যেকটি নাগরিক বলেন, ব্যক্তি বলেন, প্রতিষ্ঠান বলেন, এটা খুবই একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। এর আগে যখনই আপনারা স্থান্তারিত হয়েছেন, তখনই ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছেন। কাজের গতি বেগ পেয়েছে। সাংবাদিকদের মধ্যে অনেক সময় মনমালিন্য সৃষ্টি হয়েছে। এখন যেহেতু একটি স্থায়ী জায়গায় আমরা চলে আসলাম, সেহেতু ধীরে ধীরে এ সংগঠনের কাজের গতি বৃদ্ধি পাবে বলে আমি বিশ্বাস করি। এখন সাংবাদিকতার মান বৃদ্ধি পাবে। জেলার মধ্যে বিরল প্রেস ক্লাব অগ্রগামী ভূমিকায় আছেন। আপনাদের প্রতি অনুরোধ, আপনাদের লেখনীর মাধ্যমে কারো মান মর্যাদা সহযেই যেন ক্ষুন্ন না হয়। সঠিক বিষয়টি যেন আপনাদের মাধ্যমে উঠে আসে। প্রকৃত তথ্য আপামর জনগণ যেন সহজেই আপনাদের মাধ্যমে জানতে পারে।

তিনি আরো বলেন, আমাদের নেত্রী এমন একজন নেত্রী, তাঁর সাথে দীর্ঘদিন আমার কাজ করার সুযোগ হয়েছে। আমি দেখেছি তিনি কখনই গণমাধ্যমকে এড়িয়ে যান না। অনেক সময় গণমাধ্যম সমালোচনা করলেও তিনি সেই সমালোচনাটাকে গ্রহণ করেন। সঠিক বস্তুনিষ্ঠ সাংবাদিকতায় তিনি সবসময় উৎসাহ প্রদান করেন। আমরা চাই বাংলাদেশের গণমাধ্যম স্বাধীনভাবে কাজ করুক এবং গত ১০ বছরে আমরা দেখেছি গণমাধ্যম কিভাবে উন্মুক্তভাবে কাজ করেছে। উন্মুক্ত ও স্বাধীনভাবে কাজ করার মানে এই নয় যে আমরা নীতি নৈতিকতা বিসর্জন দিয়ে, বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধ এবং গণতন্ত্র ও সঠিক ইতিহাসকে অপব্যাখ্যা দিয়ে সংবাদ পরিবেশন করবো। স্বাধীনতা মানে এই নয় যে আমি লাগামহীন কথাবার্তা বা লেখালেখি উপস্থাপন করবো। স্বাধীনতা মানে এই নয় যে, আমি আরেকজন সাধারণ মানুষকে ব্যক্তি চরিতার্থ করবো। স্বাধীনতা হচ্ছে এটাই, যেটা মানুষকে অর্থবহ করে তুলে, মানুষকে আরো সমৃদ্ধ করে তুলে। আমি মনে করি গণমাধ্যমের এটাই পাথেয় হওয়া উচিৎ এবং সেই পথেই চলা উচিৎ। 

প্রধান অতিথি আরো বলেন, দেশরতœ শেখ হাসিনা’র নেতৃত্বে বাংলাদেশের গণমাধ্যমের নেটওয়ার্ক অনেক বড় হয়েছে। বিশেষ করে এই সময়ের মধ্যে যত গণমাধ্যমের অনুমোদন দেয়া হয়েছে, হাজার হাজার অনলাইন সংবাদমাধ্যম চালু হয়েছে। পর্যায়ক্রমে অনলাইন সংবাদমাধ্যমকে নীতিমালার আওতায় আনতে নিবন্ধন শুরুর পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে। এটা একটা মাইলফলক!

একসময় বিটিভিকে সাহেব, বিবি, গোলামের বাক্স বলা হতো। এমন একটা পরিস্থিতি ছিল যখন যে সরকার ক্ষমতায় আসতো, সেই সরকার সে সরকার প্রধানকে দেখানো হতো, তাঁর গোলামদেরকে দেখানো হতো। তাঁর মন্ত্রীদেরকে দেখানো হতো, এর বাইরে জনগণের কথা দেখানো হতো না। ৭৫ পরবর্তী জিয়াউর রহমান এবং বেগম খালেদা জিয়ার সময়ও আমরা একই চিত্র দেখেছি। বাংলাদেশকে সাহেব, বিবি, গোলামের বাক্সে পরিণত করা হয়েছিল। কিন্তু শেখ হাসিনা’র সরকার ক্ষমতায় আসার পরই প্রথম বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল একুশে টিভির অনুমোদন দিয়েছিলেন। গোটা পৃথিবীর পাশাপাশি ধারাবাহিকভাবে বাংলাদেশের আপামর জনগণের কথা তুলে ধরা হতো। এরপরই চ্যানেল আইসহ বেশ কয়েকটি টিভি চ্যানেলের অনুমোদন দেয়া হয়। ২০০১ সালের পরে দুঃখজনক হলেও সত্য এই একুশে টিভি চ্যানেলকে বন্ধ করে দেয়া হয়েছিল। একুশে টিভি চ্যানেলের ব্যবস্থাপনা পরিচালক, যিনি মহান মুক্তিযুদ্ধের সময় অসামান্য অবদান রেখেছিলেন, তাঁকে দেশ ত্যাগে বাধ্য করেছিলেন খালেদা জিয়ারা। পাশাপাশি কিছু টেলিভিশন চ্যানেল যেগুলো মুক্তিযুদ্ধের বিপরীতে এবং গণমানুষের বিপরীতে কাজ করতেছিল, জঙ্গিবাদ এবং সন্ত্রাসবাদকে উৎসাহ দিতো, ২১ শে আগস্ট গ্রেনেড হামলাকে বিকৃতভাবে উপস্থাপন করার চেষ্টা করেছিল, সেইসব চ্যানেলকে দিয়ে অপব্যাখ্যা প্রচার করছিল। 

বর্তমানে গণমাধ্যম দেশপ্রেমিক মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে ধারণ করেই এগিয়ে যাচ্ছে। মুক্তিযুদ্ধের কোন বিষয় নিয়ে কেউ যদি বিকৃতির চেষ্টা করে, সেখানে গণমাধ্যম কলম ধরছে। নতুন প্রজন্মের জন্য সুখবর, গণমাধ্যম এখন আর বিকৃত ইতিহাস লেখে না, এর কারণ হলো দায়িত্ব। এর আগে গণমাধ্যমকে নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা করে ইতিহাস বিকৃত করার অপচেষ্টা চলছিল। কিন্তু বর্তমান সরকার স্বাধীন গণমাধ্যম প্রতিষ্ঠিত করতে সবসময়ই কাজ করে চলেছে বলেই গণমাধ্যম এখন দায়িত্বশীল হয়েছে।

শনিবার দুপুরে বিরল প্রেস ক্লাবের ৫ তলা ভিত্তি বিশিষ্ট ১ম তলা ভবনের শুভ উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি নৌপরিহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী এসব কথা বলেন।

প্রেস ক্লাব সভাপতি এম এ কুদ্দুস সরকারের সভাপতিত্বে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান এ কে এম মোস্তাফিজুর রহমান বাবু, সহকারী কমিশনার ভূমি জাবের মোঃ সোয়াইব, প্রেস ক্লাবের আজীবন সদস্য ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এবং পৌর মেয়র আলহাজ্ব মোঃ সবুজার সিদ্দিক সাগর, প্রতিষ্ঠাতা সাবেক সভাপতি ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক রমা কান্ত রায়, আজীবন সদস্য ও রূপালী বাংলা জুট মিলের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আলহাজ্ব এম আব্দুল লতিফ, সহ-সভাপতি ও সাবেক ভারপ্রাপ্ত উপজেলা চেয়ারম্যান আনোয়ারুল ইসলাম, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মোশারফ হোসেন প্রমূখ। অন্যান্যদের মধ্যে অফিসার ইনচার্জ শেখ নাসিম হাবি, জেলা পরিষদের সদস্য অধ্যক্ষ সুফিয়া নাহার মঞ্জু, বীরগঞ্জ প্রেস ক্লাবের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি আবেদ আলী, সেতাবগঞ্জ প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক সাজ্জাদ হোসেন, কাহারোল প্রেস ক্লাবের সুকুমার রায়সহ জেলা ও উপজেলা প্রেস ক্লাবের সাংবাদিকবৃন্দ, বিভিন্ন প্রিন্ট ও ইলেক্ট্রনিক্স মিডিয়ার সাংবাদিকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। প্রধান অতিথি এর আগে ফলক উন্মোচন ও ফিতা কেটে প্রেস ক্লাব ভবনের শুভ উদ্বোধন, প্রেস ক্লাবের জমির দলিল হস্তান্তর এবং শেষে বৃক্ষরোপন করেন। এ সময় প্রধান অতিথিকে ফুল ও ক্রেস্ট দিয়ে সম্মাননা জানান প্রেস ক্লাব নেতৃবৃন্দ। তাছাড়াও প্রধান অতিথিকে বিরল প্রেস ক্লাবের প্রধান উপদেষ্টা সম্বলিত পরিচয়পত্র এবং প্রেস ক্লাবের আজীবন সদস্য হিসাবে আলহাজ্ব মোঃ সবুজার সিদ্দিক সাগর ও আলহাজ্ব এম আব্দুল লতিফকে আজীবন সদস্যের পরিচয়পত্র হস্তান্তর করা হয় অনুষ্ঠানে।

এছাড়াও প্রধান অতিথি পুলহাট মাধ্যমিক বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, দেওয়ানজি দিঘী দাখিল মাদ্রাসার চারতলা ভবনের ভিত্তি প্রস্তরের শুভ উদ্বোধন, উপজেলা পরষদ কমপ্লেক্সে বঙ্গবন্ধু কর্ণারের শুভ উদ্বোধন, ৬নং ভান্ডারা ইউনিয়ন তহসিল অফিসের ভিত্তি প্রস্তরের শুভ উদ্বোধন ও বালান্দোর উচ্চ বিদ্যালয়ের চারতলা একাডেমিক ভবনের ভিত্তি প্রস্তরের শুভ উদ্বোধন করেন।

ঝিনাইদহে করোনা আক্রান্ত হয়ে এক ব্যক্তির মৃত্যু, ইফা কমিটির নেতৃত্বে লাশ সৎকার

 ঝিনাইদহে করোনা আক্রান্ত হয়ে এক ব্যক্তির মৃত্যু, ইফা কমিটির নেতৃত্বে লাশ সৎকার





খোন্দকার আব্দুল্লাহ বাশার। 

খুলনা ব্যুরো প্রধান। 

ঝিনাইদহে করোনা আক্রান্ত হয়ে সুনিল বিশ্বাস নামের এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে। সে পৌর এলাকার হামদহ নতুন পল্লীর মৃত সত্যপদ বিশ্বাসের ছেলে। তিনি বেশ কিছু দিন জটিল রোগে ভুগছিলেন। ২১ আগষ্ট তারিখে তার করোনা উপসর্গ দেখা দিলে ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পর দিন তার নমুনা সংগ্রহ করা হয়।২৬ আগষ্ট তারিখে তার করোনা পজেটিভ আসে। পরে ঝিনাইদহ কোভিড হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শনিবার ভোর রাতে তিনি মারা যান।ঝিনাইদহ ইসলামিক ফাউন্ডেশনের উপ-পরিচালক আব্দুল হামিদ খান জানান, মৃত ব্যক্তির লাশ মহিষাকুন্ডু শ্বশানে সৎকার করা হয়েছে। এ পর্যন্ত করোনা উপসর্গ ও আক্রান্ত মোট ৫৩ জনের লাশ দাফন ও সৎকার করেছে ইফা কমিটি।

নওগাঁয় ভিক্টরী কালচারাল স্পোটিং ক্লাবের উদ্দ্যোগে বৃক্ষরোপন

 নওগাঁয় ভিক্টরী কালচারাল স্পোটিং ক্লাবের উদ্দ্যোগে বৃক্ষরোপন



মোঃ ফিরোজ হোসাইন  

রাজশাহী ব্যুরো


  নওগাঁর আত্রাই বান্দািখাড়াতে  আজ শনিবার বান্দাইখাড়া ভিক্টরী কালচারাল স্পোটিং ক্লাবের উদ্দ্যোগে বৃক্ষরোপন করা হয়েছে।

উপজেলা সদর হতে বান্দাইখাড়া রাস্তায় নন্দনালী বান্দাইখাড়ার মাঝখানে সরদারপাড়ার শেষ মাথায় বেশকিছু মেহগনি গাছের চারা লাগানো হয়। গাছ লাগান পরিবেশ বাচাঁন শ্লোগানকে সামনে রেখে এ কর্মসুচি পালন করা হয়।

এ সময় ভিক্টরী কালচারাল স্পোটিং ক্লাবের উপদেষ্টা ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক শ্রী শিশির সাহা,  হাটকালুপাড়া ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি এস এম শাহরিয়ার সেতু, ওয়ার্ড যুবলীগের সভাপতি মোফাজ্জল হোসেন, ব্যবসায়ী জিল্লুর রহমান , তারেক,সজিব, শুভ, নির্জন, তৌকির,মাসুম, রিজভিসহ ক্লাবের কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্যবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। 

উল্লেক্ষ্য ভিক্টরী কালচারাল স্পোটিং ক্লাব নিজস্ব অর্থায়নে শিতকালে কম্বল বিতরন, করোনায় জীবানুনাশক স্প্রে, মাস্ক বিতরন, বর্ষার সময় ত্রান বিতরন করেছে।

ভিক্টরী কালচারাল স্পোটিং ক্লাবের সাধারন সম্পাদক মোঃ রনিকুজ্জামান রনি বলেন ভিক্টরী কালচারাল স্পোটিং  ক্লাব মানুষের সেবা করে আসছে সামাজিক কর্মকান্ডের অংশ হিসাবে আমাদের এসব সেবামূলক কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে।

আশাশুনিতে অল্প কিছু দিনের ব্যবধানে আবারও ইজিবাইক চুরির ঘটনা ঘটেছে

আশাশুনিতে অল্প কিছু দিনের ব্যবধানে আবারও ইজিবাইক চুরির ঘটনা ঘটেছে

আহসান উল্লাহ বাবলু, উপজেলা প্রতিনিধি   : আশাশুনিতে অল্প কিছু দিনের ব্যবধানে আবারও ইজিবাইক চুরির ঘটনা ঘটছে। তবে এবার উপজেলার বুধহাটা ইউনিয়নের বৈউলা গ্ৰামের আব্দুল হাইয়ের ছেলে ফরহাদ হোসেন(২০) ও একই  গ্রামের বাবু বিশ্বাসের ছেলে আক্তারুল ইসলাম(২৮)কে ইজিবাইকটি নিয়ে যেতে দেখেছেন একাধিক প্রতক্ষদর্শী। ঘটনাটি ঘটেছে শুক্রবার বিকাল সাড়ে তিনটার দিকে ইউনিয়নের চুমুরিয়া গ্রামে। শনিবার সকালে সরেজমিন ঘুরে এবং ইজিবাইক মালিক চুমুরিয়া গ্রামের আবুল কাশেম মোড়লের ছেলে শরিফুল ইসলাল কর্তৃত থানায় দায়েরকৃত অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, ইজিবাইক মালিক শরিফুল ইসলাম ঘটনার দিন বেলা দুইটার দিকে প্রতিদিনের মত বাড়ির পিছনের পিচের রাস্তার উপর গাড়ি রেখে দুপুরের খাবার খেতে বাড়িতে প্রবেশ করে। বিকাল সাড়ে তিনটার দিকে তার ভাইপো তাহামিদ (৮) ও ইয়াসিন (১০) এর চিৎকার চেঁচামেচি শুনে দৌড়ে রাস্তায় এসে দেখতে পায় ফরহাদ হোসেন ও আক্তারুল ইসলাম ইজি বাইকটিকে দ্রুতগতিতে নিয়ে চলে যাচ্ছে। এসময় স্থানীয় তাসলিমা খাতুন, ছাব্বি খাতুন, তাসলিমা খাতুন পুতুল চেষ্টা করেও ইজিবাইকটি থামাতে সক্ষম হয়নি। চোরচক্রটি ইজিবাইক নিয়ে দ্রুতগতিতে পিচের রাস্তা বরাবর পাইথালীর মধ্যে প্রবেশ করলে পাইথালী গ্রামের মনিরুল ইসলামের স্ত্রী ফজিলা খাতুন তাদেরকে ইজিবাইকটি নিয়ে যেতে দেখে। একই রাস্তা বরাবর কামারবাড়ি চার রাস্তার মোড় অতিক্রম করে ইজিবাইকটি পদ্মা-বৈউলা নামক গ্রাম এর মধ্যে প্রবেশ করলে পথিমধ্যে ওই ইজিবাইকটির নিয়মিত প্যাসেঞ্জার পদ্ম-বৈউলা গ্রামের মৃত ঈমান আলী সরদারের ছেলে আব্দুস সামাদ সরদারের সামনে পড়ে। এ সময় সামাদ সরদার ইজিবাইকটি তাদের কাছে কিভাবে এলো এমন প্রশ্ন করলে জবাবে ফরহাদ হোসেন "ভাড়ায় এনেছি" এমনটি বলে দ্রুত গতিতে সেখান থেকে চলে যান।


এ বিষয়ে ইজিবাইক মালিক শরিফুল ইসলামের সাথে কথা বললে তিনি জানান, ডলফিন বোরাক ব্র্যান্ডের ইজিবাইক, মডেল- কে, আর, এ+বি-৬৪, কালার-লাল, চেচিস নং- ওয়াই, ডি, কে, আর-০৯২০১৯৫১৯ । যেহেতু তাদেরকে ইজিবাইকটি নিয়ে যেতে অনেকেই দেখেছে সেহেতু হয়তো ইজিবাইকটি তারা বেশি দূরে নিয়ে যেতে সক্ষম হয়নি। কোন সহৃদয় ব্যক্তির নজরে আসলে এই ঠিকানায় যোগাযোগ করার জন্য অনুরোধ জানিয়েছেন ইজিবাইক মানিক।


স্থানীয়দের ধারণা কিছুদিন পূর্বে এ এলাকা থেকে যে ইজিবাইকটা চুরি হয়েছিল ওই ইজিবাইকটি চুরিতে এই চক্রের হাত থাকতে পারে।


এ বিষয়ে জানতে চাইলে আশাশুনি থানা অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মাদ গোলাম কবির প্রতিবেদককে জানান, এ সংক্রান্ত একটি অভিযোগ আমি শুক্রবার সন্ধ্যায় পেয়েছি। ইজিবাইকটি উদ্ধার এবং এই চোরচক্রটি গ্রেপ্তারের জন্য আমাদের কার্যক্রম চলছে। ইজিবাইক উদ্ধার এবং চক্রটি গ্রেপ্তার সময়ের ব্যাপার মাত্র।

নওগাঁ-৬ আসনের মনোনয়ন প্রত্যাশী সুলতানা পারভীন বিউটির মোটরসাইকেল শোভাযাত্রা

 নওগাঁ-৬ আসনের মনোনয়ন প্রত্যাশী সুলতানা পারভীন  বিউটির মোটরসাইকেল শোভাযাত্রা




মোঃ ফিরোজ হোসাইন 

 রাজশাহী ব্যুরো


 নওগাঁ-৬ (আত্রাই-রাণীনগর) আসনে উপ-নির্বাচনের এখন পর্যন্ত প্রধান দুই দল তাদের মনোনিত প্রার্থীদের নাম আনুষ্ঠানিক ভাবে ঘোষনা করেনি। যার কারণে দলীয় মনোনয়ন পাওয়ার আশায় প্রার্থীরা চালিয়ে যাচ্ছেন তাদের নির্বাচনী প্রচার-প্রচারনা। তারই ধারাবাহিকতায় আওয়ামীলীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী মরহুম সাংসদ ইসরাফিল আলমের সহধর্মীনি সুলতানা পারভিন বিউটির বিশাল মোটরসাইকেল শোভাযাত্রা করেছেন। 


 শনিবার সকালে আত্রাই ও রাণীনগর উপজেলার বিভিন্ন এলাকা প্রদক্ষিণ করে এই শোভাযাত্রা। শোভাযাত্রায় প্রায় সারে ৩ হাজার মটরসাইকেল অংশগ্রহণ করে।


রাণীনগর উপজেলা থেকে মোটরসাইকেল নিয়ে এ শোভাযাত্রা শুরু করেন।

 এরপর রাণীনগর হয়ে আত্রাই উপজেলা বিভিন্ন এলাকা প্রদক্ষিন করেন। এসময় থেমে থেমে  পথসভায় ও জনগনের সাথে কুশল বিনিময় করেন সুলতানা পারভিন বিউটির পক্ষে  তার ছেলে ইশতিয়াক আলম ইস্তি।


শোভাযাত্রাকালে মুঠোফোনে সুলতানা পারভীন  বিউটি সাংবাদিকদের জানান, আমি ইসরাফিল আলমের পাশাপাশি মানুষের সাথে মিলেমিশে তাদের সুখে-দুঃখে তাদের পাশে দাঁড়িয়েছি। এলাকায় মাদক, সন্ত্রাস ও জঙ্গীবাদ নির্মূল করে সরকারের উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রাখতে ও ইসরাফিল আলমের অসমাপ্ত কাজ সম্পন্ন করতে আমি উপ-নির্বাচনে আওয়ামীলীগের মনোনয়ন পেতে দলীয় মনোনয়ন উত্তোলন করেছি। তিনি আরো বলেন, আওয়ামীলীগের সাথে আমাদের রক্ত মিশে আছে। আমি দৃঢ় ভাবে বিশ্সাস করি যদি তৃণমূলের জনপ্রিয়তার ভিত্তিতে মনোনয়ন দেয়া হয় তাহলে মাননীয় প্রধান মন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা আমাকে বঞ্চিত করবেন না। তিনি দাবি করে বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী যদি আমাকে মনোনয়ন দিলে বিপুল ভোটে জয়লাভ করে সরকারকে এ আসন উপহার দিতে পারবো ইনশাল্লাহ । 

উল্লেখ্য, গত ২৭ জুলাই এমপি ইসরাফিল আলম মারা গেলে আসনটি শুন্য হয়। ইতি মধ্যে ৩৪ জন মনোনয়ন প্রত্যাশী আওয়ামীলীগের দলীয় মনোনয়ন উত্তোলন করেছেন। নির্বাচন কমিশন থেকে আগামী ১৭অক্টোবর নির্বাচনের দিন ধার্য করা হয়েছে। এই আসনে ইভিএম-এর মাধ্যমে ভোট গ্রহণ করা হবে।

উক্ত আসনের তফসিল ঘোষণা করা হয়েছে।

সুন্দরবনের করমজল বন্যপ্রাণী প্রজনন কেন্দ্রে পিলপিলের ৪৪টি ডিমের মধ্যে মাত্র ৪টি বাচ্চা ফুটেছে

 সুন্দরবনের করমজল বন্যপ্রাণী প্রজনন কেন্দ্রে পিলপিলের ৪৪টি ডিমের মধ্যে মাত্র ৪টি বাচ্চা ফুটেছে


মোঃএরশাদ হোসেন রনি, মোংলাঃ  সুন্দরবনের একমাত্র বন্যপ্রাণী প্রজনন কেন্দ্রে লবণ পানির প্রজাতির কুমির পিলপিলের দেয়া ৪৪টি ডিমের মধ্য থেকে এবার মাত্র ৪টি বাচ্চা ফুটেছে। অতি বৃষ্টি ও ইনিকিউবেটরের ক্রুটির কারণে আশানুরুপ বাচ্চা ফোটেনি বলে জানিয়েছেন করমজল পর্যটন ও বন্যপ্রাণী প্রজনন কেন্দ্রের ইনচার্জ মো: আজাদ কবির। তিনি জানান, গত ১২ জনু প্রজনন কেন্দ্রের পুকুর পাড়ের বাসায় ৪৪টি ডিম দেয় কুমির পিলপিল। এরপর কুমিরটির নিজ বাসায় ২১টি রেখে বাকীগুলোর মধ্যে ১২টি কেন্দ্রের নতুন ইনকিউবেটর আর ১১টি পুরাতন ইনকিউবেটরে বাচ্চা ফুটানোর জন্য সংরক্ষণ করা হয়। নির্দিষ্ট সময় অতিবাহিত হওয়ার পর শনিবার সকালে কেন্দ্রের নতুন ইনকিউবেটরে রাখা ১১টির মধ্যে ৪টি ডিম হতে বাচ্চা ফুটে বের হয়। বাকী ডিমগুলো নষ্ট হয়ে যাওয়ায় সেগুলো হতে বাচ্চা ফুটে বের হয়নি। তবে চলতি মৌসুমে অতি বৃষ্টি ও জোয়ারের পানিতে প্রজনন কেন্দ্র প্লাবিত হওয়ায় ডিমসহ অন্যান্য বন্যপ্রাণী ও স্থাপনার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বেশ। গত বছরও পিলপিল ৪৮টি ডিম দেয়, কিন্তু তা থেকেও একটিও বাচ্চা ফোটেনি। পিলপিলের ডিমে গত তিন বছর কোন ফুটানো সম্ভব হয়নি। শনিবার পিলপিলের ডিম থেকে ফুটে বের হওয়া ৪টিসহ কুমির প্রজনন কেন্দ্রের মোট কুমিরের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১৯৬টিতে। 


কুমির প্রজনন কেন্দ্রে পিলপিল ও জুলিয়েট নামক দুইটি নারী কুমির দিয়েই প্রজনন কার্যক্রম চলে আসছে। এরমধ্যে গত ২৯ মে জুলিয়েট ৫২টি ডিম দিলেও তা থেকেও কোন বাচ্চা ফুটে বের হয়নি। 


করমজল বন্যপ্রানী প্রজনন কেন্দ্রের ইনচার্জ মো: আজাদ কবির বলেন, ২০২০ সালে পিলপিল ৪৪টি আর জুলিয়েট ৫২টি ডিম দেয়। এরমধ্যে পিলপিলের ৪টি বাচ্চা হলেও জুলিয়েটের ডিম থেকে কোন বাচ্চা আসেনি। গত ২০১৭, ১৮ ও ১৯ সালে পিলপিল ও জুলিয়েটের ডিম একটিও বাচ্চা ফুটেনি। তবে এ কারণে তিনি যথা সময়ে সঠিক তাপমাত্রা না পাওয়া ও কেন্দ্রের ইনকিউবেটরের ক্রুটিকেই দায়ী করছেন। #

পটিয়া সুচক্রদন্ডীতে আওয়ামী মুক্তিযোদ্ধা প্রজন্মলীগ এর কৃষকদের মাঝে সার বিতরণ

 পটিয়া সুচক্রদন্ডীতে আওয়ামী   মুক্তিযোদ্ধা প্রজন্মলীগ এর কৃষকদের মাঝে সার বিতরণ


সেলিম চৌধুরী পটিয়া প্রতিনিধিঃ চট্টগ্রামের পটিয়া পৌরসভা আওয়ামী মুক্তিযোদ্ধা প্রজন্মলীগ এর  উদ্যোগে ৫ সেপ্টেম্বর শনিবার  সকালে পটিয়ার সুচক্রদন্ডী পৌরসভার ২ নম্বর ওয়ার্ড মিলন মন্দির সংলগ্ন এলাকায় অর্ধশতাধিক কৃষকদের মাঝে ১০ কেজি করে সার বিতরণ করা হয়েছে। এ উপলক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন পটিয়া পৌরসভার প্যানেল মেয়র ও ২ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর ইন্জিনিয়ার রুপক সেন। পটিয়া পৌরসভা আওয়ামী মুক্তিযোদ্ধা প্রজন্মলীগ সভাপতি শফিকুল ইসলাম শফির সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সার বিতরণে উপস্থিত ছিলেন, সমাজ সেবক  ঝুন্টু কুমার দে,হরিপদ দে, রণা দে, প্রবীর সেন,রতন মাষ্টার, শ্যামল ভর্টচার্য়্য ডিম্পল, জহিরুল ইসলাম, সুব্রত দে,সাইফুল ইসলাম বিপু, প্রতাপ দাশ, শিবু রাম দে, রুবেল দে, আনন্দ দাশ, কৃষকরা হলেন, মিন্টু দে, গৌরাঙ্গ দে, কান্তি দে, সুমন দে, বিনয় দে, রতন দে, স্বপন দে, কৃষ্ণ সহ আরো অনেক উপস্থিত ছিলেন। এছাড়াও একই দিন সুচক্রীদন্ডী পশ্চিম পাড়া আবদুল করিম সাহিত্য বিশারদ বাড়ি এলাকায় কৃষকদের মাঝে সার বিতরণ করা হয়। এ সময় উপস্থিত ছিলেন, মুক্তিযোদ্ধা আবু তাহের, মোঃ মোরশেদ, মোঃ নুরু,ফজল করিম,সোনা মিয়া, আবুল কাসেম, আবু ছৈয়দ, জহির, হাসান, আলম মাঝি প্রমুখ।

এসময় পটিয়া পৌরসভার প্যানেল মেয়র ও ২ নম্বর ওয়ার্ড  কাউন্সিলর ইন্জিনিয়ার রুপক সেন বলেন,বর্তমান সরকার ক্ষমতা গ্রহণের পর দেশে সারের কৃত্রিম  সংকট দূর হয়েছে। এছাড়াও কৃষকদের ভুর্তকিতে বিভিন্ন উপকরণ দিয়ে দেশে কৃষির উৎপাদন বৃদ্ধি করা হয়েছে। দেশ এখন খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ। খাদ্য ঘাটতির দেশ এখন খাদ্য উদ্বৃত্তের দেশে পরিণত হয়েছে।এর ধারাবাহিকতায়  পটিয়া উপজেলা পৌরসভায় জাতীয় সংসদের হুইপ পটিয়ার এমপি    আলহাজ্ব শামসুল হক চৌধুরী নেতৃত্বে কৃষকদের জন্য সরকারের পাশাপাশি  দলীয় নেতা কর্মীরা কাজ করে যাচ্ছে। 

খুলনা-৬ আসনের সংসদ সদস্য আলহ্বাজ মোঃ আক্তারুজ্জামান বাবু করোনায় আক্রান্ত

 খুলনা-৬ আসনের সংসদ সদস্য আলহ্বাজ  মোঃ আক্তারুজ্জামান বাবু করোনায় আক্রান্ত



খোন্দকার আব্দুল্লাহ বাশার 

খুলনা ব্যুরো প্রধান 

শনিবার (৫ সেপ্টেম্বর) সকালে খুলনা ৬ আসনের মাননীয় সংসদ সদস্য আলহ্বাজ  মোঃ আক্তারুজ্জামান বাবু’র ব্যক্তিগত সহকারি (পিএ) মোঃ তসলিম হুসাইন তাজ বিষয়টি নিশ্চিত করেন।


শুক্রবার (৪ সেপ্টেম্বর) তাঁর নমুনা পরীক্ষায় করোনা ভাইরাস (কোভিড-১৯) পজিটিভ এসেছে।


এর আগে, বৃহস্পতিবার (৩ সেপ্টেম্বর) তিনি খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নমুনা পরীক্ষা করানোর জন্য নমুনা দিয়েছিলেন।


মোঃ তসলিম হুসাইন তাজ জানান, করোনাকালীন সময়ে নির্বাচনী এলাকার জনগণের সঙ্গে আছেন সংসদ সদস্য মোঃ আক্তারুজ্জামান বাবু। করোনার শুরু থেকে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে করোনা সংক্রমণ প্রতিরোধসহ ঘুর্ণিঝড় আম্পান মোকাবিলায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখে আসছে ।


কয়রা-পাইকগাছার প্রতিটি ইউনিয়নে গিয়ে তিনি মানুষের খোঁজ-খবর নিচ্ছেন। সরকারের পাশাপাশি নিজস্ব অর্থায়নে অসহায় মানুষজনকে সাহায্য সহযোগিতা করে যাচ্ছেন।


সাংসদ বাবু’র এর আগে দুইবার রিপোর্ট নেগেটিভ হয়। করোনা ভাইরাস যেহেতু একজন থেকে আরেকজনের মধ্যে সংক্রমিত হয় তাই সবার স্বার্থে আগামী কয়েকদিনের জন্য তিনি বিভিন্ন কর্মসূচি ও নেতাকর্মীসহ সবার সাক্ষাৎ থেকে নিজেকে তিনি বিরত রেখেছেন।


মোঃ তসলিম হুসাইন তাজ আরো জানান, সংসদ সদস্য আক্তারুজ্জামান বাবু বর্তমানে ভালো আছেন। তিনি যেন সুস্থ হয়ে এলাকার মানুষের সেবায় খুব দ্রুত আবারো ফিরতে পারেন এজন্য তিনি দোয়া চেয়েছেন।


বর্তমানে সংসদ  সদস্য আলহাজ্ব আক্তারুজ্জামান বাবু তাঁর খুলনার নিজ বাসায় চিকিৎসা নিচ্ছেন।

ঝিনাইদহে পুলিশ সুপার, হাসানুজ্জামান পিপিএম নিজেই অংশগ্রহণ কারীদের প্রশিক্ষণ প্রদান করেন

 ঝিনাইদহে পুলিশ সুপার, হাসানুজ্জামান পিপিএম  নিজেই অংশগ্রহণ কারীদের প্রশিক্ষণ প্রদান করেন

 




খোন্দকার আব্দুল্লাহ বাশার, খুলনা ব্যুরো প্রধান: "বিট পুলিশিং বাড়ি বাড়ি, নিরাপদ সমাজ গড়ি" এই শ্লোগানকে সামনে রেখে  পুলিশ লাইনস, ঝিনাইদহে ৫ সেপ্টেম্বর শনিবার সকালে  দ্বিতীয় দিনের মত বিট পুলিশিং প্রশিক্ষণ কর্মশালার আয়োজন  করা হয়। পুলিশ হেডকোয়ার্টার্স কর্তৃক প্রণীত "স্ট্যান্ডার্ড অপারেটিং প্রসিডিউর -২০২০ "এর আলোকে বিট পুলিশিং কি, কর্মকৌশল, বিট অফিসারদের দায়িত্ব ও কর্তব্য, তদারকি অফিসারদের করণীয় ইত্যাদি সার্বিক বিষয়ে প্রশিক্ষণ প্রদান করা হয়। কর্মশালার দ্বিতীয় দিনে জেলার ৮৫ টি বিটের  মধ্যে ৪২ টি  বিট অফিসার, সহকারী বিট অফিসার এবং তাদের সহযোগী পুলিশ কনস্টেবল এই কর্মশালায় অংশগ্রহণ করে। ঝিনাইদহ পুলিশ সুপার হাসানুজ্জামান পিপিএম  নিজেই অংশগ্রহণকারীদের প্রশিক্ষণ প্রদান করেন।এসময় বিভিন্ন থানার অফিসার- ইন-চার্জ ও সার্কেল  অফিসারগণ উপস্থিত ছিলেন।

শৈলকুপা উপজেলা বি এন পির ৪২ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন

শৈলকুপা উপজেলা বি এন পির ৪২ তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন



সম্রাট হোসেন, শৈলকুপা (ঝিনাইদহ) প্রতিনিধিঃশৈলকূপার কৃতিসন্তান বিএনপির সাধারন মানুষের আস্থার প্রতীক আমাদের প্রাণ প্রিয় নেতা,বিএনপির  জাতীয় নি্র্বাহী কমিটির সহ সাংগঠনিক সম্পাদক বাবু জয়ন্ত কুমার কুন্ডুর নির্দেশে, শৈলকুপা উপজেলার গাড়াগন্জ বাজারে বিএনপির ৪২ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী ও তারুণ্যের অহংকার জননেতা তারেক রহমানের কারা মুক্তি দিবস উপলক্ষে দোয়া ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত দোয়া ও আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সাবেক  শৈলকুপা উপজেলা ছাত্রদলের সভাপতি, সাবেক উপজেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক ও উপজেলা বিএনপির যুগ্ন আহবায়ক সাজ্জাদুর রহমান সাজ্জাদ, সভাপতিত্ব করেন উপজেলা বিএনপির যুগ্ন আহবায়ক ফিরোজ বিশ্বাস।উক্ত অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা শ্রমিক দলের সাধারন সম্পাদক করিম খান, যুবদলের সদস্য সচিব  জমির উদ্দিন, যুগ্ন আহবায়ক সামিম, সোহেল, পৌর যুবদলের আহবায়ক আনিচুর রহমান, সেচ্ছাসেবক দলের নেতা,মুকুল হোসেন, সামছুল ইসলাম বল্টু,ছাত্রদলের নেতা লিটন হোসেন, রিপন হোসেন, সহ বিএনপি,যুবদল, ছাত্রদলের বিভিন্ন স্তরের নেতৃবৃন্দ।

যদি আমার হও রুদ্র অয়ন

যদি আমার হও রুদ্র অয়ন




তুমি আমার এমনই একজন 
যার ভালোবাসার প্রত্যাশায়
অপেক্ষা করতে পারি
সারাটা জীবন। 
শত সহস্র বছর।

তোমায় একনজর 
দেখার অভিপ্রায়
হাঁটতে পারি আমি 
শত সহস্র মাইল  পথ।

তোমার মোহনীয় 
পদ্ম কোমল চোখে 
চোখ রাখতে আমি 
পলকহীন থাকতে পারি অহর্নিশি।

তোমার মেঘকালো
এলোকেশের গন্ধে
প্রেমের আবেশ ছড়াতে থাকে
আমার অনুভূতিতে,
আমি তার প্রতিক্ষায়
নিরবে সয়ে যেতে পারবো
হাজার কষ্টরাশি।

তুমি আমার এমনই একজন
যার প্রেমময় স্পর্শে
আমি ভুলে যেতে পারি
জাগতিক সকল দুঃখ ব্যথা! 

তোমার ঠোঁটে 
মায়াবী হাসিটা দেখে
আমি ভুলে থাকতে পারি 
চিরায়ত দুঃখবোধ।

একটু সুখের আলিঙ্গন পেতে,
আমি পাড়ি দিতে পারি
সাতটা সমুদ্দুর। 

এসবই আমার নিগুঢ় প্রেমের 
আত্মিক উপলব্ধিপ্রসূত
ভাবাবেগের প্রকাশ কেবল।  

তবে অবিনশ্বর হৃদয়ের
শ্বাশত সত্যটা হলো,
তুমি যদি আমার হও
তোমায় নিজের করে পেতে
আমি তোমাতে
বিসর্জন দিতে পারি
আমার আমিকে প্রেয়সীতমা।

মহম্মদপুরে গ্রামের রাস্তা নদীর গর্ভে, বিচ্ছিন্ন হলো দুই গ্রাম

 মহম্মদপুরে গ্রামের রাস্তা নদীর গর্ভে,  বিচ্ছিন্ন হলো দুই গ্রাম

মোঃকুতুবুল আলম,

মহম্মদপুর(মাগুরা)প্রতিনিধি


মাগুরায় মহম্মদপুরে মধুমতি  নদীর ভাঙন গত কয়েক বছর আগে থেকেই।


মধুমতি নদীর তীরবর্তী রায় পাশা ও চরপাচুড়িয়া গ্রামে দেখা যায়, রাস্তা গিলে ফেলেছে মধুমতি নদী। সেই সাথে গাছপালা বাগান।  ভাঙন আর স্রোতে দিশেহারা সেখানকার তীরবর্তী গ্রামের অসংখ্য  পরিবার।


অভিযোগ ওঠে, নদীটির বিভিন্ন অংশ ভাঙতে ভাঙতে এই অবস্থায় পৌঁছালেও পানি উন্নয়ন বোর্ড কোনও উদ্যোগ নেয়নি। চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে ও গ্রামের অসংখ্য মানুষকে। ভুক্তভোগীদের অভিযোগ, অনেক দিন ধরে স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা এই নদী ভাঙনের কথা শুনেছে, কিন্তু এখনো কেউ এগিয়ে আসেনি। বর্ষা এলেই পানি উন্নয়ন বোর্ডের কর্মকর্তারা এসে মাপজোখ করে কিন্তু বাস্তবে কোনও কাজের প্রতিফলন ঘটেনি।


গ্রামের লোকজনের চলাচল এখন প্রায় অনিশ্চিত হয়ে পড়েছে। কৃষি জমির পাশ দিয়ে প্রচণ্ড ঝুঁকি নিয়ে শিশুসহ বৃদ্ধরা চলাচল করছে। রায়পাশা থেকে চরপাচুড়িয়া যাতায়াতের একমাএ রাস্তারও বেহাল অবস্থা। দুই গ্রামের সংযোগ প্রায় বিচ্ছিন্ন।

সিরাজগঞ্জে ছাত্রলীগ নেতা বিজয় হত্যার ব্যবহৃত রাম দা উদ্ধার

সিরাজগঞ্জে ছাত্রলীগ নেতা বিজয় হত্যার ব্যবহৃত রাম দা উদ্ধার

মাসুদ রানা সিরাজগঞ্জ জেলাপ্রতিনিধিঃসিরাজগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের সহ-সম্পাদক এনামুল হক বিজয় হত্যায় ব্যবহৃত রাম-দা উদ্ধার করা হয়েছে। শুক্রবার ৪ সেপ্টেম্বর বিকেলে শহরের বাজার স্টেশন এলাকার পুকুর থেকে এ অস্ত্রটি উদ্ধার করা হয়। এর আগে ভোররাতে উল্লাপাড়ার হাটিকুমরুল গোলচত্বর থেকে গ্রেফতার  করা হয় এই হত্যা মামলার প্রধান আসামী জেলা ছাত্রলীগের বহিস্কৃত সাংগঠনিক সম্পাদক শিহাব আহমেদ জিহাদকে। তার দেয়া তথ্যমতেই এই অস্ত্র উদ্ধার করা হয়। এবিষয়ে মামলার তন্তকারি কর্মকর্তা ও সিরাজগঞ্জ গোয়েন্দা পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) বদরদ্দোজা জিমেল বলেন, গ্রেফতার হওয়া শিহাব আহম্মেদ জিহাদকে জিজ্ঞাসাবাদ করার পর তার দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে বাজার রেলওয়ে স্টেশনের পুকুর থেকে একটি রাম-দা উদ্ধার করা হয়েছে। ২৬ জুন প্রয়াত জাতীয় নেতা মোহাম্মদ নাসিম স্মরণে দোয়া মাহফিলে যোগ দিতে যাবার পথে বাজার ষ্টেশন এলাকায় প্রতিপক্ষের আঘাতে আহত হন জেলা ছাত্রলীগের সহ-সম্পাদক ও কামারখন্দের হাজী কোরপ আলী ডিগ্রি কলেজ শাখার সভাপতি এনামুল হক বিজয়। ঢাকার একটি হাসপাতালে ৯ দিন লাইফ সাপোর্টে থাকার পর ৫ জুলাই তার মৃত্যু হয়। এ ঘটনায় নিহতের ভাই মো. রুবেল বাদী হয়ে শিহাব আহমেদ জিহাদসহ ছাত্রলীগের ৫ নেতাকর্মীর নাম উল্লেখ এবং অজ্ঞাতনামা ৪/৫ জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন। আলোচিত এ মামলাটি নিয়ে সিরাজগঞ্জের রাজনৈতিক অঙ্গনে দুই গ্রুপের মধ্যে চরম অস্থিরতা বিরাজ করাবস্থায় এক সপ্তাহের ব্যবধানে গ্রেফতার করা হয় প্রধান দুই আসামীকে।

যশোরে বিয়ের প্রস্তাব প্রত্যাখান করায় যুবকের আত্মহত্যা

যশোরে বিয়ের প্রস্তাব প্রত্যাখান করায় যুবকের আত্মহত্যা



মোরশেদ আলম

যশোর প্রতিনিধি 


যশোর রামনগরে বিয়ের প্রস্তাবে রাজী না হওয়ায় কীটনাশক পানে রাসেল হোসেন (১৭) নামে এক নসিমন চালক আত্মহত্যা করেছে। সে সতীঘাটা তোলাগোলদারপাড়া আশ্রয়ন প্রকল্পের বাসিন্দা রেজাউল করিম খোকনের ছেলে।

সূত্র জানায়, রাজারহাট এলাকার এক নারীকে পছন্দ করতো রাসেল। সেই সুবাদে ওই নারীর পরিবারকে বিয়ের প্রস্তাব দেয়। কিন্তু মেয়ের পরিবার বিয়ের প্রস্তাবে রাজী না হলে রাসেল অভিমান করে মঙ্গলবার সকালে কীটনাশক পান করে। গুরুতর অবস্থায় পরিবারের লোকজন তাকে উদ্ধার করে যশোর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শুক্রবার তার মৃত্যু হয়। লাশের ময়না তদন্ত সম্পন্ন ও জানাজা শেষে আশ্রয়ন প্রকল্পের কবরস্থানে তাকে দাফন করা হয়।এলাকাবাসী জানায় খুবই দুঃখ জনক একটি ঘটনা ঘটেছে বিয়ের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান এর জন্য আত্মাহত্যা এমন ঘৃনীত কাজ পরিবার হোক সমাজ হোক যুবসমাজের থেকে কেউ আশা করে না।

চৌগাছায় সাবেক ছাত্রলীগ নেতা আমিরুলের মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষ্যে দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত

 চৌগাছায় সাবেক ছাত্রলীগ নেতা আমিরুলের মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষ্যে দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত




চৌগাছা(যশোর)প্রতিনিধিঃ চৌগাছা উপজেলার ১০ নং নারায়ণপুর ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি আমিরুল ইসলাম এর ৭ম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনা  অনুষ্ঠান ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। 

২০১৪ সালের ৫ ই সেপ্টেম্বর স্থানীয় বিএনপি এবং জামায়েত এর সন্ত্রাসীদের হামলায় মারাত্মক আহত হয়ে ঢাকায় উন্নত চিকিৎসার জন্য নেওয়ার পথে শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন।

আলোচনা অনুষ্ঠান ও দোয়া মাহফিলে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন চৌগাছা উপজেলা আওয়ামীলীগের সংগ্রামী সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা জননেতা জনাব এস এম হাবিবুর রহমান, প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা ছাত্রলীগের বিপ্লবী সাধারণ সম্পাদক শফিকুজ্জামান রাজু, বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন  উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক আবু সৈয়দ মোঃ শরিফুল ইসলাম। 

উপজেলা ছাত্রলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক রাজু আহমেদ এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠান সঞ্চলনা করে চৌগাছা সরকারি কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি আশিকুজ্জামান রিংকু। 

অন্যান্যের মধ্যে বক্তৃতা করেন আমিরুল ইসলাম এর ছোট ভাই সাইফুল ইসলাম সুমন, চৌগাছা সদর ইউনিয়ন ছাত্রলীগের আহবায়ক আকরামুল ইসলাম, উপজেলা ছাত্রলীগ নেতা হাসান রেজা, পাশাপোল ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক সবুজ হোসেন, ধুলিয়ানী ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি রেফাউন ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক আল আমিন হোসেন, নারায়নপুর ইউনিয়ন ছাত্রলীগের আহবায়ক আমজাদ হোসেন, এবিসিডি কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি রাশেদ হোসেন, পৌর ছাত্রলীগ নেতা সৌরভ রহমান বিপুল, মিনহাজুর রহমান জিসাদ, হাকিমপুর ইউনিয়ন ছাত্রলীগ নেতা আরাফাত প্রমূখ। 

এই সময় উপস্থিত ছিলেন ছাত্রলীগ নেতা পাভেল, সবুজ, শুভ,ফিরোজ,টিটো,সাগর, আশানুর, সাগর কুমার, শাকিল,ইমন, স্বপ্ন সহ বিভিন্ন ইউনিট এর নেতৃবৃন্দ।

সাংবাদিক জুলহাস হত্যার দ্রুত বিচার দাবী অনলাইন প্রেস ইউনিটির

 সাংবাদিক জুলহাস হত্যার দ্রুত   বিচার দাবী অনলাইন প্রেস ইউনিটির



প্রেস বিজ্ঞপ্তিঃ  সাংবাদিক জুলহাস উদ্দীনকে গলা কেটে হত্যার নিন্দা ও দ্রুত বিচার দাবী করেছেন অনলাইন প্রেস ইউনিটির নেতৃবৃন্দ। ৩ সেপ্টেম্বর ইউনিটির প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান মোমিন মেহেদী, কার্যকরী সভাপতি এ্যাড. নূরনবী পাটোয়ারী, সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান শান্তা ফারজানা, মহাসচিব পলাশ ভৌমিক এক যৌথ বিবৃতিতে বলেছেন, নির্মম মৃত্যুর মধ্য দিয়ে এগিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ, যা কারোই কাম্য নয়। সর্বশেষ সাংবাদিক জুলহাসকে করোনা পরিস্থিতির সকল চেষ্টাকে বুড়ো আঙ্গুল দেখিয়ে গলা কেটে হত্যার যে উদাহরণ টানা হয়েছে তা সত্যিই সাংবাদিকদের জন্য বেদনাকালের সূচনা করলো। দ্রুত বিচার না হলে অতিতের রুণি-সাগর হত্যাকান্ডের আসামীদের মত এরাও পার পেয়ে যেতে পারে; যা আমরা প্রত্যাশা করি না। আমরা চাই বিচারের সংস্কৃতি তৈরি হোক। পাশাপাশি সাংবাদিকদের নিরাপত্তা, সরকারীভাবে ভাতা সহ অনলাইন প্রেস ইউনিটির সকল দাবীও সরকারের মেনে নেয়া এখন সরকারের দায়িত্ব। 
  

পটুয়াখালীতে ইটবাড়িয়ান সোসাইটির উদ্যোগে গ্রামব্যাপী তাল বীজ রোপন

 পটুয়াখালীতে ইটবাড়িয়ান সোসাইটির উদ্যোগে  গ্রামব্যাপী তাল বীজ রোপন




নাঈমুর রহমান কুয়াকাটা  প্রতিনিধি 


ইটবাড়িয়ান সোসাইটি থেকে জানান।

জলবায়ু পরিবর্তনের প্রভাব পরছে সারা বিশ্বে, ঝুঁকিতে আছে এশিয়ার সমুদ্র উপকূলবর্তী নিচু দেশগুলো।

তার মাঝে আমাদের বাংলাদেশ অন্যতম ঝুঁকিপূর্ন দেশ এবং উপকূলবর্তী উপজেলা কলাপাড়ার বাসিন্দা হিশেবে আমাদের কথা নাই বা বললাম।


এখানে স্বাভাবিক জোয়ারের চেয়ে ৩ ফুট উচ্চতার পানিতেই ডুবে যায় গ্রামের পর গ্রাম, পানীবন্দী মানুষগুলোর দুর্ভোগ চলে মাসের পর মাস। 


ইতিমধ্যে আপনারা বিভিন্ন খবরে দেখেছেন। তাই আমরা উদ্যোগ নিয়েছি পরিবেশ এর ভারসম্য রক্ষায় নিজের গ্রামকে সুসজ্জিত করার একইসাথে এগিয়ে আসতে হবে আপনাদের নিজ নিজ গ্রামের উন্নয়নে এগিয়ে আসলে বদলে যাবে পুরো বাংলাদেশের চিত্র।


উল্লেখ্য, ইটবাড়িয়ান সোসাইটি একটি অরাজনৈতিক স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন অংশগ্রহন করছে গ্রামের নানা উন্নয়নমূলক কাজে।বৃক্ষরোপন,  শিক্ষিত তরুনদের দক্ষতা বৃদ্ধিতে নানা প্রশিক্ষণ এবং অসহায় পরিবারের সদস্যদের সুচিকিৎসার ব্যবস্থা গ্রহন করা।  ইতিমধ্যে পুরো গ্রামের সমস্ত মসজিদ এবং প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ফলজ বৃক্ষরোপন করা হয়েছে সেইসাথে উদ্যোগ নেয়া হয়েছে বিরল রোগে আক্রান্ত এক অসহায় শিশুর চিকিৎসার।

 

ইটবাড়িয়ান সোসাইটির উদ্যোগে পটুয়াখালী, কলাপাড়া উপজেলার ২নং টিয়াখালী ইউনিয়নের ইটবাড়িয়া গ্রামে চতুর্থ  দফায় আরও ২০০ এর অধিক সংখ্যক তাল গাছের বীজ রোপন কার্যক্রম বাস্তবায়ন।


গতকাল সেপ্টেম্বর ০৪, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ, শুক্রবার  সকালে ইটবাড়িয়ান সোসাইটির উদ্যোগে কলাপাড়া টিয়াখালী ইউনিয়নের ইটবাড়িয়া গ্রামে চতুর্থ  দফায় তাল গাছের বীজ রোপন কার্যক্রম বাস্তবায়ন করা হয়েছে।

আয়োজিত কার্যক্রমে ইটবাড়িয়া গ্রামের ইটবাড়িয়া পোদ্দার কান্দা  থেকে উত্তর ইটবাড়িয়ার মোঃ সিদ্দিক হাওলাদারের বাড়ি পর্যন্ত  সড়কের দুই পাশে চতুর্থ  দফায় ২০০ এর অধিক সংখ্যক তাল গাছের বীজ রোপন করা হয়।


গত  আগস্ট ২১, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ প্রথম দফায় ৪০০ এর অধিক তাল বীজ রোপন করা হয় ।আগস্ট ২৮,২০২০ খ্রিস্টাব্দ দ্বিতীয় দফায় ২৫০এর অধিক তাল বীজ রোপন করা হয়। আগষ্ট  ২৯/২০২০খ্রিস্টাব্দ তৃতীয়  দফায় ২০০ এর অধিক তাল বীজ রোপন করা হয়। ইটবাড়িয়া গ্রামের মূল রাস্তাগুলোর দুই পাশে ১০৫০ এরও বেশি তাল গাছের বীজ রোপন করা হয়।


ইটবাড়িয়ান সোসাইটি তার প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে শুরু করে বিভিন্ন কার্যক্রমের অংশ হিসেবে কার্যক্রম বাস্তবায়ন করছে। ইতোমধ্যে ইটবাড়িয়ান সোসাইটি এর স্বেচ্ছাসেবকগণ ইটবাড়িয়া গ্রামে করোনা ভাইরাস সম্পর্কিত গণসচেতনতামূলক প্রচারণা ও মাস্ক বিতরণ, মসজিদ ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে বৃক্ষ রোপন, জোন ভিত্তিক দলে ক্রীড়া সমগ্রি বিতরণ,


 সামাজিকীকরণ স্বচিন্তন আদর্শলিপি প্রচার ও  তাল গাছের বীজ রোপন কার্যক্রম বাস্তবায়ন করেছে। তাছাড়া ইটবাড়িয়ান সোসাইটি দুরারোগ্য ব্যাধি মায়োপ্যাথি রোগে আক্রান্ত ইটবাড়িয়ান মোঃ শাহিন এর চিকিৎসা ব্যবস্থাপনার দায়িত্ব গ্রহণ। 


পুরো গ্রামব্যাপী এই কার্যক্রম অব্যহত থাকবে এবং সবাইকে নিজ নিজ অবস্থান থেকে এগিয়ে আসার আহবান করেছেন উক্ত সংগঠন এর স্বেচ্ছাসেবীগন।


সবাই মিলে সুন্দর,  সুশিক্ষিত এবং বেকারমুক্ত গ্রাম গড়ে তুলতে আপনার সুচিন্তিত পরামর্শ,  সহায়তা এবং অংশগ্রহন একান্ত কাম্য।


বাস্তবায়নে: ইটবাড়িয়ান সোসাইটি।

২নং টিয়াখালী, কলাপাড়া,পটুয়াখালী।

নারায়ণগঞ্জে মসজিদের এসি নয় বিস্ফোরণ গ্যাস লাইন থেকে হয়েছে: ফায়ার সার্ভিস

 নারায়ণগঞ্জে  মসজিদের এসি নয় বিস্ফোরণ গ্যাস লাইন থেকে হয়েছে: ফায়ার সার্ভিস

 



 নিউজ ডেস্কঃ  নারায়ণগঞ্জের পশ্চিম তল্লা এলাকার বাইতুস সালাত জামে মসজিদে বিস্ফোরণ এসি নয় গ্যাস লাইন থেকে ঘটেছে বলে জানিয়েছেন নারায়ণগঞ্জ ফায়ার সার্ভিসের উপসহকারী পরিচালক আব্দুল্লাহ আল আরেফিন।


শনিবার (৫ সেপ্টেম্বর) ভোরে এ কথা জানান তিনি।


আব্দুল্লাহ আল আরেফিন বলেন, মসজিদের নিচ দিয়ে (মেঝেতে) একটি গ্যাস পাইপ রয়েছে। আর এ পাইপের লিকেজ দিয়ে মসজিদের ভেতর গ্যাস জমা হয়। মসজিদে এসি চলার কারণে দরজা জানালা সব বন্ধ রাখা হয়। আলো বাতাস বের হতে পারে না। ফলে নির্গত গ্যাস বের হতে পারেনি। বিস্ফোরণের আগে বিদ্যুতের কোনো কিছু জালানোর সময় স্পার্কিং করে। আর সেই স্পার্কিং থেকে বিস্ফোরণ ঘটতে পারে।


তিনি আরও বলেন, মসজিদের মেঝেতে থাকা পানিতে গ্যাসের বুদবুদ ওঠায় সন্দেহ হয়। পরে খোঁজ নিয়ে দেখা যায় মসজিদের নিচ দিয়ে তিতাস গ্যাসের অনেকগুলো লাইন গেছে। আর পাইপগুলোর প্রতিটিতেh একাধিক লিকেজ রয়েছে। সেই লিকেজের গ্যাস সব সময় মসজিদে ওঠতো। আর নামাজের আগে থেকে মসজিদের দরজা জানালা বন্ধ করে এসি চালু করার ফলে পুরো রুমে এসি ও গ্যাস মিশে যায়। আর তাতে করে ভয়াবহ এ বিস্ফোরণ ঘটে। এসি বিস্ফোরণ হওয়ার কারণ হলোg এসিতে গ্যাস ছিল।


ফায়ার সার্ভিসের ওই কর্মকর্তা বলেন, আমরা ধারণা করে তিতাস গ্যাস কর্তৃপক্ষকে অবহিত করলে তারা দ্রুত এখানে এসে আমাদের ধারণাকে নিশ্চিত করে। তারা জানান- গ্যাসের লাইন থেকেই এই বিস্ফোরণ হয়েছে।

ঝিনাইদহের শৈলকুপায় ৩ টি গাঁজার গাছ ও ১৫০ গ্রাম গাঁজাসহ ১ জন আটক

ঝিনাইদহের শৈলকুপায় ৩ টি গাঁজার গাছ ও ১৫০ গ্রাম গাঁজাসহ ১ জন আটক

সম্রাট হোসেন, শৈলকুপা  (ঝিনাইদহ) প্রতিনিধিঃ০৪/০৯/২০২০ তারিখ শৈলকুপা থানার একটি চৌকস দল বিশেষ অভিযান পরিচালনা করে শৈলকুপা  থানাধীন ধাওড়া মোল্যাপাড়া এলাকা হতে ১ জন মাদকাসক্ত আসামীকে আটক করেছে ০১।তার নাম মোঃ রফিক মোল্যা (৫২), পিতা- মৃত গোলাম আলী মোল্যা, সাং- ধাওড়া মোল্যাপাড়া, থানা- শৈলকুপা, জেলা-ঝিনাইদহ। 


শৈলকুপা থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে তার বসত বাড়ীর রান্না ঘরের উত্তর পার্শ্বে থেকে ০৩টি গাঁজার গাছ এবং ১৫০ (একশত পঞ্চাশ) গ্রাম গাঁজাসহ গ্রেফতার পূর্বক বিজ্ঞ আদালতে তাকে সোপর্দ করেছে।

শেখ রাসেল স্টুডেন্ট এসোসিয়েশন নামে টাঙ্গাইল জেলা কমিটির অনুমোদন

শেখ রাসেল স্টুডেন্ট এসোসিয়েশন নামে টাঙ্গাইল জেলা  কমিটির অনুমোদন

 


আ: হামিদ মধুপুর টাঙ্গাইল প্রতিনিধিঃ

শেখ রাসেল স্টুডেন্ট এসোসিয়েশন টাঙ্গাইল জেলা  কমিটি নামে একটি সংগঠনের অনুমোদন দিয়েছেন কেন্দ্রিয়  সংসদ।

মোঃ শামীম আল মামুন  সভাপতি ও মোঃ তাসিন আহমেদ ইমরান  কে সাধারণ সম্পাদক  করে ২১ সদস্যের  কমিটি অনুমোদন দেয়  শেখ রাসেল স্টুডেন্ট এসোসিয়েশন কেন্দ্রীয় সংসদ ।


উক্ত কমিটির কার্যকরী সদস্যরা হলেন রাহাত হোসেন সহ-সভাপতি, আ: হামিদ সহ- সভাপতি

আঃ আলিম সহ-সভাপতি,

মাহবুব হাসান হিমেল-যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক,

জিসান আহমেদ সাকিব, যুগ্ম সাধারণ  সম্পাদক,

লিফাত আহমেদ, সাংগঠনিক সম্পাদক,

খালিদ সাইফুল্লাহ সাদি,দপ্তর সম্পাদক, মোঃ সিয়াম আহমেদ,  প্রচার সম্পাদক,

মোঃ জুয়েল  রানা,  ক্রীড়া সম্পাদক,

সানিউল আহমেদ অনিক, সাংস্কৃতিক সম্পাদক,

মাহিম হাসান, অর্থ বিষয়ক সম্পাদক,

তানভীর আহমেদ, ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক, 

সাব্বির আহমেদ শিজেন, আইন বিষয়ক সম্পাদক,

মোঃ নাজমুল, তথ্য  প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক,

সামিয়াল মাহতাব রোহিত, সমাজ কল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক, ফয়সাল ভুইঁয়া রাতুল, সদস্য,

ইমরান খান,সদস্য, মোঃ সাকিল আহমেদ,সদস্য

মোঃ জুয়েল আরাফ, সদস্য ।


শেখ রাসেল স্টুডেন্ট এসোসিয়েশন কেন্দ্রীয় প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি  জাকের আহমেদ অপু  ও সাধারণ সম্পাদক এম রাহাত সানি শেখ রাসেল স্টুডেন্ট এসোসিয়েশন টাঙ্গাইল জেলা  কমিটির অনুমোদন দিয়েছেন।

নারিকেল তলায় ভাড়াটিয়া হত্যা মামলার অভিযুক্ত বাড়ি মালিক স্বামী স্ত্রী গ্রেপ্তার

নারিকেল তলায় ভাড়াটিয়া হত্যা মামলার  অভিযুক্ত  বাড়ি মালিক স্বামী  স্ত্রী গ্রেপ্তার




চট্টগ্রাম প্রতিনিধি 

মো : হাসান রিফাত 

চট্টগ্রাম  নগরীর ইপিজেড এলাকায় ভাড়াটিয়াকে  হত্যা করার দায়ে মামলায় অভিযুক্ত বাড়িওয়ালা মেজবাহ উদ্দিন  রুবেল ও   স্ত্রী জোবাইদা আক্তারকে  গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। 


এদের মধ্যে হত্যার দায় স্বীকার করে গতকাল মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট মো. সারোয়ার জাহানের আদালতে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দিয়েছেন রুবেল।



ইপিজেড থানার বর্তমান  ওসি উৎপল বড়ুয়া গণমাধ্যমকর্মীদের   বলেন, নারিকেলতলা এস আলম বি আলম গলিতে বাড়িওয়ালার হামলায় ভাড়াটিয়া মৃত শাহজাহানের স্ত্রী  সাফিয়া বাদী হয়ে একটি মামলা করেন। 

মামলায় বাড়িওয়ালা রুবেল, তার স্ত্রী জোবাইদা ও রুবেলের চাচাতো ভাই আলাউদ্দিনকে আসামি করা হয়। 

বুধবার রাতে  রুবেলের স্ত্রী জোবাইদা আক্তারকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। পরে বৃহস্পতিবার ভোর রাতে রুবেলকে সীতাকুণ্ড থেকে গ্রেপ্তার করা হয়। এছাড়া আলাউদ্দিনকে গ্রেপ্তারে অভিযান অব্যাহত আছে।

এছাড়াও  গত ৩১ আগস্ট বাড়ি ভাড়াসহ বিভিন্ন বিষয় নিয়ে বাড়ির মালিক রুবেলের সাথে ভাড়াটিয়া শাহজাহানের ঝগড়া হয়। একপর্যায়ে তাদের মধ্যে হাতাহাতি-মারামারিও হয়। লাঠি দিয়ে শাহজাহানকে বেধড়ক মারধর করা হয়।

 এ ঘটনায় আহত হয়ে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি হন শাহজাহান। চিকিৎসাধীন অবস্থায় ২ সেপ্টেম্বর ভোর ৫টায় তিনি মারা যান।

উল্লেখ্য দিন মজুর শাহজাহানের মৃত্যুর খবর শুনে তার আত্নীয় স্বজনরা সন্ধা ৬ঃ০০টা 

-৯ঃ৩০টা পর্যন্ত কর্ণফুলী ই পি জেড গেইট হতে কাজী গলি পকেট গেইট  পর্যন্ত রাস্তার দু পাশ বন্ধ করে রাখেন এবং দফায় দফায় পুলিশ ও স্থানীয়দের সাথে  হাতাহাতির ঘঠনা ঘটায় এক পর্যায়ে পুলিশ লাঠিচার্জ করার প্রস্তুতি নিলে তারা রাস্তায় আগুন জ্বালিয়ে বিক্ষোভ করেন পরে ঘঠনা স্থলে র ্যাব এসে তাদের নিয়ন্ত্রণ করেন ।  

স্থানীয়রা জানান নিহত শাহজাহান সমর্থন কারীরা বাড়ি মলিকের নিজ বাসায় ভাংচুরসহ আসবাবপত্রের ক্ষতি সাধন করে। 

এই ঘঠনাকে কেন্দ্র করে নারিকেল তলা এলাকায় থমথমে পরিবেশ বিরাজ করছে।

লাকসাম বৃক্ষরোপণ কর্মসূচির উদ্বোধন করেন মানবতার তরে মানবপ্রেমী' সংগঠন

 লাকসাম  বৃক্ষরোপণ কর্মসূচির উদ্বোধন করেন মানবতার তরে মানবপ্রেমী' সংগঠন





মোঃ রবিউল হোসাইন সবুজ, লাকসাম, কুমিল্লা প্রতিনিধিঃ-


কুমিল্লার লাকসামে বৃহস্পতিবার লাকসাম মডেল কলেজ প্রাঙ্গণে এ কর্মসূচির উদ্বোধন করেন মানবতার তরে মানবপ্রেমী' সংগঠনের স্বেচ্ছাসেবীরা।


গাছ লাগান, পরিবেশ বাঁচান। বৃক্ষ পরিবেশকে সুন্দর রাখে, পরিবেশ বান্ধব দেশ গড়তে অধিক পরিমাণে বৃক্ষরোপণ করুন। 

তারই ধারাবাহিকতায় মানবতার তরে মানবপ্রেমী সংগঠনের উদ্যোগে লাকসাম মডেল কলেজে ফলজ ও ঔষধি বৃক্ষরোপণ ও বিতরণ কমূসূচী পালন করা হয়। 


উক্ত বৃক্ষরোপণ কর্মসূচীতে উপস্থিত ছিলেন প্রধান উপদেষ্টা অ্যাডভোকেট মো. রফিকুল ইসলাম হিরা, সংগঠনের উপদেষ্টা শহীদুল ইসলাম শাহীন, লাকসাম মডেল কলেজের অধ্যক্ষ আলহাজ্ব মোঃ আবু তাহের, মানবতার তরে মানবপ্রেমী সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক মোঃ কামরুজ্জামান আরিফ, , যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মোঃ মহিন উদ্দিন, কোষাধ্যক্ষ মুন মুন সহ সংগঠনের বিভিন্ন শাখার স্বেচ্ছাসেবকগণ।


এসময়, প্রধান উপদেষ্টা অ্যাডভোকেট মো. রফিকুল ইসলাম হিরা বলেন, পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষায় নেতৃবৃন্দ সকলকে বৃক্ষরোপণের অনুরোধ জানান।


উল্লেখ্য, 'মানবতার তরে মানবপ্রেমী' সংগঠনের স্বেচ্ছাসেবীরা বিনামূল্যে রক্তদানসহ সামাজিক ও মানবিক বিভিন্ন কর্মকাণ্ডে প্রশংসনীয় ভূমিকা রেখে আসছেন।

কুমিল্লার মুরাদনগরের রামচন্দ্রপুর উত্তর ইউপি চেয়ারম্যান ও বর্ষীয়ান আওয়ামীলীগ নেতা আলহাজ্ব ছফু মিয়া সরকারেরর জানাজা ও দাফন সম্পন্ন

কুমিল্লার মুরাদনগরের রামচন্দ্রপুর উত্তর ইউপি চেয়ারম্যান ও বর্ষীয়ান আওয়ামীলীগ নেতা আলহাজ্ব ছফু মিয়া সরকারেরর জানাজা ও দাফন সম্পন্ন




শাহ আলম জাহাঙ্গীর

ব্যুরো চিফ, কুমিল্লা


কুমিল্লার মুরাদনগরের ১২ নং রামচন্দ্রপুর উত্তর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও বর্ষীয়ান আওয়ামীলীগ নেতা আলহাজ্ব ছফু মিয়া সরকারের দাফন আজ সম্পন্ন হয়েছে। 


মরহুম চেয়ারম্যান আলহাজ্ব ছফু সরকার কুমিল্লা উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের প্রভাবশালী সাবেক  সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব জাহাঙ্গীর আলম সরকারের  বড় ভাই।

তিনি গতকাল বুধবার ২ সেপ্টেম্বর দুপুর ২.০৫ মিনিটে  চিকিৎসাধীন  অবস্থায় ঢাকার বিআরবি হাসপাতালে ইন্তেকাল করেন। (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন) 

মৃত্যুকালে তার ববয়স হয়েছিলো ৮৫ বৎসর। তিনি স্ত্রী, ৩ছেলে ও ৩ মেয়ে সহ

নাতিনাতিন আত্মীয়স্বজন ও বহু গুণগ্রাহী রেখে যান। ৫ ভাইয়ের মাঝে তিনি ছিলে ৩য়।

মরহুম আলহাজ্ব ছফু মিয়া সরকার আমৃত্যু  ছিলেন আওয়ামী লীগের রাজনীতির জন্য নিবেদিত। ঢাকার  পল্টন ইউনিট আওয়ামী লীগের সভাপতি দিয়ে ই রাজনৈতিক জীবন শুরু করেন, বঙ্গবন্ধু শিশু কিশোর পরিষদের কেন্দ্রীয় কমিটির উপদেষ্টা,মুরাদনগর উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতিসহ বিভিন্ন সমাজ সেবামূলক কার্যক্রমে জড়িত ছিলেন। 




মরহুম চেয়ারম্যানের  প্রথম জানাজা অনুষ্ঠিত হয় ঢাকার পল্টনে গতকাল রাত ৮ টায়,  দ্বিতীয় জানাজা অনুষ্ঠিত হয় বৃহস্পতিবার সকাল ৯ ঘটিকায়  নিজ গ্রামের বাড়ি বি চাপিতলায় এবং শেষ জানাজা অনুষ্ঠিত হয় সকাল ১০ ঘটিকায় রামচন্দ্রপুর অধ্যাপক আব্দুল মজিদ কলেজ মাঠে। 

জানাজা নামাজে বিশিষ্ট ব্যক্তিদের মধে্য উপস্থিত ছিলেন কুমিল্লা উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব জাহাঙ্গীর আলম সরকার,  রামচন্দ্রপুর অধ্যাপক আব্দুল মজিদ  কলেজের প্রতিষ্ঠাতা অধ্যক্ষ আব্দুল মজিদ, মুরাদনগর উপজেলা পরিষদের  চেয়ারম্যান ড.আহসানুল আলম সরকার কিশোর, মুরাদনগর উপজেলা নির্বাহী অফিসার অভিষেক দাস, হোমনা পৌরসভার  মেয়র এড.নজরুল ইসলাম, অধ্যক্ষ ফেরদৌস আহমদ চৌধুরী, জেলা পরিষদেরর সদস্য ভিপি জাকির হোসেন, কুমিল্লা উত্তর জেলার বিভিন্ন রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দসহ  অন্যান্য  ইউপি চেয়ারম্যানবৃন্দের মাঝে মোঃ কামাল উদ্দিন, কাজী আবুল খায়ের,আবুল কালাম, আব্দুল কাইউম ভূইয়া, শরীফুল ইসলাম, আব্দুল লতিফ সরকার, ওমর ফারুকসহ কুমিল্লা উত্তর জেলা ও মুরাদনগর উপজেলার  আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীসহ  এলাকার কয়েক হাজার  সাধারণ মানুষের উপস্থিতিতে জানাজা সম্পন্ন হয়, জানাজা শেষে মরহুমের ইচ্ছে অনুযায়ী ঢাকার আজিমপুর গোরস্থানে তাকে দাফন করা হয় । মরহুম চেয়ারম্যান আলহাজ্ব ছফু সরকারের মৃত্যুতে  স্থানীয়

সংসদ সদস্য আলহাজ্ব ইউসুফ আবদুল্লাহ হারুন,এফসিএ,গভীর শোক ও শোকসন্তপ্ত

পরিবারের প্রতি সমবেদনা প্রকাশ করেন। মুরাদনগর উপজেলা পরিষদ মরহুমকে  ফুলের তোড়া দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন পরিষদের চেয়ারম্যান ড. আহসানুল আলম সরকার কিশোর ও ইউএনও অভিষেক দাস। প্রবীণ এই চেয়ারম্যানের মৃত্যুতে অধ্যাপক আবদুল মজিদ কলেজের পক্ষ থেকে কলেজেরর  অধ্যক্ষ গভীর শোক প্রকাশ করা হয়।এলাকায় তার মৃত্যুতে  শোকের ছায়া নেমে আসে। তার জানাজা নামাজে দলে দলে  মানুষ অংশগ্রহন করে মরহুমের  বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা করেন।তিনি ছিলেন  ১২ নং রামচন্দ্রপুর উত্তর  ইউনিয়নের একটানা ৪ বারের  সফল চেয়ারম্যান। ব তিনি ছিলেন ঢাকার রমনায় কাপড় ব্যবসায়ী,  ব্যক্তিজীবনে তিনি ছিলেন অত্যন্ত ধার্মিক,  শিক্ষানুরাগী ও সহজ সরল মানুষ। 

 

সৌদি আরবের পাবলিক হেলথ সেক্টরে ১০ বছরের পুরনো প্রবাসী শ্রমিকদের কন্ট্রাক্ট রিনিউ হবে না!

সৌদি আরবের পাবলিক হেলথ সেক্টরে ১০ বছরের পুরনো প্রবাসী শ্রমিকদের কন্ট্রাক্ট রিনিউ হবে না!



মোহাম্মদ বেলাল উদ্দিন সিনিয়র স্টাফ রিপোর্টার 


সৌদি আরবের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, সৌদি আরবের পাবলিক হেলথ সেক্টরে যেসকল প্রবাসী শ্রমিক ১০ বছরের বেশি সময় ধরে কাজ করছেন, তাদের কন্ট্রাক্ট রিনিউ করা হবে না। তবে, এদের মাঝে যেসকল শ্রমিক বিশেষ ক্ষেত্রে অভাবনীয় কাজ করছেন, তাদের ক্ষেত্রে ব্যতিক্রম করা হতে পারে।

স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় এর ঘোষণা অনুযায়ী, সৌদি আরবের পাবলিক হেলথ সেক্টর, যেমন হাসপাতাল, ফার্মেসি ইত্যাদি ক্ষেত্রে যেসকল শ্রমিক ১০ বছরেরও বেশি সময় ধরে কাজ করে আসছেন, তাদের কন্ট্রাক্ট রিনিউ করা হবে না। সৌদি আরবের পাবলিক হেলথ সেক্টরকে সৌদিকরণ করার জন্যই এই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে বলে ধারণা করছেন অনেকেই।

সৌদি আরবের ক্যাবিনেট যেসকল প্রবাসী শ্রমিক সৌদি আরবের পাবলিক হেলথ সেক্টরে ব্যতিক্রমধর্মী কাজ করছেন বা অভাবনীয় অবদান রাখছেন, এবং বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রবাসী ফ্যাকাল্টি মেম্বারদের কন্ট্রাক্ট রিনিউ এর ক্ষেত্রে ব্যতিক্রম সিদ্ধান্ত নেবে এবং তাদেরকে নিজেদের ক্ষেত্রে কাজ করে যাবার সুযোগ দেয়া হবে।


উদাহরণ হিসেবে বলা যেতে পারে, যদি কেউ হাসপাতাল বা এরকম কোথাও স্বাস্থ্যকর্মী হিসেবে নিয়োগপ্রাপ্ত হয়ে থাকেন এবং এই খাতে কর্মজীবন ১০ বছর পার করে ফেলেন সৌদি আরবে, তো নতুন আইন অনুযায়ী সে ব্যক্তির  কাজের ক্ষেত্র সঙ্কুচিত হয়ে আসবে। অর্থাৎ তিনি আর তার ওই কর্মস্থলে কাজ করতে পারবেন না। সেক্ষেত্রে হয়তো কর্মীকে তার নিজ নিজ দেশেই ফেরৎ পাঠানো হতে পারে।


উল্লেখ্য, ইতিপূর্বে সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছিলো যে, সৌদি আরবের পাবলিক হেলথ সেক্টরে নতুন করে নিয়োগ দেয়া প্রবাসীদের লেবার কন্ট্রাক্টে ১০ বছরের বেশি সময়সীমা দেয়া যাবে না, এবং এই কন্ট্রাক্ট এর সময়সীমা বৃদ্ধি করার ব্যাপারে শুধুমাত্র ডিরেক্টর অফ হেলথ এফেয়ার্স এবং দেশের বিভিন্ন এলাকায় স্বাস্থ্য বিভাগসমূহের এক্সিকিউটিভ হেডদের এখতিয়ার রয়েছে।

পটিয়ার ভাটিখাইনে প্রতিপক্ষের একই পরিবারের আহত- ৩

 পটিয়ার ভাটিখাইনে প্রতিপক্ষের একই পরিবারের আহত- ৩





পটিয়া (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধিঃ- পটিয়া উপজেলার ভাটিখাইন ইউনিয়নে ২ নম্বর ওয়ার্ডে    বসতঘরে জায়গা নিয়ে বিরোধের জের ধরে প্রতিপক্ষের  এলোপাতাড়ি পিটিয়ে এবং হামলা চালিয়ে  একই পরিবারের ৩ জন আহত করেছে  মর্মে অভিযোগ পাওয়া গেছে। মোঃ আলী মিয়া চোখে     এবং তার স্ত্রী মেরর শরীরের বিভিন্ন স্থানে নীলা ফুলা জখম হয়। ঘটনাটি ঘটেছে ৪ সেপ্টেম্বর শুক্রবার  দুপুর ১২টার সময় সাবেক চেয়ারম্যান জাফর আহমদ এর বাড়িতে।আহতরা হলেন, মোঃ আলী মিয়া, তার স্ত্রী ছেনোয়ারা বেগম,মেয়ে কলেজ শিক্ষার্থী ঝিনু আকতার। আহতদের স্থানীয়রা উদ্ধার করে পটিয়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রাথমিক চিকিৎসা সেবা গ্রহণ করে।পরে মোঃ আলী মিয়ার স্ত্রী বাদী হয়ে একই বাড়ির নুর ছৈয়দ, তৌহিদুল ইসলাম,মিজানুর রহমান, সহ অজ্ঞাতনামা ৭/৮ জনের বিরুদ্ধে পটিয়া থানায় অভিযোগ দায়ের করেছে। অভিযোগ সুএে জানাযায়, দীর্ঘদিন যাবত মোঃ আলী মিয়ার সাথে প্রতিপক্ষ নুর ছৈয়দ গং এর মধ্যে বাড়ির বসতঘর নিয়ে বিরোধ চলে আসছিল। এর পুর্বে ২৯ আগষ্ট এ সংক্রান্ত বিরোধ দেখা দিলে মোঃ আলী মিয়া পটিয়া থানায় অভিযোগ দায়ের করে। এতে প্রতিপক্ষরা ক্ষিপ্ত হয়ে থানার অভিযোগ তদন্তধীন থাকা অবস্থায় ৪ সেপ্টেম্বর শুক্রবার  দুপুর ১২ টার সময় প্রতিপক্ষরা দেশীয় অস্ত্রশস্র সজ্জিত হয়ে বেআইনি জনতা গঠন করে মোঃ আলী মিয়ার বসতঘরে অনধিকার প্রবেশ করে ঘরের উওর পাশে পাকা দেওয়াল ভেঙ্গে ঘরের ভিতরে ঢুকে বিভিন্ন আসবাবপত্র ভাংচুর করে ঘরের মালামাল নিয়ে যায় বলে অভিযোগ সুএে জানাযায়। এছাড়াও প্রতিপক্ষরা ঘরের আলমারি থেকে এক লক্ষ টাকা ও প্রয়োজনীয় কাগজপএাদি, ৩ ভরি স্বর্ণ অলংকার নিয়ে যায় বলে অভিযোগ উল্লেখ করেন। তাদের এমন কাজে বাঁধা মারধর সহ হত্যার হুমকি ধামকি দিচ্ছে বলে বাদী ছেনোয়ারা বেগম জানান। মোঃ আলী মিয়া জানান, তাদেরকে বসতঘর থেকে উচ্ছেদ করতে প্রতিপক্ষরা সন্রাসী পথ বেছে নিয়ে আমাদের উপর হামলা করছে। এমনকি মোঃ আলী মিয়ার বসতঘর দখলে নিতে প্রতিপক্ষরা মরিয়া হয়ে উটেছে। মোঃ আলী মিয়া এ ব্যাপারে পটিয়া থানার ওসি মোঃ বোরহান উদ্দীনের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।    

পটিয়ার নাইখাইন নিরীহ ব্যাক্তির জায়গা দখলের পায়তারার অভিযোগ

পটিয়ার নাইখাইন নিরীহ ব্যাক্তির জায়গা দখলের পায়তারার অভিযোগ



পটিয়া প্রতিনিধিঃ- চট্টগ্রামের পটিয়া উপজেলা জঙ্গলখাইন ইউনিয়নে ৪ নম্বর ওয়ার্ডে নাইখাইন দেবু সাদার বাড়িতে নিরীহ গরীব অসহায় বৃদ্ধ মোঃ রফিক নামে এক ব্যাক্তির ১৬ শতক বসতঘরের জায়গা  দখলের পায়তারা চালাচ্ছে মর্মে অভিযোগ উঠেছে। মৃত টান্ডার মিয়ার পুএ মোঃ রফিক অত্যান্ত গরীব অসহায় দিন মজুর মানুষ। থানায় অভিযোগ দায়ের করার মতন টাকাও নেই তার ।কিন্তু একটি মহল তার বসতঘরে লোলুপ দৃষ্টি পড়ে।ফলে থাকে বিভিন্ন অভিযোগ দিয়ে হয়রানি শুরু করেছে বলে সে জানান।বিষয়টি ঐ এলাকার সাবেক মেম্বার নুরুল হক, পটিয়া- কর্ণফুলী মাইজভান্ডারী গাউছিয়া হক কমিটির সমন্বয়কারী ব্যাবসায়ি জামরুল ইসলাম, পটিয়া পৌরসভার সাবেক সাধারণ সম্পাদক ব্যাবসায়ি দিদারুল আলম, দৈনিক জনতা'র সাংবাদিক সেলিম চৌধুরী সহ প্রতিবাদ করলে চক্রটি কোন রকম রক্ষা পায়। এর পরেও চক্রটি যেকোন মুহূর্তে তাকে শত বছরের ভোগদখলীয় মৌরশী সম্পক্তি থেকে উচ্ছেদ করতে পারে বলে আশংকা প্রকাশ করেন মোঃ রফিক । সে এ ব্যাপারে জাতীয় সংসদের হুইপ পটিয়ার এমপি আলহাজ্ব শামসুল হক চৌধুরী হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।                                                    



পটিয়া অনলাইন সেবা বিডি.কম উদ্বোধনে মেয়র অধ্যাপক হারুনুর রশিদ

 পটিয়া অনলাইন সেবা বিডি.কম উদ্বোধনে মেয়র অধ্যাপক হারুনুর রশিদ






সেলিম চৌধুরী পটিয়া প্রতিনিধিঃ চট্টগ্রামের পটিয়াবাসীর জন্য সর্ব প্রথম নিত্য প্রয়োজনীয়  সেবা চালু করেছেন, পটিয়া  অনলাইন সেবা. বিডি কম. উদ্বোধন  করা হয়েছে। ৪ সেপ্টেম্বর দুপুরে উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক  ও পটিয়া পৌরসভার  মেয়র অধ্যাপক হারুনুর রশিদ এ অনলাইন সেবা উদ্বোধন করেন। এ সময়   



 উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় ব্যাবসায়ি সমাজের বিশিষ্ট     ব‍্যাক্তিবর্গ, সাংবাদিক বৃন্ধ,



বিভিন্ন  প্রতিষ্টানেের প্রতিষ্ঠাতা ও  কর্মকর্তা বৃন্ধ, বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতৃবৃন্দ    



উপস্থিত ছিলেন। এ সেবা চালুর   কার্যক্রমে মধ্যে দিয়ে পটিয়ার আপামর জনসাধারণ  সহজে তাদের  কাঙ্ক্ষিত সেবা পাবে বিষয়টি নিশ্চিত করেন ছবুর রোড়ের একাধিক ব্যাবসায়িরা।