বদলগাছী মথরাপুর তিরমনি ব্রিজের রাস্তার বেহাল অবস্থা এ যেন মরণ ফাঁদ

বদলগাছী মথরাপুর তিরমনি  ব্রিজের রাস্তার বেহাল অবস্থা এ যেন মরণ ফাঁদ

 


রহমতউল্লাহ বদলগাছী নওগাঁ: এ যেন এক মরণফাঁদ বদলগাছী উপজেলার ২নং মথুরাপুর ইউনিয়নের শেষপ্রান্ত ঐতিহ্যবাহী তিরমুনি ঘাটের ২০০মিটার রাস্তার বেহাল অবস্থা। 

নওগাঁ জেলার বদলগাছী উপজেলার ২নং মথুরাপুর ইউনিয়ন এর অন্তরালে বদলগাছী উপজেলা ও পত্নীতলা উপজেলা সদর দ্বারপ্রান্তে তিরমুনি ঘাট যা দুটি উপজেলা সংযোগস্থল আরে সংযোগ স্থলের মাঝ বরাবর বয়ে চলেছে বদলগাছীতে অবস্থিত ছোট গঙ্গা নদী এর মাঝ বরাবর ঐতিহ্য বাহি তিরমনি ঘাট 

দুটি উপজেলার  সংযোগ স্থল হলেও ঘাটে অবস্থিত ব্রিজের রাস্তার বেহাল দশা এ যেন এক মরণ ফাঁদে পরিনত যাতে দুর্ভোগে পড়ে দুই উপজেলার জনসাধারণ  ও রাস্তার বেহাল দশার ফলে ঝুঁকিপূর্ণভাবে চলছে চলাচল এতে করে যেকোনো সময় ঘটে যেতে পারে বড়  কোনো দুর্ঘটনা

এ রাস্তা দিয়ে প্রতিনিয়ত চলাচল করে হাজারো মানুষ তারা রাস্তার বেহাল দশা ও রাস্তার মাঝে খাদ থাকার কারণে দুরভোগে  পড়ছে প্রতিনিয়ত।

এলাকাবাসী জানান যান চলাচল ও সম্ভব হচ্ছে না এ রাস্তা বেহাল অবস্থা ও রাস্তার মাঝে ধসে যাওয়ায় খাদ  থাকার কারণে বদলগাছী ও পত্নীতলা সংযোগস্থল হলেও এ দুই উপজেলা   তে প্রচুর পরিমাণে ধান উৎপাদিত হয় এবং সবজী উৎপাদিত হয় রাস্তা বেহাল অবস্থার কারণে উৎপাদিত সবজি বাজারে  রপ্তানি করতে পারছেনা এলাকার কৃষক এতে অর্থনৈতিক সমস্যায় পড়ছে কৃষক ও জনসাধারণ ।এলাকাবাসীর দাবির দাবি সংশ্লিষ্ট এ ঘটনাকে আমলে নিয়ে অতি তাড়াতাড়ি এর বিরোধ করতে  

এবং একই সাথে এ রাস্তা কাজটি করে এলাকার উন্নয়নের মান দন্ড পরিপূর্ণ করা জন্য  অনুরোধ করেন এলাকা বাসি ।

অজয় কান্তি পেপার মিলের বর্জ্যয় মূল্যবান পণ্য বানানোর গবেষক

 অজয় কান্তি পেপার মিলের বর্জ্যয় মূল্যবান পণ্য বানানোর গবেষক

 আহসান উল্লাহ বাবলু উপজেলা  প্রতিনিধি;    অজয় কান্তি মন্ডল, পিতাঃ শ্রীদাম চন্দ্র মন্ডল, গ্রামঃ নাটানা, পোস্টঃ হাড়ীভাঙ্গা, থানাঃ আশাশুনি, জেলাঃ সাতক্ষীরা; বাংলাদেশ সরকারের গবেষণা প্রতিষ্ঠান বাংলাদেশ বিজ্ঞান ও শিল্প গবেষণা পরিষদে (সাইন্স ল্যাব) ঊর্ধ্বতন বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা পদে চাকুরীর পাশাপাশি বর্তমানে উচ্চ শিক্ষা (পিএইচডি ডিগ্রী) অর্জনের উদ্দেশ্যে ফুজিয়ান এগ্রিকালচার এন্ড ফরেস্ট্রি ইউনিভার্সিটি, চীনের ফুজিয়ান প্রদেশে সপরিবারে অবস্থান করছেন। পিএইচডি ডিগ্রী অর্জনের জন্য তিনি ২০১৮ সালে চীন সরকারের স্কলারশিপ (সিএসসি স্কলারশিপ) পেয়েছিলেন। তার গবেষণা কার্যক্রমের বিষয়ঃ পেপার মিলের অব্যবহৃত বর্জ্য বা উপজাত থেকে লিগনিন পৃথক করে সেটা থেকে মূল্যবান পণ্য বানানো। তার ডিগ্রীর অর্ধ পর্যায় তিনি গবেষণা কার্যক্রম বেশ সফলতার সাথে সম্পন্ন করে চারটি আন্তর্জাতিক, খ্যাতিসম্পন্ন খুবই ভালো মানের জার্নালে গবেষণা প্রবন্ধ প্রকাশ করা সহ গত ডিসেম্বরে “বিসিএসআইআর কংগ্রেস ২০১৯” শীর্ষক সেমিনারে তার একটা গবেষণা প্রবন্ধ উপস্থাপন করতে চীন সরকারের অর্থায়নে অন্যান্য দেশের স্বনামধন্য বিজ্ঞানীদের সাথে কয়েকদিনের জন্য বাংলাদেশে সংক্ষিপ্ত সফরে এসেছিলেন।


গত বছরের ডিসেম্বরে “বিসিএসআইআর কংগ্রেস ২০১৯” সেমিনারে বিদেশী বিজ্ঞানী এবং সুপারভাইজারের সাথে।গতবছর সম্প্রীতি তিনি তার গবেষণা কাজের একটি অংশ চীনের নানজিং বিশ্ববিদ্যালয় কতৃক আয়োজিত একটা সেমিনারে উপস্থাপন করেন। সেখানে চীনের মোট সাতাশটি বিশ্ববিদ্যালয়ের মোট ৭৬ জন গবেষক, শিক্ষক, ছাত্র ছাত্রীদের উপস্থাপনা থেকে তার উপস্থাপনাটি প্রথম পুরুস্কার অর্জনের পাশাপাশি তিনি অসাধারণ প্রতিভা সম্পন্ন পুরুস্কার হিসাবে একটি সার্টিফিকেট এবং ১০০০ ইউয়ান (প্রায় ১৩০০০ টাকা) পকেট মানি অর্জন করেন। তার এই অর্জন ফুজিয়ান এগ্রিকালচার এন্ড ফরেস্ট্রি ইউনিভার্সিটি ওয়েবসাইটে গুরুত্ব সহকারে প্রকাশ করে। আমরা তাঁর অর্জন কে স্বাগত জানাই। তিনি শুধু সাতক্ষীরার নয় সমগ্র বাংলাদেশের গর্ব। সার্টিফিকেট এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের ওয়েবসাইটে ওনার সফলতার সংবাদ।উল্লেখ্য তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে রসায়ন শাস্ত্রে প্রথম শ্রেনীতে স্নাতক এবং ভৌত রসায়নে সর্বোচ্চ নম্বর পেয়ে প্রথম শ্রেনীতে প্রথম স্থান অধিকার করেন। স্নাতকোত্তর শেষ করে তিনি কিছুদিন একটা প্রাইভেট বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষকতা করেন। আমরা তার জীবনের সার্বিক মঙ্গল কামনা করি।

মুজিব জন্মশত বার্ষিকী উপলক্ষে চুয়াডাঙ্গায় নাইট ফুটবল টূর্নামেন্টের উদ্বোধন

 মুজিব জন্মশত বার্ষিকী উপলক্ষে চুয়াডাঙ্গায় নাইট ফুটবল টূর্নামেন্টের উদ্বোধন




মোঃকাউসার আলী

চুয়াডাঙ্গা প্রতিনিধি

মুজিব জন্মশত বার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষে বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ,চুয়াডাঙ্গা শাখার আয়োজনে চুয়াডাঙ্গার পুরাতন স্টেডিয়াম মাঠে আজ সন্ধ্যা সাড়ে সাতটায় উদ্বোধন করা হয় নাইট ফুটবল টূর্নামেন্টের।আর এ নাইট ফুটবল টূর্নামেন্টের উদ্বোধন করেন চুয়াডাঙ্গা জেলা যুবলীগের নয়নের মনি, হাজার যুবকের প্রাণের স্পন্দন,বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ, চুয়ডাঙ্গা শাখার আহবায়ক এবং চুয়াডাঙ্গা জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক জনাব মোঃনঈম হাসান জোয়ার্দার (মিয়া ভাই)।

এ উদ্বোধন অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ, চুয়াডাঙ্গা জেলা শাখার যুগ্ম আহবায়ক জনাব মোঃজিল্লুর রহমান,বাংলাদেশ রাইফেলস ক্লাব চুয়াডাঙ্গা শাখার সাধারণ সম্পাদক জনাব মোঃ সোহেল

 আকরাম এবং জেলা ক্রীড়া সংস্থার যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জনাব মোঃআব্দুস সালাম।

এই টূর্নামেন্টে অংশগ্রহণকারী দল সমূহ হলঃচুয়াডাঙ্গার শেখ রাসেল ক্রীড়া চক্র,শেখ জামাল স্পোর্টিং ক্লাব,শেখ কামাল স্পোর্টিং ক্লাব,শেখ মনি স্পোর্টিং ক্লাব এবং ভিক্টোরিয়া স্পোর্টিং ক্লাব।

উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে জননেতা নঈম হাসান জোয়ার্দার (মিয়া ভাই) বলেন যে বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়তে হলে যুব সমাজকে মাদক এবং খারাপ কাজ থেকে দূরে রাখতে হবে এবং খেলাধুলায় হল যুব সমাজকে মাদক এবং খারাপ কাজ থেকে দূরে রাখার একমাত্র হাতিয়ার।তিনি আরও বলেন চুয়াডাঙ্গায় এরকম আরও বড় বড় টূর্নামেন্ট আয়োজন করা হবে যাতে করে চুয়াডাঙ্গার যুব সমাজ বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়তে অগ্রনী ভূমিকা রাখতে পারে।

নারায়ণগঞ্জের হতাহত পরিবারে খেলাফত মজলিসের আর্থিক সহায়তা

 নারায়ণগঞ্জের হতাহত পরিবারে খেলাফত মজলিসের আর্থিক সহায়তা


নারায়ণগঞ্জ,সিপনঃআজ শুক্রবার ১১ সেপ্টেম্বর বিকাল ৩টায় নারায়ণগঞ্জের পশ্চিম তল্লা বাইতুল সালাত জামে মসজিদে ভয়াবহ বিস্ফোরনে হতাহত পরিবারের খোঁজখবর ও ৩৮টি পরিবারকে নগদ আর্থিক সহায়তা প্রদান করেন খেলাফত মজলিসের মহাসচিব ও ২০ দলীয় জোটের শীর্ষ নেতা ড. আহমদ আব্দুল কাদের।

এসময় তিনি বলেন, মসজিদে অগ্নি দুঘর্টনায় তিতাস গ্যাসের দায়ীদের অবিলম্বে শাস্তির আওতায় আনতে হবে।ইতিমধ্যে নিহত পরিবারকে ৫ লাখ করে দিতে আদেশ দিয়েছে হাইকোর্ট। তিতাস গ্যাসের সব কর্মকর্তাদের আইনে আওতায় আনতে হবে। মানুষ এখন মসজিদেও নিরাপত্তায় পাচ্ছে না সরকারের কতিপয় কর্মকর্তাদের কারণে।

এ সময় তিনি ভয়াবহ বিস্ফোরণে হতাহত পরিবারগুলোর খোঁজখবর নেন এবং ৩৮টি পরিবারকে নগদ আর্থিক সহায়তা প্রদান করেন।তিনি শোকসন্তপ্ত পরিবারগুলোর প্রতি গভীর সমাবেদনা প্রকাশ করেন।


আরো উপস্থিত ছিলেন, খেলাফত মজলিসের কেন্দ্রীয় যুগ্ম-মহাসচিব অ্যাডভোকেট জাহাঙ্গীর হোসাইন, মাওলানা আহমদ আলী কাসেমী, কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য বিয়ষক সম্পাদক ও নারায়ণগঞ্জ মহানগর সভাপতি ডাঃ শরিফ মোহাম্মদ মোসাদ্দেক, নারায়ণগঞ্জ জেলা সভাপতি এবিএম সিরাজুল মামুন, মহানগরের সহ-সভাপতি ইলিয়াস আহমদ, আলমগীর হোসাইন, জেলা সাধারণ সম্পাদক মাওলানা আহমদ আলী, মহানগর সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক শাহ আলম, জেলা সাংগঠনিক সম্পাদক হাফেজ কবির হোসাইন, ছাত্র মজলিস নারায়ণগঞ্জ মহানগরের সভাপতি শাব্বির আহমাদ, খেলাফত মজলিস নারায়ণগঞ্জ মহানগর সহ সাধারণ সম্পাদক কামরুল হাসান পায়েল, জেলা সহ সাধারণ সম্পাদক ও সিদ্ধিরগঞ্জ থানা সভাপতি নূর মোহাম্মদ খান, ফতুল্লা থানা সভাপতি মিজানুর রহমান,জেলা দপ্তর ও প্রচার সম্পাদক কাউসার আহমদ সরকার,মিডিয়া সেলের সমন্বয়ক জাহিদ হাসান এবং জেলা ছাত্র মজলিস বায়তুল মাল ও প্রচার সম্পাদক আলম আদনান প্রমূখ।

পটিয়া উপজেলা আওয়ামী মুক্তিযোদ্ধা প্রজন্মলীগের এি-বার্ষিক সন্মেলন ও পৌর নবগঠিত কমিটির পরিচিত সভা

 পটিয়া উপজেলা আওয়ামী মুক্তিযোদ্ধা প্রজন্মলীগের এি-বার্ষিক  সন্মেলন ও পৌর নবগঠিত কমিটির পরিচিত সভা



সেলিম চৌধুরী  পটিয়া প্রতিনিধিঃ ১১ ই সেপ্টেম্বর ২০ ইং  শুক্রবার  বিকেল ৩ ঘটিকার সময় পটিয়া কমিনিউটি সেন্টারে বাংলাদেশ আওয়ামী মুক্তিযোদ্ধা প্রজন্মলীগ পটিয়া উপজেলার ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন ও পটিয়া পৌরসভার নব গঠিত কমিটির পরিচিতি সভা উপজেলার সভাপতি কামাল হোসাইন এর সভাপতিত্বে ও পৌরসভার যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মাদ কাউছার ও সাংগঠনিক সম্পাদক সাইফুল ইসলাম বিপুর যৌথ পরিচালনায় অনুষ্ঠিত হয় ।

এতে উদ্বোধক ও প্রধান অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামী মুক্তিযোদ্ধা  প্রজন্মলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক ও চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলার সভাপতি আলমগীর আলম, প্রধান বক্তা ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামী মুক্তিযোদ্ধা প্রজন্মলীগ চট্টগ্রাম দক্ষিণলার সাধারণ সম্পাদক নাজিম উদ্দীন, বিশেষ বক্তা পটিয়া পৌরসভার সভাপতি শফিকুল ইসলাম শফি, বিশেষ অতিথি পটিয়া পৌরসভার সাধারণ সম্পাদক জয়নাল আবেদীন। আবর আমিরাত চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আবুল হোসেন,চট্টগ্রাম আইন কলেজের মেধাবী ছাত্রনেতা  আবদুল্লাহ আল মামুন,এতে বক্তব্য রাখেন পটিয়া পৌরসভার সাংগঠনিক সম্পাদক হাসান মানিক, উপজেলার নেতা মহিউদ্দিন সাগর, মোহাম্মদ ইদ্রিস, শহীদুল ইসলাম, সাদ্দাম হোসেন,জাহেদ, নজুরুল ইসলাম, আবদুল মন্নান,হারুনুর রশীদ প্রমুখ।

এতে বক্তারা বলেন জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান নিজের জীবনবাজী রেখে এ দেশকে স্বাধীন করেছেন তার স্বপ্ন ছিল বাংলাদেশকে ক্ষুদা ও দারিদ্র মুক্ত দেশ হিসাবে তৈরী করার তায় নতুন প্রজন্মকে মুক্তিযোদ্বের চেতনায় গড়ে তুলে আগামী দিনে বাংলাদেশকে উন্নত দেশে রুপান্তর করতে একযোগে কাজ করতে হবে।  

উক্ত এি- বার্ষিক সন্মলনে সকলের সর্বসম্মতিক্রমে      সাবেক মেধাবী ছাত্রনেতা মহিউদ্দিন সাগরকে সভাপতি ও সাবেক মেধাবী ছাত্রনেতা মোঃ ইদ্রিসকে সাধারন সম্পাদক  নির্বাচিত করে পটিয়া উপজেলা আওয়ামী মুক্তিযোদ্ধা প্রজন্মলীগ কমিটি ঘোষণা করেন য়ৌথভাবে চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলার সভাপতি আলমগীর আলম ও সাধারণ সম্পাদক নাজিম উদ্দীন। 

ঝিনাইদহ জেলার শৈলকুপা উপজেলায় ইজিবাইক চালক হত্যা,ইজিবাইক ছিনতাই

ঝিনাইদহ জেলার শৈলকুপা উপজেলায় ইজিবাইক চালক হত্যা,ইজিবাইক ছিনতাই

সম্রাট হোসেন,শৈলকুপা  (ঝিনাইদহ)  প্রতিনিধিঃঝিনাইদহ জেলার  শৈলকুপা উপজেলার রাণীনগর গ্রামে মো: তোপু হোসেনের  (১৫) নামের ইজিবাইক চালক কে হত্য করে ইজিবাইক ছিনতায় করে কে বা কারা কুষ্টিয়ার ভাদালিয়া নামক স্থানে রাস্তার পাশে ফেলে রেখে যায়।   উপজেলার রানি নগর গ্রামে আনারুল মণ্ডল এর এক মাত্র ছেলে। তার মৃত্যু তে গ্রামে শোকের ছায়া নেমে এসেছে। এবং তারা হত্যকারি দের ধরে কঠর শাস্তির দাবি করে।

বাংলাদেশ নাগরিক সংসদ এর শৈলকুপা উপজেলা কমিটি অনুমোদিত

 বাংলাদেশ নাগরিক সংসদ এর শৈলকুপা উপজেলা কমিটি অনুমোদিত


সম্রাট হোসেন শৈলকুপা (ঝিনাইদহ) প্রতিনিধিঃবাংলাদেশ  নাগরিক সংসদ ঝিনাইদহ জেলার শৈলকুপা উপজেলার ৩১ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি অনুমোদন করা হয়েছে।দুই বছর মেয়াদী এই কমিটির ইমদাদুল হক( কবির) সভাপতি  এবং সাব্বির রহমান কে সাধারণ সম্পাদক করে এই কমিটি ঘোষণা করা হয়েছে। এই কমিটির প্রধান কাজ হবে শৈলকুপা উপজেলা কে নিরক্ষরতা মুক্ত করা এবং গরীব অসহায় মেধাবী শিক্ষার্থীদের সাহায্য-সহযোগিতা করে তাদের সঠিকভাবে পড়ালেখা করার সুযোগ সৃষ্টি করে দেওয়া।

কুখ্যাত মাদক ব্যবসায়ী হানিফ ফেন্সিডিল সহ আটক

 কুখ্যাত মাদক ব্যবসায়ী হানিফ ফেন্সিডিল সহ আটক

কুষ্টিয়া জেলা প্রতিনিধি//কুষ্টিয়া : র‌্যাব-১২, সিপিসি-১, কুষ্টিয়া ক্যাম্পের একটি চৌকষ আভিযানিক দল আজ বৃহস্পতিবার দুপুর ১.৫০ মিনিটের সময় ‘‘কুষ্টিয়া দৌলতপুর খাসমথুরাপুর স্কুল বাজার রোডস্থ হানিফ অটো সার্ভিস এর সামনে পাঁকা রাস্তার উপর’’ একটি মাদক অভিযান পরিচালনা করাকালে ফেন্সিডিল-১৫৬ বোতল মোটরসাইকেলসহ ৩ জনকে আটক করে র‌্যাব-১২।

আটককৃত হচ্ছে দৌলতপুর খাসমথুরাপুর স্কুল বাজার পাড়া মৃত নুরু মিয়ার ছেলে আবু হানিফ, একই এলাকার রবি মোল্লার ছেলে জনি, দৌলতপুর ইউনিয়নের দারেরপাড়া গ্রামের  আঃ রাজ্জাকের ছেলে চঞ্চল।  


এ বিষয়ে দৌলতপুর থানা পুলিশ পরিদর্শক তদন্ত নিশিকান্ত সরকার জানান, কুষ্টিয়া   র‍্যাব ১২,  মাদক আইনে একটি মামলা করেছে যাহার নং ২১  ।

দারুল আরকাম এর ২০২০ জন অসহায় শিক্ষকের পরিবারের পাশে এক মহান ব্যাক্তি

দারুল আরকাম এর ২০২০ জন অসহায় শিক্ষকের পরিবারের পাশে এক মহান ব্যাক্তি




আব্দুর রাজ্জাকঃবাংলাদেশে করোনাকালীন এই  মহামারী- দুরাবস্থার মধ্যে আজকে সবচেয়ে বড় অসহায় মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কর্তৃক  প্রতিষ্ঠিত দারুল আরকাম  মাদ্রাসার ২০২০ জন শিক্ষক-শিক্ষিকা এবং তাদের পরিবারবর্গ।  বাংলাদেশে এতো সুশীল সমাজ এবং আলেম সমাজ, আজ এই ২০২০ জন শিক্ষক আলেম পরিবারের পাশে দারাবার মত কেউ নেই।  

দারুল আরকাম এর ২০২০ জন অসহায় শিক্ষকের পরিবারের পাশে এক মহান ব্যাক্তি দাঁড়িয়েছেন,  যিনি মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার একান্ত আস্থাভাজন   চট্টগ্রাম-২  আসনের মাননীয় সংসদ সদস্য এবং তরিকত ফেডারেশনের সম্মানিত চেয়ারম্যান জনাব আলহাজ্ব সৈয়দ মজিবুল বশর মাইজভান্ডারী মাননীয় এমপি মহোদয়। 


দারুল আরকামের এই দুর্দিনে ২০২০ জন শিক্ষকদের পাশে থাকায় মামনীয় এমপি মহোদয়ের অবদান প্রত্যেকটি মুহূর্তে প্রত্যেকটি সময় চির স্মরণীয় হয়ে থাকবে ইনশাআল্লাহ । 

দোয়া করি, মহান আল্লাহ তায়া’লা  যেন আলহাজ্ব সৈয়দ মজিবুল বশর মাইজভান্ডারী  মাননীয় এমপি মহোদয়কে  বাংলাদেশের  সম্মনিত  স্থানে আসন গ্রহণ করে এ দেশের মানুষের সেবা করার জন্য সুযোগ দান করেন। 

গত ৭/৯/২০ তারিখে জাতীয় সংসদ অধিবেশনে তিনি তাঁর নিজের এলাকা এবং অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ কাজ ব্যতিরেখে শুধুমাত্র দারুল আরকাম এর ২০২০জন শিক্ষকদের অসহায়ত্ব বিষয় মূল্যবান বক্তব্য পেশ করে  মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করেন। 


শুধু তাই নয়, তিনি গত চারদিনে অর্থ মন্ত্রণালয়, পরিকল্পনা মন্ত্রণালয় এবং শিক্ষা মন্ত্রণালয় ও ধর্ম মন্ত্রণালয়ের সচিব মহোদয়সহ  ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সাথে তিনি অবিরাম যোগাযোগ অব্যাহত রাখেন। যার ফলশ্রুতি হিসেবে আগামী ১৬/৯/২০ তারিখ বুধবার ধর্ম সচিব মহোদয়ের সভাপতিত্বে, ধর্ম মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে সভা অনুষ্ঠিত হবে ইনশাআল্লাহ। 

সভার সার্বিক বিষয় বাস্তবায়ন করার লক্ষ্যে মাননীয় এমপি মহোদয় সর্বক্ষণিক যোগাযোগ অব্যাহত রেখেছেন। 

মাননীয় এমপি মহোদয়ের সুস্বাস্থ্য ও দীর্ঘায়ু কামনা করছি। 


ধন্যবাদান্তেঃ- 

হাফেজ মাওলানা মোঃ ইউনুস খান

 সিনিয়র সহ-সভাপতি বাংলাদেশ দারুল আরকাম শিক্ষক কল্যাণ সমিতি, কেন্দ্রীয় কমিটি।

উপজেলা চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে সেচ্চাচারিতার অভিযোগ মাসিক সভা বর্জন

উপজেলা চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে সেচ্চাচারিতার অভিযোগ মাসিক সভা বর্জন



তাহের খাঁন,কোটচাঁদপুর(ঝিনাইদহ)প্রতিনিধিঃঝিনাইদহের কোটচাঁদপুর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান শরিফুন্নেছা মিকি’র সেচ্চাচারিতা ও সমন্বয়হীনতার প্রতিবাদে উপজেলা পরিষদের মাসিক সভা বর্জন করেছে পরিষদের ৯ জন জনপ্রতিনিধি।


বৃহস্পতিবার সকালে উপজেলা পরিষদের মাসিক সভা থেকে ২জন উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান, উপজেলার সকল ইউপি চেয়ারম্যান ও সংরক্ষিত ২জন মহিলা সদস্যরা একমত পোষণ করে এই সভা বর্জন করেন।

জানা গেছে, বৃহস্পতিবার সকাল ১১টায় যথারীতি উপজেলা পরিষদের হল রুমে মাসিক সভা শুরু হয়। সভা চলাকালিন সময়ে জনপ্রতিনিধিরা দীর্ঘদিনের ক্ষোভের বিষয়টি তুলে ধরলে উপজেলা চেয়ারম্যান শরিফুন্নেছা মিকি’র সাথে অন্যান্য জনপ্রতিনিধিদের বাক-বিতন্ডা হয়। এতে করে ৯জন জনপ্রতিনিধি উপস্থিত স্বাক্ষর না করে সভা বর্জন করে হলরুম থেকে বেরিয়ে আসেন।

এরা হচ্ছেন, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যন রিয়াজ হোসেন ফারুক, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান সাদিয়া আক্তার পিংকী, সাবদারপুর ইউপি চেয়ারম্যান নওশের আলি নাসির, এলাঙ্গী ইউপি চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান খান, বলুহর ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল মতিন, কুশনা ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল হান্নান, দোড়া ইউপি চেয়ারম্যান কাবিল উদ্দীন বিশ্বাস, সংরক্ষিত মহিলা সদস্য নাছরিন বেগম ও সুচিত্রা মালাকার।

সভা বর্জন করে ওই সকল জনপ্রতিনিধিরা সাংবাদিকদের বলেন, উপজেলা চেয়ারম্যান শরিফুননেছা মিকি’র মত আমরাও নির্বাচিত জনপ্রতিনিধি। কিন্তু উপজেলা পরিষদের সরকারী অনুদান ও বরাদ্দে’র কোন বিষয়ে উপজেলা চেয়ারম্যান আমাদের সাথে আলাপ না করে সভায় উপস্থিত স্বাক্ষর করে নিয়ে দায় সারেন। তিনি নিজের মত করে কাজ সেচ্চাচারিতা করছেন। অথচ আমরা জনপ্রতিনিধি হলেও নিজ নিজ এলাকার মানুষের জন্য কোন উপকারে আসতে পারছিনা। সভা বর্জনকারী জনপ্রতিনিধিরা বলেন, ২০১৯-২০ অর্থ বছরে এডিবি’র বরাদ্দের ক্রয়-বিক্রয় থেকে শুরু করে বিতরণের কাজও তিনি নিজেই করেন। কখনো আমাদেরকে জানানোর প্রয়োজন মনে করেন না। যে কারণে বাধ্য হয়ে আমরা সভা বর্জনের সিদ্ধান্ত নিয়েছি। বিষয়টি লিখিত ভাবে জেলা প্রসাশক ও বিভাগীয় কমিশনারকে জানাবেন বলে তারা জানান।


এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার আসাদুজ্জামান রিপন এই প্রতিবেদককে বলেন, একঘণ্টা ধরে সভা চলছিলো। বর্জনের বিষয়টি ঠিক না। তবে একটি অনাকাঙ্খিত ঘটনা ঘটেছে। এবং শেষের দিকে দুই একজন করে হলরুম থেকে বেরিয়ে গেছে। ঘটনাটি কাকতালীয় ভাবে ঘটেছে। সবার সাথে আলাপ-আলোচনার মাধ্যমে বিষয়টি  নিষ্পত্তি করার চেষ্টা করছি।

উপস্থিত স্বাক্ষরের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, কেউ উপস্থিত থেকে স্বাক্ষর না করে থাকলে তার তো স্বাক্ষর নিতে হবে। এ ঘটনায় জনপ্রতিনিধিদের মাঝে তীব্র ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।


এ বিষয়ে উপজেলা চেয়ারম্যান শরিফুননেছা মিকি বলেন, অন্যান্য সদস্যরা নিয়ম বহিভর্‚ত বায়না করলে তো হবে না । যে কোন অনুদান বা সরকারী বরাদ্দ নিয়ে কাজ করতে গেলে আমার জবাব দিহিতা রয়েছে। যে কারণে আমার এখতিয়ার অনুযায়ী কাজ করে যাচ্ছি। এতে হট্টগোল করার কিছু নেই।

আশাশুনির বড়দলে সরকারী খালের নেটপাটা ও ভেড়িবাঁধ অপসারণ

 আশাশুনির বড়দলে সরকারী খালের নেটপাটা ও ভেড়িবাঁধ অপসারণ

আহসান উল্লাহ বাবলু, উপজেলা  প্রতিনিধি:আশাশুনি উপজেলার বড়দল ইউনিয়নের সরকারী খাস খালে অবৈধ নেটপাটা ও ভেড়িবাঁধ দিয়ে মৎস্য ঘের করে পানি নিষ্কাশন বন্ধ করার অবৈধ নেটপাটা ও ভেড়িবাঁধ অপসারণ করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার ও শুক্রবার দু'দিনভোর সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসক এসএম মোস্তফা কামাল, উপজেলা নির্বাহী  অফিসার মীর আলিফ রেজা ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) শাহীন সুলতানার  নির্দেশে বড়দল ইউনিয়ন (ভূমি) সহকারী কর্মকর্তা রনজিত কুমার মন্ডল এ নেটপাটা ও ভেড়িবাঁধ অপসারণ করেন। অপসারণকালে উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশক্রমে রনজিত কুমার মন্ডল বলেন, সরকারী নির্দেশ অমান্য করে পরবর্তীতে ভেড়িবাঁধ দিলে সবাইকে মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে জরিমানা করা হবে। বৃহস্পতিবার ইউনিয়নের বামনডাঙ্গা ও ফকরাবাদ মৌজায় ৮টি পয়েন্টে এবং শুক্রবার চকবুড়িয়া মৌজার ১৩টি পয়েন্টের ভেড়িবাঁধ অপসারণ করা হয়। এসময় ইউপি সদস্য মোঃ আব্দুল কাদের, দিলিপ কুমার সানা, গ্রামপুলিশ বৃন্দ ও সাধারণ জনগণ উপস্থিত ছিলেন।

সাতক্ষীরা সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের পরিচিতি সভা ও বঙ্গবন্ধুর মাজারে শ্রদ্ধা জ্ঞাপন

 সাতক্ষীরা সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের পরিচিতি সভা ও বঙ্গবন্ধুর মাজারে শ্রদ্ধা জ্ঞাপন

 


আজহারুল ইসলাম সাদী, স্টাফ রিপোর্টারঃসাতক্ষীরা সদর উপজেলা আওয়ামীলীগের নবগঠিত কার্যনির্বাহি কমিটির পরিচিতি সভা ও বঙ্গবন্ধুর মাজারে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করা হযেছে।

শুক্রবার (১১ সেপ্টেম্বর)  সকালে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সমাধিস্থল গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় উক্ত পরিচিতি সভায় নবগঠিত সদর উপজেলা আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি শেখ আব্দুর রশিদের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক শাহাজান আলীর সঞ্চালনায় সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন,সাতক্ষীরা সদর উপজেলা আওয়ামীলীগের সাবেক সভাপতি এস.এম শওকাত হোসেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন, জেলা আওয়ামীলীগের সাবেক দপ্তর সম্পাদক শেখ হারুনার রশিদ, নবগঠিত সদর উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি  বৈকারী ইউপি চেয়ারম্যান আসাদুজ্জামান অছলে, আব্দুল কাদের, ফারুক হোসেন, এড. সামিউল ফেরদৌস পলাশ, যুগ্ন সাধারন সম্পাদক মোস্তাফিজুর রহমান নাছিম, সাংগঠনিক সম্পাদক শেখ মনিরুল হোসেন মাছুম, প্রভাষক হাসান মাহমুদ রানা প্রমুখ। 

পরিচিতি ও আলোচনা সভা শেষে নেতৃবৃন্দ, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সমাধিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জ্ঞাপন ও তার আত্নার মাগফেরাত কমনা করে দোয়া করেন।

কেশবপুরে আখ চাষে বাম্পার ফলন, আখ চাষিদের মুখে হাসি।

কেশবপুরে আখ চাষে বাম্পার ফলন, আখ চাষিদের মুখে হাসি।

খোন্দকার আব্দুল্লাহ বাশার,খুলনা ব্যুরো প্রধানঃযশোরের কেশবপুরে এবার আখ চাষে বাম্পার ফলনের কারনে ধান চাষ থেকে আখ চাষে আর্থিকভাবে লাভবান হওয়ায় আখ চাষে ঝুঁকছেন কেশবপুরের কৃষকরা। বর্ষার শুরুতে আখ চাষ করে এবার বাম্পার ফলন হয়েছে। দামও বেশ ভাল। উৎপাদিত আখের আশানুরূপ দাম পেয়ে খুশি আখ চাষিরা। কৃষি সম্প্রসারন অধিদপ্তরের অর্থায়নে কেশবপুরে আখ চাষ জোরদার করণ প্রকল্পের আওতায় কৃষকরা আখ চাষ করেছেন। এ ছাড়া ব্যক্তিগত উদ্যোগেও অনেকে আখ চাষ করেছেন বলে জানা গেছে। আখ চাষের অধিকাংশ জমিই আনাবাদী ছিল। কিছু ধান চাষের জমিতে আখের এ বাম্পার ফলনে অনেক চাষী আখ চাষে ঝুকছেন।


সরেজমিনে যেয়ে জানা যায়, কেশবপুরে আনাবাদি জমিতে আখ চাষ শুরু করেছেন এলাকার কৃষকরা। ধান চাষে অমানুষিক পরিশ্রম, মূলধন বেশি লাগার কারণে অনেক কৃষকই ধান চাষ থেকে মুখ ফিরিয়ে নিতে শুরু করেছেন। একই সঙ্গে তারা ধানের বিকল্প ফসল চাষের চেষ্টা চালাচ্ছেন। যেসব কৃষক ধান চাষ করতেন তাদের অনেকেই এখন আখসহ বিভিন্ন ফসলের চাষ করে লাভবান হচ্ছেন।


কেশবপুরে কৃষি অফিস সূত্রে জানা যায়, চলতি বছর কেশবপুরে ১ হাজার হেক্টর (৭ শত ৫০ বিঘা) জমিতে আখ চাষ করা হয়েছে । এর মধ্যে লতারি জবা আখ, মিছড়ি দানা আখ,বাশ টেনাই আখ,সূর্য মুখী আখ,ইশ্বরদী এন১৬ আখ জমিতে চাষ করা হয়েছে।


এ ছাড়া কৃষকরা আখক্ষেতে সাথী ফসল হিসেবে আলু, গাজর ও ফরাশসিম চাষ করে লাভবান হচ্ছেন। আখক্ষেতে সাথী ফসল হিসেবে বাঁধাকপি, ফুলকপিসহ আরও কয়েকটি কৃষি ফসল চাষে কেশবপুরে কৃষি বিভাগ প্রযুক্তিগত সহায়তা দিয়ে যাচ্ছে। চলতি মৌসুমে কেশবপুরে প্রায় ১ হাজার হেক্টর জমিতে আখ চাষ হয়েছে বলে জানা গেছে। কেশবপুরে মাটি ও আবহাওয়া আখ চাষের উপযোগী এবং জলাবদ্ধতা না থাকায় চলতি মৌসুমে আখের বাম্পার ফলন হয়েছে। প্রতি হেক্টর আখ চাষে কৃষকের খরচ হয়েছে ২ লাখ টাকা। আর প্রতি হেক্টরে উৎপাদিত আখ ১০ থেকে ১১ লাখ টাকায় বিক্রি হচ্ছে বলে জানা গেছে।সাগরদাড়ী ইউনিয়নের আখ চাষী মনির মিয়া জানান, তিনি প্রায় ১০ শতক জমিতে মিছড়ি দানা জাতের আখ চাষ করেছেন। তার মোট ব্যয় হয়েছে ৫০ হাজার টাকা। বিক্রয় মূল্য পাচ্ছেন ৮০ হাজার টাকা। আগে এসব ভূমিতে ধান চাষ করে তিনি খরচ বাদ দিয়ে ৫ হাজার টাকাও লাভ করতে পারতেন না।গড়ভাঙ্গা এলাকার আখ চাষি রহমাতুল্লাহ জানান, তিনি ২ লাখ টাকা খরচ করে আখ চাষ করেছেন। প্রায় সাড়ে ৩ লাখ টাকা বিক্রি করবেন বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করছেন তিনি।


কেশবপুরে উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মহাদেব চন্দ্র সানা জানান, বেলে-দো আঁশ থেকে শুরু করে এঁটেল পর্যন্ত সব মাটিতেই আখ চাষ করা সম্ভব হলেও পানি নিস্কাশনের ব্যবস্থাযুক্ত এঁটেল-দোআঁশ মাটি আখ চাষের জন্য সর্বোত্তম। তিনি আরও বলেন, কেশবপুরের জমিতে আখ চাষের অনুকূল পরিবেশ বিদ্যমান।

নারী উদ‍্যোক্তা সৃষ্টিকারী সংগঠন দিনাজপুর গার্লস ক্লাব (ডিজিসি)এর প্রথম বর্ষপূর্তি উদযাপন

 নারী উদ‍্যোক্তা সৃষ্টিকারী সংগঠন দিনাজপুর গার্লস ক্লাব (ডিজিসি)এর প্রথম বর্ষপূর্তি উদযাপন





মামুনুর রশিদ,দিনাজপুর প্রতিনিধিঃনারীদের আত্মনির্ভরশীল এবং সাবলম্বি করে গড়ে তোলার লক্ষ‍্যে নারী উদ‍্যোক্তা রোজ গ্লামার ওয়াল্ড এর স্বত্তাধিকারী রোজী বেগমের উদ‍্যোগে হাটি হাটি পা পা করে যাত্রা শুরু করে আজ প্রায় ১২হাজার সদস‍্যের এই গ্রুপ দিনাজপুর গার্লস ক্লাব (ডিজিসি)সফলতার প্রথম বর্ষে পদার্পন করলো। দিনাজপুর গার্লস ক্লাবের প্রথম বর্ষপূর্তি উদযাপন উপলক্ষে ১১সেপ্টম্বর শুক্রবার বেলা ১টার সময় শহরের ঘাসিপাড়া প্রাইমারী স্কুল সংলগ্ন একটি খাবারের রেস্তোরায় প্রধান অথিতি জাতীয় সংসদের বৃহত্তর দিনাজপুর(দিনাজপুর,ঠাকুরগাঁ ও পঞ্চগড়)জেলার মহিলা সংরক্ষিত আসনের এমপি এ‍্যাডভোকেট জাকিয়া তাবাসচ্ছুম জুঁই কেক কেটে দিনাজপুর গার্লস ক্লাবের(ডিজিসি)শুভ জন্মদিন পালন করেন।এই সময় বর্তমান ১২ হাজার সদস‍্যের সমন্বয়ে গঠিত ডিজিসি গ্রুপের নারী উদ‍্যোক্তা সুলতানা রাজিয়া,এডমিন ক্রিয়েটর আফরিন মৌ,এ‍্যাডমিন আফরোজ মহামুদ বন‍্যা,মডারেটর আসমা মুন, তাসপিয়া রসমান,রেনেসা আলম,সিলভী আহম্মেদ এবং আনোয়ারা সম্পা সহ ডিজিসি গ্রুপের অন‍্যান‍্য সদস‍্য এবং সন্মানিত অথিতিবৃন্দ।এ সময় প্রধান অথিতি এ‍্যাডভোকেট জাকিয়া তাবাসচ্ছুম জুই ও বক্তারা বলেন নারীদের মধ‍্যে যে ক্রিয়েটিভি আছে তার প্রকাশ ঘটাতে হবে।নতুন নতুন উদ‍্যোক্তা স‍ৃষ্টি করত হবে।এর পাশাপাশি নারীদের মধ‍্যে লুকায়িত প্রতিভাকে বের করে তাদের জন‍্য উপযুক্ত প্লাটফর্ম তৈরী করতৈ হবে।এ ছারাও প্রধান অথিতি এই গ্রুপের সকল সদস‍্যদের বলেন আমি তোমাদের সাথে আছি এবং থাকবো।যে কোন সময় নারীরা কারো দ্বারা নির্যাতনের স্কীকার হলে তোমাদের প্রশাসনিকভাবে সহায়তা করবো।এই উদ‍্যোগ একটি মহতী উদ‍্যোগকে সামনে এগিয়ে নিয়ে যেতে গিয়ে যদি কখনো কেউ বাধাঁর সৃষ্টি করে সেই ক্ষেত্রে সর্বদা আমাকে পাবে।সর্বদা মনে রাখবে নারী যেমন সৃষ্টি করতে পারে তেমনি ধবংসও করতে পারে।তাই কখনো বিচলিত হবে না।নিজ উদ‍্যোগে নারীদের স্বাবলম্বি করে গড়ে তোলাই হবে এই গ্রুপ এর সার্থকতা।অন‍্যান‍্য বক্তারা বলেন নারীরা আজ পিছনে নয়।নারীরাও যে কোন সময় সম্মুখ যুদ্ধের অভিযাত্রী হতে পারে।সম্পূর্ন অনলাইন এর মাধ‍্যমে নারীদের নিত‍্য প্রয়োজনীয় অর্ডার ঘরে বসেই করতে পারবেন এবং ডেলিভারী নিতে পারবেন। তবে দিনাজপুরে প্রথম ২০১৯সালের আগষ্ট থেকে যাত্রা শুরু করে" দিনাজপুর গার্লস ক্লাব" যথেষ্ট শুনামের সাথেই তাদের অগ্রযাত্রাকে ধরে রেখেছে।আজ ১২হাজার নারী সদস‍্য নিয়ে পথ চলা এই গ্রুপের প্রধান লক্ষ‍্য ও উদ্দেশ‍্য নারীদের লুকায়িত এবং সুপ্ত প্রতিভার বিকাশ সাধন ও আত্মনির্ভরশীল করে গড়ে তোলা।

সিরাজগঞ্জে ফুটবল খেলাকে কেন্দ্র করে প্রতিপক্ষের আঘাতে যুবক আহত

সিরাজগঞ্জে ফুটবল খেলাকে কেন্দ্র করে প্রতিপক্ষের আঘাতে যুবক আহত




সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধিঃসিরাজগঞ্জে ফুটবল খেলাকে কেন্দ্র করে প্রতিপক্ষের আঘাতে মো.ফারুক

হোসেন(৩০) নামে এক যুবক আহত হবার খবর পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় শুক্রবার

দুপুরে সদর থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। আহত মো. ফারুক হোসেন

রতনকান্দি ইউনিয়নের মহিষামুড়া গ্রামের মো. শহিদুল ইসলামের ছেলে।

মামলা সুত্রে জানা যায়, বৃহস্পতিবার মহিষামুড়া গ্রামের যুবকদের উদ্যেগে

ফুটবল খেলার প্রতিযোগীতা শুরু হয়। খেলার এক পর্যায়ে মো. ফারুক হোসেন

গংদের সাথে আলতাফ হোসেন গংদের বাগতন্ডা শুরু হয়। খেলার শেষে উভয়ে বাড়ি

ফেরার পথে রাত সোয়া ৭টায় মহিষামুড়া চৌরাস্তা বাজারে আলতাফ হোসেন ও তার

১৫/২০ জনের সন্ত্রাসী বাহিনী হত্যার উদ্দেশ্যে আকষ্মিক হামলা চালিয়ে মো.

ফারুক হোসেন এর উপর চড়াও হয়ে এলোপাথারী দেশীয় অস্ত্রে সস্ত্রে সজ্জিত হয়ে

মারপিট শুরু করে। আলতাফ হোসেন গংদের দেশীয় অস্ত্রের আঘাতে মো. ফারুক

হোসেন গুরুতর ভাবে মাথার ভিবিন্ন স্থানে আঘাত প্রাপ্ত হয় এবং মাটিতে

লুটিয়ে পড়লে এলাকাবাসি এসে মো. ফারুক হোসেনকে সিরাজগঞ্জ ২৫০ শয্যা

বিশিষ্ট বঙ্গমাতা ফজিলেতুন্নেছা শেখ মুজিব জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি

করেন। ম্ধোসঢ়;. ফারুক হোসেন গুরুতর আহত অবস্থায় মৃত্যুর সাথে পাজ্ঞা লড়ছে।

এ বিষয়ে হাসপাতালের কর্মরত ডাঃ মো. রোকন উদ্দীন জানান, রোগীর অবস্থা ভাল

নয়। তার মাথা সিটিস্কেন করার পর বুঝা যাবে।

এ বিষয়ে সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা হাফিজুর রহমান জানান, ফুটবল খেলাকে

কেন্দ্র করে এ ঘটনাটি ঘটেছে। আমি এজাহার পেয়েছি তদন্ত করে ব্যবস্থা গ্রহন

করা হবে।

গুরুতর আহত মো. ফারুক হোসেনের বাবা মো. শহিদুল ইসলাম বাদী হয়ে শুক্রবার

দুপুরে সদর থানায় ১১ জনকে আসামী করে মামলা দায়ের করেছেন।

শহীদ জিয়ার আদর্শে কাজ করতে চান নওগাঁ -৬ আসনে বিএনপির মনোনয়ন প্রত্যাশী এছাহক আলী

শহীদ জিয়ার আদর্শে কাজ করতে চান নওগাঁ -৬ আসনে বিএনপির  মনোনয়ন প্রত্যাশী এছাহক আলী


  



মোঃ ফিরোজ হোসাইন  রাজশাহী ব্যুরোঃআগামী ১৭ অক্টোবর উপনির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে নওগাঁ-৬ (আত্রাই-রাণীনগর) আসনে। রাণীনগর ও আত্রাই এই দুই উপজেলা নিয়ে গঠিত নওগাঁ-৬ ও সংসদীয় আসন-৫১। বর্তমানে এই আসনে উপনির্বাচনের হাওয়া বইছে।

সরকার দলীয় প্রার্থী ঘোষনা করা হলেও বিএনপি এখনো চ’ড়ান্ত প্রার্থী ঘোষনা করেনি। আসন্ন উপ-নির্বাচনকে সামনে রেখে ইতোমধ্যে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদি দল (বিএনপি) মনোনয়ন ফরম বিতরণ শুরু করেছে। 

বিএনপি থেকে মনোনয়ন প্রত্যাশী অনেকের নাম শোনা গেলেও জনসম্পৃক্ততা ও আলোচনায় রয়েছেন উপজেলার গোনা ইউনিয়নের গোনা গ্রামের বিএনপি নেতা ও বিশিষ্ট ব্যবসায়ী আলহাজ্ব এছাহক আলী। তিনি বর্তমানে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদি তাঁতি দলের কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম সাধারন সম্পাদক পদে রয়েছেন। তিনি বিএনপির ক্রান্তিকালসহ সব সময় মাঠে ছিলেন। এই অঞ্চলের মানুষের পাশে তিনি সব সময় ছিলেন এবং আগামীতেও থাকবেন বলে জানান এছাহক আলী। 


এছাহক আলী বলেন, বর্তমান অত্যাচারিত সরকারের দীর্ঘ সময়ে এই আসনের যে সকল বিএনপি নেতা-কর্মীরা বিভিন্ন মামলাসহ অত্যাচারের শিকার হয়েছে আমি তাদের পাশে দাঁড়ানোর চেষ্টা করেছি। বিএনপির দু:সময়ে দলের পাশে থেকে দলকে সুসংগঠিত রাখতে চেষ্টা করেছি। দেশনেত্রী বেগম জিয়া ও দলের সকল রাজবন্দিদের মুক্ত করার লক্ষ্যে সব সময় রাজপথে থেকে আন্দোলন করেছি। আমি যখনই সুযোগ পাই তখনই এলাকায় এসে গ্রাম থেকে গ্রামান্তরের লোকালয়ে গিয়ে সাধারন মানুষদের কাছে শহীদ জিয়ার আদর্শকে পৌছে দেওয়ার চেষ্টা করি।


তিনি বলেন,আমি অবহেলিত ও অত্যাচারিত মানুষদের খোঁজখবর নেওয়ার চেষ্টা করে আসছি। তাই দল আমার সকল কিছু বিচার-বিশ্লেষন ও তৃনমূলের মতামতের ভিত্তিতে যদি আমাকে উন্নয়নের প্রতিক ধানের শীষ দেয় তাহলে আমি আশাবাদি আমি বিপুল ভোটে জয়ী হয়ে দেশনেত্রীকে দীর্ঘদিন পরাজিত এই আসনটিকে উপহার দিতে পারবো। কারণ মানুষরা বর্তমানে বিএনপির পক্ষ থেকে একজন নতুন মুখকে দেখতে চায়। এছাড়া আমি এই অঞ্চলের মানুষের কাছে একটি সুপরিচিত মুখ। কারণ দীর্ঘদিন যাবত এই অঞ্চলের মানুষ বর্তমান সরকারের দখলবাজি, চাঁদাবাজি, ঘুষ, দুর্নীতিসহ অন্যায়-অত্যাচারের যাঁতাকলে পিষ্ট হয়ে দিশেহারা। তাই তারা শাসনের পরিবর্তন চায়। আর আমি আশা রাখি দল যদি আমাকে এই উপনির্বাচনে বিএনপি থেকে দলীয় মনোনয়ন দেয় এবং স্বচ্ছ ও নিরপেক্ষ ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হয় তাহলে আমি বিপুল ভোটে বিজয়ী হয়ে এই অঞ্চলের মানুষের দীর্ঘদিনের চাওয়া-পাওয়া পূরন করার চেষ্টায় কাজ করবো।

তিনি বলেন, আমি শতভাগ আশাবাদি যে ভোট দেওয়ার সুযোগ পেলেই দলবল নির্বিশেষে সকল শ্রেণিপেশার মানুষ আমাকেই ভোট দেবে। উলে­খ্য, গত ২৭জুলাই আওয়ামীলীগের ৩বারের নির্বাচিত সাংসদ ইসরাফিল আলমের মৃত্যুতে এই আসনটি শুণ্য হয়।

কুমিল্লার হোমনায় হাঁড়ির খোঁজে বাড়ি"ভিক্ষুকদের মাঝে খাবার বিতরণ

 কুমিল্লার হোমনায় হাঁড়ির খোঁজে বাড়ি"ভিক্ষুকদের মাঝে খাবার বিতরণ

শাহ আলম জাহাঙ্গীর,ব্যুরো চিফ, কুমিল্লা:কুমিল্লার হোমনা উপজেলার মিরশ্বীকারী সরকারি প্রাথমিক  বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক হেলেনা নার্গিসের বাবা ও মায়ের রুহের মাগফিরাতে জন্যে নিরন্ন ভিক্ষুকের মাঝে একবেলা খাবার  বিতরণ করা হয়েছে।


 আজ শুক্রবার" ১১ সেপ্টেম্বর  হাঁড়ির খোঁজে বাড়ি" ৪র্থ পর্বে হোমনা মিরশ্বীকারী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক ও উপজেলা প্রেস ক্লাবের সহ- সাংগঠনিক সম্পাদক মোরশিদ আলমের সহধর্মিণী  হেলেনা নার্গিসের নিজ অর্থায়নে তার মরহুম বাবা ও মায়ের রুহের মাগফেরাত ও দোয়া কামনায় আজ হোমনা উপজেলা কেন্দ্রীয় জামে মসজিদ সংলগ্ন স্থানে ৫৫ জন ক্ষুধার্ত ভিক্ষুকের মাঝে এক বেলা খাবার বিতরণ করা হয়। পরে  দোয়া পরিচালনা করেন উপজেলা পরিষদ জামে মসজিদের মুয়াজ্জিন হাফেজ মো. আব্দুল কুদ্দুস। 


এ সময় উপস্হিত ছিলেন সাবেক প্যানেল মেয়র মানিক মিয়া ইমন, উপজেলা প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক মো. আক্তার হোসেন, সহ সাংগঠনিক সম্পাদক মো. মোরশিদ আলম, হোমনা প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক মো. আব্দুস সালাম ভূঁইয়া, হোমনা প্রেসক্লাবের সহ সভাপতি মো. আমজাদ হোসেন সজল।

ঘোড়াঘাট থানার ওসি আমিনুল ইসলামকে প্রত্যাহার

ঘোড়াঘাট থানার ওসি আমিনুল ইসলামকে প্রত্যাহার



হিলি প্রতিনিধিঃদিনাজপুরের ঘোড়াঘাট থানার ওসি আমিনুল ইসলামকে প্রত্যাহার করে আজ শুক্রবার সকালে দিনাজপুর পুলিশ লাইনে নেয়া হয়েছে। 


দিনাজপুর পুলিশ সুপার এই তথ্য নিশ্চিত করেছে। তবে কি কারণে তাকে প্রত্যাহার করা হলো এই বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়নি। 


তবে ধারণা করা হচ্ছে সম্প্রতি দেশব্যাপি আলোচিত  ইউএনও ওয়াহিদা খানমকে হত্যা চেষ্টার ঘটনাসহ ঘোড়াঘাট উপজেলার আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি বিবেচনা করে তাকে প্রত্যাহার করা হতে পারে।



হাইকমান্ড চায় পুঠিয়া পৌরসভা নির্বাচনে সৎ,ত্যাগী এবং মেধাবী ক্লিন ইমেজের প্রার্থী

হাইকমান্ড চায় পুঠিয়া পৌরসভা নির্বাচনে সৎ,ত্যাগী এবং মেধাবী ক্লিন ইমেজের প্রার্থী

 


নিউজ ডেস্কঃ রাজশাহীর পুঠিয়া পৌরসভার দ্বিতীয় বারের মতো নির্বাচনের প্রস্তুতি চলছে সম্ভাব্য প্রার্থীদের মাঝে। নির্বাচন অফিস বলছেন নতুন করে আইনি কোনো জটিলতা না থাকলে চলতি বছরের শেষের দিকে এখানে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে আর নির্বাচন ঘিরে মেয়র পদপ্রার্থী হিসেবে মাঠে নেমেছেন প্রায় দুই ডজন প্রার্থী।

এদের মধ্যে বর্তমান মেয়র,জেলা ছাত্রলীগ সভাপতি, সাবেক ছাত্রলীগ নেতা ও একাধিক ব্যবসায়ী এবং সাংবাদিক সহ দলের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতারা। ইতোমধ্যে এই মনোনয়নপ্রত্যাশীরা দলের হাইকমান্ডের সাথে যোগাযোগ রেখে চলছেন আবার অনেকেই তৃণমূল নেতা-কর্মী ও সাধারণ ভোটারদের সমর্থন পেতে মাঠ চষে বেড়াচ্ছেন।

উপজেলা আওয়ামী লীগের দলীয় সূত্রে জানা গেছে, এই পৌরসভাকে উপজেলার মধ্যে সকল নির্বাচনের চেয়ে বেশি গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে এখানে মেয়র পদের জন্য একাধিক প্রার্থী দলীয় মনোনয়নের জন্য প্রত্যাশা করছেন তবে এবার দলীয় প্রার্থী যাচাই-বাছাইয়ে বিশেষ গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে। এদের মধ্যে জনকল্যাণমূলক কাজ করেন ও দলের ত্যাগী ও ক্লিন ইমেজের ব্যক্তিকেই মনোনয়ন দেওয়ার বিষয়ে সিনিয়র নেতারা একমত প্রকাশ করেছেন।

তৃণমূল পৌরবাসীর সাথে কথা বলে জানা গেছে ক্লিন ইমেজ এবং ত্যাগী নেতাদের মধ্যে অন্যতম সাবেক রাজশাহী জেলা ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এবং বর্তমান বঙ্গবন্ধু শিশু একাডেমীর পুঠিয়া উপজেলা শাখার সভাপতি এ,বি, এম শাখাওয়াত হোসেন বাশার তিনি জেলা ছাত্রলীগের সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পেয়ে তার রাজনৈতিক ভাবগুরু পুঠিয়া উপজেলা চেয়ারম্যান ও সাবেক জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি জনাব জিএম হীরা বাচ্চুর দরদী দায়িত্বপূর্ণ পরামর্শে পুঠিয়া উপজেলার ৫৪টি ওয়ার্ড ও ইউনিয়ন সহ পৌরসভা এবং উপজেলা ছাত্রলীগের কার্যনির্বাহী কমিটি পূর্ণ গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়ায় সুচারু রূপে কাউন্সিল অধিবেশনের মাধ্যমে সফল সাংগঠনিক কমিটি উপহার দিতে মাসের-পর-মাস প্রত্যন্ত গ্রামে পায়ে হেঁটে উপজেলা ছাত্রলীগকে দীর্ঘ সাংগঠনিক সফরের দ্বারা পুঠিয়া উপজেলা ছাত্রলীগকে একটি সাজানো স্বপ্ন দিয়ে তৈরী করে হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের অসমাপ্ত কাজ দ্রুতগতিতে এগিয়ে নিতে কঠোর পরিশ্রম ও নিরলস ভাবে কাজ করেন যা পরবর্তীকালে আর কেউ করেনি বরং পকেট কমিটি তৈরি করে ছাত্রলীগের ঐতিহ্যকে ম্লান করেছেন তাই পুঠিয়ার সাধারণ জনগণের দাবি এ,বি,এম শাখাওয়াত হোসেন বাশার পৌরসভার মেয়র হয়ে স্বপ্নময় পুঠিয়ার প্রত্নতাত্ত্বিক নিদর্শন সমূহকে যত্নে গড়া হৃদয় দিয়ে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন গাঁথা ও দেশ রত্ন শেখ হাসিনার মনের মাধুরি মেশানো কর্মপরিকল্পনা দিয়ে পুঠিয়া পৌরসভাকে একটি ডিজিটাল পৌরসভা গড়তে সক্ষম হবেন। তারা আরো বলেন বাশার ভাই মাটি ও মানুষের নেতা যার হৃদয়ে বঙ্গবন্ধুর আদর্শ মাথায় দেশরত্ন শেখ হাসিনার স্বপ্নকে বাস্তবায়ন করার তীক্ষ্ণ মেধা ও বহুমুখী প্রতিভাবান একজন বঙ্গবন্ধুর খাঁটি বীর সেনা এমন সৎ ও ত্যাগের মহিমায় ভাস্বর" যেন সত্যের মূর্ত প্রতীক যা অন্ধকারের মধ্যে উজ্জ্বল সূর্যের আলোর মত এক নক্ষত্রের যোগ্য নেতৃত্বে এই পৌরসভাকে পূর্ণবিকাশ করতে এমন একজন মেয়র প্রার্থী পুঠিয়া পৌরবাসীর প্রাণের দাবি।


জানা গেছে পুঠিয়া পৌরসভা গঠন এর ১৪ বছর পরে আইনি জটিলতা কাটিয়ে ২০০৫ সালের ডিসেম্বর মাসের প্রথম বারের মত এখানে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয় এরপর নানা প্রতিকূলতায় নাগরিকদের চাওয়া না পাওয়ার মধ্যে কেটে যাচ্ছে পাঁচ বছর আগামী ডিসেম্বর মাসের শেষের দিকে এই পৌরসভা নির্বাচন মেয়াদ পূর্ণ হচ্ছে এর মধ্যে যেকোনো সময় সারা দেশের সাথে এখানেও নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করবেননির্বাচন কমিশন। সে মোতাবেক উপজেলা নির্বাচন অফিস পৌরসভা এলাকার নতুন-পুরাতন মিলে প্রায় ১৫ হাজারের বেশি ভোটারদের নাম তালিকার কাজ প্রায় শেষ করেছেন


এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা জয়নুল আবেদীন বলেন চলতি বছরের শেষের দিকে পুঠিয়া পৌরসভা নির্বাচনের পাঁচ বছর পূর্ণ হচ্ছে এখানে নির্বাচনের জন্য এখনও কোনো চিঠি আমরা পাইনি তবে আমাদের পক্ষ থেকে ভোট গ্রহণের প্রস্তুতি নেওয়া আছে।

পটিয়ার বড়লিয়া ইউনিয়নের জাতীয় পার্টির প্রতিনিধি সভা

 পটিয়ার বড়লিয়া ইউনিয়নের জাতীয় পার্টির প্রতিনিধি সভা

পটিয়া প্রতিনিধিঃ- পটিয়া উপজেলার বড়লিয়া ইউনিয়ন জাতীয় পার্টি প্রতিনিধি সভা গত মঙ্গলবার বিকেলে স্থানীয় কার্য়লয়ে  অনুষ্ঠিত হয়।


 এতে সভাপতিত্ব  করেন উপজেলা জাতীয় পার্টির নেতা  গাজী আনোয়ার হোসেন মন্জুর। সভায়  প্রধান অতিথি ছিলেন জাতীয় পার্টি চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলার সদস্য           বদিউল আলম (প্রবাসী),বিশেষ অতিথি ছিলেন চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা জাতীয় যুবসংহতি সাধারণ সম্পাদক  দুলা মিয়া চৌধুরী মেম্বার, প্রধান বক্তা ছিলেন পটিয়া উপজেলা জাতীয় পার্টির সদস্য মো: জালাল উদ্দিন, বক্তব্য রাখেন উপজেলা জাতীয় পার্টি নেতা  মুক্তিযোদ্ধা মোঃ  কামাল,  চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা যুবসংহতি যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এম এইচ মুন্না, মোঃ ফরিদ, মোঃ মন্নান, মোঃ নাছির, মোঃ  বাহাদুরসহ জাতীয় পার্টি, জাতীয় যুবসংহতি,জাতীয় ছাএ সমাজ নেতৃবৃন্দ বক্তব্য রাখেন। সভায় প্রধান অতিথি বদিউল আলম (প্রবাসি) বলেন, বিদেশে থাকলেও জাতীয় পার্টি জন্য কাজ করেছি দেশে আসলেও দলের জন্য কাজ করে যাচ্ছি। তিনি বলেন জীবিত এরশাদের চেয়ে মরহুম এরশাদ অনেক শক্তিশালি। তিনি বলেন,  


৯ বছর এরশাদের শাসনামল ছিল উন্নয়নের স্বর্ণয়োগ। এসময়ে    বিদেশে অনেক সুনাম ছিল বাংলাদেশের । জাতীয় পার্টি ক্ষমতাথাকালে সারা ব্যাপক উন্নয়ন হয়েছিল। তাই জাতীয় পার্টিকে শক্তিশালি করতে এরশাদের ছোট ভাই জাতীয় পার্টি চেয়ারম্যান সাবেক সফল মন্ত্রী জিএম কাদের, মহাসচিব জিয়াউদ্দিন আহমেদ বাবলু, জাতীয় পার্টি কেন্দ্রীয় কমিটির ভাইস চেয়ারম্যান ও চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলার সভাপতি সাবেক পটিয়া পৌরসভার মেয়র শামসুল আলম মাষ্টারের          নেতৃত্বে সকলকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে জাতীয় পার্টিকে শক্তিশালি করার জন্য নেতা কর্মী সমর্থকদের প্রতি আহবান জানান জাতীয় পার্টি নেতা বদিউল আলম প্রবাসী।                    



ঝিনাইদহে ৭ বছরের সাজা প্রাপ্ত পলাতক আসামি গ্রেফতার

ঝিনাইদহে ৭ বছরের সাজা প্রাপ্ত পলাতক আসামি গ্রেফতার



খোন্দকার আব্দুল্লাহ বাশার, ঝিনাইদহ জেলা প্রতিনিধি:ঝিনাইদহ সদর থানার অফিসার ইনচার্জ জনাব মোঃ মিজানুর রহমান এর নির্দেশে ঝিনাইদহ সদর থানা পুলিশের একটি চৌকশ দল ১১ সেপ্টেম্বর শুক্রবার  বিশেষ অভিযান পরিচালনা করে ঝিনাইদহ জিআর মামলা নং-৪৩৫/১৬ এর ০৭ (সাত) বছর সশ্রম কারাদন্ড এবং ১০,০০০/- (দশ হাজার) টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরো ০৬ (ছয়) মাসের সশ্রম কারাদন্ড প্রাপ্ত আসামী মোঃ হারুন শেখ @ পান্না, পিতা-মৃত ইসমাইল শেখ, সাং-আরাপপুর সিএন্ডবি পুকুর পাড়া, থানা ও জেলা-ঝিনাইদহকে গ্রেফতার করেন। উক্ত আসামীকে বিজ্ঞ আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।

প্রেম স্রোত মিজানুর রহমান তোতা

 প্রেম স্রোত  মিজানুর রহমান তোতা


কাল্পনিক জীবনের অন্তর্ধান বাঁক ফুঁড়ে স্বর্গরাজ্য।

স্বপ্নসূচনায় আঁটকে কঠিন এক মুহূর্ত।

আকস্মিক বাঁধা বিপত্তিতেও আকাঙ্খার ধারাবর্ষণ।

স্মৃতিনির্ভর পাতা ভেসে যায় দুর বহুদুর।


মণিমুক্তা খচিত আবেগের অবগাহন।

পুষ্প হৃদয় আঙিনায় গন্ধমালা পরাতে অকৃত্রিম তৃঞ্চা।

কখনো ছন্দপতনে অন্ধকারে হাবুডবুু খায়।

লালিত প্রেম ভালোবাসার বাতি নিভে যায়।


প্রেম আকাশের মতো অন্তহীন।

হিসাবের গরমিলে হয় বিলীন।


ভালোবাসার ভাবপ্রকাশের স্বতঃস্ফুর্ততা।

মগ্ন থাকে নিগুঢ় নিখুঁত প্রেম ভালোবাসা।

সমৃদ্ধ রোমাঞ্চকর স্মৃতিতে সারাক্ষণ ডুবে থাকে প্রেম। 

একরাশ আবেগ ভালোবাসার চাহনীতে।


বিচিত্র অভিনয়ে অত্যন্ত পারদর্শী। 

তবুও গভীর ক্ষতসৃষ্টি হৃদয়ের গহীনে স্মৃতির প্রেম।

প্রেম ভালোবাসা নানারূপে সত্য। 

অনন্তকাল জীবনের আবশ্যিক পূর্ণাঙ্গ বিশ্বাসের প্রকাশ।


তাচ্ছিল্যের চিহ্নভরা অনন্য অসাধারণে বন্দি। 

চিন্তার সম্ভারে অন্তরালের প্রেম করে সন্ধি।

মধুর আলিঙ্গন।

ভিন্ন অনুভূতির প্রেম।


বিরহ অভিমান অনুরাগের ছোঁয়ায় গড়ে গভীর প্রেম।

বিতৃঞ্চার চপেটাঘাত নয় প্রেম।

জীবনের অজস্র খন্ডচিত্রের ঘুর্ণাচক্রে ভাবনার স্পর্শ।

ঔদ্ধত্য দম্ভ অহংকার দ্বিধা দ্বন্দ প্রেমকে করে প্রশ্নবিদ্ধ।


জটিল প্রেম হারায় ছন্দ।। 

প্রেমের গন্ধ হয় দুর্গন্ধ।


গাঁঢ়ো অবিশ্বাসের দোলাচলে সময়ে জীবনছন্দ। 

মিশে যায় রৌদ্রছায়ায় হারানো স্মৃতির প্রেম।

কংকটাকীর্ণ স্বপ্নময় প্রেমের রাস্তায় নানা বাঁধা।

তবু প্রেমের স্বাধীনতা হয় কুসুমাস্তীর্ণ।


স্বাতন্ত্রচিহ্ন বৈশিষ্ট্যের উজ্জ্বল ধারক প্রেম স্রোত। 

প্রকৃতির স্বাভাবিক ছন্দ নিবিড় প্রেম ভালোবাসা।


রসায়িত পল্লবিত কুসুমিত জীবনে প্রেমের বাঁশি সঞ্চারিত।

ভিন্নবোধের রসে ভরা প্রাণের স্পন্দন।

বিরহের নীলমণিতেও প্রেমের পরম আলিঙ্গন। 

বিস্ময়ে ভাবনার অতলে ডুবে থাকে স্বপ্ন প্রেম। 


চাওয়া পাওয়ার অপূর্ণতায় রঙের সাহসী জীবন্ত জগত।

বিলীন করে ভালোবাসার প্রেম।

অধিকার স্বপ্ন সাধ আস্থা বিশ্বাস পূর্ণতার নিঃশ্বাস।

এটিও প্রেম ভালোবাসা। 


সামনে পেছনে চারিদিকে ঘোরে সংশয়ের প্রেম।

বেদনার টুকরো গল্পে হয় রহস্যময় প্রেম  স্রোত। 

জগত জুড়ে প্রেম আর প্রেমে বন্দি জীবনকাহিনী। 

অন্তরঙ্গ প্রেম জীবনকে করে মধুময়।


ব্যতিক্রম প্রসারিত বোধের ব্যত্যয় প্রেরণা। 

প্রেম ভালোবাসাহীন প্রাণীর থাকে না প্রাণ।


জীবন মানেই প্রেম।

প্রাণই প্রেম ভালোবাসা। 

প্রেমহীন প্রাণ বৃথা। 

হৃদয়ে হৃদয় ছোঁয়ানো প্রেম। 


চোখের কপাট খুলে দেওয়ার নাম প্রেম ভালোবাসা। 

মনের দেয়াল ভেঙে অনুভূতির সুক্ষ্ম বিনিময়ই প্রেম।

হবিগঞ্জে চার বছরের শিশু ধর্ষণ

 হবিগঞ্জে চার বছরের শিশু ধর্ষণ




লিটন পাঠান, হবিগঞ্জ জেলা প্রতিনিধিঃহবিগঞ্জ জেলার বানিয়াচং উপজেলায় ৪ বছরের শিশুকে ধর্ষণ করে যুবক সাজিদ মিয়া পালিয়ে যাওয়ার অভিযোগ উঠেছে। অসুস্থ অবস্থায় (১০ সেপ্টেম্বর) রাতে ওই শিশুকে হবিগঞ্জ জেলা সদর আধুনিক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে

স্থানীয়রা জানান, বানিয়াচং উপজেলার দৌলতপুর (পশ্চিম নল্লা) গ্রামের জনৈক ব্যক্তির চার বছরের শিশুকে।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় বাড়িতে কেউ না থাকায় প্রতিবেশী ইসরাইলের ছেলে


 সাজিদ মিয়া (২০) নিজ ঘরে ঢুকে শিশুটিকে ধর্ষণ করে এ সময় শিশুর চিৎকারে আশপাশের লোকজন এগিয়ে এলে সাজিদ পালিয়ে যায়। রাত ২টার দিকে অসুস্থ অবস্থায় ওই শিশুটিকে সদর আধুনিক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

সদর হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক ইসতিয়াক বলেন, ধর্ষণের শিকার শিশুকে রাত ২টার দিকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে, শিশুটির রক্তপাত হচ্ছে শিশুটির মা বলেন আমার শিশু কন্যাকে সাজিদ মিয়া ধর্ষণ করেছে


আমি তার বিচার ও শাস্তি চাই যাতে আর কোনো শিশু ধর্ষণের শিকার না হয় তিনি বলেন ঘটনার সময় আমি বাড়িতে ছিলাম না সন্ধ্যা সাড়ে ৫টায় বাড়ির।

পাশের একটি জমি থেকে হাঁস আনতে গেছি। আধা ঘন্টা পর হাঁস নিয়ে বাড়ি ফিরে আসি। এসময় বাড়িতে মানুষ জরাও হয়ে থাকতে দেখি। ঘরে ঢুকতেই চার বছরের শিশুকণ্যা কেঁদে কেঁদে মাকে জরিয়ে ধরে বলতে থাকে ঘটনাটি।


তবে প্রত্যক্ষদর্শীরা ঘটনাটি সম্পর্কে জানেন এব্যাপারে শিশুটির পরিবার তাৎক্ষণিক ৫নং দৌলতপুর ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য মাসুম মিয়া ও মহিলা ইউপি সদস্যকে বিষয়টি জানান। তারা শিশুটিকে হবিগঞ্জ সদর হাসপাতালে নিয়ে চিকিৎসা করাতে বলেন।

হবিগঞ্জে সফরে আসছেন আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক

 হবিগঞ্জে সফরে আসছেন আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয়  সাংগঠনিক সম্পাদক

লিটন পাঠান, হবিগঞ্জ জেলা প্রতিনিধিঃআজ শুক্রবার ব্যক্তিগত দুই দিনের সফরে হবিগঞ্জ আসছেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক, (ময়মনসিংহ বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতা) বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের পরিচালক, মহিলা ক্রিকেট বোর্ডের ও দৈনিক উত্তর-পূর্ব পত্রিকার প্রধান সম্পাদক শফিউল আলম চৌধুরী নাদেল। শুক্রবার বিকাল ৩টায় সিলেট সার্কিট হাউজ থেকে রওয়ানা হয়ে হবিগঞ্জ সার্কিট হাউজে পৌছবেন বিকেল ৫টায় হবিগঞ্জ সার্কিট হাউজেই রাত্রিযাপন করবেন তিনি। 


পরের দিন শনিবার (১২ সেপ্টেম্বর) সকাল ৮টায় মহামান্য রাষ্ট্রপতি এডভোকেট আব্দুল হামিদ এর গ্রামের বাড়ি মিটামন, ইটনা ও কিশোরগঞ্জের উদ্দেশ্যে রওনা হবেন। যাত্রাকালে সাংগঠনিক সম্পাদক নাদেল চৌধুরীর সাথে সফরসঙ্গী হিসেবে থাকবেন ২০ ব্যক্তিবর্গ। আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক শফিউল আলম চৌধুরী নাদেলের ব্যক্তিগত সহযোগী মাহদি হাসান এই সফর সম্পর্কে বিস্তারিত জানিয়েছেন।


সফরসঙ্গী হিসেবে থাকবেন হযরত শাহজালাল (রা.) এর দরগাহ শরীফের মোতাওয়াল্লী ফতেউল্লাহ আল-আমান, বাংলাদেশ ব্যাংকের সহকারি পরিচালক (ময়মনসিংহ বিভাগ) শাহেদ ইকবাল ভূইয়া, বাংলাদেশ ব্যাংকের ডিজিএম (ময়মনসিংহ বিভাগ) সুয়েবুর রহমান এফআইভিডিবি’র নির্বাহী পরিচালক চৌধুরী বজলে মোস্তফা রাজি ব্যবসায়ী ইসহাক হোসেন, তোফায়েল আহমেদ লিমন আতিকুর রহমান লাহিন সিলেট এলপিজি ডিস্ট্রিবিউশন এসোসিয়েশন এর সভাপতি এম এ মুনাইম চৌধুরী। 


হোটেল মেট্রো ইন্টারন্যাশনাল এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক মাহবুবুর রহমান ব্যাংক কর্মকর্তা ইনামুল রহমান লস্কর, এমসি বিশ্ববিদ্যলয় কলেজের সাবেক ছাত্রনেতা, সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের কর্মী ও ছায়েরা ছিদ্দিক ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান এম আক্কাছ খান, ব্যবসায়ী সেলিম চৌধুরী সুয়েব আহমেদ চৌধুরী প্রধান শিক্ষক হাফিজ নিজাম উদ্দিন প্রভাষক মাসুদ করিম ও ব্যবসায়ী শেখ মোঃ সাবাজ মিয়া।

১৫ সেপ্টেম্বর বিশেষ ফ্লাইটের রিয়াদ টু ঢাকার রেজিস্ট্রেশন খুলেছে বিমান

 ১৫ সেপ্টেম্বর বিশেষ ফ্লাইটের রিয়াদ টু ঢাকার রেজিস্ট্রেশন খুলেছে বিমান


মোহাম্মদ বেলাল উদ্দিন সিনিয়র স্টাফ রিপোর্টারঃ ১৫ সেপ্টেম্বর বিশেষ ফ্লাইটের রিয়াদ টু ঢাকার রেজিস্ট্রেশন খুলেছে বিমান। কোভিড-১৯ প্রাদুর্ভাবের কারণে এই মুহূর্তে সৌদি আরবের সকল আন্তর্জাতিক ফ্লাইট বন্ধ থাকায় অনেক সৌদি প্রবাসীই আটকা পড়ে আছেন।


আটকে পড়া সৌদি প্রবাসীদের বাংলাদেশে ফিরিয়ে নিতে বেশ কিছু বিশেষ ফ্লাইট পরিচালনা করছে বাংলাদেশ বিমান। ইতিমধ্যে সৌদি আরব থেকে বিশেষ ফ্লাইটে অনেক আটকে পড়া বাংলাদেশী দেশে ফিরে গেছেন।


এবারও যথারীতি আগামী ১৫ সেপ্টেম্বর সরাসরি রিয়াদ থেকে ঢাকায় যাচ্ছে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের একটি বিশেষ বিমান।  এতে করে সৌদি আরবে আটকে পড়া প্রবাসীগণ বাংলাদেশে ফিরে যেতে পারবেন।


এখানে উল্লেখ্য যে অবশ্যই পাসপোর্ট ও ইকামার কপি উপরের লিংকের ওয়েব এড্রেসে আপলোড করতে হবে।


এই বিশেষ ফ্লাইটের ভাড়া নীচে দেওয়া হল : 


বিজনেস ক্লাস: 


এডাল্ট – ৩০০০ সউদী রিয়াল।

চাইল্ড- (১২ বছরের নিচে ) মূল ভাড়ার ৭৫% + ট্যাক্স

ইনফ্যান্ট – (২ বছরের নিচে ) মূল ভাড়ার ২৫% + ট্যাক্স


ফ্রী ব্যাগেজ – ২ পিস সর্বমোট ৫৫ কিলো, হাত ব্যাগ ১ পিস ৭ কিলো


ইকোনমি ক্লাস:


এডাল্ট – ২১৫০ সউদী রিয়াল।

চাইল্ড – (১২ বছরের নিচে ) মূল ভাড়ার ৭৫% + ট্যাক্স

ইনফ্যান্ট – (২ বছরের নিচে ) মূল ভাড়ার ২৫% + ট্যাক্স


সৌদি আরবে ক’রোনার প্রকোপ আগের থেকে তুলনামূলকভাবে কিছুটা কমেছে। মূলত নভেল ক’রোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের কারণেই বিশ্বজুড়ে সৌদি আরব সকল আন্তর্জাতিক ফ্লাইট বন্ধ রেখেছে।


তবে সুদিন ফিরছে ! ইতিমধ্যেই সৌদি এয়ারলাইন্স ঘোষণা করেছে যে তারা তাদের আন্তর্জাতিক ফ্লাইট চালু করতে যাচ্ছে। তবে এক্ষেত্রে নির্দিস্ট কোন দিন তারিখ এখনো দেয়নি সৌদি এয়ারলাইন্স।


বিগত ২ সেপ্টেম্বর  সৌদি এয়ারলাইন্স বাংলাদেশসহ যে ২৫টি দেশ হতে সৌদি আরবে আসা যাবে তার একটি তালিকা দিয়েছে  তাদের ওয়েবসাইটে।


তালিকায় থাকা দেশগুলি হল  বাংলাদেশ , সংযুক্ত আরব আমিরাত, কুয়েত, ওমান, বাহরাইন, মিশর , লেবানন, তিউনিস, মরোক্কো, চীন, যুক্তরাজ্য, ফ্রান্স, ইতালি, স্পেন, জার্মানি, অস্ট্রিয়া, তুরস্ক, গ্রিস, ফিলিপাইন, মালেশিয়া, দক্ষিন আফ্রিকা, সুদান, ইথিওপিয়া, কেনিয়া, নাইজেরিয়া ও ইন্দোনেশিয়া