শ্রীপুর পৌর নির্বাচনে ইভিএম জালিয়াতিঃ বিএনপি প্রার্থীর ভোট প্রত্যাখ্যান

নিউজ ডেস্কঃ গত ১৬ই জানুয়ারী অনুষ্ঠিত হওয়া শ্রীপুর পৌর নির্বাচনে ভোটের বাইরের পরিবেশ সুন্দর রেখে ইভিএম কারিগরির মাধ্যমে ভোটের ফল পাল্টানোর অভিযোগে নির্বাচন প্রত্যাখ্যান এবং পুননির্বাচন দাবি করেছেন বিএনপি মনোনিত প্রার্থী এডভোকেট কাজী খান। 
 
আজ বিকেলে সংবাদ সম্মোলনে তিনি জানান, নির্বাচন চলাকালীন সময়ে সকালেই ৫-৬টি কেন্দ্র থেকে তার নির্বাচনী এজেন্টকে মারধর করে বের করে দেওয়া হয়। পরবর্তীতে দুপুরের আগে আরও কয়েকটি কেন্দ্র হতে বিএনপি এজেন্টকে বের করে আওয়ামী প্রাথীর সমর্থকরা কেন্দ্র দখলে নেয় এবং ভোটার শনাক্তকরনের পর সকল ভোটারদের ভোট নৌকা মমার্কায় জোরপূর্বক নিজেরা দিয়ে দেয়। 

এছাড়াও নির্বাচনে বিভিন্ন কেন্দ্রে  ইভিএম ব্যাবহারে একাধিক মেমোরি এবং সফটওয়্যার ব্যাবহার করে ভোটের ফলাফল পাল্টানো হয়। 
সংবাদ সম্মোলনে থাকা কিছু ধানের শীষের কিছু নেতাকর্মী তাদের চাক্ষুষ জবান দেয় এবং তার তীব্র প্রতিবাদ জানায়।

সংবাদ সম্মোলনে আরও জানানো হয়, ভোটগ্রহন শেষ হবার পর যেসব কেন্দ্রে বিএনপি এজেন্ট ছিলো তাদেরকে বের করে দিয়ে সাংবাদিকদের অনুপস্থিতিতে ভোট গননা করা হয় এবং ভোটের ফলাফল পাল্টানো হয়। এসময় আরও অভিযোগ করা হয় কয়েকটি কেন্দ্রে প্রথমে একরকম ফলাফল ঘোষনা করলেও পরবর্তিতে ভিন্ন ফল ঘোষনা করা হয় এবং সকল কেন্দ্রে শতকরা একই ধরনের ভোট পড়েছে বলে জানানো হয়।

বিএনপি প্রার্থী কাজী খান এসব বিষয়ে বলেন,  নৌকা প্রার্থী ও প্রশাসনের ষড়যন্ত্র ও ইভিএমে ভোট চুরি করেছে যা কোনোভাবেই মেনে নেয়া যায়না। এসময় তিনি এই ঘটনার তীব্র প্রতিবাদ জানিয়ে বলেন, ডিজিটাল জালিয়াতির মাধ্যমে আজ আবার প্রমান হলো গনতন্ত্র আজ হারিয়ে গেছে।

শেয়ার করুন
পূর্ববর্তী পোষ্ট
পরবর্তী পোষ্ট