যশোর উপশহর বন্ধু আবাসিক হোটেল থেকে ম্যানেজারসহ তিনজনকে আটক

সুমন হোসেন,  যশোর জেলা প্রতিনিধিঃ যশোরে অনৈতিক কর্মকাণ্ডের অভিযোগে উপশহর এলাকার বন্ধু আবাসিক হোটেলের ম্যানেজারসহ তিন জনকে আটক করেছে পুলিশ। একই বিল্ডিং এর তিন তলায় উপশহর ফাঁড়ি আর দুইতলায় এ হোটেল অবস্থিত। আটককৃতরা হলো যশোর সদর উপজেলার ঘুরুলিয়া গ্রামের সাদ্দামপাড়ার মৃত গৌছির মোল্যার ছেলে নাহিদ হোসেন, মণিরামপুর উপজেলার রাজগঞ্জ বাজারের আব্দুল গফুরের ছেলে মিনজামুল হাসান শুভ এবং খুলনার খালিশপুর এলাকার এক গৃহবধূ। পরে তাদের বিরুদ্ধে মামলা দিয়ে আদালতে সোপর্দ করা হয়। জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট সাইফুদ্দীন হোসাইনের আদালতে আসামিরা দোষ স্বীকার করে জরিমানা প্রদান করে জামিনে মুক্তি পান।
স্থানীয়রা জানান, যশোর উপশহরে বন্ধু আবাসিক হোটেলের ভবনে সোমবার বিকেল সাড়ে ৩ টার দিকে হোটেলের একটি কক্ষের মধ্যে খুলনার খালিশপুর এলাকার এক গৃহবধূর সাথে আটক ইনজামুল হাসান শুভকে অনৈতিক কাজের সময় স্থানীয়রা ঘিরে ফেলে। পরে উপর তলায় অবস্থিত ফাঁড়ি পুলিশকে ডেকে তাদের হাতে হস্তান্তর করেন। এদিকে পুলিশ ফাঁড়ির নিচে এ ধরণের ঘটনা নিয়ে সমালোচনার ঝড় উঠেছে বিভিন্ন মহলে। স্থানীয়রা বলছেন এ চিত্র একদিনের নয়। প্রতিদিনই এধরনের ঘটনা ঘটছে। উপরে পুলিশ ক্যাম্প হওয়ায় স্থানীয়রা কিছু বলার সাহস পায় না। পুলিশের সেল্টার পেয়ে ম্যানেজার নাহিদ হোসেন বুক ফুলিয়ে অনৈতিক কাজকর্ম করে পার পেয়ে যাচ্ছেন। অভিযোগ রয়েছে ফাঁড়ির ঊর্ধ্বতন এক কর্মকর্তা মাসিক হারে ওই আবাসিক হোটেল থেকে উৎকোচ গ্রহণ করে মালিক পক্ষকে অনৈতিক সুবিধা প্রদান করে আসছেন।
উপশহর ফাঁড়ি ইনচার্জ এসআই সাইফুল মালেক ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, উপশহর ফাঁড়ির কেউ যদি এধরনের কাজের সাথে সম্পৃক্ত থাকতো তাহলে আটক করতো না। এসব অভিযোগ মিথ্যা বলে তিনি দাবি করেন।

শেয়ার করুন

প্রকাশকঃ

অফিসঃ হাজী সিরাজুল ইসলাম সুপার মার্কেট, মোহাম্মদপুর মোড়, ছুটিপুর রোড, ঝিকরগাছা, যশোর।

পূর্ববর্তী প্রকাশনা
পরবর্তী প্রকাশনা