স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীতে ফ্রি মাস্ক ও হ্যান্ড স্যানিটাইজার বিতরণ করল শুভসংঘ

নোবিপ্রবি প্রতিনিধি:বাংলাদেশের স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীতে করোনাভাইরাস(কভিড-১৯) প্রতিরোধে পিছিয়ে থাকা মানুষের মধ্যে ফ্রি মাস্ক ও হ্যান্ড স্যানিটাইজার বিতরণ করেছে শুভসংঘ, নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়(নোবিপ্রবি) শাখা। কর্মসূচির সহযোগিতায় ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়টির সাবেক শিক্ষার্থী, তরুণ উদ্যোক্তা ও বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব নিউ ইংল্যান্ডের সহ-সাধারণ সম্পাদক তানভীর মুরাদ। 

আজ শুক্রবার(২৬ মার্চ) দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় মিনার প্রাঙ্গণে নির্মাণ শ্রমিকদের মধ্যে ফ্রি মাস্ক ও হ্যান্ড স্যানিটাইজার প্রদান করে কর্মসূচির উদ্বোধন করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. ফারুক উদ্দিন। এসময় উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর ও শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক ড. নেওয়াজ মোহাম্মদ বাহাদুর, সাধারণ সম্পাদক মাজনুর রহমান, বিশ্ববিদ্যালয় শাখা শুভসংঘের প্রধান উপদেষ্টা অধ্যাপক ড. মো. সেলিম হোসেন, মাইক্রোবায়োলজি বিভাগের চেয়ারম্যান ও নীল দলের সভাপতি অধ্যাপক ড. ফিরোজ আহমেদ, ফিশারিজ অ্যান্ড মেরিন সায়েন্স বিভাগের শিক্ষক অধ্যাপক ড. আব্দুল্লাহ আল মামুন, স্বাধীনতা শিক্ষক পরিষদের সাধারণ সম্পাদক এ এইচ এম মোস্তাফিজুর রহমান, আইন বিভাগের চেয়ারম্যান বাদশা মিয়া, অর্থনীতি বিভাগের শিক্ষক ইকবাল হোসেন, দ্য ডেইলি স্টেটের সাংবাদিক রাহী রহমান  এবং বিশ্ববিদ্যালয় শাখা শুভসংঘের সদস্যরা। 

পরে বিশ্ববিদ্যালয়ের অভ্যন্তরীণ টং দোকানদার, নির্মাণ শ্রমিক, ফেরিওয়ালা, সিএনজি-অটোরিকশাচালক ও সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের মধ্যে মাস্ক ও হ্যান্ড স্যানিটাইজার বিতরণ এবং করোনাভাইরাস সম্পর্কে সচেতন করেন শুভসংঘের সদস্যরা। সবশেষে বিশ্ববিদ্যালয়ের পাশ্ববর্তী টং দোকান এবং নোয়াখালী পৌর শহরের সোনাপুরে সিএনজি-অটোরিকশা চালকদের মাঝে মাস্ক বিতরণের মধ্য দিয়ে কর্মসূচি শেষ হয়। 

শুভসংঘের মাস্ক ও হ্যান্ড স্যানিটাইজার পেয়ে খুশি হয়ে মুচকি হেসে চা দোকানী জামাল মিয়া বলেন, 'মামারা অনেক খুশি হলাম৷ আপনারা আমাদের স্মরণ করেন সবসময়।'

শুভসংঘের শুভানুধ্যায়ী ও বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব নিউ ইংল্যান্ডের সাধারণ সম্পাদক তানভীর মুরাদ বলেন, 'স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীতে শুভসংঘের এমন কর্মসূচিতে অংশীদার হতে পেরে আমি আনন্দিত।  করোনা দুর্যোগ শুরুর দিক থেকেই আমি প্রবাস থেকে চেষ্টা করছি দেশের জন্য কিছু করার। শুভসংঘের সাথে ছিলাম এবং থাকব। শুভসংঘ সবসময় শুভ কাজের সঙ্গে থাকুক। '

শুভসংঘের এমন কার্যক্রমের ভূয়সী প্রশংসা করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. ফারুক উদ্দিন৷ তিনি বলেন , 'স্বাধীনতার সুবর্ণ জয়ন্তীতে করোনাভাইরাস প্রতিরোধে শুভসংঘের এমন আয়োজন অত্যন্ত প্রশংসনীয়। তিনি শুভসংঘের সবাইকে ধন্যবাদ জানান। '

শেয়ার করুন
পূর্ববর্তী পোষ্ট
পরবর্তী পোষ্ট