পানির জন্য হাহাকার বয়ে যাচ্ছে যশোরের বুক চিরে

প্রতিকী ছবি; ইন্টারনেট থেকে সংগৃহীত
মোঃ সজীব হোসেন, মোহাম্মদপুরঃ এক ফোঁটা পানির জন্য নিরুপায় মানুষ এখন সৃষ্টিকর্তার দিকে চেয়ে আছে। পানি যে মহান আল্লাহর কত বড় নেয়ামত তা হয়তো এর আগে এমন ভাবে অনুভব করেনি যশোরবাসী। যশোরের বিভিন্ন অঞ্চলের পুকুর নদ-নদী শুকিয়ে যাওয়ায় পানির কষ্ট তীব্র থেকে তীব্রতর হচ্ছে। বেশির ভাগ টিউবওয়েলই পানি উঠছে না।  গুটি কয়েক গভীর নলকূপ আছে যা প্রভাবশালী জনৈক ব্যক্তিদের আওতায়। সরকারিভাবে আর্সেনিক মুক্ত গভীর নলকূপ গ্রামে গ্রামে স্থাপন করা হলেও সেগুলোর সুফল ভোগ করেন স্থানীয় প্রভাবশালী রাজনৈতিক নেতারা।  গ্রামবাসীর সুযোগ সুবিধার কথা না চিন্তা করে নিজেদের মত নিজেদের বাড়িতে বাড়িতে স্থাপন করেছেন এ নলকূপগুলো। মানুষের ভোগান্তির বড় কারণ হচ্ছে কপোতাক্ষ নদ দীর্ঘদিন খননের অপেক্ষায় থাকা, মানুষ যেমন পানির কষ্ট পাচ্ছে তেমনি অবলা জীবজন্তু গুলো আরও বেশি কষ্ট পাচ্ছে। স্থানীয় পানি উন্নয়ন বোর্ডের ভাষ্য মতে, ‘এই অঞ্চলের পানির স্তর নিচে নেমে যাওয়ায় এমন ভোগান্তির সৃষ্টি হচ্ছে। জনগনকে তাদের নিত্য পানির চাহিদা মেটাতে দূর-দূরান্ত থেকে লাইনে দাড়িয়ে পানি সংগ্রহ করে আনতে দেখা যাচ্ছে। পবিত্র রমজানে ওযু করতেও মানুষকে বেশ ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে। এখন মানুষ শুধু দিন গুনছে কখন আল্লাহ তার রহমতের বৃষ্টি দেবেন।  প্রাণিকূল তার জীবনে এক ফোঁটা প্রশান্তির বৃষ্টির অপেক্ষায়।
আল্লাহ আপনার বান্দাদের উপর সহায় হোন, একটু রহমত নাজিল করুন। আপনার রহমত ছাড়া এ দূর্যোগ-দূর্ভোগ নিরসন করা আপনার বান্দাদের পক্ষে সম্ভব নয়।

শেয়ার করুন
পূর্ববর্তী পোষ্ট
পরবর্তী পোষ্ট