দেশ ও জাতির প্রতি একটা সেবার মনোভাব নিয়ে নিজের দায়িত্ব-কর্তব্য পালন করতে হবে

দেশ ও জাতির প্রতি একটা সেবার মনোভাব নিয়ে নিজের দায়িত্ব-কর্তব্য পালন করতে হবে

নিউজ ডেস্কঃ দেশকে ভালোবেসে দেশ ও জাতির প্রতি সেবার মনোভাব নিয়ে সীমান্ত রক্ষী বাহিনীর সদস্যদের দায়িত্ব পালনের নির্দেশনা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।শনিবার সকালে গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সিংয়ের মাধ্যমে বিজিবির ৯৫তম ব্যাচ রিক্রুট মৌলিক প্রশিক্ষণ সমাপনী কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করে তিনি এই নির্দেশনা দেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, “আমি এইটুকু বলব, দেশ ও জাতির প্রতি একটা সেবার মনোভাব নিয়ে নিজের দায়িত্ব-কর্তব্য পালন করতে হবে।

“দেশকে ভালোবাসতে হবে। মানুষকে ভালোবাসতে হবে। মানুষের জন্য কাজ করতে হবে। মনে রাখতে হবে এই দেশ অর্থনৈতিকভাবে যত উন্নত হবে, আপনারদের পরিবারগুলোও উন্নত হবে।”

মুক্তিযুদ্ধে সীমান্ত রক্ষা বাহিনীর সদস্যদের অবদানের কথা শ্রদ্ধার সঙ্গে স্মরণ করে এই বাহিনীকে আরও শক্তিশালী করতে এবং বাহিনীর সদস্যদের জীবনমান উন্নয়নে সরকারের নেওয়া বিভিন্ন পদক্ষেপ তুলে ধরেন সরকার প্রধান।

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ১৯৭৪ সালের ৫ ডিসেম্বর এই বাহিনীর তৃতীয় রিক্রুট ব্যাচ সমাপনী কুচকাওয়াজে অংশ নিয়ে যে ভাষণ দিয়েছিলেন তা স্মরণে আনেন শেখ হাসিনা।

ওই ভাষণে বঙ্গবন্ধু বলেছিলেন, “আজ আপনাদের কাছে আমি অনেক বড় কর্তব্য দিয়েছি। অনেক বড় কাজ দিয়েছি। এ কাজ হলো চোরাচালানি বন্ধ করা। তোমাদের কাছে আমার হুকুম স্মাগলিং বন্ধ করতে হবে। আমি বিশ্বাস করি তোমরা পারবা। এ বিশ্বাস তোমাদের উপর আমার আছে। মনে রাখতে হবে স্মাগলারের কোনো জাত নাই,ধর্ম নাই। তারা মানুষ নামের নরপশু। তারা এদেশের সম্পদকে বিদেশে চালান দেয় সামান্য অর্থের লোভে।”

জাতির পিতার দেওয়া নির্দেশনা মেনে চলার আহ্বান জানিয়ে শেখ হাসিনা বলেন, “আমি আশা করি, এই নির্দেশনাটাও আপনারা মেনে চলবেন। আমাদের যেমন সার্বভৌমত্ব রক্ষা,স্বাধীনতা রক্ষা পাশপাশি এই ধরনের অপকর্মগুলো রোধ করে আপনরা আন্তরিকতার সাথে কাজ করবেন। কারণ এই কথাগুলো এখনও প্রাসঙ্গিক।”

শোষিত মানুষের অধিকার আদায়ে জাতির পিতার আজীবন সংগ্রামের কথা তুলে ধরে দেশ স্বাধীন হলে দেশের উন্নয়নে জাতির পিতার নেওয়া বিভিন্ন পদক্ষেপ তুলে ধরেন বঙ্গবন্ধুকন্যা।

পাশাপাশি ১৯৭৫ সালের ১৫ অগাস্ট বঙ্গবন্ধুকে সপরিবারে নির্মমভাবে হত্যা করার কথাও বলেন তিনি।

অনুষ্ঠানে স্বশরীরে উপস্থিত থাকতে না পারায় দুঃখ প্রকাশ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, “আজকে আমাকে ভার্চুয়াল করতে হচ্ছে, সেটা করোনার কারণে। আমি জানি যে আমি এক জায়গায় যেতে গেলে সেখানে আরও অনেক মানুষকে যেতে হয়। কাজেই সকলে যাতে সুরক্ষিত থাকে, সেই কথা চিন্তা করেই ভার্চুয়ালি আমরা করে যাচ্ছি।”

শীতে ইউরোপের বিভিন্ন দেশে করোনাভাইরাস সংক্রমণ বাড়ার বিষয়টি তুলে ধরে সবাইকে সুরক্ষিত রাখতে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে বলেন প্রধানমন্ত্রী।

সরকারের পদক্ষেপ তুলে ধরে তিনি বলেন, “ভ্যাকসিন ক্রয় করার জন্য ইতিমধ্যে আমরা টাকা বরাদ্দ দিয়ে যথাযথ ব্যবস্থা নিয়েছি। আমাদের দেশের মানুষ সুরক্ষিত থাকুক, সুস্থ থাকুক, ভালো থাকুক, উন্নত জীবন পাক, সুন্দর জীবন পাক, সেটাই জাতির পিতার লক্ষ্য ছিল, আমারও সেটা লক্ষ্য”। বিজিবি সদস্যরা যেভাবে দেশের জন্য কাজ করে যাচ্ছে, তা অব্যাহত রাখার আহ্বান জানিয়ে বাহিনীর মূলনীতিগুলো মেনে চলতে সবাইকে নির্দেশ দেন প্রধানমন্ত্রী।

বিজিবিকে আধুনিক প্রযুক্তি জ্ঞানসম্পন্ন বাহিনী হিসেবে গড়ে তুলতে সরকারের প্রচেষ্টা তুলে ধরে তিনি বলেন, দেশের স্বাধীনতা, সার্বভৌমত্ব রক্ষার পাশাপাশি এই বাহিনীর সদস্যরা চোরাচালান, নারী পাচার, শিশু পাচারসহ সীমান্তে সংঘটিত বিভিন্ন অপরাধ দমনে যথাযথ ভূমিকা পালন করবে বলে আশা করি।

যে কোনো সুশৃঙ্খল বাহিনীর জন্য শৃঙ্খলা বড় বেশি প্রয়োজন মন্তব্য করে নবীন সৈনিকদের সেদিকে লক্ষ্য রাখতে বলেন প্রধানমন্ত্রী।

“ঊর্ধতন কর্তৃপক্ষের আদেশ, কর্তব্য পালনে নির্ভিক থাকতে হবে। আবার অধস্তন যারা তাদের প্রতিও সহমর্মিতা নিয়ে কাজ করতে হবে।”

এই অনুষ্ঠানে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় প্রান্তে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগের জ্যেষ্ঠ সচিব মোস্তফা কামাল উদ্দীন যোগ দিয়েছিলেন।

প্রধানমন্ত্রীর দপ্তরের সচিব মো. তোফাজ্জল হোসেন মিয়া এবং চট্টগ্রামের সাতকানিয়ার বর্ডার গার্ড ট্রেনিং সেন্টার এন্ড কলেজ প্রান্তে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের মহাপরিচালক মেজর জেনারেল মো.সাফিনুল ইসলামসহ ঊর্ধতন কর্মকর্তারা অনুষ্ঠানে যোগ দেন।

আনোয়ার হোসেন কে ঝিকরগাছা উপজেলা যুবলীগের পক্ষে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন

আনোয়ার হোসেন কে ঝিকরগাছা উপজেলা  যুবলীগের পক্ষে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন

আব্দুল জব্বার, স্টাফ রিপোর্টার।।যশোরের ঝিকরগাছা উপজেলার কৃতি সন্তান ও গর্ব আনোয়ার হোসেন, বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির প্রেসিডিয়াম সদস্য নির্বাচিত হওয়ায়, ঝিকরগাছা উপজেলা যুবলীগের পক্ষে ফুলের শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়েছেন।

শুক্রবার সন্ধ্যায় ঢাকাস্থ তার নিজ কার্যালয়ে ফুলের শুভেচ্ছা জানানোর পাশাপাশি সৌজন্য সাক্ষাতে  দলীয় সরকারের নানামুখী উন্নয়ন কর্মকান্ড সহ দলীয় বিভিন্ন দিক নির্দেশনা বিষয়ে আলোচনা করেন।

এসময় উপস্থিত ছিলেন, ঝিকরগাছা উপজেলা যুবলীগের নেতা আরিফ ছন্টু, রিয়াজ উদ্দিন শিপন, গাজী বিল্লাল, সঞ্জয় কুমার, সাবেক ছাত্রলীগ নেতা ওলিয়ার রহমান, ৯ নাম্বার হাজিরবাগ ইউনিয়নের আগামী নির্বাচনের চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী যুবলীগ নেতা জাকির হোসেন, নির্বাসখোলা ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি ও চেয়ারম্যান প্রার্থী  জ্যাক হাসান মিন্টু।

রতনকান্দিতে শীতার্তদের মাঝে শীতবস্র বিতরণ

রতনকান্দিতে শীতার্তদের মাঝে শীতবস্র বিতরণ


মাসুদ রানা  সিরাজগঞ্জ জেলা প্রতিনিধিঃ
যমুনা বিধবস্ত বাহুকা গ্রামের ২০০শ জন দুঃস্থের মাঝে শীত বস্র (কম্বল) বিতরণ করেন নব নির্বাচিত সংসদ সদস্য জয়।
শনিবার বিকাল ৫ টায় বাহুকা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে দুঃস্থদের মাঝে শীত বস্র (কম্বল) বিতরণ করেন প্রধান অতিথি, তারুণ্যের অহংকার সিরাজগঞ্জ কাজিপুরের মানুষের ভাগ্য উন্নয়নের চাবিকাঠি শহীদ এম মনসুর আলীর যোগ্য দৌহিত্র, সদ্য প্রয়াত মোহাম্মদ নাসিমের যোগ্য সন্তান, সিরাজগঞ্জ ১ সংসদ সদস্য প্রকৌশলী তানভীর শাকিল জয়।
উক্ত শীত বস্র (কম্বল) বিতরণ অনুষ্ঠানের সভাপতিত্বে করেন রতনকান্দি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি সাইদুল ইসলাম জুরান।
সঞ্চালনা করেন জেলা আওয়ামী সেচ্ছাসেবক লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাসুদ রানা তালুকদার।
এসময় উপস্থিত ছিলেন জেলা পরিষদের সদস্য গোলাম রব্বানী তালুকদার, জেলা আওয়ামী যুবলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক এ্যাডভোকেট আঃ হাকিম।
ইউপি চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেন।
রতনকান্দি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মিলন চৌধুরী, সহ-সভাপতি ও কেসিআর আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আলমগীর কবির, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক রফিকুল ইসলাম মাষ্টার, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মোস্তাফিজুর রহমান বিপ্লব, সাংগঠনিক সম্পাদক আলী হোসেন।
ইউনিয়ন ছাত্র লীগের প্রতিষ্ঠাতা আহবায়ক নুরে আলম  রতন।বাহুকা কলেজের অধ্যক্ষ আমিনুল ইসলাম।
ইউনিয়ন আওয়ামী যুবলীগের সভাপতি জাহাঙ্গীর আলম, সাধারণ সম্পাদক বুলবুল আহমেদ ভুট্টো।
ইউনিয়ন সেচ্ছাসেবক লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি সোহেল রানা যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক রকন উদ্দিন।
ইউনিয়ন ছাত্র লীগের  সভাপতি আঃ আলিম খান, সাধারণ সম্পাদক জাকিরুল ইসলাম বাবু।
৯নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক, যুবলীগের সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক সহ  রতন কান্দি,ছোনগাছা বাগবাটি বহুলি ইউনিয়নের সভাপতি সাধারণ সম্পাদক  ও সকল নেতৃবৃন্দ।

কুষ্টিয়ায় বঙ্গবন্ধুর ভাষ্কর্য ভাঙ্গার প্রতিবাদে ঝিকরগাছায় বিক্ষোভ সমাবেশ

কুষ্টিয়ায় বঙ্গবন্ধুর ভাষ্কর্য ভাঙ্গার প্রতিবাদে ঝিকরগাছায় বিক্ষোভ সমাবেশ

মোঃ ইকরামুল করিম সৈকত, ঝিকরগাছা প্রতিনিধিঃ  কুষ্টিয়ায় বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নির্মাণাধীন ভাস্কর্য ভাঙ্গার প্রতিবাদ এবং জড়িতদের দ্রুত গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে ঝিকরগাছায় আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ ও সকল সহযোগী সংগঠনের উদ্যোগে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। 
শনিবার সন্ধ্যায় ঝিকরগাছা বাজার থেকে বিশাল এক বিক্ষোভ মিছিল বের হয়ে মিছিলটি উপজেলা মোড় প্রদিক্ষন করে জননী মার্কেট চত্বরে শেষ হয়। মিছিল পরবর্তী প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তব্য রাখেন উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মনিরুল ইসলাম। এসময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি চৌধুরী রমজান শরীফ বাদশা, মোস্তফা আনোয়ার পাশা জামাল। এছাড়া উপজেলা আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ, স্বেচ্ছাসেবকলীগ ও সকল সহযোগী সংগঠনের বিভিন্ন ইউনিটের নেতাকর্মী উপস্থিত ছিলেন।

সিরাজগঞ্জে মাস্ক পরিধান না করায় ৯ জনকে অর্থদন্ড

সিরাজগঞ্জে  মাস্ক পরিধান না করায় ৯ জনকে অর্থদন্ড

মসুদ রানা সিরাজগঞ্জে জেলাপ্রতিধিঃকোভিড-১৯ এর দ্বিতীয় ওয়েভ মোকাবেলায় মাস্ক পরিধান না করায় ৯ জনকে অর্থদণ্ড দেন সিরাজগঞ্জ সদরের সহকারী কমিশনার (ভূমি)  ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট জনাব মোহাম্মদ রহমত উল্লাহ। কোভিড ১৯ এর ২য় ওয়েভ মোকাবেলায় মাস্ক পরিধান না করার কারণে শনি বার পৌর এলাকার রেলগেট সংলগ্ন এলাকায় পথচারী, সিএনজি ও অটো রিকশা চালক এবং যাত্রীদেরকে অর্থদন্ড করেন। এসময় ০৯ জন ব্যক্তিকে মাস্ক পরিধান না করায় বিভিন্ন অংকের সর্বমোট ১২০০ টাকা অর্থদন্ড করেন। 

এসময় পথচারী, অটো চালক, সিএনজি চালক এবং যাত্রীদের মাঝে ফ্রি মাস্ক বিতরণ করেনন।কোভিড-১৯ এর ২য় ওয়েভ মোকাবেলায় মোবাইল কোর্ট পরিচালনা অব্যাহত থাকবে বলে তিনি যানান।

নড়াইল জেলা শাখার জাতীয় শ্রমিক লীগ বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত

নড়াইল জেলা শাখার জাতীয় শ্রমিক লীগ বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত

মো: আজিজুর বিশ্বাস ষ্টাফ রিপোর্টার নড়াইল।।জাতীয় শ্রমিক লীগ নড়াইল জেলা শাখার বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। শনিবার (৫ ডিসেম্বর) বিকালে জেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়। 

জাতীয় শ্রমিক লীগ নড়াইল জেলা শাখার সহ-সভাপতি মোঃ আইয়ুব হোসেন উজ্জ্বলের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক মোঃ আব্দুল আলিমের পরিচালনায় দিক-নির্দেশনামূলক বক্তব্য দেন প্রধান অতিথি আওয়ামীলীগের জাতীয় পরিষদের সদস্য অ্যাডভোকেট ফজলুর রহমান জিন্নাহ, পৌর আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি মেশকাতুল ওয়ায়েজীন লিটু, জেলা কৃষকলীগের সভাপতি মোঃ মাহাবুর রহমান, জেলা আওয়ামী মৎস্যজীবি লীগের সভাপতি মোঃ সাইফুল ইসলাম, জেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সাধারণ সম্পাদক এসএম পলাশ,  জাতীয় শ্রমিক লীগ জেলা শাখার সহ-সভাপতি  মোঃ ইমারুল গাজী, মোঃ পল্লব,  মোঃ তৌহিদুজ্জামান, আব্দুল মান্নান মোল্যা, মিজানুর রহমান, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ইকবাল হোসেন, সুলতান শেখ, জয়ন্ত বিশ্বাস আদর, শেখ আল আমিন, সামিউল আলম লিটন, মোঃ আলমগীর হোসেন, মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান রকিব, সাংগঠনিক সম্পাদক চান্দুর রহমান, মোঃ মশিউর রহমান, দপ্তর সম্পাদক পলাশ মালাকার, প্রচার সম্পাদক অসীম কর্মকার, অর্থ বিষয়ক সম্পাদক মোঃ তোরাব আলী, সহ-অর্থ বিষয়ক সম্পাদক মুন্সী হাসিবুর রহমান, ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক বিষয়ক সম্পাদক মোঃ সোহাগ হাসান, সহ-মহিলা বিষয়ক সম্পাদক মোছাঃ লাভলী বেগম, লোহাগড়া উপজেলা আহবায়ক মোজাম খান, যুগ্ম আহবায়ক জাহাঙ্গীর হোসেন, সদর উপজেলা শাখার আহবায়ক আশরাফুল ইসলাম, সদস্য সচিব মোঃ রফিকুল ইসলাম প্রমুখ। 

সভায় গত ১ ডিসেম্বর জেলা শ্রমিক লীগের সভাপতির স্বাক্ষরিত কালিয়া উপজেলা শাখার একটি কমিটি ফেসবুকে প্রচার করা হয়। উক্ত কমিটিকে অবৈধ ঘোষণা করে তা সর্বসম্মতিক্রমে বিলুপ্ত ঘোষণা করা হয় এবং জাতীয় শ্রমিক লীগের  অবৈধ কার্যালয় বাতিল করার সিদ্ধান্ত নেন নেতৃবৃন্দ। 

এছাড়া দলের সাংগঠনিক পরিপন্থী কাজ করায় জেলা শ্রমিক লীগের সভাপতি বি.এম হামিনুর রহমানকে বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত এবং সংগঠনের কার্যক্রম গঠনতন্ত্র মোতাবেক গতিশীল করার জন্য সকলের প্রতি অনুরোধ জানান নেতৃবৃন্দ।আগামী ১৬ ডিসেম্বর মহান বিজয় দিবস স্বাস্থ্যবিধি মেনে পালনের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।বর্ধিত সভায় জেলা, উপজেলা ও ইউনিয়ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ  উপস্থিত ছিলেন।

বঙ্গবন্ধু পেশাজীবী পরিষদ এর ১৮ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে প্রস্তুতি সভা

বঙ্গবন্ধু পেশাজীবী পরিষদ এর ১৮ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে প্রস্তুতি  সভা


আজহারুল ইসলাম সাদী, স্টাফ রিপোর্টারঃবঙ্গবন্ধু পেশাজীবী পরিষদের সাতক্ষীরা জেলায় বর্ধিত সভায় বক্তারা বলেছেন মহান স্বাধীনতার স্থাপতি
জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এর ভাস্কর্য নিয়ে বেশি বাড়াবাড়ি করলে তার পরিনাম ভাল হবে না বলে হুশিয়ারী করেছেন।

বঙ্গবন্ধু পেশাজীবী পরিষদ সাতক্ষীরা জেলা শাখার উদ্যোগে শনিবার (৫ই ডিসেম্বর-২০২০) সকাল ১১টায় 
সাতক্ষীরা জেলা পুরাতন আইনজীবী সমিতি মিলনায়তনে দলের জেলা সভাপতি অবসরপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক নির্মল দাসের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায়, প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, বঙ্গবন্ধু পেশাজীবী পরিষদের কেন্দ্রীয় ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট আল মাহমুদ পলাশ।

সভায় বক্তব্য রাখেন জেলা সহ-সভাপতি শফিকুল ইসলাম, মাষ্টার আসাদুল ইসলাম  যুগ্ন-সাধারণ সম্পাদক ডাঃ আব্দুর রহমান হাবিব, আসাদুজ্জামান লাবলু, মনোরঞ্জন বন্ধ্যোপধ্যায়, আহসান হাবিব, সাংগঠনিক সম্পাদক তারিকুল ইসলাম তারেক, এড.সুনিল কুমার ঘোষ, প্রভাষক শীবপদ সরকার, মোছাক সরদার, আব্দুর রহমান, বিলাল হোসেন গাজি,
মৎস্যজীবী প্রাতিষ্ঠানিক শাখা সভাপতি আলহাজ্ব মোখলেছুর রহমান, কৃষিজীবী প্রাতিষ্ঠানিক শাখা সভাপতি সংকর মিস্ত্রি, ব্যাংক ও বীমা প্রাতিষ্ঠানিক শাখা সভাপতি ইমাম হোসেন, আইনজীবী সহাকরী প্রাতিষ্ঠানিক শাখা সাধারণ সম্পাদক আবুল বাশার,
হোমিও চিকিৎসক প্রাতিষ্ঠানিক শাখা সাধারণ সম্পাদক ডাঃ নাছিম আহমেদ, প্রাথমিক শিক্ষক প্রাতিষ্ঠানিক শাখা সভাপতি মাষ্টার আব্দুল আওয়াল,
অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক প্রাতিষ্ঠানিক শাখা সভাপতি মাষ্টার শফিউদ্দীন, ক্লিনিক ডায়াগনিষ্ট প্রাতিষ্ঠানিক শাখা সভাপতি ডাঃ খলিলুর রহমান।

আশাশুনি উপজেলা সভাপতি মাষ্টার আবুল কালাম আজাদ, কলারোয়া উপজেলা সভাপতি সাংবাদিক গোলাম রহমান, শ্যামনগর উপজেলা সভাপতি জি এম আব্দুল গফুর, কালিগঞ্জ উপজেলা সভাপতি মুকুল বিশ্বাস, পৌর সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম, তালা উপজেলা সাধারণ সম্পাদক পলাশ খান তোতা, সদর উপজেলা সহ-সভাপতি মুজিবুর রহমান, দেবহাটা প্রতিনিধি এড. আছাফুর রহমান। 

সভায়  আরে উপস্থিত ছিলেন জেলা মানব সম্পদ উন্নয়ন সম্পাদক অধ্যাপিকা ছন্দা রাণী মন্ডল, সহ-প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক আবু রায়হান, সহ দপ্তর সম্পাদক শেখ জামাল হোসেন বকুল, সহ-যুব ও ক্রীড়া সম্পাদক দেবাশিষ সরকার,সহ-তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক কাজি শাহাদাৎ হোসেন,সহ-স্বাস্থ্য ডাঃ এফ আর সোমা, সহ-ভূমি সম্পাদক নাজমা খাতুন, সহ-মহিলা সম্পাদক মনিরা খাতুন, সহ-অর্থ সম্পাদক অজিত ঘোষ, মাষ্টার আনোয়ার হোসেন, ডাঃ শহিদুল ইসলাম দুলু, শাহিদা আক্তার ময়না, ব্রজেন মিস্ত্রি, রহমত আলী, গাজি আব্দুর রশিদ, সিরাজুল ইসলাম, মন্টু দাস, গোলাম এজদান, আবুল খায়ের, আনারুল ইসলাম প্রমুখ।

সভায় কুষ্টিয়ার ৫ রাস্তার মোড়ে দুর্বৃত্তরা সাম্প্রতিক নির্মানাধীন বঙ্গবন্ধুর ভাষ্কর্যের কিছু অংশ ভেঙে ফেলায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানানো হয় এবং এহেন ন্যাক্কার জনক ঘটনায় জড়িতদের অবিলম্বে আইনের আওতায় এনে দ্রুত বিচারের দাবী করেন। 

নেতৃবৃন্দ বলেন ১৯৬৯ সালে এই দিনে বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশের নামকরণ ঘোষণা করেন তাই বাংলাদেশে তার ভাস্কর্য থাকবে। এবং সেটা যে কোন মুল্যে প্রতিহত করা হবে।প্রয়োজনে দেশের প্রত্যেক অলি গলির মোড়ে বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য করা হবে, বঙ্গবন্ধু পেশাজীবী পরিষদ এর পক্ষ থেকে।

 সভায় আগামী ৯ জানুয়ারী-২০২১ বঙ্গবন্ধু পেশাজীবী পরিষদের ১৭তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপনে বর্ণাঢ্য আয়োজনের মধ্য দিয়ে পালন করবার জন্য বিভিন্ন সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য ভাংচুরের প্রতিবাদে মোংলায় বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ

বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য ভাংচুরের প্রতিবাদে মোংলায় বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ

মোঃএরশাদ হোসেন রনি, মোংলাঃ  
কুষ্টিয়ায় জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভাস্কর্য ভাংচুরের প্রতিবাদে মোংলায় উপজেলা ও পৌর আওয়ামীলীগের আয়োজনে ৫ ডিসেম্বর শনিবার সন্ধ্যায় বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শনিবার সন্ধ্যা সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় দলীয় কার্যালয় থেকে একটি বিক্ষোভ মিছিল শহরের গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে চৌধুরী মোড়ে প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। এতে বক্তব্য রাখেন পৌর আওয়ামীলীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা শেখ আব্দুর রহমান, সাধারন সম্পাদক আলহাজ্ব শেখ কামরুজ্জামান জসিম, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক মোঃ ইব্রাহিম হোসেন, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান মোঃ ইকবাল হোসেন, পৌর যুবলীগের সভাপতি এসএম কবির, শেখ আল মামুন, আওয়ামীলীগ নেতা সাখাওয়াত হোসেন মিলন, উৎপল মন্ডল, শ্রমিকলীগ নেতা নুর উদ্দিন আল মাসুদসহ আওয়ামীলীগ, যুবলীগ, সেচ্ছাসেবকলীগ, শ্রমিকলীগ ও ছাত্রলীগের বিভিন্ন ইউনিটের নেতৃবৃন্দ। 

প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তারা বলেন, দেশকে অস্থিতিশীল করতে আবারও মাথাচাড়া দিয়ে উঠেছে বিএনপি জামায়াতসহ পাকিস্তানী দোসররা। জাতির জনকের প্রতি কোন প্রকার অসম্মান করা হলে কাউকেই ছাড় দেয়া হবেনা বলে হুঁশিয়ার করেছেন স্থানীয় আওয়ামীলীগ নেতৃবৃন্দ।

প্রাণ গ্রুপে ‘অভিজ্ঞ সেলস রিপ্রেজেন্টেটিভ (পুরুষ)’ পদে জনবল নিয়োগ

প্রাণ গ্রুপে ‘অভিজ্ঞ সেলস রিপ্রেজেন্টেটিভ (পুরুষ)’ পদে জনবল নিয়োগ

শীর্ষস্থানীয় বহুজাতিক শিল্প প্রতিষ্ঠান প্রাণ গ্রুপে 'অভিজ্ঞ সেলস রিপ্রেজেন্টেটিভ (পুরুষ)' পদে জনবল নিয়োগ দেওয়া হবে। আগ্রহীরা উল্লেখিত সময়ে পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে পারবেন।

 

প্রতিষ্ঠানের নাম: প্রাণ গ্রুপ

পদের নাম: অভিজ্ঞ সেলস রিপ্রেজেন্টেটিভ (পুরুষ)
শিক্ষাগত যোগ্যতা: এইচএসসি/এসএসসি। ন্যূনতম জিপিএ ২.০০
বয়স: ২০-৩৫ বছর
বেতন: কোম্পানির নিয়মানুযায়ী
শিক্ষানবিশকাল: প্রথম ৩ মাস
প্রার্থীর ধরন: পুরুষ
শারীরিক যোগ্যতা: উচ্চতা ৫ ফুট ২ ইঞ্চি, সুস্বাস্থ্যের অধিকারী
কর্মস্থল: যেকোনো জেলা
 

যা যা প্রয়োজন: সদ্য তোলা পাসপোর্ট সাইজের ৪ কপি রঙিন ছবি, সব পরীক্ষার রেজিস্ট্রেশন কার্ড ও মূল সনদ, জাতীয় পরিচয়পত্রের মূল ও ফটোকপি, অভিজ্ঞতার সনদ এবং জীবন-বৃত্তান্ত।

সাক্ষাৎকারের সময়সূচি: যেকোনো একটি ঠিকানায় সকাল ১০টার মধ্যে উপস্থিত থাকতে হবে-

 

সূত্র: জাগোজবস ডটকম।

বগুড়ায় মাস্ক না পরায় ১৮জনকে জরিমানা

বগুড়ায় মাস্ক না পরায় ১৮জনকে জরিমানা


মোঃ সবুজ মিয়া বগুড়া প্রতিনিধিঃ বগুড়ার শেরপুরে সরকারি নির্দেশনা উপেক্ষা করে মাস্ক না পরায় ১৮জনকে জরিমানা করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। গত দুইদিন পৌরশহরসহ উপজেলার একাধিক গুরুত্বপূর্ণ এলাকায় এই ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. লিয়াকত আলী সেখ। সেইসঙ্গে জনসাধারণকে প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাস সম্পর্কে সচেতন করতে মাইকযোগে প্রচার-প্রচারণা চালানো হয়। স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলাসহ ঘর থেকে বের হলে অবশ্যই মাস্ক পরতে আহবান জানান তিনি। বিশেষ করে বাস-ট্রাক, সিএনজি চালিত অটোরিকসা শ্রমিক-যাত্রীদের মাস্ক পরতে উদ্বুদ্ধ করেন।

ভ্রাম্যমাণ আদালত সূত্রে জানা যায়, বিকেল থেকে সন্ধ্যারাত পর্যন্ত শেরপুর পৌরশহরের সাব-রেজিষ্ট্রি বাজার, খেজুরতলা বাস টার্মিনাল, শেরুয়া বটতলা বাজার, ব্র্যাক বটতলা বাজার এলাকায় ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযানে স্বাস্থ্যবিধি অমান্য করে মাস্ক ব্যবহার না করায় ছয়জনকে এক হাজার একশত টাকা জরিমানা করা হয়। এছাড়া আগেরদিন গত বুধবার (০২ডিসেম্বর) শহরের ধুনটমোড়, সকাল বাজার, বাসষ্ট্যান্ড, রনবীরবালা এলাকায় পরিচালিত ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযানে মাস্ক না পরায় বারো জনকে এক হাজার পাঁচশত পঞ্চাশ টাকা জরিমানা করেন ওই নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট।

এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. লিয়াকত আলী সেখ বলেন, সরকার ঘরের বাইরে মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক করলেও নানা অজুহাতে অনেকে মাস্ক ব্যবহার করছেন না। করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ এড়াতে আমাদের প্রত্যেকের মাস্ক পরা উচিত। তাই ঘরের বাইরে বের হলেই সবার মাস্ক পরা নিশ্চিত করতে হবে। এজন্যই গণসচেতনতা সৃষ্টির পাশাপাশি ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করা হচ্ছে। জনস্বার্থে এই অভিযান অব্যাহত থাকবে বলেও ঘোষণা দেন তিনি।

বগুড়ায় ইয়াবা ও নগদ টাকাসহ যুবক গ্রেফতার

বগুড়ায় ইয়াবা ও নগদ টাকাসহ যুবক গ্রেফতার

মোঃ সবুজ মিয়া বগুড়া প্রতিনিধিঃ  বগুড়ার শিবগঞ্জে ৯৮ পিস ইয়াবাসহ সোহাগ বাবু (২৫) নামে এক যুবককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। শুক্রবার রাত ৯ টার দিকে উপজেলার মোকামতলা এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। সে ওই উপজেলার শংকরপুরের সাহেবপাড়ার জাবেদ আলীর ছেলে।

পুলিশ জানায়, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানা যায় শিবগঞ্জের মোকামতলা একালায় মাদক বিক্রির উদ্দেশ্যে এক যুবক অবস্থান করছে। তখন তাদের টিম সেখানে অভিযান চালায়। অভিযানকালে শুক্রবার রাত ৯ টার দিকে তাকে ৯৮ পিস ইয়াবারসহ গ্রেফতার করা হয়। এসময় তার কাছ থেকে মাদক বিক্রির ৫ হাজার ৩৮০ টাকা উদ্ধার করা হয়। 

শিবগঞ্জ থানার ওসি এস এম বদিউজ্জামান বলেন, গ্রেফতার হওয়া ওই যুবকের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

আল্লাই মোহাম্মদীয়া গাউসিয়া জামে মসজিদ কমিটির নবনির্বাচিত নেতৃবৃন্দ ফুলের শুভেচ্ছা

আল্লাই মোহাম্মদীয়া গাউসিয়া জামে মসজিদ কমিটির নবনির্বাচিত নেতৃবৃন্দ   ফুলের শুভেচ্ছা

সেলিম চৌধুরী, স্টাফ রিপোর্টারঃ- চট্টগ্রামের পটিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও   পটিয়া পৌরসভার মেয়র অধ্যাপক হারুনুর রশিদ'কে ফুলের শুভেচ্ছা জানিয়ে মতবিনিময় করেছেন  পটিয়া পৌরসভার ১নং ওয়ার্ডে    আল্লাই মোহাম্মদীয়া গাউসিয়া জামে মসজিদ পরিচালনা কমিটির নবনির্বাচিত নেতৃবৃন্দ।  মসজিদ কমিটির নবনির্বাচিত  সভাপতি মোঃ বদিউল আলম, সাধারণ সম্পাদক মোঃ সাইফুদ্দিন সোহেল এর নেতৃত্বে ৫ ডিসেম্বর দুপুরে পটিয়া আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয় মিলনায়তনে মসজিদ কমিটির নেতৃবৃন্দ পটিয়া পৌরসভার মেয়র অধ্যাপক হারুনুর রশিদ'কে ফুলের শুভেচ্ছা জানান। এসময় উপস্থিত ছিলেন মসজিদ কমিটির সহ- সভাপতি মোঃ সেকান্দর সওঃ, মোঃ আহমদ নুর, মোঃ সাদেক আলী, সহ সম্পাদক মোঃ আহমদুর রহমান, মোঃ সোলাইমান, মোঃ কামাল উদ্দিন, মোঃ খোরশেদ আলম,সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ মহিউদ্দিন, অর্থ সম্পাদক মোঃ  নজির আহমদ, সহ অর্থ সম্পাদক মোঃ নুরুল আবছার, প্রচার সম্পাদক এম. এ রহিম,  সদস্য মোঃ ফজল আহমদ, মোঃ ইদ্রিস সওঃ, এলাকাবাসীর মধ্যে উপস্থিত ছিলেন মোঃ  নুরুল হক, আবু  সিদ্দিক,মোঃ জাগির হোসেন, আবদু সালাম, মাহমুদ হোসেন, ইব্রাহিম, আহমদ হোসেন প্রমুখ। এসময় পটিয়া পৌরসভার মেয়র অধ্যাপক হারুনুর রশিদ  এলাকার সকলকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে মসজিদ মাদ্রাসার উন্নয়নে একয়োগে কাজ করার আহবান জানান।

নওগাঁর হাটবাজারে কমেছে শাকসবজির দাম

নওগাঁর হাটবাজারে কমেছে শাকসবজির দাম


রাজশাহী ব্যুরোঃ
গত কয়েক দিনের তুলনায় নওগাঁর আত্রাইয়ের গ্রামীন  হাট বাজার গুলোতে অনেক বেড়েছে শাকসবজির আমদানি। 
যার ফলে শহরমুখী বাজারেও অনেক কমেছে শাক সবজির দাম। সস্তাতে বাজার করতে পারছেন শহর ও গ্রামের সর্বস্তরের জনগণ।আজ আত্রাইয়ের বান্দাইখাড়া হাটে ঘুরে দেখলাম সকল ধরনের শাকসবজি তুলনামূলক ভাবে দাম অনেক কম হওয়ায় খুশি দেখতে পেলাম সর্বস্তরের জনগণ কে ৷ হাটে সবজি গুলোর দাম নিম্নরপঃ
ফুলকপি ১৫/ ২০টাকা কেজি, বেগুন ২০/ ২৫ টাকা কেজি, পালংশাক ৫ টাকা কেজি, মুলা ৩ টাকা  কেজি,  সিম ২০/ ২৫ টাকা কেজি, 


মহাদেবপুরে ফেনসিডিলসহ আটক- ১

মহাদেবপুরে  ফেনসিডিলসহ  আটক- ১


রহমতউল্লাহ আশিকুর জামান নুর,নওগাঁ,রাজশাহীঃনওগাঁর মহাদেবপুরে ভারতীয় আমদানি নিষিদ্ধ ৬৪ বোতল ফেনসিডিলসহ জালাল উদ্দিন (২৫) নামে এক ব্যক্তিকে আটক করেছে পুলিশ। শনিবার সকাল ৯টা ১৫ মিনিটে উপজেলা সদরের বচনা ব্রিজ এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাকে আটক করা হয়।

জালাল উদ্দিন চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার শিবগঞ্জ উপজেলার বড় টাপ্পু গ্রামের সানাউল্লাহ ওরফে সানুর ছেলে।মহাদেবপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) নজরুল ইসলাম জুয়েল বলেন, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানতে পারি

চাঁপাইনবাবগঞ্জ থেকে মোটরসাইকেল যোগে নওগাঁয় ফেনসিডিল পাচার হচ্ছে। এমন সংবাদে মহাদেবপুর- নওগাঁ আঞ্চলিক মহাসড়কের বচনা ব্রিজ এলাকায় চেকপোস্ট বসিয়ে তল্লাশি করা হয়। এ সময় নওগাঁগামী জালাল উদ্দিনের মোটরসাইকেল থামিয়ে তল্লাশি চালালে পৃথক দুটি ব্যাগ থেকে ৬৪ বোতল ফেনসিডিল উদ্ধারসহ মোটরসাইকেলটি জব্দ করা হয়।
তিনি বলেন, আটক ব্যক্তির বিরুদ্ধে মামলা দায়ের পূর্বক আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।

কুষ্টিয়াতে বঙ্গবন্ধুর নির্মানাধীন ভাস্কর্য ভেঙ্গে দিয়েছে দুষ্কৃতিকারীরা

কুষ্টিয়াতে বঙ্গবন্ধুর নির্মানাধীন ভাস্কর্য ভেঙ্গে দিয়েছে দুষ্কৃতিকারীরা


নিজস্ব প্রতিবেদকঃ আর.জে মিজানুর রহমান ইমনঃ- কুষ্টিয়ায় জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নির্মাণাধীন ভাস্কর্য ভেঙ্গে ফেলেছে দুর্বৃত্তরা । শুক্রবার (৪ ডিসেম্বর) রাতের কোনো এক সময় কুষ্টিয়া পৌরসভার ৫ রাস্তার মোড়ে স্থাপিত বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্যের ডান হাত, পুরো মুখমণ্ডল ও বাম হাতের অংশ বিশেষ ভেঙে ফেলে তারা ।

জানা যায়, কুষ্টিয়া পৌরসভার উদ্যোগে শহরের পাঁচ রাস্তা মোড়ে একই বেদিতে বঙ্গবন্ধুর তিন ধরনের তিনটি ভাস্কর্য নির্মাণের উদ্যোগ নেওয়া হয় । এরমধ্যে একটি বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য নির্মাণ প্রায় শেষের দিকে ছিলো । সকালে কাজ করতে গিয়ে শ্রমিকরা দেখে নির্মাণাধীন বঙ্গবন্ধু ভাস্কর্যে হাতুড়ি দিয়ে পেটানো, এতে করে বঙ্গবন্ধুর হাতের অংশ বিশেষ ভেঙ্গে চুরমার করেছে এবং মুখে অবয়ব ক্ষতবিক্ষত করেছে দুর্বৃত্তরা ।

এ ঘটনায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট কুষ্টিয়া জেলা শাখার সাধারন সম্পাদক শাহীন সরকার বলেন,  একদল স্বাধীনতা বিরোধী চক্র বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্যে আঘাত হেনেছে আমরা শিল্পী সমাজ স্বাধীনতার চেতনায় বিশ্বাসী মানুষেরা এর তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই ।

কুষ্টিয়া পৌরসভার প্রধান প্রকৌশলী রবিউল ইসলাম বলেন, ভাস্কর্যটির নির্মাণ কাজ প্রায় ৭৫ শতাংশ শেষ হয়েছে। ভাঙ্গার ঘটনায় আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে । কুষ্টিয়ার পুলিশ সুপার এস এম তানভীর আরাফাত জানান, কুষ্টিয়া পৌরসভার উদ্যোগে শহরের পাঁচ রাস্তা মোড়ে একই বেদিতে বঙ্গবন্ধুর তিন ধরণের তিনটি ভাস্কর্য নির্মাণের উদ্যোগ নেওয়া হয় ।
দুবৃত্তরা রাতের কোন এক সময়ে হাতুড়ি দিয়ে এটির অংশ বিশেষ ক্ষত বিক্ষত করে দেয় । ঘটনাস্থলের আশেপাশের সিসি ক্যামেরার ফুটেজ সংগ্রহ করা হয়েছে । বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে । এঘটনার সাথে যারা জড়িত তাদের আইনের আওতায় আনা হবে বলেও জানান তিনি ।

দিনাজপুরে প্রীতি ফুটবল টুর্নামেন্ট-২০২০ অনুষ্ঠিত

দিনাজপুরে প্রীতি ফুটবল টুর্নামেন্ট-২০২০ অনুষ্ঠিত


মামুনুর রশিদ,দিনাজপুর প্রতিনিধি ॥ দিনাজপুর সদর উপজেলার ৪নং শেখপুরা ইউনিয়নের কৃষান বাজার এলাকায় এইচ আর ড্রিম আইটি সলিউশন এর উদ্যোগে এইচ আর ড্রিম আইটি সলিউশনে কর্মরত দিবা এবং রাত্রি কালিন সদস্যদের নিয়ে অনুষ্ঠিত ফুটবল টুর্নামেন্ট-২০২০ এবং টুর্নামেন্ট শেষে পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠিত হয়েছে।
প্রীতি ফুটবল টুর্নামেন্ট এর বেলুন-ফেস্টুন উড়িয়ে আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন প্রধান অতিথি ৪নং ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ মমিনুল ইসলাম। এই টুর্নামেন্টে দুটি দল অংশ গ্রহণ করে এইচ আর ড্রিম আইটি সলিউশনে রাত্রি কালিন কর্মরত সদস্যদের নিয়ে একটি দল এবং দিনের বেলায় কর্মরত সদস্যদের নিয়ে একটি দল।
টুর্নামেন্টে এইচ আর ড্রিম আইটি সলিউশনে কর্মরত দিবা কালিন দল রাত্রি কালিন দলকে ০-১ গোলে হারিয়ে বিজয়ী ট্রফি ছিনিয়ে নেয়।
টুর্নামেন্ট শেষে সন্ধ্যায় বিজয়ী খেলোয়াড়দের পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠিত হয়। এসকল অনুষ্ঠানে এইচ আর ড্রিম আইটি সলিউশনের সিইও মোঃ হাফিজুর রহমান এর সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন দিনাজপুর ফ্রিল্যান্সার এসোসিয়েশনের উপদেষ্টা মোঃ শহিদুল ইসলাম, মোঃ আব্দুল আউয়াল, মোঃ মোতাহার হোসেন, জেএসকেএস'র নির্বাহী পরিচালক মোঃ মোস্তফা কামাল, সিডিসি'র র্নিবাহী পরিচালক যাদব চন্দ্র রায়, রাইজিং স্টার আইটি'র সিইও মোঃ আবুল কালাম আজাদ, দিনাজপুর ফ্রিল্যান্সার এসোসিয়েশনের সদস্য সচিব মোঃ মকিদ হায়দার শিপন, সন্ধানী লাইফ ইনসুরেন্সের কোম্পানি লিঃ দিনাজপুর এর জোনাল ইনচার্জ মোঃ সাহাজ উদ্দীন (সাহাজ), দিনাজপুর সদর উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগ এর সভাপতি মোঃ আব্দুস সালাম সরকার, সাধারণ সম্পাদক মোঃ রাকিব ইসলাম প্রমূখ।

মাছ নিধন,সিংড়ায় লীজকৃত পুকুর দখলের পায়তারা

 মাছ নিধন,সিংড়ায় লীজকৃত পুকুর দখলের পায়তারা

রাজু আহমেদ, নাটোর
নাটোরের সিংড়া উপজেলার সুকাশ ইউনিয়নের আগমুরশন গ্রামে লিজকৃত পুকুর দখল করতে উঠে পড়ে লেগেছে স্থানীয় প্রভাবশালীরা। এ নিয়ে দু পক্ষের মধ্য দ্বন্দ্ব দেখা দিয়েছে। প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে পুকুর মালিককে পুকুর ছাড়ার হুমকি ধামকি সহ প্রকাশ্য মাছ মেরে নেয়ার অভিযোগ ও রয়েছে। এ বিষয়ে ক্ষতিপূরণ চেয়ে নাটোর কোর্টে মামলা করেছেন  কৃষক আব্দুল কাদের । 

জানা যায়, বড় চৌগ্রাম গ্রামের আব্দুল কাদের ২০১৪ সালে ৮ বছরের জন্য উপজেলার চকরাম কৃষ্ণপুর মৌজার  ২.৮০ একর পুকুর লিজ নেয়। সম্প্রতি জাফর, সুলতান, জার্জিসের নেতৃত্বে আসামীরা পুকুরে বেআইনি ও অবৈধ ভাবে প্রবেশ করে পাবদা, গোয়ালশা, রুই, হাংরি, সিলভার মাছ সহ বিভিন্ন প্রজাতির ১০ লক্ষ টাকার মাছ নিধন করে। এসময় আব্দুল কাদের বাঁধা দিতে এলে তাকে প্রাননাশের হুমকিসহ মারপিট করার উদ্দেশ্যে আক্রমন করলে সে দৌড়ে পালিয়ে যায়। 

পুকুর মালিক কাদের জানান,  লিজকৃত পুকুরে ৯ মাস যাবত যেতে পারছিনা। প্রতিপক্ষরা  মোবাইলে বিভিন্ন লোকের মাধ্যমে মামলা তুলে নেয়ার এবং  প্রান নাশের হুমকি দিয়ে আসছে।  অথচ পুকুর লিজের এখনও দুই বছর তার মেয়াদ আছে। এতে করে তার প্রায় ১৫ লক্ষাধীক টাকার ক্ষতির সম্মুখীন। সিংড়া থানার ওসি তদন্ত সেলিম রেজা জানান, বিষয়টি আমি জানি,তদন্তধীন রয়েছে।


সুন্দরবনে গরানের পারমিট বন্ধ থাকায় হাজার হাজার বাওয়ালী চরম বিপাকে

সুন্দরবনে গরানের পারমিট বন্ধ থাকায়  হাজার হাজার বাওয়ালী চরম বিপাকে

কয়রা(খুলনা)প্রতিনিধিঃ সুন্দরবনে গরানের পারমিট বন্ধ থাকায় হাজার হাজার বাওয়ালী পড়েছে বিপাকে। অপরদিকে প্রতি বছর গরান কাঠ না কাটায় সুন্দরবনের গরান সমৃদ্ধ এলাকায় গাছের প্রজনন বাধা গ্রস্ত হচ্ছে। অবিলম্বে গরান কাটার পারমিট চালু করার জোর দাবি জানিয়েছে সুন্দরবন সংলগ্ন বাওয়ালীরা।
বন বিভাগ সুত্রে জানা গেছে,২০০৭ সালের সামুদ্রিক ঘুর্নিঝড় সিডর সুন্দরবনে ওপর দিয়ে আঘাত হানার পর ঐ বছর সরকার গরান ও গোলপাতা কর্তন নিষিদ্ধ করে দেয়। দু বছর পর গোলপাতার পারমিট চালু করা হলেও গরানের পারমিট আর চালু করেনি বন বিভাগ। সেই থেকে হাজার হাজার বাওয়ালী চরম বিপর্যয়ের মধ্যে দিয়ে মানবেতর জীবন যাপন করছে। এখনও অনেক বাওয়ালী প্রতি বছর গরান কাটার অপেক্ষায় নৌকা সংস্কার করে আশায় বুক বেধে বসে থাকে। ইতিমধ্যে অনেক বাওয়ালী পেশা পরিবর্তন করে দিন মুজুরের কাজ বেছে নিয়েছে। অনেকের নৌকা অকেজো হয়ে পড়ে আছে। তবে পারমিট বন্ধ করা হলেও এর সাথে সংশ্লিষ্টদের কোন কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা না করায় চরম ক্ষোভের সঞ্চয় ঘটে বাওয়ালীদের মাঝে।
বাওয়ালীদের সুত্রে জানা গেছে, সত্তর দশকে সুন্দরবনে গরান, গোলপাতা, হেতাল, গেওয়া, সুন্দরী কাঠ কাটার পারমিট দিতো বন বিভাগ। নব্বই দশকের পর এসকল পারমিট কমিয়ে শুধুমাত্র সুন্দরী, গরান ও গোলপাতার পারমিটের অনুমতি প্রদান করা হতো। এ কারনে সুন্দরবনে বাওয়ালীর সংখ্যা অর্ধেক নেমে আসে। প্রতিমধ্যে সুন্দরী কাঠ কাটার পারমিটও বন্ধ করে দেওয়া হয়। সিডরের পর গরানের পারমিট বন্ধ করা হলেও এখন পর্যন্ত তা বহাল রয়েছে। আর সেই থেকে হাজার হাজার বাওয়ালী চরম বির্পযয়ের মধ্যে দিয়ে সিমাহীন কষ্টের মধ্যে দিনতিপাত করে আসছে। নলিয়ান এলাকার বাওয়ালী জাহাঙ্গীর আলম বলেন, পশ্চিম সুন্দরবনের সাতক্ষীরা রেঞ্জের নোটাবেকি, পুষ্পকাটি, আগুনজালা, দোবেকি, কলাগাছি, জামতলা, কদমতলা, বনাঞ্চলে প্রচুর গরান গাছ জন্মেছে। অপরদিকে খুলনা রেঞ্জের চালকি, আন্দার মানিক, গেওয়াখালী, পাটকোষ্টা, হংসরাজ, নীরকোমল, শোলকমনি এলাকায় গরান দেখা গেছে প্রচুর। এখন গরানের পারমিট দিলে বনের কোন ক্ষতি হবেনা। কয়রা উপজেলার ৪নং কয়রা গ্রামের বাওয়ালী রিয়াছাদ আলী সানা বলেন, দীর্ঘদিন গরান না কাটায় সুন্দরবনের সর্বত্রই ব্যাপকভাবে গরানের বিস্তার ঘটেছে। আর ব্যাপকভাবে গরানের প্রভাব পড়ায় ঐ সকল এলাকায় অন্য গাছ বংস বিস্তার কাজে বাধাগ্রস্ত হচ্ছে। অন্যদিকে সরকার কোটি কোটি টাকার রাজস্ব থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। সুন্দরবন বাওয়ালী ফেডারেশনের সভাপতি মীর কামরুজ্জামান বাচ্চু বলেন, প্রতি বছর গরান না কাটলে গাছের ঝোপ ঝাপড়ায় সুন্দরবনের অন্য প্রজাতির গাছ জন্মাতে বাধা  ঘটে। এ ছাড়া গরান গাছ না কাটায় অন্যান্য প্রজাতির গাছ স্বাভাবিক গতিতে বেড়ে উঠতে পারেনা। দ্রুত গরান কর্তন না করা হলে বয়স ভিত্তিক সর্ববৃহৎ গরান বাগান ধংবসের আশংকা রয়েছে। তাছাড়া মন্ত্রনালয়ের গেজেট অনুযায়ী অপ্রধান গাছ গরান কাটা যাবে বলে উল্লেখ করা আছে। বিষয়টি বিবেচনা এনে অবিলম্বে গরানের পারমিট চালুর দাবি জানান তিনি। সুন্দরবন পশ্চিম বন বিভাগের (ডিএফও) ড.আবু নাসের মোহসীন হোসেন বলেন, গরানের পারমিটের বিষয়টি মন্ত্রনালয়ের ব্যাপার। মন্ত্রনালয়ের নির্দেশনা না পেলে গরানের পারমিট দেওয়া সম্ভব হবেনা। কয়রা-পাইকগাছার সংসদ সদস্য আলহাজ্ব মোঃ আক্তারুজ্জামান বাবু বলেন,সুন্দরবন সংলগ্ন এলাকার বাওয়ালীদের কথা চিন্তা করে গরানের পারমিট দেওয়ার বিষয়টি মন্ত্রনালয়ে সুপারিশ করা হবে।

পটিয়ার আল্লাই মোহাম্মদীয়া গাউসিয়া জামে মসজিদের কমিটি গঠন

পটিয়ার আল্লাই মোহাম্মদীয়া গাউসিয়া জামে মসজিদের  কমিটি গঠন



পটিয়া (চট্টগ্রাম)থেকে সেলিম চৌধুরীঃ চট্টগ্রামের পটিয়া পৌরসভার ১নং ওয়ার্ডে  ৪ ডিসেম্বর শুক্রবার  আল্লাই মোহাম্মদীয়া গাউসিয়া জামে মসজিদ ১৫ সদস্য বিশিষ্ট পরিচালনা  কমিটি  গঠন করা হয়েছে। এতে সভাপতি মোঃ বদিউল আলম, সাধারণ সম্পাদক মোঃ সাইফুদ্দিন সোহেল, সহ- সভাপতি মোঃ সেকান্দর সওঃ, আহমদ নুর, সাদেক আলী, সহ সম্পাদক আহমদুর রহমান, মোঃ সোলাইমান, কামাল উদ্দিন, খোরশেদ আলম,সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ মহিউদ্দিন, অর্থ সম্পাদক নজির আহমদ, সহ অর্থ সম্পাদক নুরুল আবছার, প্রচার সম্পাদক এম. এ রহিম,  সদস্য ফজল আহমদ, ইদ্রিস সওঃ প্রমুখ। 

সিংড়ায় মসজিদ, ইদগাহ, স্কুলের সম্পত্তি রক্ষায় মানববন্ধন

সিংড়ায় মসজিদ, ইদগাহ, স্কুলের সম্পত্তি রক্ষায় মানববন্ধন



রাজু আহমেদ, নাটোর: 
নাটোরের সিংড়ায় ইদগাহ, কবরস্থান, মসজিদ ও স্কুলের সম্পত্তি রক্ষায় মানববন্ধন করেছে শত শত গ্রামবাসি। 
শনিবার সকাল ১১ টায় ইটালী ইউনিয়নের
বিক্রমপুর গ্রামের স্কুল মাঠে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।  

মানববন্ধনে বক্তারা জানান, আবুল কালাম ও আ: রাজ্জাকের নেতৃত্বে একটি চক্র গ্রামের ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান ও স্কুল মাঠ সহ সরকারী খাস জমি জাল দলিল করে জবর দখলের পায়তারা করছে। অথচ বছরের পর বছর ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানের উন্নয়নে এসব জমি শত শত থেকে ব্যবহার্য হয়ে আসছে। 
 
আসাদুজ্জামান জানান, পুকুরে ২ লক্ষ টাকার মাছ মেরেছে, পলের পালা পুড়িয়ে দিয়েছে  এবং পুকুরে বিষ প্রয়োগ করেছে। স্থানীয়রা জানায়, সে বিদেশে নিয়ে যাবার কথা বলে মকলেছুর রহমানের কাছ থেকে ৪ লক্ষ ও রবিনের ৪ লক্ষ ২৫ হাজার টাকা নিয়েছে। তারা এসবের বিচার দাবি জানান।

মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন, গ্রাম্য প্রধান মো: নাসির উদ্দিন খা, বিক্রমপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সভাপতি মকসেদ আলী মন্ডল,  মসজিদ কমিটির সাধারন সম্পাদক ইদ্রীস আলী মন্ডল, গোরস্থান কমিটির সাধারন সম্পাদক হাবিবুর রহমান হাবিল খাঁ সহ আরো অনেকে।

নাগরপুরে ট্রলি-অটো রিক্সা সংঘর্ষে অটো চালক নিহত এবং আহত-৫

নাগরপুরে ট্রলি-অটো রিক্সা সংঘর্ষে অটো চালক নিহত এবং আহত-৫




হাসান সাদী,নাগরপুর(টাঙ্গাইল) প্রতিনিধিঃটাঙ্গাইলের নাগরপুরে ট্রলি অটো রিক্সা মুখোমুখি সংঘর্ষে মো. সেন্টু মিয়া (৩৫) নামের এক অটো চালকের মৃত্যু হয়েছে।   নিহত চালকের বাড়ি  নাগরপুর উপজেলার চাষাভাদ্রার গ্রামের আব্দুর মজিদ মিয়ার ছেলে।এ ঘটনায় আহত  হয়েছে ৫ জন । আহতরা সবাই অটো রিক্সার যাত্রী ছিল।

শনিবার সকাল সাড়ে দশটার দিকে টাঙ্গাইল-আরিচা মহসড়কের উপজেলা ফায়ার সাভিস ষ্টেশনের সামনে এ দূর্ঘটনাটি ঘটে। আহতরা হলেন, ঘিওর উপজেলার হেমন্তি (৬৫), পলাশ (২৪) দৌলতপুর উপজেলার রফিক শেখ (৩৫), কাবিল (৩২) ও টাঙ্গাইল সদরের অমিত (৩২)। দূর্ঘটনায় নিহতের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন নাগরপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. আনিসুর রহমান আনিস। তিনি জানান, দূর্ঘটনা কবলিত ট্রলি ও অটো রিক্সা কে জব্দ করা হয়েছে। তবে ঘাতক চালক পালিয়ে যাওয়ায় তাকে গ্রেফতার করা যায়নি।


প্রত্যক্ষ্যদর্শী পুলিশ ও হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, শনিবার সকাল সাড়ে দশটার  দিকে একটি যাত্রীবাহী অটোরিক্স্রা নাগরপুর থেকে টাঙ্গাইল যাওয়ার পথে উপজেলা ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স ষ্টেশনের সামনে পৌছলে বিপরিত দিক থেকে আসা একটি ইট বহন কারী ট্রলির সাথে মুখোমুখি সংর্ঘষ ঘটে। এ সময় ট্রলিটি  নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে অটো রিক্সা সহ  খাদে পরে যায়। আশ পাশের লোকজন ঘটনা স্থলে পৌছে আহত ৬ জন কে উদ্বার করে নাগরপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিৎকিসার জন্য নিয়ে য্য়া। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক অটোরিক্সা চালক মো. সেন্টু মিয়া কে মৃত ঘোষনা করেন। আহত ৫ জনের মধ্যে ২ জনের অবস্থা আশংকা জনক হওয়ায় তাদের কে উন্নত চিকিৎসার জন্য টাঙ্গাইল সদর হাসপালে রেফার্ড করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন উপজেলা স্বাস্থ্য প.প কর্মকর্তা ডা. রোকনুজ্জামান

করোনায় মারা গেলেন সাংবাদিক সুকান্ত সেন

করোনায় মারা গেলেন সাংবাদিক সুকান্ত সেন

 মাসুদ রানা সিরাজগঞ্জ জেলাপ্রতিনিধিঃ করোনা আক্রান্ত হয়ে বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল আরটিভির সিরাজগঞ্জ জেলার স্টাফ রিপোর্টার সুকান্ত সেন (৪৫) মারা গেছেন।
শনিবার (৫ ডিসেম্বর) ভোরে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যান।
সিরাজগঞ্জ জেলা পুজা উদযাপন কমিটির সাধারণ সম্পাদক সঞ্জয় কুমার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।
মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী, এক ছেলে এক মেয়েসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন। সুকান্ত সেনের জন্ম ১৯৭৬ সালে। তার বাবার নাম সুশান্ত কুমার সেন।
জানা গেছে, গত ২০ নভেম্বর শ্বাসকষ্ট হলে পরদিন করোনা পরীক্ষার জন্য নমুনা দেন সুকান্ত। পরীক্ষায় তার করোনা পজিটিভ আসে। এরপর থেকে তিনি বাড়িতেই চিকিৎসা নিচ্ছিলেন। ২৩ নভেম্বর তার শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে তাকে সিরাজগঞ্জ বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে অবস্থার অবনতি হলে ওইদিনই ঢাকায় নেয়া হয়।
এরপর ২৫ নভেম্বর তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সিসিইউতে ভর্তি করা হয়। ২৯ নভেম্বর তার শারীরিক অবস্থার আরও অবনতি হলে তাকে আইসিইউতে রেফার্ড করা হয়। ১ ডিসেম্বর দুপুরে তাকে লাইফ সাপোর্টে নেয়া হয়।
হাসপাতালে আনুষ্ঠানিকতা শেষে তার মরদেহ সিরাজগঞ্জ নেয়া হয়েছে। করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা যাবার কারণে সকল নিয়ম মেনে সিরাজগঞ্জের মহাশ্মশানে তার মরদেহ সৎকার করা হবে।
সুকান্ত সিরাজগঞ্জ থেকে প্রকাশিত দৈনিক যুগের কথা পত্রিকার নির্বাহী সম্পাদক ছিলেন এবং বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেল আরটিভির সিরাজগঞ্জ জেলার স্টাফ রিপোর্টার হিসাবে কর্মরত ছিলেন এবং সিরাজগঞ্জ জেলা প্রেসক্লাবের অর্থ সম্পাদক, সিরাজগঞ্জ জেলা রেড ক্রিসেন্টের আজীবন সদস্য, সিরাজগঞ্জ জেলা পুজা উদযাপন পরিষদের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক, ডক্টরস ডায়গনষ্টিক ক্লিনিক লিঃ'র শাখা ব্যাবস্থাপক, সিরাজগঞ্জ উদীচী শিল্পীগোষ্ঠীর নির্বাহী সদস্য, সিরাজগঞ্জ জেলার নাবিক নাট্যগোষ্ঠীর সদস্যসহ বিভিন্ন সামাজিক ও ধর্মীয় সংগঠনে দায়িত্বে ছিলেন।
দীর্ঘ দিন ধরে সুকান্ত সেন দক্ষতা ও সুনামের সঙ্গে কাজ করে আসছিলেন। প্রাণবন্ত উদ্যমী এই রিপোর্টারের মৃত্যুতে স্থানীয় ও আর টিভি পরিবারের মাঝে শোকের মাতাম চলছে।

পটিয়ায় শহীদ শেখ মনির ৮১তম জন্মদিন পালন

পটিয়ায় শহীদ শেখ মনির ৮১তম জন্মদিন পালন



সেলিম চৌধুরী স্টাফ রিপোর্টারঃ- মহান মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক, মুজিব বাহিনীর প্রধান, বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান, বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক, প্রথিতযশা সাংবাদিক, বীর মুক্তিযোদ্ধা শহীদ শেখ ফজলুল হক মনি'র ৮১তম জন্মবার্ষিকী পালন করেছে পটিয়া উপজেলার  দক্ষিণ ভূর্ষি ইউনিয়ন আওয়ামী যুবলীগ। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন পটিয়া উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ সভাপতি দক্ষিণ ভূর্ষি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ সেলিম। বিশেষ অতিথি দক্ষিণ  ভূর্ষি ইউনিয়ন আওয়ামীগ সভাপতি মিহির চক্রবর্তী। দক্ষিণ ভুর্ষি  ইউনিয়ন যুবলীগের আহবায়ক মোরশেদুল হক এর সভাপতিত্বে এবং যুগ্ন আহব্বায়ক রনধীর দে'র পরিচালনায় বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগ নেতা ইকবাল হোসেন, ওয়াহেদুর নুর মিন্টু, শাহ আলম খোকন, বিকাশ দে বাবু, মেম্বার অজিত দেব নাথ, ১নং ওয়ার্ড যুবলীগ সভাপতি হুমায়ুন কবির, সাধারন সম্পাদক মোঃ ইউনুছ, ২ নং ওয়ার্ড যুবলীগ সভাপতি মোঃ সাদ্দাম হোসেন,সাধারন সম্পাদক মোঃ তানিম, ৩ নং ওয়ার্ড যুবলীগ সভাপতি মোঃ ইকবাল হোসেন সাধারন সম্পাদক রানা চক্রবতী, যুবলীগ নেতা এ্যডভোকেট অনিক দে যিশু, আনোয়ার হোসেন, নুরুল কবির শিবলু, বিপ্লব দাশ অভি, দীলিপ দেব নাথ, অভিরুপ দাশ, বিপ্লব চক্রবর্তী রিগ্যান,  সমুন সেন, দক্ষিণ ভূষি ইউনিয়ন আওয়ামী যুবলীগ  নেতৃবৃন্দ। পটিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহসভাপতি,


  দক্ষিণ ভুর্ষি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ও  পটিয়া উপজেলা চেয়ারম্যান সমিতির সাধারণ সম্পাদক চেয়ারম্যান মোহাম্মদ সেলিম বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান, বীর মুক্তিযোদ্ধা শেখ ফজলুল হক মনির ৮১তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনা সভায়  বলেছেন, শেখ মণির মতো তেজস্বী নেতৃত্ব বর্তমান সময়ে বড় অভাব। তাঁর যেমন মেধা-প্রজ্ঞা-দূরদর্শিতা ছিল, তেমনি ছিল তার বিপ্লবী চেতনা।

মুক্ত বাংলা টিভির প্রতিনিধি প্রিন্স মিলনের ১৯ তম জন্মদিন আজ

মুক্ত বাংলা টিভির প্রতিনিধি প্রিন্স মিলনের ১৯ তম জন্মদিন আজ


মোঃ রশিদুল ইসলাম রিপন, লালমনিরহাট জেলা প্রতিনিধঃ
 তিনি নওগাঁ জেলার কৃতি সন্তান। লেখাপড়ার পাশাপাশি সাংবাদিকতা ও একজন গীতিকার, সুরকার, কন্ঠশিল্পী ও বটে।বর্তমানে তিনি বহুল প্রচারিত মুক্ত বাংলা অনলাইন টিভি, খবরের ডাকঘর ও যমুনা প্রতিদিন প্রত্রিকায় বিনোদন প্রতিবেদক হিসেবে কর্মরত আছেন।

সাংবাদিক প্রিন্স মিলন বলেন , প্রথমে শুকরিয়া আদায় করি মহান আল্লাহর নিকট যার রহমতে অনেক ভালো আছি। যতদিন বেচেঁ আছি মানব সেবার কাজে নিয়োজিত থাকব।অসহায় ও দুস্থ মানুষের পাশে থাকব।এবং আমার সকল স্বপ্নকে পূরণ করব।মুক্ত বাংলা টিভির শুরু থেকেই তিনি বিনোদন প্রতিবেদক' হিসেবে কাজ করছেন।।ছোটবেলা থেকেই লেখালেখির প্রতি তার অন্যরকম একটা টান ছিল।সম্পত্তি ইউটিউবে প্রকাশ করেছে তার লেখা বেশ কিছু গান।

তার জন্মদিন উপলক্ষে মুক্ত বাংলা মিডিয়া লিমিটেড ও বিশ্ব মানব কল্যাণ ফোরাম সংগঠন এর সম্মানীয় প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান সোহাগ আলী, লালমনিরহাট প্রতিবেদক " প্রিন্স মিলন" কে জন্মদিনের শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়েচ্ছেন। তিনি তার উজ্জল ভবিষ্যত ও মঙ্গল কামনা করে এ শুভেচ্ছা বার্তা জানিয়েছেন।

এছাড়াও মুক্ত বাংলা টিভির সম্মানীয় প্রধান উপদেষ্টা ও বার্তা প্রধান এবং বিশ্ব মানব কল্যাণ ফোরাম এর কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক ইয়াসির আরাফাত মিলন সহ মুক্ত বাংলা মিডিয়া সকল কর্মী " প্রিন্স মিলন" এর জন্মদিনে ফুলের শুভেচ্ছা, ভালোবাসা ও অভিনন্দন জানিয়েছেন।এবং সবাই তার দীর্ঘায়ু,সফলতা ও মঙ্গল কামনা করেছেন।

দেখার কেউ নেই, চরম দূরবস্তায় দিন কাটাচ্ছে আউয়ালের পরিবার

দেখার কেউ নেই, চরম দূরবস্তায় দিন কাটাচ্ছে আউয়ালের পরিবার


মোঃ রশিদুল ইসলাম রিপন, লালমনিরহাট জেলা প্রতিনিধিঃ
দেখার কেউ নেই, চরম দুরবস্তায় দিন কাটাচ্ছে লালমনিরহাট উপজেলা কুলাঘাট ইউনিয়ন, ধাইরখাতা( সাবেক সিট মহল) গ্রামের মোঃ আউয়াল আলী।

তিনি প্রায় ৩ বছর ধরে প্যারালাইসিস হওয়া কারণে অসুস্থ অবস্থায় বিছানায় পড়ে আছে।  অসুস্থ থাকার কারণে বের হতেও পায়না ঘর থেকে। তিনি আগে অন্যের জমিতে কৃষি কাজ করতেন।  তার দুই সন্তান এখন লেখাপড়া করে। ছেলের লেখাপড়া ও বাড়ির খরচ চলানো অনেক কষ্ট তার। এলাকার অনেকের কাছ থেকে জানতে পারছি আউয়ালের পরিবার অনেক কষ্টে দিন কাটাচ্ছে।

আউয়ালের পঙ্গু ভাতায় নাম দেওয়ার পরো হয়নি তার পঙ্গুভাতা।  পায়নি কারো সহযোগিতা। 

আমি আরো জানতে পেয়েছি, এলাকায় নামধারী নেতা ও মেম্মার থাকলেও গরিবের কোন উপকার তারা করেনি।

কুলাউড়া সদর ইউনিয়নের রাস্তা পাকা করার আবেদন

কুলাউড়া সদর ইউনিয়নের রাস্তা পাকা করার আবেদন

মোঃরেজাউল ইসলাম শাফি,কুলাউড়া উপজেলা প্রতিনিধিঃকুলাউড়া উপজেলার ৭নং কুলাউড়া সদর ইউনিয়নের ১নং ২নং ৩নং ও ৭নং আংশিক ওয়ার্ডের বাগাজুড়া মসজিদের পাশ থেকে নিয়ে জনতা বাজার টু চৌধুরীবাজার রাস্তার মধ্যে পর্যন্ত প্রায় এক কিলোমিটার রাস্তা এই রাস্তা দিয়ে মিনার মহল করেরগ্রাম হরিপুর বাগাজুড়ার প্রায় ২ হাজার মানুষের যাতায়াত করেন।

বর্ষাকালে বৃষ্টি হলে এক হাঁটু কাদা জমে থাকে এই রাস্তায় তখন যানবাহন দূরের কথা, হেঁটে চলাচলও বিপজ্জনক হয়ে পড়ে।

আশপাশের সব রাস্তা পাকা হলেও এ রাস্তাটি পাকা করার কোনো উদ্যোগ নেয়া হচ্ছে না। নির্বাচন এলে রাজনৈতিক নেতারা রাস্তাটি পাকা করার প্রতিশ্রুতি দিলেও পরে আর পাকা করার উদ্যোগ নেয়া হয় না।

এ রাস্তা ব্যবহার করে এলাকার ছেলে মেয়েরা স্কুল কলেজ মাদ্রাসা যায়।  এ রাস্তাটিই এ এলাকার ছাত্রছাত্রীদের যাতায়াতের একমাত্র পথ। বর্ষাকালে শিক্ষার্থীদের কষ্টের সীমা থাকে না।

মিনারমহল-হরিপুর করেরগ্রাম আংশিক  এই তিন গ্রামের সবচেয়ে বড় বাজার জনতা বাজার লোকজনকে এই রাস্তা অতিক্রম করে বাজারে যেথে হয়।এ রাস্তায় চলাচলের বাধা একটাই- এর বেহাল দশা রাস্তাটি পাকা হলে এই এলাকার কয়েক হাজার মানুষের কষ্ট দূর হবে।

পাঁচটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান শিক্ষার্থীদের এবং এই অঞ্চলের মানুষের দিকে থাকিয়ে রাস্তাটি পাকা করার উদ্যোগ গ্রহণের জন্য কর্তৃপক্ষের সুদৃষ্টি কামনা করেছেন স্থানীয়রা।

জহিরুল ইসলাম চাকলাদার রেন্টুর নাম কেন্দ্রে পাঠানোর লক্ষে চূড়ান্ত

জহিরুল ইসলাম চাকলাদার রেন্টুর নাম কেন্দ্রে পাঠানোর লক্ষে চূড়ান্ত

স্টাফ রিপোর্টারঃ  যশোর  পৌর আওয়ামী লীগের বিশেষ বর্ধিতসভায় যশোর পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র প্রার্থী হিসেবে বর্তমান মেয়র জহিরুল ইসলাম চাকলাদার রেন্টুর নাম কেন্দ্রে পাঠানোর লক্ষে চূড়ান্ত করা হয়েছে। শুক্রবার বিকেলে জেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত এ সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সংসদ সদস্য শাহীন চাকলাদার। শহর আওয়ামী লীগের সভাপতি আসাদুজ্জামান আসাদের সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক এস এম মাহামুদ হাসান বিপুর সঞ্চলনায় পৌরমেয়র জহিরুল ইসলাম চাকলাদার রেন্টুসহ পৌরসভার ৯ ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকগণ এ সভায় উপস্থিত ছিলেন। সভায় সর্বসম্মতিক্রমে জেলা যুবলীগের সাধারণ  সম্পাদক ও পৌরসভার বর্তমান মেয়র জহিরুল ইসলাম চাকলাদার রেন্টুর নাম চূড়ান্ত করা হয়।

শহর আওয়ামী লীগের সাবেক তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক এসএম ইউসুপ সাইদ এ তথ্য জানিয়েছেন।

২০১৫ সালের ৩০ ডিসেম্বর যশোর পৌরসভা নির্বাচনে বিপুল ভোটে জহিরুল ইসলাম চাকলাদার পৌর পিতা নির্বাচিত হন। নির্বাচিত হওয়ার পর তিনি যশোর শহরকে ঢেলে সাজিয়েছেন। সড়ক,বাতি, ড্রেনেজসহ বিভিন্ন পর্যায়ে তিনি উন্নয়নের ছোঁয়া দিয়েছেন। হামিদপুর ময়লাখানাকে আধুনিকতায় এনেছেন। তাই এ উন্নয়নের কারিগরকে আবারো নির্বাচিত করতে দলের নেতাকর্মীরা একাট্টা হচ্ছে। এরই ধারাবাহিকতায় গতকাল পৌর আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভায় তার নাম এককভাবে চূড়ান্ত করা হয়েছে।