পটুয়াখালীতে মাটি কাটাকাটি নিয়ে সামান্য তর্কে দুই গ্রুপের সংঘর্ষে আহত-২

মোঃ নাঈম হাসান ঈমন স্টাফ রিপোর্টার পটুয়াখালীর ছোটবিঘাই মাটি কাটা কাটি নিয়ে সামান্য তর্কে দুই গ্রুপের সংঘর্ষে গুরুতর আহত দুইজন।

২রা ফেব্রুয়ারি বিকেল ৩:৩০ মিনিটের সময় ছোটবিঘাই সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় পূর্ব পাশে রাস্তার উপর মাটি ভরাটের কাজ করতে আসে লোকজন, তারা অন্য পাশ দিয়ে দিয়ে মাটি কাটার অনুরোধ করে কিন্তু সে কথা না শুনে উল্টো তাদের অশ্লীল ভাষায় গালিগালাজ শুরু করে এবং ক্ষিপ্ত হয়ে মারপিট শুরু করে দেয়, বসত বাড়ি ভাঙচুর করে বাসার ভিতরে ঢুকে সুকেশ গ্লাস ভাঙচুর করে নগদ ৯০ হাজার টাকা তিন ভরি সোনা যার বাজারমূল্য ২ লক্ষ দশ হাজার টাকা মোঃ আবুল জমাদ্দার (৩০) আঃজব্বার জোমাদ্দার, মোঃইদ্রিস জোমাদ্দার, মোঃহাবিব,আঃ রশিদ জমাদ্দার (৬০) এই হামলার কার্যক্রম চালায়।

হামলায় শিকার হয় গুরুতরভাবে কার্তিক চন্দ্র মিস্ত্রি (৬৫) ও সুশিলা রানী, বর্তমানে ২৫০ শয্যা হাসপাতালে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে কার্তিক চন্দ্র মিস্ত্রি।

এ ব্যাপারে কার্তিক চন্দ্র মিস্ত্রি এর পুত্র পরিতোষ মিস্ত্রি বাদী হয়ে  সদর থানায় মামলা দায়ের করেন, তিনি আরো জানান, সামান্য কথা কাটাকাটির জেরে আমাদের উপর হামলা চালায়,ঘরবাড়ি মালামাল ভাঙচুর করে টাকা-পয়সা স্বর্ণালংকার নিয়ে গেছে, আমরা চিৎকার করলে গ্রামবাসী আসলে তারা ছুটে পালিয়ে যায়, আমরা অসহায় হতদরিদ্র বলে তাদের ক্ষমতা আছে ক্ষমতার জোর দেখিয়েছে, আমার বাবাকে হসপিটালে নিতে যাওয়ার সময় বিভিন্নভাবে বাধাপ্রাপ্ত করে, হুমকি-ধামকি দিয়েছে বাবা বর্তমানে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে, আমার কাকি কে নির্মমভাবে মেরেছে, অশ্লীল হানি করেছে,আমরা অপরাধীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির কামনা করছি
পটুয়াখালী সদর থানার অফিসার ইনচার্জ আখতার মোরশেদ জানায়, অভিযোগের ভিত্তিতে দ্রুত ঘটনাস্থলে ফোর্স পাঠিয়ে মোঃ আবুল জমাদারকে আটক করে থানায় নিয়ে আসা হয় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য, মূল ঘটনা খতিয়ে দেখা হবে বলে তিনি জানান।

শেয়ার করুন
পূর্ববর্তী পোষ্ট
পরবর্তী পোষ্ট