লাকসামে মাদ্রাসা প্রিন্সিপালকে লাঞ্চিত করার ঘটনায় প্রধান ২ আসামী গ্রেফতার

লাকসাম প্রতিনিধিঃ কুমিল্লার লাকসামের বিজরা নাজিরিয়া ফাজিল ডিগ্রী মাদ্রাসার জায়গা দখন ও প্রিন্সিপালকে লাঞ্চিত করার অপরাধে মাদ্রাসার প্রিন্সিপাল আমিনুল ইসলাম বাদী হয়ে নারী পুরুষ সহ ৬ জনের নাম উল্লেখ করে লাকসাম থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।
শনিবার (২৩) জানুয়ারি লাকসাম থানার সেকেন্ড অফিসার এস আই মনোজ কান্তি কুরি ও এস আই কিশোর কুমার দে সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে অভিযান পরিচালনা করে পশ্চিম গাঁও মিয়া পাড়া থেকে মামলার প্রধান ২ আসামী জাহাঙ্গীর ও বাহার কে গ্রেফতার করে।
মামলা সূত্রে জানাযায়, ১১২ বছর পুরানো বিজরা নাজিরিয়া ফাযিল ডিগ্রী মাদ্রাসার পশ্চিম দিকের সিমানার প্রায় ৮ ফিট জায়গা জোর পূর্বক দখল করে নিচ্ছিলেন, মহামারি করোনাকালীন সময়ে মাদ্রাসার বন্ধ থাকায় লোকজন নিয়ে মাদ্রাসার জায়গায় দেয়াল উঠাতে গেলে প্রিন্সিপাল খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে এসে তাদের কে বাঁধা দিলে প্রিন্সিপাল সহ মাদ্রাসা পরিচালনা কমিটির উপর অতর্কিত হামলা চালায় গ্রেফতারকৃত বাহার সহ তাঁর দলবল। 
এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে মাদ্রাসার ছাত্র/ছাত্রীরা এক সাথ হয়ে মানববন্ধন সহ বিক্ষোভ করে এবং মামলার ১ নং আসামী জাহাঙ্গীরের বাড়িতে থেকে প্রধান ২ আসামীকে গ্রেফতার করে লাকসাম থানা পুলিশ। লাকসাম থানার মামলা নং-০৫।
বিজরা নাজিরিয়া ফাযিল ডিগ্রী মাদ্রাসার ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি আলমগীর হোসেন খোকন জানান, এই প্রতিষ্ঠানটি একটি দ্বীনি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, বিগত দিন গুলোতে জাহাঙ্গীরের প্ররোচনায় বাহার সব সময় আমাদের কেও হুমকি ধমকি দিয়ে আসছে, এক পর্যায়ে আমার প্রতিষ্ঠানের প্রিন্সিপাল কে লাঞ্চিত করায় আমরা সকলেই ঐক্যবদ্ধ হয়ে প্রতিবাদ করেছি।
লাকসাম থানার ওসি (তদন্ত) মোঃ তোফাজ্জল হোসেন জানান, গ্রেফতারকৃত আসামীদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে তাই তাদেরকে গ্রেফতার করে আমরা জেল হাজতে প্রেরণ করি।

শেয়ার করুন
পূর্ববর্তী পোষ্ট
পরবর্তী পোষ্ট